X
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

শেষের আগেই 'শেষ' লকডাউন!

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ১১:০৫

লকডাউন শেষ হতে না হতেই সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে পড়েছে। রাস্তাঘাটে বেড়েছে মানুষের উপস্থিতি। দোকানপাট খুলছে। রাস্তায় বাড়ছে যানবাহনের সংখ্যা। মোড়ে মোড়ে সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। অনেকটা শিথিল হয়ে পড়েছে পুলিশের চেকপোস্টগুলো। তল্লাশি বা কাউকে বাসা থেকে বের হওয়ার কারণ জানতে চাওয়া হচ্ছে না। সাধারণ নাগরিকরা যেন লকডাউনের কথা বেমালুম ভুলেই গেছেন। মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সকাল থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

সকালে নগরীর খিলগাঁও এলাকায় বিপুলসংখ্যক মানুষের উপস্থিতি দেখা গেছে। তবে গণপরিবহন না পেয়ে তারা রিকশা-ভ্যানে চেপে, হেঁটে কিংবা অন্য উপায় অবলম্বন করে অফিসে যাচ্ছেন। পথে দু-চারটি চেকপোস্ট দেখা গেলেও তাতে কোনও পুলিশ দেখা যায়নি। তবে একটিতে পুলিশ দেখা গেলেও তারা নীরব দর্শকের ভূমিকায় ছিলেন। এরমধ্য দিয়েই অসংখ্য মানুষ ও যানবাহন অবাধে চলাচল করছে।

এদিকে বিধিনিষেধ নিয়ে বিরাজ করছে ভজঘট অবস্থা। দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব যখন থেকে শুরু হয় তখন থেকেই লকডাউন কিংবা বিধিনিষেধের শুরু। কিন্তু দীর্ঘ এ সময়ে দেশে একবারও লকডাউন কিংবা বিধিনিষেধ সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। প্রতিবারই ব্যাপক ঢাকঢোল পিটিয়ে লকডাউন বা বিধিনিষেধের আদেশ জারি করা হলেও গোটা বিষয়টি শেষ হয় ঘরে ফেরার উৎসব অথবা দুর্ভোগের কারণ হয়ে। এ অবস্থায় আরেক দফা বিধিনিষেধ বাড়ানোর জন্য আজ (মঙ্গলবার) মন্ত্রণালয়ে বৈঠক ডাকা হয়েছে। তবে তা কতটুকু কার্যকর হবে তা নিয়ে সাধারণ নাগরিকদের মধ্যে সন্দেহ-সংশয় দেখা দিয়েছে।

সকাল থেকে নগরীর খিলগাঁও, রাজারবাগ, ফকিরাপুল, আরামবাগ, বাসাবো, যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদ, পল্টন, কাকরাইল, দৈনিক বাংলা মোড়, বাংলামোটর, মৎস্য ভবন, শাহবাগ, কারওয়ান বাজার, পান্থপথ ও ধানমন্ডির বিভিন্ন এলাকা ঘুরে একই চিত্র দেখা গেছে।

এসব এলাকায় বিপুলসংখ্যক মানুষ রাস্তায় বের হয়েছেন। যানবাহনের মধ্যে রিকশা-ভ্যান ব্যক্তিগত গাড়ি বাধাহীনভাবে চলতে দেখা গেছে প্রচুর। পথে পুলিশের পক্ষ থেকে কোনও বাধা দেয়া হচ্ছে না। ফলে করোনা মহামারি আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে সকাল থেকে নগরীর অলিগলিগুলো ঘুরে দেখা গেছে প্রায় প্রতিটি দোকানপাট খুলেছে। সাধারণ মানুষ কেনাকাটা করছেন। জরুরি সেবার আওতায় পড়ে না এমন বেশিরভাগ দোকানপাটই খোলা। কোথাও কোনও বিধিনিষেধ কেউ মানছেন না, স্বাস্থ্যবিধি মানারও তোয়াক্কা নেই। সাধারণ মাস্কও পারছেন না ঘর থেকে বের হওয়া নাগরিকরা।

খিলগাঁওয়ের বাসিন্দা হাজী নাসির উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, সব ধরনের দোকানপাট খোলা রয়েছে। মানুষের যে পরিমাণ উপস্থিতি বেড়েছে‑ বিধিনিষেধ আছে বলে মনেই হচ্ছে না। তাই আমরা বাসা থেকে বের হলাম। কেনাকাটা করলাম। একটু পর অফিসে যাবো।

এদিকে গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও রাজধানীর মিরপুর এলাকায় ছোট বাসগুলো চলাচল করতে দেখা গেছে। এসব বাসে যাত্রী পরিবহন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মিরপুরের বাসিন্দা রোমানা। তিনি বলেন, সকাল ৮টায় বাসা থেকে বের হয়ে মোটরসাইকেলে করে মৌচাক এসেছি। তখন মিরপুর এলাকায় ছোট পরিবহনগুলো চলাচল করতে দেখা গেছে। অধিকাংশ বাসে যাত্রী পরিবহন করতে দেখা গেছে। তবে রাস্তায় পুলিশ থাকলেও তারা কোনও বাধা দেয়নি। সাধারণ যাত্রীরাও বিধিনিষেধের তোয়াক্কা করছেন না।

বাসচালকরা বলছেন, দীর্ঘদিন বসে থাকার কারণে তাদের অবস্থা এখন একেবারেই খারাপ হয়ে পড়েছে। তাই বাধ্য হয়ে তারা রাস্তায় নেমেছেন।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, লকডাউনের মধ্যে গণপরিবহন রাস্তায় নামার কোন সুযোগ নেই। কেউ যদি আইন অমান্য করে তবে তার দায় তাকেই নিতে হবে। এরকম অভিযোগ পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

/এমএস/

সম্পর্কিত

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

কর্মবিরতির হুঁশিয়ারি ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক শ্রমিকদের

কর্মবিরতির হুঁশিয়ারি ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক শ্রমিকদের

৮০ বছর বয়সেও বৃদ্ধ আমিনের জীবনচাকা রিকশার প্যাডেলে

৮০ বছর বয়সেও বৃদ্ধ আমিনের জীবনচাকা রিকশার প্যাডেলে

তিস্তাসহ সব নদীর ভাঙন রোধে ৬ দফা দাবি 

তিস্তাসহ সব নদীর ভাঙন রোধে ৬ দফা দাবি 

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:০১

আইনজীবী তালিকাভুক্তির (এনরোলমেন্ট) মৌখিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল। এর ফলে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ৫৯৭২ জন শিক্ষার্থী আইনজীবী হিসেবে দেশের বিভিন্ন আদালতে পেশা পরিচালনা করতে পারবেন।

শনিবার ( ২৫ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে এ ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।

পরীক্ষায় চূড়ান্তভাবে ৫৯৭২ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। তবে প্রয়োজনীয় নথিপত্র জমা না দেওয়ায় নয়জনের ফলাফল উইথহেল্ড রাখা হয়েছে। ৩০ দিনের মধ্যে কাগজপত্র জমা না দিলে তাদের ফলাফল বাতিল করা হবে।

এছাড়া একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের রিট আবেদন নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত আরও তিনজনের ফলাফল উইথহেল্ড রাখা হয়েছে।

এখন তারা তাদের সংশ্লিষ্ট আইনজীবী সমিতিতে ছয় মাসের মধ্যে মেম্বারশিপ নিয়ে আইন পেশা শুরু করতে পারবেন বলেও বার কাউন্সিল জানিয়েছে।

এর আগে সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়াম ও সুপ্রিম কোর্ট জাজেস স্পোর্টস কমপ্লেক্সে ধাপে ধাপে এ মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। গত ২৫ জুলাই থেকে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ১৫ জুলাই এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে তা স্থগিত করা হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর ও চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি আইনজীবী অন্তর্ভুক্তির লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সেখান থেকে উত্তীর্ণ এবং বিগত দুই পরীক্ষায় মৌখিক পরীক্ষায় আটকে পড়ারা এবার মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। কেননা, তিন ধাপের নৈবর্ত্তিক, লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণরাই আইনজীবী হিসেবে প্রাকটিস করতে পারেন। একবার লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে তারা তিনবার সরাসরি মৌখিক পরীক্ষার জন্য বিবেচিত হন। 

/বিআই/এমআর/

সম্পর্কিত

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

ট্রাংকে ভরে তরুণীর লাশ পাঠালেন ঢাকায়, ছয় বছর পর ধরা যুবক

ট্রাংকে ভরে তরুণীর লাশ পাঠালেন ঢাকায়, ছয় বছর পর ধরা যুবক

কক্সবাজারে হোটেলে তরুণী ‘হত্যা’য় অভিযুক্ত ঢাকায় গ্রেফতার

কক্সবাজারে হোটেলে তরুণী ‘হত্যা’য় অভিযুক্ত ঢাকায় গ্রেফতার

‘এখনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অপব্যবহার হচ্ছে’

‘এখনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অপব্যবহার হচ্ছে’

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি জানিয়ে ঢাকায় সমাবেশ

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৫৫

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি সমাবেশ করেছে ‘উদ্যমে উত্তরণে শতকোটি’   নামে একটি সংগঠন।

শনিবার(২৫ সেপ্টেম্বর) বিকাল সাড়ে চারটায় রাজধানী ঢাকার শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে সমাবেশ করে সংগঠনটি। এর আগে ১সেপ্টেম্বর থেকে অনলাইনে শুরু হয় আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি প্রকাশ।

সমাবেশের শুরুতে সদ্য প্রয়াত ভারতীয় প্রখ্যাত নারীবাদী লেখক, প্রশিক্ষক ও অধিকারকর্মী কমলা ভাসিনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।  সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন-মানবাধিকার কর্মী খুশি কবীর এবং সঞ্চালনা করেন- আইনজীবী ও অ্যাক্টিভিস্ট জীবনান্দ জয়ন্ত।

সমাবেশে সাঙ্গাত ও উদ্যমে উত্তরণে শতকোটির থেকে বিবৃতি পাঠ করেন সোহানা আহমেদ।

বিবৃতি পাঠকালে তিনি বলেন,  মৌলবাদ এবং স্বৈরতন্ত্রের বিরুদ্ধে আফগান নারীদের প্রতিবাদী আন্দোলনের সঙ্গে আমরা একাত্মতা প্রকাশ করছি। আমরা বিশ্বাস করি, আফগানিস্তানের নাগরিক হিসেবে সকল প্রকার সুযোগ সুবিধা পাওয়ার অধিকার রয়েছে আফগানী নারীদের। শিক্ষার অধিকার, কাজ করার অধিকার, স্বাধীনভাবে শ্বাস নেবার অধিকার, নিরাপদ ও সুস্থ জীবনের অধিকার এবং সর্বোপরি মানুষ হিসেবে নিজের মতো করে বাঁচার ন্যায়সঙ্গত অধিকার তাদের রয়েছে।

এসময় সকল দেশের সরকার, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ এবং আঞ্চলিক সংস্থাসমূহের প্রতি নয়টি  দাবি উত্থাপন করেন তারা।

তাদের দাবিগুলো হলো- তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি না দেওয়া, তালেবানকে সকল প্রকার অর্থনৈতিক, সামরিক ও প্রযুক্তিগত সহায়তা প্রদান বন্ধ করার ব্যবস্থা করা, বাণিজ্যিক ও অন্য কোনও স্বার্থে নারীর অধিকার যেন ক্ষুণ্ণ না হয়, তা নিশ্চিত করা ইত্যাদি।

/এমআর/

সম্পর্কিত

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌: আইজিপি

থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌: আইজিপি

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৫৫

একদিনে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ২৫ জন। তাদের মধ্যে আজসহ টানা তিন দিন বরিশাল বিভাগে ভাইরাসটিতে কোনও প্রাণহানি হয়নি। একইসঙ্গে সঙ্গে রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগেও এই সময়ে কেউ মারা যাননি।

এর আগে গত ২৩ সেপ্টেম্বর দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে একদিনে তিন বিভাগে কেউ মারা যাননি। 

অতি সংক্রমণশীল ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের তাণ্ডবের পর দেশে দৈনিক নতুন শনাক্ত রোগী আর মৃত্যুর সংখ্যা গত মধ্য আগস্ট থেকে কমে আসে। যদিও দেশে মহামারিকালের ১৮ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখেছে বাংলাদেশ আগস্ট মাসেই। গত পাঁচ এবং ১০ আগস্ট একদিনে সর্বোচ্চ ২৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এরপর থেকে ডেল্টার তাণ্ডব কমে আসে। কমে আসতে শুরু করে শনাক্ত ও মৃত্যু। 

গত পাঁচ দিন ধরে দৈনিক শনাক্তের হারও রয়েছে পাঁচ শতাংশের নিচে।

/জেএ/এনএইচ/

সম্পর্কিত

একদিনে ২২১ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

একদিনে ২২১ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

চিকিৎসকসহ সাড়ে ৯ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ সাড়ে ৯ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

টানা দুই দিন করোনায় মৃত্যুহীন বরিশাল 

টানা দুই দিন করোনায় মৃত্যুহীন বরিশাল 

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৪১

কক্সবাজারের আমারী রিসোর্ট নামে একটি হোটেল থেকে উদ্ধার হওয়া নারীর লাশের রহস্য উন্মোচন করেছে র‌্যাব। র‌্যাব বলছে, পূর্ব পরিচয়ের জেরে কক্সবাজারের সেই হোটেলে ওই তরুণীকে নিয়ে যায় সাগর নামে ্েকে যুবক। হোটেলটিতে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে তারা ওঠে। পরবর্তীতে জোরপূর্বক ধর্ষণ ও হত্যা করে এই নারীকে। র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে এমনই তথ্য দিয়েছে গ্রেফতারকৃত সাগর নামের সেই যুবক।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর কাওরান বাজারের র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মাহফুজুর রহমান।

তিনি বলেন, কক্সবাজারের সেই হোটেলে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ওঠার পর সেই নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে গ্রেফতারকৃত সাগর। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি শুরু হয় ধস্তাধস্তি এক পর্যায়ে সাগর ভিকটিমের গলা চেপে ধরে দেয়ালে ধাক্কা দিলে ওই নারী মেঝেতে পড়ে যায়। আঘাতের কারণে মৃত্যু হয় তার। পরে সে হোটেল থেকে পালিয়ে যায়।

র‌্যাব-১০ এর একটি আভিধানিক দল রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকার সায়দাবাদ বাস স্ট্যান্ড এর টোল প্লাজার সামনে থেকে সাগর মিজি (২৪) নামের সেই যুবককে শনিবার গ্রেফতার করে। এসময় তার কাছে থাকা ভিকটিমের মোবাইলসহ তিনটি মোবাইল, নগদ ১৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

মাহফুজুর রহমান আরও বলেন, সাগর স্কুল-কলেজ পড়ুয়া মেয়েদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে। বিভিন্ন এলাকায় ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কৌশলে ধর্ষণ করতো সে। একাধিক নারীকে মিথ্যা প্রেমের ফাঁদে ফেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে বাধ্য করেছে বলেও প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়।

প্রসঙ্গত, গত ১৮ সেপ্টেম্বর সকালে কক্সবাজারের কলাতলী এলাকার আমারই রিসোর্ট নামক হোটেলে একটি কক্ষ ভাড়া নেয় সাগর। ২০ সেপ্টেম্বর আসামির সাগর ওই তরুণীকে (২৬) নিয়ে  রুমে উঠে।  ২১ সেপ্টেম্বর সকাল আনুমানিক ১০টার দিকে হোটেল কর্তৃপক্ষ রুমের ভেতর কোনও সাড়া শব্দ না পেলে কক্ষের দরজা ভেঙে মৃতদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে।

/আরটি/এমআর/

সম্পর্কিত

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

ট্রাংকে ভরে তরুণীর লাশ পাঠালেন ঢাকায়, ছয় বছর পর ধরা যুবক

ট্রাংকে ভরে তরুণীর লাশ পাঠালেন ঢাকায়, ছয় বছর পর ধরা যুবক

কক্সবাজারে হোটেলে তরুণী ‘হত্যা’য় অভিযুক্ত ঢাকায় গ্রেফতার

কক্সবাজারে হোটেলে তরুণী ‘হত্যা’য় অভিযুক্ত ঢাকায় গ্রেফতার

‘এখনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অপব্যবহার হচ্ছে’

‘এখনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অপব্যবহার হচ্ছে’

থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌: আইজিপি

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:২৬

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌। মানুষের জন্য কাজ করে তাদের হৃদয় ও মন জয় করা যায়। এটা টাকা দিয়ে কেনা যায় না। 

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) ঢাকা রেঞ্জের আগস্ট মাসের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে আইজিপি এসব কথা বলেন।

আইজিপি বলেন, পুলিশ যত ভালো কাজ করুক না কেন একটি খারাপ কাজ সব অর্জনকে নষ্ট করে দেয়। সমাজ পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা ও অপরাধ পরিস্থিতিরও পরিবর্তন হয়। সর্বদা সমাজের পরিবর্তনশীল চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে পুলিশিং কার্যক্রম চালু রাখতে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন তিনি। 

জুনিয়রদের যোগ্য করে গড়ে তোলা সিনিয়রদের দায়িত্ব উল্লেখ করে আইজিপি বলেন, জুনিয়রদের জন্য ভালো উদাহরণ তৈরি করতে হবে। ভালো কাজে তাদেরকে মোটিভেট করতে হবে। তাদেরকে সুপারভাইজ করতে হবে। চাকরিতে ‘প্যাশন’ আনতে হবে। প্রত্যেক পুলিশ সদস্যের সম্মান ও মর্যাদাবোধ থাকতে হবে। 

বিট পুলিশিং একটি কার্যকর পদ্ধতি জানিয়ে পুলিশ প্রধান বলেন, বঙ্গবন্ধু প্রতিটি ইউনিয়নে থানা করার যে স্বপ্ন দেখেছিলেন মূলত বিট পুলিশিং সে লক্ষে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনী ইশতেহারে ঘোষণা করেছিলেন; প্রতিটি গ্রামে শহরের সুবিধা পৌঁছে দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে প্রতিটি ইউনিয়নে অপরাধ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় বিট পুলিশিং কার্যকর অবদান রাখতে পারে। 

আইজিপি আবারও দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে ঘোষণা করেন, কোনও পুলিশ সদস্য যদি অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকে তাহলে সেটা বন্ধ করতে হবে। পুলিশে কোনও অপরাধীর জায়গা নেই। আইজিপি ঢাকা রেঞ্জের বিভিন্ন ইনোভেশন কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি অন্যান্য ইউনিটেও এ ধরনের ইনোভেশনের চর্চার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। 

ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান আগস্ট মাসের সার্বিক অপরাধ পরিস্থিতি, অপরাধ ব্যবস্থাপনা, বেস্ট প্র্যাকটিসেস এবং ইনোভেশন কার্যক্রম সভায় উপস্থাপন করেন। মাদারীপুর জেলা পুলিশ আয়োজিত এ সভায় ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজিগণসহ রেঞ্জাধীন সকল জেলার পুলিশ সুপারগণ এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি জানিয়ে ঢাকায় সমাবেশ

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি জানিয়ে ঢাকায় সমাবেশ

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

কর্মবিরতির হুঁশিয়ারি ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক শ্রমিকদের

কর্মবিরতির হুঁশিয়ারি ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক শ্রমিকদের

৮০ বছর বয়সেও বৃদ্ধ আমিনের জীবনচাকা রিকশার প্যাডেলে

৮০ বছর বয়সেও বৃদ্ধ আমিনের জীবনচাকা রিকশার প্যাডেলে

তিস্তাসহ সব নদীর ভাঙন রোধে ৬ দফা দাবি 

তিস্তাসহ সব নদীর ভাঙন রোধে ৬ দফা দাবি 

মাদকবিরোধী রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৯ জন

মাদকবিরোধী রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৯ জন

‘অভিজাত এলাকায় গাড়ি চললে দিতে হবে এক্সট্রা চার্জ’

‘অভিজাত এলাকায় গাড়ি চললে দিতে হবে এক্সট্রা চার্জ’

জমি পেলেই ডিএনসিসির বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্প শুরু

জমি পেলেই ডিএনসিসির বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্প শুরু

রাজধানীতে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় নারী নিহত

রাজধানীতে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় নারী নিহত

অফিসের ফ্যানে লামিয়া গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যানের ঝুলন্ত লাশ

অফিসের ফ্যানে লামিয়া গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যানের ঝুলন্ত লাশ

লোকজ পণ্যের সমাহার (ফটোস্টোরি)

লোকজ পণ্যের সমাহার (ফটোস্টোরি)

সর্বশেষ

২৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

২৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

ভারতে গেলো আরও ১৮৬ মেট্রিক টন ইলিশ

ভারতে গেলো আরও ১৮৬ মেট্রিক টন ইলিশ

তাবলিগে আসা ১৩ মুসল্লি অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে

তাবলিগে আসা ১৩ মুসল্লি অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে

নির্বাচন কমিশন গঠনে আইন করবে কে, প্রশ্ন মির্জা ফখরুলের

নির্বাচন কমিশন গঠনে আইন করবে কে, প্রশ্ন মির্জা ফখরুলের

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

© 2021 Bangla Tribune