X
বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

আগামীর হাল ধরবে যে প্রযুক্তিগুলো

আপডেট : ২৪ জুলাই ২০২১, ১৭:৫৯

মহামারির এ কালেই আচমকা যেন রকেট-গতিতে এগিয়েছে ডিজিটালাইজেশন। অটোমেশনে যুক্ত হয়েছে নতুন মাত্রা। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে বিভিন্ন খাত সংকটে পড়লেও প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের পোয়াবারো। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আইটিপ্রো-পোর্টালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আগের চেয়ে প্রযুক্তিকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিয়ে গ্রহণ করছেন উদ্যোক্তারা। প্রতিবেদনে এমন কিছু প্রযুক্তির কথা তুলে ধরা হয়েছে যেগুলো দখল করতে যাচ্ছে আগামীর দিনগুলো।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা

গত দশক থেকে আলোড়ন সৃষ্টি করা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে এখনও উদীয়মান প্রযুক্তি হিসেবেই ধরা হয়। আমাদের জীবনের অংশ হতে এআই-এর এখনও ঢের বাকি। তবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উপস্থিতি কিন্তু দেখা যাচ্ছে। ছবি ও কথা বোঝা, মোবাইলের পারসোনাল অ্যাসিসট্যান্ট, নেভিগেশন অ্যাপ ইত্যাদিতে এই প্রযুক্তির ব্যবহার হচ্ছে। সামনের দিনগুলোতে চিকিৎসা ও জলবায়ু গবেষণায় এর প্রয়োগ আরও বাড়বে।

ফাইভ-জি

ফাইভ-জি মানে কেবল ওয়েবপেজ দ্রুত লোড হওয়া বা ইউটিউব ভিডিও দ্রুত দেখা বোঝায় না। এটি বিস্তৃত একটি ধারণা, অনেকটা বাস্তুসংস্থানের মতো। ফাইভ-জি এমন এক প্রযুক্তি, যা মানুষের জীবনকে সামগ্রিকভাবে গতিশীল ও স্বয়ংক্রিয় করবে। এই প্রযুক্তির সঙ্গে অন্যান্য অ্যাডভান্সড অনুষঙ্গ ও হাইস্পিড নেটওয়ার্কের মাধ্যমে আমরা সকল যন্ত্রপাতিকে আরও সহজে ব্যবহার করতে পারবো। ফাইভ-জি প্রযুক্তি প্রকৃতপক্ষে শিল্পখাতের জন্য। আগামীতে শিল্পখাত হবে ফাইভ-জি নির্ভর।

এজ কম্পিউটিং

এজ কম্পিউটিং

এজ কম্পিউটিং নতুন একটি ধারণা। দ্রুত ও কম সময়ে ডেটা প্রসেসিং করবে এ সিস্টেম। ক্লাউডে বিভিন্ন জটিল পদ্ধতির অনুসরণ ছাড়াই ব্যবহারকারীর কম্পিউটারে বা এজ সার্ভারে ডেটা স্থানান্তর করা যায় এ প্রযুক্তিতে। এটি ডেটা এবং কম্পিউটিংয়ের মধ্যকার গ্যাপও দূর করবে।

কোয়ান্টাম কম্পিউটারের জন্য ৪ কিউবিটের একটি আইবিএম প্রসেসর

কোয়ান্টাম কম্পিউটিং

এখনও বলতে গেলে আঁতুরঘরে আছে এ প্রযুক্তি। তবে সন্দেহ নেই, ভবিষ্যতের কম্পিউটার হবে কোয়ান্টাম কম্পিউটার। সুপারকন্ডাক্টর সার্কিটের কারণে এতে অকল্পনীয় গতি পায় প্রসেসর। সাধারণ কম্পিউটার যেখানে হাইভোল্টেজ (১) ও লো ভোল্টেজ (০) বুঝতে পারে, সেখানে কোয়ান্টাম কম্পিউটার আরেকটি ‘দশা’ গণনা করতে পারে। একে বলে কিউবিট। আর এ ধরনের কম্পিউটার পূর্ণগতিতে কাজ শুরু করলে দেখা যাবে সিমুলেশন ঘটিয়ে দিনে দিনেই তৈরি করা যাবে যেকোনও ভ্যাকসিন। এখনও করোনাভাইরাসের কার্যকরী ভ্যাকসিন তৈরিতে এ প্রযুক্তির কিছুটা কাজে লাগানো হচ্ছে।

গুগলের ল্যাবে আছে কোয়ান্টাম কম্পিউটার

তবে এ কম্পিউটারের বিপদও আছে। বিশেষ করে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তা বেষ্টনী মুহূর্তেই ভেঙে ফেলতে পারবে একটি পূর্ণাঙ্গ কোয়ান্টাম কম্পিউটার। আর তাই নিরাপত্তার ঝুঁকি চিহ্নিত করতেও এ প্রযুক্তি কাজ করবে। প্রথাগত কম্পিউটারের চেয়ে কোয়ান্টাম কম্পিউটার কয়েক কোটি গুণ দ্রুতগতির সম্পন্ন। গুগলের কাছে এমন একটি কোয়ান্টাম কম্পিউটার আছে যা কিনা আইবিএম এর সর্বোচ্চ গতিসম্পন্ন সুপারকম্পিউটারের চেয়ে ১৫ কোটি ৮০ লাখ গুণ বেশি গতিসম্পন্ন!

ব্লকচেইন

ব্লকচেইন

প্রযুক্তির ট্রেন্ডের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ স্থান দখল করতে যাচ্ছে ব্লকচেইন। অনেকে মনে করেন, ব্লকচেইন মানেই ক্রিপ্টোকারেন্সি। ব্যাপারটা সেরকম নয়। মোটের ওপর বলা যায়, বিটকয়েন ও অন্য ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলো হলো ব্লকচেইন প্রযুক্তির একটি অংশ মাত্র। ব্লকচেইন মূলত তথ্য সংরক্ষণের একটি নতুন নকশা। যাতে আগের মতো বড় বড় ডেটাবেজ তৈরি না করে তথ্যগুলোকে ছোট ছোট ডিজিটাল ব্লক আকারে রাখা হয়। ব্লকগুলো আবার স্থায়ী। একবার তৈরি হওয়ার পর সেই তথ্য-ব্লক আজীবনের জন্য একটি চেইনের অংশ হয়ে যায়। মূলত প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় লেনদেনের তথ্য যখন ব্লকচেইন আকারে থাকে, তখন সেখানে জবাবদিহিতার জায়গাটা থাকে সুস্পষ্ট। আবার এই প্রযুক্তি আরও অনেক ক্ষেত্র নিয়েও কাজ করে যেমন- স্বাস্থ্যসেবা, সাপ্লাই চেইন অ্যান্ড লজিস্টিকস, বিজ্ঞাপন বাজার ইত্যাদি।

সাইবার সিকিউরিটি

অন্যান্য প্রযুক্তির মতোই উন্নতি ঘটছে সাইবার সিকিউরিটি প্রযুক্তির। প্রতিনিয়ত নতুন নতুন থ্রেট বা হুমকি সামনে আসায় এই প্রযুক্তিতে ভিন্ন মাত্রা যুক্ত হচ্ছে।  হ্যাকাররা ব্যবহারকারীদের বিভিন্ন তথ্যে অবৈধ হস্তক্ষেপের চেষ্টা করছে।  ভবিষ্যতেও তারা এ চেষ্টা চালিয়ে যাবে। অন্যদিকে সাইবার সিকিউরিটির মাধ্যমে তথ্যের সুরক্ষা আরও ভালোভাবে নিশ্চিতের চেষ্টা করা হবে। ফলে বাড়বে সাইবার সিকিউরিটি নির্ভর প্রযুক্তির চাহিদা।

ডিস্ট্রিবিউটেড ক্লাউড

ক্লাউড কম্পিউটিংকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবে ডিস্ট্রিবিউটেড ক্লাউড টেকনোলজি। পাবলিক ক্লাউড রিসোর্সকে বিভিন্নভাবে বিতরণের ব্যবস্থা করবে এটি। এই প্রযুক্তির মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান দারুণভাবে উপকৃত হবে। বিশেষ করে ডিস্ট্রিবিউটেড ক্লাউড প্রযুক্তির মাধ্যমে তথ্য সংরক্ষণে সময়ক্ষেপণ কমবে। ডেটা হারানোর ঝুঁকি ও ব্যয়ও কমাতে পারবে এ প্রযুক্তি।

/এফএ/

সম্পর্কিত

আইজিডাব্লিউয়ের পথে আইসিএক্স, লাইসেন্স ফি কমানোর আবেদন

আইজিডাব্লিউয়ের পথে আইসিএক্স, লাইসেন্স ফি কমানোর আবেদন

উন্মোচন হলো আইফোন ১৩

উন্মোচন হলো আইফোন ১৩

‘প্রযুক্তি পণ্যের সংকট কাটতে ছয় মাস লাগবে’

‘প্রযুক্তি পণ্যের সংকট কাটতে ছয় মাস লাগবে’

ওয়ালটন নিয়ে এলো নতুন ট্যাব

ওয়ালটন নিয়ে এলো নতুন ট্যাব

আইজিডাব্লিউয়ের পথে আইসিএক্স, লাইসেন্স ফি কমানোর আবেদন

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০০

বিদেশি ও দেশি ভয়েস কল নির্ধারিত অপারেটরে সংযুক্ত করার প্রযুক্তি সেবা প্রতিষ্ঠান আইসিএক্স (ইন্টারকানেকশন এক্সচেঞ্জ) অপারেটরগুলো বার্ষিক লাইসেন্স ফি কমানোর অনুরোধ করেছে বিটিআরসিতে। তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি ফি কমানোর সিদ্ধান্তও নিয়েছে। এর আগে আইজিডাব্লিউ (ইন্টারন্যাশনাল গেটওয়ে) অপারেটররা লাইসেন্স নবায়ন ফি কমাতে বিটিআরসিতে আবেদন করে।

আইসিএক্স অপারেটরের বার্ষিক লাইসেন্স ফি ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা। এই ফি ২৫ লাখ টাকা করার অনুরোধ জানিয়ে আবেদন করেছিল আইসিএক্স অপারেটরগুলোর সংগঠন এআইওবি (অ্যাসোসিয়েশন অব আইসিএক্স অপারেটরস অব বাংলাদেশ)। যৌক্তিকতা হিসেবে আইসিএক্স খাতে বিভিন্ন বছরের কল রেট, রেভিনিউ, কল ভলিউম ও আরও কিছু তথ্যসহ বিস্তারিত প্রতিবেদন তৈরি করতে কমিশনটি একটি কমিটি করেছিল।

জানা যায়, ওই কমিটি চলতি বছর পাঁচটি বৈঠক করে। তারা একটি সুপারিশমালাও করে। বিটিআরসির কমিশন বৈঠকে সেসব আলোচনার ভিত্তিতে পাঁচটি সম্ভাব্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সর্বশেষ কমিশন বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, ২০১৮ সালে আইসিএক্স অপারেটরদের আয়ের প্রবৃদ্ধি হলেও ২০১৯ ও ২০২০ সালে নেতিবাচক প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

কমিটির প্রতিবেদনে উল্লেখিত পাঁচটি সম্ভাব্য সিদ্ধান্ত অনুযায়ী লাইসেন্স প্রতি বার্ষিক ফি সর্বনিম্ন ৮৩ লাখ টাকা এবং সর্বোচ্চ ৯৬ লাখ টাকা হিসাব করা হয়। দুটোর গড় করে ৯০ লাখ টাকা ফি নির্ধারণের সিদ্ধান্ত নেয়।

সিদ্ধান্তটি অনুমোদনের জন্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে পাঠিয়েছে বিটিআরসি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, এখনও প্রস্তাব হাতে পাইনি। পেলে তা অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। অর্থ মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত দেবে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আইজিডাব্লিউ, আইসিএক্স-এর ভবিষ্যৎ এবং তাদের বিজনেস নিয়েও ভাবছি। কারণ তাদের বিজনেস দিন দিন ছোট হয়ে আসছে। সামনে তাদের জন্য চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে। লাইসেন্স ফি কমানোর আবেদন সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার অংশ।’    

কমিশন আরও উল্লেখ করে, আইসিএক্স অপারেটররা বার্ষিক লাইসেন্স ফি ২৫ লাখ টাকা করার যে আবেদন করেছে তার স্বপক্ষে যৌক্তিক তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করেনি। এ কারণে কমিশন মনে করে অপারেটরগুলার বার্ষিক লাইসেন্স ফি ২৫ লাখ টাকা নির্ধারণের যৌক্তিকতা নেই।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে বিটিআরসি আইসিএক্সগুলোর রেভিনিউ শেয়ারিং ৬৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫০ শতাংশ করে। আন্তর্জাতিক ইনকামিং কল রেট দেড় সেন্ট থেকে বাড়িয়ে পৌনে দুই সেন্ট করা হয়।

/এফএ/ইউএস/

উন্মোচন হলো আইফোন ১৩

আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৩৩

উন্মোচিত হলো বহুল প্রত্যাশিত আইফোন ১৩। বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) ক্যালিফোর্নিয়ার অ্যাপল পার্কে আইফোন ১৩ এর গ্র্যান্ড লঞ্চিং অনুষ্ঠিত হয়। পিঙ্ক, ব্লু, মিডনাইট স্টারলেট ছাড়াও এসেছে রেড রঙের আইফোন ১৩।

আইফোনে ১৩-এ কেমন ফিচার থাকছে এ নিয়ে কৌতূহল ছিল অনেকেরই। নতুন রঙে চারটি মডেল নিয়ে হাজির হলো আইফোন ১৩। আইফোন ১৩, আইফোন ১৩ মিনি, আইফোন ১৩ প্রো এবং আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স।

আইফোন ১৩

অ্যাপেল জানিয়েছে, আইফোন ১৩ ও আইফোন ১৩ মিনির পেছনে থাকছে ১২ মেগাপিক্সেলের দুটি ক্যামেরা। ভিডিও কনটেন্ট তৈরিতেও নতুন আইফোন বেশ সুবিধা নিয়ে এসেছে। ক্যামেরায় দেওয়া হয়েছে সিনেম্যাটিক মোড।

ব্যাটারি এবং কার্যকারিতা পারফরম্যান্স বিচারে পুরনো মডেলগুলোর চেয়ে বেশ উন্নত। পুরোনো সিরিজের থেকে কমপক্ষে আড়াই ঘণ্টা বেশি ব্যাটারি ব্যাকআপ দেবে আইফোন ১৩। একইভাবে আইফোন ১৩ মিনি আগের চেয়ে ১ থেকে দেড় ঘণ্টা বেশি ব্যাটারি ব্যাকআপ দেবে। নতুন আইফোনগুলো চলবে অ্যাপলের তৈরি এ ১৫ বায়োনিক প্রসেসরে।

ডিসপ্লেতেও আগের চেয়ে পরিবর্তন আনা হয়েছে বলে জানিয়েছে অ্যাপেল। যা প্রায় ২০ শতাংশ বেশি উজ্জ্বল।নতুন মডেলে থাকছে ৫০০ জিবি স্টোরেজ। সর্বনিম্ন ৬৪ জিবির বদলে ১২৮ জিবি স্টোরেজ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

আইএফোন ১৩ -এর দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ৭৯৯ ডলার মার্কিন ডলার, আইফোন ১৩ মিনি ৬৯৯ ডলার, আইফোন ১৩ প্রোর দাম ৯৯৯ ডলার। আর আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্সের দাম পড়বে ১ হাজার ৯৯ ডলার। 

অ্যাপেল জানিয়েছে, আগামী শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) থেকে প্রি অর্ডার করা যাবে কয়েকটি দেশে। তবে বাজারে আসবে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বরে।

/এলকে/

সম্পর্কিত

আইফোন ছেড়ে ব্যবহারকারীরা যে কারণে অ্যান্ড্রয়েডে

আইফোন ছেড়ে ব্যবহারকারীরা যে কারণে অ্যান্ড্রয়েডে

আইফোন জিতে নিতে পারেন ভিডিও গেম খেলে

আইফোন জিতে নিতে পারেন ভিডিও গেম খেলে

যে কারণে আইফোনের সঙ্গে চার্জার দেওয়া বন্ধ করেছে অ্যাপল

যে কারণে আইফোনের সঙ্গে চার্জার দেওয়া বন্ধ করেছে অ্যাপল

‘প্রযুক্তি পণ্যের সংকট কাটতে ছয় মাস লাগবে’

আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৪৫

দেশে প্রযুক্তি পণ্যের (কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মনিটর ইত্যাদি) সংকট কাটতে শুরু করেছে। সরবরাহ আগের চেয়ে বেড়েছে। যেহেতু সংকটটা বৈশ্বিক, তাই এটি পুরোপুরি কাটিয়ে উঠতে আরও ছয় মাস লাগবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির (বিসিএস) সভাপতি শাহিদ উল মুনীর।

বাংলা ট্রিবিউন: সংকট কেটে যাওয়ার পেছনে মূল ভূমিকা কীসের?

শাহিদ উল মুনীর: দেশে লকডাউন উঠে যাওয়ায় এবং বিভিন্ন দেশ যোগাযোগ অবরোধ তুলে নেওয়ায় পণ্য প্রবেশের গতি বেড়েছে। এজন্য সংকট আগের মতো নেই।

বাংলা ট্রিবিউন: প্রযুক্তি পণ্যের দাম বেড়েছিল কেন?

শাহিদ উল মুনীর: শুধু আমাদের দেশেই যে পণ্যের দাম বেড়েছে তা নয়, উৎপাদকরা দাম বাড়িয়ে দিয়েছিল। ফলে এর প্রভাব পড়েছে সারা বিশ্বে। প্যানেল ও চিপের সংকট ছিল। তাই স্বাভাবিকভাবেই সব কিছুর দাম বেড়েছে। এ কারণে ল্যাপটপ, র‌্যাম, মনিটরসহ অনেক যন্ত্রাংশেরও দাম বেড়েছে। ল্যাপটপেরও দাম বেড়েছে অনেক। আশার কথা হচ্ছে, সংকট কাটতে শুরু করেছে। পুরোপুরি কাটতে ৫-৬ মাস লেগে যেতে পারে।

বাংলা ট্রিবিউন: করোনাকালে দেশে প্রযুক্তিপণ্যের খাতে ছাঁটাই কেমন হয়েছে?

শাহিদ উল মুনীর: হার্ডওয়্যার খাতের কোনও প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়নি। ছাঁটাইও হয়নি। তবে অনেকে পেশা বদল করেছেন। সংখ্যাটা এক শতাংশেরও কম। আমরা শুরু থেকে সতর্ক দৃষ্টি রেখেছিলাম। প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধানদের বলেছিলাম, বেতন কমিয়ে, ইনক্রিমেন্ট না দিয়ে- যেভাবেই হোক কর্মীদের ধরে রাখুন। অনেকে ব্যবসায়িকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলেও ব্যবসা বন্ধ করেনি কেউ।

সংগঠন থেকে সহজ শর্তে হার্ডওয়্যার প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যাংক ঋণ পাওয়ার ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়। অনেকে ঋণ নিয়ে ব্যবসা গুছিয়ে নিতে পেরেছে। ফলে করোনা এই খাতের খুব একটা ক্ষতি করতে পারেনি।

বাংলা ট্রিবিউন: সম্প্রতি বাংলাদেশের একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল উজবেকিস্তান সফর করেছে। সেই প্রতিনিধি দলে আপনিও ছিলেন। এই সফর দেশের আইসিটি খাতের জন্য কী সুখবর আনতে যাচ্ছে?

শাহিদ উল মুনীর: উজবেকিস্তান পূর্ব এশিয়ার একটি দেশ। দেশটি দ্রুত উন্নয়ন করছে। ধর্মীয় ও সামাজিকভাবে বাংলাদেশের সঙ্গে মিল রয়েছে দেশটির। ফলে দেশ দুটির একে অপরকে সহযোগিতা করার সুযাগও আছে। উজবেকিস্তান বাংলাদেশের আইসিটি খাতে বিনিয়োগ করতে চায়। এ দেশে থেকে আইসিটিভিত্তিক সেবা কিনতেও আগ্রহী। দেশটিতে কোনও সমুদ্রবন্দর নেই। আর এদের বাজার দখল করে আছে চীন। সেখান থেকে তারা অন্য দেশের দিকেও নজর দিতে চায়। বাংলাদেশ হতে পারে তাদের অন্যতম পছন্দের দেশ। বিভিন্ন মিটিংয়ে সেটা আমরা বুঝতে পেরেছি।

আগামী নভেম্বরে দেশটির একটি প্রতিনিধিদল বাংলাদেশে সফরে আসতে পারে। দুই দেশের মধ্যে বড় বাধা ছিল যোগাযোগে। সেটাও কাটতে যাচ্ছে। দুই দেশের মধ্যে সরাসরি বিমান যোগাযোগ চালু হতে পারে শিগগিরই।

/এফএ/

সম্পর্কিত

আইজিডাব্লিউয়ের পথে আইসিএক্স, লাইসেন্স ফি কমানোর আবেদন

আইজিডাব্লিউয়ের পথে আইসিএক্স, লাইসেন্স ফি কমানোর আবেদন

উন্মোচন হলো আইফোন ১৩

উন্মোচন হলো আইফোন ১৩

ওয়ালটন নিয়ে এলো নতুন ট্যাব

ওয়ালটন নিয়ে এলো নতুন ট্যাব

স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া ঠেকাবেন যেভাবে

স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া ঠেকাবেন যেভাবে

ওয়ালটন নিয়ে এলো নতুন ট্যাব

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৫৫

সম্প্রতি নতুন মডেলের একটি ট্যাবলেট পিসি বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন। ওয়ালপ্যাড ১০এস মডেলের এই ট্যাবে রয়েছে ১০.৫ ইঞ্চির অ্যামোলেড ডিসপ্লে, স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর ও বিল্ট-ইন কি-প্যাড ইত্যাদি। এর দাম ২৬ হাজার ৯৯০ টাকা। 

ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডস্ট্রিজ লিমিটেডের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক লিয়াকত আলী বলেন, ‘আমাদের পর্যবেক্ষণে দেশের প্রযুক্তিপ্রেমীদের কাছে উন্নতমানের ট্যাবলেট কম্পিউটারের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এজন্যই ডিজিটাল ডিভাইসের জগতে ওয়ালটনের নতুন সংযোজন ওয়ালপ্যাড ১০ এস।’

অ্যান্ড্রয়েড ৯ অপারেটিং সিস্টেম চালিত এই ট্যাবে রয়েছে ২.২ ও ১.৮ গিগাহার্টজ গতির কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬৬০ অক্টাকোর প্রসেসর। সঙ্গে থাকছে ৪ গিগা র‌্যাম এবং স্টোরেজ ৬৪ গিগাবাইটের। এক্সটারনাল কার্ডের মাধ্যমে আরও ৫১২ গিগাবাইট পর্যন্ত  বাড়ানো যাবে। ওয়ালপ্যাডটির পেছনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের অটোফোকাস ক্যামেরা। সেলফি ও ভিডিও কলের জন্য সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। -বিজ্ঞপ্তি

 

/এইচএএইচ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া ঠেকাবেন যেভাবে

স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া ঠেকাবেন যেভাবে

জাভা পেশাজীবীদের নিয়ে আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি সম্মেলন অনুষ্ঠিত

জাভা পেশাজীবীদের নিয়ে আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ফেসবুকে ভুয়া তথ্যে মানুষের অংশগ্রহণ বেশি

ফেসবুকে ভুয়া তথ্যে মানুষের অংশগ্রহণ বেশি

ইউটিউবকে পেছনে ফেলেছে টিকটক

ইউটিউবকে পেছনে ফেলেছে টিকটক

স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া ঠেকাবেন যেভাবে

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৫

স্মার্ট ফোনের বড় একটি সমস্যা হলো অতিরিক্ত গরম হয়ে যাওয়া। আধুনিক ফোনগুলোতে শক্তিশালী প্রসেসরের সঙ্গে থাকে বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন ব্যাটারি। ফলে কিছুটা তাপ উৎপন্ন হওয়া স্বাভাবিক। তবে আপনার স্মার্ট ফোন বার বার অতিরিক্ত গরম হয়ে গেলে বিষয়টির প্রতি বাড়তি গুরুত্ব দিতে হবে।

মার্কিন কম্পিউটার ম্যাগাজিন পিসি-ম্যাগের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, স্মার্টফোন দিয়ে কোনও কাজ করার সময় বা স্বাভাবিকভাবে রেখে দিলেও এতে একটি নির্দিষ্ট নিরাপদ তাপমাত্রা থাকতে হবে। এমনকি চার্জিংয়ের সময় এই তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি। তা না-হলে স্মার্টফোনে আগুন ধরে যেতে পারে, এমনকি ঘটতে পারে বিস্ফোরণও।

কখনও কখনও ভেতরের সামান্য কোনও ত্রুটির কারণে স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হয়ে যায়। আবার অন্য কারণেও এমন হতে পারে। কারণ যা-ই হোক, স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হলে ডিভাইসটিকে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় নিয়ে আসার জন্য পদক্ষেপ নিতে হবে।

যেকোনও অবস্থায় স্মার্ট ফোনের তাপমাত্রা শূন্য থেকে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে রাখার পরামর্শ দেয় স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। তবে স্মার্ট ফোনের ভেতরের তাপমাত্রা জানার সহজ কোনও মাধ্যম নেই। এ ক্ষেত্রে অবশ্য কিছু থার্ড পার্টি অ্যাপ ব্যবহারকারীদের সহায়ক হতে পারে।

স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া রোধে যা করবেন:

১. চার্জের সময় স্মার্ট ফোনটি শক্ত এবং সমতল কোনও কিছুর ওপর রাখতে হবে। বিছানায়, বালিশের ওপর বা নিচে, বইয়ের ওপর ফোন রাখবেন না।

২. ফোন অনেক বেশি গরম হয়ে গেছে? এ অবস্থায় হুট করে এটিকে ফ্রিজারে রেখে দেবেন না। তাপমাত্রা বাড়লে ডিভাইসের ভেতরের উপাদানগুলো প্রসারিত হয়। এ কারণে হঠাৎ করে ঠাণ্ডায় রাখলে স্মার্ট ফোন নষ্ট হয়ে যেতে পারে। ফ্রিজারে রাখার পরিবর্তে স্মার্টফোনটির চার্জার খুলে ফেলুন। এবার বন্ধ করে সূর্যের আলো থেকে দূরে তুলনামূলক ঠাণ্ডা কোনও জায়গায় রাখুন। ফোন কেস থাকলে সেটিও খুলে ফেলতে হবে।

৩. চার্জিংয়ের সময় বার বার স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হয়ে গেলে চার্জার পরিবর্তন করে দেখতে পারেন। কোনও কোনও সময় চার্জারের ভেতরের তারে সমস্যা হওয়ায় স্মার্ট ফোন গরম হয়ে যেতে পারে। তাই এটি পরীক্ষা করাতে হবে। এছাড়া সবসময় ভালো ব্র্যান্ডের চার্জার ব্যবহার করতে হবে।

৪. কিছু অ্যাপ স্মার্ট ফোনকে অতিরিক্ত গরম করে তোলে। এ ধরনের অ্যাপ ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি একটু সতর্ক থাকলেই বুঝতে পারবেন কোন অ্যাপটির কারণে আপনার স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হচ্ছে। নিশ্চিত হওয়ার পর ওই অ্যাপ ডিলিট করে দিন।

/এইচএএইচ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

ওয়ালটন নিয়ে এলো নতুন ট্যাব

ওয়ালটন নিয়ে এলো নতুন ট্যাব

জাভা পেশাজীবীদের নিয়ে আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি সম্মেলন অনুষ্ঠিত

জাভা পেশাজীবীদের নিয়ে আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ফেসবুকে ভুয়া তথ্যে মানুষের অংশগ্রহণ বেশি

ফেসবুকে ভুয়া তথ্যে মানুষের অংশগ্রহণ বেশি

ইউটিউবকে পেছনে ফেলেছে টিকটক

ইউটিউবকে পেছনে ফেলেছে টিকটক

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

আইজিডাব্লিউয়ের পথে আইসিএক্স, লাইসেন্স ফি কমানোর আবেদন

আইজিডাব্লিউয়ের পথে আইসিএক্স, লাইসেন্স ফি কমানোর আবেদন

উন্মোচন হলো আইফোন ১৩

উন্মোচন হলো আইফোন ১৩

‘প্রযুক্তি পণ্যের সংকট কাটতে ছয় মাস লাগবে’

‘প্রযুক্তি পণ্যের সংকট কাটতে ছয় মাস লাগবে’

ওয়ালটন নিয়ে এলো নতুন ট্যাব

ওয়ালটন নিয়ে এলো নতুন ট্যাব

স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া ঠেকাবেন যেভাবে

স্মার্ট ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া ঠেকাবেন যেভাবে

হোয়াটসঅ্যাপের ব্যাকআপেও এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন

হোয়াটসঅ্যাপের ব্যাকআপেও এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন

ফাইভ-জির ৬০ মেগাহার্জ তরঙ্গ পেলো টেলিটক

ডিসেম্বরের মধ্যে নিলামফাইভ-জির ৬০ মেগাহার্জ তরঙ্গ পেলো টেলিটক

প্রযুক্তিগত দক্ষতা অর্জনের বিকল্প নেই: পলক

প্রযুক্তিগত দক্ষতা অর্জনের বিকল্প নেই: পলক

গুগল সার্চের ডার্ক মোড সুবিধা ডেস্কটপে চালু করবেন যেভাবে

গুগল সার্চের ডার্ক মোড সুবিধা ডেস্কটপে চালু করবেন যেভাবে

যে কারণে তরুণদের মধ্যে বাড়ছে ফোন সাইলেন্ট রাখার প্রবণতা

যে কারণে তরুণদের মধ্যে বাড়ছে ফোন সাইলেন্ট রাখার প্রবণতা

সর্বশেষ

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

শেষ হলো সংসদ অধিবেশন

শেষ হলো সংসদ অধিবেশন

গৃহহীনদের ঘরের ‘দুর্নীতি তদন্ত’ দুদক বন্ধ করবে কেন, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর

গৃহহীনদের ঘরের ‘দুর্নীতি তদন্ত’ দুদক বন্ধ করবে কেন, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর প্রক্রিয়া চলছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর প্রক্রিয়া চলছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি: তথ্যমন্ত্রী

সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি: তথ্যমন্ত্রী

© 2021 Bangla Tribune