X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

‘টু রেজিস্ট্রার’ না হওয়ায় কুবি শিক্ষকের পদোন্নতি স্থগিত! 

আপডেট : ৩০ জুন ২০২১, ১২:০৬

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সিন্ডিকেটে শিক্ষককে পদোন্নতি দেওয়ার পর আরেক সিন্ডিকেটে তা স্থগিতের ঘটনা ঘটেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক কাজী এম. আনিছুল ইসলামের সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি দিয়ে পরবর্তীতে তা স্থগিত করা হয়েছে। অথচ তিনি সহকারী অধ্যাপক পদে যোগদানপত্র পেয়েছিলেন এবং সে অনুযায়ী বেতন-ভাতা পেয়ে আসছেন। রবিবার (২৭ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮০তম সিন্ডিকেটে তার পদোন্নতি স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়ে তাকে আবারও আবেদন করতে বলা হয়। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ও সিন্ডিকেটের সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের।

রেজিস্ট্রার ড. মো. আবু তাহের বলেন, যে প্রক্রিয়ায় আবেদন করা লাগে সে প্রক্রিয়ায় আবেদনটা হয়নি, এটা ধরা পড়ায় সিন্ডিকেট সভায় উনার পদোন্নতি স্থগিত করা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী কেউ যদি আগের কর্মস্থলের অভিজ্ঞতার কাগজ যুক্ত করে আবেদন করেন তবে তাকে যথাযথ মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। অর্থাৎ আগের কর্মস্থলের রেজিস্ট্রার এখানকার রেজিস্ট্রার বরাবর তার অভিজ্ঞতা সনদটি পাঠাবেন।

ভুল হয়ে থাকলে আগের সিন্ডিকেটে কেন তাকে পদোন্নতি দেওয়া হলো জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিভাগের প্ল্যানিং কমিটি, বাছাই বোর্ড সুপারিশ করলে আমরা তা অনুমোদন করে সিন্ডিকেটে তুলি। উনার ক্ষেত্রেও তারা সুপারিশ করেছিল। তবে পরে বিভিন্ন জায়গায় কথা হলে এবারের সিন্ডিকেটে তার পদোন্নতি স্থগিত করে পুনঃআবেদনের জন্য বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে শিক্ষক কাজী এম. আনিছুল ইসলাম বলেন, আমার সহকারী অধ্যাপকে পদোন্নতির জন্য আবেদন প্রশাসনিক প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে রেজিস্ট্রার দফতরে পৌঁছানো হয়। আমি বোর্ড ফেস করেছি। বোর্ডের পর সিন্ডিকেটে আমাকে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়। পরবর্তী সময়ে রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত যোগদানপত্র আমার কাছে আসে। আমি তার ভিত্তিতে যোগদান করি। এখন বলা হচ্ছে, আমি আগে যে ইউনিভার্সিটিতে চাকরি করেছি সেখান থেকে যে লেটার এখানে দেওয়া হয়েছে সেটিতে ‘টু রেজিস্ট্রার’ লেখা হয়নি। সেখানে ‘টু হোম ইট মে কনসার্ন’ লেখা হয়েছে। এজন্য আমাকে পদোন্নতি দিয়ে আবার আটকে দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কুবি উপাচার্য ও সিন্ডিকেট সভাপতি অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী বলেন, তার পদোন্নতি বাতিল করা হয়নি। সাংবাদিকেরা কে কি নিউজ করতেছো, নিউজের তো কোনও ঠিক নাই। আমি তো বলি নাই নিয়োগ বাতিল হয়েছে। সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্তই তো এখনও লেখা হয় নাই। এটা লেখা হবে, সিণ্ডিকেট মেম্বাররা দেখবে। তারপরই একটা কথা সম্পূর্ণভাবে বলা যায়। 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ঢাকায় ঝগড়ার জেরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংঘর্ষ, বৃদ্ধা নিহত আহত ১০

ঢাকায় ঝগড়ার জেরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংঘর্ষ, বৃদ্ধা নিহত আহত ১০

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসিসহ ৪ জনকে বদলি

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৫

বগুড়া হাইওয়ে বিভাগের অন্তর্ভুক্ত হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসি মো. শাহজাহান আলী ও এসআই জাহিদুল ইসলামসহ চার জনকে তাৎক্ষণিক বদলি (স্ট্যান্ড রিলিজ) করা হয়েছে। কর্তব্যে অবহেলা, অনিয়ম, দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তাদের বদলির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বগুড়া হাইওয়ে রিজিওনের পুলিশ সুপার মুনশী শাহাবুদ্দীন। স্ট্যান্ড রিলিজ পাওয়া বাকি দুইজন হলেন- কনস্টেবল আজম ও রুহুল।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার টিআই রফিকুল ইসলাম জানান, স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে কি-না তা জানি না। তবে বদলি করা হয়েছে বলে শুনেছি।

জানা গেছে, ওসি শাহজাহান আলী চলতি বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি এ থানায় যোগ দিয়েছিলেন। গত শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) এ চার জনকে নির্ধারিত সময়ের আগেই ক্লোজ করে পুলিশ লাইন্সে নেওয়া হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

নারী পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে আহত

নারী পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে আহত

ঢাকার সঙ্গে উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

ঢাকার সঙ্গে উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৭

কুড়িগ্রামে ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপ‌তি বিন ইয়ামীন মোল্লার কর্মী ও সমর্থকদের কাছ থেকে শহীদ মিনারে ফুলেল শুভেচ্ছা ও ছবি তোলা নিয়ে বিত‌র্কের সৃ‌ষ্টি হ‌য়ে‌ছে। শহীদ মিনারের বেদির নি‌চে সিঁড়িতে কর্মী ও সমর্থকসহ জুতা পায়ে ছ‌বি তোলা‌য় বিতর্কের মুখে পড়েন তিনি। বেদির নি‌চে দাঁ‌ড়ি‌য়ে জুতা পা‌য়ে ছবি তোলাকে অ‌নে‌কে ‘বেদিতে জুতা পা‌য়ে দাঁ‌ড়ি‌য়ে’ শহীদ মিনারের অবজ্ঞা হ‌য়ে‌ছে দা‌বি ক‌রে ‌বিন ইয়ামীন মোল্লাসহ সং‌শ্লিষ্ট‌দের বিচার চেয়েছেন।

ত‌বে বিষয়টিকে অপপ্রচার দা‌বি ক‌রে স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠীর ষড়যন্ত্র বলে উল্লেখ করেছেন বিন ইয়ামীন মোল্লা। তি‌নি দা‌বি ক‌রে‌ছেন, কর্মী ও সমর্থকসহ তি‌নি বেদির নি‌চে, এমন‌কি সিঁড়ির নি‌চে দাঁ‌ড়ি‌য়ে ছ‌বি তু‌লে‌ছেন। একজন ছাত্র হি‌সে‌বে তি‌নি কখনও শহীদ মিনার ও শহীদ‌দের অবজ্ঞা কিংবা অসম্মান কর‌তে পা‌রেন না।

বিন ইয়ামীন মোল্লার বা‌ড়ি কু‌ড়িগ্রা‌মের না‌গেশ্বরী উপ‌জেলার নেওয়া‌শী ইউ‌নিয়‌নের মোল্লাপাড়া গ্রা‌মে। তি‌নি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভা‌গের স্নাতকোত্তর শ্রেণির শিক্ষার্থী। নির্বা‌চিত হওয়ার পর নি‌জ জেলায় এটাই তার প্রথম সফর।

খোঁজ নি‌য়ে জানা যায়, ছাত্র অধিকার পরিষদের নবনির্বাচিত কমিটিতে সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর র‌বিবার (১৯ সে‌প্টেম্বর) কুড়িগ্রামে আসেন বিন ইয়ামীন মোল্লা। সকালে শহরের ঘোষপাড়ার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গ‌ণে দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের কাছ থে‌কে ফু‌লেল শু‌ভেচ্ছা গ্রহণ ক‌রেন। এ সময় নেতাকর্মী‌দের নি‌য়ে ছবি তোলেন। ওই ছ‌বি‌কে বেদিতে জুতা পা‌য়ে দাঁড়া‌নো উল্লেখ করে শুরু হয় বিতর্ক। দিনভর ফেসবুকে নানা বিত‌র্কের পর অ‌নে‌কে ‌বিন ইয়ামীন মোল্লা ও তার কর্মী‌দের আই‌নের আওতায় আনার দা‌বি জানান। 

এ নি‌য়ে বাংলা ট্রিবিউ‌নের সঙ্গে কথা হয় বিন ইয়ামীন মোল্লার। ফেসবুকে ছড়া‌নো অ‌ভি‌যোগকে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র হি‌সে‌বে দেখছেন তিনি। তি‌নি ব‌লেন, আমরা জুতা পা‌য়ে শহীদ মিনা‌রের বেদিতে উ‌ঠি‌নি। এমন‌কি আমরা বেদির সিঁ‌ড়ি‌তেও উ‌ঠি‌নি। ছ‌বি‌টি ভা‌লো ক‌রে লক্ষ্য কর‌লে দেখ‌বেন, আমরা সিঁড়ির নি‌চে দাঁ‌ড়ি‌য়ে আ‌ছি।

ফেসবুকে সমা‌লোচনার বিষ‌য়ে এই ছাত্র নেতা ব‌লেন, ‘যারা এগু‌লো ছড়া‌চ্ছেন তারা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগসহ বি‌ভিন্ন অঙ্গ সংগঠ‌নের নেতাকর্মী। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভা‌বে এগু‌লো ছড়া‌চ্ছেন তারা।’

বিন ইয়ামীন মোল্লা ব‌লেন, ‘আমা‌দের বিশ্ব‌বিদ্যালয়ের পা‌শেই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। আ‌মি শহীদ মিনা‌রে উঠার শিষ্টাচার জা‌নি। শহীদদের অসম্মানের প্রশ্নই আসে না।’

/এএম/

সম্পর্কিত

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

হিলির ২১ মন্দিরে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ

হিলির ২১ মন্দিরে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ

অপকর্মে জড়িতদের আ.লীগে স্থান নেই: তথ্যমন্ত্রী 

অপকর্মে জড়িতদের আ.লীগে স্থান নেই: তথ্যমন্ত্রী 

মোটরসাইকেলে ৩ জন, ট্রাকের ধাক্কায় রাজস্ব কর্মকর্তা নিহত

মোটরসাইকেলে ৩ জন, ট্রাকের ধাক্কায় রাজস্ব কর্মকর্তা নিহত

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে মার্কিন রাষ্ট্রদূত

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:২৫

কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল আর মিলার। সফরের অংশ হিসেবে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ও দেশীয় সংস্থার তত্ত্বাবধানে ক্যাম্পে পরিচালিত বিভিন্ন প্রকল্পের পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন তিনি।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে মার্কিন রাষ্ট্রদূতসহ তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল প্রথমে রোহিঙ্গা ক্যাম্প-৯ এ পৌঁছায়। সেখানে রাষ্ট্রদূত আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) পরিচালিত হাসপাতাল পরিদর্শন করেন।

পরে ক্যাম্প-১৮ এর জি/৪৪ ব্লকে অবস্থিত সেভ দ্য চিলড্রেনের অর্থায়নে ইপসা’র লার্নিং সেন্টার এবং আইওএমের সাইট ডেভেলপমেন্ট কাজ এবং বিডিআরসিএসর শেল্টার ও নন-ফুড আইটেম ডিস্ট্রিবিউশন পয়েন্ট পরিদর্শন করেন।

দুপুরে রোহিঙ্গা ক্যাম্প-৪ এ অবস্থিত হোপ হাসপাতালে জেনারেল ইউনিট ও করোনা ইউনিট পরিদর্শনে যান। সেখানে কর্মরত চিকিৎসক ও আগত রোগীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন রাষ্ট্রদূত। এছাড়াও তিনি ক্যাম্প-৪এক্স-এ অবস্থিত জিকে হাসপাতাল সংলগ্ন এমআরও পরিদর্শন করেন।

বিকাল ৩টায় মধুরছড়া বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির (ডব্লিউএফপি) ওয়্যারহাউজে সার্বিক কার্যক্রমের উপস্থাপনায় অংশগ্রহণ এবং ফায়ার মহড়া পরিদর্শন শেষে প্রতিনিধি দলটি সাড়ে বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে কক্সবাজারের উদ্দেশে রোহিঙ্গা ক্যাম্প ত্যাগ করেন।

প্রভাবশালী কূটনীতিকের এ সফরকে কেন্দ্র করে ক্যাম্প এলাকায় সতর্ক অবস্থানে ছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ১৪ এপিবিএনের অধিনায়ক পুলিশ সুপার নাঈমুল হক জানান, মার্কিন রাষ্ট্রদূতের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থানে ছিল এপিবিএন সদস্যরা।

সফরকালে প্রতিনিধিদলের সদস্য মার্কিন নারী উদ্যোক্তা মিশেল রেনে এডেলম্যান, মার্শা মাইকেলসহ ইউএনএইচসিআর-এর কর্মকর্তারা রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ছিলেন।

এর আগে, শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) উখিয়ার রত্নাপালং ইউনিয়নের ইউএনএফপিএ এবং ডব্লিউএফপির গণউন্নয়ন কেন্দ্র সংস্থার তত্ত্বাবধানে পরিচালিত ‘উইমেন লিড কমিউনিটি সেন্টার’ পরিদর্শন করেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত।

/এফআর/

সম্পর্কিত

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

সৈকতে বেড়াতে আসা ৬ বন্ধুর মধ্যে দুজনের লাশ উদ্ধার

সৈকতে বেড়াতে আসা ৬ বন্ধুর মধ্যে দুজনের লাশ উদ্ধার

সেন্টমার্টিনে দ্রুত টেলিমেডিসিন সেবা চালু হচ্ছে: স্বাস্থ্যের ডিজি

সেন্টমার্টিনে দ্রুত টেলিমেডিসিন সেবা চালু হচ্ছে: স্বাস্থ্যের ডিজি

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:০৮

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর আদর্শে এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী পালন করছি। যারা বঙ্গবন্ধুকে কলঙ্কিত করার চেষ্টা করেছিল; যারা বঙ্গবন্ধুকে অপমানিত করেছে; যারা বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কৃত করেছে আজ তারা মহা-অন্ধকারে হারিয়ে গেছে। তারা আজ কোথাও নেই। আজ জিয়াউর রহমানের কি অবস্থা। জিয়া পরিবারের কি অবস্থা। তার স্ত্রী অপরাধী হয়ে জেল খাটছেন। তার এক ছেলে পলাতক। আরেক ছেলে মাদকাসক্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। এই হচ্ছে জিয়া পরিবারের অবস্থা। জিয়া, খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুকে অনেক অপমান করেছেন। আজ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দিনাজপুরের বিরলের ফুলবাড়ী হাট উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) তুলাই নদী খননের উদ্যোগ নেয়। বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃক খননকৃত তুলাই নদীর দুই পাড়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির আয়োজন করে। প্রতিমন্ত্রী বিরলের ফুলবাড়ী সেতু সংলগ্ন স্থানে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন এবং ফুলবাড়ী হাট উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সমাবেশে বক্তব্য দেন। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনার দেড় বছর পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ একদিনের জন্য বন্ধ হয়নি। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম একদিনের জন্য বন্ধ থাকেনি। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের কাজ সময়মতো এগিয়ে গেছে। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি ৯৫ ভাগ। এই হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার বাংলাদেশ।

উল্লেখ্য, তুলাই নদীর নাব্যতা পুনরুদ্ধারে বোচাগঞ্জ উপজেলার ঈশানিয়া থেকে বিরল উপজেলার ভান্ডারা পর্যন্ত ৬৮ কিলোমিটার নৌপথ খনন করা হবে। প্রায় ২৬ লাখ ঘনমিটার খননকাজে প্রায় ৪৯ কোটি টাকা ব্যয় হবে। 

২০২০ সালের নভেম্বরে খননকাজ শুরু হয়েছে। আগামী বছরের নভেম্বর পর্যন্ত এ কাজের মেয়াদ রয়েছে। এ পর্যন্ত ২৩.৫৮ লাখ ঘনমিটার খনন হয়েছে। তুলাই নদী খননের ফলে নদীর পানি ধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। কৃষিজমিতে সেচ কাজের সুবিধা ও মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে এবং কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। নদীর দুই পাড়ে বৃক্ষরোপণের ফলে পরিবেশগত ভারসাম্য ফিরিয়ে আনতে সহায়ক হবে।

বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিআইডব্লিউটিএর প্রকল্প পরিচালক রকিবুল ইসলাম তালুকদার, ইউএনও মো. আব্দুল ওয়াজেদ, বিরল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রমাকান্ত রায় এবং বোচাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু সৈয়দ হোসেন।

/এএম/

সম্পর্কিত

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

হিলির ২১ মন্দিরে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ

হিলির ২১ মন্দিরে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ

অপকর্মে জড়িতদের আ.লীগে স্থান নেই: তথ্যমন্ত্রী 

অপকর্মে জড়িতদের আ.লীগে স্থান নেই: তথ্যমন্ত্রী 

যৌন হয়রানির অভিযোগে পুলিশ কনস্টেবল গ্রেফতার

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১৮

গাজীপুর মহানগরের কোনাবাড়ি পেয়ারাবাগান এলাকার একটি বাড়ি থেকে এক তরুণীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে পুলিশ কনস্টেবল মনিরুজ্জামানকে (২৩) আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে এলাকাবাসী। পরে ভুক্তভোগীর করা মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতার পুলিশ কনস্টেবল সিরাজগঞ্জের কাজীপুর উপজেলার বিয়ারা গ্রামের বিল্লাল হোসেনের ছেলে। বর্তমানে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নে (এপিবিএন, উত্তরা) কর্মরত আছেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোনাবাড়ি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে জানান, গত তিন বছর আগে সিরাজগঞ্জের এক তরুণীর সঙ্গে মনিরুজ্জামানের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে সিরাজগঞ্জ থেকে এসে ওই তরুণী গাজীপুরের পেয়ারাবাগান এলাকায় মায়ের সঙ্গে বসবাস শুরু করেন। এছাড়া স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করছেন। এরই মধ্যে মনিরুজ্জামান ওই তরুণীর ঠিকানা সংগ্রহ করে। গত ফেব্রুয়ারি মাসে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কৌশলে ওই তরুণীকে এক আত্মীয়ের বাসায় ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। বাসায় এসে বিষয়টি মাকে জানান তরুণী।

পরে ওই ঘটনায় মনিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে গাজীপুর আদালতে একটি মামলা করেন। সেটি জানতে পেরে কনস্টেবল বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে ওই তরুণীকে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি দেয়। কিন্তু মামলা তুলে নিতে অস্বীকৃতি জানালে শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে ওই তরুণীর বাসায় এসে ভয়ভীতি দেখিয়ে হুমকি দেয় পুলিশের এ কনস্টেবল। এক পর্যায়ে তরুণীকে ঝাপটে ধরে যৌন হয়রানি করে। এ সময় তার চিৎকার শুনে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে অভিযুক্তকে আটক করে পুলিশের খবর দেয়। খবর পেয়ে কোনাবাড়ি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মনিরুজ্জামানকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় রবিবার ভুক্তভোগী তরুণী দ্বিতীয়বারের মতো মামলা দায়ের করলে মনিরুজ্জামানকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

নতুন জাতের মুরগি উদ্ভাবন, ৫৬ দিনে হবে এক কেজি

নতুন জাতের মুরগি উদ্ভাবন, ৫৬ দিনে হবে এক কেজি

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ঢাকায় ঝগড়ার জেরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংঘর্ষ, বৃদ্ধা নিহত আহত ১০

ঢাকায় ঝগড়ার জেরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংঘর্ষ, বৃদ্ধা নিহত আহত ১০

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

বিদ্যালয়ের টয়লেট থেকে ছাত্রী উদ্ধার, প্রধান শিক্ষককে শোকজ

বিদ্যালয়ের টয়লেট থেকে ছাত্রী উদ্ধার, প্রধান শিক্ষককে শোকজ

বান্দরবানে যাত্রীবাহী গাড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণ

বান্দরবানে যাত্রীবাহী গাড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণ

গার্মেন্টসকর্মীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক ৬

গার্মেন্টসকর্মীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক ৬

সর্বশেষ

দুর্নীতিবাজদের শাস্তি নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

দুর্নীতিবাজদের শাস্তি নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসিসহ ৪ জনকে বদলি

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসিসহ ৪ জনকে বদলি

ইস্যু আফগানিস্তান: ৩ দিনের ভারত সফরে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইস্যু আফগানিস্তান: ৩ দিনের ভারত সফরে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

গুগলও আনছে ফোল্ডেবল স্মার্টফোন

গুগলও আনছে ফোল্ডেবল স্মার্টফোন

© 2021 Bangla Tribune