X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

‘শুধু ক্ষমা চাইলেই হবে না, যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে’   

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:১৪

কাবুলে মার্কিন ড্রোন হামলায় শিশুসহ ১০ বেসামরিক নগরিক নিহতের কথা স্বীকার করে এ ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে নিহতদের স্বজন ও আহতরা বলছেন, এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রকে শুধু ‘দুঃখ প্রকাশ’ বা ‘ক্ষমা চাইলেই’ হবে না, ক্ষতিপূরণ দিতে হবে এবং ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করতে হবে।

গত ২৯ আগস্ট চালানো ওই ড্রোন হামলায় আইম্যাল আমাদি তার তিন বছরের কন্যাকে হারান। শনিবার কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরাকে তিনি বলেন, ‘এই হামলা কারা চালিয়েছে তা ওয়াশিংটনের তদন্ত করা উচিত এবং যারা এর সঙ্গে জড়িত তাদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে।’

‘আমি পরিবরে ১০ সদস্যকে হারিয়েছি। যুক্তরাষ্ট্র এবং অন্যান্য সংস্থার কাছে ন্যায় বিচার চাই। আমরা নিরীহ, আমাদের তো কোনও ভুল ছিল না’, বলেন আইম্যাল আমাদি।

আলজাজিরার ওসামা বিন জাভাইদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি খেলনাসহ শিশুদের স্মৃতিচিহ্ন ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকতে দেখেছেন। তিনি বলেন, ‘পরিবারের সদস্যরা আমাদের জানিয়েছেন, তারা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ক্ষতিপূরণ চান। তারা হতাহতদের জন্য ন্যায় বিচার চেয়েছেন এবং সম্ভব হলে তারা আফগানিস্তান ছাড়তে চান।’

মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের তদন্তে জানা গেছে, গত ২৯ আগস্ট জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস-কের হামলাকারীর গাড়ি লক্ষ্য করে চালানো ড্রোন হামলায় এক ত্রাণ সহায়তা কর্মীসহ তার পরিবারের ৯ সদস্য প্রাণ হারান। এর মধ্যে ৭ শিশু ছিল।

এর আগে ২৬ আগস্ট কাবুল বিমানবন্দর দিয়ে যখন উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছিল তখন আত্মঘাতী বোমা হামলা চালায় আফগান আইএস। এতে ১৭০ জনের বেশি মানুষ প্রাণ হারান। এর মধ্যে ১৩ মার্কিন সেনা রয়েছে। এরপরই হামলাকারীর বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নিতে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন অভিযান পরিচালনায় বেসামরিক মানুষ নিহত হন।

/আইএ/

সম্পর্কিত

প্রায় দুই বছর পর তেহরানে জুমার নামাজ

প্রায় দুই বছর পর তেহরানে জুমার নামাজ

বিদেশি শ্রমিকদের ওপর আংশিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার মালয়েশিয়ার

বিদেশি শ্রমিকদের ওপর আংশিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার মালয়েশিয়ার

অনির্দিষ্টকাল রাস্তা আটকে বিক্ষোভ চলতে পারে না: ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

অনির্দিষ্টকাল রাস্তা আটকে বিক্ষোভ চলতে পারে না: ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক ভারতের

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক ভারতের

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫৬

লম্বা চুল নিষিদ্ধ করার প্রতিবাদে টেক্সাসের একটি স্কুল ডিস্ট্রিক্টের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে সাত শিক্ষার্থী। তাদের অভিযোগ, লম্বা চুল রাখার শাস্তি হিসেবে ৯ বছরের এক ছেলেকে এক মাস বরখাস্ত, তার বিশ্রাম ও সাধারণ মধ্যহ্নভোজের বিরতি বাতিল করেছেন স্কুল কর্মকর্তারা।

শিক্ষার্থীদের হয়ে মামলাটি করেছে আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়ন অব টেক্সাস। অভিযোগে ওই ছেলেসহ ৭ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীরা বলছে, স্কুলের এই পোশাকবিধি সংবিধানের লঙ্ঘন এবং যৌন বৈষম্য ঠেকানোর আইন পরিপন্থী।

বৃহস্পতিবার স্কুল ডিস্ট্রিক্টের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তারা মামলাটি পর্যালোচনা করছেন। এক বিবৃতিতে নারী মুখপাত্র বলেন, ম্যাগনোলিয়া ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্কুল ডিস্ট্রিক্ট ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গিকে শ্রদ্ধা করে এবং নাগরিকের পরিবর্তন চাওয়ার অধিকারকেও শ্রদ্ধা করে।

এই স্কুল ডিস্ট্রিক্টের আওতায় প্রায় ১৩ হাজার শিক্ষার্থী রয়েছে। তাদের পোশাকবিধি অনুসারে, ছেলের চুল তাদের চোখের উপর আসতে পারবে না, কানের নিচের অংশ ছাড়িয়ে যেতে পারবে না অথবা শার্টের কলারের নিচের অংশের চেয়ে বেশি হবে না। সমালোচনার মুখেও কর্তৃপক্ষ নিজেদের সমর্থনে বলেছে, এতে আমাদের কমিউনিটির মূল্যবোধের প্রতিফলন। সূত্র: বিবিসি

/এএ/

সম্পর্কিত

উইঘুর ইস্যুতে চাপ বাড়ছে চীনের ওপর

উইঘুর ইস্যুতে চাপ বাড়ছে চীনের ওপর

৫-১১ বছরের শিশুদের ওপর ৯০ শতাংশ কার্যকর ফাইজারের টিকা

৫-১১ বছরের শিশুদের ওপর ৯০ শতাংশ কার্যকর ফাইজারের টিকা

মার্কিন সেনাবাহিনীর হাইপারসোনিক পরীক্ষা ব্যর্থ

মার্কিন সেনাবাহিনীর হাইপারসোনিক পরীক্ষা ব্যর্থ

উইঘুর ইস্যুতে চাপ বাড়ছে চীনের ওপর

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫২

জিনজিয়াংয়ের মুসলিম উইঘুর জনগোষ্ঠীর জন্য আইনের শাসনের প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধা প্রদর্শন করতে চীনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ৪৩টি দেশ। বৃহস্পতিবার জাতিসংঘে পঠিত এক বিবৃতিতে এই আহ্বান জানানো হয়েছে। তবে এর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বেইজিং।

বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারী দেশগুলোর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও রয়েছে বেশ কয়েকটি ইউরোপীয়ান ও এশিয়ান দেশ। তাদের অভিযোগ উইঘুরদের বিরুদ্ধে চীন মানবাধিকার হরণ করেই যাচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে নির্যাতন, জোর করে বন্ধ্যাকরণ এবং গুম।

যৌথ ওই বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা চীনকে অবিলম্বে জিনজিয়াংয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক কমিশনার এবং তার কার্যালয়সহ স্বাধীন পর্যবেক্ষকদের অর্থবহ এবং অবাধ প্রবেশাধিকার দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’

ফ্রান্সের পঠিত বিবৃতিতে বলা হয়, ‘জিনজিয়াংয়ের উইঘুর সায়ত্তশাসিত অঞ্চলের পরিস্থিতি নিয়ে আমরা বিশেষভাবে উদ্বিগ্ন।’ সেখানে রাজনৈতিক পুনঃশিক্ষণ শিবিরের বড় নেটওয়ার্ক থাকার ‘বিশ্বাসযোগ্য’ প্রতিবেদন রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয় বিবৃতিতে। এসব শিবিরে লাখ লাখ মানুষকে বিনা বিচারে আটক রাখা হয়েছে বলে ধারণা করা হয়।

চীনের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে উইঘুর এবং অন্য মূলত মুসলিম তাজিকদের ওপর নিপীড়নের অভিযোগ উঠছে। আর তা ক্রমাগত অস্বীকার করে আসছে বেইজিং। বিশেষজ্ঞদের ধারণা সেখানে দশ লাখেরও বেশি মানুষকে বন্দি শিবিরে রাখা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ৪৩ দেশের ওই যৌথ বিবৃতিকে ‘মিথ্যা এবং চীনকে আঘাতের ষড়যন্ত্র’ আখ্যা দিয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বেইজিংয়ের দূত ঝ্যাং জান। তিনি বলেন, ‘জিনজিয়াংয়ের জনগণ উন্নয়ন উপভোগ করছে এবং সেখানকার মানুষ প্রতিদিন মুক্ত হয়ে উঠছে আর তৈরি করা অগ্রগতিতে তারা গর্বিত।’

এদিকে সাংবাদিকদের চীনা দূত বলেছেন, ওই অঞ্চলে বন্ধুত্বপূর্ণ সফর আয়োজনে বেইজিং সম্মত। তবে জাতিসংঘের মানবাধিকার কার্যালয়ের মাধ্যমে তদন্তে রাজি নন তিনি। ওয়াশিংটন, প্যারিস এবং লন্ডনের মানবাধিকার পরিস্থিতির রেকর্ড ভয়াহ বলে অভিযোগ করেন চীনা দূত।

যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে স্থানীয় আমেরিকানদের বিরুদ্ধে অমানবিক জাতিগত নির্মূলতা চালানোর অভিযোগ তুলে থাকে চীন। এছাড়া ফ্রান্সের বিরুদ্ধে উপনিবেশিক আমলের  মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ করে থাকে বেইজিং।

উল্লেখ্য, ২০১৯ ও ২০২০ সালেও একই ধরণের বিবৃতিতে দিয়ে চীনের নিন্দা করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র অভিযোগ তোলে বেইজিং গণহত্যা চালাচ্ছে। এসব ঘোষণায় সমর্থন না দিতে সদস্য দেশগুলোর ওপর চাপ প্রয়োগ করে চীন।

/জেজে/

সম্পর্কিত

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

৫-১১ বছরের শিশুদের ওপর ৯০ শতাংশ কার্যকর ফাইজারের টিকা

৫-১১ বছরের শিশুদের ওপর ৯০ শতাংশ কার্যকর ফাইজারের টিকা

প্রায় চার কোটি নাগরিককে নগদ অর্থ দেবে ফ্রান্স

প্রায় চার কোটি নাগরিককে নগদ অর্থ দেবে ফ্রান্স

মার্কিন সেনাবাহিনীর হাইপারসোনিক পরীক্ষা ব্যর্থ

মার্কিন সেনাবাহিনীর হাইপারসোনিক পরীক্ষা ব্যর্থ

নেতাদের সামনেই বিজেপি কর্মীদের মারপিট

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২০:৫৪

ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) পশ্চিমবঙ্গ শাখার অভ্যন্তরীণ বিরোধ সামনে এসেছে। শুক্রবার রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার এবং তার পূর্বসূরি দিলিপ ঘোষের সামনেই মারপিটে জড়িয়েছে কর্মীরা। শুক্রবার পশ্চিম বর্ধমানের কাটোয়ায় এক অনুষ্ঠানে এই ঘটনা ঘটেছে।

তবে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপের সময় সুকান্ত মজুমদার এবং দিলিপ ঘোষ উভয়েই ঘটনাটিকে খাটো করে দেখাতে চেয়েছেন। আর এই ঘটনার জন্য তৃণমূল কংগ্রেসের এজেন্টদের দায়ী করেছেন। তারা উভয়েই দাবি করেন রাজ্যের নতুন নেতৃত্বের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ রয়েছে বিজেপি কর্মীরা।

দলীয় এক বৈঠকে যোগ দিতে দুই নেতা কাটোয়ার দইহাটে পৌঁছালে একদল বিজেপি কর্মী দিলিপ ঘোষের বিরুদ্ধে স্লোগান শুরু করে। তার বিরুদ্ধে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আক্রান্ত দলীয় কর্মীদের সহায়তায় ব্যর্থতার অভিযোগ তোলে বিজেপি কর্মীরা।

সাংবাদিকদের সামনে ওই স্লোগান চলতে থাকলে আরেক দল কর্মী উঠে তাদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। তখনই দুই পক্ষের মধ্যে মারপিট শুরু হয়। চেয়ার ছোড়াছুড়ির পাশাপাশি হাতাহাতিও চলে। কিছুক্ষণ পর জেলা পর্যায়ের নেতাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

বর্তমানে বিজেপির সর্ব ভারতীয় সহসভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন দিলিপ ঘোষ। আর সুকান্ত মজুমদার সম্প্রতি রাজ্য সভাপতির দায়িত্ব নিয়েছেন।

এই বছরের শুরুতে রাজ্য নির্বাচনে পরাজয়ের পর বেশ কয়েক জন নেতা বিজেপি ছেড়ে গেছেন। বেশিরভাগই ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ও যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে।

অভ্যন্তরীণ বিবাদের জন্য তৃণমূল কংগ্রেসকে দায়ী করে সুকান্ত মজুমদার বলেন, ‘আমাদের বৈঠকে বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে এজেন্ট পাঠিয়েছে তৃণমূল। বিশৃঙ্খলাকারীদের আমরা অবশ্যই শনাক্ত করবো।’

বিশৃঙ্খলায় কোনও কর্মী জড়িত থাকলেও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান সুকান্ত মজুমদার।

/জেজে/

সম্পর্কিত

আসামে রকেট সিস্টেম বসাচ্ছে ভারত

আসামে রকেট সিস্টেম বসাচ্ছে ভারত

ত্রিপুরায় তৃণমূল এমপির ওপর হামলা

ত্রিপুরায় তৃণমূল এমপির ওপর হামলা

মুম্বাইয়ের ৬০ তলা আবাসিক ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ১

মুম্বাইয়ের ৬০ তলা আবাসিক ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ১

৫-১১ বছরের শিশুদের ওপর ৯০ শতাংশ কার্যকর ফাইজারের টিকা

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২০:৪৬

৫-১১ বছর বয়সী শিশুদের ওপর পরিচালিত ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে ফাইজার-বায়োএনটেকের কোভিড-১৯ টিকা ৯০ শতাংশের বেশি কার্যকর। শুক্রবার মার্কিন ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানিটি এই তথ্য জানিয়েছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।  

যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ নিয়ন্ত্রক এফডিএ-এর কাছে দাখিল করা নথিতে ফাইজার জানিয়েছে, ট্রায়ালে অংশ নেওয়া শিশুদের মধ্যে প্লেসবো দেওয়া ১৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। আর টিকা দেওয়াদের মধ্যে আক্রান্ত হয়েছে মাত্র ৩ জন। ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নেওয়া ২ হাজার ২৬৮ শিশুর মধ্যে টিকাগ্রহণকারীদের সংখ্যা প্লেসবো গ্রহণকারীদের চেয়ে দ্বিগুণ ছিল। ফলে কার্যকারিতা ৯০ শতাংশের বেশি।

৫-১১ বছর বয়সী শিশুদের ওপর ফাইজারের এই ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের মূল লক্ষ্য কার্যকারিতা যাচাই ছিল না। এটি ছিল মূলত প্রাপ্ত বয়স্কদের তুলনায় শিশুদের দেহে সুরক্ষা তৈরিকারী অ্যান্টিবডির পরিমাণ তুলনার জন্য করা হয়েছিল।

এই পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে গত মাসে ফাইজার-বায়োএনটেক জানায়, শিশুদের দেহে শক্তিশালী ইমিউন প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে।

শিশুদের ১০ মাইক্রোগ্রাম করে দুই ডোজ দেওয়া হয়েছে। যা ১২ বছর থেকে বেশি বয়সীদের দেওয়া পরিমাণের এক-তৃতীয়াংশ।  

এফডিএ বহির্ভূত উপদেষ্টারা মঙ্গলবার মার্কিন শিশুদের টিকা দেওয়ার বিষয়টি সুপারিশ করা হবে কিনা তা নিয়ে বৈঠকে বসবেন। ফাইজারের দেওয়া

ন্যূনতম ১২ বছর বয়সীদের যুক্তরাষ্ট্রে অনুমোদন পেয়েছে ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা। দেশটিতে টিকা নেওয়া ১৯০ মিলিয়ন মানুষের মধ্যে ১২-১৭ বয়সী ১১ লাখ শিশু ফাইজারের টিকা নিয়েছেন।

/এএ/

সম্পর্কিত

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

উইঘুর ইস্যুতে চাপ বাড়ছে চীনের ওপর

উইঘুর ইস্যুতে চাপ বাড়ছে চীনের ওপর

মার্কিন সেনাবাহিনীর হাইপারসোনিক পরীক্ষা ব্যর্থ

মার্কিন সেনাবাহিনীর হাইপারসোনিক পরীক্ষা ব্যর্থ

যুক্তরাষ্ট্রে পেঁয়াজ থেকে ছড়ানো সংক্রমণে আক্রান্ত ৬ শতাধিক

যুক্তরাষ্ট্রে পেঁয়াজ থেকে ছড়ানো সংক্রমণে আক্রান্ত ৬ শতাধিক

প্রায় চার কোটি নাগরিককে নগদ অর্থ দেবে ফ্রান্স

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৪৩

নিম্ন আয়ের মানুষের জ্বালানির দাম বৃদ্ধির কষ্ট কমানোর উদ্যোগ নিয়েছে ফ্রান্স। দেশটির সরকার জানিয়েছে যেসব নাগরিকের মাসিক আয় দুই হাজার ইউরোর কম তাদের এককালীন একশ’ ইউরো সহায়তা দেওয়া হবে। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ প্রায় দশ হাজার টাকা।

সরকারের ঘোষিত এই মুদ্রাস্ফীতি ভাতা প্রায় তিন কোটি ৮০ লাখ ফরাসি নাগরিক স্বয়ংক্রিয়ভাবে পেয়ে যাবেন। এমনকি যারা গাড়ি বা মোটরসাইকেল চালান না তারাও এই ভাতা পাবেন।

এই ভাতা প্রথমে পাবেন ব্যবসায়ে নিযুক্ত কর্মীরা। ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ এই ভাতা পাবেন তারা। সরকারি চাকরিজীবী, শিক্ষার্থী, অবসর কাটানো মানুষেরা পাবেন আগামী বছরের শুরুতে।

এই একশ’ ইউরো ভাতা হবে করমুক্ত। প্রধানমন্ত্রী জেন ক্যাসটেক্স বলেছেন এতে সরকারের ৩৮০ কোটি ইউরো খরচ হবে। তবে জ্বালানির কর কমানো হলে এর চেয়ে অনেক বেশি খরচ হতো বলে জানান তিনি।

করোনার কারণে দীর্ঘদিন অচল হয়ে থাকা ব্যবসা বাণিজ্য সচল হতে শুরু করায় বেড়েছে তেলের চাহিদা। আর এর জেরেই দাম বাড়ায় ইউরোপ জুড়ে ক্ষোভ বাড়ছে। ফ্রান্সে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের বাকি আর ছয় মাস। আর এই সময়ে তেলের দাম বাড়লে ব্যাপক বিক্ষোভ শুরুর আশঙ্কা রয়েছে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

উইঘুর ইস্যুতে চাপ বাড়ছে চীনের ওপর

উইঘুর ইস্যুতে চাপ বাড়ছে চীনের ওপর

রাষ্ট্রদূতদের ওপর ক্ষেপেছেন এরদোয়ান

রাষ্ট্রদূতদের ওপর ক্ষেপেছেন এরদোয়ান

‘গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি তার নাগরিকের চাহিদা পূরণে সক্ষম’

‘গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি তার নাগরিকের চাহিদা পূরণে সক্ষম’

জলবায়ু সম্মেলনে যোগ দেবেন না পুতিন

জলবায়ু সম্মেলনে যোগ দেবেন না পুতিন

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

প্রায় দুই বছর পর তেহরানে জুমার নামাজ

প্রায় দুই বছর পর তেহরানে জুমার নামাজ

বিদেশি শ্রমিকদের ওপর আংশিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার মালয়েশিয়ার

বিদেশি শ্রমিকদের ওপর আংশিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার মালয়েশিয়ার

অনির্দিষ্টকাল রাস্তা আটকে বিক্ষোভ চলতে পারে না: ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

অনির্দিষ্টকাল রাস্তা আটকে বিক্ষোভ চলতে পারে না: ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক ভারতের

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক ভারতের

প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সেলফি তোলায় পুলিশ সদস্যদের নোটিস

প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সেলফি তোলায় পুলিশ সদস্যদের নোটিস

মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানালো হামাস

মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানালো হামাস

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

সর্বশেষ

ডাচদের হারিয়ে বাংলাদেশের গ্রুপসঙ্গী শ্রীলঙ্কা

ডাচদের হারিয়ে বাংলাদেশের গ্রুপসঙ্গী শ্রীলঙ্কা

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ শিক্ষার্থী

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ শিক্ষার্থী

জামায়াতের অফিসে আগাছা, দলীয় কর্মকাণ্ড নেতাদের বাসায়

২০ দলীয় জোটজামায়াতের অফিসে আগাছা, দলীয় কর্মকাণ্ড নেতাদের বাসায়

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

© 2021 Bangla Tribune