X
শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

এখনও স্বপদে যৌন নিপীড়নে অভিযুক্ত শহিদুল

আপডেট : ১৮ জুলাই ২০২১, ২৩:৫৭

অফিস ভবনে যৌন হয়রানি, বিভিন্ন সময়ে অফিসে মদের আড্ডা বসানোর অভিযোগে শিল্পকলা একাডেমির উপ-পরিচালক শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে অসদাচরণ প্রমাণিত হওয়ার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের প্রায় একমাস হতে চললেও তিনি বহাল তবিয়তে রয়েছেন। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় প্রতিবেদনে বিভাগীয় মামলা করতে বলা হলেও শিল্পকলার মহাপরিচালককে এখন পর্যন্ত কোনও দৃশ্যমান পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি। বরং অভিযুক্ত কর্মকর্তা শনিবার (১৭ জুলাই ২০২১) বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘কে গোপনে আপনাকে কী অভিযোগ করলো সেটা দিয়ে কিছু প্রমাণ হয় না।’

তার বিরুদ্ধে কোনও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে কিনা প্রশ্নে উল্টো তিনি বলেন, ‘আমি আমার স্বপক্ষে তথ্যপ্রমাণ দিয়েছি।’

যদিও খোদ পরিষদের সদস্যরা বিষয়টি নিয়ে এখনও পরিষ্কার কোন তথ্য জানেন না। তাদের কেউ কেউ বলছেন, এই শহীদুল ইসলাম মহাপরিচালকের একান্ত কাছের লোক হওয়ায় অর্থ আত্মসাৎসহ আরও অনেক ধরনের অভিযোগ থাকার পরেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

শহিদুল ইসলাম বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উপ-পরিচালক, অর্থ (চলতি দায়িত্ব) হিসেবে কর্মরত আছেন। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অশ্লীলতা ও বিভিন্ন অনৈতিক কার্যকলাপের অভিযোগ আনেন সাধারণ কর্মচারিরা। এ বছর ২ মার্চের এই অভিযোগের ভিত্তিতে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব ফাহিমুল ইসলামকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি করা হয়। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলেও তার বিরুদ্ধে এখনও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

৫ অভিযোগে তদন্ত, মিলেছে প্রমাণ

শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে ৫টি বিষয়ে তদন্ত করে কমিটি। এতে পাঁচটি বিষয়ে তদন্তে সুপারিশের পরামর্শ আসে কমিটির পক্ষ থেকে। সেসব হচ্ছে- বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অর্থ তছরুপের তথ্য পাওয়া যায় কিনা, অর্থ বছর শেষে উদ্বৃত্ত অর্থ ভুয়া ভাউচার তৈরির মাধ্যমে আত্মসাৎ, টেন্ডারবিহীনভাবে কোটি কাটি টাকা তিনি তার নিজের নামে ও তার সিন্ডিকেটের নামে উত্তোলন করেছেন কিনা, ৪ জানুয়ারি অফিস চলাকালে নারী কর্মীদের সামনে উলঙ্গ হয়ে অশালীন অঙ্গভঙ্গি করেছেন কিনা, প্রায়শ অফিসে মদের আসর বসানো হয় কিনা?

অশ্লীলতা ও যৌন হয়রানির অভিযোগ

কস্টিউম ডিজাইনার এক নারী কর্মকর্তা শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন যে, ৪ জানুয়ারি তাকে নানাভাবে উত্যক্ত করার এক পর্যায়ে শহিদুল ইসলাম উলঙ্গ হয়ে অশালীন আচরণ করতে থাকেন। এসময় আরও কারা উপস্থিত ছিলেন তিনি সেটি বিস্তারিত জানান এবং অভিযোগ করেন যে, সব সময়ই শহিদুল ইসলাম দম্ভ দেখিয়ে বলে আসছেন তাকে কেউ কিছু করতে পারবে না। কেন করতে পারবে না বলে মনে করেন জানতে চাইলে একাধিক কর্মকর্তা কর্মচারী বলেন, উনি ডিজির লোক। উনি আর্থিকভাবেও দুর্নীতি করে নানা সময় পার পেয়ে গেছেন।  

উল্লেখ্য, হাইকোর্টের রায়ে যৌন নিপীড়নের সংজ্ঞায় বলা হয়, শারীরিক ও মানসিক যে কোনও ধরনের নির্যাতনই যৌন হয়রানির মধ্যে পড়ে। ই-মেইল, এসএমএস, টেলিফোনে বিড়ম্বনা, পর্নোগ্রাফি, যে কোনও ধরনের অশালীন চিত্র, অশালীন উক্তিসহ কাউকে ইঙ্গিতপূর্ণভাবে সুন্দরী বলাও যৌন হয়রানির পর্যায়ে পড়ে। রায়ে বলা হয়, কোনও নারীকে ভয়ভীতি প্রদর্শন, যে কোনও ধরনের চাপ প্রয়োগ করা, মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে সম্পর্ক স্থাপন, অশালীন চিত্র, দেয়াল লিখন, আপত্তিকর কিছু করাও যৌন হয়রানির মধ্যে পড়ে।

তদন্তের সিদ্ধান্ত ও সুপারিশ

তদন্ত শেষে কমিটি ২৭ জুন তাদের প্রতিবেদনে জানায়, ‘শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে আনীত ৪ জানুয়ারি অফিস চলার সময়ে একাডেমির নারী কর্মকর্তা কর্মচারীদের সামনে উলঙ্গ হয়ে বিভিন্ন অশোভন অঙ্গভঙ্গী করার বিষয়টি তদন্তে প্রমাণিত। বিভিন্নসময়ে অফিসে মদের আড্ডা আয়োজন করার বিষয়টিও প্রমাণিত। এই দুটি অভিযোগেই বাংলাদেশশিল্পকলা একাডেমি (কর্মকর্তাও কর্মচারি) প্রবিধানমালা ১৯৯২ এর ২(ক) বিধি অনুযায়ী অসদাচরণের শামিল। তার বিরুদ্ধে এ ধরনের অসদাচরণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় একাডেমিতে সুস্থ কাজের পরিবেশ বজায় রাখার স্বার্থে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা রুজু করা আবশ্যক। এছাড়া সরকারি অফিসে মদ্যপানের বিষয়টি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ এর ১১ ধারা মতে শাস্তিযোগ্য অপরাধ। অর্থ তছরুপ করা হয়েছে কিনা সে বিষয়ে শিল্পকলা অধিকতর তদন্তের বিষয়টি বিবেচনায় নিতে পারে বলেও উল্লেখ করা হয়।

এছাড়াও ৬ সুপারিশের মধ্যে অন্যতম হলো যে- সকল ক্ষেত্রে বিধিবহির্ভূতভাবে চলতি দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে তা প্রত্যাহার এবং নিয়মানুগ করার পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে এবং ভবিষ্যতে সকল ক্ষেত্রে প্রবিধিমালা এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে অর্থ বিভাগ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিধিবিধান যথাযথ অনুসরণ নিশ্চিত করতে হবে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির গত ৫ বছরের অ-নিরীক্ষিত হিসাব ‘বিশেষ নিরীক্ষা’র জন্য বাংলাদেশের মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক কার্যালয়কে অনুরোধ করার সুপারিশও করা হয়। সরকারি অর্থের অপচয় রোধ ও তছরুপের সুযোগ রোধে কেন্দ্রীয়ভাবে এক জায়গা থেকে কেনার ব্যবস্থা করারও পরামর্শ দেওয়া হয়।

এদিকে ১৫ জুলাই সিনিয়র সহকারী সচিব নাজমা বেগমের সাক্ষরকৃত চিঠিতে তদন্ত কমিটির সুপারিশগুলো উল্লেখ করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়।

একই দিনে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব নাজমা বেগমের সাক্ষরকৃত আরেকটি নির্দেশনায় জানানো হয় শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। এ দুটি অভিযোগই বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি (কর্মকর্তা ও কর্মচারী) প্রবিধানমালা, ১৯৯২ এর ২(ক) বিধি অনুযায়ী অসদাচরণের শামিল এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এমতাবস্থায়, জনাব শহিদুল ইসলাম উপপরিচালক অর্থ (চলতি দায়িত্ব) এবং রুদ্ধে অসদাচরণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় একাডেমিতে সুষ্ঠু কাজের পরিবেশ বজায় রাখার স্বার্থে তার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি (কর্মকর্তা ও কর্মচারি) প্রবিধানমালা, ১৯৯২ এর ২(ক) বিধি অনুযায়ী বিভাগীয় মামলা রুজু করা এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

তদন্তে প্রমাণিত, তারপর?

নিয়মানুযায়ী তদন্ত করে প্রতিবেদন সুপারিশসহ মহাপরিচালকের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। গত ২৭ জুন জমা দেওয়া সেই প্রতিবেদনের পরবর্তী ধাপ আসলে কী আর প্রায় এক মাসে তা দৃশ্যমান হলো না কেন প্রশ্নে মন্ত্রনালয়ের যুগ্মসচিব অসীম কুমার দে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমরা যেটুকু তদন্ত করেছি, সাক্ষ্য নিয়েছি এবং যা প্রতিবেদন সেটি শিল্পকলা একাডেমিতে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। পরের ব্যবস্থা মহাপরিচালক নিবেন। আপনারা জানেন শিল্পকলা একাডেমি সরকারি প্রতিষ্ঠান নয়, স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান। এর পরিচালনার কিছু নিয়ম আছে। সেটিতো মানতেই হয়। তবে পরিচালনা পর্ষদ এখানে ভূমিকা রাখতে পারে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। এদিকে পরিষদের সদস্য রামেন্দু মজুমদার বলেন এ বিষয়ে একবার পরিষদকে অবহিত করা হলেও পরবর্তীকালে তদন্ত বা তদন্ত প্রতিবেদন আকারে কিছু পরিষদে হাজির করা হয়নি।

এদিকে নিজের ১৬ বছরের চাকরি জীবনে কেউ তার বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ আনতে পারেননি বলে দাবি করে অভিযুক্ত শহিদুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, কয়েকজন ব্যক্তি গোপনে আপনার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলেই কিছু প্রমাণ হয়ে যায় না। বেশিরভাগ সহকর্মী তার পক্ষে কথা বলবেন বলেও দাবি করেন তিনি।

যদিও সাক্ষ্য দেওয়া সহকর্মীদের বাদে অন্য একাধিক সহকর্মীর সঙ্গে কথা বলে তার দাবির সত্যতা মেলেনি। তারা বলছেন, শহিদুল মহাপরিচালকের লোক পরিচয় দিয়ে নানা‍ দুর্নীতি করছে। কেন এই দুই তিনজন আপনার বিরুদ্ধে বলছেন প্রশ্নের জবাবে শহিদুল ইসলাম বলেন, এখানে জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের প্রতিহিংসা কাজ করে। আমরা জেলা থেকে ঢাকায় এসেছি এটা অনেকের সহ্য হয় না।

আরও পড়ুন- 

কিছুই তোয়াক্কা করছেন না শিল্পকলার ডিজি

/এফএএন/

সম্পর্কিত

করোনায় প্রথম র‌্যাবের নারী সদস্যের মৃত্যু, মহাপরিচালকের শোক

করোনায় প্রথম র‌্যাবের নারী সদস্যের মৃত্যু, মহাপরিচালকের শোক

হেলেনা জাহাঙ্গীরের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

হেলেনা জাহাঙ্গীরের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

রাশিয়া সফর শেষে দেশে ফিরলেন নৌবাহিনী প্রধান

রাশিয়া সফর শেষে দেশে ফিরলেন নৌবাহিনী প্রধান

‘মানবপাচার মামলার প্রসিকিউশনে ত্রুটিগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে’

‘মানবপাচার মামলার প্রসিকিউশনে ত্রুটিগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে’

করোনা রোগীর চাপ ঢাকা মেডিক্যালে

আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ০০:১৯

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে অন্যান্য দিনের মতো বৃহস্পতিবারও করোনা রোগীর চাপ লক্ষ্য করা গেছে। বেশির ভাগ রোগীই আসছেন বিভিন্ন জেলা থেকে। তাদের অধিকাংশই রেফার্ড রোগী। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ৫৭ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন এই হাসপাতালের করোনা ইউনিটে। রোগীদের মধ্যে যাদের অবস্থা গুরুতর তাদেরই কেবল ভর্তি নেওয়া হচ্ছে। যে সব রোগীর অবস্থা মোটামুটি ভালো, অক্সিজেন লাগছে না, তাদের ব্যবস্থাপত্র দিয়ে ছেড়ে দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। বাসায় রেখে চিকিৎসা নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন। সিট ফাঁকা না থাকলে বাধ্য হয়ে অনেককে অন্য হাসপাতালে রেফার করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে ঢামেক হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত উপপরিচালক আশরাফুল আলম বলেন, ‘আমাদের এখানে সিট ফাঁকা হলেই রোগী ভর্তি দেওয়া হয়। আমরা চাই না কোনও রোগী অন্যত্র চলে যাক। বিভিন্ন জেলা থেকে বেশির ভাগ রোগীকে ঢামেক হাসপাতালে রেফার করা হয়। আমাদের এখানে কোনও রকম ব্যবস্থা করতে পারলে তাই করে থাকি। সিটের বাইরেও অনেক রোগী ভর্তি নিয়েছি।’

করোনা ইউনিটে ডিউটিরত একজন নার্স জানিয়েছেন, রোগী ছুটি হয় সকাল থেকে দুপুরের মধ্যে। সেই সিটের বিপরীতে বাকি সময়ে রোগী ভর্তি দেন জরুরি বিভাগের চিকিৎসকরা।

ঢাকা মেডিক্যালে করোনা রোগী

কুমিল্লা জেলার হোমনা উপজেলার রোগী মায়া বেগম (৫০)। তার ছেলে মাহমুদুল বলেন, আমার মায়ের ডায়াবেটিস আছে। তার মধ্যে ঈদের পর থেকেই জ্বরে ভুগছেন। সঙ্গে কাশি আছে। প্রথমে স্থানীয় চিকিৎসকের পরামর্শে চিকিৎসা করাচ্ছিলাম। এখন তিনি খুবই দুর্বল হয়ে গেছেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে দেয়। তাই নিয়ে আসি। চিকিৎসকরা পরীক্ষা নিরীক্ষার পর কাগজ-পত্র দেখে ভর্তি দিয়েছেন।’

ঢামেক হাসপাতালের একজন সিনিয়র স্টাফ নার্স বলেন, ‘৩-৪ দিন ধরে আমি অসুস্থ বোধ করছিলেন। বুধবার করোনা টেস্ট করাতে দেই। আজ রিপোর্ট পেয়েছি পজিটিভ। তাই ভর্তি হতে এসেছি।’

নরসিংদী সদর উপজেলার বাসিন্দা হেলাল উদ্দিন (৫০)। তিনি সৌদি প্রবাসী। হেলাল উদ্দিনের শ্যালক আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘আমার ভগ্নিপতি ছুটিতে দেশে এসেছেন। সেখান থেকে এক ডোজ টিকাও নিয়েছেন। কয়েক দিন ধরে জ্বর, শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। আমরা নরসিংদী সদর উপজেলাসহ দুটি হাসপাতালে নিয়েছি। সেখানে নাকি সিট নেই। তারাই ঢাকায় নিয়ে আসতে বলেছে। তাই অক্সিজেন লাগিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে নিয়ে আসেছি। জানি না এখন ভর্তি করাতে পারি কিনা। অপেক্ষায় রয়েছি।’

 

/আইএ/

সম্পর্কিত

শনি ও বুধবার আসছে অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ১৩ লাখ ডোজ টিকা

শনি ও বুধবার আসছে অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ১৩ লাখ ডোজ টিকা

রাজধানীর ৯ সরকারি হাসপাতালে ফাঁকা নেই আইসিইউ বেড

রাজধানীর ৯ সরকারি হাসপাতালে ফাঁকা নেই আইসিইউ বেড

ঢাকায় একদিনে রেকর্ড ডেঙ্গু রোগী

ঢাকায় একদিনে রেকর্ড ডেঙ্গু রোগী

অনুমোদন পেলো বুয়েট উদ্ভাবিত অক্সিজেট

অনুমোদন পেলো বুয়েট উদ্ভাবিত অক্সিজেট

প্রতি শনিবার ১০ মিনিট সময় চান মেয়র আতিক

আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ০০:০৯

ডেঙ্গু প্রতিরোধে প্রতি শনিবার সকাল ১০টা থেকে ১০টা ১০ মিনিট পর্যন্ত ১০ মিনিট সময় চান ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

তারই অংশ হিসেবে এদিন তিনি নগরবাসীকে সচেতন করতে নিজ বাসা নিজ হাতে পরিষ্কার করবেন।

বিষয়টি তার ভেরিফায়েড ফেসবুক অডিয়েন্স ইসির ফেসবুক পেজ থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

‘দশটায় ১০ মিনিট প্রতি শনিবার, নিজ নিজ বাসাবাড়ি করি পরিষ্কার’ স্লোগানকে সামনে রেখে এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে।

 

/এসএস/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ডেঙ্গু প্রতিরোধে মাঠে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘মাঞ্জা’

ডেঙ্গু প্রতিরোধে মাঠে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘মাঞ্জা’

লকডাউন অমান্য করায় শুক্রবার রাজধানীতে ৩৮১ জন গ্রেফতার

লকডাউন অমান্য করায় শুক্রবার রাজধানীতে ৩৮১ জন গ্রেফতার

জয়যাত্রা টেলিভিশন ঘিরে ছিল হেলেনা জাহাঙ্গীরের চাঁদাবাজি

জয়যাত্রা টেলিভিশন ঘিরে ছিল হেলেনা জাহাঙ্গীরের চাঁদাবাজি

করোনা কোথায়? (ফটোস্টোরি)

করোনা কোথায়? (ফটোস্টোরি)

করোনায় প্রথম র‌্যাবের নারী সদস্যের মৃত্যু, মহাপরিচালকের শোক

আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ০০:০৪

করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাশেদা ফেরদৌস নামে একজন নারী র‌্যাব সদস্য মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাতে রাজধানীর ইমপালস হাসপাতালে মারা যান তিনি। তার মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছেন র‌্যাব মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন। শুক্রবার (৩০ জুলাই) গণমাধ্যমে পাঠানো এক শোকবার্তায় এ তথ্য জানানো হয়।

শোক বার্তায় বলা হয়, রাশেদা ফেরদৌস র‌্যাব-৩ এ প্রেষণে কর্মরত ছিলেন। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকেই চলমান সব অপারেশন কর্মকাণ্ডে সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে সাহসিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন তিনি। এই নারী সদস্যের অকাল মৃত্যুতে আমরা মর্মাহত। করোনায় র‌্যাবে এই প্রথম কোনও নারী সদস্য জীবন উৎসর্গ করলেন। তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয় শোক বার্তায়।

মরহুমার গ্রামের বাড়ি সিলেটের গোপালগঞ্জ উপজেলা। সেখানেই তাকে দাফন করা হয়েছে। তার পরিবার-পরিজন যেন এই অপরিমেয় শোক সহ্য করতে পারেন সে জন্য আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেন র‌্যাব মহাপরিচালক। 

রাশেদা ফেরদৌস ২০২১ সালের ৫ মার্চ হতে র‌্যাবে কর্মরত। তিনি গাজীপুরের সফিপুরের মহিলা আনসার ব্যাটালিয়ন থেকে র‌্যাবে যোগদান করেন। 

 

/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

হেলেনা জাহাঙ্গীরের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

হেলেনা জাহাঙ্গীরের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

রাশিয়া সফর শেষে দেশে ফিরলেন নৌবাহিনী প্রধান

রাশিয়া সফর শেষে দেশে ফিরলেন নৌবাহিনী প্রধান

‘মানবপাচার মামলার প্রসিকিউশনে ত্রুটিগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে’

‘মানবপাচার মামলার প্রসিকিউশনে ত্রুটিগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে’

সৌদি আরব থেকে ফেরত পাঠালে হজ-ওমরাহ ছাড়া প্রবেশ করা যাবে না

সৌদি আরব থেকে ফেরত পাঠালে হজ-ওমরাহ ছাড়া প্রবেশ করা যাবে না

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটানোর অভিযোগে একজন গ্রেফতার

আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ০০:০০

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে রাষ্ট্রবিরোধী ও ধর্মীয় উস্কানিমূলক গুজব রটিয়ে আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর চেষ্টার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ।

গ্রেফতারকৃতের নাম মো. শফিকুল ইসলাম ওরফে শাফী।

বুধবার (২৮ জুলাই) ১২টা ৫ মিনিটে ঝালকাঠি সদরে অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেফতার করে সিটি সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের ইন্টারনেট রেফারেল টিম।

প্রযুক্তির সহায়তায় উক্ত পেজ ও চ্যানেল পরিচালনাকারী শফিকুল ইসলামকে শনাক্ত করে ঝালকাঠি সদর এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে ইউটিউব চ্যানেল এবং ফেসবুক পেজ ‘শান্তির আহ্বান’ লগড ইন অবস্থায় একটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। উক্ত ইউটিউব চ্যানেলে সংশ্লিষ্ট ভিডিওসহ একই রকম প্রায় পাঁচ শতাধিক ভিডিও পাওয়া যায়।

সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, বেশ কিছু দিন থেকে ‘শান্তির আহবান’ নামক একটি ইউটিউব চ্যানেল ও ফেসবুক পেজ থেকে হাদিস অস্বীকার ও অপব্যাখ্যা করে ধর্ম অবমাননাকর ভিডিও শেয়ার করা হচ্ছে বলে সাইবার পেট্রোলিং’র মাধ্যমে জানা যায়। তা ছাড়াও উক্ত চ্যানেলে প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় সংসদে প্রদত্ত বক্তব্যের খণ্ডচিত্র বিকৃতভাবে উপস্থাপনের মাধ্যমে ধর্মীয় উস্কানি প্রদান করা হয়। সাম্প্রতিক সময়ের বিভিন্ন আলোচিত ঘটনাকে কেন্দ্র করে, বিভিন্ন মিথ্যা বক্তব্যের ভিডিও ও ছবি যুক্ত করে নতুন ভিডিও প্রস্তুত করে এ ইউটিউব চ্যানেলটিতে আপলোড করা হয়। এসকল ভিডিওতে ধর্ম, রাষ্ট্র, সরকার বিরোধী নানা প্রকার আক্রমণাত্মক, মিথ্যা, মানহানিকর ও ধর্মীয় উস্কানীমূলক গুজব রটিয়ে দেশের আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর চেষ্টা করছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্য সম্পর্কে সূত্র জানায়, গ্রেফতারকৃত শফিকুল ‘শান্তির আহ্বান’ নামক ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে অর্থ আয়ের উদ্দেশ্যে উক্ত মনগড়া ও উস্কানীমূলক গুজব রটানোর ভিডিও গুলো ধারণ, সম্পাদনা ও প্রচার করতো।

গ্রেফতারকৃতের বিরুদ্ধে রমনা মডেল থানার মামলায় রিমান্ড আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তার দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

 

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুল চালাতো জঙ্গি ফোরকান

অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুল চালাতো জঙ্গি ফোরকান

হেলেনার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় প্রতিবেদন ১২ সেপ্টেম্বর

হেলেনার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় প্রতিবেদন ১২ সেপ্টেম্বর

‘দলের ও রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করেছেন হেলেনা’

‘দলের ও রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করেছেন হেলেনা’

মানবপাচার প্রতিরোধ আইনের বিষয়ে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান

মানবপাচার প্রতিরোধ আইনের বিষয়ে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান

অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুল চালাতো জঙ্গি ফোরকান

আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ০০:৩৩

সাধারণ শিক্ষার্থীরা অনলাইনে যেভাবে ক্লাস করেন সেভাবেই বোমা তৈরির একটি স্কুল গড়ে তুলেছিল এক তরুণ। এই অনলাইন স্কুলে অংশ নিতো নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন নব্য জেএমবির সদস্যরা। এতে প্রশিক্ষক হিসেবে জঙ্গি সদস্যদের প্রশিক্ষণ দিতো নব্য জেএমবির এক বোমা তৈরির কারিগর। তার নাম জাহিদ হাসান ওরফে রাজু ওরফে ইসমাইল ওরফে ফোরকান। সম্প্রতি অনলাইনে এমন একটি বোমা তৈরির স্কুলের সন্ধান পেয়ে নড়েচড়ে বসেছে পুলিশের জঙ্গি প্রতিরোধে বিশেষায়িত ইউনিট-কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি)। বোমা তৈরির ওই প্রশিক্ষককে গ্রেফতারে শুরু হয়েছে অভিযান।

সিটিটিসির কর্মকর্তারা বলছেন, ধারাবাহিক অভিযানে কোণঠাসা নব্য জেএমবি আবার নতুন করে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে। তুরস্ক থেকে মাহাদী হাসান জন ওরফে আবুল আব্বাস আল বাঙ্গালি পরিচয়ে এক জঙ্গি আমীর হিসেবে নব্য জেএমবিকে সংগটিত করছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের টার্গেট করে তারা এখন সংগঠনের সব সদস্যদের বোমা তৈরির প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় সাংগঠনিক সিদ্ধান্তে জাহিদ ওরফে ফোরকান গোপনে একটি অনলাইন স্কুল তৈরি করেছে। সংগঠনের সামরিক শাখার সদস্যদের সেখানে বোমা তৈরির প্রশিক্ষণ দেওয়া হতো।

সিটিটিসির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার রহমত উল্লাহ চৌধুরী সুমন বলেন, ‘অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুল পরিচালনা করছে জঙ্গিরা, এমন তথ্যের ভিত্তিতে নজরদারি শুরু করা হয়। প্রযুক্তিগত তথ্য ও আগে গ্রেফতার হওয়া জঙ্গিদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তারা বোমা তৈরির অনলাইন স্কুলের সত্যতা পান। পরে এই স্কুলের প্রশিক্ষককে গ্রেফতারের জন্য তার বিস্তারিত নাম-পরিচয় সংগ্রহ শুরু করেন।’

সিটিটিসি সূত্র জানায়, অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুল পরিচালনাকারী জাহিদ হাসান ওরফে ফোরকান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের রসায়ন বিভাগের শিক্ষার্থী। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার সময় থেকেই সে জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ে। বিস্ফোরকের নানা উপকরণ নিয়ে পড়াশুনা করে এবং অনলাইনে প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেই বোমা তৈরির দক্ষ কারিগর হয়ে ওঠে। এরপর সাংগঠনিক সিদ্ধান্তে সে নিজেই বোমা তৈরির স্কুল পরিচালনা শুরু করে।

সিটিটিসির একজন কর্মকর্তা জানান, জাহিদ ওরফে ফোরকান এনক্রিপ্টেড বিভিন্ন অ্যাপসের মাধ্যমে সংগঠনের সহযোগী সদস্যদের কাছে প্রথমে বোমা তৈরির ম্যানুয়াল পাঠিয়ে দিতো। তারপর সপ্তাহের একটি নির্দিষ্ট সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে ভিডিও কলে হাতে-কলমে শেখাতো। তার তৈরি করা বোমা বা আইইডি (ইমপ্রোভাইজ এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস) সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের একটি পুলিশ বক্স থেকে উদ্ধার করা হয়।

সূত্র জানায়, গত ১২ জুলাই নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার ও বন্দর থানাধীন দুটি জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালিয়ে একাধিক আইইডি উদ্ধারের পর তা নিস্ক্রিয় করা হয়। এ ঘটনায় আব্দুল্লাহ আল মামুন ও কাউসার হোসেন ওরফে মেজর উসামা নামে দুই জঙ্গিকে গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তারা বোমা তৈরির অনলাইন স্কুলের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ নেওয়ার কথা স্বীকার করে। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে প্রশিক্ষক জাহিদ ওরফে ফোরকানের বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ শুরু করা হয়।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, তারা ইতোমধ্যে জাহিদ ওরফে ফোরকানের বিস্তারিত পরিচয় সংগ্রহ করেছেন। ফোরকান বোমা তৈরিতে দক্ষতা অর্জনের পাশাপাশি মার্শাল আর্টের প্রশিক্ষণও নিয়েছে। বান্দরবানে গিয়ে নিজে অস্ত্র চালানোর প্রশিক্ষণ নিয়ে সে একাধিকবার কথিত হিজরতের জন্য দেশের বাইরে যাওয়ার চেষ্টাও করেছিল।

সিটিটিসির দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা জানান, জঙ্গিরা শুরু থেকেই আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহারের চাইতে আইইডি বা বোমা ব্যবহার করতো বেশি। আত্মঘাতী হামলা বা বিস্ফোরণের মাধ্যমে বেশি লোকজনকে হতাহত করে আলোচনায় আসা তাদের টার্গেট। এ জন্য আগে পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে বিস্ফোরকের উপাদান ও ডেটোনেটর সংগ্রহ করা হতো। কিন্তু এখন পার্শ্ববর্তী দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও সতর্ক অবস্থানে থাকায় দেশীয় বাজার থেকে সহজেই সংগ্রহ করা যায় এমন রাসায়নিক উপাদান এনে বোমা তৈরি করছে তারা। এমনকি জঙ্গিরা বোমা তৈরির ডেটোনেটরও নিজেরা তৈরি করছে।

সিটিটিসির ওই কর্মকর্তা জানান, জঙ্গিরা এখন অনেক বেশি অনলাইনকেন্দ্রিক হয়ে আছে। তারা সদস্য সংগ্রহ থেকে শুরু করে যোগাযোগ, প্রশিক্ষণ, অর্থ সংগ্রহ ও প্রোপাগান্ডা প্রচার বা ভ্রান্ত মতাদর্শ প্রচারণার সবকিছুই করছে অনলাইনে। এ কারণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও অনলাইনে কড়া নজরদারি করছে।

 

/আইএ/ 

সম্পর্কিত

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটানোর অভিযোগে একজন গ্রেফতার

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটানোর অভিযোগে একজন গ্রেফতার

হেলেনার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় প্রতিবেদন ১২ সেপ্টেম্বর

হেলেনার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় প্রতিবেদন ১২ সেপ্টেম্বর

‘দলের ও রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করেছেন হেলেনা’

‘দলের ও রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করেছেন হেলেনা’

মানবপাচার প্রতিরোধ আইনের বিষয়ে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান

মানবপাচার প্রতিরোধ আইনের বিষয়ে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান

সর্বশেষ

ঈদে বিক্রি না হওয়া ‘কালো মানিক’কে নিয়ে বিপাকে খামারি

ঈদে বিক্রি না হওয়া ‘কালো মানিক’কে নিয়ে বিপাকে খামারি

অটোরিকশা থেকে চাঁদা আদায় নিয়ে সংঘর্ষে আহত ১৩

অটোরিকশা থেকে চাঁদা আদায় নিয়ে সংঘর্ষে আহত ১৩

ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর বিয়ের আয়োজন করায় বাবার জরিমানা

ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর বিয়ের আয়োজন করায় বাবার জরিমানা

ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে তুরস্ক

ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে তুরস্ক

খুলনায় বৃষ্টিতে ভেসে গেছে ১০৮ কোটি টাকার মাছ

খুলনায় বৃষ্টিতে ভেসে গেছে ১০৮ কোটি টাকার মাছ

হেফাজতের হরতালে সহিংসতা মামলার আসামি গ্রেফতার

হেফাজতের হরতালে সহিংসতা মামলার আসামি গ্রেফতার

করোনা রোগীর চাপ ঢাকা মেডিক্যালে

করোনা রোগীর চাপ ঢাকা মেডিক্যালে

প্রতি শনিবার ১০ মিনিট সময় চান মেয়র আতিক

প্রতি শনিবার ১০ মিনিট সময় চান মেয়র আতিক

করোনায় প্রথম র‌্যাবের নারী সদস্যের মৃত্যু, মহাপরিচালকের শোক

করোনায় প্রথম র‌্যাবের নারী সদস্যের মৃত্যু, মহাপরিচালকের শোক

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটানোর অভিযোগে একজন গ্রেফতার

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটানোর অভিযোগে একজন গ্রেফতার

ফুটবল খেলায় ও রাস্তায় ঘোরাঘুরি করায় আটক ৪৪

ফুটবল খেলায় ও রাস্তায় ঘোরাঘুরি করায় আটক ৪৪

অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুল চালাতো জঙ্গি ফোরকান

অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুল চালাতো জঙ্গি ফোরকান

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

করোনায় প্রথম র‌্যাবের নারী সদস্যের মৃত্যু, মহাপরিচালকের শোক

করোনায় প্রথম র‌্যাবের নারী সদস্যের মৃত্যু, মহাপরিচালকের শোক

হেলেনা জাহাঙ্গীরের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

হেলেনা জাহাঙ্গীরের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

রাশিয়া সফর শেষে দেশে ফিরলেন নৌবাহিনী প্রধান

রাশিয়া সফর শেষে দেশে ফিরলেন নৌবাহিনী প্রধান

‘মানবপাচার মামলার প্রসিকিউশনে ত্রুটিগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে’

‘মানবপাচার মামলার প্রসিকিউশনে ত্রুটিগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে’

সৌদি আরব থেকে ফেরত পাঠালে হজ-ওমরাহ ছাড়া প্রবেশ করা যাবে না

সৌদি আরব থেকে ফেরত পাঠালে হজ-ওমরাহ ছাড়া প্রবেশ করা যাবে না

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

সুন্দরবন যেমন আছে তেমনই থাকতে দিন: সুলতানা কামাল

সুন্দরবন যেমন আছে তেমনই থাকতে দিন: সুলতানা কামাল

সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে: খেলাফত মজলিস

সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে: খেলাফত মজলিস

ডিএনসিসিতে দেড় হাজার কর্মহীন পরিবহন শ্রমিকের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

ডিএনসিসিতে দেড় হাজার কর্মহীন পরিবহন শ্রমিকের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

কত প্রকার মাদক আছে দেশে?

মাদক ভয়ংকর-৪কত প্রকার মাদক আছে দেশে?

© 2021 Bangla Tribune