X
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

কনডেম সেলে থাকা বন্দিদের তথ্য চেয়েছেন হাইকোর্ট

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৯

দেশের কারাগারে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে কনডেম সেলে থাকা সব বন্দিদের তথ্য চেয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে কারা কর্তৃপক্ষকে অ্যাটর্নি জেনারেলের মাধ্যমে এ তথ্য  আদালতে দাখিল করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। একইদিন এ সংক্রান্ত মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ ধার্য করা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত এক রিটের শুনানি নিয়ে সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন।

এর আগে গত ৩ সেপ্টেম্বর মামলা চূড়ান্তভাবে নিষ্পত্তি হওয়ার আগে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে কনডেম সেলে রাখার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। চট্টগ্রাম কারাগারের কনডেম সেলে থাকা জিল্লুর রহমানসহ মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তিন বন্দির পক্ষে শিশির মনির এ রিট দায়ের করেন।

রিটকারী কারাবন্দিরা হলেন— চট্টগ্রাম কারাগারের কনডেম সেলে থাকা সাতকানিয়ার জিল্লুর রহমান, সিলেট কারাগারে থাকা সুনামগঞ্জের আব্দুল বশির ও কুমিল্লা কারাগারে থাকা খাগড়াছড়ির শাহ আলম। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এই তিন আসামির আপিল হাইকোর্ট বিভাগে বিচারাধীন রয়েছে।

রিটে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা বিভাগের সচিব, আইন সচিব, আইজিপি, আইজি প্রিজন্স,চট্টগ্রাম, সিলেট ও কুমিল্লার সিনিয়র জেল সুপারকে বিবাদী করা হয়।

রিট আবেদনে মৃত্যুদণ্ডাদেশ চূড়ান্ত হওয়ার আগে কনডেম সেলে আবদ্ধ রাখা কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারির আরজি জানানো হয়েছে। একইসঙ্গে রুলটি বিবেচনাধীন থাকা অবস্থায় আবেদনকারীদের কনডেম সেল থেকে স্বাভাবিক সেলে স্থানান্তরের আবেদন করা হয়। পাশাপশি দেশের সকল জেলের কনডেম সেলে থাকা সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের সম্পর্কে (সুযোগ ও সুবিধা) কারা মহাপরিদর্শককে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশনা চাওয়া হয়।

রিট আবেদনে বলা হয়, বিচারিক আদালতে মৃত্যুদণ্ডাদেশ ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক সাজা কার্যকর করার আইনগত কোনও বিধান নেই। মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকর করতে কয়েকটি আবশ্যকীয় আইনগত ধাপ অতিক্রম করতে হয়। প্রথমত, ফৌজদারি কার্যবিধির ৩৭৪ ধারামতে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে হাইকোর্ট বিভাগের অনুমোদন নিতে হবে। একইসঙ্গে ফৌজদারি কার্যবিধির ৪১০ ধারা অনুযায়ী হাইকোর্ট বিভাগে আপিল দায়েরের বিধান রয়েছে। দ্বিতীয়ত, হাইকোর্ট বিভাগ মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখলে সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তি সাংবিধানিক অধিকারবলে আপিল বিভাগে সরাসরি আপিল দায়ের করতে পারেন। তৃতীয়ত, সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১০৫ অনুযায়ী আপিলের রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ আবেদনের আইনগত সুযোগ রয়েছে।

সর্বোপরি, মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৪৯ এর অধীন রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইতে পারেন। রাষ্ট্রপতি  ক্ষমার ওই আবেদন না মঞ্জুর করলে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার আইনগত বৈধতা লাভ করে। কিন্তু বাংলাদেশে বিচারিক আদালতে মৃত্যুদণ্ড ঘোষণার পরই সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে নির্জন কনডেম সেলে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হিসেবে বন্দি রাখা হয় বলেও রিটে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

/বিআই/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

বাংলাদেশ কৃষি খাতে বিশ্বে ‘উন্নয়ন মডেল’ হিসেবে স্বীকৃত: খাদ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ কৃষি খাতে বিশ্বে ‘উন্নয়ন মডেল’ হিসেবে স্বীকৃত: খাদ্যমন্ত্রী

২০২২ সালে জাপানি বিনিয়োগে নতুন ঢেউয়ের আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

২০২২ সালে জাপানি বিনিয়োগে নতুন ঢেউয়ের আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

ফেরি দুর্ঘটনা তদন্তে ৭ সদস্যের কমিটি

ফেরি দুর্ঘটনা তদন্তে ৭ সদস্যের কমিটি

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

বাংলাদেশ কৃষি খাতে বিশ্বে ‘উন্নয়ন মডেল’ হিসেবে স্বীকৃত: খাদ্যমন্ত্রী

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:১৬

বাংলাদেশে ইতোমধ্যেই সবার জন্য খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে উল্লেখ করে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, এ দেশ এখন কৃষি খাতে বিশ্বে ‘উন্নয়ন মডেল’ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে।

তিনি তুরস্কের ইস্তাম্বুলে ইসলামি সম্মেলন সংস্থার (ওআইসি) ‘খাদ্য নিরাপত্তা ও কৃষি উন্নয়ন’ বিষয়ক  মন্ত্রি পর্যায়ের অষ্টম সভায় এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন।

বুধবার  (২৭ অক্টোবর) এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তুরস্কের কৃষি ও বনমন্ত্রী ড. বেকির পাকডিমিরলি এ সভায় সভাপতিত্ব করেন।

বুধবার ঢাকায় প্রাপ্ত  সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ওআইসি’র মন্ত্রী পর্যায়ের এই বৈঠকে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেন।

খাদ্য সচিব নাজমানারা খানম, কনস্যুলার জেনারেল ড. মনিরুল ইসলামসহ খাদ্য, কৃষি ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কমকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

বিবৃতিতে খাদ্যমন্ত্রী সবার জন্য খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ওআইসি’র সদস্য দেশগুলোর মধ্যে অভিজ্ঞতা বিনিময়ের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। খবর: বাসস

 

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

২০২২ সালে জাপানি বিনিয়োগে নতুন ঢেউয়ের আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

২০২২ সালে জাপানি বিনিয়োগে নতুন ঢেউয়ের আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

ফেরি দুর্ঘটনা তদন্তে ৭ সদস্যের কমিটি

ফেরি দুর্ঘটনা তদন্তে ৭ সদস্যের কমিটি

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

‘২০২২ সালের পর রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য থাকবে না’

‘২০২২ সালের পর রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য থাকবে না’

২০২২ সালে জাপানি বিনিয়োগে নতুন ঢেউয়ের আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২০:৫৪

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ২০২২ সালে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে জাপানি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রস্তুত হলে জাপানভিত্তিক কোম্পানি ও যৌথ উদ্যোগে বিনিয়োগের একটি নতুন ঢেউ আসবে বলে বাংলাদেশ আশা করছে। 

বুধবার (২৭ অক্টোবর) ‘জাপান-বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট সামিট ২০২১’-এ বক্তব্য প্রদানকালে তিনি এই আশার কথা ব্যক্ত করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ বিনিয়োগ, বাণিজ্য এবং জি-টু-জি ও পি-টু-পি উভয় পর্যায়ের যোগাযোগকে স্বাগত জানায়।’

তিনি বলেন, ‘অনেক ক্ষেত্রে বাংলাদেশ  ও জাপান অবকাঠামো উন্নয়নে অথবা আইসিটি’র মতো উদীয়মান খাতে উন্নয়ন অংশীদার হতে পারে।’

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘ক্রমবর্ধমান ফরেন ডাইরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট অনুযায়ী, যেহেতু জাপান বাংলাদেশের বিদেশি শীর্ষ ৫টি বিনিয়োগকারী দেশের অন্যতম— তাই অর্থায়ন, নির্মাণ, পুঁজি ও প্রযুক্তির ক্ষেত্রে মেগা-প্রজেক্টগুলোতে দেশটি আমাদের অন্যতম প্রধান অংশীদার হতে পারে।’ 

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ও জাপানের মধ্যকার বাণিজ্য সম্পর্ক এখন এক ভিন্ন উচ্চতায় পৌঁছে গেছে। দুদেশের মধ্যে বাণিজ্যের পরিমাণ ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে। জাপানে আমাদের রফতানির পরিমাণ ১.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং জাপান থেকে আমদানির পরিমাণ ১.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আমাদের বিনিয়োগ, পণ্য ও রফতানি বাজারে বৈচিত্র্য চাই। আমরা সম্ভাব্য সর্বোত্তম উপায়ে শিল্প ও ভোক্তা উভয় বৈশ্বিক বাজারেই সেবা দিতে চাই।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বিদেশে বাংলাদেশি মিশনগুলোকে ব্যবসা ও অর্থনৈতিক উদ্যোগগুলোতে সহায়তা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’ 

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ জাপানের সঙ্গে জোরদার, বিস্তৃত ও গভীর সম্পর্ককে গভীরভাবে মূল্যায়ন করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘১৯৭২ সালে জাপানে বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সফরের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও জাপানের মধ্যে যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ভিত রচিত হয়েছে, আমরা আজও  তার সুফল ভোগ করছি।’

মোমেন বলেন, ‘বর্তমানে আমরা অর্থনৈতিক কূটনীতির দিকে দৃঢ়ভাবে অগ্রসর হচ্ছি।’  

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘মাত্র ১২ বছরেরও কম সময়ের মধ্যে গোটা দেশকে দারিদ্র্যতা থেকে মুক্ত করে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম-আয়ের দেশে পরিণত করার প্রধানমন্ত্রীর অসামান্য দক্ষতা বিশ্বব্যাপী স্বীকৃতি পেয়েছে।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘এখন শেখ হাসিনার এই অলৌকিক উন্নয়নের গল্প শোনানো হচ্ছে। এটা বাংলাদেশে গল্প। যখন বিশ্বের বিভিন্ন দেশ কোভিড-১৯ মহামারি কাটিয়ে উঠতে পারেনি, তখন বাংলাদেশ দ্রুত এই মহামারি মোকাবিলা করে দেশটির অর্থনৈতিক অগ্রগতি বজায় রেখেছে।’ খবর: বাসস

 

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

বাংলাদেশ কৃষি খাতে বিশ্বে ‘উন্নয়ন মডেল’ হিসেবে স্বীকৃত: খাদ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ কৃষি খাতে বিশ্বে ‘উন্নয়ন মডেল’ হিসেবে স্বীকৃত: খাদ্যমন্ত্রী

ফেরি দুর্ঘটনা তদন্তে ৭ সদস্যের কমিটি

ফেরি দুর্ঘটনা তদন্তে ৭ সদস্যের কমিটি

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

‘২০২২ সালের পর রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য থাকবে না’

‘২০২২ সালের পর রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য থাকবে না’

গুলশানে ট্রান্সফরমার বিস্ফোরণ, শিশুসহ দগ্ধ ৪

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২০:৪৪

রাজধানীর গুলশানে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারের বিস্ফোরণে আগুনের স্ফুলিঙ্গে পাশের ভবনে থাকা শিশুসহ ৪ জন দগ্ধ হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশংকাজনক। তাদেরকে উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) গুলশান-২ এর ১০৩ নম্বর রোডের ৩৮/এ বাসায় এ ঘটনাটি ঘটে।

আগুনে গৃহকর্ত্রী মালিহা আনহা ঊর্মির (৩২) শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে গেছে। একই সময় তার সন্তান মাসরুর মো. রাফিনের (২) পুড়েছে ৪০ শতাংশ,  গৃহকর্মী মনির (৩৫) পুড়েছে ৩০ শতাংশ এবং এ এম রফিকুল ইসলামের (৩৫) শরীরের ২ শতাংশ পুঁড়ে গেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন এস এম আইউব হোসেন জানিয়েছেন, দগ্ধ চার জনের মধ্যে তিন জনের অবস্থাই আশংকাজনক।

দগ্ধদের মধ্যে মা ও সন্তান দু'জনকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে। একজনকে জেনারেল ওয়ার্ডে ভর্তি রাখা হয়েছে। অপর একজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

রোগীর স্বজনদের বরাত দিয়ে ওই চিকিৎসক আরও জানান, বাসার পাশে রাস্তায় থাকা বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার বিস্ফোরণ হয়ে জানালা ভেঙ্গে আগুন ঘরে প্রবেশ করে, সেখানে এসি বিস্ফোরণেরও ঘটনা ঘটে। এতে তারা দগ্ধ হয়েছেন।

/এআইবি/এআরআর/

সম্পর্কিত

‘২০২২ সালের পর রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য থাকবে না’

‘২০২২ সালের পর রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য থাকবে না’

ধর্মের নামে উন্মাদনা সৃষ্টিকারীরা রাষ্ট্রকে অকার্যকর দেখাতে চায়: শাজাহান

ধর্মের নামে উন্মাদনা সৃষ্টিকারীরা রাষ্ট্রকে অকার্যকর দেখাতে চায়: শাজাহান

টিকা নিতে ঢামেকে উপচেপড়া ভিড়

টিকা নিতে ঢামেকে উপচেপড়া ভিড়

‘ঢাকা মেয়র কাপ আন্তওয়ার্ড ক্রীড়া প্রতিযোগিতা’র দ্বিতীয় আসর ২২ ডিসেম্বর

‘ঢাকা মেয়র কাপ আন্তওয়ার্ড ক্রীড়া প্রতিযোগিতা’র দ্বিতীয় আসর ২২ ডিসেম্বর

চকবাজারে যুবকের লাশ উদ্ধার

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২০:২৬

রাজধানীর চকবাজারে একটি বাসা থেকে মো. ওয়াজিব (২৪) নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পরিবারের দাবি, মায়ের সঙ্গে অভিমান করে এই যুবক আত্মহত্যা করেছে। বুধবার (২৭ অক্টোবর) বিকাল চারটায় চকবাজার থানার কাজি রিয়াজ উদ্দিন রোডের একটি ছয়তলা বাড়ির তিনতলা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। ওয়াজিব পরিবারের সঙ্গে ওই বাসায় ভাড়া থাকতো।

মৃতের বড় ভাই সোহাগ জানান, ওয়াজিব এলিফ্যান্ট রোডে একটি জুতার দোকানে সেলসম্যান ছিল। দুই মাস আগে সে চাকরি ছেড়ে দেয়। তিন মাস তার বিয়ে হয়। আমি তাকে আবারও এলিফ্যান্ট রোডের জুতার দোকানে কাজ ঠিক করে দেই। আজ সকাল থেকে তার কাজে যাওয়ার কথা থাকলেও সে যায়নি। এ বিষয়ে মা তাকে বকা দেয়। পরে সে নিজের রুমে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেয়।

উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের এএসআই আব্দুল্লাহ খান জানান,মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। ওয়াজিব ময়মনসিংহ জেলার কোতোয়ালি থানার মাসকান্দা গ্রামের আবদুল মান্নানের ছেলে। তিন ভাইয়ের মধ্যে সে ছিল সবার ছোট।

/এআরআর/এআইবি/এমআর/

সম্পর্কিত

ঢামেকে কারাবন্দি হাজতির মৃত্যু

ঢামেকে কারাবন্দি হাজতির মৃত্যু

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা: সাংবাদিক ইমন কারাগারে

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা: সাংবাদিক ইমন কারাগারে

মাদকের নতুন রুটের বিষয়ে ভারতকে জানালো বাংলাদেশ

মাদকের নতুন রুটের বিষয়ে ভারতকে জানালো বাংলাদেশ

যাত্রাবাড়ীতে পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় প্রাণ গেলো নারী পথচারীর

যাত্রাবাড়ীতে পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় প্রাণ গেলো নারী পথচারীর

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি হবে না: শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:১৭

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়েছেন, ২০২২ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা ফেব্রুয়ারিতে হবে না। বুধবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে সচিবালয়ে ২০২১ সালের এসএসসি, দাখিল, এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিল (ভোকেশনাল) পরীক্ষা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই তথ্য জানান।

ডা. দীপু মনি বলেন, ‘এবারের এসএসসি পরীক্ষা শেষ হবে ২৩ নভেম্বর। সেক্ষেত্রে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি পরের এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে না। কারণ, শিক্ষার্থীদের ক্লাসের বিষয় রয়েছে। কবে ও কীভাবে ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া হবে তা পরে জানাতে পারবো।’

প্রতি বছরের ফেব্রুয়ারির শুরুতে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নেওয়া হয়। করোনার কারণে এ বছর তা পিছিয়ে যায়। আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে এই পরীক্ষা শুরুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রণালয়। মহামারি পরিস্থিতির কারণে এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে কেবল নৈর্বাচনিক তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা হবে।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, আবশ্যিক বিষয়গুলোর পরীক্ষা না নিয়ে সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা হবে। মূল্যায়ন নম্বরের সঙ্গে নৈর্বাচনিক তিনটি বিষয়ের পরীক্ষার নম্বর যোগ করে ফল দেওয়া হবে। পরীক্ষা শেষের দুই মাসের মধ্যে ফল পাবে শিক্ষার্থীরা।

/এসএমএ/জেএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

প্রশ্নফাঁসের গুজব সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী

প্রশ্নফাঁসের গুজব সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী

করোনা আক্রান্ত হলে হাসপাতালে পরীক্ষার ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী 

করোনা আক্রান্ত হলে হাসপাতালে পরীক্ষার ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী 

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বাংলাদেশ কৃষি খাতে বিশ্বে ‘উন্নয়ন মডেল’ হিসেবে স্বীকৃত: খাদ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ কৃষি খাতে বিশ্বে ‘উন্নয়ন মডেল’ হিসেবে স্বীকৃত: খাদ্যমন্ত্রী

২০২২ সালে জাপানি বিনিয়োগে নতুন ঢেউয়ের আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

২০২২ সালে জাপানি বিনিয়োগে নতুন ঢেউয়ের আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

ফেরি দুর্ঘটনা তদন্তে ৭ সদস্যের কমিটি

ফেরি দুর্ঘটনা তদন্তে ৭ সদস্যের কমিটি

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই সেমিস্টারে শিক্ষার্থী নিতে কেন মরিয়া ইউজিসি?

‘২০২২ সালের পর রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য থাকবে না’

‘২০২২ সালের পর রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য থাকবে না’

‘টেকসই উন্নয়নের জন্য চাই ঐক্যবদ্ধ সামাজিক শক্তি’

‘টেকসই উন্নয়নের জন্য চাই ঐক্যবদ্ধ সামাজিক শক্তি’

করোনা আক্রান্ত হলে হাসপাতালে পরীক্ষার ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী 

করোনা আক্রান্ত হলে হাসপাতালে পরীক্ষার ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী 

রেইনট্রিতে শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলার রায় ১১ নভেম্বর

রেইনট্রিতে শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলার রায় ১১ নভেম্বর

‘অপসংস্কৃতির বিরুদ্ধে সামাজিকভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে’

‘অপসংস্কৃতির বিরুদ্ধে সামাজিকভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে’

বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ্য শিক্ষক নিয়োগের আহ্বান ইউজিসি’র

বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ্য শিক্ষক নিয়োগের আহ্বান ইউজিসি’র

সর্বশেষ

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

ডুবে যাওয়া ফেরিটি ৪২ বছরের পুরনো, উদ্ধার হয়নি এখনও

ডুবে যাওয়া ফেরিটি ৪২ বছরের পুরনো, উদ্ধার হয়নি এখনও

৫ লাখ ৩৮ হাজার ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

৫ লাখ ৩৮ হাজার ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

গলায় মার্বেল আটকে এক বছরের শিশুর মৃত্যু

গলায় মার্বেল আটকে এক বছরের শিশুর মৃত্যু

সুদানে সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে চিকিৎসক ও তেলকর্মীরা

সুদানে সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে চিকিৎসক ও তেলকর্মীরা

© 2021 Bangla Tribune