X
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে রাশিয়ার সহযোগিতা চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট : ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:২৬

মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে নিজ দেশে প্রত্যাবাসনের জন্য রাশিয়ার সহযোগিতা চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

ঢাকায় নিযুক্ত রাশিয়ার নতুন রাষ্ট্রদূত আলেক্সান্ডার ভিকেনতেভিচ মান্তিতস্কি রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। তখন এ সহযোগিতা চান এ কে আব্দুল মোমেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রাশিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের বিশেষ সম্পর্কের বিষয়টি উল্লেখ করে ড. মোমেন বলেন, ‘১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে এবং যুদ্ধপরবর্তী দেশ গঠনে রাশিয়ার অবদান বাংলাদেশ কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করে।’

স্বাধীনতার পরপরই তৎকালীন সোভিয়েত রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের আমন্ত্রণে ১৯৭২ সালের মার্চ মাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রাশিয়া সফর করেন। একইসঙ্গে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে সাহায্যের জন্য রাশিয়ার সরকার এবং সে দেশের জনগণের কাছে কৃতজ্ঞতা জানান বঙ্গবন্ধু।

এ সময় বাংলাদেশ-রাশিয়ার কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছরপূর্তি উদযাপনে রাশিয়ার আগ্রহের কথা দেশটির নবাগত রাষ্ট্রদূত পুনর্ব্যক্ত করলে উভয় দেশই অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে পারে বলে মত প্রকাশ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

২০২৩ সালে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর উপস্থিত থাকার আশা ব্যক্ত করেন ড. মোমেন।

/এসএসজেড/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

এক-তৃতীয়াংশ ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়

এক-তৃতীয়াংশ ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়

কুয়েত ও সুইডেনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে শেখ হাসিনার বৈঠক

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩০

দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়নে কুয়েতের প্রধানমন্ত্রী শেখ সাবাহ থালেদ আল-হামাদ আল-সাবাহ ও সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন লোফভেনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) জাতিসংঘ সদর দফতরে এসব বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। 

বন্ধু রাষ্ট্র কুয়েতে প্রচুর বাংলাদেশি কাজ করে। এ ছাড়া দেশটির সঙ্গে নিরাপত্তা সহযোগিতাও রয়েছে বাংলাদেশের। এদিকে বাংলাদেশের উন্নয়নে সুইডেনও বিশেষ অবদান রেখে থাকে।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে গত ১৭ সেপ্টেম্বর ঢাকা ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী। আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর সাধারণ অধিবেশনে বাংলায় বক্তব্য রাখবেন শেখ হাসিনা।

/এসএসজেড/এনএইচ/

সম্পর্কিত

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

লিঙ্গ সমতার জন্য নারী নেতৃবৃন্দের নেটওয়ার্ক গঠনের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

লিঙ্গ সমতার জন্য নারী নেতৃবৃন্দের নেটওয়ার্ক গঠনের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:০০

(বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধুর সরকারি কর্মকাণ্ড তার শাসনামল নিয়ে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করছে বাংলা ট্রিবিউন। আজ পড়ুন ১৯৭৩ সালের ২২ সেপ্টেম্বরের ঘটনা।)

 

জাতিসংঘে বাংলাদেশ আসন পাবে কিনা তা জাতিসংঘের ব্যাপার, পিন্ডির নয়। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. কামাল হোসেন ১৯৭৩ সালের এদিন বলেন, বাংলাদেশের অন্তর্ভুক্তি ছাড়া জাতিসংঘ অসম্পূর্ণ থেকে যাবে। জাতিসংঘ তার সনদের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। পরাষ্ট্রমন্ত্রী পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন সাংবাদিক সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী জুলফিকার আলী ভুট্টো জাতিসংঘে তার ভাষণে দিল্লিচুক্তির প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানানো সত্ত্বেও ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীর বিচারের প্রশ্ন এবং বাংলাদেশের জাতিসংঘের অন্তর্ভুক্তির বিষয়কে এক করে ফেলেছেন। এটা দুঃখজনক।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভুট্টো তার এই অবস্থান ব্যক্ত করে উপমহাদেশে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং অন্তর্ভুক্তি ও গঠনমূলক মনোভাবের পরিচয় দেননি। তিনি মনে করেন, বাংলাদেশ জাতিসংঘে আসন পাবে কি পাবে না এটা একান্তই জাতিসংঘের নিজস্ব ব্যাপার। এর সঙ্গে পাকিস্তানের ইচ্ছা-অনিচ্ছার সম্পর্ক নেই।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের চেষ্টা করছে।

 

কেন সমস্যা মেটাতে আগ্রহী বাংলাদেশ?

বাংলাদেশে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ গড়ে তোলার জন্য পাকিস্তানের সঙ্গে সব সমস্যা মিটিয়ে ফেলতে চায় এবং অবস্থা স্বাভাবিকীকরণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ বিশ্বের ১০৭টি দেশের স্বীকৃতি পেয়েছে এবং বেশকিছু আন্তর্জাতিক সংস্থার সদস্যপদ পেয়েছে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্য দিল্লিচুক্তিকে অস্বীকার করা কিনা এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তা তো বটেই। কারণ দিল্লি চুক্তি বাস্তবায়নের কাজ শুরু হবার পথে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সৃষ্টির যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল, এই ধরনের বক্তব্যে তা ব্যাহত হতে পারে।

দিল্লিচুক্তি অনুযায়ী পাকিস্তান থেকে বাঙালিদের দেশে ফিরে আসা ও বাংলাদেশ থেকে পাকিস্তানিদের ফিরে যাওয়া এবং ভারত ও পাকিস্তানের যুদ্ধবন্দিদের ফিরে যাওয়ার কাজ শুরু হওয়াতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সন্তোষ প্রকাশ করেন। এই চুক্তিকে সমগ্র বিশ্ব স্বাগত জানিয়েছে এবং আমাদের মতোই সবগুলো দেশ তাড়াতাড়ি এর বাস্তবায়ন কামনা করে বলেও জানান তিনি।

দৈনিক বাংলা, ২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৭৩

দিল্লিচুক্তি মোতাবেক ফয়সালা হবে

ড. কামাল হোসেন বলেন ১৯৫ যুদ্ধবন্দি প্রশ্নটির ফয়সালা দিল্লিচুক্তি মোতাবেক হবে। চুক্তিতে এই সমস্যার সমাধান কাঠামো নির্ধারণ করা হয়েছে। কামাল হোসেন বলেন, দিল্লিচুক্তির বাইরে ১৯৫ যুদ্ধাপরাধী ফেরানোর প্রশ্ন তুলে কোনও ফলপ্রসূ উদ্দেশ্য সাধিত হবে না। বরং পরিণাম বিপরীত হতে পারে। তিনি বলেন, পাকিস্তানের সঙ্গে সকল অমীমাংসিত সমস্যা সমাধানের জন্য বাংলাদেশে অব্যাহতভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছে।

 

বঙ্গবন্ধুকে ভাসানীর বার্তা

বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি প্রধান মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী টাঙ্গাইলের সন্তোষ থেকে এক তারবার্তায় বলেন, সারা বাংলাদেশে চাল-আটার মূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে। অসংখ্য লোক অনাহারে-অর্ধাহারে দিনযাপন করছে। দিনমজুররা কোথাও মজুরি পাচ্ছে না। এই পরিস্থিতির পরিবর্তনে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

দ্য অবজারভার, ২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৭৩

আরও ২৫৭ আটক বাঙালি ফিরেছেন

এই দিন আফগান এয়ারলাইন্সের এক বোয়িংয়ে আরও ২৫৭ জন বাঙালিকে ঢাকার বিমানবন্দরে নিয়ে আসা হয়। আরও কিছু সংখ্যক পাকিস্তানিকে একই দিনে লাহোরে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়। প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, পাকিস্তান থেকে ফিরে আসা প্রথম ফ্লাইটের যাত্রী ছিলেন ১২৫ জন। তাদের সকলে সামরিক বাহিনীর জুনিয়র কমান্ডিং অফিসার জোয়ান ও তাদের পরিবারের সদস্য। পরে মোহাম্মদ হোসেন, চৌধুরী নেওয়াজ খান, মো. শাহজাহান আলী, ফজলুর রহমানসহ বেশ কিছু উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মচারী ও তাদের পরিবারবর্গের সর্বমোট ১৩২ জন যাত্রী দ্বিতীয় ফ্লাইটে ফিরে আসেন।

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

এক-তৃতীয়াংশ ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়

এক-তৃতীয়াংশ ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়

করোনায় আরও ২৬ মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৬২

করোনায় আরও ২৬ মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৬২

লিঙ্গ সমতার জন্য নারী নেতৃবৃন্দের নেটওয়ার্ক গঠনের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৪৬

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লিঙ্গ সমতা নিশ্চিত করতে নারী নেতৃবৃন্দের একটি নেটওয়ার্ক গঠনের ওপর বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করে বলেছেন, এটি লিঙ্গ সমতা নিশ্চিত করতে চালিকা শক্তি হিসেবে কাজ করবে।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সভাপতির আহ্বানে নারী নেতাদের নিয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বক্তব্য রাখেন। বৈঠকে তিনি বিশ্বনেতাদের সামনে তিনটি প্রস্তাবও রাখেন, লিঙ্গ সমতা নিশ্চিত করতে যেগুলো সঠিকভাবে সমাধান করা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, ‘এটি নারী ক্ষমতায়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে। আমি দৃঢ়ভাবে অনুভব করি যে, আমরা নারী নেতাদের একটি নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠা করতে পারি, যা আমাদের শুধু একক বৈঠকের জন্য একত্রিত করবে না, বরং লিঙ্গ সমতা অর্জনে বাস্তব পদক্ষেপ নিশ্চিত করতে একটি শক্তি হিসেবে কাজ করবে।

প্রধানমন্ত্রী তার প্রথম প্রস্তাবে বলেন, ‘আমি লিঙ্গ সমতার বিষয়ে উপদেষ্টা বোর্ড প্রতিষ্ঠার জন্য আপনাদের প্রশংসা করি। এখন এটিকে স্থানীয়করণ করা দরকার। আমাদের প্রত্যেক পর্যায়ে, বিশেষ করে তৃণমূল পর্যায়ে লিঙ্গ চ্যাম্পিয়ন প্রয়োজন এবং আমরা দৃষ্টান্ত স্থাপনের মাধ্যমে নেতৃত্ব দিতে পারি'।

দ্বিতীয়ত তিনি বলেন, নারী নেতৃত্বাধীন সংগঠনগুলোকে পর্যাপ্ত রাজনৈতিক ও আর্থিকভাবে সাহায্য ও সহযোগিতা করা প্রয়োজন। এ ধরনের প্রচেষ্টায় সহায়তার ক্ষেত্রে জাতিসংঘের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তৃতীয় ও শেষ প্রস্তাবে তিনি বলেন, ‘আমি লিঙ্গ সমতার জন্য আমাদের সাধারণ কর্মসূচিকে জোরদার করতে নেতৃবৃন্দের একটি সম্মেলন ডাকার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। শুধু আমরা নয়, সকল নেতার এতে যোগদান করা উচিত এবং লিঙ্গ সমতার অগ্রগতির জন্য দৃঢ় প্রতিশ্রুতি উপস্থাপন করা উচিত।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, কোভিড-১৯-এর প্রভাব বিশেষত নারীদের জন্য কঠিন। তিনি বলেন, ‘অবৈতনিক যত্ন নেওয়ার কাজ বেড়েছে। লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতা বেড়েছে। ইউনিসেফ এ দশকের শেষের আগে আরও দশ মিলিয়ন বাল্যবিবাহের আশংকা করছে।’

বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়নের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ বিশ্বে ৭ম অবস্থানে আছে। বর্ধিত সংখ্যক নারী কর্মীবাহিনীতে যোগ দিচ্ছে।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের প্রায় ৭০ শতাংশ নারী এবং তারা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামনের সারিতে রয়েছে। তৈরি পোশাককর্মীদের ৮০ শতাংশের বেশি নারী। অনানুষ্ঠানিক অর্থনীতিতে নারীরা সংখ্যাগরিষ্ঠ। তাদের অনেকে চাকরি ও আয় হারিয়েছে। নারীসহ ২০ লাখ প্রবাসী শ্রমিক দেশে ফিরে এসেছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশ কষ্টার্জিত অগ্রগতির চাকা পেছনে ঘোরার ঝুঁকিতে রয়েছে। খবর: বাসস

/এলকে/

সম্পর্কিত

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

করোনা মোকাবিলা করে এসডিজি অর্জনে বৈশ্বিক রোডম্যাপের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

করোনা মোকাবিলা করে এসডিজি অর্জনে বৈশ্বিক রোডম্যাপের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:০৮

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ভবিষ্যতে ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে ফ্লাইট পুনরায় শুরু করবে বলে আশা প্রকাশ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন।
জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশন এবং অন্যান্য উচ্চপর্যায়ের সাইডলাইন ইভেন্টে প্রধানমন্ত্রীর সামগ্রিক কর্মকাণ্ড সম্পর্কে লোট নিউ ইয়র্ক প্যালেসে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ের সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন। খবর বাসসের।
তিনি বলেন, ‘সুখবর হচ্ছে, তারা বিমানকে (রবিবার নিউ ইয়র্কের জন এফ কেনেডি এয়ারপোর্টে প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমানের ফ্লাইট) অবতরণের অনুমতি দিয়েছে। সুতরাং আমি আশা করি বিমান ভবিষ্যতে ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে তার কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে।’
তিনি আরও বলেন, এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেশন এভিয়েশন অথরিটির সঙ্গে বাংলাদেশের একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

তিনি বলেন, ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে বিমান চলাচল বেশ কয়েক বছর ধরে স্থগিত রয়েছে। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর থেকে বিমানের বহরে অনেকগুলো আধুনিক মডেলের উন্নত বিমান যুক্ত করা হয়েছে। 
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিমানের এই রুট চালু হলে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসী বাংলাদেশিরা খুব খুশি হবেন।’

/এফএ/

সম্পর্কিত

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

এক-তৃতীয়াংশ ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়

এক-তৃতীয়াংশ ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়

করোনায় আরও ২৬ মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৬২

করোনায় আরও ২৬ মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৬২

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৪৬

দারিদ্র্য দূরীকরণ, পৃথিবীর সুরক্ষা এবং সবার জন্য শান্তি ও সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে পদক্ষেপ গ্রহণের সর্বজনীন আহ্বানে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশের সঠিক পথে অগ্রসরের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার’ দিয়েছে জাতিসংঘের সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট সল্যুশনস নেটওয়ার্ক (এসডিএসএন)। খবর বাসসের।
স্থানীয় সময় সোমবার নিউ ইয়র্কে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এ পুরস্কার গ্রহণ করে বলেন, তিনি বাংলাদেশের জনগণকে এটি উৎসর্গ করছেন।’
মোমেন সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যের (এসডিজি) বিভিন্ন ক্ষেত্রে সফলতা অর্জনের পর টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে (এসডিজি) দ্রুত এগিয়ে চলার ক্ষেত্রে এ পুরস্কার পাওয়াকে দেশের সফলতার গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি হিসেবে অভিহিত করেন।
বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও উন্নয়ন কৌশলবিদ অধ্যাপক জেফ্রি ডি. সচ’র নেতৃত্বে জাতিসংঘ মহাসচিবের পৃষ্ঠপোষকতায় ২০১২ সালে এসডিএসএন প্রতিষ্ঠা করা হয়।
টেকসই উন্নয়নের জন্য বাস্তবভিত্তিক সমাধান জোরদারে বিশ্বের বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তিগত বিশেষজ্ঞদের কাজে লাগানোই এ প্ল্যাটফর্মের লক্ষ্য।
অনুষ্ঠানের সঞ্চালক জেফ্রি সচ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘জুয়েল ইন দি ক্রাউন অব দি ডে’ হিসেবে তুলে ধরেন এবং বিশ্বব্যাপী মহামারি চলাকালেও এসডিজি প্রচারণা কার্যক্রম চালাতে তাঁর নেতৃত্বের প্রশংসা করেন।
অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘এ পুরস্কার হচ্ছে এসডিজি লক্ষ্য অর্জনের ক্ষেত্রে জোরালো দায়িত্ব পালনের একটি প্রমাণপত্র।’
প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের (ইউএনজিএ) ফাঁকে আজ আরও কয়েকটি আন্তর্জাতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। তিনি যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে যৌথভাবে আয়োজিত জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে সরকার প্রধানদের গুরুত্বপূর্ণ রুদ্ধদ্বার বৈঠকে অংশ নেন।

 

/এফএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

লিঙ্গ সমতার জন্য নারী নেতৃবৃন্দের নেটওয়ার্ক গঠনের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

লিঙ্গ সমতার জন্য নারী নেতৃবৃন্দের নেটওয়ার্ক গঠনের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

এদিন জাতিসংঘভুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানের জবাব দেয় বাংলাদেশ

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে আবার ফ্লাইট শুরু করবে বিমান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী

এক-তৃতীয়াংশ ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়

এক-তৃতীয়াংশ ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়

করোনায় আরও ২৬ মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৬২

করোনায় আরও ২৬ মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৬২

করোনা মোকাবিলা করে এসডিজি অর্জনে বৈশ্বিক রোডম্যাপের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

করোনা মোকাবিলা করে এসডিজি অর্জনে বৈশ্বিক রোডম্যাপের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

জাতিসংঘ সদর দফতরের বাগানে বৃক্ষরোপণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘ সদর দফতরের বাগানে বৃক্ষরোপণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

স্বাধীনতার ২ বছর পর ফের ১৯৫ যুদ্ধাপরাধীর মুক্তি চান ভুট্টো

স্বাধীনতার ২ বছর পর ফের ১৯৫ যুদ্ধাপরাধীর মুক্তি চান ভুট্টো

মৃত্যু কমেছে ২০ শতাংশ

মৃত্যু কমেছে ২০ শতাংশ

করোনায় মৃত্যু: ২৬ জনের ১৫ জনই নারী

করোনায় মৃত্যু: ২৬ জনের ১৫ জনই নারী

সর্বশেষ

বিসিবির ১৭১ কাউন্সিলর চূড়ান্ত

বিসিবির ১৭১ কাউন্সিলর চূড়ান্ত

চীন কখনও কর্তৃত্ব চাইবে না: শি জিনপিং

চীন কখনও কর্তৃত্ব চাইবে না: শি জিনপিং

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ গেলো স্বামী-স্ত্রীর

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ গেলো স্বামী-স্ত্রীর

ঘরের আড়ায় ঝুলছিল মা, বিছানায় শিশুর লাশ

ঘরের আড়ায় ঝুলছিল মা, বিছানায় শিশুর লাশ

ভালো স্কোর করতে পারেননি রোমান সানা

ভালো স্কোর করতে পারেননি রোমান সানা

© 2021 Bangla Tribune