X
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

বিদেশগামী কর্মীদের টিকার জন্য নিবন্ধন শুরু 

আপডেট : ০৫ জুলাই ২০২১, ১৯:৫৭

বিদেশগামী কর্মীদের টিকা গ্রহণের জন্য দ্বিতীয় ধাপে সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে নিবন্ধন শুরু হয়েছে। সোমবার (৫ জুলাই) অনলাইনে এর উদ্বোধন করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। অনলাইনে যুক্ত ছিলেন আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। এসময় আইসিটি বিভাগের কর্মকর্তারা সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে নিবন্ধন সম্পন্ন করার একটি ডেমো পরিচালনা করে দেখান।

প্রসঙ্গত, বিদেশগামী কর্মীদের টিকা নেওয়ার জন্য আমি প্রবাসী অ্যাপ ব্যবহার করে কিংবা জেলা জনশক্তি অফিসে গিয়ে বিএমইটি নিবন্ধন করার পর সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে টিকার জন্য নিবন্ধন করতে হবে। 

অনলাইনে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে আইসিটি বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে এনআইডি দিয়ে নিবন্ধনের পাশাপাশি বিশেষভাবে আরেকটি অপশন চালু করা হয়েছে যেখানে পাসপোর্ট নম্বর দিয়ে নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যাবে। নিবন্ধন (পাসপোর্ট) অপশনে ক্লিক করলে একটি পাতা চালু হবে। সেখানে শ্রেণি (ধরণ) নির্বাচন করতে হবে। এখানে তিনটি ধরণ আছে, সেখান থেকে বিদেশগামী বাংলাদেশি কর্মী নির্বাচন করলে আরেকটি উপশ্রেণি দেখানো হবে। উপশ্রেণিতে দুই ক্যাটাগরি আছে- সৌদিআরব ও কুয়েতগামী বাংলাদেশি কর্মী এবং অন্যান্য দেশে বিদেশগামী কর্মী। অপশন নির্বাচন করার পর একটি পাতা চালু হবে। সেখানে পাসপোর্ট নম্বর, জন্ম তারিখ এবং সিকিউরিটি কোড প্রদান করতে হবে। এসময় একটি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড (ওটিপি) নম্বর মোবাইলে চলে যাবে। সেই নম্বর প্রবেশ করে বাকি তথ্য যেমন- কোন কেন্দ্রে টিকা নেবেন, পেশা ইত্যাদি তথ্য দেওয়ার পর আবারও সাবমিট করতে হবে।

নিবন্ধন শেষ করার আগে আরেকটি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড (ওটিপি) নম্বর মোবাইলে চলে যাবে। সেটি উল্লেখ করলেই নিবন্ধন সম্পন্ন হবে।

  

উল্লেখ্য, সৌদিআরব ও কুয়েতগামী কর্মীদের জন্য ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে শুধু রাজধানীর ৭টি কেন্দ্রে। কেন্দ্রগুলো হলো ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল, শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতাল ও কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল।

আর অন্যান্য দেশে গমনকারী কর্মীদের ক্ষেত্রে সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে সারাদেশের জেলা উপজেলা পর্যায়ে সরকারি হাসপাতাল থেকে নেওয়া যাবে এই টিকা। তবে সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে সেই কেন্দ্র নির্বাচন করেই নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে।

আইসিটি বিভাগের কর্মকর্তারা আরও জানান, নিবন্ধনের পর মোবাইলে টিকা নেওয়ার কেন্দ্রের নামসহ তারিখ একটি এসএমএস’র মাধ্যমে জানানো হবে কেন্দ্র থেকেই। এসএমএস না আসলে টিকার জন্য কেন্দ্রে ভিড় না করারও অনুরোধ জানানো তারা। 

ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা এ বি এম খুরশিদ আলম জানান, ফাইজারের টিকা যে তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে হয় সেই সুবিধা ঢাকার বাইরে কোথাও নেই। তাই ঢাকার ৭টি হাসপাতালে এই ব্যবস্থা করতে হয়েছে। আর সিনোফার্ম সারাদেশেই দেওয়া যাবে। ফাইজারের টিকা প্রদানের প্রক্রিয়া বেশ জটিল তাই দিনে এক কেন্দ্রে ২০০ মানুষের বেশি আমরা দিতে পারবো না। 

আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, আমাদের রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় আন্তরিক। সেখানে কর্মীদের বিদেশ যাওয়ার জন্য একটা গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা আমরা সমাধানের জন্য বেশ কয়েকদিন ধরে চেষ্টা করছি। সবার অক্লান্ত চেষ্টায় পরিশ্রমে আমরা আজকে এই বিশেষ রেজিস্ট্রেশন উন্মুক্ত করতে যাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও যুক্ত ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ, আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, বিএমইটি মহাপরিচালক শহীদুল আলম, এনডিসি, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আইয়ূব চৌধূরী,ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টারের পরিচালক (এনটিএমসি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জিয়াউল আহসান প্রমুখ।

 

/এসও/এমআর/

সম্পর্কিত

রবিবার টিকা দেওয়া হয়েছে সাড়ে ৬ লাখ  

রবিবার টিকা দেওয়া হয়েছে সাড়ে ৬ লাখ  

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে আবারও দেশে গণটিকা কর্মসূচি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে আবারও দেশে গণটিকা কর্মসূচি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৫৭ লাখ মানুষ 

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৫৭ লাখ মানুষ 

কর্মীদের স্বার্থ রক্ষায় তৎপর মালয়েশিয়া সরকার

কর্মীদের স্বার্থ রক্ষায় তৎপর মালয়েশিয়া সরকার

‘করোনাকালে তথ্য অধিকারের সংকোচন ঘটেছে’

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১০

কোভিড-১৯ মহামারির ১৮ মাসে বাংলাদেশে জনগণের তথ্য অধিকারের ক্রমাগত লঙ্ঘন ও সংকোচনের নজিরবিহীন প্রবণতায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মানবাধিকার সংস্থা আর্টিকেল নাইনটিন।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক এ সংস্থাটির পর্যবেক্ষণ বলছে, মহামারির প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে একইরকম সমন্বয়হীনতা, কর্মপরিকল্পনায় অস্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার তীব্র অভাব বাংলাদেশে এই সঙ্কটকে গভীরতর করেছে। একই সঙ্গে রাষ্ট্রের বিভিন্ন যন্ত্রের হাতে তথ্যের অধিকার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা দমন-পীড়নের শিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত, যা সরকার প্রতিশ্রুত টেকসই, স্থিতিশীল ও অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ বিনির্মাণের পরিপন্থী প্রয়াস। 

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষে আজ সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে আর্টিকেল নাইনটিনের দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ফারুখ ফয়সল বলেন, “করোনাকালে সরকার নানা অজুহাত দেখিয়ে তথ্য পাওয়ার অধিকার ও সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করেছে। এমনকি করোনা ব্যবস্থাপনা, স্বাস্থ্য সেবা ও টিকা বিষয়ে সরকার অনেক সময় ভুল ও অসংগতিপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। স্বাস্থ্যখাতের চিহ্নিত অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ হলে সরকার উল্টো সংবাদমাধ্যম ও সাংবাদিকদের ওপরই খড়গহস্ত হয়েছে। এজন্য ২০১৮ সালের নিবর্তনমূলক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ শত বছরের পুরনো দাফতরিক গোপনীয়তা আইনের অপব্যবহার হচ্ছে।”  

উল্লেখ্য, আর্টিকেল নাইনটিন গণমাধ্যমে প্রকাশিত মতপ্রকাশজনিত অধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা নিয়মিতভাবে পর্যবেক্ষণ ও রেকর্ড করে। সংস্থাটি ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে আগস্ট পর্যন্ত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের হওয়া ১৭২টি মামলার ঘটনা রেকর্ড করেছে। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ৩০৮ জন ব্যক্তি এসব মামলায় অভিযুক্ত হয়েছেন, যাদের মধ্যে ৪১ জন সাংবাদিক। অভিযুক্তদের মধ্যে ১১৪ জনকে তাৎক্ষণিকভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে, যাদের অনেকেই এখনও জামিনের অপেক্ষায় আছেন। ২০২০ সালে ৩৬৮ জন ব্যক্তির বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া ১৯৭টি মামলার তথ্য রেকর্ড করা হয়। এর আগে ২০১৯ ও ২০১৮ সালে রেকর্ডকৃত মামলার সংখ্যা ছিল যথাক্রমে ৬৩টি ও ৩৪টি। বিচারপ্রক্রিয়া নিষ্পন্ন না হওয়ায় এসব মামলার ভুক্তভোগীদের বেশিরভাগ এখনও  গ্রেফতার-হয়রানির শিকার হচ্ছেন। 

ফারুখ ফয়সল আরও বলেন, “তথ্য পাওয়া নাগরিকের মৌলিক মানবাধিকার। একইভাবে ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা ও গোপনীয়তার সমান অধিকারও নাগরিকের রয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশে প্রায়ই ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে আড়ি পাতা এবং গোপন ফোনালাপ ফাঁস হয়ে যাওয়ার মতো উদ্বেগজনক ঘটনা ঘটছে। এরই মধ্যে প্রস্তাবিত ‘ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা আইন’ ব্যক্তিতথ্য সুরক্ষার নামে বিরুদ্ধ মত নিয়ন্ত্রণের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হবে ও স্বাধীন মতপ্রকাশ আরও বাধাগ্রস্ত করবে বলে জনমনে শঙ্কা তৈরি হয়েছে।”

টেকসই উন্নয়ন অভীষ্টের (এসডিজি) অন্যতম লক্ষ্যমাত্রা (শান্তি, ন্যায়বিচার ও শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান) অর্জনে তথ্য অধিকার ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিতের কোনও বিকল্প নেই উল্লেখ করে ফারুখ ফয়সল বলেন, “বাংলাদেশের সংবিধান জনসাধারণের তথ্য অধিকার ও মৌলিক স্বাধীনতার সুরক্ষা দেয়। বাংলাদেশ জাতিসংঘের সর্বজনীন মানবাধিকার ঘোষণাপত্র (ইউডিএইচআর) এবং নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকারের আন্তর্জাতিক চুক্তিরও (আইসিসিপিআর) অন্যতম অনুস্বাক্ষরকারী দেশ। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পরিসরে বাংলাদেশের করা এই অঙ্গীকারগুলো প্রতিপালনে সচেষ্ট হতে আমরা সরকারের প্রতি আবারও আহ্বান জানাই।”

/এআরআর/এমএস/

সম্পর্কিত

রাজধানীতে পিকআপের ধাক্কায় ২ পথচারী আহত

রাজধানীতে পিকআপের ধাক্কায় ২ পথচারী আহত

ভ্যাপসা গরমের পর রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

ভ্যাপসা গরমের পর রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

ডিএনসিসির শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন ছয় জন

ডিএনসিসির শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন ছয় জন

দুই বিশিষ্ট ব্যক্তির নামে ডিএনসিসির দুই সড়কের নামকরণ

দুই বিশিষ্ট ব্যক্তির নামে ডিএনসিসির দুই সড়কের নামকরণ

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে দেড় ঘণ্টা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৫১

করোনা মহামারিতে নানা দ্বিধাদ্বন্দ্ব কাটিয়ে অবশেষে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) প্রকাশিত সময়সূচি অনুযায়ী আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে এসএসসি এবং ২ ডিসেম্বর থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। প্রতিদিন দুই শিফটে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে মোট দেড়ঘণ্টা।

পরীক্ষার সূচির বিশেষ নির্দেশনায় বলা হয়, কোডিড-১৯ অতিমারির কারণে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে অবশ্যই পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কক্ষে আসন গ্রহণ করতে হবে। পরীক্ষার সময় দেড় ঘণ্টা। এমসিকিউ সিকিউ ও সিকিউ অংশের পরীক্ষার মধ্যে কোনও বিরতি থাকবে না।

সকাল ১০টা থেকে অনুষ্ঠেয় পরীক্ষার ক্ষেত্রে অলিখিত উত্তরপত্র এবং বহুনির্বাচনি ওএমআর শিট বিতরণ, সকাল ১০টায় বহুনির্বাচনি প্রশ্নপত্র বিতরণ। সকাল সোয়া ১০টায় বহুনির্বাচনী উত্তরপত্র (ওএমআর শিট) সংগ্রহ ও সৃজনশীল প্রশ্নপত্র বিতরণ করা হবে। আর দুপুর ২টা থেকে অনুষ্ঠেয় পরীক্ষার ক্ষেত্রে দুপুর দেড়টায় অলিখিত উত্তরপত্র ও বহুনির্বাচনি ওএমআর শিট বিতরণ, দুপুর সোয় ২টায় উত্তরপত্র (OMR শিট) সংগ্রহ ও সৃজনশীল প্রশ্নপত্র বিতরণ করা হবে।
 
পরীক্ষার্থীরা তাদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান প্রধানের নিকট থেকে পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে তিনদিন আগে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করবে।

শারীরিক শিক্ষা, স্বাস্থ্য বিজ্ঞান ও খেলাধুলা এবং ক্যারিয়ার শিক্ষা বিষয়ে এনসিটিবির নির্দেশনা অনুসারে ধারাবাহিক মূল্যয়নের মাধ্যমে প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠাগুলো সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে সরবরাহ করবে। প্রতিষ্ঠান নিজ নিজ পরীক্ষার্থীর ব্যবহারিক খাতা (নোটবুক) এর নম্বর প্রদান করে নম্বরগুলো ২৮ নভেম্বরের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে সরবরাহ করবে। সংশ্লিষ্ট কেন্দ্র ব্যবহারিক খাতার (নোটবুক) নম্বরের সঙ্গে ধারাবাহিক মূল্যায়নে প্রাপ্ত নম্বর বোর্ডের ওয়েবসাইটে অনলাইনে পাঠাবে।

পরীক্ষার্থীগণ তাদের নিজ নিজ উত্তরপত্রের ওএমআর (OMR) নামে তার পরীক্ষার রোল নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, বিষয় কোড ইত্যাদি যথাযথভাবে লিখে বৃত্ত ভরাট করবে। কোনও অবস্থাতেই উত্তপত্র ভাঁজ করা যাবে না। 

পরীক্ষার্থীকে সৃজনশীল বা রচনামূলক (তত্ত্বীয়), বহুনির্বাচনি ও ব্যবহারিক খাতার (নোটবুক) নম্বরের অংশে পৃথকভাবে পাস করতে হবে। পরীক্ষার্থী কেবল রেজিস্ট্রেশন ও প্রবেশপত্রে বর্ণিত বিষয়/বিষয়গুলোর পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। কোনও অবস্থাতেই ভিন্ন বিষয়ে অংশগ্রহণ করতে পারবে না।

কোনও পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা নিজ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে না। পরীক্ষার্থী স্থানান্তরের মাধ্যমে আসন বিন্যাস করতে হবে। পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষায় সাধারণ সাইন্টিফিক ক্যালকুলেটর ব্যবহার করতে পারবে। প্রোগ্রামিং ক্যালকুলেটর ব্যবহার করা যাবে না। কোনও ব্যক্তি বা পরীক্ষার্থী পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন আনতে এবং ব্যবহার করতে পারবেন না। শুধুমাত্র কেন্দ্র সচিব ফিচার ফোন (স্মার্ট ফোন ব্যতীত) ব্যবহার করতে পারবেন। 

সৃজনশীল বা রচনামূলক (তত্ত্বীয়) ও বহুনির্বাচনি পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীর উপস্থিতির জন্য একই উপস্থিতি পত্র ব্যবহার করতে হবে। পরীক্ষার ফল প্রকাশের সাতদিনের মধ্যে পুনর্নিরীক্ষার জন্য অনলাইনে এসএমএস-এর মাধ্যমে আবেদন করা যাবে বলেও নির্দেশনায় জানানো হয়েছে।

/এসএমএ/ইউএস/

সম্পর্কিত

২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার সময়সূচি

২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার সময়সূচি

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

অনিবন্ধিত ঋণ বিতরণকারী সংস্থা বন্ধে ব্যবস্থা নিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৩৪

দেশজুড়ে বিভিন্ন গ্রাম-অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া অনিবন্ধিত ঋণের ব্যবসা বন্ধে এবং জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে আগামী ৪৫ দিনের মধ্যে সারাদেশে অনিবন্ধিত সুদকারবারিদের তালিকা করতে বাংলাদেশ ব্যাংককে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি ওই তালিকা করার সময় অনিবন্ধিত কারও নাম পেলে তা বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ সংক্রান্ত রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান ও বিচারপতি জাকির হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব আদেশ দেন।

আদালতের রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। এর আগে গত ৭ সেপ্টেম্বর এ রিট দায়ের করেন তিনি।

রিট আবেদনে বলা হয়, দেশের প্রত্যেকটি এলাকায়, প্রতিটি গ্রামে সমবায় সমিতির নামে সুদের ব্যবসা চলছে। আবার অনেকে ব্যক্তিগতভাবে ঋণ দেওয়ার নামে উচ্চ হারে সুদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। এসব ব্যবসায় কোনও নিবন্ধন নেই তাদের। সাধারণ মানুষ এসব সুদকারবারিদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে। তাদের সাপ্তাহিক ও মাসিক ভিত্তিতে আদায় করা সুদের পরিমাণও আকাশ ছোঁয়া। ১০ হাজার টাকায় প্রতি সপ্তাহের সুদ ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা। কোন কোন ক্ষেত্রে ১ হাজার টাকা বা মাসে সুদ হিসেবে দুই থেকে আড়াই হাজার টাকা পর্যন্ত আদায় করেন তারা।

রিট আবেদনে আরও বলা হয়, অনিবন্ধিতভাবে গজিয়ে ওঠা এসব সমবায় সমিতি ও সুদকারবারি থেকে ঋণ নিয়ে সুদের বোঝা টানতে টানতে অনেক পরিবার নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। অনেক ক্ষেত্রে প্রশাসনের সামনেই তারা সুদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন।

তাই সারাদেশের অনিবন্ধিত সুদের সব ধরনের ব্যবস্থা বন্ধে রিট আবেদনে আদালতের নির্দেশনা প্রার্থনা করা হয়।

/বিআই/এমএস/

সম্পর্কিত

বিদেশগমনে দুদক নিষেধাজ্ঞা দিতে পারবে কি না- সিদ্ধান্তের অপেক্ষা বাড়লো

বিদেশগমনে দুদক নিষেধাজ্ঞা দিতে পারবে কি না- সিদ্ধান্তের অপেক্ষা বাড়লো

রাবির সাবেক ভিসির বিরুদ্ধে দুদককে তদন্তের নির্দেশনা স্থগিত

রাবির সাবেক ভিসির বিরুদ্ধে দুদককে তদন্তের নির্দেশনা স্থগিত

দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাওয়ায় ঘুমন্ত স্বামীর গায়ে ফুটন্ত তেল

দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাওয়ায় ঘুমন্ত স্বামীর গায়ে ফুটন্ত তেল

টিকটক আসক্তিতে ঘর ছাড়া কিশোরী ময়মনসিংহে উদ্ধার

টিকটক আসক্তিতে ঘর ছাড়া কিশোরী ময়মনসিংহে উদ্ধার

পর্যটন কর্মীদের শ্রম অধিকার আদায়ে সাত দফা দাবি

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:২২

পর্যটন খাতের কর্মীদের শ্রম অধিকার নিশ্চিত করতে তাদের শ্রম আইনে অন্তর্ভুক্ত এবং পর্যটন-হোটেল-রেস্তোঁরাকে শিল্প হিসেবে ঘোষণাসহ সাত দফা দাবি জানিয়েছে ট্যুরিজম অ্যান্ড হোটেলস ওয়ার্কার্স-এমপ্লয়িজ ফেডারেশন।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিশ্ব পর্যটন দিবসের শোভাযাত্রা পূর্ব আলোচনা সভায় তারা এই দাবি জানায়।

সভায় বক্তারা জানান, প্রাকৃত্রিক সৌন্দর্য এবং ঐতিহাসিক বহু নিদর্শনের কারণে বাংলাদেশে পর্যটন খাতে ব্যাপক সম্ভাবনা থাকলেও বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তেমন কোনও সহয়তা আসছে না। ব্যক্তি প্রচেষ্টায় বিভিন্ন জায়গায় পর্যটন ক্ষেত্র গড়ে উঠেছে। কিন্তু এই পর্যটন শিল্পের বিকাশে দক্ষ কর্মী সেবা অপরিহার্য। তাই বাংলাদেশের পর্যটন খাতকে আরও শক্তিশালী করতে পর্যটন খাতে দক্ষ শ্রমের সরবরাহ বাড়াতে হবে। তার জন্য পর্যটন কর্মীদের শ্রম অধিকার এবং মর্যাদা নিশ্চিত করতে হবে।

পর্যটন শ্রমিকদের অধিকার আদায়ে বাংলাদেশ ট্যুরিজম অ্যান্ড হোটেলস ওয়ার্কার্স এমপ্লয়িজ ফেডারেশন এর পক্ষ হতে শ্রম আইন বাস্তবায়নের দাবিতে শক্তিশালী আন্দোলন গড়ে তুলতে দেশের সকল পর্যটন কর্মীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানায়।

বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০২১ উদযাপনে শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয় উপস্থিত ছিলেন, ফেডারেশনের আহ্বায়ক রাশেদুর রহমান রাশেদ সদস্য সচিব আহসান হাবিব বুলবুল, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতনসহ আরও অনেকে।

/জেডএ/ইউএস/

সম্পর্কিত

জনবল সংকটে ট্যুরিজম বোর্ড, কাজের চাপে চাকরি ছাড়তে চান কর্মকর্তারা

জনবল সংকটে ট্যুরিজম বোর্ড, কাজের চাপে চাকরি ছাড়তে চান কর্মকর্তারা

বিশ্ব পর্যটন সংস্থা কমিশনের ভাইস চেয়ার বাংলাদেশ 

বিশ্ব পর্যটন সংস্থা কমিশনের ভাইস চেয়ার বাংলাদেশ 

পর্যটন করপোরেশনের হোটেলের রুম বুকিং দেওয়া যাবে অনলাইনে

পর্যটন করপোরেশনের হোটেলের রুম বুকিং দেওয়া যাবে অনলাইনে

খুলছে পর্যটন কেন্দ্র, স্বস্তিতে ব্যবসায়ীরা

খুলছে পর্যটন কেন্দ্র, স্বস্তিতে ব্যবসায়ীরা

ট্রাফিক পুলিশের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের বাইকে আগুন দিলেন চালক

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৪৬

রাজধানীর বাড্ডা লিংক রোড এলাকায় রাইড শেয়ারিং অ্যাপস পাঠাওয়ের এক মোটর সাইকেলচালক ট্রাফিক পুলিশের উপর ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের মোটর সাইকেলে নিজেই আগুন দিয়েছেন। ওই চালককে আটক করে থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালের দিকে এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশের সঙ্গে কথা বলে ভিডিও’র ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে।

ভিডিওচিত্রে দেখা যায়, ওই মোটরসাইকেল চালক ট্রাফিক সংক্রান্ত কোনও মামলার বিষয় নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছেন। ওই প্রতিক্রিয়ার এক পর্যায়ে তিনি নিজের মোটরসাইকেলে পেট্রোল ছড়িয়ে আগুন ধরিয়ে দেন। আশেপাশে থাকা লোকজন মোটরসাইকেলে পানি ঢেলে আগুন নেভানোর চেষ্টা করলে এতে ওই চালক বাধা দেন। তিনি আরও পেট্রোল ঢেলে দিলে মোটরসাইকেলটিতে দাউ-দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখা যায়।

বাড্ডা থানা সূত্রে জানা যায়, ওই ক্ষুব্ধ ব্যক্তি রাজধানীর লিংক রোড এলাকায় ট্রাফিক আইন অমান্য করায় কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ তার কাগজপত্র দেখতে চান। কথাবার্তার এক পর্যায়ে তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের গাড়িতে আগুন লাগান।

এ বিষয়ে বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, ওই ব্যক্তি রাজধানীর লিংক রোড এলাকায় ট্রাফিক আইন অমান্য করায় দায়িত্বরত একজন ট্রাফিক সার্জেন্ট তার কাগজপত্র দেখতে চান। এর পরিপ্রেক্ষিতে সে ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের মোটরসাইকেল আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে পুলিশ তাকে থামিয়ে মোটরসাইকেলটির আগুন নিভায়।

তিনি বলেন, মোটরসাইকেলটি এবং ওই বিক্ষুব্ধ চালককে আমরা থানায় নিয়ে এসেছি। তাকে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করছি। তার ক্ষুব্ধ হওয়ার কারণটি এবং সে কেন এমনটি করেছেন বুঝার চেষ্টা করছি।

গুলশান ট্রাফিক বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. রবিউল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি যেখানে ঘটেছে সেখানে আগে থেকেই ট্রাফিক সদস্যদের বলা ছিল কোনও মোটরসাইকেল সকালবেলা সেখানে দাঁড়াবে না। ঘটনাস্থলে রাইড শেয়ারিংয়ের একটি মোটরসাইকেল দাঁড়ালে ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা তার কাছে কাগজপত্র দেখতে চান। কিন্তু মোটরসাইকেল চালক কাগজপত্র না দেখিয়ে উলটো রেগে নিজের বাইকে নিজেই আগুন ধরিয়ে দেন।

মোটরসাইকেল চালকের বিরুদ্ধে কোনও মামলা দেওয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, মামলা দেওয়া হয়নি। তার কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করার সময় তিনি নিজেই ওই আগুন ধরিয়ে দেন।

পাঠাওচালক পুলিশ হেফাজতে থাকায় তার সঙ্গে কথা বলা যায়নি। ক্ষুব্ধ ওই চালকের নাম শওকত আলম সোহেল বলে জানা গেছে।

/এআরআর/এমএস/

সম্পর্কিত

‘করোনাকালে তথ্য অধিকারের সংকোচন ঘটেছে’

‘করোনাকালে তথ্য অধিকারের সংকোচন ঘটেছে’

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে দেড় ঘণ্টা

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে দেড় ঘণ্টা

অনিবন্ধিত ঋণ বিতরণকারী সংস্থা বন্ধে ব্যবস্থা নিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

অনিবন্ধিত ঋণ বিতরণকারী সংস্থা বন্ধে ব্যবস্থা নিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

পর্যটন কর্মীদের শ্রম অধিকার আদায়ে সাত দফা দাবি

পর্যটন কর্মীদের শ্রম অধিকার আদায়ে সাত দফা দাবি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রবিবার টিকা দেওয়া হয়েছে সাড়ে ৬ লাখ  

রবিবার টিকা দেওয়া হয়েছে সাড়ে ৬ লাখ  

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে আবারও দেশে গণটিকা কর্মসূচি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে আবারও দেশে গণটিকা কর্মসূচি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৫৭ লাখ মানুষ 

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৫৭ লাখ মানুষ 

কর্মীদের স্বার্থ রক্ষায় তৎপর মালয়েশিয়া সরকার

কর্মীদের স্বার্থ রক্ষায় তৎপর মালয়েশিয়া সরকার

টিকা পরিচালনায় সরকারকে সহযোগিতা করছে ইউএসএআইডি

টিকা পরিচালনায় সরকারকে সহযোগিতা করছে ইউএসএআইডি

ঢাকা মেডিক্যালে প্রবাসীদের ফাইজারের টিকা দেওয়া শুরু

ঢাকা মেডিক্যালে প্রবাসীদের ফাইজারের টিকা দেওয়া শুরু

৫ লাখ ৭৭ হাজার ডোজ টিকা দেওয়া হলো আজ

৫ লাখ ৭৭ হাজার ডোজ টিকা দেওয়া হলো আজ

ভ্যাকসিন প্রয়োগেই কয়েক হাজার কোটি টাকা ব্যয় হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ভ্যাকসিন প্রয়োগেই কয়েক হাজার কোটি টাকা ব্যয় হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় দেড় কোটি মানুষ

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় দেড় কোটি মানুষ

সাড়ে ৫ লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

সাড়ে ৫ লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

সর্বশেষ

আন্দোলনে বিএনপির নেতা কে, জানতে চান ওবায়দুল কাদের

আন্দোলনে বিএনপির নেতা কে, জানতে চান ওবায়দুল কাদের

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দারুণ খেলুক শামীম প্রত্যাশা চাঁদপুরবাসীর 

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দারুণ খেলুক শামীম প্রত্যাশা চাঁদপুরবাসীর 

‘করোনাকালে তথ্য অধিকারের সংকোচন ঘটেছে’

‘করোনাকালে তথ্য অধিকারের সংকোচন ঘটেছে’

পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ে চাকরি, নেবে ২৫ জন

পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ে চাকরি, নেবে ২৫ জন

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে দেড় ঘণ্টা

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে দেড় ঘণ্টা

© 2021 Bangla Tribune