X
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

যুক্তরাষ্ট্রে ৩ কোটি মানুষের জন্য তীব্র গরমের সতর্কতা জারি

আপডেট : ১১ জুলাই ২০২১, ২২:৪৩

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলে ৩ কোটিরও বেশি মানুষের জন্য তীব্র গরমের সতর্ক বার্তা জারি করা হয়েছে। অঞ্চলটি এক সপ্তাহের মধ্যে দ্বিতীয় তাপপ্রবাহের ঘটনায় এই সতর্কতা জারি করা হলো। প্রথমবার তীব্র তাপপ্রবাহে তাপমাত্রার নতুন রেকর্ড হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি এখবর জানিয়েছে।

রবিবার আবহাওয়ার সতর্ক বার্তায় বলা হয়েছে, প্রশান্ত মহাসাগরের উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে সপ্তাহান্তে গরম উষ্ণ পরিস্থিতি বিরাজ করতে পারে।

ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিস জানায়, লাস ভেগাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। যা অঞ্চলটির সর্বকালের সর্বোচ্চ।

লাস ভেগাস, ফিনিক্স, সাহ হোস শহরে তীব্র গরম আবহাওয়ার সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

সতর্কতায় বলা হয়েছে, ৩ কোটির বেশি মানুষ তীব্র গরমের সতর্কতার আওতায় থাকবেন। রবিবারও বিপজ্জনক গরম ও শুষ্ক আবহাওয়া বিরাজ করবে।

জুন মাসের শেষ দিকে কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলে তীব্র তাপপ্রবাহ দেখা দিয়েছিল। টানা তিনদিন কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড ভেঙে যায়। মৃত্যুর সঠিক সংখ্যা জানা যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে তা কয়েকশ’ হবে।

/এএ/

সম্পর্কিত

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

রুশ যুদ্ধবিমানের ধাওয়ায় পালালো মার্কিন বোমারু বিমান

রুশ যুদ্ধবিমানের ধাওয়ায় পালালো মার্কিন বোমারু বিমান

বছর বছর নেওয়া লাগতে পারে করোনা টিকা, বলছেন ফাইজার সিইও

বছর বছর নেওয়া লাগতে পারে করোনা টিকা, বলছেন ফাইজার সিইও

মার্কিন হুমকি উপেক্ষা করে আরও রুশ ক্ষেপণাস্ত্র কিনবে তুরস্ক: এরদোয়ান

মার্কিন হুমকি উপেক্ষা করে আরও রুশ ক্ষেপণাস্ত্র কিনবে তুরস্ক: এরদোয়ান

অবৈধভাবে মন্দির ভাঙার প্রতিবাদে আদালতে মুসলিমরা

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৪০

ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লির জামিয়া নগরের নুর এলাকায় একটি হিন্দু মন্দির অবৈধভাবে ভেঙে ফেলার প্রতিবাদে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন স্থানীয় মুসলিমরা। হাই কোর্টের আবেদনে মন্দির ভাঙাকে কেন্দ্র করে যাতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা না ছড়ায় সেজন্যও আহ্বান জানানো হয়েছে।

কলকাতাভিত্তিক আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, জামিয়া নগর এলাকার ২০৬ নম্বর ওয়ার্ড কমিটির কিছু বাসিন্দা সম্প্রতি দিল্লি হাই কোর্টের দ্বারস্থ হন। আবেদনে তারা জানান, এলাকার কিছু অসাধু প্রোমোটার স্থানীয় দুষ্কৃতীদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ইতোমধ্যেই মন্দির চত্বরে থাকা ধর্মশালাটি খুবই অল্প সময়ের মধ্যে ভেঙে ফেলেছে। মন্দিরটি ভাঙার জন্য এতে থাকা থাকা ৮-১০টি মূর্তিও সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এ বার তাদের লক্ষ্য, মন্দিরটি ভেঙে ফেলে সেখানে বহুতল বা অন্য কোনও ভবন নির্মাণ করা। মন্দিরটি যাতে কোনোভাবেই ভাঙা নয় হয়, সে জন্য আদালতের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন আবেদনকারীরা।

আবেদনে আরও বলা হয়েছে, ১৯৭০ সালে নুর নগরে তৈরি হয়েছিল মন্দিরটি। তার পর থেকে প্রতিদিনই সেখানে পুজো ও কীর্তন হয়ে আসছে। নুর নগর লাগোয়া আর একটি এলাকায় ইতোমধ্যে মন্দির ভেঙে অবৈধ নির্মাণ কাজ শুরু হয়ে গেছে। নুর নগরেও যে কোনও সময়ে ওই মন্দিরটি ভেঙে ফেলা হবে বলে আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন এলাকার বাসিন্দারা।

জামিয়া নগরের বাসিন্দাদের আবেদন শুনে তিন দিন আগে দিল্লি হাই কোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব সচদেবের বেঞ্চ দিল্লি পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে, কোনও অবৈধ প্রক্রিয়ায় মন্দির চত্বর থেকে যাতে কোনও কিছু উচ্ছেদ না করা হয়। মন্দিরটিও যেন অক্ষত অবস্থায় থাকে।

এলাকায় যাতে শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় থাকে, পুলিশকে তা দেখতেও নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

 

/এএ/

সম্পর্কিত

রাজতন্ত্রের সংবিধান ফিরিয়ে আনছে তালেবান

রাজতন্ত্রের সংবিধান ফিরিয়ে আনছে তালেবান

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

দিল্লির দাঙ্গা পূর্ব পরিকল্পিত: হাই কোর্ট

দিল্লির দাঙ্গা পূর্ব পরিকল্পিত: হাই কোর্ট

রাজতন্ত্রের সংবিধান ফিরিয়ে আনছে তালেবান

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৪৯

দেশ পরিচালনায় আফগানিস্তানে ১৯৬৪ সালে গৃহীত সংবিধান সাময়িক সময়ের জন্য গ্রহণ করতে যাচ্ছে তালেবান। মঙ্গলবার তালেবানের ভারপ্রাপ্ত আইনমন্ত্রী এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছেন। ওই সংবিধানে নারীদের ভোটের অধিকার দেওয়া হয়েছিল, কিন্তু ভিন্নমতধারীদের নির্মূল করার বলা হয়েছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এখবর জানিয়েছে।

তালেবানের আইনমন্ত্রী জানান, আফগানিস্তানের স্বল্পস্থায়ী গণতন্ত্রের স্বর্ণযুগে যে সংবিধান অনুসারে দেশ পরিচালনা হয়েছে তা ফিরিয়ে আনা হবে। কিন্তু তা হবে স্বল্প মেয়াদে এবং সংশোধন সহকারে।

মৌলভী আবদুল হাকিম শারায়ি বলেন, ইসলামি আমিরাত সাবেক বাদশাহ মোহাম্মদ জহির শাহ-এর সময়কালের সংবিধান সাময়িক সময়ের জন্য গ্রহণ করবে।

তিনি আরও বলেন, কিন্তু শরিয়াহ আইন ও ইসলামি আমিরাতের নীতি বিরোধী কিছু থাকলে তা বর্জন করা হবে।

প্রায় ছয় দশক আগে, আফগানিস্তানে পরাশক্তিদের হস্তক্ষেপের পূর্বে আফগানিস্তানে অল্প কিছু সময়ের জন্য সাংবিধানিক রাজতন্ত্র ছিল। তখন ক্ষমতায় ছিলেন বাদশাহ মোহাম্মদ জহির শাহ।

১৯৬৩ সালে ক্ষমতায় আসার এক বছর পর এই সংবিধান অনুমোদন করেন জহির শাহ।  এর ফলে ১৯৭৩ সালে উৎখাত হওয়ার আগ পর্যন্ত প্রায় এক দশক দেশটিতে সংসদীয় গণতন্ত্র চালু ছিল।

১৯৬৪ সালের সংবিধানে প্রথমবারের মতো নারীদের ভোটের অধিকার দেওয়া হয়েছিল এবং রাজনীতিতে তাদের অংশগ্রহণের সুযোগ তৈরি হয়। ধারণা করা হচ্ছে, নারী অধিকারের এই অংশটুকু তালেবানের কট্টরপন্থী মতের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হতে পারে।

আশির দশকে সোভিয়েত দখলদারিত্বের পর আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধ ছড়িয়ে পড়ে। পরে আসে তালেবানের কঠোর শাসন। ২০০১ সালে মার্কিন নেতৃত্বাধীন অভিযানের পর দেশটিতে নতুন সংবিধান প্রণয়ন করা হয়। কিন্তু এতে আগের রাজতন্ত্র ফিরিয়ে আনা হয়নি। ২০০৪ সালে গৃহীত সংবিধানে প্রেসিডেন্ট শাসন ও নারীদের সমান অধিকার রাখা হয়েছিল।

/এএ/

সম্পর্কিত

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

পাঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সিধুর পদত্যাগ

পাঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সিধুর পদত্যাগ

পাকিস্তানে এক পিয়ন পদে ১৫ লাখ মানুষের আবেদন

পাকিস্তানে এক পিয়ন পদে ১৫ লাখ মানুষের আবেদন

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৪৫

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন হুঁশিয়ারি জানিয়ে বলেছেন, আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ তালেবান নেওয়ার পর পাকিস্তানও জঙ্গিদের হাতে চলে যাওয়ার হুমকি ও আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এর অর্থ হলো, তালেবান হয়তো ১৫০টি পারমাণবিক অস্ত্রের দখল পেতে পারে। রবিবার এক সাক্ষাৎকারে বোল্টন এ আশঙ্কার কথা জানান।

সাক্ষাৎকারে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেন জন বোল্টন। তিনি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শাসনামলে ২০১৮ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার দায়িত্বে ছিলেন।

বোল্টন বলেন, পাকিস্তানের ওপর চীনের প্রভাব এরইমধ্যে অনেক, এটি আরও বাড়বে এবং যা ভারতকে বেশি চাপে ফেলবে। বিশ্বের ওই অংশে এটি অনেক বড় ঘটনা।

বাইডেন বিশ্বদরবারে যুক্তরাষ্ট্রকে বিব্রত করেছেন বলে দাবি করেছেন এই সাবেক উপদেষ্টা। তার মতে, এখন মার্কিন মিত্ররা ভাবছেন, নিজের প্রশাসনের পররাষ্ট্রনীতিতে বাইডেনের কোনও নিয়ন্ত্রণ আছে কিনা।

তবে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে বাইডেনের পারমাণবিক সাবমেরিন চুক্তির প্রশংসা করেছেন তিনি। তার কথায়, ভারত মহাসাগর ও প্রশান্ত মহাসাগরে এটি আমাদের বড় অগ্রগতি। এটি চীনের প্রতি স্পষ্ট বার্তা যে আমরা তাদের যা খুশি করতে দেবো না এবং এ বিষয়ে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

অবশ্য চীনের দ্বারা সৃষ্ট হুমকি মোকাবিলায় বাইডেন প্রশাসন যথেষ্ট মনোযোগী না বলে মনে করার কথা উল্লেখ করেছেন তিনি। সূত্র: নিউ ইয়র্ক পোস্ট

/এএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

অবৈধভাবে মন্দির ভাঙার প্রতিবাদে আদালতে মুসলিমরা

অবৈধভাবে মন্দির ভাঙার প্রতিবাদে আদালতে মুসলিমরা

রাজতন্ত্রের সংবিধান ফিরিয়ে আনছে তালেবান

রাজতন্ত্রের সংবিধান ফিরিয়ে আনছে তালেবান

পাঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সিধুর পদত্যাগ

পাঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সিধুর পদত্যাগ

দিল্লির দাঙ্গা পূর্ব পরিকল্পিত: হাই কোর্ট

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৪৮

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে দিল্লিতে ঘটে যাওয়া দাঙ্গা কোনও আকস্মিক ঘটনার ফল নয়, পূর্ব পরিকল্পিতভাবেই তা ঘটানো হয়েছে বলে মনে করে আদালত। সোমবার দাঙ্গায় অভিযুক্ত এক ব্যক্তির জামিন আবেদন বাতিলের সময় দিল্লি হাই কোর্ট এই পর্যবেক্ষণ দিয়েছে।

৫০ জনেরও বেশি নিহত ও দুই শতাধিক মানুষ আহত হওয়ার দাঙ্গা প্রসঙ্গে আদালত বলেছে, ‘২০২০ সালের ফেব্রুয়ারির দাঙ্গা একটি ষড়যন্ত্র, পরিকল্পিত এবং ঘটানো। আকস্মিক কোনও ঘটনা থেকে এটা হয়নি।’

আদালত বলেছে, প্রসিকিউশনের উপস্থাপন করা ভিডিও ফুটেজ থেকে স্পষ্ট যে বিক্ষোভকারীদের আচরণে প্রমাণ হয় স্বাভাবিক জীবন যাত্রা এবং সরকারি কাজে বিঘ্ন ঘটাতেই দাঙ্গার পরিকল্পনা করা হয়।

বিচারপতি সুব্রামনিয়াম প্রসাদ বলেন, ‘সংঘবদ্ধভাবে সিসিটিভি ক্যামেরার সংযোগ বিচ্ছিন্ন এবং ধ্বংস করা থেকে এটাও প্রমাণিত হয় যে শহরের আইনশৃঙ্খলায় বিঘ্ন ঘটাতেই পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ষড়যন্ত্র করা হয়।’ বিচারপতি বলেন,  দাঙ্গার সময় সাধারণ মানুষের উপর লাঠি, ব্যাট, লোহার রড দিয়ে হামলা করা হয়। এর থেকেই প্রমাণিত যে শহরের আইন-শৃঙ্খলায় বাধা দেওয়ার জন্যই এই ঘটনা ঘটানো হয়েছিল।

দিল্লির দাঙ্গায় ৫০ জনের বেশি মানুষ প্রাণ হারান। আহত হন ২০০ জনের বেশি। এই ঘটনায় গত বছর ডিসেম্বরে মহম্মদ ইব্রাহিম নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়। দিল্লি পুলিশের হেড কনস্টেবল রতন লালকে খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত তিনি। আদালতে তিনি দাবি করেন পরিবারের সুরক্ষার জন্যই অস্ত্র রেখেছিলেন। অবশ্য তাকে জামিন দেয়নি আদালত। যদিও আর এক ধৃত মহম্মদ সেলিম খানকে জামিন দিয়েছে দিল্লি হাই কোর্ট।

/জেজে/

সম্পর্কিত

পাঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সিধুর পদত্যাগ

পাঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সিধুর পদত্যাগ

ভবানিপুরের উপনির্বাচন চলবে: উচ্চ আদালত

ভবানিপুরের উপনির্বাচন চলবে: উচ্চ আদালত

ভবানিপুরে আক্রান্ত বিজেপির দিলিপ ঘোষ, পাল্টা অভিযোগ তৃণমূলের

ভবানিপুরে আক্রান্ত বিজেপির দিলিপ ঘোষ, পাল্টা অভিযোগ তৃণমূলের

কৃষকদের ধর্মঘটে অচল ভারত

কৃষকদের ধর্মঘটে অচল ভারত

পাঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সিধুর পদত্যাগ

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:২৪

মাত্র কয়েকদিন আগেই পাঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচিত হওয়া নভোজিৎ সিং সিধু পদত্যাগ করেছেন। মঙ্গলবার তিনি কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধীর কাছে পদত্যাগপত্র পাঠান। এতে তিনি উল্লেখ করেছেন, সভাপতির পদ হতে পদত্যাগ করলেও তিনি কংগ্রেসে কাজ করবেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস এখবর জানিয়েছে।

পদত্যাগপত্রে সিধু লিখেছেন, আমি পাঞ্জাব কংগ্রেসের ভালো চাই। রাজ্যে দলের ভবিষ্যৎ নিয়ে আমি কোনও আপস  করতে পারব না। তাই আমি সব ভেবেচিন্তে কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি কংগ্রেসের জন্যেই কাজ করে যাব।

তবে তিনি কোন ধরনের বা কোন আপোসের কথা বলছেন তা চিঠিতে উল্লেখ করেননি।

সম্প্রতি পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব হতে পদত্যাগ করেছেন ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং। নতুন মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন চরণজিৎ সিং চান্নি। সিধুর ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাতে হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, অমরিন্দর সিং পদত্যাগ করার পর মুখ্যমন্ত্রী না করায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সিধু।

পাঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতি হিসেবে সিধুর সময়কাল ছিল খুব সংক্ষিপ্ত। ২৩ জুলাই তাকে এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। অমরিন্দর সিংয়ের তার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ রয়েছে।

 

 

 

 

/এএ/

সম্পর্কিত

রাজতন্ত্রের সংবিধান ফিরিয়ে আনছে তালেবান

রাজতন্ত্রের সংবিধান ফিরিয়ে আনছে তালেবান

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

দিল্লির দাঙ্গা পূর্ব পরিকল্পিত: হাই কোর্ট

দিল্লির দাঙ্গা পূর্ব পরিকল্পিত: হাই কোর্ট

পাকিস্তানে এক পিয়ন পদে ১৫ লাখ মানুষের আবেদন

পাকিস্তানে এক পিয়ন পদে ১৫ লাখ মানুষের আবেদন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

১৫০ পারমাণবিক অস্ত্র পেয়ে যেতে পারে তালেবান: বোল্টনের হুঁশিয়ারি

রুশ যুদ্ধবিমানের ধাওয়ায় পালালো মার্কিন বোমারু বিমান

রুশ যুদ্ধবিমানের ধাওয়ায় পালালো মার্কিন বোমারু বিমান

বছর বছর নেওয়া লাগতে পারে করোনা টিকা, বলছেন ফাইজার সিইও

বছর বছর নেওয়া লাগতে পারে করোনা টিকা, বলছেন ফাইজার সিইও

মার্কিন হুমকি উপেক্ষা করে আরও রুশ ক্ষেপণাস্ত্র কিনবে তুরস্ক: এরদোয়ান

মার্কিন হুমকি উপেক্ষা করে আরও রুশ ক্ষেপণাস্ত্র কিনবে তুরস্ক: এরদোয়ান

তালেবানকে না জানিয়ে আফগানিস্তানে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে হামলা চালাবে যুক্তরাষ্ট্র

তালেবানকে না জানিয়ে আফগানিস্তানে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে হামলা চালাবে যুক্তরাষ্ট্র

তালেবান ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, পাকিস্তানের সঙ্গে কাজ করছে রাশিয়া

তালেবান ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, পাকিস্তানের সঙ্গে কাজ করছে রাশিয়া

যুক্তরাষ্ট্রে ১৪৭ যাত্রী নিয়ে ট্রেন লাইনচ্যুত, নিহত ৩

যুক্তরাষ্ট্রে ১৪৭ যাত্রী নিয়ে ট্রেন লাইনচ্যুত, নিহত ৩

বুস্টার ডোজ মানেই প্রস্তুতকারকদের লাভ

বুস্টার ডোজ মানেই প্রস্তুতকারকদের লাভ

মিয়ানমারে দ্রুত গণতন্ত্র ফেরাতে মোদি-বাইডেনের বিবৃতি

মিয়ানমারে দ্রুত গণতন্ত্র ফেরাতে মোদি-বাইডেনের বিবৃতি

মঙ্গল গ্রহে ভূমিকম্প, কাঁপলো দেড় ঘণ্টা

মঙ্গল গ্রহে ভূমিকম্প, কাঁপলো দেড় ঘণ্টা

সর্বশেষ

ডিএসসিসি এলাকায় দেওয়া হলো ২৮,৭০২ ডোজ টিকা

ডিএসসিসি এলাকায় দেওয়া হলো ২৮,৭০২ ডোজ টিকা

ঘর পোড়ানোর মামলায় আ.লীগ নেতা কারাগারে

ঘর পোড়ানোর মামলায় আ.লীগ নেতা কারাগারে

অবৈধভাবে মন্দির ভাঙার প্রতিবাদে আদালতে মুসলিমরা

অবৈধভাবে মন্দির ভাঙার প্রতিবাদে আদালতে মুসলিমরা

বস্তিবাসীদের পর্যায়ক্রমে ৫ লাখ টিকা দেওয়া হবে: মেয়র আতিক

বস্তিবাসীদের পর্যায়ক্রমে ৫ লাখ টিকা দেওয়া হবে: মেয়র আতিক

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অডিট আপত্তি শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার আহ্বান ইউজিসির

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অডিট আপত্তি শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার আহ্বান ইউজিসির

© 2021 Bangla Tribune