X
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

২২ বছরে প্রাপ্তি অনেক, লক্ষ্য এখন র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি

আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৩০

২২ বছর পেরিয়ে শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) ২৩ এ পা রাখলো দেশের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি)। দক্ষ গ্র্যাজুয়েট তৈরির লক্ষ্যে এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতে অপার সম্ভাবনা অর্জনে এগিয়ে চলছে এই উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘ পথচলায় প্রাপ্তির খাতায় যেমন যুক্ত হয়েছে নানা অর্জন, তেমনি ছোট নয় অপ্রাপ্তির পাতাও। ২৩তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে নানা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

তেভাগা আন্দোলনের জনক দিনাজপুর অঞ্চলের কৃষকনেতা হাজী মোহাম্মদ দানেশের নাম অনুসারে এই বিদ্যাপীঠের নামকরণ করা হয়। ইতোমধ্যে উত্তর অঞ্চলের অন্যতম সেরা বিদ্যাপীঠ হিসেবে পরিচিত পেয়েছে। মাত্র একটি অনুষদ ও স্বল্প সুযোগ-সুবিধা নিয়ে যাত্রা শুরু করা বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে ২৩টি ডিগ্রি দেওয়া হয়। এ ছাড়া নয় অনুষদের অধীনে ৪৫টি বিভাগ পরিচালিত হচ্ছে।

সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে হাবিপ্রবিতে প্রথম ক্যারিয়ার অ্যাডভাইজারি সার্ভিস (ক্যাডস) সেন্টারের যাত্রা শুরু হয়। এটি উদ্বোধন হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য দেশে-বিদেশে বিনামূল্যে চাকরির খবরাখবরের পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের স্কলারশিপের তথ্য পাওয়া সহজ হয়।

এ ছাড়া দেশের প্রথম মোবাইল ভেটেরিনারি ক্লিনিক সেবা ও কৃষক সেবা কেন্দ্র চালু করেছে হাবিপ্রবি। ফলে একদিকে যেমন দিনাজপুর জেলার মানুষের গবাদি পশুর উন্নত চিকিৎসাসেবা প্রদান করা সম্ভব হচ্ছে ঠিক তেমনি কৃষকদের বিভিন্ন ফসল উৎপাদন সম্পর্কে তথ্য ও পরামর্শ দেওয়া সহজ হয়েছে। 

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ভবন

বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় ১২ হাজার শিক্ষার্থীকে পাঠদানের জন্য রয়েছেন ৩১৪ জন শিক্ষক। ২০০ জন বিদেশি শিক্ষার্থী রয়েছেন। শিক্ষক-শিক্ষার্থীর পাশাপাশি প্রশাসনিক কার্যক্রম গতিশীল করতে কাজ করছেন প্রায় দুই শতাধিক কর্মকর্তা এবং শতাধিক কর্মচারী। 

গবেষণা ও প্রশিক্ষণের সমন্বয় ও সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য রয়েছে ইনস্টিটিউট অব রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিং (আইআরটি) সেন্টার। গবেষণালব্ধ থিসিস, রিপোর্ট, জার্নালের পাশাপাশি রয়েছে ১০ হাজারের বেশি বইয়ের সমৃদ্ধ লাইব্রেরি। ক্যাম্পাসে রয়েছে কয়েকশ প্রজাতির ফলজ, বনজ ও ঔষধিসহ বিভিন্ন গাছ। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষার্থীর পেছনে সরকারের বার্ষিক ব্যয় প্রায় ৬৫ হাজার হাজার টাকা।

সম্প্রতি ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মারুফ হাসানের কালোজামের জুস ও অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন সরকারের নেতৃত্বে তৈরি টু স্টেজ গ্রেইন ড্রায়ার মেশিন দেশব্যাপী প্রশংসা কুড়িয়েছে।

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ শুভানুধ্যায়ীদের বিশ্ববিদ্যালয় দিবসে শুভেচ্ছা জানিয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম কামরুজ্জামান বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পরই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতে দক্ষ ও মানবসম্পদ তৈরির গুরুত্ব অনুধাবন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সেই দর্শনকে সামনে রেখে ঐতিহাসিক তেভাগা আন্দোলনের অন্যতম ব্যক্তিত্ব হাজী মোহাম্মদ দানেশের নাম অনুসারে ১৯৯৯ সালের ১১ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাবিপ্রবির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির লক্ষ্য অর্জনে একজন প্রকল্প পরিচালক এবং সাবেক ছয় জন ভাইস চ্যান্সেলরের নেতৃত্বে হাবিপ্রবি আজ দেশের অন্যতম বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হয়েছে। ইতোমধ্যে ছয়টি ফসলের জাত উদ্ভাবনসহ প্রকৌশল ক্ষেত্রে একটি ড্রায়ার এবং বিভিন্ন ধরনের কৃষি খামার যন্ত্র উদ্ভাবিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে আমার লক্ষ্য এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা এবং গবেষণা খাতকে এগিয়ে নেওয়া। 

উপাচার্য আরও বলেন, আমি আশা করি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা খাতকে সম্প্রসারণের মাধ্যমে মাঠ গবেষণার সুযোগ সৃষ্টি হবে। সেই সঙ্গে সেন্ট্রাল ল্যাব কনসেপ্ট ধারণ করে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের যে গবেষণা কার্যক্রম রয়েছে সেটিকেও ত্বরান্বিত করবো। পাশাপাশি ২০২৩ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের রজতজয়ন্তী পালনে আমরা বেশ কিছু পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। পরিকল্পনার অংশ হিসেবে কনভোকেশন আয়োজন, বিশ্ববিদ্যালয়কে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে উন্নীত ও র‍্যাঙ্কিংয়ে একটি মর্যাদাপূর্ণ স্থানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে আমাদের অন্যতম লক্ষ্য।

/এএম/

শুক্রবার খুলছে বাকৃবির ছাত্রাবাস

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৫৩

করোনাভাইরাসের প্রথম ডোজ টিকা গ্রহণ সাপেক্ষে প্রায় দেড় বছর পর শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) খুলে দেওয়া হচ্ছে ময়মনসিংহের বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) ছাত্রবাসগুলো। তবে শুধু অনার্স শেষ বর্ষ ও মাস্টার্স ফাইনালের শিক্ষার্থীরা ছাত্রাবাসে উঠতে পারবেন।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় ছাত্রাবাস খুলে দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বাকৃবির ভিসি প্রফেসর ড. লুৎফুল হাসান জানান, ইতোমধ্যে অনার্স শেষ বর্ষ ও মাস্টার্স ফাইনালের শিক্ষার্থীরা করোনাভাইরাসের প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন। এ কারণে প্রথম ডোজ টিকা নেওয়া শিক্ষার্থীদের আগামী শুক্রবার ছাত্রাবাসে ওঠার জন্য সিন্ডিকেট সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে অনার্স শেষ বর্ষ ও মাস্টার্স ফাইনাল শিক্ষার্থীদের ক্লাস পরীক্ষা শুরু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বাকৃবির মেয়েদের নয়টি এবং ছেলেদের চারটি ছাত্রাবাস ও ক্লাসরুম পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ শেষ করা হয়েছে।

 

/এমএএ/

টিকা সনদ দেখিয়ে হলে উঠতে হবে শেকৃবির শিক্ষার্থীদের 

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫৫

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) আবাসিক হল ১ অক্টোবর থেকে খুলে দেওয়া হবে। ওইদিন থেকে সশরীরে শিক্ষা কার্যক্রমও শুরু হবে। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে জানান নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়া ।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটের অনুমোদন সাপেক্ষে আবাসিক হল খোলার পরিকল্পনা রয়েছে। যাদের ছাত্রত্ব রয়েছে তারাই কেবল স্বাস্থ্যবিধি মেনে হলে থাকার সুযোগ পাবেন। কিন্তু যাদের ছাত্রত্ব শেষ হয়েছে তারা হলে থাকতে পারবেন না। হলে উঠার সময় শিক্ষার্থীদের টিকা সনদ বা টিকা কার্ডের ফটোকপি এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রদত্ত পরিচয়পত্র দেখাতে হবে।

উপাচার্য আরও বলেন, শিক্ষা কার্যক্রম গতিশীল রাখার জন্য এতদিন অনলাইনে পরীক্ষা চালু রাখলেও আবাসিক হল খুলে দেওয়ার কারণে ১ অক্টোবর থেকে নতুন রুটিনে সশরীরে পরীক্ষা দিতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ ড. নজরুল ইসলাম, প্রক্টর ড. হারুন-অর রশিদ, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা পরিচালক ড. ফরহাদ হোসেন, বিভিন্ন অনুষদের ডিন এবং প্রভোস্টরা উপস্থিত ছিলেন। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

পূজায় বন্ধ থাকবে জবির পরীক্ষা 

পূজায় বন্ধ থাকবে জবির পরীক্ষা 

জবি’তে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার নীতিমালা অনুমোদন

জবি’তে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার নীতিমালা অনুমোদন

জাবিতে প্রথমবারের মতো অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

জাবিতে প্রথমবারের মতো অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

‘১৫ আগস্টের ঘটনা ছিল একটি প্রতিবিপ্লব’

‘১৫ আগস্টের ঘটনা ছিল একটি প্রতিবিপ্লব’

রাবির ভর্তি পরীক্ষা শুরু ৪ অক্টোবর

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:১৯

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৪ অক্টোবর শুরু হবে। চলবে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত। বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী ৪ অক্টোবর ‘সি’ ইউনিটের (বিজ্ঞান) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ‘সি’ ইউনিটের পরীক্ষা তিন শিফটে অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম শিফটে পরীক্ষা সকাল সাড়ে ৯টায় শুরু হয়ে শেষ হবে সাড়ে ১০টায়। দ্বিতীয় শিফটের পরীক্ষা দুপুর ১২টায় শুরু হয়ে চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত। তৃতীয় শিফটের পরীক্ষা দুপুর ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত চলবে। তিন শিফটে পর্যায়ক্রমে গ্রুপ-১, গ্রুপ-২ ও গ্রুপ-৩ এর শিক্ষার্থীরা অংশ নেবেন।

আগামী ৫ অক্টোবর ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষাও তিনটি শিফটে অনুষ্ঠিত হবে। বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য সব বিভাগের শিক্ষার্থীরা এ ইউনিটে পরীক্ষা দিতে পারবেন। এ ছাড়া আগামী ৬ অক্টোবর ‘বি’ ইউনিটের (বাণিজ্য) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ পরীক্ষাও অনুষ্ঠিত হবে তিনটি শিফটে। 

পরীক্ষা পদ্ধতি ও মান বণ্টন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এবারের ভর্তি পরীক্ষা শুধু বহুনির্বাচনী পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে। ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় মোট ৮০টি বহুনির্বাচনী প্রশ্ন থাকবে, সময় এক ঘণ্টা। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১ দশমিক ২৫। প্রতিটি ভুল উত্তরের দশমিক ২০ করে নম্বর কাটা হবে। পরীক্ষায় ন্যূনতম পাস নম্বর ৪০।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

রাবিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু ৪ অক্টোবর

রাবিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু ৪ অক্টোবর

রাবির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

রাবির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

চবিতে আবেদনের রেকর্ড, এক আসনের বিপরীতে ৪০ শিক্ষার্থী

চবিতে আবেদনের রেকর্ড, এক আসনের বিপরীতে ৪০ শিক্ষার্থী

পূজায় বন্ধ থাকবে জবির পরীক্ষা 

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২০

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দুর্গাপূজার সময় সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) কর্তৃপক্ষ। আগামী ১১-১৬ অক্টোবর পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের অনুষ্ঠিতব্য পরীক্ষা বন্ধ থাকবে। তবে ঘোষণা অনুযায়ী ৭ অক্টোবর থেকেই পরীক্ষা শুরু হতে পারে বলে জানা গেছে।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ দফতরের ফেসবুক পাতায় প্রকাশিত রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী ওহিদুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের রুটিন দায়িত্বে থাকা ট্রেজারার কামালউদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ডিনদের সভায় ১১-১৬ অক্টোবর পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনও পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এছাড়া সভায় ৭ অক্টোবরের আগে কোনও পরীক্ষা হবে না বলেও সিদ্ধান্ত হয়। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের ডিন রবীন্দ্রনাথ মন্ডল বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, 'আমাদের পূজার ছুটি ১৩-১৫ তারিখ ছিল। কিন্তু ১১ তারিখ থেকেই পূজা শুরু হচ্ছে। বিভিন্ন মাধ্যমে আমাদের কাছে এ বিষয়ে অনুরোধ আসছিল। যেহেতু এটা সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব তাই, শিক্ষার্থীদের কথা মাথায় রেখে আমরা বৈঠকে বসেছিলাম। বৈঠকে ১১-১৬ তারিখ বিভাগগুলো তাদের পরীক্ষা বন্ধ রাখবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।'

প্রসঙ্গত, আগামী ৭ অক্টোবর থেকে জবিতে সশরীরে সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। সে অনুযায়ী পরীক্ষার রুটিনও প্রকাশ করেছে বিভাগগুলো।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

টিকা সনদ দেখিয়ে হলে উঠতে হবে শেকৃবির শিক্ষার্থীদের 

টিকা সনদ দেখিয়ে হলে উঠতে হবে শেকৃবির শিক্ষার্থীদের 

জবির প্রক্টরিয়াল টিমে নতুন তিন মুখ

জবির প্রক্টরিয়াল টিমে নতুন তিন মুখ

জ্বরে আক্রান্ত জবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

জ্বরে আক্রান্ত জবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

জবিতে ৭ অক্টোবর থেকে সশরীরে পরীক্ষা 

জবিতে ৭ অক্টোবর থেকে সশরীরে পরীক্ষা 

কুবির ৪০ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশে ১৪ ভুল

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫৩

সেশনজট নিরসন ও পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে ‘সরাসরি উপাচার্যের কাছে যাওয়া’, ‘আন্দোলন’ ও ফেসবুকে লেখালেখি করাসহ নানা অভিযোগে ৪০ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দিয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ। নোটিশে বেশ কয়েকটি বানান ভুল নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। অনলাইন-অফলাইনের এ আলোচনায় বলা হচ্ছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বিভাগীয় প্রধানের স্বাক্ষরিত নোটিশে বানান ভুল লজ্জাজনক।

বিভাগের দাফতরিক প্যাডে দেওয়া ও বিভাগীয় প্রধান মুহাম্মদ সোহরাব উদ্দীন স্বাক্ষরিত নোটিশে দেখা যায়, এতে অন্তত ১৪টি বানান ভুল লেখা হয়েছে। শুরুতে তারিখের ঘরে ২০২১ এর স্থলে লেখা হয়েছে '২০২-১'। নোটিশের দ্বিতীয় লাইনে অন্তত চারটি বানান ভুল দেখা গেছে। এর মধ্যে আছে, 'প্লাটফর্ম' শব্দটি। যার প্রচলিত সঠিক বানান 'প্ল্যাটফর্ম'। এছাড়া লেখা হয়েছে 'সোসাল' যার প্রচলিত বানান সোশ্যাল। আবার ফেসবুকে লিখতে গিয়ে লেখা হয়েছে 'ফেইজবুক' এবং ধরনের লিখতে গিয়ে ‘ধরণের’ লেখা হয়েছে।

অন্যদিকে, তৃতীয় লাইনের শুরুতেই কটূক্তি বানানটিকে লেখা হয়েছে 'কটুক্তি'। একই লাইনে এমনকি এর জায়গায় লেখা হয়েছে 'এমন কি', এছাড়া অভ্যন্তরীণ শব্দটিকে লেখা হয়েছে ‘আভ্যন্তরীণ’।

পরে চতুর্থ লাইনে স্ক্রিনশট শব্দটির বানান লেখা হয়েছে 'স্কিনশট'। তবে পঞ্চম লাইন থেকে শুরু করে সপ্তম লাইন পর্যন্ত আর বানান ভুল চোখে না পড়লেও অষ্টম লাইনে শরণাপন্ন বানানটিকে লেখা হয়েছে 'স্মরণাপন্ন'। এর পরের লাইনে আবার ধরনের স্থলে ‘ধরণের’ এবং লঙ্ঘনের বদলে 'লঙ্ঘণ' লেখা হয়েছে।

নোটিশের শেষ অংশের শুরুর লাইনে পাশাপাশি দুটি বানান ভুল লেখা হয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত বানান লেখা হয়েছে 'অনাকাঙ্খিত', পরের বানানেই কর্মকাণ্ডের জায়গায় লেখা হয়েছে 'কর্মকান্ডের'।

নোটিশে এমন ভুল বানানের ছড়াছড়ি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে চলছে সমালোচনা, হাস্যরস। এন. সজীব নামে এক শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ফেসবুক গ্রুপে লিখেছেন, 'শিক্ষক হয়ে এমন ভুল কীভাবে করেন তারা? তাদেরই বরং কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া উচিত।'

ভুল বানানে লেখা নোটিশের সমালোচনা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষার্থী নাজমুল হাসান বলেন, ঢালাওভাবে নোটিশ প্রদান করে ওনারা নিঃসন্দেহে ক্ষমতা ও স্বেচ্ছাচারিতা প্রকাশ করেছেন। আর নোটিশে এ ধরনের ভুলগুলোই যথেষ্ট প্রমাণ করে শিক্ষক হিসেবে ওনারা শিক্ষার্থীদের বিষয়ে কতটা যত্নশীল এবং গুরুত্ব দেন।

উল্লেখ্য, গত ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬-১৭ সেশন এবং ওই বিভাগের চতুর্থ ব্যাচের ৪০ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর ওই নোটিশ দেওয়া হয়। ওই ব্যাচের শিক্ষার্থীরা ২০১৭ সালে ভর্তি হওয়ার পর থেকে প্রায় পাঁচ বছরে মাত্র চার সেমিস্টার শেষ করে পঞ্চম সেমিস্টারের পরীক্ষায় বসেছে। সেশনজট নিরসনের দাবি জানিয়ে ফেসবুকে লেখালেখি, আন্দোলন ও সরাসরি উপাচার্যের কাছে যাওয়ায় তাদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

৪ বছরে চতুর্থ সেমিস্টার, কুবি ছাত্রের আত্মহত্যার হুমকি

৪ বছরে চতুর্থ সেমিস্টার, কুবি ছাত্রের আত্মহত্যার হুমকি

গণমাধ্যমে দেওয়া বক্তব্য ‘অসম্পূর্ণ ও অর্ধসত্য’ দাবি কুবি প্রশাসনের

গণমাধ্যমে দেওয়া বক্তব্য ‘অসম্পূর্ণ ও অর্ধসত্য’ দাবি কুবি প্রশাসনের

কুবির সেই ২ শিক্ষকের বিরুদ্ধে নেওয়া সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি

কুবির সেই ২ শিক্ষকের বিরুদ্ধে নেওয়া সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি

‘বন্ধ’ হলেও দিব্যি আছেন তারা

‘বন্ধ’ হলেও দিব্যি আছেন তারা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

সর্বশেষ

ইন্টারনেটের ব্যবহার বৃদ্ধির সঙ্গে ডিজিটাল অপরাধও বেড়েছে: টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

ইন্টারনেটের ব্যবহার বৃদ্ধির সঙ্গে ডিজিটাল অপরাধও বেড়েছে: টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

কক্সবাজারের সাথে রেল যোগাযোগ চালু হবে ২০২২ সালে: রেলমন্ত্রী

কক্সবাজারের সাথে রেল যোগাযোগ চালু হবে ২০২২ সালে: রেলমন্ত্রী

রোনালদোবিহীন ম্যান ইউর বিপক্ষে ‘প্রতিশোধ’ নিলো ওয়েস্ট হাম

রোনালদোবিহীন ম্যান ইউর বিপক্ষে ‘প্রতিশোধ’ নিলো ওয়েস্ট হাম

পিএসজিকে শেষ মুহূর্তে জেতালেন হাকিমি

পিএসজিকে শেষ মুহূর্তে জেতালেন হাকিমি

করোনার টিকাকে ‘বৈশ্বিক জনস্বার্থ সামগ্রী’ ঘোষণার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

করোনার টিকাকে ‘বৈশ্বিক জনস্বার্থ সামগ্রী’ ঘোষণার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

© 2021 Bangla Tribune