X
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

‘ধর্ষণ হচ্ছে নিকৃষ্টতম অপরাধ’

আপডেট : ২২ জুন ২০২১, ১৮:৪১

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম বলেছেন, যত অপরাধ আছে এরমধ্যে নিকৃষ্টতম ও ঘৃণ্যতম অপরাধ হচ্ছে নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা ও ধর্ষণ। আপনারা দেখেছেন ছেলে শিশুরাও ধর্ষণ ও নির্যাতনের শিকার হয়। মাদরাসাগুলোতে সংঘটিত এমন অনেক ঘটনা আপনাদের প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। এসব বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে আমরা সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ ও নির্দেশনা দিয়েছি।

মঙ্গলবার (২২ জুন) বিভিন্ন গণমাধ্যমে নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা বিষয়ক রিপোর্টিংয়ে নিয়োজিত সাংবাদিকদের সঙ্গে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের জাতীয় ইনকোয়ারি কমিটির ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নাছিমা বেগম বলেন, আমরা মনে করেছিলাম করোনার সময়ে মানুষের মধ্যে একটা ভীতি আসবে, এ সময়ে অন্তত মানুষ অপরাধ প্রবণতা বন্ধ রাখবে বা কমে আসবে। কিন্তু আমরা দেখলাম উল্টো আরও বেড়ে গেছে। তখন আমরা এর পেছনের কারণ খুঁজে বের করার সিদ্ধান্ত নিলাম। আপনাদের প্রতিবেদন থেকেই দেখা গেছে, ৭০ বছরের একজন বৃদ্ধা ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। আবার ছয় বছরের একটা শিশুও বাদ যাচ্ছে না। এদের মধ্যে এমন কী আকর্ষণ আছে যে তাদের ওপরও অত্যাচার নিপীড়ন চালাতে হবে?

এসব ঘটনায় অনেক সময় কমিশন স্বপ্রণোদিত হয়ে মামলা করে উল্লেখ করে নাছিমা বেগম বলেন, এমন অনেক মামলা এখন আমাদের কাছে আছে। এ ছাড়াও আমাদের কাছে যেসব অভিযোগ আসে সেগুলো আমলে নিয়ে কাজ করি। আমরা একটা সফটওয়্যার রেডি করছি, যাতে এসব ঘটনাগুলোকে দ্রুত বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে পারি। যাতে প্রত্যেকটা জিনিস মনিটরিং করতে সহজ হয়।

এসব কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ইতোমধ্যে জেলা মানবাধিকার সুরক্ষা কমিটি গঠন করার জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে উল্লেখ করেন মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান। সব জেলায় কমিটি করার উদ্দেশ্য সম্পর্কে তিনি বলেন, সাধারণ মানুষ অনেক সময় বিভিন্ন এনজিওকে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন মনে করে। যেমন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন নামে একটি সংগঠনের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আবেদন করা হয়েছে। যাতে তারা কমিশন শব্দটা ব্যবহার করতে না পারে। আরেকটা হচ্ছে বাংলাদেশ মানবাধিকার কাউন্সিল। তারা আমাদের ওয়েবসাইট ব্যবহার করে লোক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিল। এতে মানুষ বিভ্রান্ত হয় যে কমিশন থেকে লোক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। এসব বিষয়ে আমি মনে করি গণমাধ্যমকে সজাগ থাকতে হবে। মানুষ যাতে প্রতারণার শিকার না হয় সেজন্য আমরা গণমাধ্যমের সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।

তিনি বলেন, সম্প্রতি নারী পাচার ও কিশোর গ্যাং এর তৎপরতা বেড়ে গেছে। নারীদের বিভ্রান্ত করে পাচার করে দিচ্ছে। মোবাইল প্রযুক্তির অপব্যবহারের কারণে শিশু-কিশোরদের মধ্যে অপরাধ প্রবণতা বাড়ছে। এ জায়গাগুলোতে আমরা কাজ করছি।

মানবাধিকার কমিশন বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করতে পারছে না এমন সমালোচনার প্রসঙ্গ তুলে নাছিমা বেগম বলেন, আমরা পুলিশের বিরুদ্ধে সরাসরি তদন্ত করতে পারি না। এ ক্ষেত্রে আপনারা রিপোর্ট করেন যে আমরা কিছু করছি না। আইন অনুযায়ী এখানে আমাদের প্রতিবেদন চাইতে হয়। আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে প্রতিবেদন চাই। সেই প্রতিবেদনের জন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হয়। বর্তমান কমিশন আসার পর আগের চেয়ে বেশি প্রতিবেদন পাচ্ছি। তাদের প্রতিবেদনের সঙ্গে আমাদের দ্বিমত হলে আমরা আবার তদন্ত করাচ্ছি, খতিয়ে দেখছি।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মকবুল হোসেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় ইনকোয়ারি কমিটির আহ্বায়ক ও জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য জেসমিন আরা বেগম প্রমুখ।

/জেইউ/ইউএস/

সম্পর্কিত

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

শিগগিরই ২০ জেলায় উন্মুক্ত হচ্ছে সরকারি প্রকল্পের বিউটি পার্লার

শিগগিরই ২০ জেলায় উন্মুক্ত হচ্ছে সরকারি প্রকল্পের বিউটি পার্লার

রাজধানীতে ধর্ষণের শিকার ৭ বছরের শিশু

রাজধানীতে ধর্ষণের শিকার ৭ বছরের শিশু

রেইনট্রি ধর্ষণকাণ্ড: পাঁচ জনের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন ১৯ সেপ্টেম্বর

রেইনট্রি ধর্ষণকাণ্ড: পাঁচ জনের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন ১৯ সেপ্টেম্বর

ইভানার মৃত্যু: অভিযুক্তদের বিচার দাবিতে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে মানববন্ধন

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:২২

রাজধানীর স্কলাস্টিকা স্কুলের ক্যারিয়ার গাইডেন্স কাউন্সেলর ইভানা লায়লা চৌধুরীর মৃত্যুর ঘটনায় তার স্বামীসহ অভিযুক্তদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন ইভানার সহপাঠী, সহকর্মী ও আইনজীবীরা। মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা এ দাবি জানান।

এ সময় বক্তারা ইভানার স্বামী ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ মাহমুদ হাসান রুম্মানসহ অভিযুক্তদের গ্রেফতার ও জিজ্ঞাসাবাদ করে মৃত্যর মূল রহস্য উদঘাটনের দাবি জানান।

বক্তারা বলেন, ইভানার মৃত্যুর ঘটনার পেছনে কারা জড়িত সেটি সামনে আসুক। সেটাই আমরা চাই। এভাবে যেন আর কোনও ইভানাকে মৃত্যুবরণ করতে না হয়। এ জন্য তার মৃত্যুর পেছনে জড়িতদের বিচারের মুখোমুখি করতে হবে। ইভানাকে কেন এভাবে জীবন দিতে হলো, কেন তিনি আত্মহত্যা করলেন, আমরা এ প্রশ্নের জবাব চাই।’ 

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার অনিক আর হক, আইনজীবী সমিতির সহ-সম্পাদক ব্যারিস্টার সাফায়েত সুলতানা রুমি, সাবেক সহ-সম্পাদক ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ ফারুক, ব্যারিস্টার মুনতাসির আহমেদ, অ্যাডভোকেট জেসমিন সুলতানা, ব্যারিস্টার আসিফ বিন আনোয়ার, ব্যারিস্টার সিফাত মাহমুদ, ব্যারিস্টার আহমেদ নকিব করিম, অ্যাডভোকেট মাসুরা হোসাইন, ব্যারিস্টার জাকিউল হক, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর আরিফ নূর, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির শিক্ষক পারিসা শাকুর, স্কলাসটিকা স্কুলের তৌহিদ সোহরাব, কসমো স্কুলের তামান্না ফেরদৌসসহ ইভানার অসংখ্য সহপাঠী, সহকর্মী ও আইনজীবীরা এ সময় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাজধানীর পরিবাগ থেকে স্কলাস্টিকা স্কুলের ক্যারিয়ার গাইডেন্স কাউন্সেলর ইভানা লায়লা চৌধুরীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। দুটি ভবনের মাঝখানে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। ইভানা লায়লা চৌধুরী (৩২) স্কলাস্টিকা স্কুলের উত্তরা ও মিরপুর শাখার ইউনিভার্সিটি প্লেসমেন্ট সার্ভিসের প্রধান ছিলেন।

ইভানা লায়লা চৌধুরীর (৩২) মৃত্যুর ঘটনায় স্বামী ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ মাহমুদ হাসানসহ দুই জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে গত ২৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় মামলাটি দায়ের করেন ইভানার ইভানার বাবা আমান উল্লাহ চৌধুরী।

 

/বিআই/আইএ/

সম্পর্কিত

চুক্তি নবায়নে প্রবাসী কর্মীদের বাধ্য করে সৌদি স্পন্সররা

চুক্তি নবায়নে প্রবাসী কর্মীদের বাধ্য করে সৌদি স্পন্সররা

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৬৫ লাখ মানুষ

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৬৫ লাখ মানুষ

পাঁচটি ল্যাবের বিষয়ে সম্মতি জানায়নি আরব আমিরাত, যাচ্ছে আরও দুটি ফ্লাইট

পাঁচটি ল্যাবের বিষয়ে সম্মতি জানায়নি আরব আমিরাত, যাচ্ছে আরও দুটি ফ্লাইট

চানখার পুলে ঢাবি শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

চানখার পুলে ঢাবি শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

চুক্তি নবায়নে প্রবাসী কর্মীদের বাধ্য করে সৌদি স্পন্সররা

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:০৬

সৌদি আরবে অবস্থানরত বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের প্রবাসী কর্মীদের নানাবিধ সমস্যার দ্রুত সমাধানের জন্য সৌদি আরবকে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে কর্মী প্রেরণকারী দেশগুলো। এ সময় চুক্তি নবায়নের ক্ষেত্রে কখনও কখনও স্পন্সররা কর্মীদের বাধ্য করে বলে অভিযোগের পাশাপাশি এ বিষয়ে প্রতিকার চাওয়া হয়েছে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে। 

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদের একটি হোটেলে আয়োজিত দেশটিতে মানবসম্পদ রফতানিকারক দেশসমূহের অনানুষ্ঠানিক সংগঠন- সৌদি লেবার ফোরামের বৈঠকে এ অভিযোগ করা হয়। সৌদি মানবসম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী সাত্তাম আল হারবী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। সংগঠনের আট সদস্য রাষ্ট্রের মিশন প্রধানরাও এ সময় উপস্থিতি ছিলেন।

রিয়াদ থেকে পাঠানো বাংলাদেশ দূতাবাসের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী লেবার রিফর্ম ইনিশিয়েটিভ বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে প্রবাসী কর্মীদের সমস্যা এবং তা কাটিয়ে ওঠার জন্য সম্ভাব্য উপায় হিসেবে সুনির্দিষ্ট কিছু প্রস্তাব তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘সৌদি আরবে বাংলাদেশি শ্রমিকরা যাতে প্রতারিত না হন এবং চাকরির চুক্তিতে উল্লেখিত শর্তসমূহ মানা হয়,সেটি দূতাবাসের মুখ্য বিষয়।’

ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ‘অনলাইন কন্ট্রাক্ট নবায়ন করার ক্ষেত্রে কখনও কখনও স্পন্সররা জোর করে কর্মীদের বাধ্য করে এবং কন্ট্রাক্ট রিনিউ করতে রাজি না হলে কর্মীদের তাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে এক্সিট ভিসা প্রদান করে।’ তিনি সৌদি লেবার ফোরাম এর নিয়মিত বৈঠক আয়োজনের ওপর গুরুত্বারোপ করেন, যাতে করে সৌদি আবরে প্রবাসী কর্মীদের সমস্যা সমাধানে সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়া যায়।

সভায় ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলঙ্কা ও ভিয়েতনামের রাষ্ট্রদূত ও মিশন প্রধানরা তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরলে সৌদি মানবসম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী তা সমাধানের আশ্বাস দেন।

বৈঠকে মার্চ-২০২১ এ চালুকৃত লেবার রিফর্ম ইনিশিয়েটিভ এর বিষয়ে উপমন্ত্রী বলেন, ‘সৌদি আরবের ভিশন-২০৩০ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিদেশি কর্মীদের জন্য সৌদি আরবকে একটি আকর্ষণীয় গন্তব্য হিসেবে তৈরি করার অভিপ্রায়ে বিদেশি কর্মীদের আরও অধিকার প্রদান ও সেবা প্রদানের প্রক্রিয়া সহজ করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে সৌদি আরব সরকার।’

 

 

/এসএসজেড/আইএ/

সম্পর্কিত

ইভানার মৃত্যু: অভিযুক্তদের বিচার দাবিতে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে মানববন্ধন

ইভানার মৃত্যু: অভিযুক্তদের বিচার দাবিতে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে মানববন্ধন

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৬৫ লাখ মানুষ

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৬৫ লাখ মানুষ

পাঁচটি ল্যাবের বিষয়ে সম্মতি জানায়নি আরব আমিরাত, যাচ্ছে আরও দুটি ফ্লাইট

পাঁচটি ল্যাবের বিষয়ে সম্মতি জানায়নি আরব আমিরাত, যাচ্ছে আরও দুটি ফ্লাইট

চানখার পুলে ঢাবি শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

চানখার পুলে ঢাবি শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

মুফতি কাজী ইব্রাহিমের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন 

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৩১

মুফতি কাজী ইব্রাহিমের মুক্তির দাবিতে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন হয়েছে। ‘সর্বস্তরের তাওহিদি জনতা’র  ব্যানারে  মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 

মানববন্ধন থেকে বলা হয়, তিনি কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত নয়। তবে কেন তাকে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়া হলো? আমরা জানি না তিনি কোথায়। এইভাবে আলেমদের উঠিয়ে নিয়ে যাওয়া কোনও ভালো লক্ষণ নয়। তিনি যদি আইনের চোখে অপরাধী হয়ে থাকেন তবে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন। একইভাবে রাতের অন্ধকারে নিয়ে যাওয়া কেন?

মানববন্ধন থেকে মুফতি কাজী ইব্রাহিমকে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানানো হয়।

সম্প্রতি ওয়াজ মাহফিল, ইউটিউব চ্যানেল, ফেসবুক আইডি ও পেজে তিনি নানা ধরনের বক্তব্য, তত্ত্ব ও সূত্র দিয়ে আলোচিত-সমালোচিত হন বিতর্কিত ধর্মীয় বক্তা মুফতি কাজী ইব্রাহীম। তার বক্তব্যের অনেক ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ২টার দিকে রাজধানীর লালমাটিয়ার জাকির হোসেন রোডের বাসা থেকে তাকে আটক করে ডিবির একটি দল।

/জেডএ/এমআর/

সম্পর্কিত

ইভানার মৃত্যু: অভিযুক্তদের বিচার দাবিতে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে মানববন্ধন

ইভানার মৃত্যু: অভিযুক্তদের বিচার দাবিতে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে মানববন্ধন

চুক্তি নবায়নে প্রবাসী কর্মীদের বাধ্য করে সৌদি স্পন্সররা

চুক্তি নবায়নে প্রবাসী কর্মীদের বাধ্য করে সৌদি স্পন্সররা

শেখ হাসিনার জন্মদিনে বাংলা একাডেমিতে সেমিনার ও গ্রন্থ প্রদর্শনী

শেখ হাসিনার জন্মদিনে বাংলা একাডেমিতে সেমিনার ও গ্রন্থ প্রদর্শনী

সিএসপির আবেদন নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

সিএসপির আবেদন নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

শেখ হাসিনার জন্মদিনে বাংলা একাডেমিতে সেমিনার ও গ্রন্থ প্রদর্শনী

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৩০

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে বাংলা একাডেমিতে ‘শেখ হাসিনার সৃষ্টিশীলতা’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় তিনদিনব্যাপী গ্রন্থ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন একাডেমির মহাপরিচালক মুহম্মদ নূরুল হুদা। প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে যুক্ত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এবং এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া’র অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী।

অনুষ্ঠানের শুরুতে একাডেমির ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্ ভবনে শেখ হাসিনা রচিত ও সম্পাদিত গ্রন্থের তিনদিনব্যাপী প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন একাডেমির মহাপরিচালক। প্রদর্শনীটি ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলবে। অনুষ্ঠানের প্রথমভাগে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে রবীন্দ্রসংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী লিলি ইসলাম এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মৃতিকথা থেকে পাঠ করেন বাচিকশিল্পী রূপা চক্রবর্তী।

স্বাগত বক্তব্যে মুহম্মদ নূরুল হুদা বলেন, শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সুনীতি, মানস ও দর্শনের সার্থক উত্তরাধিকার। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার মৌলিক কারুকৃৎ তিনি। দেশ ও জনগণের মাঙ্গলিক অগ্রযাত্রায় শেখ হাসিনা সবসময় তাঁর সৃষ্টিশীলতার প্রকাশ ঘটিয়ে চলেছেন।

অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে কে এম খালিদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কর্মের সুষ্ঠু বাস্তবায়ন করে চলেছেন। একজন যোগ্য রাজনীতিবিদ ও রাষ্ট্রনায়কের পাশাপাশি তিনি একজন বিশিষ্ট লেখক এবং সাহিত্যানুরাগীও বটে। তাঁর লেখায় বাংলাদেশের মানুষের সুখ-দুঃখ, অতীত-বর্তমান-ভবিষ্যৎ ভাস্বর হয়েছে।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করে ড. রাশিদ আসকারী বলেন, শেখ হাসিনা কেবল তাঁর দলের জন্যই নয়, দেশের জন্যও গুরুত্বপূর্ণ। তিনি ষোলো কোটি মানুষকে নিয়ে সবসময় ভাবছেন। নতুন স্বপ্ন দেখাচ্ছেন এবং ক্লান্তিহীনভাবে সেসব স্বপ্নের সফল বাস্তবায়ন করে চলেছেন।

অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বাংলা একাডেমির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনায় যেমন দূরদৃষ্টির পরিচয় রেখেছেন এবং সাফল্য দেখিয়েছেন তেমনি বঙ্গবন্ধু-গবেষণাতেও ইতিহাস-সচেতনতার স্বাক্ষর রেখেছেন। তাঁর কারণেই আমরা বঙ্গবন্ধু রচিত বই এবং বঙ্গবন্ধু বিষয়ে পাকিস্তানি গোয়েন্দা প্রতিবেদনের সংকলন পাঠ করার সুযোগ পেয়েছি।

তিনি বলেন, বাংলা একাডেমি এবার গতানুগতিক পথ বর্জন করে নৈর্ব্যক্তিক এবং বস্তুনিষ্ঠভাবে শেখ হাসিনার মূল্যায়নে ব্রতী হয়েছে যা অন্যান্যদেরও গুণীজনদের মূল্যায়নে পথ দেখাবে।

এছাড়া আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বাংলা একাডেমির পরিচালক ড. জালাল আহমেদ। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন একাডেমির সচিব এ. এইচ. এম. লোকমান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বাংলা একাডেমির উপপরিচালক ড. মো. শাহাদাৎ হোসেন।

/এসও/এমএস/ 

সম্পর্কিত

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে: মেয়র আতিক

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে: মেয়র আতিক

ডিএনসিসিতে টিকাদানের সময় নিয়ে বিভ্রান্তি

ডিএনসিসিতে টিকাদানের সময় নিয়ে বিভ্রান্তি

সেই চালককে মোটরসাইকেল উপহার দিতে চায় শামসুল হক ফাউন্ডেশন

সেই চালককে মোটরসাইকেল উপহার দিতে চায় শামসুল হক ফাউন্ডেশন

ভবন থেকে ইট পড়ে পথচারীর মৃত্যু

ভবন থেকে ইট পড়ে পথচারীর মৃত্যু

সিএসপির আবেদন নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৪৭

প্রতি বছরের মতো এবারও বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের কমিউনিটি সলিউশন প্রোগ্রামে (সিএসপি) অংশগ্রহণের জন্য আবেদন গ্রহণ করছে মার্কিন দূতাবাস। বিশ্বের ২৫-৩৮ বছর বয়সীরা যেন কমিউনিটি নেতা হিসেবে নিজ দেশের উন্নয়নে নিজেদের সক্ষমতা বাড়াতে পারে, সেই লক্ষ্যেই এই প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়।

দূতাবাস থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ৯ বছরে বাংলাদেশের ১৮ জন সিএসপিতে অংশ নিয়েছে। এরমধ্যে একজন হলেন ডা. নওশীন শারমিন পুরবী। তিনি যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফিরে এসে স্যানিটারি ন্যাপকিনের ওপর শুল্ক কমানোর জন্য সফল প্রচারণা চালিয়েছিলেন। অন্য আরেকজন হচ্ছেন সিলেটের ক্যাপ্টেন একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা মোসাম্মাত বদরুন্নেসা। তিনি কাজ করেছেন ইংরেজি ভাষার শিক্ষার প্রসারে।

এবার এ প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করতে ২৭ অক্টোবরের মধ্যে আবেদন করতে হবে। পরিবেশ, দ্বন্দ্ব নিরসন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা এবং নারী ও লিঙ্গ ইস্যুতে কাজ করছেন এমন ব্যক্তিরাই আবেদন করতে পারবেন। নির্বাচিতরা যুক্তরাষ্ট্রে চার মাসের প্রশিক্ষণ নেওয়ার সুযোগ পাবেন।

এ প্রোগ্রামে আবেদন করতে হবে এই লিংকে গিয়ে। আবেদন ওয়েবসাইটের নির্ধারিত ফরমে পূরণ করে জমা দিতে হবে। চিঠি, ফ্যাক্স বা ইমেইলের মাধ্যমে আবেদন গ্রহণ করা হবে না।

 

/এসএসজেড/এপিএইচ/এফএ/

সম্পর্কিত

কথিত পীর মুত্তালিব চিশতি গ্রেফতার

কথিত পীর মুত্তালিব চিশতি গ্রেফতার

ডেঙ্গুতে আরও ২ জনের মৃত্যু

ডেঙ্গুতে আরও ২ জনের মৃত্যু

আরব আমিরাত ল্যাবের অনুমোদন দিলে ফ্লাইট চলবে: বেবিচক চেয়ারম্যান

আরব আমিরাত ল্যাবের অনুমোদন দিলে ফ্লাইট চলবে: বেবিচক চেয়ারম্যান

পিইসি-জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা কেন্দ্রীয়ভাবে হচ্ছে না

পিইসি-জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা কেন্দ্রীয়ভাবে হচ্ছে না

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

শিগগিরই ২০ জেলায় উন্মুক্ত হচ্ছে সরকারি প্রকল্পের বিউটি পার্লার

শিগগিরই ২০ জেলায় উন্মুক্ত হচ্ছে সরকারি প্রকল্পের বিউটি পার্লার

রাজধানীতে ধর্ষণের শিকার ৭ বছরের শিশু

রাজধানীতে ধর্ষণের শিকার ৭ বছরের শিশু

রেইনট্রি ধর্ষণকাণ্ড: পাঁচ জনের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন ১৯ সেপ্টেম্বর

রেইনট্রি ধর্ষণকাণ্ড: পাঁচ জনের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন ১৯ সেপ্টেম্বর

ধর্ষণ মামলার মূল আসামি সাকিব গ্রেফতার

ধর্ষণ মামলার মূল আসামি সাকিব গ্রেফতার

রেইনট্রি ধর্ষণকাণ্ড: সাফাতসহ পাঁচ জনের নির্দোষ দাবি

রেইনট্রি ধর্ষণকাণ্ড: সাফাতসহ পাঁচ জনের নির্দোষ দাবি

'মানবাধিকার বিষয়ে বঙ্গবন্ধুর দর্শন ধারণ করতে হবে'

'মানবাধিকার বিষয়ে বঙ্গবন্ধুর দর্শন ধারণ করতে হবে'

নাটকে প্রতিবন্ধীদের নিয়ে ভিত্তিহীন মন্তব্য: মানবাধিকার কমিশনের ক্ষোভ

নাটকে প্রতিবন্ধীদের নিয়ে ভিত্তিহীন মন্তব্য: মানবাধিকার কমিশনের ক্ষোভ

নিখোঁজ সন্তানকে খুঁজে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে নারীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

নিখোঁজ সন্তানকে খুঁজে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে নারীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

‘৯৯৯’-এ ফোন, মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বাবা আটক

‘৯৯৯’-এ ফোন, মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বাবা আটক

সর্বশেষ

বিশ্বকাপের আগে সুখবর দিলেন মুশফিক

বিশ্বকাপের আগে সুখবর দিলেন মুশফিক

আমানত বিমা প্রিমিয়াম হিসাবায়নে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে

আমানত বিমা প্রিমিয়াম হিসাবায়নে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে

৫ ব্যান্ড নিয়ে আবারও ফিরছে কনসার্ট

৫ ব্যান্ড নিয়ে আবারও ফিরছে কনসার্ট

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ছবি আঁকলো অর্ধশত শিশু-কিশোর

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ছবি আঁকলো অর্ধশত শিশু-কিশোর

© 2021 Bangla Tribune