X
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

ফের আন্দোলনে ‘অবৈধ’ নিয়োগপ্রাপ্তদের একাংশ

আপডেট : ১১ জুলাই ২০২১, ১৮:২৪

পদায়নের দাবিতে ফের আন্দোলনে নেমেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের শেষ কর্মদিবসে ‘অবৈধভাবে’ নিয়োগপ্রাপ্তদের একাংশ।

রবিবার (১১ জুলাই) বেলা ১১টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যান্ত রুটিন উপাচার্যের দফতরের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন তারা।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, সকাল সাড়ে ১০টায় উপাচার্যের কনফারেন্স কক্ষে কৃষি প্রকল্পের বার্ষিক আয়-ব্যয়ের হিসাব সংক্রান্ত সভা শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 

বিষয়টি জানতে পেরে বেলা সোয়া ১১টার দিকে নিয়োগপ্রাপ্ত ছাত্রলীগের ২০-২৫ জন নেতাকর্মী উপাচার্যের দফতরের সামনে অবস্থান নেন। প্রায় ঘণ্টাখানেক অবস্থানের পর উপাচার্যের কনফারেন্স রুমে প্রবেশ করেন তারা। উপাচার্যের সঙ্গে কথা বলে সাধারণ শিক্ষার্থীদের বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার বিষয়ে মিটিংয়ের জন্য এক ঘণ্টা আন্দোলন স্থগিত করেন তারা। দুপুর ২টার দিকে ফের আন্দোলনকারীরা উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা দফতরে আসেন। প্রায় ঘণ্টা খানেক উপাচার্যের সঙ্গে কথা বলে ৩টার দিকে দফতর থেকে বের হয়ে যান তারা।

জানতে চাইলে নিয়োগপ্রাপ্ত রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি আতিকুর রহমান সুমন বলেন, ‘আমরা কর্মস্থলে যোগ দিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে তিন দিন আলটিমেটাম দিয়েছিলাম। কিন্তু এর মধ্যে সরকারঘোষিত লকডাউন শুরু হয়। লকডাউনের কারণে নির্ধারিত সময় শেষ হয়ে গেলেও নিশ্চুপ ছিলাম। কিন্তু আজ আমরা জানতে পারলাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে অফিস কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তারা বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ মিটিং করেছেন আজ। আমরা উপচার্যকে বলেছি, আমাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হওয়ার আগে এফসি, সিন্ডিকেটসহ কোনও গুরুত্বপূর্ণ মিটিং করা যাবে না। উপাচার্য গুরুত্বপূর্ণ সভা করবেন না বলে আশ্বস্ত করেছেন। তাই আজকের জন্য আমাদের আন্দোলন স্থগিত করেছি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক লিয়াকত আলী বলেন, আন্দোলনকারীরা প্রথম থেকে এফসি ও সিন্ডিকেট সভা না করার দাবি করে আসছেন। উপাচার্যও বলেছেন তিনি এসব সভা করবেন না। তারপরও আজ তারা অবস্থান নেন উপাচার্যের দফতরে। উপাচার্য বলেছেন, তিনি আগের অবস্থানে আছেন।

প্রসঙ্গত, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য বিদায়ী উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুস সোবহান শেষ কর্মদিবসে ১৩৮ জনকে অ্যাডহকে নিয়োগ দেন। ওই দিন বিকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এই নিয়োগকে অবৈধ ঘোষণা করে। একই দিন সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিয়োগপ্রাপ্তদের যোগদানে স্থগিতাদেশ দেয়। ফলে নিয়োগপ্রাপ্তরা কর্মস্থলে যোগদান করতে পারেননি। এরপর থেকে নিয়োগপ্রাপ্তরা কর্মস্থলে পদায়নের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে আসছেন।

/এএম/

সম্পর্কিত

ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন দুই শিক্ষিকা: পুলিশ

ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন দুই শিক্ষিকা: পুলিশ

১৩ টাকা কেজিতে বিদ্যালয়ের বই বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক

১৩ টাকা কেজিতে বিদ্যালয়ের বই বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক

বগি লাইনচ্যুত, বিকল্প লাইনে ঢাকায় গেলো সুন্দরবন এক্সপ্রেস

বগি লাইনচ্যুত, বিকল্প লাইনে ঢাকায় গেলো সুন্দরবন এক্সপ্রেস

কালভার্ট আছে রাস্তা নেই, দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা

কালভার্ট আছে রাস্তা নেই, দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা

সাবেক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ৩৫ কোটি টাকা লন্ডারিংয়ের মামলা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৩৯

প্রতারণার মাধ্যমে ৩৫ কোটি ৪২ লাখ টাকা উপার্জনের অভিযোগে দিনাজপুরের আলোচিত সাবেক যুবলীগ নেতা খলিলুল্লাহ আজাদ মিল্টনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। গত ১৯ সেপ্টেম্বর মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের ৪(২) ধারায় মামলাটি করেন দিনাজপুর সিআইডির উপ-পুলিশ পরিদর্শক রোকনুজ্জামান। মামলায় মানি লন্ডারিং করা অর্থের পরিমাণ ৩৫ কোটি ৪২ লাখ ৩৭ হাজার ৫৮৫ টাকা বলা হয়েছে।

অভিযুক্ত খলিলুল্লাহ আজাদ মিল্টন দিনাজপুর জেলা যুবলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক ও খানসামা উপজেলার পূর্ববাসুলী গ্রামের হাবিবুল্লাহ আজাদের ছেলে। এই মামলায় তার মা রাহিমা খানমসহ অজ্ঞাত আরও ২/৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলায় বাদী বলেন, ‘মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ২০১২ ও মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ বিধিমালা ২০১৯ অনুযায়ী অনুসন্ধানের সময় প্রাপ্ত তথ্য-উপাত্ত ও সাক্ষ্য-প্রমাণ এবং বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের পক্ষ থেকে দেওয়া ব্যাংক হিসাব সংক্রান্ত তথ্য ও বিভিন্ন উৎস থেকে প্রাপ্ত তথ্যাদি বিশ্লেষণ এবং সরেজমিনে অনুসন্ধান করে মামলা করা হয়।’

মামলায় উল্লেখ করা হয়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে অর্জিত অর্থ সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ দিনাজপুর শাখায় ১২টি হিসাব নম্বর; মেঘনা ব্যাংক লিমিটেড রংপুর শাখায় মারিয়া ডেইরিং অ্যান্ড ফেটানিং সেন্টারের নামে একটি, মেসার্স সর্দার হাসকিং মিলের নামে রুপালী ব্যাংক চেহেলগাজী শাখায় একটি, সোনালী ব্যাংক লিলির মোড় শাখায় একটি, সোনালী ব্যাংক খানসামা শাখায় একটি এবং মেসার্স ডিজিটাল কনস্ট্রাকশন নামে সোনালী ব্যাংক দিনাজপুর শাখায় একটি হিসাব খোলা রয়েছে। এই হিসাবগুলোতে ২০১৩ সালের জুন মাস থেকে ২০২১ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত ৩৪ কোটি ৮৩ লাখ ২৯ হাজার ৮১১ টাকা জমা হয়। তার মা রহিমা খানমের নামে সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের দিনাজপুর শাখার একটি হিসাব নম্বরে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে ৫৯ লাখ সাত হাজার ৭৭৪ টাকা জমা হয়। ওই ব্যাংক হিসাবগুলোতে উল্লেখযোগ্য ও অস্বাভাবিক লেনদেনের তথ্য পাওয়া যায়। তারা বিভিন্ন সময়ে বাড়ি, জমিজমা নিজ নামে-বেনামে কিনে এবং আত্মীয়-স্বজনের মাধ্যমে স্থানান্তর, হস্তান্তর ও রূপান্তরের অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়।

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের দিনাজপুর শাখার ব্যবস্থাপক ফারুক হোসেন বলেন, ‘মিল্টন ও তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামে বেশ কয়েকটি এফডিআর, ডিপিএস, সঞ্চয়ী হিসাব রয়েছে। তবে সেগুলো ব্যাংকের নিয়ম মোতাবেকই হয়েছে।’

মামলায় আরও উল্লেখ করা হয়, আসামি খলিলুল্লাহ আজাদ মিল্টন ওরফে খায়রুল আজাদ মিল্টন একজন প্রতারক, টেন্ডারবাজ, বালুমহল ও জলমহল দখলকারী, ভূমিখেকো, সুধের ব্যবসায়ী এবং সংঘবদ্ধ অপরাধচক্রের মূল হোতা।

মামলার বাদী রোকনুজ্জামান আরও বলেন, ‘ছায়া তদন্ত করেই মামলা দায়ের করেছি। এখন এখানে আমার আর কোনও কার্যক্রম নেই। নতুন করে তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ হবে। সিআইডি সদর দফতর চাইলে তারাও তদন্ত করতে পারে। প্রাথমিক সত্যতার বিষয়গুলো এজাহারে উল্লেখ রয়েছে।’

উল্লেখ্য, মিল্টনের বিরুদ্ধে বালুমহল ইজারা নিয়ে দেওয়ার নাম করে অর্থ আদায়, সরকার কর্মচারীকে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও সরকারি কাজে বাধা এবং মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বাদীদের ভয়ভীতি ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে চুল, কেজি ৫৩০০ টাকা

ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে চুল, কেজি ৫৩০০ টাকা

মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসা শিক্ষক ও ইমামদের টার্গেট করতেন রাগীব

মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসা শিক্ষক ও ইমামদের টার্গেট করতেন রাগীব

অন্য চিকিৎসকের নাম-পদবী ব্যবহার করে চিকিৎসা

অন্য চিকিৎসকের নাম-পদবী ব্যবহার করে চিকিৎসা

নমুনা পরীক্ষার আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ করলেন টেকনোলজিস্ট

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:২১

করোনার নমুনা পরীক্ষার আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ করে হিসাব দিতে না পেরে পালিয়ে গেছেন খুলনা জেনারেল হাসপাতালের মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট (ল্যাব) প্রকাশ কুমার দাশ। তিনি বিদেশগামীদের নমুনা পরীক্ষার দায়িত্বে ছিলেন। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। গত ২৩ সেপ্টেম্বর তিনি পালিয়ে গেলেও বিষয়টি সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সাংবাদিকদের জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

হাসপাতাল সূত্র জানায়, তদন্ত কমিটির মুখোমুখি হয়ে টাকার আত্মসাতের কথা স্বীকার করেছেন প্রকাশ কুমার। হিসাবসহ টাকা বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য সময় নিয়ে চার মাস অতিবাহিত করেন। ২৩ সেপ্টেম্বর অফিস ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যান।

খুলনার সিভিল সার্জন ও হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ বলেন, প্রকাশ কুমারের পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে। তিনি যাতে দেশত্যাগ করতে না পারেন সে জন্য পুলিশের সহযোগিতা চেয়ে আবেদন করা হয়েছে। মন্ত্রণালয়সহ স্বাস্থ্য বিভাগের দফতরগুলোকে লিখিতভাবে বিষয়টি জানানো হয়েছে। আইনজীবীর সঙ্গে আলোচনা চলছে। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।

সিভিল সার্জন আরও বলেন, ২০২০ সালের জুলাই মাস থেকে এই অপকর্ম করে আসছিলেন প্রকাশ কুমার। তিনি এখানে দায়িত্ব নিয়েছেন ২০২০ সালের ডিসেম্বরে। অর্থ নয়-ছয়ের বিষয়টি চলতি বছরের মে মাসে আমাদের নজরে আসে। তখন প্রকাশকে সব হিসাব বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য নোটিশ দেওয়া হয়। কিন্তু আজ-কাল করে সময়ক্ষেপণ করেন। করোনার নমুনা পরীক্ষার চাপের দোহাই দিয়ে হিসাব দিতে আরও সময় নেন। এমন পরিস্থিতিতে গত ২২ আগস্ট ঘটনা তদন্তে পাঁচ সদস্যর কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত শেষে ১৬ সেপ্টেম্বর প্রতিবেদন জমা দেয় কমিটি। প্রতিবেদনে প্রকাশ কুমার দুই কোটি ৫৮ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে উল্লেখ করা হয়।

ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ বলেন, প্রতিবেদন পেয়ে তাকে দ্রুত সময়ের মধ্যে হিসাব দেওয়ার জন্য বলা হয়। কিন্তু বিলম্ব করতেই থাকেন। ২৩ সেপ্টেম্বর হিসাব না দিয়ে তাকে অফিস ত্যাগে নিষেধ করা হয়। ওই দিন জোহরের নামাজের পর আত্মীয়ের মৃত্যুর সংবাদ দিয়ে দেখতে যাওয়ার কথা বলে প্রকাশ হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যান। এরপর আর ফেরেননি।

/এএম/

সম্পর্কিত

সড়ক চার লেন করা নিয়ে নড়াইলে দুপক্ষের মাঝে উত্তেজনা

সড়ক চার লেন করা নিয়ে নড়াইলে দুপক্ষের মাঝে উত্তেজনা

ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন দুই শিক্ষিকা: পুলিশ

ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন দুই শিক্ষিকা: পুলিশ

পর্যটক টানতে সুন্দরবনে হচ্ছে ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্র

পর্যটক টানতে সুন্দরবনে হচ্ছে ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্র

শৈলকুপায় সাপের কামড়ে দুই জনের মৃত্যু

শৈলকুপায় সাপের কামড়ে দুই জনের মৃত্যু

ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে চুল, কেজি ৫৩০০ টাকা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৫২

দেশের বাজারে চাহিদা থাকায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে দেশটির নারীদের মাথার ফেলে দেওয়া চুল। আমদানি করা এসব চুল রাজধানীসহ স্থানীয় হেয়ার ক্যাপের কারখানাগুলোতে সরবরাহ করা হচ্ছে।

হিলি স্থলবন্দরের নাশাত ট্রেডার্স ও ঢাকার আশিক এন্টারপ্রাইজ নামের দুই আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান এ চুল আমদানি করছে। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আর কে এক্সপোর্টার্স ও হিউম্যান হেয়ার নামের দুটি রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান এ পণ্য বাংলাদেশে পাঠাচ্ছে।

মেসার্স নাশাত ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী নুর ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘সম্প্রতি আমাদের এই অঞ্চলে বেশ কিছু হেয়ার ক্যাপের কারখানা গড়ে উঠেছে। এসব কারখানাগুলোতে চুল দিয়ে বিভিন্ন ক্যাপ তৈরি করা হয়, যা দেশের চাহিদা মিটিয়ে দেশের বাইরেও রফতানি হয়ে থাকে। এসব কারখানার মূল কাঁচামাল হলো নারীদের মাথার চুল। ফলে এসব চুলের বেশ চাহিদা তৈরি হয়েছে। এসব কারখানার চুলের সেই বাড়তি চাহিদা মেটাতে ভারত থেকে নারীদের মাথার পরিত্যক্ত চুলগুলো আমদানি করা হচ্ছে। সাধারণত নারীরা চিরুনি দিয়ে মাথা আঁচড়ানোর সময় চিরুনির সঙ্গে যে চুল বেঁধে যায়, আমরা এসব চুল আমদানি করছি। দেশের বিভিন্ন স্থানে অবস্থিত চুলের কারখানাগুলোতে তা সরবরাহ করা হচ্ছে। বর্তমানে ভারত থেকে প্রতি কেজি চুল ৬৩ মার্কিন ডলার (পাঁচ হাজার ৩০০ টাকা) মূল্যে আমদানি করা হচ্ছে। যা কাস্টমসে শুল্কায়ন করা হচ্ছে একই মূল্যে। ১৫ শতাংশ শুল্ক বিদ্যমান থাকায় কেজি প্রতি শুল্ক পরিশোধ করতে হচ্ছে ৮৫০ টাকা করে।’

হিলি স্থলবন্দরে ভারত থেকে আসা চুলবাহী ট্রাক

তিনি আরও বলেন, ‘কারখানাগুলো এসব চুলের প্রথমেই গিট্টু খুলে সর্টিং করে। এরপর প্রক্রিয়াজাত করে তা আবার শ্যাম্পু ও বিভিন্ন মেডিসিন ব্যবহার করে ধুয়ে প্রক্রিয়াজাত করে তারপর হেয়ার ক্যাপ তৈরি করে।’

হিলি স্থল শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা এস এম নুরুল আলম খান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে মাথার চুল আমদানি হচ্ছে। চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের জুলাই থেকে শুরু করে ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্দর দিয়ে ভারত থেকে চার হাজার ৭৮০ কেজি চুল আমদানি হয়েছে। এসব চুল থেকে সরকারি রাজস্ব বাবদ ২০ লাখ ২৭ হাজার টাকা আয় হয়েছে। বন্দর দিয়ে পণ্য আমদানি-রফতানিতে সরকারি নিয়মমাফিক সবধরনের সুযোগ-সুবিধা কাস্টমসের পক্ষ থেকে আমদানিকারকদের দেওয়া হচ্ছে।’

বন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের মাঝে পণ্য আমদানি-রফতানি বাণিজ্য স্বাভাবিক রয়েছে। বন্দর দিয়ে নিয়মিত পণ্যের পাশাপাশি সম্প্রতি কিছুদিন ধরে নারীদের মাথার ফেলে দেওয়া চুল আমদানি শুরু হয়েছে। নতুন এই পণ্য বন্দর দিয়ে আমদানির ফলে সরকারের রাজস্ব আয় যেমন বেড়েছে, তেমনি বন্দরের দৈনন্দিন আয় আগের তুলনায় বেড়েছে। একইসাথে বন্দরে কর্মরত শ্রমিকদের আয় পূর্বের তুলনায় বেড়েছে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

কুড়িগ্রামে সাহিত্যিক সৈয়দ শামসুল হকের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

কুড়িগ্রামে সাহিত্যিক সৈয়দ শামসুল হকের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

রোগে ঝরে পড়ছে পান, হতাশায় হিলির চাষিরা

রোগে ঝরে পড়ছে পান, হতাশায় হিলির চাষিরা

দিনাজপুর পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ১২ কোটি টাকা

দিনাজপুর পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ১২ কোটি টাকা

টেকনাফে অস্ত্র ও ইয়াবাসহ আটক ৩

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৫১

কক্সবাজারের টেকনাফে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের অভিযানে অস্ত্র ও মাদকসহ তিন জনকে আটক করা হয়েছে। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) ভোর রাত থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত টেকনাফের হোয়াইক্যং সাতঘরিয়া পাড়া এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়।

এ সময় তিনটি আগ্নেয়াস্ত্র, ১৫ রাউন্ড গুলি, ৭ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ৩৭ হাজার নগদ টাকা এবং ৩ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

আটক ব্যক্তিরা হলেন– টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের সাতঘরিয়া পাড়া এলাকার মৃত সৈয়দুল আমিনের ছেলে শাহনেওয়াজ (২০), নুর বশরের ছেলে আবুল বশর (২৯) এবং আলী করিমের স্ত্রী খালেদা খানম (৩৮)।

সোমবার বিকালে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর টেকনাফ বিশেষ জোনের সহকারী পরিচালক মো. সিরাজুল মোস্তফা জানান, তার নেতৃত্বে মাদকদ্রব্যের বিশেষ টিম ও র‍্যাব-১৫ সিপিসির টিমসহ যৌথদল গঠন করে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। উদ্ধার অস্ত্র, ইয়াবা, গুলি, নগদ টাকাসহ আটকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বিপুল পরিমাণ মাদক-অস্ত্রসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক

বিপুল পরিমাণ মাদক-অস্ত্রসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক

নির্মাণাধীন ভবন থেকে মালিকের মরদেহ উদ্ধার

নির্মাণাধীন ভবন থেকে মালিকের মরদেহ উদ্ধার

তিন গ্রামে যাওয়ার সড়ক নেই

তিন গ্রামে যাওয়ার সড়ক নেই

সড়ক চার লেন করা নিয়ে নড়াইলে দুপক্ষের মাঝে উত্তেজনা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:১৬

নড়াইল শহরের প্রস্তাবিত সড়কটি চার লেনে উন্নীত করার পক্ষে-বিপক্ষে মানববন্ধন কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে শহরে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালাচ্ছে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে চার লেনে উন্নীত করার পক্ষে-বিপক্ষের লোকজন শহরের রূপগঞ্জ এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচির ডাক দেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

চার লেনে উন্নীত করার পক্ষে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজার বাবা জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা গোলাম মর্তুজা স্বপন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি সরদার আলমগীর হোসেন আলম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি তারিকুল ইসলাম উজ্জ্বল, সাধারণ সম্পাদক এস এম পলাশ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে, চার লেন না করার জন্য জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মো. ওয়াহিদুজ্জামানসহ পৌর সুপার মার্কেটের ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ রেখে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। ব্যবসায়ীরা শতাধিক দোকান সোমবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বন্ধ রাখেন।

জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক জানান, প্রতিপক্ষ তার ব্যক্তিগত পাজেরো জিপ গাড়িটি ভাঙচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

নমুনা পরীক্ষার আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ করলেন টেকনোলজিস্ট

নমুনা পরীক্ষার আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ করলেন টেকনোলজিস্ট

পর্যটক টানতে সুন্দরবনে হচ্ছে ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্র

পর্যটক টানতে সুন্দরবনে হচ্ছে ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্র

শৈলকুপায় সাপের কামড়ে দুই জনের মৃত্যু

শৈলকুপায় সাপের কামড়ে দুই জনের মৃত্যু

হাবুডুবু খাচ্ছে প্রতাপনগরের ৩৫ হাজার মানুষ

হাবুডুবু খাচ্ছে প্রতাপনগরের ৩৫ হাজার মানুষ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন দুই শিক্ষিকা: পুলিশ

ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন দুই শিক্ষিকা: পুলিশ

১৩ টাকা কেজিতে বিদ্যালয়ের বই বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক

১৩ টাকা কেজিতে বিদ্যালয়ের বই বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক

বগি লাইনচ্যুত, বিকল্প লাইনে ঢাকায় গেলো সুন্দরবন এক্সপ্রেস

বগি লাইনচ্যুত, বিকল্প লাইনে ঢাকায় গেলো সুন্দরবন এক্সপ্রেস

কালভার্ট আছে রাস্তা নেই, দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা

কালভার্ট আছে রাস্তা নেই, দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা

রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্র করোনায় আক্রান্ত

রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্র করোনায় আক্রান্ত

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির তিন শীর্ষ নেতার জামিন

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির তিন শীর্ষ নেতার জামিন

৪ ঘণ্টা পর পাবনা-রাজশাহী রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

৪ ঘণ্টা পর পাবনা-রাজশাহী রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

রামেকের করোনা ইউনিটে ২৬ দিনে ১৫০ জনের মৃত্যু

রামেকের করোনা ইউনিটে ২৬ দিনে ১৫০ জনের মৃত্যু

৭০ বছর পর মায়ের সন্ধান পেলেন কুদ্দুস

৭০ বছর পর মায়ের সন্ধান পেলেন কুদ্দুস

আমি আপনাদের বেতনভুক্ত চাকর: পলক

আমি আপনাদের বেতনভুক্ত চাকর: পলক

সর্বশেষ

প্রতি কেন্দ্রে ৫০০ জনকে টিকা দেবে ডিএনসিসি

প্রতি কেন্দ্রে ৫০০ জনকে টিকা দেবে ডিএনসিসি

সাবেক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ৩৫ কোটি টাকা লন্ডারিংয়ের মামলা

সাবেক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ৩৫ কোটি টাকা লন্ডারিংয়ের মামলা

সারাদেশে রাইড শেয়ার চালকদের কর্মবিরতি কাল

সারাদেশে রাইড শেয়ার চালকদের কর্মবিরতি কাল

সিইউবির চিত্র প্রদর্শনীতে শেখ হাসিনার বর্ণাঢ্য জীবন

সিইউবির চিত্র প্রদর্শনীতে শেখ হাসিনার বর্ণাঢ্য জীবন

নির্বাচন কমিশনের জন্য কি মঙ্গল গ্রহ থেকে লোক আনবেন: কৃষিমন্ত্রী

নির্বাচন কমিশনের জন্য কি মঙ্গল গ্রহ থেকে লোক আনবেন: কৃষিমন্ত্রী

© 2021 Bangla Tribune