X
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

যুবকের ঝুলন্ত লাশের পাশে পড়ে ছিল ‘আবেগী চিঠি’

আপডেট : ১২ জুলাই ২০২১, ১৬:০৪

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার বন্দর এলাকায় থানার বিপরীত পাশের মিনিস্টার শো-রুম থেকে কর্মচারী কারিবুল আলমের (২৫) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি বরিশাল নগরীর ভাটিখানা এলাকার বাসিন্দা এবং দুই মাস আগে ওই শোরুমে এসএমও পদে চাকরি নেন।

এদিকে কারিবুলের লাশের পাশ থেকে বড়ভাই সাজ্জাদকে লিখা একটি আবেগভরা চিঠি উদ্ধার করা হয়েছে। এতে নিজের মৃত্যুর কারণ লিখে গেছেন তিনি। সোমবার (১২ জুলাই) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। 

শো-রুমের ইনচার্জ এসএম গোলাম মোস্তফা বলেন, রবিবার কারিবুল শো-রুমের ভেতরেই ছিলেন। সকালে এসে ভেতর থেকে তালাবদ্ধ দেখতে পাই। এরপর কারিবুলের মোবাইলফোনে একাধিকবার কল দেওয়া হলেও কোনও উত্তর মেলেনি। পরবর্তীতে ঘর মালিক সোহাগ হাওলাদারকে বিষয়টি অবহিত করি। তাকে সঙ্গে নিয়ে বোকেরগঞ্জ থানার ওসির সঙ্গে দেখা করি। ওসির নির্দেশে একটি শাটারের তালা কেটে দেখতে পাই ফ্যানের সঙ্গে কারিবুলের দেহ ঝুলছে। এরপর ভেতরে ঢুকে একটি চিঠি পাই।  

তিনি আরও জানান, কারিবুলের সঙ্গে একটি মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু তার পরিবার ওই মেয়ের সঙ্গে তার সম্পর্ক মেনে নিতে পারেনি। এ কারণেই কারিবুল আমাদের শো-রুমে চাকরি নিয়েছিলেন। তবে এ চাকরিতেও মত ছিল না তার পরিবারের। এসব বিষয়ই তার চিঠিতে লেখা ছিল বলে জানান তিনি। 

এ বিষয়ে বাকেরগঞ্জ থানার ওসি আলাউদ্দিন মিলন জানান, লাশ উদ্ধার করে শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। কারিবুলের লাশের পাশ থেকে একটি চিঠি উদ্ধার করা হয়েছে বলেও নিশ্চিত করেন তিনি। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসা শিক্ষক ও ইমামদের টার্গেট করতেন রাগীব

মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসা শিক্ষক ও ইমামদের টার্গেট করতেন রাগীব

মেয়র সাদিকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন কাউন্সিলর

মেয়র সাদিকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন কাউন্সিলর

স্কুলছাত্রীকে নিয়ে পালিয়েছে ছেলে, সহায়তার অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে

স্কুলছাত্রীকে নিয়ে পালিয়েছে ছেলে, সহায়তার অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা: বিমানবন্দরে নেমেই আসামি গ্রেফতার 

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা: বিমানবন্দরে নেমেই আসামি গ্রেফতার 

সড়ক চার লেন করা নিয়ে নড়াইলে দুপক্ষের মাঝে উত্তেজনা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:১৬

নড়াইল শহরের প্রস্তাবিত সড়কটি চার লেনে উন্নীত করার পক্ষে-বিপক্ষে মানববন্ধন কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে শহরে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালাচ্ছে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে চার লেনে উন্নীত করার পক্ষে-বিপক্ষের লোকজন শহরের রূপগঞ্জ এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচির ডাক দেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

চার লেনে উন্নীত করার পক্ষে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজার বাবা জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা গোলাম মর্তুজা স্বপন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি সরদার আলমগীর হোসেন আলম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি তারিকুল ইসলাম উজ্জ্বল, সাধারণ সম্পাদক এস এম পলাশ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে, চার লেন না করার জন্য জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মো. ওয়াহিদুজ্জামানসহ পৌর সুপার মার্কেটের ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ রেখে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। ব্যবসায়ীরা শতাধিক দোকান সোমবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বন্ধ রাখেন।

জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক জানান, প্রতিপক্ষ তার ব্যক্তিগত পাজেরো জিপ গাড়িটি ভাঙচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

পর্যটক টানতে সুন্দরবনে হচ্ছে ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্র

পর্যটক টানতে সুন্দরবনে হচ্ছে ইকো-ট্যুরিজম কেন্দ্র

শৈলকুপায় সাপের কামড়ে দুই জনের মৃত্যু

শৈলকুপায় সাপের কামড়ে দুই জনের মৃত্যু

হাবুডুবু খাচ্ছে প্রতাপনগরের ৩৫ হাজার মানুষ

হাবুডুবু খাচ্ছে প্রতাপনগরের ৩৫ হাজার মানুষ

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো মা-মেয়ের

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো মা-মেয়ের

মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসা শিক্ষক ও ইমামদের টার্গেট করতেন রাগীব

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:০৭

এহসান গ্রুপে বিনিয়োগ করা পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার সদর ও দেউলবাড়ী-দোবরা ইউনিয়নের প্রায় এক হাজার ৭০০ গ্রাহকের পাঁচ কোটি ৯৩ লাখ ১৩ হাজার ৭৯৫ টাকা ফেরতের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগীরা।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এহসান গ্রুপে কাজ করা ভুক্তভোগী মাঠকর্মীদের পক্ষ থেকে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মাওলানা মাসউদুর রহমান। তার বাড়ি দেউলবাড়ী এলাকায়।

তিনি বলেন, ‘এহসান গ্রুপে পিরোজপুরের চেয়ারম্যান রাগীব আহসান বিভিন্ন ওয়াজ মাহফিলে ধর্মীয় অনুভূতিকে কাজে লাগিয়ে সুদমুক্ত সমাজ গড়ার কথা বলে দাওয়াত দিতেন। ধর্মভীরু লোকজন এর ওপর ভিত্তি করে এহসানে সঞ্চয় করতে শুরু করেন। রাগীব আহসান তার এ কাজে মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসার শিক্ষক ও মসজিদের ইমামদেরকে নিয়োগ দেন। এ মাঠ কর্মীদের মাধ্যমে নাজিরপুর সদর ও দেউলবাড়ী-দোবড়া ইউনিয়নের এক হাজার ৭০০ গ্রাহক পাঁচ কোটি ৯৩ লাখ ১৩ হাজার ৭৯৫ টাকা সঞ্চয় রাখেন। ২০১৯ সাল থেকে এহসান গ্রুপ সদস্য ও গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতিশ্রুতি ভঙ্গসহ প্রতারণা শুরু করে। এরপর জমা টাকা ফেরত চাইলে আমাদের হুমকি দেয়। পরে মাঠকর্মী শামসুল হক বাদী হয়ে ১৬ সেপ্টেম্বর এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান মুফতি রাগীব আহসানসহ সাত জনকে আসামি করে পিরোজপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন।’

মাওলানা মাসউদুর রহমান বলেন, ‘আমরা এহসান গ্রুপে রাখা আমাদের টাকা ফেরত পেতে প্রশাসনের সাহায্য কামনা করছি।’

উল্লেখ্য, গত ৯ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে রাজধানীর শাহবাগ থানার তোপখানা রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান মুফতি রাগীব আহসান ও তার সহযোগী মো. আবুল বাশার খানকে গ্রেফতার করে র‍্যাব। ওই দিন বিকালে সদর উপজেলার খলিশাখালী এলাকা থেকে মাওলানা মাহমুদুল হাসান ও মো. খাইরুল বাশারকে গ্রেফতার করে পিরোজপুর সদর থানা পুলিশ। প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে পিরোজপুর সদর থানায় এহসান গ্রুপের বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়। গত ১৩ সেপ্টেম্বর পিরোজপুরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. মহিউদ্দীন আসামিদের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত ২১ সেপ্টেম্বর তাদের রিমান্ড শেষ হলে আদালতের নির্দেশে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

অন্য চিকিৎসকের নাম-পদবী ব্যবহার করে চিকিৎসা

অন্য চিকিৎসকের নাম-পদবী ব্যবহার করে চিকিৎসা

মেয়র সাদিকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন কাউন্সিলর

মেয়র সাদিকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন কাউন্সিলর

স্কুলছাত্রীকে নিয়ে পালিয়েছে ছেলে, সহায়তার অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে

স্কুলছাত্রীকে নিয়ে পালিয়েছে ছেলে, সহায়তার অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা: বিমানবন্দরে নেমেই আসামি গ্রেফতার 

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা: বিমানবন্দরে নেমেই আসামি গ্রেফতার 

ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন দুই শিক্ষিকা: পুলিশ

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:২৯

মজিবুর রহমান নামে এক ব্যক্তিকে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে দুই শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাতে ঢাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন-আইরিন ইয়াসমিন লিজা (৩৪) ও শামীমা আক্তার (২৪)। আইরিনের বাড়ি নওগাঁর মান্দা উপজেলায়। আর শামীমার বাড়ি ঢাকার সাভারে। দুই জনেই সাভারের একটি বেসরকারি স্কুলে পড়ান।

পুলিশ জানায়, মজিবুর রহমান রাজশাহীতে প্লট কেনাবেচা ও প্রাইভেটকার ভাড়া দেওয়ার ব্যবসা করতেন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি নগরীর উপশহরের দুই নম্বর সেক্টরের একটি ভাড়া বাসা থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় তার ছেলে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করেন। মামলার তদন্ত করতে গিয়ে দুই শিক্ষিকার সম্পৃক্ততার বিষয়টি বেরিয়ে আসে। এরপর তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছ থেকে মজিবুর রহমানের মোবাইল ফোনও উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানান। 

তিনি বলেন, শিক্ষকতার আড়ালে মানুষকে ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন তারা। জিজ্ঞাসাবাদে আইরিন জানিয়েছেন, মজিবুর রহমানের সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল। গত ৬ ফেব্রুয়ারি তারা স্বেচ্ছায় মজিবুরের বাড়ি এসেছিলেন। রাতে মজিবুরের পাশের ঘরে ঘুমান। তখন ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে আইরিনকে ঘরে ডাকেন তিনি। না গেলে ম্যাসেঞ্জারেই তাদের বাগবিতণ্ডা হয়। এরপর মজিবুর জানান, রাত ৩টার মধ্যে আইরিন না গেলে তিনি আত্মহত্যা করবেন। তখন আইরিন ম্যাসেঞ্জার ও এসএমএসের মাধ্যমে মজিবুরকে মরতে বলেন। অভিমানে মজিবুর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। 

পরে সকালে আইরিন ও শামীমা তার ঝুলন্ত লাশ দেখে বাড়ি থেকে মজিবুরের মোবাইল ফোন, বাড়ির চাবি এবং নগদ চার লাখ টাকা ও কিছু কাগজপত্র নিয়ে পালিয়ে যান। 

আরএমপি কমিশনার বলেন, এ দুই নারী ব্ল্যাকমেইল চক্রের সঙ্গে জড়িত। তাদেরকে মজিবুরের আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

/এসএইচ/

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

১৩ টাকা কেজিতে বিদ্যালয়ের বই বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক

১৩ টাকা কেজিতে বিদ্যালয়ের বই বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক

বগি লাইনচ্যুত, বিকল্প লাইনে ঢাকায় গেলো সুন্দরবন এক্সপ্রেস

বগি লাইনচ্যুত, বিকল্প লাইনে ঢাকায় গেলো সুন্দরবন এক্সপ্রেস

টিকটকারদের খপ্পরে পড়ে অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার

টিকটকারদের খপ্পরে পড়ে অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার

অন্য চিকিৎসকের নাম-পদবী ব্যবহার করে চিকিৎসা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:২৫

আরেক চিকিৎসকের নাম ও পদবী ব্যবহার করে চিকিৎসা দেওয়ার দায়ে হবিগঞ্জের শায়েস্তানগরের মুন জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও একজনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে হাসপাতালটিতে অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা করা হয়।

জানা গেছে, হবিগঞ্জ সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসিন আরাফাত রানার নেতৃত্বে র‌্যাব-৯ এর হবিগঞ্জ ক্যাম্পের কমান্ডার নাহিদ হাসান সহকারে একদল র‌্যাব সদস্য অভিযানটি পরিচালনা করে।

এ সময় মুন জেনারেল হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক তাসনিম সুলতানা অন্য এক চিকিৎসকের নাম ও পদবী ব্যবহার করে চিকিৎসা দেওয়ায় আদালত তাকে ২৫ হাজার এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এর আগেও ওই হাসপাতাল থেকে ভুয়া চিকিৎসক আটক করা হয়েছিল।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসিন আরাফাত রানা জানান, অন্য এক চিকিৎসকের নাম ও পদবী ব্যবহার করে চিকিৎসা দেওয়ার দায়ে জরিমানা করা হয়েছে। সেইসঙ্গে ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ করলে কঠোর শাস্তি  দেওয়া হবে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসা শিক্ষক ও ইমামদের টার্গেট করতেন রাগীব

মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসা শিক্ষক ও ইমামদের টার্গেট করতেন রাগীব

হবিগঞ্জে বাস-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ৩

হবিগঞ্জে বাস-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ৩

কিশোর গৃহকর্মীর বিরুদ্ধে ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ  

কিশোর গৃহকর্মীর বিরুদ্ধে ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ  

কুড়িগ্রামে সাহিত্যিক সৈয়দ শামসুল হকের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১৯

কুড়িগ্রামে নানা আয়োজনে সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হকের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ চত্বরে শোক র‌্যালিসহ তার সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

জেলা প্রশাসন, কলেজ প্রশাসন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, কুড়িগ্রাম প্রেস ক্লাব, জেলা আইনজীবী সমিতিসহ বিভিন্ন সংগঠন তার সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করে। পরে নীরবতা পালন, দোয়া মাহফিল ও সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সৈয়দ শামসুল হক সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন এ সময় বক্তব্য রাখেন– জেলা প্রশাসক মো. রেজাউল করিম, কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আব্দুল মান্নান, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আহ্বায়ক শ্যামল ভৌমিক, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আমজাদ হোসেন, কুড়িগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি আহসান হাবিব নিলু, সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান বিপ্লব প্রমুখ।

বক্তারা দ্রুত সৈয়দ হকের সমাধিকে ঘিরে সাংস্কৃতিক বলয় নির্মাণের দাবি জানান।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

দিনাজপুর পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ১২ কোটি টাকা

দিনাজপুর পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ১২ কোটি টাকা

আ.লীগকে রাজনৈতিক সমঝোতায় আসার আহবান জোনায়েদ সাকির

আ.লীগকে রাজনৈতিক সমঝোতায় আসার আহবান জোনায়েদ সাকির

১৯ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি বেরোবি কর্তৃপক্ষ

১৯ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি বেরোবি কর্তৃপক্ষ

বাড়ির সামনে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

বাড়ির সামনে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসা শিক্ষক ও ইমামদের টার্গেট করতেন রাগীব

মাঠকর্মী হিসেবে মাদ্রাসা শিক্ষক ও ইমামদের টার্গেট করতেন রাগীব

মেয়র সাদিকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন কাউন্সিলর

মেয়র সাদিকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝাড়লেন কাউন্সিলর

স্কুলছাত্রীকে নিয়ে পালিয়েছে ছেলে, সহায়তার অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে

স্কুলছাত্রীকে নিয়ে পালিয়েছে ছেলে, সহায়তার অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা: বিমানবন্দরে নেমেই আসামি গ্রেফতার 

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা: বিমানবন্দরে নেমেই আসামি গ্রেফতার 

কালীগঙ্গা নদীতে সেতুর খবরে এলাকাবাসীর মাঝে আনন্দ

কালীগঙ্গা নদীতে সেতুর খবরে এলাকাবাসীর মাঝে আনন্দ

পরীক্ষায় ‘নকল উৎসব’, শিক্ষকদের সহায়তার অভিযোগ

পরীক্ষায় ‘নকল উৎসব’, শিক্ষকদের সহায়তার অভিযোগ

কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারণে বিআরটিসির এ অবস্থা: চেয়ারম্যান

কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারণে বিআরটিসির এ অবস্থা: চেয়ারম্যান

‘ডিসেম্বরের মধ্যে অর্ধেকের বেশি মানুষকে টিকার আওতায় আনা হবে’

‘ডিসেম্বরের মধ্যে অর্ধেকের বেশি মানুষকে টিকার আওতায় আনা হবে’

এক ইলিশের দাম ৩২০০ টাকা

এক ইলিশের দাম ৩২০০ টাকা

তাবলিগে আসা ১৩ মুসল্লি অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে

তাবলিগে আসা ১৩ মুসল্লি অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে

সর্বশেষ

‌এনআরবি ব্যাংকের পরিচালক বদিউজ্জামান ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা

‌এনআরবি ব্যাংকের পরিচালক বদিউজ্জামান ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা

লোভনীয় অফারে প্রভাবিত না হওয়ার পরামর্শ

লোভনীয় অফারে প্রভাবিত না হওয়ার পরামর্শ

স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালকসহ ৩৪ পদে রদবদল

স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালকসহ ৩৪ পদে রদবদল

বাংলাদেশের জার্সিতে সাফে খেলা হচ্ছে না কিংসলের

বাংলাদেশের জার্সিতে সাফে খেলা হচ্ছে না কিংসলের

সড়ক চার লেন করা নিয়ে নড়াইলে দুপক্ষের মাঝে উত্তেজনা

সড়ক চার লেন করা নিয়ে নড়াইলে দুপক্ষের মাঝে উত্তেজনা

© 2021 Bangla Tribune