X
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ভাষা সৈনিক আহমদ রফিককে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়ার আহ্বান

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৫২

ভাষা সৈনিক, লেখক, বুদ্ধিজীবী আহমদ রফিককে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়ার জন্য প্রতিমন্ত্রী ও বাংলা একাডেমির মহাপরিচালকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানিয়েছেন ১৮ জন লেখক-কবি। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

আহ্বান জানানো লেখক কবিরা হচ্ছেন—শোয়াইব জিবরান, ওবায়েদ আকাশ, আহমদ মোস্তফা কামাল, রাজীব নূর, শাহনাজ মুন্নী, লোপা মমতাজ, জোবাইদা নাসরিন, কবির হুমায়ূন, আলফ্রেড খোকন, শামীম রেজা, রেজা ঘটক, আফরোজা সোমা, পিয়াস মজিদ, মোজাফফর হোসেন, সাইমন জাকারিয়া, স্বকৃত নোমান, শাহেদ কায়েস ও সরকার আমিন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভাষা সৈনিক, লেখক, বুদ্ধিজীবী আহমদ রফিক অসুস্থ অবস্থায় অসহায় জীবন যাপন করছেন। তিনি আমাদের মহান মনীষী। ভাষা আন্দোলনে প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ করেছেন। বাঙালির প্রতিটি আন্দোলনে তাঁর ভূমিকা ছিল অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। সৃষ্টিশীল লেখা ও গবেষণা ছাড়াও তিনি জাতীয় ক্ষেত্রে অনন্য ভূমিকা পালন করেছেন। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে তার অসামান্য অবদান রয়েছে। তিনি একাধারে কবি, কথাশিল্পী, সাহিত্য-সমাজ-রাজনীতি-বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ে বহু গ্রন্থের লেখক, তিনি রবীন্দ্রতত্ত্বাচার্য। পেশায় তিনি একজন ডাক্তার ছিলেন। জীবনভর দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করেছেন। রবীন্দ্র চর্চাকেন্দ্র ট্রাস্ট-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন তিনি। তার অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার, একুশ পদক পেয়েছেন। এ ছাড়াও কলকাতার টেগোর রিসার্চ ইনস্টিটিউট তাকে ‘রবীন্দ্রতত্ত্বাচার্য’ উপাধিতে ভূষিত করেছে।

এতে আরও বলা হয়, তিনি তার জমানো ২০ লাখ টাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ট্রাস্ট করেছেন। তার সন্তানাদি নেই, একা মানুষ। এখন প্রবল আর্থিক কষ্টে পড়েছেন। খুব সম্প্রতি তার ৯৩তম জন্মদিন উপলক্ষে একটি দৈনিক পত্রিকার সাক্ষাৎকারে তিনি স্বেচ্ছায় মৃত্যুর আইন চেয়েছেন। আমরা তার এই দাবির সঙ্গে তার বর্তমান অবস্থার সম্পৃক্ততা অনুভব করে বিচলিত বোধ করছি। তিনি অত্যন্ত আত্মমর্যাদাসম্পন্ন মানুষ, কোনও অবস্থাতেই ব্যক্তি মানুষের দান-খয়রাত গ্রহণ করতে একেবারেই প্রস্তুত নন। এমতাবস্থায় রাষ্ট্রীয় জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার জন্য এই মানুষটিকে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা প্রদান করা একান্ত প্রয়োজন। বঙ্গবন্ধু-কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এরই মধ্যে অনেক লেখকের কল্যাণে এগিয়ে এসেছেন। আশা করি, আহমদ রফিককে এককালীন ৩০ লাখ টাকা অনুদান প্রদান করে তার বাকি জীবনটাকে শান্তিপূর্ণ এবং মর্যাদাপূর্ণ করে তুলবেন। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সদয় হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

 

 

/এসও/আইএ/

সম্পর্কিত

ক্যাবল টিভি খাতে নীতিমালা প্রণয়নে ফিড অপারেটরদের অন্তর্ভুক্তির দাবি

ক্যাবল টিভি খাতে নীতিমালা প্রণয়নে ফিড অপারেটরদের অন্তর্ভুক্তির দাবি

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি

৭ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

৭ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

‘২০২২ সালে কোনও সাম্প্রদায়িক হামলা দেখতে চাই না’

‘২০২২ সালে কোনও সাম্প্রদায়িক হামলা দেখতে চাই না’

জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় একযোগে কাজ করবে অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ 

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৪:১৩

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় ঝুঁকিপূর্ণ দরিদ্র দেশগুলোতে ধনী দেশগুলোর প্রতিশ্রুত বার্ষিক ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার দিতে হবে। পাশাপাশি প্যারিস জলবায়ু চুক্তির অন্যান্য বিষয়ে বিশ্ব নেতৃবৃন্দ ঐক্যমতে পৌঁছাবেন বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে পরিবেশ মন্ত্রীর সাথে বাংলাদেশে নিযুক্ত অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার জেরেমি ব্রুয়ার সাক্ষাত করেন। এসময় দুই দেশের প্রতিনিধিদলের মধ্যে অনুষ্ঠিত দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে জেরেমি ব্রুয়ার বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাব মোকাবিলায় অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশ একযোগে কাজ করবে।

সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোস্তফা কামাল, অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন)  ইকবাল আব্দুল্লাহ হারুন, অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) আহমদ শামীম আল রাজী, অতিরিক্ত সচিব (জলবায়ু পরিবর্তন) সঞ্জয় কুমার ভৌমিকসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ‘সিভিএফ’ এবং ‘ভি ২০’-এর সভাপতি হিসেবে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। বাংলাদেশ উন্নত এনডিসি প্রণয়ন করেছে ও মুজিব ক্লাইমেট প্রসপারিটি প্ল্যান ঘোষণা করেছে এবং ন্যাপ প্রণয়নের কাজও চলমান।

এ সময় জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বাংলাদেশের বিভিন্ন উদ্যোগের প্রশংসা করে হাইকমিশনার বলেন, প্রযুক্তি হস্তান্তর, নবায়নযোগ্য জ্বালানি, ক্লিন এনার্জি, জলবায়ু অভিযোজন ও প্রশমনমূলক কর্মকাণ্ড  প্রভৃতি ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়ার সহযোগিতা ক্রমবর্ধমান গতিতে অব্যাহত থাকবে।

/এসএনএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

আগের শর্তেই পরীমণিসহ তিন জনের জামিন

আগের শর্তেই পরীমণিসহ তিন জনের জামিন

আদালতে পরীমণি

আদালতে পরীমণি

পরীমণির বিরুদ্ধে মাদক মামলায় চার্জশিট গ্রহণ আজ

পরীমণির বিরুদ্ধে মাদক মামলায় চার্জশিট গ্রহণ আজ

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান সংক্রান্ত সমন্বয় সভা

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান সংক্রান্ত সমন্বয় সভা

ফ্রি ফায়ার গেমসের পক্ষে লড়তে পারবে না সিঙ্গাপুরের গ্যারিনা

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৪:০৭

অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে পাবজি, ফ্রি ফায়ারসহ ক্ষতিকর গেমস বন্ধের রুলের শুনানিতে পক্ষভুক্ত হতে চেয়ে ফ্রি ফায়ার গেমসের প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান সিঙ্গাপুরের গ্যারিনা অনলাইন প্রাইভেট লিমিটেডের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে গ্যারিনার আবেদনের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার জুনায়েদ আহমেদ চৌধুরী ও তানভীর কাদের। আর রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন ব্যারিস্টার হুমায়ন কবির পল্লব।

এর আগে গত ১৯ জুন অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে টিকটক, বিগো লাইভ ও লাইকির মতো ভিডিও স্ট্রিমিং ওয়েবসাইট, অ্যাপস এবং পাবজি ও ফ্রি ফায়ারের মতো অনলাইন গেম বন্ধে একটি আইনি নোটিশ পাঠানো হয়। সেই নোটিশের জবাব না পেয়ে গত ২৪ জুন সব অনলাইন প্লাটফর্ম থেকে এসব ওয়েবসাইট, অ্যাপ ও গেম বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে রিট দায়ের করা হয়। সুপ্রিম কোর্টের দুই আইনজীবী ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ন কবির পল্লব এবং ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কাউছার রিটটি দায়ের করেন।

রিটে ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, শিক্ষা সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব,  আইন সচিব, স্বাস্থ্য সচিব এবং পুলিশের আইজিকে বিবাদী করা হয়।

সেই রিটের শুনানি নিয়ে গত ১৬ আগস্ট দেশের অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে এসব ওয়েবসাইট, অ্যাপ ও ক্ষতিকর গেমস অবিলম্বে বন্ধের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে অনলাইন সব প্ল্যাটফর্ম থেকে এই ওয়েবসাইট, অ্যাপ ও ক্ষতিকর গেম স্থায়ীভাবে বন্ধে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত। বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব আদেশ দেন। সেই রুল শুনানিতে অংশ নিতে হাইকোর্টে আবেদন করে সিঙ্গাপুরের গ্যারিনা অনলাইন প্রাইভেট লিমিটেড। 

তারা আবেদনে জানায়, ফ্রি ফায়ার গেমসের অসংখ্য ‘প্লেয়ার’ বাংলাদেশে আছেন। আদালতের আদেশে ফ্রি ফায়ার গেমসের লিংক ব্লক করে দেওয়ার কারণে গ্যারিনা অনলাইন প্রাইভেট লিমিটেড ব্যবসায়িকভাবে সরাসরি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তাই এই রিট মামলায় গ্যারিনা অনলাইন প্রাইভেট লিমিটেড পক্ষভুক্ত হতে চায়।

প্রসঙ্গত, এর আগেও একই নির্দেশনা চেয়ে গত ৩০ ডিসেম্বর হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন আইনজীবী মো. জে আর খান রবিন। সে রিট আবেদনটি শুনানির জন্য হাইকোর্টের কার্যতালিকায় অপেক্ষমাণ রয়েছে।

/বিআই/ইউএস/  

সম্পর্কিত

রাজারবাগ পীর সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে দুদক, সিআইডি ও সিটিটিসির তদন্ত চলবে

রাজারবাগ পীর সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে দুদক, সিআইডি ও সিটিটিসির তদন্ত চলবে

আগের শর্তেই পরীমণিসহ তিন জনের জামিন

আগের শর্তেই পরীমণিসহ তিন জনের জামিন

আত্মসমর্পণ করে পরীমণির আবারও জামিনের আবেদন

আত্মসমর্পণ করে পরীমণির আবারও জামিনের আবেদন

ক্যাবল টিভি খাতে নীতিমালা প্রণয়নে ফিড অপারেটরদের অন্তর্ভুক্তির দাবি

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৪:১৩

ক্যাবল টিভি খাতে নীতিমালা প্রণয়ন ও সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে ফিড অপারেটরদের অন্তর্ভুক্ত করাসহ ৮ দফা দাবি জানিয়েছে ফিড অপারেটর্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে তারা এ দাবি জানায়।

তাদের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে, ক্যাবল টিভি খাতকে প্রযুক্তি ভিত্তিক শিল্প ঘোষণা করতে হবে; ক্লিন ফিড বাস্তবায়নে স্থানীয় পরিবেশককে নির্দেশ দিতে হবে; ফিড অপারেটরদের ব্যবসা পরিচালনায় ক্যাবল অপারেটদের সঙ্গে চুক্তি বাধ্যতামূলক করতে হবে; ডিজিটালকরণের আগে পে-চ্যানেলের মূল্য সরকার কর্তৃক নির্ধারণ করতে হবে; আন্ডার গ্রাউন্ড ক্যাবল বরাদ্দে এনটিটিএন প্রতিষ্ঠানগুলোকে মূল্য নির্ধারণসহ বরাদ্দ নিশ্চিতে উদ্যোগ নেওয়াসহ ক্যবল অপারেটর ফিড অপারেটরদের জন্য ব্যাংক এবং প্রাতিষ্ঠানিক ঋণের সুবিধা দিতে হবে।

সংগঠনটি থেকে বক্তারা বলেন, আমাদের ন্যায্য দাবিসমূহ আলোচনা করে কার্যকর করার উদ্যোগ গ্রহণ করে আত্মকর্মসংস্থানে গুরুত্বপূর্ণ খাতটিতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনবে বলে আশা করি।

 

 

/জেডএ/আইএ/

সম্পর্কিত

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি

৭ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

৭ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

‘২০২২ সালে কোনও সাম্প্রদায়িক হামলা দেখতে চাই না’

‘২০২২ সালে কোনও সাম্প্রদায়িক হামলা দেখতে চাই না’

বাড়ছে বায়ুদূষণ, ডিসেম্বরে ঢাকায় ‘স্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা’র শঙ্কা

বাড়ছে বায়ুদূষণ, ডিসেম্বরে ঢাকায় ‘স্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা’র শঙ্কা

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৮

জলবায়ু পরিবর্তনে উপকূলের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ক্ষতিপূরণ আদায়ে বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনে (কপ-২৬) কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন পরিবেশ আন্দোলন ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ‘সুন্দরবন ও উপকূল সুরক্ষা আন্দোলন’ এবং বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা -‘পিভার্স ও ফেইস ইন অ্যাকশন’ আয়োজিত মানববন্ধনে তারা এ দাবি করেন।

মানববন্ধনে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলকে দুর্যোগ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ঘোষণা করে উপকূলের জীবন-জীবিকা রক্ষায় দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান তারা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, আগামী নভেম্বরে গ্লাসগোতে অনুষ্ঠিতব্য জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলনে বার্ষিক তহবিল বাড়ানোর দিকে দৃষ্টি দিতে হবে। প্রতিবছর বন্যা ও ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ নির্মাণ এবং উপকূলের মানুষকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য আগামীতে পদক্ষেপ নিতে হবে। আগামীতে সরকারের প্রকল্প গ্রহণের ক্ষেত্রে দুর্যোগের ঝুঁকিতে থাকা মানুষের স্বার্থকে প্রাধান্য দিতে হবে। সরকারের উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে সমন্বয়, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার আহ্বান জানান তারা।

এছাড়া সমাবেশে উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের পাশাপাশি উপকূলজুড়ে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব মোকাবিলায় দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। অভিযোজন প্রক্রিয়া বাড়াতে হবে। সুপেয় পানির স্থায়ী সমাধান করতে হবে। এ জন্য বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে ক্ষতিপূরণ বুঝিয়ে দিতে হবে। এই ক্ষতিপূরণ আদায়ে সম্মেলনে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলকে যথাযথ ভূমিকা রাখার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন তারা।

সমাবেশে উত্থাপিত দাবিনামায় বলা হয়, জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগকে মাথায় রেখে স্থায়ী ও মজবুত বেড়িবাঁধ পুনর্নির্মাণ করতে হবে। পর্যাপ্ত সাইক্লোন সেন্টারসহ প্রতিরোধক ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে। বাঁধ রক্ষণাবেক্ষণে জরুরি তহবিল গঠন ও বাঁধ ব্যবস্থাপনায় স্থানীয় সরকারকে সম্পৃক্ত করাসহ উপকূলীয় সব মানুষের খাবার পানির টেকসই ও স্থায়ী সমাধান করতে হবে।

তারা আরও দাবি জানান, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বিশ্ব জলবায়ু তহবিল থেকে প্রাপ্ত অর্থ যথাযথভাবে কাজে লাগাতে হবে। গণসচেতনতা বৃদ্ধিতে বছরব্যাপী বিভিন্ন প্রচারণামূলক কার্যক্রম শুরু করতে হবে। ঝড়-ঝঞ্ঝা ও ভূমিক্ষয় রোধে উপকূলে ব্যাপক হারে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি গ্রহণ এবং সবুজবেষ্টনি গড়ে তুলতে হবে। একইসঙ্গে বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবন রক্ষায় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সুন্দরবন ও উপকূল সুরক্ষা আন্দোলনের সমন্বয়ক নিখিল চন্দ্র ভদ্র, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) মিহির বিশ্বাস, উন্নয়ন ধারা ট্রাস্টের আমিনুর রসুল বাবুল, নৌ সড়ক ও রেলপথ রক্ষা জাতীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আশীষ কুমার দে, স্ক্যান সাধারণ সম্পাদক মনিরজ্জামান মুকুল, ফেইথ ইন অ্যাকশনের নির্বাহী পরিচালক নৃপেন বৈদ্য, সমাজ কল্যাণ উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস) চেয়ারম্যান জেসমিন প্রেমা, সচেতন সংস্থার সাকিলা পারভীন, লিডার্সের পরিতোষ কুমার বৈদ্য, উন্নয়নকর্মী সানজিদুল ইসলাম প্রমুখ।

 

 

/জেডএ/আইএ/

সম্পর্কিত

ক্যাবল টিভি খাতে নীতিমালা প্রণয়নে ফিড অপারেটরদের অন্তর্ভুক্তির দাবি

ক্যাবল টিভি খাতে নীতিমালা প্রণয়নে ফিড অপারেটরদের অন্তর্ভুক্তির দাবি

৭ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

৭ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

‘২০২২ সালে কোনও সাম্প্রদায়িক হামলা দেখতে চাই না’

‘২০২২ সালে কোনও সাম্প্রদায়িক হামলা দেখতে চাই না’

বাড়ছে বায়ুদূষণ, ডিসেম্বরে ঢাকায় ‘স্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা’র শঙ্কা

বাড়ছে বায়ুদূষণ, ডিসেম্বরে ঢাকায় ‘স্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা’র শঙ্কা

রাজারবাগ পীর সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে দুদক, সিআইডি ও সিটিটিসির তদন্ত চলবে

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৩

রাজারবাগ পীর ও দরবারের বিরুদ্ধে দুদক, সিআইডি ও সিটিটিসিকে তদন্ত করতে বলা হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল খারিজ করে দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। এর ফলে হাইকোর্টের আদেশ বহাল থাকায় তাদের বিরুদ্ধে তিনটি সংস্থার তদন্তে আর কোনও বাধা রইলো না।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।

আদালতে পীরদের আবেদনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী মুরাদ রেজা। রিটকারীদের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জেড আই খান পান্না। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির।

এর আগে ১৯ সেপ্টেম্বর রাজারবাগ দরবার শরিফের সব সম্পদের তথ্য খুঁজতে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), তাদের জঙ্গি সম্পৃক্ততা আছে কিনা তা তদন্ত করতে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) এবং উচ্চ আদালতে রিটকারী ৮ জনের বিরুদ্ধে করা হয়রানিমূলক মামলার বিষয়ে তদন্ত করতে সিআইডিকে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব আদেশ দেন।

পরে ওই আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতে আবেদন জানানো হয়েছিল। গত ১১ অক্টোবর চেম্বার আদালত হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত না করে আবেদনটি আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়ে দেন।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাজারবাগ দরবার শরিফের পীর দিল্লুরসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী ৮ জন ব্যক্তির পক্ষে অ্যাডভোকেট শিশির মনির হাইকোর্টে এ রিট দায়ের করেন।

রিটকারীদের মধ্যে শিশু, মহিলা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, মাদ্রাসার শিক্ষক ও ব্যবসায়ী রয়েছেন। তাদের প্রত্যেকে রাজারবাগ দরবার শরিফের পীর ও তাদের মুরিদদের হয়রানিমূলক মামলার শিকার।

রিট আবেদনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব ও আইজিপিসহ মোট ২০ জনকে বিবাদী করা হয়।

 

 

/বিআই/আইএ/

সম্পর্কিত

ফ্রি ফায়ার গেমসের পক্ষে লড়তে পারবে না সিঙ্গাপুরের গ্যারিনা

ফ্রি ফায়ার গেমসের পক্ষে লড়তে পারবে না সিঙ্গাপুরের গ্যারিনা

আগের শর্তেই পরীমণিসহ তিন জনের জামিন

আগের শর্তেই পরীমণিসহ তিন জনের জামিন

আত্মসমর্পণ করে পরীমণির আবারও জামিনের আবেদন

আত্মসমর্পণ করে পরীমণির আবারও জামিনের আবেদন

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ক্যাবল টিভি খাতে নীতিমালা প্রণয়নে ফিড অপারেটরদের অন্তর্ভুক্তির দাবি

ক্যাবল টিভি খাতে নীতিমালা প্রণয়নে ফিড অপারেটরদের অন্তর্ভুক্তির দাবি

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি

৭ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

৭ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

‘২০২২ সালে কোনও সাম্প্রদায়িক হামলা দেখতে চাই না’

‘২০২২ সালে কোনও সাম্প্রদায়িক হামলা দেখতে চাই না’

বাড়ছে বায়ুদূষণ, ডিসেম্বরে ঢাকায় ‘স্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা’র শঙ্কা

বাড়ছে বায়ুদূষণ, ডিসেম্বরে ঢাকায় ‘স্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা’র শঙ্কা

চট্টগ্রাম ছাড়া অন্য এলাকার আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে

চট্টগ্রাম ছাড়া অন্য এলাকার আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে

রাজধানীতে দুই শিশু যৌন নির্যাতনের শিকার, অভিযুক্তরা গ্রেফতার

রাজধানীতে দুই শিশু যৌন নির্যাতনের শিকার, অভিযুক্তরা গ্রেফতার

কলকাতা প্রেসক্লাবে ‘বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার’র উদ্বোধন ২৮ অক্টোবর

কলকাতা প্রেসক্লাবে ‘বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার’র উদ্বোধন ২৮ অক্টোবর

বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় একসঙ্গে কাজ করা প্রয়োজন: গুতেরেস

বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় একসঙ্গে কাজ করা প্রয়োজন: গুতেরেস

বাড্ডার আগুন নিয়ন্ত্রণে

বাড্ডার আগুন নিয়ন্ত্রণে

সর্বশেষ

পাকিস্তানের আবেগের ম্যাচ, উইলিয়ামসন দেখছেন ভিন্নভাবে

পাকিস্তানের আবেগের ম্যাচ, উইলিয়ামসন দেখছেন ভিন্নভাবে

চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, আটক ৩

চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, আটক ৩

চট্টগ্রাম মেডিক্যালে চালু হলো বিশেষ স্ট্রোক ইউনিট

চট্টগ্রাম মেডিক্যালে চালু হলো বিশেষ স্ট্রোক ইউনিট

জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় একযোগে কাজ করবে অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ 

জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় একযোগে কাজ করবে অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ 

সহিংসতায় ইন্ধনদাতাদের নাম শিগগিরই প্রকাশ করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সহিংসতায় ইন্ধনদাতাদের নাম শিগগিরই প্রকাশ করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

© 2021 Bangla Tribune