X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

ত্রিপুরায় কংগ্রেস-বাম-বিজেপি ভাঙার চেষ্টায় তৃণমূল!‍

আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২১, ২১:১৯
image

একুশের বিধানসভায় ‘খেলা হবে’ তৃণমূলের স্লোগান এখন পশ্চিমবঙ্গের সীমানা ছাড়িয়ে ত্রিপুরার বুকে আছড়ে পড়েছে। এই খেলায় রীতিমতো হোমওর্য়াক করেই নেমেছে তৃণমূল। তৃণমূল সূত্রের খবর, ত্রিপুরায় ইতিমধ্যেই সাংগঠনিক শক্তি বাড়াতে শুরু করেছে দলটি। উত্তর ত্রিপুরা, উনকোটি, ধলাইসহ বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন দলের বহু নেতাকর্মী তৃণমূলে যোগ দিতে শুরু করেছেন। শুধু তাই নয়, ত্রিপুরার আদিবাসীদের মধ্যেও তৃণমূলের প্রভাব বিস্তারের সম্ভাবনা দেখা গিয়েছে।

২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতায় আসার পর বাম বা সিপিএমকে ক্ষমতা থেকে দূরে রাখতে তৃণমূল যে কৌশল নেয়, সেই একই কৌশল ত্রিপুরায় প্রয়োগের লক্ষ্য নিয়েছে দলটি। রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা বলছেন, আপাতত বিজেপি বিরোধিতার প্রশ্নে তৃণমূলকে সমর্থন জানিয়ে সিপিএম তথা বামেরা আত্মতুষ্টিতে থাকলেও শেষ পর্যন্ত বাঙালি অধ্যুষিত রাজ্যটিতে তারা পশ্চিমবঙ্গের মতোই নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে। সেক্ষেত্রে ত্রিপুরার আগামী রাজনৈতিক লড়াইটা তৃণমূলের সঙ্গে বিজেপির হবে।

পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূলের মতোই ত্রিপুরায় দীর্ঘ বাম শাসনের অবসান ঘটিয়ে ইতিহাস গড়েছিল বিজেপি। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরেই কংগ্রেস ছেড়ে আসা বিজেপি নেতাদের সঙ্গে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সংঘাত দেখা দিয়েছে। সুদীপ রায় বর্মন একাধিক বিধায়ক নিয়ে বিজেপি ছাড়তে পারেন বলেও জল্পনা তৈরি হয়েছে। মুকুল রায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরতে এই জল্পনা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে।

মুকুল ঘনিষ্ঠ হিসাবেই পরিচিত সুদীপ। মুকুলের হাত ধরেই কংগ্রেস থেকে গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন তিনি। এই বিজেপি বিধায়ক তার অনুগামীদের নিয়ে দল ছাড়লে চাপ বাড়তে পারে ত্রিপুরা সরকারের। পরিস্থিতি সামাল দিতে কয়েকদিন আগেই ত্রিপুরার নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করেছে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব, তাতেও পরিস্থিতি আয়ত্বে আসেনি এমনটাই খবর। যদিও বিজেপির দাবি, ত্রিপুরায় বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মতো সংগঠনই তৃণমূলের নেই।

অপরদিকে, ত্রিপুরায় ক্ষমতা থেকে চলে যাওয়ার পর পশ্চিমবঙ্গের মতোই বামশক্তি ক্ষয়িষ্ণু সেখানে। সিপিএমের মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের পক্ষে একা বিজেপির বিরুদ্ধে কতটা লড়তে পারবেন তা নিয়ে প্রশ্ন আছে। কংগ্রেসের অবস্থাও তথৈবচ।

এমন পরিস্থিতিতে বাম-কংগ্রেসের ঘর ভাঙাচ্ছে তৃণমূল। বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলায় একক লড়াই ত্রিপুরায় তৃণমূলকে বিকল্প হিসাবে দাঁড় করিয়ে দেওয়ার সম্ভাবনা তৈরি করছে। সুবল ভৌমিকদের যোগদানের পর ত্রিপুরায় কংগ্রেসের বহু হেভিওয়েট নেতাই তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন বলে খবর। পরিস্থিতি এমনই যে কংগ্রেসের ভিত্তি ধরে রাখতে ত্রিপুরার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পীযূষ বিশ্বাসকে ফোন করে বিষয়টি জানতে চেয়েছেন কংগ্রেসের সোনিয়া গান্ধির ঘনিষ্ঠ নেতা বেনুগোপাল।

সূত্রের খবর, কংগ্রেস নেতা বেনুগোপালকে পীযূষ বিশ্বাস জানিয়েছেন, বিজেপিকে রুখতে পরিকল্পনার অভাবে বিরোধী শিবিরের বাম বা কংগ্রেস কারও তরফেই সেই উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না। তৃণমূল অল্প কয়েকদিনেই এই কাজটা শুরু করে দিয়েছে। সেকারণেই তৃণমূল বিজেপি বিরোধী হিসাবে দ্রুত উঠে আসছে। এরই মধ্যে জল্পনা আরও বেড়েছে, পিকের আইপ্যাক বির্তকে আগরতলা আদালতে সওয়াল করেন ত্রিপুরা প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি পীযূষ বিশ্বাস। গৃহবন্দি থাকা আইপ্যাকের কর্মীরা মহামারী আইন ভাঙতে পারেন এই যুক্তিতে জামিন দেওয়ার বিরোধিতা করেন সরকারি পক্ষের আইনজীবী।

আইপ্যাকের হয়ে আইনজীবীর দায়িত্ব নেওয়া ত্রিপুরা প্রদেশ কংগ্রেস নেতা পীযূষ বিশ্বাস আদালতে বলেন, ‘গৃহবন্দী করে অনর্থক হয়রানি করা হচ্ছিল এই প্রতিনিধি দলটিকে।’ এরপরই আই প্যাকের কর্মীদের জামিন মেলে। তৃণমূলের রাজনৈতিক পরামর্শদাতা আইপ্যাকের জন্য সওয়াল করছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি, এই ঘটনায় ত্রিপুরার রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। প্রশ্ন উঠছে তাহলে কী ত্রিপুরার কংগ্রেস নেতারা কি তৃণমূলের দিকে ঢলে পড়েছেন?  বির্তক আরও বেড়েছে পীযূষ বিশ্বাসে আরও একটি বক্তব্যে। তিনি বলেছেন, ‘যে আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে তৃণমূল ত্রিপুরায় ঝাঁপিয়ে পড়েছে, তার সিকিভাগ চেষ্টাও কংগ্রেস করছে না।’

রাজনৈতিক মহলের মতে, পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে নাড়ির টান থাকার কারণে বাঙালি অধ্যুষিত ত্রিপুরায় সহজেই সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জন সম্ভব তৃণমূলের। তাই এই মুহূর্তে ত্রিপুরাকেই পাখির চোখ করে এগোচ্ছে দলটি। মহিলা, যুব ভোটের জন্য তৃণমূলের সুনির্দিষ্ট রণকৌশল কাজে লাগানোর জন্যই আইপ্যাকের মতো সংস্থাকে কাজে লাগিয়ে শক্তিশালী আইটি সেল তৈরির মতো নানা পদক্ষেপ তৃণমূলকে আলাদা মাত্রা দিচ্ছে ত্রিপুরায়। ত্রিপুরায় বিধানসভা নির্বাচনের আগে দেড় বছর সময় রয়েছে তৃণমূলের হাতে। তার আগে যদি ত্রিপুরায় শক্ত অবস্থানে চলে যেতে পারে তৃণমূল তবে শুধু বিধানসভা কেন, চব্বিশের লোকসভার ভোটে গেরুয়া শিবিরকে কড়া চ্যালেঞ্জের মধ্যে ফেলতে পারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল।

/জেজে/

সম্পর্কিত

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি

এক রুপি বিক্রি হলো ১০ কোটিতে!

এক রুপি বিক্রি হলো ১০ কোটিতে!

মন্ত্রিসভা নিয়ে পদত্যাগ করলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর

মন্ত্রিসভা নিয়ে পদত্যাগ করলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর

অবশেষে তৃণমূলে বিজেপি সরকারের সাবেক মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়

অবশেষে তৃণমূলে বিজেপি সরকারের সাবেক মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:০০

একেবারে শেষবেলায় চমক। রবিবার দুপুর থেকেই ভারতের পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রিত্বের দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন সুখজিন্দর সিং রানধাওয়া। তবে শেষ পর্যন্ত বাজিমাত করলেন চরণজিৎ সিং চান্নি। বিধানসভা ভোটের মাস কয়েক আগে নতুন মুখ্যমন্ত্রী হলেন তিনি।

এর মধ্য দিয়ে ১৯৬৬ সালে রাজ্য হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ার পর এই প্রথমবারের মতো একজন দলিত মুখ্যমন্ত্রী পেলো পাঞ্জাব।

রবিবার সন্ধ্যায় টুইটারে দেওয়া পোস্টে সর্বভারতীয় কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক তথা পাঞ্জাবের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা হরিশ রাওয়াত যাবতীয় জল্পনার অবসান ঘটান। টুইটে তিনি বলেন, ‘অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, সর্বসম্মতভাবে পাঞ্জাবে কংগ্রেসের পরিষদীয় দলের নেতা হিসেবে চরণজিৎ সিং চান্নিকে নির্বাচিত করা হয়েছে।‌‌’ অর্থাৎ পাঞ্জাবের নয়া মুখ্যমন্ত্রী হতে চলেছেন চরণজিৎ। ইতোমধ্যেই তিনি রাজভবনেও পৌঁছে গেছেন বলে জানা গেছে।

দুপুরের দিকে বিধায়ক প্রীতম কোটভাই দাবি করেছিলেন, সর্বসম্মতভাবে সুখজিন্দর সিং রানধাওয়াকে কংগ্রেসের পরিষদীয় দলের নেতা হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। তবে সেই সময় আনুষ্ঠানিকভাবে কংগ্রেসের তরফে কোনও ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

সূত্র উদ্ধৃত করে এএনআই জানিয়েছিল, পাঞ্জাবের বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠকের পর সর্বভারতীয় কংগ্রেসের তরফে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে সুখজিন্দরের নামের সুপারিশ করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে বৈঠক করছেন রাহুল গান্ধী ও অম্বিকা সোনি। এরইমধ্যে কয়েকটি মহল থেকে দাবি করা হয়, রাজ্যপালের সঙ্গেও দেখা করতে যাচ্ছেন সুখজিন্দর।

শেষ মুহূর্তে অবশ্য পাশা পুরোপুরি পাল্টে যায়। শনিবার ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিংয়ের পদত্যাগের পর যে নাটক শুরু হয়েছিল, তাতে ইতি টেনে কংগ্রেসের তরফে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর নাম ঘোষণা করা হয়।

চরণজিৎ প্রবীণ রাজনীতিক। তিন বার বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন। অতীতে পাঞ্জাব বিধানসভায় বিরোধী দলীয় নেতা ছিলেন। সাবেক মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংয়ের মন্ত্রিসভায় কারিগরি দফতরের দায়িত্বে ছিলেন। রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য, চরণজিৎ-এর ভাবমূর্তিও স্বচ্ছ। এটি কংগ্রেসের স্বস্তি বাড়াবে। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

/এমপি/

সম্পর্কিত

জালালাবাদে আবারও তালেবানকে লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ

জালালাবাদে আবারও তালেবানকে লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ

তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে কয়েকটি আফগান দূতাবাস

তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে কয়েকটি আফগান দূতাবাস

রাশিয়ার নির্বাচনে এগিয়ে পুতিনের দল

রাশিয়ার নির্বাচনে এগিয়ে পুতিনের দল

যেভাবে ‘পুণ্যের প্রচার ও পাপ ঠেকাবে’ তালেবানের নৈতিকতা পুলিশ

যেভাবে ‘পুণ্যের প্রচার ও পাপ ঠেকাবে’ তালেবানের নৈতিকতা পুলিশ

বাংলাদেশিদের জন্য ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের ঘোষণা জাপানের

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:০৪

বাংলাদেশিদের জন্য ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে জাপান। কোভিড-১৯ মহামারির প্রকোপ ঠেকাতে এ বছরের গোড়ার দিকে এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল।

ওই সময়ে বাংলাদেশ ছাড়াও আরও  পাঁচটি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করে টোকিও। শুক্রবার সন্ধ্যায় সবকটি দেশের ওপর থেকে এ সংক্রান্ত বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার ঘোষণা দেয় কর্তৃপক্ষ। তবে নতুন এ সিদ্ধান্ত সোমবার থেকে কার্যকর হবে।

বাংলাদেশ ছাড়া বিধিনিষেধ থেকে অব্যাহতি পাওয়া বাকি দেশগুলো হলো ভারত, আফগানিস্তান, মালদ্বীপ, নেপাল ও শ্রীলঙ্কা। করোনা মোকাবিলায় ১৪ দিনের মধ্যে এসব দেশে সময় কাটানো বিদেশি পর্যটকদের জাপান প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল। মূলত ওই আদেশটিই প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হলেও কোয়ারেন্টিন নীতিমালায় পরিবর্তন এনেছে টোকিও। নতুন নিয়মে বাংলাদেশসহ ৪০টিরও বেশি দেশ ও অঞ্চলের পর্যটকদের এখন জাপানে পৌঁছানোর পর সরকারি স্থাপনায় তিন দিন বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন মেনে চলতে হবে। এছাড়া দেশটিতে প্রবেশের পর একবার কোভিড টেস্ট করতে হবে। তিন দিনের আইসোলেশন শেষে আবারও এই টেস্ট করাতে হবে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

জাপানে আঘাত হানতে সক্ষম উত্তর কোরিয়ার নতুন ক্ষেপণাস্ত্র

জাপানে আঘাত হানতে সক্ষম উত্তর কোরিয়ার নতুন ক্ষেপণাস্ত্র

উ. কোরিয়া আঞ্চলিক মিত্রদের জন্য হুমকি: পেন্টাগন

উ. কোরিয়া আঞ্চলিক মিত্রদের জন্য হুমকি: পেন্টাগন

জলসীমায় সন্দেহজনক চীনা সাবমেরিন দেখা গেছে: জাপান

জাপানের জলসীমায় চীনা সাবমেরিন দেখার দাবি

পদত্যাগ করছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী সুগা

পদত্যাগ করছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী সুগা

জালালাবাদে আবারও তালেবানকে লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৪০

আফগানিস্তানের জালালাবাদে আবারও তালেবান সদস্যদের লক্ষ্য করে একটি বিস্ফোরণ ঘটেছে। রবিবার বর্ডার পুলিশের গাড়িতে এই বিস্ফোরণ ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে কোনও তালেবান কর্মকর্তা নিহত বা আহত হয়েছেন কিনা জানা যায়নি।

শনিবার এই শহরেই একাধিক বিস্ফোরণে অন্তত দুই তালেবান কর্মকর্তা ও ১৯জন আহত হন। বিস্ফোরণে দুই তালেবান কর্মকর্তা ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান। তবে আহতদের অধিকাংশই বেসামরিক নাগরিক। এর দায় স্বীকার করেনি কেউ।

রবিবারের হামলারর বিষয়ে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তালেবান পরিচালিত বর্ডার পুলিশের একটি গাড়ি লক্ষ্য করে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। প্রাথমিকভাবে অন্তত পাঁচজন নিহতের কথা জানা গেছে। এদের মধ্যে দুজন বেসামরিক রয়েছে।

হতাহতের বিষয়ে তালেবানের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

/এএ/

সম্পর্কিত

তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে কয়েকটি আফগান দূতাবাস

তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে কয়েকটি আফগান দূতাবাস

রাশিয়ার নির্বাচনে এগিয়ে পুতিনের দল

রাশিয়ার নির্বাচনে এগিয়ে পুতিনের দল

তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে কয়েকটি আফগান দূতাবাস

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:২২

আশরাফ গণির নেতৃত্বাধীন আফগান সরকারের পতনের এক মাস পেরিয়ে যাওয়ার পরও বিভিন্ন দেশের কয়েকটি দূতাবাসের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত। অনেক দূতাবাস তালেবানের নেতৃত্বাধীন ইসলামি আমিরাত সরকারের সঙ্গে সম্পর্কও ছিন্ন করেছে। আফগান সংবাদমাধ্যমের বরাতে এখবর জানিয়েছে এনডিটিভি।

আফগানিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সাবেক কর্মকর্তা জানান, কয়েকটি আফগান দুতাবাস এখন স্বাধীনভাবে কাজ করছে এবং তাদের আয়ের উৎস অজানা।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, একটি দূতাবাস ব্যাংকে এখনও তাদের অর্থ জমা দেয়নি। চারটি দূতাবাস তাদের কর্মকাণ্ডের রিপোর্ট দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মন্ত্রণালয়ের এক সাবেক কর্মকর্তা জানান, তালেবান ক্ষমতা দখলের পর মন্ত্রণালয়ের ৮০ শতাংশ কর্মী আফগানিস্তান ছেড়ে পালিয়েছে। মন্ত্রণালয়ের রাজনৈতিক দফতর অন্য দেশের দূতাবাসগুলোর সঙ্গে যোগাযোগের দায়িত্বে ছিল। কিন্তু এখন এই দফতরে অল্প কয়েকজন কর্মকর্তা রয়েছেন।

তার মতে, বেশিরভাগ আফগান দূতাবাস কাবুল প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট দেশের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। অনেক দূতাবাস সাবেক মন্ত্রী হানিফ আতমার ও ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহের নেতৃত্বে পরিচালিত হচ্ছে। কয়েকটি এখনও কোনও পক্ষে যায়নি। অন্যরা নতুন প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে।

ওই কর্মকর্তা জানান, এসব দূতাবাসের ৮০ শতাংশ ব্যয় নিজেদের আয় থেকে মেটানো হতো। পাসপোর্ট প্রদান ও অন্যান্য সেবা থেকে এই আয় আসত।

তিনি আরও জানান, ফ্রান্স ও জার্মানির আফগান দূতাবাসের কর্মীরা ওই দেশগুলোতে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন। বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি বেশ কয়েকবার বিভিন্ন দেশের আফগান দূতদের সঙ্গে অনলাইনে বৈঠকের চেষ্টা করেছেন। বুধবার এমন একটি বৈঠক বাতিল করা হয় রাষ্ট্রদূতরা অনুপস্থিত থাকায়।

/এএ/

সম্পর্কিত

জালালাবাদে আবারও তালেবানকে লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ

জালালাবাদে আবারও তালেবানকে লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ

রাশিয়ার নির্বাচনে এগিয়ে পুতিনের দল

রাশিয়ার নির্বাচনে এগিয়ে পুতিনের দল

রাশিয়ার নির্বাচনে এগিয়ে পুতিনের দল

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:০৫

রাশিয়ার পার্লামেন্ট নির্বাচনে এগিয়ে রয়েছে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের দল ইউনাইটেড রাশিয়া। আলেক্সি নাভালনির নেতৃত্বাধীন বিরোধীদের কঠোর হাতে দমনের পর রবিবার তিন দিনব্যাপী নির্বাচনের চূড়ান্ত পর্যায়ের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার বাকি থাকলেও ৬৮ বছরের পুতিনের দলের বিজয় এখন সময়ের অপেক্ষা মাত্র বলে প্রতীয়মান হচ্ছে।

দীর্ঘদিন ধরেই মস্কোর ক্ষমতার মসনদে ইউনাইটেড রাশিয়া। তবে দলটির শাসনামলে রুশ নাগরিকদের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন নিয়ে নানা প্রশ্ন রয়েছে। তবে পার্লামেন্ট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের সম্ভাব্য জয়কে পুতিনের প্রতি জনসমর্থনের প্রমাণ হিসেবে হাজির করা হতে পারে।

৪৫০ আসনের রুশ পার্লামেন্টের প্রায় তিন চতুর্থাংশই ইউনাইটেড রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণে। ২০২০ সালে এই সংখ্যাগরিষ্ঠতার বলেই সংবিধানে একটি নতুন সংস্কার আনা হয়। এতে ভ্লাদিমির পুতিনকে আরও দুই মেয়াদে অর্থাৎ, ২০৩৬ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার সুযোগ রাখা হয়। সমালোচকদের মতে, ওই সংস্কার ছিল পুতিনকে আমৃত্যু ক্ষমতায় রাখার একটি অপকৌশল মাত্র।

/এমপি/

সম্পর্কিত

জালালাবাদে আবারও তালেবানকে লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ

জালালাবাদে আবারও তালেবানকে লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ

তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে কয়েকটি আফগান দূতাবাস

তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে কয়েকটি আফগান দূতাবাস

যেভাবে ‘পুণ্যের প্রচার ও পাপ ঠেকাবে’ তালেবানের নৈতিকতা পুলিশ

যেভাবে ‘পুণ্যের প্রচার ও পাপ ঠেকাবে’ তালেবানের নৈতিকতা পুলিশ

মানুষকে আতঙ্কে রাখতে চাই না: তালেবানের নৈতিকতা পুলিশ প্রধান

মানুষকে আতঙ্কে রাখতে চাই না: তালেবানের নৈতিকতা পুলিশ প্রধান

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি

এক রুপি বিক্রি হলো ১০ কোটিতে!

এক রুপি বিক্রি হলো ১০ কোটিতে!

মন্ত্রিসভা নিয়ে পদত্যাগ করলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর

মন্ত্রিসভা নিয়ে পদত্যাগ করলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর

অবশেষে তৃণমূলে বিজেপি সরকারের সাবেক মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়

অবশেষে তৃণমূলে বিজেপি সরকারের সাবেক মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

মোদির জন্মদিনে দুই কোটি টিকা প্রয়োগের রেকর্ড ভারতের

মোদির জন্মদিনে দুই কোটি টিকা প্রয়োগের রেকর্ড ভারতের

সম্পর্কের উন্নতি চাইলে সীমান্তের সেনা প্রত্যাহার করুন: চীনকে ভারত

সম্পর্কের উন্নতি চাইলে সীমান্তের সেনা প্রত্যাহার করুন: চীনকে ভারত

তৃতীয় ডোজের প্রয়োজনীয়তার কোনও প্রমাণ নেই: আদর পুনাওয়ালা

তৃতীয় ডোজের প্রয়োজনীয়তার কোনও প্রমাণ নেই: আদর পুনাওয়ালা

দিল্লিতে বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ

দিল্লিতে বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি: মমতা

সর্বশেষ

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি

শেষ দুই ম্যাচ জিতে সমাপ্তি টানলো আফগান যুবারা

শেষ দুই ম্যাচ জিতে সমাপ্তি টানলো আফগান যুবারা

স্পট রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ফের টিকা কার্যক্রম শুরু হচ্ছে: স্বাস্থ্য অধিদফতর

স্পট রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ফের টিকা কার্যক্রম শুরু হচ্ছে: স্বাস্থ্য অধিদফতর

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

যৌন হয়রানির অভিযোগে পুলিশ কনস্টেবল গ্রেফতার

যৌন হয়রানির অভিযোগে পুলিশ কনস্টেবল গ্রেফতার

© 2021 Bangla Tribune