X
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

এ বছর কুয়াকাটায় ভেসে এসেছে ২০টি মৃত ডলফিন

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৫৫

চলতি বছর কুয়াকাটা সৈকতে বিশটি মৃত ডলফিন ভেসে এসেছে। সর্বশেষ গত ৯ সেপ্টেম্বর সকালে সৈকতের জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন সানসেট পয়েন্টে একটি মৃত ডলফিন ভেসে আসে। শুধু আগস্ট মাসেই কুয়াকাটায় দশটি মৃত ডলফিন ভেসে এসেছে। গত বছর কুয়াকাটা উপকূলে আটটি মৃত ডলফিন ভেসে এসেছিল। তবে এসব ডলফিন কেন মারা যাচ্ছে তা বলতে পারছেন না কেউ। 

কুয়াকাটা ডলফিন সংরক্ষণ কমিটির সদস্য কে এম বাচ্চু বলেন, ‘গত ২১ আগস্ট দুপুরের দিকে কুয়াকাটা সৈকতে জোয়ারে পানির সঙ্গে ডলফিন ভেসে আসে। ২০ আগস্ট দুটি ডলফিন ও প্রায় বিলুপ্ত প্রজাতির একটি রাজ কাকড়া উপকূলে ভেসে এসেছিল। ৯ আগস্ট দুটি, ৮ আগস্ট একটি, ৭ আগস্ট একটি ডলফিন কুয়াকাটা সৈকতের তীরে ভেসে এসেছিল। সেগুলোকে মাটি চাপা দিয়েছি।’

স্থানীয় জেলে আশরাফ আলী জানান, ২০ আগস্ট একই প্রজাতির দুটি মৃত ডলফিন কুয়াকাটা সৈকতের তীরে ভেসে এসেছিল। এর একটির মুখে জাল পেঁচানো এবং অপটির শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন ছিল। ২১ আগস্ট ভেসে আসা ডলফিনটির গায়ে জাল পেঁচানো ছিল। এ যাবৎ কুয়াকাটা সৈকতের তীরে যত মৃত ডলফিন এসেছে সবগুলোর শরীরে কমবেশি আঘাতের চিহ্ন ছিল।

শুধু আগস্ট মাসেই কুয়াকাটায় ১০টি মৃত ডলফিন ভেসে এসেছে

 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রত্যক্ষদর্শী একজন জেলে বলেন, ‘অধিকাংশ সময় দেখা যায় ডলফিনগুলো সাগরে দলবদ্ধভাবে চলাফেরা করে। কিছু দিন আগে সাগরে আমাদের জালে পাশাপাশি দুটি ডলফিন আটকে যায়। ওদের গায়ে অনেক শক্তি, পুরো জালই মুড়িয়ে নষ্ট করার চেষ্টা করছিল। এজন্য আমরা দ্রুত জাল কেটে দেওয়ার পরে চলে গেছে। তারপরে কী হয়েছে জানি না। ডলফিন দুটি অনেক জাল ছিঁড়ে ফেলেছিল সেদিন।’

কুয়াকাটা ডলফিন রক্ষা কমিটির দলনেতা রুমান ইমতিয়াজ বলেন, ‘একের পর এক ডলফিন মারা যাওয়ায় আমরা উদ্বিগ্ন। কয়েক মাস ধরেই মৃত ডলফিন ভেসে আসছে কুয়াকাটা সৈকতের তীরে। আমরা ডলফিনের মৃতদেহ উদ্ধার করতে করতে ক্লান্ত হয়ে পড়েছি। সমুদ্রের বন্ধুপ্রাণী ডলফিন রক্ষায় কী করা যায়, তা নিয়ে ভাবার জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরকে অনুরোধ জানাচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘জেলেদের জালে ডলফিন আটকা পড়লে তারা মনে করেন, এটি হিংস্র প্রাণী। কিন্তু  ডলফিন সমুদ্রের একটি বন্ধুপ্রাণী। এখন অতি জরুরি, জেলেদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ডলফিন সম্পর্কে অবগত করা। এতে কিছুটা হলেও ডলফিনের মৃত্যু কমে আসবে।’

ভেসে আসা মৃত ডলফিন

ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটি অব বাংলাদেশের মতে, মাছ ধরার জালে, বিশেষ করে কারেন্ট জালে ধরা পড়ার কারণে বেশিরভাগ ডলফিন মারা গেছে। বিপন্ন প্রজাতির ইরাবতী ডলফিন সুন্দরবনের নদীতে এবং বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার পার্শ্ববর্তী পায়রা, বিষখালী ও বলেশ্বর নদীতে বাস করে।

ওয়াইল্ডফিশ অ্যান্ড হ্যান্সড কোস্টাল ফিশারিজ ইন বাংলাদেশ (ইকো ফিশ-২) অ্যাক্টিভিটির পটুয়াখালী জেলার সহযোগী গবেষক সাগরিকা স্মৃতি বলেন, ‘মৃত ডলফিনের অন্ত্রের একটি অংশ ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণাগারে এবং অপর অংশ বন অধিদফতরে পরীক্ষাগারে পাঠানো হচ্ছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ডলফিনটির মারা যাওয়ার প্রকৃত কারণ জানা যাবে।’

কলাপাড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা বলেন, ‘ডলফিনের মৃত্যুর কারণ তদন্তে যে ধরনের মেডিক্যাল যন্ত্রপাতি ও লোকবল থাকা দরকার তা আমাদের নেই। এ কারণে ডলফিনগুলো মাটিচাপা দিতে বলা হচ্ছে। আর ডলফিন কেউ মেরে ফেললে বন্য আইনে বিচার হবে। এ দায়িত্ব বন বিভাগের।’ সাগরে বাঁধা জালের ব্যবহার বেড়ে যাওয়ায় এ বছর বেশি ডলফিন মারা যাচ্ছে বলে ধারণা করছেন তিনি।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী জেলা বন কর্মকর্তা মো. তারিকুল ইসলাম বলেন, ‘এসব ডলফিনের মৃত্যুর সঠিক কারণ এখনও আমাদের অজানা। ডলফিন মারা যাওয়ার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ইতোমধ্যে ডলফিন মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পাওয়া গেলে কারণ জানা যাবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ডলফিন হত্যা করলে বন আইনে বিভিন্ন মেয়াদে সাজার বিধান রয়েছে। কিন্তু কে এই ডলফিন শিকার বা হত্যা করেছে, কীভাবে করেছে ও কোথায় করেছে তার সুনির্দিষ্ট তথ্য জানা নেই। এ কারণে আমরা কাউকে আইনের আওতায় আনতে পারছি না। আমরা জেলেদের নিয়ে সচেতনতামূলক সভার আয়োজন করেছি। এতে ডলফিনের মৃত্যু কমে আসতে পারে।’ 

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ টেকনোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মো. সাজেদুল হক বলেন, ‘ডলফিনের মৃত্যু খবর পেয়ে আমরা পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। সেখানে গিয়ে যে ডলফিনটি দেখতে পেয়েছি, সেটি আঘাত পেয়ে মারা গেছে। এভাবে ডলফিনের মৃত্যু হতে থাকলে পরিবেশের ওপর খারাপ প্রভাব পড়বে।’ এসব ডলফিন নদীদূষণ এবং আঘাত পাওয়ার কারণে মারা যাচ্ছে বলে দাবি করেন তিনি।

ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটি অব বাংলাদেশের তথ্যমতে, ২০১৬ সাল থেকে ২০১৯ সালের অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশে ১৪৯টি ডলফিনের মৃত্যু হয়েছে।

/এমএএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৯

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে পালানোর সময় স্থানীয় এলাকাবাসীর হাতে ১৮ জন রোহিঙ্গা আটক হয়েছেন। আটকদের মধ্যে ১০ জন শিশু ও ৮ জন প্রাপ্তবয়স্ক সদস্য রয়েছেন। তবে তাৎক্ষণিক পুলিশ তাদের নাম ও পরিচয় জানাতে পারেনি।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে (১৭ সেপ্টেম্বর) উপজেলার চেয়ারম্যানঘাট এলাকা থেকে তাদের আটক করে স্থানীয়রা। পরে রাত আড়াইটার দিকে তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়।  

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ শহীদুল ইসলামের পাঠানো বার্তায় জানানো হয়, ভাসানচর আশ্রয়ণ কেন্দ্র থেকে নৌকাযোগে পালানোর সময় চেয়ারম্যানঘাট এলাকায় স্থানীয় এলাকাবাসী ১৮ রোহিঙ্গাকে আটক করে। আটক রোহিঙ্গাদের চেয়ারম্যানঘাট পুলিশ ক্যাম্পে এনে রাখা হয়েছে। তিনি আরও জানান, আটকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪২

দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা শূন্যতে নেমে এলেও ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তা কমছে না। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ছয় জন মারা গেছেন। এরমধ্যে করোনায় একজন ও উপসর্গ নিয়ে পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনায় মারা যাওয়া ব্যক্তি ময়মনসিংহ জেলার বাসিন্দা। আর করোনা উপসর্গ নিয়ে নেত্রকোনার দুই জন এবং ময়মনসিংহ-গাজীপুর ও টাঙ্গাইলের একজন করে রোগীর মৃত্যু হয়। 

হাসপাতালের করোনা ফোকাল পারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি আরও জানান, নতুন করে ১০ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। বর্তমানে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৯২ জন এবং আইসিইউতে ৮ জন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। এছাড়া ২৮ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। 

এদিকে জেলা সিভিল সার্জন ডা. নজরুল ইসলাম জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩২৩টি নমুনা পরীক্ষায় ২৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার শতকরা ৭.১২ শতাংশ। জেলায় করোনা শনাক্ত ব্যক্তির সংখ্যা ২১ হাজার ৬৯৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২০ হাজার ৩১২ জন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২০

জামালপুরের ইসলামপুরের এক মাদ্রাসা থেকে নিখোঁজ তিন শিশু শিক্ষার্থী রাজধানীর মুগদা থেকে উদ্ধার হয়েছে। নিখোঁজের পাঁচদিন পর বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ১২টার দিকে মুগদা থানার মান্ডা এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করে পুলিশ। 

উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্ব দেন জামালপুরের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (ইসলামপুর সার্কেল) মো. সুমন মিয়া। তিনি জানান, নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের সন্ধান পেতে পুলিশ বিভিন্ন সূত্র ধরে সম্ভাব্য স্থানগুলোতে অভিযান চালায়। এর অংশ হিসেবে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনের সিসিটিভি ফুটেজের মাধ্যমে ওই শিক্ষার্থীদের শনাক্ত করা হয়। পরে স্থানীয় রিকশাওয়ালাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে মুগদা থানার মান্ডা এলাকার রাজা মিয়া (১৪) নামে এক রিকশাচালকের বাসা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই তিন ছাত্রী মাদ্রাসা থেকে পালিয়ে ঢাকায় চলে এসেছে বলে জানিয়েছে। 

এএসপি আরও জানান, শুক্রবার সকালে ছাত্রীদের জামালপুরে নিয়ে আসা হয়। জামালপুরে নিয়ে আসার পর তাদের পালিয়ে যাওয়ার কারণসহ এ অভিযানের বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে বলে জানান তিনি। 

উল্লেখ্য, ওই তিন ছাত্রী অন্যদিনের মতো শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) রাতে মাদ্রাসার আবাসিক কক্ষে ঘুমিয়ে পড়ে। রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ভোররাতে শিক্ষকরা ফজরের নামাজ পড়ার জন্য শিক্ষার্থীদের ঘুম থেকে ডেকে তোলেন। অন্য ছাত্রীদের মতোই নিখোঁজ শিশুরাও নামাজের প্রস্তুতি নেয়। তবে নামাজের পর তাদের আর কোনও মেলেনি। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

আদালতের ক্যান্টিনে সংঘর্ষ, কারাগারে বাদী-বিবাদী পক্ষের ৬ জন 

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৩১

পঞ্চগড়ে আদালতের ক্যান্টিনে এক মামলার বাদী ও বিবাদী পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) পঞ্চগড় চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ক্যান্টিনে এ ঘটনা ঘটে। এসময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় কোর্ট পুলিশ, পঞ্চগড় থানা পুলিশ উভয়পক্ষের ছয় জনকে আটক করে কোর্ট হাজতে রাখে। এ ঘটনায় পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক মজিবর রহমান বাদী হয়ে তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কুদরত-ই খুদা মিলন ও তেঁতুলিয়া উপজেলার দেবনগর ইউনিয়নের বালুবাড়ি এলাকার আব্দুল হামিদসহ সাত জনের নামে ও অজ্ঞাতনামা আরও ৪-৫ জনকে আসামি করে পঞ্চগড় সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

আদালতের কোর্ট বারান্দা ও ক্যান্টিনে বেআইনিভাবে প্রবেশ করে সংঘর্ষে জড়ানো, সরকারি কাজে বাধা দান ও সরকারি কর্মচারীকে বল প্রয়োগের হুমকিসহ আদালতের বিচারিক পরিবেশে নষ্ট করে ক্ষমতার দাপট প্রদর্শন করার অভিযোগ এনে পুলিশ মামলাটি দায়ের করে।
 
পরে আটক তেঁতুলিয়া উপজেলার দেবনগর ইউনিয়নের বালুবাড়ি এলাকার আব্দুল হামিদ (৪০), একই উপজেলার বাইনগঞ্জ এলাকার নুর ইসলাম (৩৮), পাগলীডাঙ্গী এলাকার সেলিম রানা (২৫), জায়গীর জোত এলাকার আজিজার রহমান (৪৭), ঝাড়ুয়া পাড়া এলাকার ফারুক হোসেন (২৫) এবং একই এলাকার সাইদুল ইসলামকে (৩৮) মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠানো হয়। 

তবে মামলার মূল আসামি তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কুদরত-ই খুদা মিলন পলাতক রয়েছেন। 

বাংলাবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যান কুদরত-ই খুদা মিলনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে আদালতে আত্মসমর্পণ করতে গিয়েছিলাম। কিন্তু কোনও মারামারির সঙ্গে যুক্ত হইনি। তাছাড়া ক্যান্টিনে যখন মারামারি হয় তখন আমি আদালত চত্ত্বরে ছিলাম না। আমাকে কেন এই মামলার আসামি করা হয়েছে আমি জানি না। 

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিঞা জানান, পঞ্চগড় চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দায়িত্বে থাকা পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক মজিবর রহমান বাদী হয়ে সাত জনের নামে ও অজ্ঞাতনামা ৪-৫জনকে আসামি করে মামলা দিয়েছেন। মামলায় ছয় জন আসামিকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে জানান তিনি। 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ভুয়া বিলে টাকা উত্তোলন, টিটিসির সেই অধ্যক্ষ বরখাস্ত

ভুয়া বিলে টাকা উত্তোলন, টিটিসির সেই অধ্যক্ষ বরখাস্ত

এবার আগেভাগেই দেখা দিয়েছে কাঞ্চনজঙ্ঘা

এবার আগেভাগেই দেখা দিয়েছে কাঞ্চনজঙ্ঘা

কয়লা খনির পাঁচ কর্মকর্তা বরখাস্ত, ১০ জনের নামে মামলা

কয়লা খনির পাঁচ কর্মকর্তা বরখাস্ত, ১০ জনের নামে মামলা

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০৭

তিন মাস পর আবারও চট্টগ্রামে করোনায় কোনও মৃত্যু নেই। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যাননি। এর আগে, গত ১৫ জুন করোনায় মৃত্যুহীন ছিল চট্টগ্রাম। এরপর টানা বাড়তে থাকে মৃতের সংখ্যা। 

একই সময়ে নতুন শনাক্তও কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছেন আরও ৪১ জন। এ নিয়ে চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত এক লাখ এক হাজার ১৭২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৭৩ হাজার ৩২৮ জন চট্টগ্রাম নগরীর। বাকি ২৭ হাজার ৮৪৪ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের ১২টি ল্যাবে এক হাজার ৫১৩টি নমুনা পরীক্ষায় ৪১ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ৬৬টি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৪৫১টি, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ১৮২টি, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ১৫০টি এবং আরটিআরএল ল্যাবে চারটি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চবি ল্যাবে চার জন, বিআইটিআইডি, চমেক ও সিভাসু ল্যাবে ৯ জন করে করোনা শনাক্ত হয়।

অন্যদিকে বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে ৫২ টি নমুনা পরীক্ষায় দুই জন, শেভরন ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে ৪৭২টি নমুনা পরীক্ষায় দুই, মা ও শিশু হাসপাতালে ২৩ নমুনা পরীক্ষায় এক, মেডিক্যাল সেন্টার হাসপাতালে ১৮টি নমুনা পরীক্ষায় এক এবং ইপিক হেলথ কেয়ার ৮৬টি নমুনা পরীক্ষায় ‍চার জনের করোনা শনাক্ত হয়। এছাড়া কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চট্টগ্রামের ৯টি নমুনা পরীক্ষায় কারও শরীরে করোনার অস্তিত্ব মেলেনি।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

যুবলীগের ২ নেতাকে পদ থেকে অব্যাহতি

যুবলীগের ২ নেতাকে পদ থেকে অব্যাহতি

নুরুলের ৪৬০ কোটি টাকার সম্পদের কথা শুনে হতবাক গ্রামবাসী

নুরুলের ৪৬০ কোটি টাকার সম্পদের কথা শুনে হতবাক গ্রামবাসী

এভাবে চললে দেশের ভবিষ্যৎ ভয়াবহ: জোনায়েদ সাকি

এভাবে চললে দেশের ভবিষ্যৎ ভয়াবহ: জোনায়েদ সাকি

রূপপুর প্রকল্পে কর্মরত রুশ নাগরিকের লাশ উদ্ধার

রূপপুর প্রকল্পে কর্মরত রুশ নাগরিকের লাশ উদ্ধার

সুদের টাকা না পেয়ে জমি দখল, বাধা দিলে পিটিয়ে হত্যা

সুদের টাকা না পেয়ে জমি দখল, বাধা দিলে পিটিয়ে হত্যা

ডেঙ্গুতে মারা গেলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

ডেঙ্গুতে মারা গেলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

সর্বশেষ

যা আছে প্রধানমন্ত্রীর সফরসূচিতে

যা আছে প্রধানমন্ত্রীর সফরসূচিতে

৩ দেশের চুক্তি চরম দায়িত্বজ্ঞানহীনতা: চীন

৩ দেশের চুক্তি চরম দায়িত্বজ্ঞানহীনতা: চীন

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

© 2021 Bangla Tribune