X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

ডোপ টেস্টে পজিটিভ হলে সরকারি চাকরি মিলবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট : ২৫ জুন ২০২১, ১৬:০৮

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে অনুমোদন দিয়ে দিয়েছেন, সরকারি চাকরি পেতে হলে প্রত্যেককে ডোপ টেস্টের আওতায় আসতে হবে। ডোপ টেস্টে যদি পজিটিভ হন, তবে তিনি সরকারি চাকরি পাবেন না। শুধু নিয়োগ প্রার্থীরা না, যারা ইতোমধ্যে যোগদান করেছেন আমরা তাদেরও ডোপ টেস্টের আওতায় নিয়ে আসছি। বিশেষ করে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনীতে যারা আছেন, তাদের প্রত্যেকের ডোপ টেস্ট করা হচ্ছে। ডোপ টেস্টে যাদের আমরা পজিটিভ পাচ্ছি, তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নিচ্ছি।

শুক্রবার (২৫ জুন) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে ‘মাদকদ্রব্য নেশা নিরোধ সংস্থা (মানস)’ আয়োজিত মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী অন্তর্জাতিক দিবস ২০২১ উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় অনলাইনে যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

মাদক নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে ২০৩০ ও ২০৪১ সালের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা যাবে না উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এই ভয়ংকর নেশা থেকে বাঁচানোর জন্য মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর কাজ করে যাচ্ছে। আমরা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরকে ঢেলে সাজিয়েছি। আগে যেখানে তিন থেকে চারটি জেলা নিয়ে ছোট্ট একটি অফিস থাকতো, এখন সেখানে প্রত্যেকটি জেলায় একটি করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিস রয়েছে। আমরা লোকবলও বাড়িয়েছি। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনও আমরা ঢেলে সাজিয়েছি।

আলোচনায় মূল প্রবন্ধে মানসের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও জাতীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ উপদেষ্টা কমিটির সদস্য অধ্যাপক ড. অরূপ রতন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ মাদক উৎপাদনকারী দেশ না হয়েও মাদকদ্রব্যের অবৈধ প্রবেশের ফলে আমাদের তরুণ যুবসমাজ মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে। বাংলাদেশে জনসংখ্যার ৪৯ ভাগ মানুষ বয়সে তরুণ। মাদক ব্যবসায়ীরা এই কর্মক্ষম তরুণ জনগোষ্ঠীকে মাদকের ভোক্তা হিসেবে পেতে চায়। মাদকে আসক্তদের শতকরা ৮০ ভাগ কিশোর ও তরুণ, যা এরইমধ্যে গবেষকরা চিহ্নিত করেছেন।

গবেষণার বরাত দিয়ে তিনি আরও বলেন, মাদকাসক্তদের মধ্যে শতকরা ৯৮ ভাগই ধূমপায়ী এবং তার মধ্যে শতকরা ৬০ ভাগই বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত। ছিনতাই, চাঁদাবাজি ও খুনসহ রাজধানীতে সংঘটিত অধিকাংশ অপরাধের সঙ্গেই মাদকাসক্তির সম্পর্ক রয়েছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু বলেন, মাদক নির্ভরশীল ব্যক্তিকে সঠিকভাবে পরিচর্যা করতে না পারলে যেকোনও সময় তার পূর্বের অবস্থায় ফিরে যাওয়ার প্রবল সম্ভাবনা থাকে। মাদকাসক্তি চিকিৎসায় ব্যক্তির নিজ ও তার পরিবারের সার্বিক সহযোগিতাসহ সেবা প্রদানকারী সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ভালো করা যেতে পারে। তবে এক্ষেত্রে পরিবারের ভূমিকাই সবচেয়ে বেশি। মাদক নির্ভরশীল ব্যক্তির চিকিৎসার সকল পর্যায়ে পরিবারের অংশগ্রহণ ও সহযোগিতা প্রয়োজন।

আলোচনায় আরও উপস্থিতি ছিলেন মানসের সাংগঠনিক সম্পাদক মতিউর রহমান তালুকদার, কোষাধ্যক্ষ হোসনে আরা রীনা প্রমুখ।

/এসএস/ইউএস/এমওএফ/

সম্পর্কিত

লকডাউনেও মাদক পরিবহনে সক্রিয় চক্রগুলো, গ্রেফতার ৩

লকডাউনেও মাদক পরিবহনে সক্রিয় চক্রগুলো, গ্রেফতার ৩

ম্যাজিক মাশরুম মাদকসহ গ্রেফতার দুইজন রিমান্ডে

ম্যাজিক মাশরুম মাদকসহ গ্রেফতার দুইজন রিমান্ডে

কানাডা থেকে আসে ‘ম্যাজিক মাশরুম’ মাদক, গ্রেফতার ২

কানাডা থেকে আসে ‘ম্যাজিক মাশরুম’ মাদক, গ্রেফতার ২

লকডাউনে দূরপাল্লার যাত্রী পরিবহনের আড়ালে মাদকপাচার

লকডাউনে দূরপাল্লার যাত্রী পরিবহনের আড়ালে মাদকপাচার

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:৪০

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সিলেট আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন মারা গেছেন। রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) যুগ্ম-সচিব ও পরিচালক (জনসংযোগ) এসএম আসাদুজ্জামান বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সিলেট-৩ আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা অবস্থায় তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকার একটি হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। 

এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রবিবার সকালে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় কর্মরত ইসির কর্মী মোহাম্মদ এনামুল হক (৪৪) মারা গেছেন। এ নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইসি'র সাত জন কর্মকর্তা-কর্মচারী মারা গেছেন।

এখনও পর্যন্ত ইসির প্রায় ১৬০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭১ জন। অন্যরা চিকিৎসাধীন আছেন বলে জানা গেছে।

 

/ইএইচএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:২২

দেশে করোনায় এখন পর্যন্ত আট হাজার ৮৯০ জন স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে চিকিৎসকদের জাতীয় সংগঠন বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ)।

রবিবার ( ২৫ জুলাই) বিএমএ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

বিএমএ জানায়, আট হাজার ৮৯০ জনের মধ্যে চিকিৎসক তিন হাজার ৫৮ জন, নার্স দুই হাজার ১৭৫ জন আর অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন তিন হাজার ৬৭৫ জন।

বিএমএ আরও জানিয়েছে, গত ২০ জুলাই পর্যন্ত করোনা এবং করোনার উপসর্গ নিয়ে ১৬৯ জন চিকিৎসক মারা গিয়েছেন।

করোনাতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম চিকিৎসক মারা যান গত বছরের ১৫ এপ্রিল। সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দীন আহমেদ করোনাতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুবরণকারী চিকিৎসক।

/জেএ/এমআর/

সম্পর্কিত

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:২৫

দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়সহ কলেজগুলোর শিক্ষার্থীদের করোনা ভাইরাস রোধক টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হলেও কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা কবে টিকা পাবেন, এ নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। আর টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু না হওয়ায় কবে থেকে ক্লাস শুরু হবে, তাও জানতে পারছেন না মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। কোনও কোনও শীর্ষ পর্যায়ের দায়িত্বশীল আলেমরা টিকা গ্রহণ করলেও শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কী সিদ্ধান্ত, তা এখনও ঠিক করতে পারেননি তারা।

কওমি মাদ্রাসার কয়েকজন সিনিয়র শিক্ষক ও একাধিক মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে সমন্বিত কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। এক্ষেত্রে বেফাক ও অন্যান্য আঞ্চলিক বোর্ডগুলোসহ কওমি মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সরকারি বিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান ‘আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’ও এ বিষয়ে কোনও আলোচনা শুরু করেনি।

ঢাকার জামিয়া ইসলামিয়া মাখজানুল উলুম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও হেফাজতের মহাসচিব মাওলানা নুরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মাদ্রাসার ছাত্ররা টিকা নেবে কিনা, সেটা মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ ও আল হাইআতুল উলয়া ঠিক করবে। ভ্যাকসিন কী জিনিস, আমি বুঝি না। এ বিষয়ে আমার কোনও অভিজ্ঞতা নেই।’

ঢাকার একটি মাদ্রাসার মেশকাত জামাতের (স্নাতক চূড়ান্ত) একজন শিক্ষার্থী রবিবার বিকালে বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, তাদের প্রতিষ্ঠান থেকে টিকা নেওয়ার ব্যাপারে কোনও কিছুই জানানো হয়নি। আর মাদ্রাসাও কবে নাগাদ খোলা হবে, তা অনিশ্চিত।

ঢাকার একটি কওমি মাদ্রাসায় পাঠরত শিক্ষার্থীরা (ফাইল ফটো) সরকারিভাবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ পর্যায়ে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রক্রিয়া শুরু করেছে। টিকা কার্যক্রম গুছিয়ে এনেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ও। এরইমধ্যে টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বয়স ১৮ করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া শেষ হলেই প্রতিষ্ঠান খুলবে, সরকারের পক্ষ থেকে এমন সম্ভাবনার কথা জানানো হয়েছে।

কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের (বেফাক) একাধিক দায়িত্বশীল আলেম জানান, মাদ্রাসার ছাত্রদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে কোনও রোডম্যাপ হয়নি। ব্যক্তিগতভাবে শিক্ষার্থীদের স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যোগাযোগ করে টিকা দেওয়ার বিষয়ে উৎসাহ দেওয়া হলেও প্রাতিষ্ঠানিক কোনও নির্দেশনা নেই।

ঢাকার একটি মাদ্রাসার শিক্ষক বলেন, টিকা নেওয়ার বিষয়ে শুরুতে বিভ্রান্তি থাকলেও এখন টিকা নেওয়ার পক্ষে সবাই। সুস্থ থাকতে টিকার বিকল্প নেই, এ কথাটিও ছাত্রদের কাছে তুলে ধরা হচ্ছে বিভিন্ন উপায়ে। যদিও মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় অধিকাংশ শিক্ষার্থী টিকার ব্যাপারে অন্ধকারে আছে।

জামিয়া আরাবিয়া দারুল উলুম নতুনবাগ, রামপুরা মাদ্রাসার হাদিসের শিক্ষক মাওলানা ইমরানুল বারী সিরাজী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমাদের বেফাক বা হাইআ বা কোনও বোর্ড থেকেই কিছু জানানো হয়নি। কোনও ঘোষণাও আসেনি টিকার বিষয়ে। এখনও মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় বোর্ডই ঠিক করবে করণীয়।’

ইমরানুল বারী জানান, মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা টিকাগ্রহণে ইতিবাচক। তবে, কী প্রক্রিয়ায় টিকা দেওয়া হবে সেজন্য অপেক্ষা করছে সবাই।

জানতে চাইলে বেফাক ও আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’র সদস্য মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা, শিক্ষকরা কীভাবে টিকা পাবেন, এ নিয়ে বোর্ডগুলো এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি। হাইআতুল উলয়ার দায়িত্বশীলরা এ বিষয়ে আলোচনা শুরু করেছেন। তবে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।’

আল হাইআতুল উলয়া’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ও জাতীয় দ্বীনী মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের সহসভাপতি মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘টিকার বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে আমরা একটা গাইডলাইন করছি, চেষ্টা করছি। আমরা নিজেরা পরামর্শ করে গাইডলাইন তৈরি করেছি।’

সরকারের কাছে কোনও প্রস্তাব দেওয়া হবে কিনা, এমন প্রশ্নে ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘এটা হাইয়ার মুরুব্বিরা সরকারের সঙ্গে আলোচনা করবেন। আমরা আমাদের মতো চেষ্টা করছি।’

টিকা নিয়েছেন হাইআতুল উলয়ার চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান

সাধারণ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত না হলেও কওমি মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সরকারি বিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান ‘আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’ চেয়ারম্যান মাওলানা মাহমুদুল হাসান টিকা নিয়েছেন। আল-হাইআতুল উলয়া’র একজন কর্মকর্তা বাংলা ট্রিবিউনকে এ কথা জানান।

এই কর্মকর্তা আরও জানান, সিনিয়র আলেমদের মধ্যে অনেকেই নিবন্ধন করেছেন। তারা নিজ উদ্যোগে টিকা নিচ্ছেন।

কওমি মাদ্রাসায় পাঠরত শিক্ষার্থীরা (ফাইল ফটো) মাদ্রাসা খুলবে কবে?

কওমি মাদ্রাসা কবে নাগাদ ক্লাস শুরু করতে পারবে, এ নিয়ে এখনও অন্ধকারে বোর্ড ও দায়িত্বশীল আলেমরা। শিক্ষার্থীরাও বলছেন, তারা মাদ্রাসা খোলা বা ক্লাস শুরু হওয়া নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত জানতে পারছেন না।

সিলেটের একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু বলেন, ‘মুরুব্বিরা চেষ্টা করছেন আগে মক্তব বিভাগ ও হেফজ বিভাগ (কোরআন শিক্ষা কার্যক্রম) চালু করতে। এরপর সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে অন্য ক্লাসগুলো শুরু হবে।’

দায়িত্বশীল একাধিক আলেম বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নয়, বরং সরকারের ক্ষোভের কারণে প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে।

তারা জানান, হেফাজত ইস্যুতে সরকার মাদ্রাসাগুলোকে বন্ধ রেখেছে। কওমি মাদ্রাসার সংশ্লিষ্ট হেফাজত নেতাদের মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনবিরোধী অবস্থানের কারণে মাদ্রাসার প্রতি বিরূপ মনোভাব তৈরি হয়েছে সরকারের। আর এই ক্ষোভ উপশমে চেষ্টা করা প্রয়োজন বলে মনে করেন কোনও কোনও আলেম। এই অংশের অনেকেই মনে করেন, মাদ্রাসার ছাত্র- শিক্ষকদের বর্তমান পরিস্থিতিতে ভ্যাকসিন দেওয়া প্রয়োজন।

মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘ক্ষোভটা তো সকলেরই জানা। করোনা ভাইরাসজনিত ও লকডাউন পরিস্থিতিতে কওমি মাদ্রাসা বন্ধ ছিল। কিন্তু এবার প্রজ্ঞাপন দিয়ে কওমি মাদ্রাসা বন্ধ করা হয়েছে। কেন বন্ধ হলো, সেটা সকলের জানা। কওমি মাদ্রাসাগুলোকে সরাসরি প্রজ্ঞাপন দিয়ে বন্ধ করা হয়েছে বিশেষ কারণে। কারণ আর উল্লেখ করার দরকার নাই। এই ক্ষোভ আমরা চাচ্ছি প্রশমন করতে। সরকারকে আস্থায় নিয়ে মাদ্রাসা খোলা দরকার।’

জানতে চাইলে হেফাজতের মহাসচিব ও ঢাকার একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা নুরুল ইসলাম বলেন, ‘ এখনও তো লকডাউন চলছে। এই মুহূর্তে মাদ্রাসা খোলা সম্ভব না। লকডাউন শেষ হলে পরিস্থিতি বুঝে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

আরও পড়ুন:

‘ঐতিহাসিক’ পদ্ধতিতে শিক্ষা দিচ্ছে কওমি মাদ্রাসা

সরকারি স্বীকৃতির তিন বছর: কতটা বদলেছে কওমি মাদ্রাসা?

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

ধান বেচে ১৯৮টি আবেদন করেছিলেন মনিরুল

ধান বেচে ১৯৮টি আবেদন করেছিলেন মনিরুল

৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে উদ্ধার পেলো তরুণী

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:০৬

জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন পাওয়ার পর বাড়িতে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করা এক তরুণীকে উদ্ধার করেছে চাঁদপুর থানা পুলিশ।

রবিবার (২৫ জুলাই) জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এর পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার বাংলা ট্রিবিউনকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন,  শনিবার (২৪ জুলাই)  সকাল সাড়ে দশটায় চাঁদপুর সদর থানার ওয়ারলেস স্কুল সংলগ্ন একটি ভবন থেকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে একজন তরুণী (১৮) ৯৯৯ নম্বরে ফোন করেন। তিনি অভিযোগ করেন, তার বাড়ি চাঁদপুরের মতলব থানায়। সাড়ে তিনমাস আগে তাকে মাহি এবং তার স্বামী রিপন নামে এক দম্পতি তাদের বাসায় কাজের কথা বলে নিয়ে আসে। কিন্তু তাকে দিয়ে ঘরের কাজের পরিবর্তে জোর করে পতিতাবৃত্তি করানো হচ্ছিল। এ ধরণের কাজ করতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করা হতো। একজন খদ্দেরের ফোন থেকে টয়লেটে লুকিয়ে ৯৯৯ এ ফোন করেন ওই তরুণী। তিনি তাকে উদ্ধারের জন্য অনুরোধ জানান।

তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি চাঁদপুর সদর থানায় জানিয়ে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানায় ৯৯৯। সংবাদ পেয়ে চাঁদপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। বাড়িটি শনাক্ত করেন।

চাঁদপুর সদর থানার উপ-পরিদর্শক মো. রাশেদুজ্জামান জানান, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করেন এবং তাকে আটকে রেখে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তির অভিযোগে মাহি আক্তার বর্ষা ওরফে মাকসুদা বেগম মাহিকে (২৬) গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে এসময় তার স্বামী রিপন বাসায় ছিলেন না।

এই ঘটনায় চাঁদপুর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

/এআরআর/এমএস/

সম্পর্কিত

চাঁদা দাবি করে প্রতিবন্ধীর দোকান বন্ধের অভিযোগ, পুলিশের উদ্যোগে ফের চালু

চাঁদা দাবি করে প্রতিবন্ধীর দোকান বন্ধের অভিযোগ, পুলিশের উদ্যোগে ফের চালু

গ্রেফতারের আগ পর্যন্ত অনলাইনে নব্য জেএমবির প্রচারণায় সক্রিয় ছিল ইমন: সিটিটিসি

গ্রেফতারের আগ পর্যন্ত অনলাইনে নব্য জেএমবির প্রচারণায় সক্রিয় ছিল ইমন: সিটিটিসি

বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

স্লিপার সেলের মাধ্যমে চলছিলো জঙ্গি কার্যক্রম: সিটিটিসি

স্লিপার সেলের মাধ্যমে চলছিলো জঙ্গি কার্যক্রম: সিটিটিসি

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৬:৫৭

এই বছরের সর্বোচ্চ সংখ্যক ডেঙ্গু রোগী পাওয়া গেছে চলতি জুলাই মাসেই। এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৩০৭ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছেন শুধু জুলাই মাসেই। তাদের ৯৯ শতাংশই ঢাকায়। আর গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১০৫ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে, তাদের মধ্যে ১০২ জনই ঢাকার আর বাকিরা ঢাকার বাইরে। এর আগে একদিনে সর্বোচ্চ ১০৪ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছিল গতকাল। 

রবিবার  (২৫ জুলাই)  স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের দেওয়া তথ্য থেকে এসব জানা যায়। 

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, সারাদেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে এখন পর্যন্ত ৪৬০ জন রোগী ভর্তি আছে । এর মধ্যে ঢাকাতেই আছে  ৪৫৪ জন , আর বাকি ৬ জন ঢাকার বাইরে অন্য বিভাগে। এই বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২৫ জুলাই পর্যন্ত ১ হাজার ৬৭৯ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন এবং ছাড়া পেয়েছেন ১ হাজার ২১৬ জন। এই বছর এখন পর্যন্ত ডেঙ্গুতে ৩ জনের মৃত্যুর তথ্য পর্যালোচনার জন্য রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

/এসও/এমআর/

সম্পর্কিত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

সর্বশেষ

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ধাওয়ায় ৩ যাত্রী ফেরি থেকে নদীতে

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ধাওয়ায় ৩ যাত্রী ফেরি থেকে নদীতে

স্টিক দিয়ে মাথায় মেরে বসলেন আর্জেন্টিনার এক খেলোয়াড়!

অলিম্পিক হকিস্টিক দিয়ে মাথায় মেরে বসলেন আর্জেন্টিনার এক খেলোয়াড়!

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

মৃত্যু বেড়ে ২২৮, শনাক্ত ১১ হাজার ২৯১

মৃত্যু বেড়ে ২২৮, শনাক্ত ১১ হাজার ২৯১

নাসুমকে তিন ছক্কা মারা চাকাভাকে ফেরালেন সৌম্য 

নাসুমকে তিন ছক্কা মারা চাকাভাকে ফেরালেন সৌম্য 

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

শ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

অলিম্পিক টেনিসশ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

লকডাউনেও মাদক পরিবহনে সক্রিয় চক্রগুলো, গ্রেফতার ৩

লকডাউনেও মাদক পরিবহনে সক্রিয় চক্রগুলো, গ্রেফতার ৩

ম্যাজিক মাশরুম মাদকসহ গ্রেফতার দুইজন রিমান্ডে

ম্যাজিক মাশরুম মাদকসহ গ্রেফতার দুইজন রিমান্ডে

কানাডা থেকে আসে ‘ম্যাজিক মাশরুম’ মাদক, গ্রেফতার ২

কানাডা থেকে আসে ‘ম্যাজিক মাশরুম’ মাদক, গ্রেফতার ২

লকডাউনে দূরপাল্লার যাত্রী পরিবহনের আড়ালে মাদকপাচার

লকডাউনে দূরপাল্লার যাত্রী পরিবহনের আড়ালে মাদকপাচার

বায়িং হাউজের আড়ালে আইস বেচাকেনা

বায়িং হাউজের আড়ালে আইস বেচাকেনা

এলএসডিসহ গ্রেফতার তিন শিক্ষার্থী রিমান্ড শেষে কারাগারে

এলএসডিসহ গ্রেফতার তিন শিক্ষার্থী রিমান্ড শেষে কারাগারে

নারিকেলের ভেতরে হেরোইন পাচার: মা-মেয়ে রিমান্ডে

নারিকেলের ভেতরে হেরোইন পাচার: মা-মেয়ে রিমান্ডে

মৌসুমি-ওমর সানি পুত্রের সিসা বারে অভিযান, গ্রেফতার ১১

মৌসুমি-ওমর সানি পুত্রের সিসা বারে অভিযান, গ্রেফতার ১১

আবারও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসায় হেফাজত নেতারা

আবারও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসায় হেফাজত নেতারা

© 2021 Bangla Tribune