X
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

মোটরসাইকেলের চাকায় আঁচল পেঁচিয়ে আহত শিক্ষিকার মৃত্যু

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ১৯:১২

নেত্রকোনায় স্বামীর চলন্ত মোটরসাইকেলের চাকায় শাড়ির আঁচল পেঁচিয়ে গুরুতর আহত স্কুলশিক্ষিকা সেলিনা পারভিন শেলি মারা গেছেন। ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) ভোরে তিনি মারা যান। 

নেত্রকোনা শহরের দত্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ছিলেন সেলিনা পারভিন। তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. ওয়ায়েজ উদ্দীন ফরাজী।

তিনি বলেন, গত শনিবার (২৪ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে অজ্ঞান অবস্থায় তাকে হাসপাতালে আনা হয়। এরপর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। আজ ভোরে মারা যান। লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকালে দত্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে অংশ নেন শেলি। এরপর তার স্বামী শফিকুল ইসলামের সঙ্গে মোটরসাইকেলে শহরের কোড়পাড় এলাকার বাসায় যাচ্ছিলেন। বেলা পৌনে ১২টার দিকে শহরের মোক্তারপাড়া এলাকায় পৌঁছালে তার শাড়ির আঁচল মোটরসাইকেলের চাকায় পেঁচিয়ে যায়। তিনি মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে যান। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। 

শেলির দেবর জহিরুল কবির শাহীন বলেন, ঈদুল আজহায় সবাই গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার কান্দি গ্রামে গিয়েছিলেন। আমাদের বাড়ির কাছাকাছি ভাবির বাবার বাড়ি। সেখানেই ছিলেন তিনি।

দত্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান কবির সাজু জানান, শেলি দশম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট কমিটির আহ্বায়ক ছিলেন। অ্যাসাইনমেন্ট বিষয়ে শিক্ষকদের সঙ্গে শনিবার সভা শেষে শহরের বাসায় স্বামী শফিকুলের মোটরসাইকেলে করে যাওয়ার পথে শাড়ির আঁচল পেঁচিয়ে গুরুতর হয়ে হন। আজ মারা যান। তার মৃত্যুতে এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমেছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

টিকটকারদের খপ্পরে পড়ে অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার

টিকটকারদের খপ্পরে পড়ে অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার

পুকুরে ডুবে যমজ ভাইবোনের মৃত্যু

পুকুরে ডুবে যমজ ভাইবোনের মৃত্যু

ট্রেনের ছাদে নিয়মিত ডাকাতি করতো রিশাদরা

ট্রেনের ছাদে নিয়মিত ডাকাতি করতো রিশাদরা

ডোবায় মাছ ধরা নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

ডোবায় মাছ ধরা নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

‘কক্সবাজার হবে বিশ্বের অন্যতম আকর্ষণীয় পর্যটন নগরী’

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১৬

কক্সবাজারে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বিশ্ব পর্যটন দিবস উদযাপন করা হচ্ছে। দিবসটি উপলক্ষে সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে বর্ণিল শোভাযাত্রা বের হয়। স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক শ্রাবস্তী রায়ের নেতৃত্বে বিশাল শোভাযাত্রাটি প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে সৈকতের লাবণী পয়েন্ট শেষ হয়।

পরে শ্রাবস্তী রায়ের সভাপতিত্বে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার পৌরসভার নির্বাহী প্রধান এ কে এম তারিকুল আলম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আবু সুফিয়ান, হোটেল-মোটেল গেস্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবুল কাশেম সিকদার, পর্যটন করপোরেশনের ম্যানেজার মোস্তাফিজুর রহমান, ট্যুর অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব কক্সবাজারের (টুয়াক) ফাউন্ডার চেয়ারম্যান এম এ হাসিব বাদল ও সভাপতি আনোয়ার কামাল।

বক্তারা বলেন, কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ইতোমেধ্য কক্সবাজারে তিন লাখ কোটি টাকারও বেশি উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ চলছে, যা এক বছরে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে সরকারের মোট বরাদ্দ দেওয়া অর্থের দেড়গুণ। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে এসব প্রকল্পের কাজ শেষ হলে কক্সবাজারই হবে বিশ্বের অন্যতম আকর্ষণীয় পর্যটন নগরী ও অর্থনৈতিক অঞ্চল।

এবারের দিবসের প্রতিপাদ্য ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধিতে পর্যটন’

অনুষ্ঠান শেষে সৈকতে আগত পর্যটকদের ফুল দিয়ে পর্যটন দিবসের শুভেচ্ছা জানানো হয়। বিকালে সৈকতের লাবণী পয়েন্টে আলোক প্রজ্জ্বলন, ফানুস উড়ানো হবে। পর্যটন দিবস ঘিরে সাজানো হয়েছে বিনোদন কেন্দ্র ও হোটেল-মোটেল গেস্ট হাউস। কক্ষ বুকিংয়ে দেওয়া হয়েছে ৫০-৬০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়।

জেলা প্রশাসনের পর্যটন ও প্রটোকল শাখার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার সৈয়দ মুরাদ ইসলাম বলেন, পর্যটন দিবসের লক্ষ্য হলো, বিশ্ববাসীকে পর্যটনের সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক গুরুত্ব সম্পর্কে সচেতন করা। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন ও জাতীয় অর্থনীতিতে পর্যটনের অবদান সম্পর্কে অবহিত করা। এবারের দিবসের প্রতিপাদ্য ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধিতে পর্যটন’।

বান্দরবানের দুর্গম পাহাড়ি পথে ১৬০ কি‌লো‌মিটার পথ পা‌ড়ি দেবেন ৩০ রাইডার

এদিকে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে আজ সকালে বান্দরবানের বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চ থেকে একটি রোড শো বের হয়। প‌রে বেলুন উড়িয়ে দিব‌সটির কর্মসূচি উদ্বোধন করেন প্রধান অ‌তি‌থি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা। পর্যটকবাহী কয়েকটি গাড়ি ফুল দি‌য়ে সাজানো হয়। ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর ঐতিহ্যবাহী পোশাকে অংশ নেন নারী-পুরুষরা।

পর্যটন দিবস উপল‌ক্ষে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ৩০ জন মাউন্টেইন রাইডার বান্দরবান সদর থে‌কে রুমা, থানচি ও আলীকদমের দুর্গম পাহাড়ি পথে ১৬০ কি‌লো‌মিটার পথ সাইকেলে পা‌ড়ি দেবে। রাইডাররা চারদিন পাহাড়ি পথে যাত্রা করবে এবং পর্যটন শিল্পের বিকাশে বি‌ভিন্ন প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দারুণ খেলুক শামীম প্রত্যাশা চাঁদপুরবাসীর 

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দারুণ খেলুক শামীম প্রত্যাশা চাঁদপুরবাসীর 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশ-যুবদল কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশ-যুবদল কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া  

মোবাইলফোনে তালাক দিলেন স্বামী, শিশুপুত্রকে গলা কেটে হত্যা

মোবাইলফোনে তালাক দিলেন স্বামী, শিশুপুত্রকে গলা কেটে হত্যা

সচেতন সেবায় পর্যটনের ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার চেষ্টা 

সচেতন সেবায় পর্যটনের ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার চেষ্টা 

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দারুণ খেলুক শামীম প্রত্যাশা চাঁদপুরবাসীর 

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১২

ইলিশের বাড়ি খ্যাত চাঁদপুরের সন্তান ক্রিকেটার শামীম পাটোয়ারী। জেলা থেকে উঠে আসা প্রথম ক্রিকেটার যিনি সুযোগ পেয়েছেন ১৭ অক্টোবর শুরু হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসরে। এতে শামীমের পরিবারে বইছে খুশির হাওয়া। খুশি জেলার ক্রীড়ামোদীরাও। তারা বলছেন, বিশ্বকাপে শামীমকে দারুণ খেলা উপহার দিতে হবে। তাহলেই ভবিষ্যতের জন্য দলে নিজের অবস্থান শক্ত হবে। জেলার অন্য ক্রিকেটাররাও উৎসাহ পাবে। 
 
শামীম চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার ধানুয়া গ্রামের আব্দুল হামিদ পাটোয়ারীর ছেলে। চাঁদপুর ক্লেমন একাডেমিতে অনূর্ধ-১৪ থেকে অনূর্ধ-১৬-তে তিন বছর অনুশীলন করেন তিনি। পরে ২০১৫ সালে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপি) ভর্তি হন। এরপর অনূর্ধ-১৭, অনূর্ধ-১৮ হয়ে অনূর্ধ-১৯ জাতীয় দলে জায়গা করে নেন এই ক্রিকেটার। ছিলেন অনূর্ধ-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী দলের অন্যতম নায়ক। ২০২০ সালে যুব বিশ্বকাপে ভালো পারফরমেন্সের পর থেকেই নির্বাচকদের নজরে পড়েন তিনি। এরপর ঘরোয়া ক্রিকেটে ব্যাটে-বলে উজ্জ্বল পারফরম্যান্সের পুরস্কার হিসেবে নির্বাচকরা জাতীয় দলের জন্য বিবেচনা করে শামীমকে।

টিভি টুর্নামেন্টের শামীম যুব বিশ্বকাপে

শামীমের বাবা আব্দুল হামিদ বাংলা ট্রিবউনকে বলেন, ছোট থাকতে আমি চেয়েছিলাম শামীম ভালো পড়ালেখা করুক। এসএসসি পরীক্ষার আগ মুহূর্তে শামীম বিভিন্ন জায়গায় খেলতো। ভালো খেলার কারণে এক পর্যায়ে দুই বছর আগে তাকে দিনাজপুর বিকেএসপিতে ভর্তি করে দেই। এর তিন মাস পর সেখান থেকে শামীম যায় ঢাকা বিকেএসপিতে। খেলতে থাকে বিভাগীয় এবং বিভিন্ন জেলায়। ভালো পারফর্ম করায় ধাপে ধাপে শামীম জায়গা করে নেয় জাতীয় দলে।

তিনি বলেন, আমার ছেলে যেন ভবিষ্যতে দেশের হয়ে আরও ভালো খেলতে পারে সে জন্য সবার দোয়া চাই।

শামীম পাটোয়ারী ফরিদগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম বলেন, ক্রিকেটার শামিম আমাদের উপজেলার একজন গর্বিত সন্তান। নিজ পারফরম্যান্সে সে বিশ্ব ক্রিকেটে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করবে। এটা আমাদের জন্য বিশাল প্রাপ্তি। তাকে অনুসরণ করে আরও নতুন ক্রিকেটার বের হবে বলে আশা করি।  

চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবু বাংলা ট্রিবউনকে বলেন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে শামীমের জন্য দোয়া রইলো। তাকে আরও অনেক স্ট্রাগল করতে হবে। মাথা ঠাণ্ডা রেখে প্রতিটি বল মোকাবিলা করতে হবে, দ্রুত রানও তুলতে হবে। ভবিষ্যতের জন্য নিজের জায়গাটা পোক্ত করতে হবে। সে জন্য এ বিশ্বকাপ হচ্ছে তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরও বলেন, শামীম প্লেয়ার হিসেবে খুবই ভালো। এ বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। প্রত্যেক বল যে খেলতে হবে-এমন কোনও কথা নেই। এ বিষয়টি মাথায় রাখলে শামীম অনেক উপরে যাবে।

চাঁদপুর ক্লেমন একাডেমির কোচ ও শামীম পাটোয়ারীর গুরু শামীম ফারুকী বাংলা ট্রিবউনকে বলেন, চাঁদপুরের খেলোয়াড় থেকে জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়াটা বিশাল এক অর্জন। আশা করি, বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের হয়ে প্রতিটি খেলায় মূল একাদশে স্থান পাবে সে। খেলার সুযোগ পেলে বাংলাদেশ দলের জন্য ভালো রান তুলবে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশ-যুবদল কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশ-যুবদল কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া  

১৯ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি বেরোবি কর্তৃপক্ষ

১৯ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি বেরোবি কর্তৃপক্ষ

মোবাইলফোনে তালাক দিলেন স্বামী, শিশুপুত্রকে গলা কেটে হত্যা

মোবাইলফোনে তালাক দিলেন স্বামী, শিশুপুত্রকে গলা কেটে হত্যা

যশোর রোডে সুবাতাসের পদযাত্রা শুরু

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৩৬

ঐতিহাসিক যশোর রোডের বাংলাদেশ অংশের ৩৮ কিলোমিটার পথ হেঁটে যাবেন সুবাতাস (সুন্দর বাংলাদেশ ও তারুণ্যের সমন্বয়) নামে একটি সংগঠনের সাত সদস্য। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে যশোর শহরের মুজিব সড়ক থেকে পদযাত্রা শুরু করেছেন তারা।

এতে অংশ নিয়েছেন সুবাতাসের আহ্বায়ক সাংবাদিক ও সংস্কৃতিকর্মী হাসান মাহমুদসহ ঢাকা থেকে আগত চলচ্চিত্রনির্মাতা শাহীনুর আক্তার শাহীন, সাংবাদিক মাহমুদ এইচ খান, কলেজছাত্রী মারজানা আক্তার, যশোরের সাংবাদিক নিশাত বিজয়, শিক্ষার্থী শাখাওয়াত খান ও মিঠুন চক্রবর্তী মাহি। যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ সুবাতাসের পদযাত্রার পৃষ্ঠপোষকতা করছেন।

পদযাত্রার আগে যশোর প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির আহ্বায়ক হাসান মাহমুদ বলেন, ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে যশোর রোডের একটা ঐতিহাসিক তাৎপর্য রয়েছে। পদযাত্রার প্রধান উদ্দেশ্য, মুক্তিযুদ্ধে কোটি বাঙালির বেদনাদায়ক সেই ঐতিহাসিক পদযাত্রাকে স্মরণ।

পদযাত্রা শুরুর আগে যশোর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে সুবাতাস

তিনি আরও বলেন, ১৯৭১ সালে পাকিস্তানিদের বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞ থেকে বাঁচতে যুদ্ধের শুরু থেকে সেপ্টেম্বর মাসেও যশোর রোড ধরে কোটি মানুষ শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নেন ভারতে। এই রাস্তাটিই ছিল সেই সব মানুষের বেঁচে থাকার একমাত্র পথ। চলার পথে সেই সময় অনেকেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। এই পথের প্রতিটি ধূলিকণা শরণার্থী সেই মানবস্রোতের ক্লান্তি, দুর্ভোগ আর বয়ে বেড়ানো স্বপ্নের সাক্ষী। 

তিনি বলেন, সেই সময় মার্কিন কবি অ্যালেন গিন্সবার্গ শরণার্থীদের দুর্দশা আর বেঁচে থাকার আকুতি দেখে লেখেন বিখ্যাত কবিতা ‍‌‘সেপ্টেম্বর অন যশোর রোড’, যা বিশ্ব দরবারে বাঙালির মুক্তির সংগ্রামকে তুলে ধরে। তার উদ্যোগে অনুপ্রাণিত হয়ে আয়োজন করা হয় ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’। পণ্ডিত রবিশঙ্কর ও তার বন্ধু জর্জ হ্যারিসন নিউইয়র্কে কনসার্টটি আয়োজন করেন। দুই বছরের বিরতি চলাকালে বব ডিলান পারফর্ম করেন সেই কনসার্টে। পরবর্তীতে সেই কবিতার বাংলা অনুবাদ করে খুব যত্ন করে গান মৌসুমী ভৌমিক। 

হাসান মাহমুদ জানান, এই পদযাত্রা আগামীকাল মঙ্গলবার শেষ হবে। প্রথমদিন যশোরের ঝিকরগাছা পর্যন্ত হাঁটবেন তারা। রাতে সেখানেই রাত্রিযাপন এবং পরদিন সকালে ফের শুরু হয়ে বেনাপোলে গিয়ে শেষ হবে। চলার পথে তারা ১১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাবেন। সেখানে করোনা ও ডেঙ্গু বিষয়ে সচেতনতার বিষয়ে কথা বলবেন। একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের মাঝে মহান মুক্তিযুদ্ধে এই সড়কের গুরুত্ব বিষয়ে আলোচনা এবং মাস্কও স্যানিটাইজার সামগ্রী সরবরাহ করবেন।

এক প্রশ্নের জবাবে হাসান মাহমুদ বলেন, আমরা চাই, যশোর রোডটি ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ হিসেবে যেন বিশ্বের দরবারে আসন পায়। সে লক্ষ্যে প্রতিবছর যশোর রোডে এভাবে পদযাত্রা করারও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, এসএমএস করে ডেকেছিল ‘প্রেমিক’

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, এসএমএস করে ডেকেছিল ‘প্রেমিক’

যশোরের ১৯ ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সিলগালা

যশোরের ১৯ ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সিলগালা

ভারতে গেলো আরও ১৮৬ মেট্রিক টন ইলিশ

ভারতে গেলো আরও ১৮৬ মেট্রিক টন ইলিশ

আ.লীগকে রাজনৈতিক সমঝোতায় আসার আহবান জোনায়েদ সাকির

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৫৫

রাজনৈতিক পরিবেশের উন্নয়নে ক্ষমতাসীন দলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগকে নতুনভাবে রাজনৈতিক সমঝোতায় আসতে হবে। আমরা বলছি আসুন, আমরা নতুন রাজনৈতিক চুক্তি করে সমঝোতায় আসি। যাতে দেশের চলমান সংকট থেকে উত্তরণ হয়।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রংপুর নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে গণসংহতি আন্দোলন রংপুর জেলা শাখার উদ্যোগে দলীয় কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ২০২৩ সালে ২০১৮-এর মতো নির্বাচন করতে তৎপর হয়ে উঠেছে। তারা নানান কৌশল আঁটছে কীভাবে জনগণকে ধোঁকা দেওয়া যায়। প্রতারণার নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা কুক্ষিগত করতে চেষ্টা করছে তারা। তবে দেশের জনগণ তার ভোট দখলের চেষ্টা সফল হতে দেবে না। এটা করলে দেশে বড় ধরনের গলঅভ্যুত্থান মোকাবেলা করতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেন তিনি। 

গণসংহতি আন্দোলনের রংপুরের জেলা সমন্বয়কারী তৌহিদুর রহমানের সভাপতিত্বে এসময় আরও বক্তব্য রাখেন সদস্য দীপক রায়, প্রত্যয় মিজান প্রমুখ।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

১৯ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি বেরোবি কর্তৃপক্ষ

১৯ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি বেরোবি কর্তৃপক্ষ

বাড়ির সামনে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

বাড়ির সামনে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রীসহ ২ জনের যাবজ্জীবন

স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রীসহ ২ জনের যাবজ্জীবন

দেড় মাস পর হিলি দিয়ে এলো কাঁচা মরিচ

দেড় মাস পর হিলি দিয়ে এলো কাঁচা মরিচ

১৩ টাকা কেজিতে বিদ্যালয়ের বই বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৪৬

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার একটি বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মাধ্যমিকের সরকারি বই কেজি দরে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকালে রানীর হাট বাজারে একজনের কাছে বইগুলো দেখা যায়।

খবর পেয়ে রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তাড়াশ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফকির জাকির হোসেন অফিস সহকারী মাহমুদুল আলমকে পাঠিয়ে ওই ক্রেতার কাছ থেকে ৯০৩ কপি বই জব্দ করেন।
 
স্থানীয়রা জানায়, শনিবার বিকালে রানীর হাট সিরাজগঞ্জ বাজার দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল মোমিন বিদ্যালয় ছুটির পর বিদ্যালয়ে একাই অবস্থান করেন। পরে তিনি গোপনে স্টোররুমে সংরক্ষিত ২০১৯-২০২০ ও ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির বিভিন্ন বিষয়ের ১৬৩ কেজি ওজনে সরকারি বিনামূল্যের ৯০৩টি বই বগুড়ার শেরপুর উপজেলার পাঁচদৈলী গ্রামের ফেরিওয়ালা সাব্বির হোসেনের কাছে বিক্রি করে দেন। বিকালে ফেরিওয়ালা সাব্বির হোসেন তার কেনা বইগুলো রানীর হাট বাজারে টঙ দোকানের সামনে রেখে দেন। বাজারে আগত লোকজন সরকারি বই দোকানে দেখতে পেয়ে ফেরিওয়ালা সাব্বির হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ঘটনা সামনে আসে।

রানীর হাট বাজারে একজনের কাছে বইগুলো দেখা যায়

ফেরিওয়ালা সাব্বির হোসেন জানান, তিনি রানীর হাট সিরাজগঞ্জ বাজার দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল মোমিনের কাছ থেকে ১৩ টাকা কেজি দরে ১৬৩ কেজি বই দুই হাজার ১০০ টাকার বিনিময়ে কিনেছেন।
 
সরকারি বই বিক্রির কথা স্বীকার করে আব্দুল মোমিন বলেন, বিদ্যালয়ের অপ্রয়োজনীয় কাগজের সাথে পুরাতন বইগুলো বিক্রি করে দিয়েছেন। বই বিক্রির টাকায় ছাত্রীদের ব্যবহারের অনুপযোগী ওয়াশরুম মেরামত করা হবে বলে জানান তিনি।
 
তাড়াশ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফকির জাকির হোসেন জানান, সরকারি বই বিক্রি করা অপরাধ। আমরা বিক্রি করা বইগুলো জব্দ করেছি। বিষয়টি ইউএনও ও ওসিসহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

বগি লাইনচ্যুত, বিকল্প লাইনে ঢাকায় গেলো সুন্দরবন এক্সপ্রেস

বগি লাইনচ্যুত, বিকল্প লাইনে ঢাকায় গেলো সুন্দরবন এক্সপ্রেস

কালভার্ট আছে রাস্তা নেই, দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা

কালভার্ট আছে রাস্তা নেই, দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা

প্রশিক্ষণের জন্য বরাদ্দ অর্ধকোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

প্রশিক্ষণের জন্য বরাদ্দ অর্ধকোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্র করোনায় আক্রান্ত

রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্র করোনায় আক্রান্ত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

টিকটকারদের খপ্পরে পড়ে অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার

টিকটকারদের খপ্পরে পড়ে অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার

পুকুরে ডুবে যমজ ভাইবোনের মৃত্যু

পুকুরে ডুবে যমজ ভাইবোনের মৃত্যু

ট্রেনের ছাদে নিয়মিত ডাকাতি করতো রিশাদরা

ট্রেনের ছাদে নিয়মিত ডাকাতি করতো রিশাদরা

ডোবায় মাছ ধরা নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

ডোবায় মাছ ধরা নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

চলন্ত ট্রেনে ডাকাতি-হত্যা: গ্রেফতার আরও ৫

চলন্ত ট্রেনে ডাকাতি-হত্যা: গ্রেফতার আরও ৫

সেতুতে গর্ত, ঝুঁকি নিয়ে পারাপার  

সেতুতে গর্ত, ঝুঁকি নিয়ে পারাপার  

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ৮ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ৮ মৃত্যু

‘দুই মেয়ে ইভটিজিংয়ের শিকার হচ্ছে, রেহাই পাবো কবে?’

গ্রামবাসীর প্রশ্ন প্রশাসনের উত্তর‘দুই মেয়ে ইভটিজিংয়ের শিকার হচ্ছে, রেহাই পাবো কবে?’

ট্রেনে ডাকাতি-খুনের ঘটনায় মামলা, আটক ১

ট্রেনে ডাকাতি-খুনের ঘটনায় মামলা, আটক ১

ট্রেনে ডাকাতির সময় হত্যার ঘটনায় মামলা

ট্রেনে ডাকাতির সময় হত্যার ঘটনায় মামলা

সর্বশেষ

মাস্ক পরা নিয়ে ট্রলের শিকার সালমান

মাস্ক পরা নিয়ে ট্রলের শিকার সালমান

রুশ যুদ্ধবিমানের ধাওয়ায় পালালো মার্কিন বোমারু বিমান

রুশ যুদ্ধবিমানের ধাওয়ায় পালালো মার্কিন বোমারু বিমান

ফিফার ছাড়পত্র আসেনি কিংসলের, অপেক্ষায় বাফুফে 

ফিফার ছাড়পত্র আসেনি কিংসলের, অপেক্ষায় বাফুফে 

‘কক্সবাজার হবে বিশ্বের অন্যতম আকর্ষণীয় পর্যটন নগরী’

‘কক্সবাজার হবে বিশ্বের অন্যতম আকর্ষণীয় পর্যটন নগরী’

আন্দোলনে বিএনপির নেতা কে, জানতে চান ওবায়দুল কাদের

আন্দোলনে বিএনপির নেতা কে, জানতে চান ওবায়দুল কাদের

© 2021 Bangla Tribune