X
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

ফেনীতে করোনার চেয়ে ৬ গুণের বেশি মৃত্যু উপসর্গে

আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২১, ২৩:৪৩

ফেনীতে করোনার পাশাপাশি এর উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া মানুষের সংখ্যা বেড়ে চলছে। ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ১ জুলাই থেকে ৪ আগস্ট বুধবার পর্যন্ত ৩৪ দিনে উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন করোনায় মৃত্যুর চেয়ে ছয় গুণের বেশি মানুষ। হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মো. ইকবাল হোসেন ভূঁইয়ার দেওয়া তথ্যে এই চিত্র উঠে এসেছে।

আরএমওর দেওয়া তথ্যে জানা যায়, গত ১ জুলাই থেকে ৪ আগস্ট বুধবার পর্যন্ত ফেনী সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে করোনা পজিটিভ চার জনসহ মারা গেছেন ৮৬ জন রোগী। আর আইসিইউ ও সিসিইউতে মৃত্যু হয় করোনা পজিটিভ ১৮ জনসহ ৪৯ জন রোগী। এই ৩৪ দিনে করোনা পজিটিভ ২২ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। আর উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ১৫৩ জন।

আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মো. ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া জানান, উপসর্গ নিয়ে মৃতের তালিকায় যাদের নাম ওঠানো হচ্ছে, তাদের ক্ষেত্রে শ্বাসকষ্টের সমস্যা বেশি পাওয়া যায়। এসব রোগীর জ্বর, সর্দি ও কাশির মতো উপসর্গও থাকছে। তবে তা শুরুর দিকে বেশি দেখা যায়। পরে রোগীর তীব্র শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে স্বজনরা হাসপাতালে নিয়ে আসেন। অবশ্য কারও কারও ক্ষেত্রে মাথাব্যথা, গলাব্যথা, ঘ্রাণশক্তি না থাকা ও স্বাদ না পাওয়ার লক্ষণও দেখা যাচ্ছে।

কারও কারও ক্ষেত্রে সব উপসর্গ থাকার পরও পরীক্ষায় ফল নেগেটিভ আসছে বলে উল্লেখ করেন আরএমও মো. ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

এক বিদ্যালয়ের ৩ শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত, দুই দিন বন্ধ

এক বিদ্যালয়ের ৩ শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত, দুই দিন বন্ধ

সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ নিয়ে যা বললেন রেলমন্ত্রী

সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ নিয়ে যা বললেন রেলমন্ত্রী

গাছের সঙ্গে বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় নিহত ১, আহত ১২

গাছের সঙ্গে বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় নিহত ১, আহত ১২

‘বিদ্যালয়ে এসে করোনা আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়া যায়নি’

‘বিদ্যালয়ে এসে করোনা আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়া যায়নি’

ছাত্রীদের অনলাইন ক্লাসে ঢুকে ‘নাগিন ড্যান্স’

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:০৪

বগুড়ার বিয়াম মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীদের অনলাইন ক্লাসে নাচ ও আপত্তিকর ছবি দেখানোর অভিযোগ উঠেছে। গত ২০ সেপ্টেম্বর (সোমবার) ক্লাসে এ ঘটনায় ঘটলেও শিক্ষক সাকিব হাসান বিষয়টি অধ্যক্ষকে অবহিত কিংবা আইনের আশ্রয়ও নেননি। এতে শুধু ওই ক্লাসে থাকা ৩৫ জন ছাত্রী নয়, অভিভাবকরাও বিব্রত ও আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। এরপর থেকে শিক্ষার্থীরা ক্লাসে অংশ নিতে সাহস পাচ্ছে না। 

তারা বলছেন, এমন অনভিজ্ঞ শিক্ষক দিয়ে জুমে ক্লাস করানো ঠিক হয়নি।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকালে এ বিষয়ে জানতে শিক্ষক সাকিব হাসানের মোবাইল নম্বরে কল করা হলেও তিনি ধরেননি। তবে অধ্যক্ষ মুহা. মুস্তাফিজার রহমান জানান, সংশ্লিষ্ট শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে তিনি জেনেছেন, কে বা কারা অল্প সময়ের জন্য ঢুকে শুধু গান বাজিয়েছেন। সঙ্গে সঙ্গে তাকে ব্লক করে দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন বলেও তিনি জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বগুড়া বিয়াম মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের কয়েকজন অভিভাবক জানান, গত ২০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় সপ্তম শ্রেণির ‘চ’ শাখার অনলাইন ক্লাসে ৩৫ জন ছাত্রী ছিল। অ্যাডমিন ছিলেন, স্কুলের গণিত বিভাগের শিক্ষক সাকিব হাসান। ক্লাস শুরুর পরপরই অজ্ঞাত কেউ ক্লাসে ঢুকে পড়ে। প্রথমে ‘নাগিন নাচ’ এরপর দুই বার আপত্তিকর ছবি দেখায়। এ সময় ছাত্রী ও পাশে থাকা বাবা-মা বিব্রত হয়ে ক্লাস থেকে বের হয়ে যায়। ছাত্রীরা চিৎকার করে শিক্ষক সাকিব হাসানের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি ওই অজ্ঞাতকে ব্লক করে দেন।

এর আগে ওই ব্যক্তি বলেন, ‘পারলে আমায় ধরেন।’

এক ছাত্রীর মা জানান, তার মেয়ে জুমে গণিত ক্লাস করার সময় তিনি পাশে ছিলেন। স্কুলের ওই শিক্ষকের আইটি সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকা উচিত। শিক্ষার্থীরা অনলাইন ক্লাসে প্রবেশ করলে তাদের নাম ও রোল দেখায়। অথচ অন্য ব্যক্তি কীভাবে ঢুকে অশ্লীল ছবি দিলো তা নিয়ে অভিভাবকরা লজ্জিত, চিন্তিত ও বিব্রত। তারা মেয়ের ভবিষ্যৎ নিয়ে আতঙ্কিত।

অভিভাবকরা দাবি করেন, অনলাইনে ক্লাস চলাকালে মাঝে মাঝেই কে বা কারা ঢুকে পড়ে। তারা ছাত্রীদের ‘লাভ ইউ’ ছাড়াও বিভিন্ন অশ্লীল শব্দ ব্যবহার করে থাকে। এমন ঘটনা ঘটলেও হ্যাকারকে শনাক্ত বা গ্রেফতারে স্কুলের পক্ষ থেকে থানায় জানানো হয়নি। এমন ঘটনা ঘটলে সন্তানদের অনলাইন ক্লাসে পাঠাবেন না। তারা এ বিষয়ে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

বগুড়া বিয়াম ম‌ডেল স্কুল অ‌্যান্ড ক‌লে‌জের ঘটনা প্রস‌ঙ্গে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হযরত আলী জানান, এমন ঘটনা খুবই দুঃখজনক। এ বিষয়ে রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) প্রতিষ্ঠান প্রধা‌নের সঙ্গে তিনি কথা বল‌বেন। এখা‌নে কা‌রও গা‌ফিল‌তি পে‌লে তদন্তপূর্বক ব‌্যবস্থা নেওয়া হ‌বে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

শিকল খোলার পর প্রতিবন্ধীর লাঠির আঘাতে বোন নিহত

শিকল খোলার পর প্রতিবন্ধীর লাঠির আঘাতে বোন নিহত

ছাত্রাবাস থেকে পাবিপ্রবি ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ছাত্রাবাস থেকে পাবিপ্রবি ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়, আরএমপির ৬ সদস্য বরখাস্ত

মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়, আরএমপির ৬ সদস্য বরখাস্ত

এক বিদ্যালয়ের ৩ শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত, দুই দিন বন্ধ

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১১

নীলফামারীর জলঢাকার চিড়াভিজা গোলনা দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের তিন শিক্ষক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে ওই বিদ্যালয়টি দুই দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকালে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক আহসান জাহেদ নওরজি জানান, সব শিক্ষক ও কর্মচারীদের নমুনা পরীক্ষার জন্য আগামী শনিবার ও রবিবার দুই দিন সংরক্ষিত ছুটি থেকে বিদ্যালয়টি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। শিক্ষক ও কর্মচারীরা টিকার প্রথম ডোজ ও দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। আক্রান্ত তিন শিক্ষক নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

তবে অভিভাবকদের অভিযোগ, আমরাতো স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও বিধি মোতাবেক সন্তানদের স্কুলে পাঠাই। কিন্তু শিক্ষকরাই বিধি মেনে চলেন না। আমরা দেখতে পাই, স্কুলের শিক্ষকরা মাস্ক ছাড়াই হাটবাজারে ঘুরে বেড়ান। তারা নিজেরা অসচেতন হলে শিশুরা কীভাবে সচেতন হবে। বিষয়টা বুঝে আসে না।

অভিভাবক জয়নাল মোল্লার অভিযোগ, ‘শিক্ষকদের কারণে সন্তানরা ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। এখন বাধ্য হয়ে শিশুদেরও করোনা পরীক্ষা করাতে হবে।’

জলঢাকা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা চঞ্চল কুমার ভৌমিক জানান, ওই বিদ্যালয়ের যে তিন জন শিক্ষক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন তারা হলেন- সুশান্ত কুমার রায় (২৮), আব্দুল জলিল (৫০) ও রামিজুল ইসলাম (৪৮)।

তিনি আরও বলেন, ‘এই তিন শিক্ষকের মধ্যে বুধবার সুশান্ত কুমারের শরীরে করোনাভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে তিনি ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেনের মাধ্যমে নমুনা পরীক্ষা করান। সেখানে পজিটিভ আসে। পরদিন বাকি দুই শিক্ষক আব্দুল জলিল ও রামিজুল ইসলাম অসুস্থ্যবোধ করলে তারাও গত বৃহস্পতিবার ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা পরীক্ষা করালে তাদেরও পজিটিভ আসে।’ 

এ শিক্ষা কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে আপাতত আগামী দুই কার্যদিবসের জন্য সংরক্ষিত ছুটি থেকে বিদ্যালয়টি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সেখানকার অর্ধেক শিক্ষক এখনও করোনা পরীক্ষা করেননি। তাদের জরুরি ভিত্তিতে পরীক্ষা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যদি আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যায় তাহলে উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এদিকে, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বাহাদুরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির পাঁচজন শিক্ষার্থীর করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এরপর থেকে ওই দুই শ্রেণির ক্লাস বন্ধ রেখেছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

/এফআর/

সম্পর্কিত

মেয়ের জামাইকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পেটালেন শ্বশুর-শাশুড়ি!

মেয়ের জামাইকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পেটালেন শ্বশুর-শাশুড়ি!

৫ স্কুলছাত্রীর করোনা শনাক্ত, ক্লাস বন্ধ

৫ স্কুলছাত্রীর করোনা শনাক্ত, ক্লাস বন্ধ

‘অক্টোবরে রংপুরে থানা-ওয়ার্ড কমিটি গঠনে আ.লীগের বর্ধিত সভা’

‘অক্টোবরে রংপুরে থানা-ওয়ার্ড কমিটি গঠনে আ.লীগের বর্ধিত সভা’

সব শিক্ষার্থীর ২ বছরের বেতন মওকুফ করলো বিদ্যালয়টি

সব শিক্ষার্থীর ২ বছরের বেতন মওকুফ করলো বিদ্যালয়টি

মেয়ের জামাইকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পেটালেন শ্বশুর-শাশুড়ি!

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৩০

ঠাকুরগাঁওয়ে স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে শ্বশুর বাড়িতে গেলে নাসিরুল ইসলাম নামের এক যুবককে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। শ্বশুর-শাশুড়ি তাকে জনসমক্ষে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করেন। এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

গত ২০ সেপ্টেম্বর (সোমবার) জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার ভাঙবাড়িতে ঘটনাটি ঘটে। শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ ঘটনায় শাশুড়ি সেলিনা রহমানকে আটক করেছে রাণীশংকৈল থানার পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাত ১২টার দিকে শাওন আমিন নামে এক ব্যক্তি নির্যাতনের ভিডিওটি ফেসবুকে পোস্ট করলে ভাইরাল হয়ে যায়। অনেকে নির্যাতনকারীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন।

এলাকাবাসী ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, একই গ্রামের করিমুলের মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে নাসিরুলের। দীর্ঘদিন সম্পর্কে থাকার পর এক পর্যায়ে পরিবারকে না জানিয়ে তারা বিয়ে করে আত্মগোপনে থাকেন। এদিকে, সন্তানকে ফিরে পেতে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে মেয়ের পরিবার। বিয়ে মেনে নেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দেয়। এতে স্ত্রীকে শ্বশুরের পরিবারে দিয়ে আসেন স্বামী নাসিরুল।

পরে ২০ সেপ্টেম্বর বিকেলে স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে তার বাসায় যান। তখনই মেয়ের বাবা-মা তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করতে থাকেন। চিৎকার করে কেঁদে কেঁদে ছেড়ে দেওয়ার আকুতি জানান, ক্ষমা চান বারবার। তবুও তাকে মারধর করতে থাকে মেয়ের পরিবার। শেষে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। বর্তমানে দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

এ বিষয়ে রাণীসংকৈল থানার ওসি জাহিদ ইকবাল বলেন, ‘খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে সেখানে গিয়ে আহতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

এক বিদ্যালয়ের ৩ শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত, দুই দিন বন্ধ

এক বিদ্যালয়ের ৩ শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত, দুই দিন বন্ধ

সিলেটের নদী থেকে ‘ভারতীয় নাগরিকের’ লাশ উদ্ধার

সিলেটের নদী থেকে ‘ভারতীয় নাগরিকের’ লাশ উদ্ধার

বঙ্গোপসাগরে সাড়ে চার লাখ ইয়াবাসহ আটক ৫

বঙ্গোপসাগরে সাড়ে চার লাখ ইয়াবাসহ আটক ৫

যাত্রীবাহী গাড়িতে গুলি: ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

যাত্রীবাহী গাড়িতে গুলি: ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আমরা চাকরি করি না, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে রাজনীতি করি: শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১৪

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ গণমানুষের রাজনীতি করে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেছেন, ‘আমরা চাকরি করি না, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে রাজনীতি করি।’

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে এ কথা বলেন মন্ত্রী। মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল আলমের সভাপতিত্বে সভায় দলটির উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, কার্যনির্বাহী সদস্য মারুফা আক্তার পপি, উপাধ্যক্ষ রেমন্ড আরেং, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক মহিদুর রহমান শান্তসহ স্থানীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

দীপু মনি বলেন, ‘মানব সেবার ব্রত নিয়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে রাজনীতি করে আওয়ামী লীগ। করোনাকালে মাঠে যখন কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি, তখন আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। বাড়ি বাড়ি গিয়ে ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছেন। যারা হাসপাতালে যেতে পারেননি, তাদের হাসপাতালে পৌঁছে দেওয়ার কাজটি করেছেন নেতাকর্মীরা।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘৭৫ পরবর্তী বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে তার আদর্শের নেতাকর্মীদের অত্যাচার, নির্যাতন-নিপীড়ন করা হয়েছে। দলের জন্য যার ত্যাগ আছে, তাকে দলীয় পদ দিতে না পারলেও অন্তত সম্মান দিতে হবে।’

/এফআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

একই ব্যানারে গাজীপুরে আ.লীগের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ

একই ব্যানারে গাজীপুরে আ.লীগের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ

কমিউটার ট্রেনে ডাকাতি, ছুরিকাঘাতে ২ যাত্রী নিহত

কমিউটার ট্রেনে ডাকাতি, ছুরিকাঘাতে ২ যাত্রী নিহত

‘অক্টোবরে রংপুরে থানা-ওয়ার্ড কমিটি গঠনে আ.লীগের বর্ধিত সভা’

‘অক্টোবরে রংপুরে থানা-ওয়ার্ড কমিটি গঠনে আ.লীগের বর্ধিত সভা’

এমপিকে না জানিয়ে সোয়া কোটি টাকার টেন্ডার আহ্বান

এমপিকে না জানিয়ে সোয়া কোটি টাকার টেন্ডার আহ্বান

সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ নিয়ে যা বললেন রেলমন্ত্রী

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৩৫

সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ নিয়ে যা হচ্ছে, এতটা করার কোনও অর্থ নেই বলে মন্তব্য করেছেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। তিনি বলেছেন, ‘একটা হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজ হচ্ছে। সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান। বিদ্যুৎ নিয়েও এ রকম হয়েছে। আমাদের দেশে এক শ্রেণির মানুষ আছে, কোনও কাজই তাদের ভালো লাগে না।’

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

কক্সবাজার রেললাইন নির্মাণ কাজের পরিদর্শন শেষে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে মন্ত্রী চট্টগ্রাম আসেন। নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, ‘যেসব ইস্যু নিয়ে সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণের বিরোধিতা হচ্ছে, সেখানে তথ্যগত কোনও ভুল আছে কি-না সেটি খতিয়ে দেখার দরকার আছে। যে অভিযোগে আন্দোলন হচ্ছে, এটার ভিত্তি কতটুকু সেটি আমাদের যাচাই-বাছাই করতে হবে। এর জন্য সময় দিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘এর আগে, আমরা আনুষ্ঠানিক কোনও অভিযোগ পাইনি। কয়েকদিন আগে আমাদের কাছে একটি অভিযোগ এসেছে। কিন্তু আন্দোলন এর আগেই শুরু হয়ে গেছে। আন্দোলন হচ্ছে, এটা আমার পত্রিকা-টেলিভিশনে দেখতেছি। কিন্তু কী নিয়ে আন্দোলন, এটি নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়নি। আমার বরাবরও কোনও দরখাস্ত করা হয়নি। জিএম, ডিজিএম, সচিব আছেন, তাদের কাছেও করা হয়নি। প্রধানমন্ত্রী আছেন, ওনার কাছেও করা হয়নি। দরখাস্ত করলে কী কারণে আন্দোলন, আমরা বুঝতে পারতাম। দরখাস্ত দেওয়ার পর যদি জোর করে কিছু হয়, তখন না হয় আন্দোলনের প্রশ্ন আসবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমি বলতে চাচ্ছি, শুরুতে আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে আন্দোলনকারীদের কাছ থেকে কোনও অভিযোগ পাইনি। এখন মনে হয়, তারা আনুষ্ঠানিকভাবে তারা একটা দরখাস্ত করেছে। চুক্তি ও প্রকল্প তৈরি হচ্ছে, এটা নিয়ে যাচাই-বাছাই হচ্ছে, এই পর্যায়ে কিন্তু কোনও অভিযোগ আসেনি। ২০১৩/১৪ সালের দিকে এর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, কিন্তু তখন কেউ কোনও আপত্তি তোলেনি। যখন বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছি, তখন এটা নিয়ে আন্দোলন হচ্ছে।’

এটি নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ দুই ভাগে ‘বিভক্ত’ হয়ে পড়েছে- জবাবে তিনি বলেন, ‘আমাদের অভিভাবক হলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উনি সবার ওপরে। প্রধানমন্ত্রী যে সিদ্ধান্ত দেবেন আমাদের তা করতে হবে। আনুষ্ঠানিকভাবে আমরা যে অভিযোগ পেয়েছি, সেটি আগে আমরা খতিয়ে দেখবো। এরপর প্রধানমন্ত্রী আছেন। উনি যা বলবেন তাই হবে। আপনারা জানেন, প্রধানমন্ত্রী জনগণের কল্যাণে কাজ করেন। এখন আপনারা যদি না চান, তাহলে জোর করে তো চাপিয়ে দেওয়ার দরকার নেই।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

গাছের সঙ্গে বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় নিহত ১, আহত ১২

গাছের সঙ্গে বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় নিহত ১, আহত ১২

‘বিদ্যালয়ে এসে করোনা আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়া যায়নি’

‘বিদ্যালয়ে এসে করোনা আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়া যায়নি’

গণমাধ্যম নিয়ে যা বললেন নওফেল

গণমাধ্যম নিয়ে যা বললেন নওফেল

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

এক বিদ্যালয়ের ৩ শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত, দুই দিন বন্ধ

এক বিদ্যালয়ের ৩ শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত, দুই দিন বন্ধ

সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ নিয়ে যা বললেন রেলমন্ত্রী

সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ নিয়ে যা বললেন রেলমন্ত্রী

গাছের সঙ্গে বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় নিহত ১, আহত ১২

গাছের সঙ্গে বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় নিহত ১, আহত ১২

‘বিদ্যালয়ে এসে করোনা আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়া যায়নি’

‘বিদ্যালয়ে এসে করোনা আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়া যায়নি’

৫ স্কুলছাত্রীর করোনা শনাক্ত, ক্লাস বন্ধ

৫ স্কুলছাত্রীর করোনা শনাক্ত, ক্লাস বন্ধ

গণমাধ্যম নিয়ে যা বললেন নওফেল

গণমাধ্যম নিয়ে যা বললেন নওফেল

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

উপজেলা চেয়ারম্যানকে বরখাস্তের আদেশ অবৈধ ঘোষণা

উপজেলা চেয়ারম্যানকে বরখাস্তের আদেশ অবৈধ ঘোষণা

সব শিক্ষার্থীর ২ বছরের বেতন মওকুফ করলো বিদ্যালয়টি

সব শিক্ষার্থীর ২ বছরের বেতন মওকুফ করলো বিদ্যালয়টি

সর্বশেষ

‘বাংলায় স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং শিশুদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ’

‘বাংলায় স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং শিশুদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ’

ছাত্রীদের অনলাইন ক্লাসে ঢুকে ‘নাগিন ড্যান্স’

ছাত্রীদের অনলাইন ক্লাসে ঢুকে ‘নাগিন ড্যান্স’

বৈঠকেই ‘কাউন্সিল’ সেরে নিয়েছে বিএনপি!

বৈঠকেই ‘কাউন্সিল’ সেরে নিয়েছে বিএনপি!

শর্ত মানলে শান্তি আলোচনায় রাজি উত্তর কোরিয়া: কিমের বোন

শর্ত মানলে শান্তি আলোচনায় রাজি উত্তর কোরিয়া: কিমের বোন

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে বিএনপিকে নেতৃত্ব দিতে হবে: সেলিম

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে বিএনপিকে নেতৃত্ব দিতে হবে: সেলিম

© 2021 Bangla Tribune