X
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

পশ্চিম আফগানিস্তানে তালেবানের সঙ্গে চুক্তির স্বীকারোক্তি গভর্নরের

আপডেট : ১৬ জুলাই ২০২১, ০১:১৬

আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় বাদঘিস প্রদেশে তালেবানের সঙ্গে চুক্তির স্বীকারোক্তি দিয়েছেন রাজ্যের গভর্নর হুসামুদ্দিন শামস। বৃহস্পতিবার তিনি জানিয়েছেন, স্থানীয় প্রশাসন তালেবানের সঙ্গে যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে উপনীত হয়েছে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রদেশটির রাজধানীতে আরও হামলা রোধকল্পে তারা তালেবানদের সঙ্গে ‘অনির্দিষ্টকালের যুদ্ধবিরতি’ নিয়ে আলোচনা করেছেন।

তালেবান বাদঘিস প্রদেশের রাজধানীর বাইরে থাকা সবকটি জেলার নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর দলটির সঙ্গে আলোচনার পথ বেছে নেন কর্মকর্তারা।

প্রাদেশিক গভর্নর হুসামুদ্দিন শামস বলেন, উপজাতিদের মধ্য থেকে ১০ জন মুরব্বি যুদ্ধবিরতির দায়িত্ব নিয়েছেন। তারা তালেবান ও স্থানীয় সরকারের সঙ্গে কথা বলেন। পরে উভয় পক্ষই যুদ্ধবিরতিতে উপনীত হয়।

বাদঘিস প্রাদেশিক কাউন্সিলের প্রধান আবদুল আজিজ বেক বলেন, কালা-এ-নাও আফগানিস্তানের একমাত্র শহর যেখানে তালেবান যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছে।

তালেবানের একজন মুখপাত্র অবশ্য যুদ্ধবিরতি চুক্তির কথা অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, বেসামরিক মানুষের হতাহতের ঘটনা এড়াতে তারা শহরটি ছেড়ে গেছে। কাবুলে আফগান কর্তৃপক্ষের তরফে অবশ্য এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

আফগানিস্তানে ক্রমবর্ধমান বৈরিতার তীব্রতা নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে রাশিয়া। তবে দেশটির বিশ্বাস, এই মুহূর্তে ক্ষমতা দখল নয় বরং শক্তি সঞ্চয়ে মনোযোগী তালেবান। তুর্কি সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজ দেশের এমন মনোভাবের কথা জানিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্টের আফগানিস্তান বিষয়ক দূত জামির কাবুলোভ। তিনি বলেন, মধ্য এশিয়ার দেশগুলোর সঙ্গে আফগানিস্তানের যেসব সীমান্ত রয়েছে সেসব এলাকায় সবচেয়ে বেশি সংঘাত চলছে। আর এই অঞ্চলের দেশগুলো রাশিয়ার মিত্র ও অংশীদার।

জামির কাবুলোভ বলেন, সাম্প্রতিক দিনগুলোতে মার্কিন ও ন্যাটো বাহিনী প্রায় পুরোপুরি প্রত্যাহারের পটভূমিতে বিশেষ করে দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোতে বৈরিতার তীব্রতা বাড়ছে। এমন পরিস্থিতি মস্কোকে উদ্বিগ্ন না করে পারে না। একইসঙ্গে রাশিয়ার বিশ্বাস, এই মুহূর্তে তালেবানের সহিংস উপায়ে ক্ষমতা দখলের কোনও আশঙ্কা নেই।

এই কূটনীতিক বলেন, সংঘর্ষ মূলত মফস্বল এলাকায় ঘটছে। শহরগুলো কঠিন অবরোধের মুখে পড়লেও সেগুলোতে হামলা চালানো হবে না। তালেবানের উদ্দেশ্য হচ্ছে শান্তি আলোচনা শুরুর আগে তাদের অবস্থান আরও শক্তিশালী করা। ক্ষমতা দখলের নেতিবাচক পরিণতি সম্পর্কে তারা অবগত। সে ধরনের পরিস্থিতি তারও চায় না। তারা তাদের অভিপ্রায়ের কথা জানিয়েছে। তারা আলোচনার মাধ্যমে সংকট উত্তরণ বা পুনর্মিলনে আগ্রহী।

এদিকে বিদেশি বাহিনীর আফগানিস্তান ত্যাগের ডামাডোলে দেশটিতে একের পর এলাকার দখল নিচ্ছে তালেবান। এরইমধ্যে ইরান, তাজিকিস্তান ও তুর্কমেনিস্তান সীমান্তবর্তী বেশ কয়েকটি বর্ডার ক্রসিংয়ের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে দলটি। সর্বশেষ বুধবার পাকিস্তান সীমান্তের একটি গুরুত্বপূর্ণ বর্ডার ক্রসিংয়ের দখল নিয়েছে তারা। কান্দাহারের কাছে স্পিন বোলডাক ক্রসিংয়ের ছাদে ওড়ানো হয়েছে তালেবানের সাদা পতাকা। তবে ক্রসিংটির নিয়ন্ত্রণ হারানোর কথা অস্বীকার করেছেন আফগান কর্মকর্তারা। যদিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে তালেবান যোদ্ধাদের পাকিস্তানের সীমান্তরক্ষীদের সঙ্গে আলোচনা করতে দেখা গেছে। বিবিসি জানিয়েছে, বিনা প্রতিরোধেই ক্রসিংটির নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে তালেবান।

আফগান কর্তৃপক্ষের দাবি, বেদখল হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ক্রসিংটির নিয়ন্ত্রণ নিতে সমর্থ হয়েছে তারা। তবে সরকারের এমন দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ। সূত্র: রয়টার্স।

/এমপি/

সম্পর্কিত

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

কাবুলে রকেট হামলা

কাবুলে রকেট হামলা

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

দিল্লিতে বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:১৭

ভারতের রাজধানী শহর দিল্লিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত বাড়তে শুরু করেছে। এই বছর শহরটিতে ১৫৮ রোগী পাওয়া গেছে। গত বছর এই সময় পর্যন্ত রোগীর পরিমাণ ছিলো ১৩১ জন। এর মধ্যে এবছর সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহেই পাওয়া গেছে ৩৪ ডেঙ্গু রোগী।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আবহাওয়া দফতর সামনের কয়েক মাসে আরও বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়ায় মশার বংশবৃদ্ধির সুযোগও বাড়বে। তবে নগর কর্মকর্তাদের দাবি আক্রান্তের পরিমাণ স্বাভাবিকের চেয়ে ২/৩ গুণ বাড়লেই কেবল পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক বলে মনে করা হয়।

দক্ষিণ দিল্লি মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আমাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ মশা নিরোধক ওষুধ রয়েছে। সেগুলো নিম্নাঞ্চল, নদীর তীর এবং অন্যান্য এলাকায় ছিটানো হবে। যেসব স্থানে মশা থাকতে পারে সেসব বাড়ি এবং আশেপাশের এলাকাতেও আমরা ফগার ম্যাশিন ব্যবহার করছি।’ ওই কর্মকর্তা জানান, সম্প্রতি নির্মাণাধীন এলাকা এবং সরকারি কার্যালয়ের যেসব স্থানে মশা বংশবৃদ্ধি করতে পারে সেসব স্থানে ব্যাপক আকারে মশা নিধন কার্যক্রম চালানো হয়েছে।

ওই কর্মকর্তা জানান, ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়া এবং ম্যালেরিয়া নিয়ন্ত্রণে মোট ১ হাজার ১৩০ কর্মকর্তা, এক হাজার তিনশ’ মাঠ কর্মী কাজ করছেন। এর পাশাপাশি ৫৫০টি ফগিং মেশিন, আটটি ভারি গাড়ি, চারটি পাওয়ার ট্যাঙ্কার, এক হাজার ৭০টি হ্যান্ড পাম্প এবং ৪৬টি মোটর পাম্প ওষুধ ছিটানোর কাজে নিয়োজিত রয়েছে।

এদিকে, পূর্ব দিল্লি মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন মাসব্যাপী মশা নিধন কার্যক্রম শুরু করেছে। এছাড়া সেখানে চারটি জ্বর চিকিৎসার হাসপাতাল চালু করা হয়েছে। এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে আর আমরা নতুন গাইডলাইন জারি করেছি।’

/জেজে/

সম্পর্কিত

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

বাংলাদেশকে ভারতের কূটনৈতিক স্বীকৃতির দিনে পালিত হবে ‘মৈত্রী দিবস’  

বাংলাদেশকে ভারতের কূটনৈতিক স্বীকৃতির দিনে পালিত হবে ‘মৈত্রী দিবস’  

ভারতে প্রতিদিন গড়ে খুন ৮০, ধর্ষণ ৭৭

ভারতে প্রতিদিন গড়ে খুন ৮০, ধর্ষণ ৭৭

রাশিয়ার পার্লামেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৯

তিন দিনের পার্লামেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। এই নির্বাচনের আগে বিরোধীদের ওপর ব্যাপক দমন পীড়ন চালানোর অভিযোগ রয়েছে। নির্বাচনে অংশ নিতে দেওয়া হয়নি ক্রেমলিনের সবচেয়ে কঠোর সমালোচক আলেক্সাই নাভালনিকেও।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ রাশিয়া। ১১টি টাইম জোনে বিস্তৃত অঞ্চলে শুক্রবার পার্লামেন্ট ও স্থানীয় নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। মস্কোর বাসিন্দারা যখন ঘুমাতে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তখন পূর্বাঞ্চলীয় চুকুতখা এবং কামচাটকা এলাকার বাসিন্দারা ভোট দিতে কেন্দ্রে দৌড়াচ্ছেন।

কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের প্রধান ইলা পামফিলোভা এক সরাসরি সম্প্রচারে বলেন, ‘চলুন ভোট দেই।’ রবিবার পর্যন্ত ভোট দিতে পারবেন ভোটাররা।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের অনুগত দল ইউনাইটেড রাশিয়ার পার্লামেন্টের প্রভাব কমার কোনও ইঙ্গিত এই নির্বাচনে নেই। ১৪টি দল এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে পুতিন ও ইমরান খানের ফোনালাপ

এক মাসের মধ্যে পুতিন-ইমরান দ্বিতীয় ফোনালাপ

পুতিনের সম্ভাব্য উত্তরসূরি রুশ প্রতিরক্ষা প্রধান?

রাশিয়ায় কে হচ্ছেন পুতিনের উত্তরসূরি?

ঘনিষ্ঠদের করোনা, সেলফ-আইসোলেশনে পুতিন

সেলফ-আইসোলেশনে পুতিন

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

৩ দেশের চুক্তি চরম দায়িত্বজ্ঞানহীনতা: চীন

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৩

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার বিশেষ নিরাপত্তা চুক্তি স্বাক্ষরের কঠোর সমালোচনা করেছে চীন। বেইজিং এই চুক্তিকে চরম দায়িত্বজ্ঞানহীনতা এবং সংকীর্ণমনস্কতার পরিচয় বলে অভিহিত করেছে।

ওই চুক্তির আওতায় অস্ট্রেলিয়াকে প্রথমবারের মতো পারমাণবিক ক্ষমতাসম্পন্ন সাবমেরিন তৈরির প্রযুক্তি দেবে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। মূলত বিরোধপূর্ণ দক্ষিণ চীন সমুদ্রে বেইজিংয়ের প্রভাব খর্ব করতেই এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেছেন, ওই জোটটি আঞ্চলিক শান্তির মারাত্মক ক্ষতি সাধন করবে এবং অস্ত্র প্রতিযোগিতা জোরালো করে তুলবে। তিনি এই চুক্তিকে অচল স্নায়ু যুদ্ধের মানসিকতা বলে অভিহিত করে বলেন তিনটি দেশই নিজেদের স্বার্থের ক্ষতি করলো।

চুক্তিটির সমালোচনা করে একই ধরনের সম্পাদকীয় প্রকাশ করেছে চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদপত্র। গ্লোবাল টাইমস বলেছেন অস্ট্রেলিয়া এখন চীনের শত্রুদের সঙ্গে মিলিত হয়েছে।

গত ৬০ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো নিজেদের সাবমেরিন প্রযুক্তি অন্যদের দিতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এর আগে কেবল যুক্তরাজ্যকেই এই প্রযুক্তি দেয় তারা। এই প্রযুক্তি পাওয়ার মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়া পারমাণবিক শক্তি চালিত সাবমেরিন তৈরি করতে পারবে যা প্রচলিত সাবমেরিনের চেয়ে বেশি দ্রুত গতিতে চলতে সক্ষম এবং শনাক্ত করা কঠিন। নতুন সাবমেরিন কয়েক মাস পর্যন্ত পানিতে ডুবে থাকতে পারবে আর বেশি দূরত্বে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়তে পারবে। তবে অস্ট্রেলিয়ার দাবি সাবমেরিনে অস্ত্র মোতায়েনের কোনও ইচ্ছা তাদের নেই।

/জেজে/

সম্পর্কিত

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

অস্ট্রেলিয়ার কাছে বড় অংকের ক্ষতিপূরণ দাবি করতে পারে ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়ার কাছে বড় অংকের ক্ষতিপূরণ দাবি করতে পারে ফ্রান্স

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৩২

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়া ও উত্তরবঙ্গে শিশুদের মধ্যে অজানা জ্বর নিয়ে ক্রমেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই রাজনৈতিক চাপানউতোরের মধ্যে জ্বরের জেরে শিশুমৃত্যুর খবর অস্বীকার করলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন রাজ্যের পাঁচ মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে বৈঠক করে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মমতা জ্বরে শিশুমৃত্যু সংক্রান্ত সব দাবি উড়িয়ে দেন। তিনি বলেন, ‘দন্ত করে দেখেছি, যেই শিশুরা মারা গেছে, তাদের অন্য রোগ ছিল। জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি।’

এদিকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজে আরও তিন শিশুর মৃত্যুর খবর মিলেছে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে শুক্রবার স্বাস্থ্যভবন থেকে বিশেষ দল যাচ্ছে উত্তরবঙ্গে। এর আগে জলপাইগুড়ি হাসপাতালে তিন শিশুর মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছিল। তবে এই সব শিশু অজানা জ্বরে মারা যায়নি বলে দাবি করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেছেন, উত্তরবঙ্গে অজানা জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি প্রায় ৭৫০ জন শিশু। তার মধ্যে ছয় জন মারা গিয়েছে। শুধু মালদহ জেলাতেই ২০০-র বেশি শিশু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

চিঠিতে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে ছাড়েননি শুভেন্দু। বিরোধী দলনেতার অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গ সরকার কোনওরকম গুরুত্ব দিচ্ছে না বিষয়টি নিয়ে। কারণ, সরকার ভবানীপুরের উপনির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত। তাই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ এবং স্বাস্থ্য প্রতিনিধিদল পশ্চিমবঙ্গে পাঠানোর বিশেষ অনুরোধে করে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানসুখ মান্ডভিয়াকে চিঠি দেন শুভেন্দু অধিকারী। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

/এমপি/

সম্পর্কিত

দিল্লিতে বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ

দিল্লিতে বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪১

ইরান থেকে পাঠানো জ্বালানি তেলের বহর অবশেষে লেবাননে পৌঁছেছে। বৃহস্পতিবার প্রেস টিভির খবরে বলা হয়েছে, সিরিয়ার সমুদ্রবন্দর থেকে ট্যাংকারে করে স্থলপথে এসব তেল লেবাননে নেওয়া হয়।

লেবানিজ সংবাদমাধ্যমগুলোও জানিয়েছে, ইরানের তেল বহনকারী ট্যাংকারের বহর লেবাননের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় বালবেক-হারমেল প্রদেশের হাওয়াশ আল-সাইয়েদ আলী এলাকা দিয়ে লেবাননে প্রবেশ করে।

এর আগে হিজবুল্লাহ মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ জনগণের প্রতি তেল বহনকারী ট্যাংকার বহরের কাছে ভিড় না করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, লোকজনের নিরাপত্তা এবং ট্যাংকার বহরের স্বাভাবিক চলাচলে যাতে বিঘ্ন তৈরি না হয় সেজন্য ভিড় পরিহার করতে হবে।

হিজবুল্লাহর উপমহাসচিব শেখ নাঈম কাসেম বলেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে ইরান থেকে তেল পাঠানোর ঘটনা রাজনৈতিক, সামাজিক ও নৈতিক দিক দিয়ে ইরান ও হিজবুল্লাহর জন্য বিশাল অর্জন।

আগস্ট মাসের মাঝামাঝি সময়ে ইরান থেকে তেলবাহী জাহাজ লেবাননের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। হিজবুল্লাহ মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ জাহাজটিকে সমুদ্রে লেবাননের ভূখণ্ড বলে ঘোষণা করেছিলেন। সূত্র: পার্স টুডে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হটাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

কাবুলে রকেট হামলা

কাবুলে রকেট হামলা

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানে বাস্তববাদী ও কট্টরপন্থীদের বিরোধ বাড়ছে

তালেবান নেতাদের বিরোধ শুধুই কি জল্পনা?

এবার নারী মন্ত্রণালয়ে নারীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করলো তালেবান

এবার নারী মন্ত্রণালয়ে নারীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করলো তালেবান

সিরাজুদ্দিন হাক্কানির সঙ্গে জাতিসংঘ দূতের বৈঠক

সিরাজুদ্দিন হাক্কানির সঙ্গে জাতিসংঘ দূতের বৈঠক

সর্বশেষ

জেনে-শুনেই নেতিবাচক স্ট্র্যাটেজি নিয়েছিলেন ইভ্যালির রাসেল

জেনে-শুনেই নেতিবাচক স্ট্র্যাটেজি নিয়েছিলেন ইভ্যালির রাসেল

ময়মনসিংহ থেকে ‘আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের দুই সদস্য’ গ্রেফতার

ময়মনসিংহ থেকে ‘আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের দুই সদস্য’ গ্রেফতার

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

দিল্লিতে বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ

দিল্লিতে বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ

ভাতে আছে বিপদ, বিষমুক্ত করবেন যেভাবে

ভাতে আছে বিপদ, বিষমুক্ত করবেন যেভাবে

© 2021 Bangla Tribune