X
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ঢাকা মেডিক্যালে প্রবাসীদের ফাইজারের টিকা দেওয়া শুরু

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৪৬

সংকট থাকায় প্রবাসীদের ফাইজারের টিকা দান বন্ধ ছিল। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) থেকে আবরও ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এ টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। প্রবাসী শ্রমিকদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ফাইজারের ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

তারা জানায়, ফাইজারের পাশাপাশি সিনোফার্মের প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ এবং মডার্নার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া চলমান রয়েছে।

ঢামেক হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক আশরাফুল আলম বলেন, ‘আমাদের হাসপাতালে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ফাইজারের ভ্যাকসিন (প্রথম ডোজ) নিয়েছেন ৪২৬ জন। সিনোফার্মের প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৮৬৫ জন এবং মডার্নার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৪২ জন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখানে দুটি টিকা কেন্দ্রের মধ্যে একটি চালু রয়েছে। নিবন্ধনকৃতদের মধ্যে যারা এসএমএস পেয়েছেন, তারা ব্যতীত কেউ টিকা নিতে পারবেন না।’

প্রসঙ্গত, প্রবাসীরা বেশ কিছু দিন ধরে ফাইজারের টিকা নিতে না পেরে আন্দোলন করে আসছেন। আজ অনেকেই ফাইজারের প্রথম ডোজ নিতে পেরে আনন্দিত।

 

 

/এআইবি/এসও/আইএ/

সম্পর্কিত

ফেসবুকের ‘ভুয়া খবরেই’ দেশের সব সাম্প্রদায়িক হামলা

ফেসবুকের ‘ভুয়া খবরেই’ দেশের সব সাম্প্রদায়িক হামলা

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

ফেসবুকের ‘ভুয়া খবরেই’ দেশের সব সাম্প্রদায়িক হামলা

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৩০

দেশে গত দশকে যত সাম্প্রদায়িক হামলা হয়েছে তার নেপথ্যে কলকাঠি নাড়িয়েছে নানা প্রকারের গুজব। একটি চক্র ভুয়া খবর ও ষড়যন্ত্রমূলক পোস্ট ফেসবুকে ছড়িয়ে দিতেই সংখ্যালঘুদের ওপর একই ছকে হামলা হয়। প্রতিবারই এসব ঘটনা মোকাবিলায় হিমশিম খায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

গত এক দশকে গুজব ছড়ানোতে বেশি ‘অবদান’ ছিল ফেসবুকের। এর গতি এত তীব্র ছিল যে সেটা দমানোর মতো প্রযুক্তি আমাদের দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছেও নেই। গুজবের পাশাপাশি একটি মহল থেকে আবার বক্তব্য বিবৃতি দিয়ে উসকানিও চালানো হয় সমানতালে। বেশ কয়েকটি ঘটনা পর্যালোচনা করে এমন তথ্যই পাওয়া গেছে।

নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা বলছেন, একটি চক্রের উদ্দেশ্যই হলো দেশকে অস্থিতিশীল করা। তারাই এসব গুজবের হোতা।

ভোলায় আইডি হ্যাক করে গুজব

ভোলার বোরহানউদ্দিনে ২০১৯ সালের ২০ অক্টোবর হিন্দুদের একটি এলাকায় সংঘবদ্ধ হামলা চালিয়ে মন্দির, বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাঙচুর করা হয়। অভিযোগ করা হয়, বিপ্লব চন্দ্র বৈদ্য নামের এক তরুণ তার ফেসবুকের মেসেঞ্জারে মহানবীকে (সা.) নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য ছড়িয়েছে। সেই মেসেঞ্জার-বার্তার স্ক্রিনশট ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। এরপর চালানো হয় হামলা। পুলিশ ও জনতার সংঘর্ষে নিহত হয় পাঁচজন। আহত হন অনেকেই। হিন্দুদের অসংখ্য বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়।

অথচ হামলার দুদিন আগে ১৮ অক্টোবর নিজের ফেসবুক আইডি হ্যাক হয়েছে বলে বোরহানউদ্দিন থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন বিপ্লব চন্দ্র। পুলিশ বিপ্লবের অ্যাকাউন্ট হ্যাকের প্রমাণও পায় এবং দুজনকে গ্রেফতার করে।

ভুয়া আইডির কারণে হামলা

২০১৬ সালের ৩০ অক্টোবর। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রসরাজ দাস নামের এক দরিদ্র জেলের নামে একটি আইডি খুলে ফেসবুকে ইসলাম নিয়ে অবমাননাকর পোস্ট দেওয়ার খবর ছড়িয়ে জেলার নাসিরনগরের হরিপুরে হামলা করা হয়। রসরাজকে মারধর করে পুলিশেও দেওয়া হয়। পরে জানা গেলো, ফেসবুক কী, সেটাই জানেন না অক্ষরজ্ঞানহীন রসরাজ। তার নামে থাকা আইডিও ভুয়া। এমনকি ফরেনসিক রিপোর্টেও পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে রসরাজের মোবাইল থেকে ফেসবুকে কোনও স্ট্যাটাসও দেওয়া হয়নি। এটা জানার আগেই তছনছ হয়ে যায় নাসিরনগরের হিন্দুদের ৫টি মন্দির ও কয়েক শ’ বাড়ি। নাসিরনগরে হামলার ঘটনায় মোট আটটি মামলা হয়। বেশিরভাগ মামলার তদন্ত এখনও চলছে।

. বৌদ্ধ তরুণের নামে গুজব ছড়িয়ে রামুতে হামলা

উত্তম বড়ুয়া নামের এক বৌদ্ধ তরুণ ফেসবুকে ইসলাম অবমাননাকর কন্টেন্ট আপলোড করেছে—এমন অভিযোগ করে ২০১২ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর একদল দুষ্কৃতকারী সংঘবদ্ধ হয়ে কক্সবাজারের রামুর বৌদ্ধপল্লীতে হামলা চালায়। তবে আজও উত্তম বড়ুয়া নামে সেখানে কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। অথচ, এ নিয়ে স্থানীয়রা রীতিমতো সমাবেশ করে হামলা চালিয়েছিল।

ওই হামলায় বৌদ্ধপল্লীর ১৯টি বৌদ্ধমন্দির ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। এ ছাড়াও বৌদ্ধদের অসংখ্য বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছিল। সরকারের পক্ষ থেকে পরে মন্দির ও মূর্তি নির্মাণ করে দেওয়া হয়। এই ঘটনায় রামু, উখিয়া ও টেকনাফে ১৯টি মামলা হয়। এরমধ্যে একটি মামলা প্রত্যাহার হয়। তবে কোনওটির বিচার শেষ হয়নি।

. ফেসবুকের কথিত পোস্ট নিয়ে রংপুরে হামলা

ফেসবুকের কথিত স্ট্যাটাসের সূত্র ধরে ২০১৭ সালের ১০ নভেম্বর রংপুরের গঙ্গাচড়ায় হিন্দু এলাকায় হামলা চালায় সংঘবদ্ধ মুসলিম সম্প্রদায়। নারায়ণগঞ্জে থাকা টিটু রায় নামে এক ব্যক্তির ফেসবুকের আইডি থেকে অবমাননাকর পোস্ট করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়। যার জেরে মিছিল নিয়ে হিন্দুদের বাড়িতে হামলা করা হয়।

সর্বশেষ কুমিল্লা

গত ১৩ অক্টোবর কুমিল্লার নানুয়াদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখাকে কেন্দ্র করে দেশের রংপুর, চাঁদপুর, সিলেট, কিশোরগঞ্জসহ বেশকয়েকটি জেলার হিন্দুদের ঘরবাড়ি ও মন্দিরে হামলার ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে নিহত হয় পাঁচজন। মামলা হয়েছে অন্তত ৭২টি। এখন পর্যন্ত গ্রেফতার পাঁচ শতাধিক।

কুমিল্লা পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে দেখা গেছে, ইকবাল নামের এক তরুণ একটি মাজারের মসজিদ থেকে কোরআন নিয়ে মণ্ডপের মূর্তির পায়ের কাছে রেখে আসে। পরের দিন ওরাই আবার ফেসবুকে লাইভ করে সবাইকে উত্তেজিত করে। এরপর সারাদেশে উত্তেজনা ও সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে।

ফেসবুক কেন এসব ঘটানো হচ্ছে?

বাংলাদেশে গত একযুগে সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা পর্যালোচনায় দেখা যায়, দুই-এক বছর পরপরই এমন গুজব বা ষড়যন্ত্রমূলক হামলার ঘটনা ঘটেছে। ধর্মীয় স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে কেন এসব ঘটানো হয় জানতে চাইলে নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুর রশিদ বলেন, ‘একটি চক্র পরিকল্পনা করে এই অস্থিরতা সৃষ্টি করে। ধর্মীয় বিষয় নিয়ে কোনও কিছু ছড়ালে তাতে মানুষ দ্রুত প্রতিক্রিয়া দেখাতে শুরু করে। অনেক মানুষ সম্পৃক্ত হয়। এই অস্থিরতার মধ্যে একটি গোষ্ঠী ফায়দা নিতে চায়। তারা এটা পরিকল্পনা করেই করে।’

এই নিরাপত্তা বিশ্লেষক আরও বলেন, ‘মানুষের মধ্যে ফেসবুক ব্যবহারের সংখ্যা বাড়ছে। ষড়যন্ত্রকারীদের বানানো তথ্য দ্রুত পৌঁছে যাচ্ছে সবার কাছে। এমনভাবে তারা খবর বানায় যা সাধারণ মানুষ বিশ্বাস করে। যাচাই করতেও যায় না।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কারও ব্যক্তিগত পোস্ট বা অখ্যাত কোনও ওয়েবসাইটের খবরকে বিশেষ প্রাধান্য না দেওয়ার কথাই বলেছেন আব্দুর রশীদ।

তিনি বলেন, ‘জনগণকে সচেতন হতে হবে। ফেসবুকে যা আসবে সব তো সত্য নয়। মূলধারার গণমাধ্যম ছাড়া অন্য যেকোনও মাধ্যমের তথ্য বিশ্বাস করার আগে তা যাচাই করে নিতে হবে।’

দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনাল

সাম্প্রদায়িক হামলায় যে মামলাগুলো হচ্ছে সেগুলোর বিচার দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালে হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, ‘পুলিশ প্রতিবেদন পাওয়ার পরই বিচার শুরু হবে। এ সংক্রান্ত ভিডিও ফুটেজ তুলে ধরা হবে। চার্জশিট দেওয়া হলেই সেটা দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালে দেওয়া হবে।’

/এফএ/

সম্পর্কিত

সৌদিতে বাংলাদেশির কারাদণ্ড: আইনজীবী নিয়োগে টাকা দিচ্ছে কল্যাণ বোর্ড

সৌদিতে বাংলাদেশির কারাদণ্ড: আইনজীবী নিয়োগে টাকা দিচ্ছে কল্যাণ বোর্ড

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

সৌদিতে বাংলাদেশির কারাদণ্ড: আইনজীবী নিয়োগে টাকা দিচ্ছে কল্যাণ বোর্ড

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২২:০০

বাংলাদেশি যুবক মো. আবুল বাশারকে গত  ২৬ সেপ্টেম্বর মাদক দ্রব্য আইনে ২০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে সৌদি আরবের একটি আদালত। দেশটিতে প্রবেশের সময় তার ব্যাগে ইয়াবা পাওয়ায়  এই সাজা দেওয়া হয়। তবে অভিযোগ রয়েছে, সেই ইয়াবা তার ব্যাগে ‘আচারের প্যাকট’ বলে  ঢুকিয়ে দেন বিমানবন্দরে পরিচ্ছন্নতার কাজে নিয়োজিত এসআর সুপারভাইজার নুর মোহাম্মদ।

এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার কথা জানিয়েছিল জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট। সেজন্য আইনজীবী নিয়োগে অর্থ ছাড় দিয়েছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জেদ্দা কনস্যুলেট সূত্রে জানা যায়, এর আগে আইনজীবী নিয়োগের বিষয়ে ঢাকায় চিঠি পাঠানো হয়। চিঠিতে বলা হয়,  আবুল বাশারের পক্ষে যাবতীয় তথ্য-উপাত্ত-যুক্তি আপিল আদালতে নির্ভুল ও যথাযথভাবে উপস্থাপনের জন্য একজন সৌদি আইনজীবী নিয়োগ দেওয়া প্রয়োজন। একজন নির্দোষ ব্যক্তি যেন অযথা ভুক্তভোগী না হন এবং ভুল বিচারপ্রাপ্তির আশঙ্কা যথাসম্ভব প্রতিরোধে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা হিসেবে আইনজীবী নিয়োগের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দের কথা ঢাকায় চিঠি দিয়ে অনুরোধ জানায় জেদ্দার বাংলাদেশ কনস্যুলেট। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ২১ অক্টোবর ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড ৬ লাখ ৮৫ হাজার টাকা অর্থ ছাড় দিয়ে চিঠি পাঠায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের লেবার উইং বরাবর।

ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের উপপরিচালক মো. জাহিদ আনোয়ারের সই করা চিঠিতে বলা হয়, ‘অ্যামফিটামিন বহনের অভিযোগে প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মী  আবুল বাশারকে সৌদি আরবের আদালত ২০ বছরের কারাদণ্ড দিযেছে। তাকে মুক্ত করার লক্ষ্যে আদালতে আপিল শুনানিতে আইনজীবী নিয়োগের জন্য কন্স্যুলেটের চাহিদা অনুযায়ী,  ৬ লাখ ৮৫ হাজার টাকা ২০২১-২২ অর্থবছরের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড হতে দূতাবাসের অনুকূলে ‘আইনগত সহায়তা বাবদ খাতে’ বরাদ্দকৃত বাজেট হতে কতিপয় শর্ত সাপেক্ষে  ব্যয়ের অনুমোদন দেওয়া হলো।’

জেদ্দার বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কর্মকর্তারা জানান, বাশারের বিরুদ্ধে মাদক মামলায় ২০ বছরের সাজা দেন সৌদির আদালত। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখপূর্বক বিষয়টি সহানুভূতির সঙ্গে বিবেচনা করার জন্য কনস্যুলেটের পক্ষ থেকে সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নোট ভারবাল এবং মক্কার সোমাইশীতে সামারি কোর্ট কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দেওয়া হয় এবং কনস্যুলেটের পক্ষ হতে প্রয়োজনীয় আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়।

এর আগে দূতাবাসের কর্মকর্তারা জানান,  ২০ বছর সাজা ঘোষণার পর এক মাসের মধ্যে আপিল করার সুযোগ আছে। বাশারের জন্য আপিল করার প্রস্তুতি নিয়েছে কনস্যুলেট। এজন্য ঢাকা থেকে প্রকৃত দায়ী ব্যক্তির বিরুদ্ধে বাংলাদেশে দায়ের করা মামলার এজাহার এবং এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশের (এপিবিএন) কাছ থেকে বিশেষ প্রতিবেদন সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়া এই ঘটনার আরও  প্রমাণ থাকলে তা পাঠিয়ে সহায়তা করার জন্য ঢাকায় চিঠি দেওয়া হয়।

আবুল বাশারের মুক্তির জন্য প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদের সঙ্গে দেখা করেছেন তার স্ত্রী রাবেয়া। স্বামীকে মুক্ত করার জন্য লিখিতভাবে তিনি অনুরোধ জানান মন্ত্রীকে। সেই সময় মন্ত্রী তাকে সহায়তা করার আশ্বাস দেন। তখন মন্ত্রী বলেছিলেন,  আপিলের বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

/এসও/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

রাজধানীর সবুজবাগে স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর সবুজবাগে স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২০:৪০

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ ও দোষীদের বিচারের দাবিতে ঢাকাসহ সারা দেশে প্রতিবাদ, অনশন ও বিক্ষোভ মিছিল অব্যাহত আছে। শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাজধানীসহ মানিকগঞ্জ, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, চট্টগ্রাম, পটুয়াখালী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, নোয়াখালী, জামালপুরে গণঅবস্থান, অনশনসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

শনিবার সকাল ১১টায় সারা দেশে ‘সুজন’-এর উদ্যোগে দ্য হাঙ্গার প্রজেক্ট, ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার, জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরাম, বিকশিত নারী নেটওয়ার্কসহ সমমনা সংগঠনগুলোকে নিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। ঢাকার মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয় জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে। সমমনা সংগঠনের মধ্যে গণস্বাক্ষরতা অভিযান, মানবাধিকার উন্নয়ন কেন্দ্র, এবং রিসার্চ অ্যান্ড এমপাওয়ারমেন্ট অরগানাইজেশন এই মানববন্ধনে যোগ দেয়। 

.

মানববন্ধনে সুজনের সহসভাপতি ও মানবাধিকারকর্মী ড. হামিদা হোসেন, সুজন সম্পাপদক ড. বদিউল আলম মজুমদার, বিকশিত নারী নেটওয়ার্কের সভাপতি রাশেদা আক্তার শেলীসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনটি সঞ্চালনা করেন সুজনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দিলীপ কুমার সরকার।          

বদিউল আলম মজুমদার বলেন, ‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, আমরা কেউই নিরাপদ নই। এটা আমাদের জন্য জেগে ওঠার ঘণ্টাধ্বনি। দীর্ঘদিন ধরে বিচারহীনতার সংস্কৃতি, দোষারোপের সংস্কৃতির কারণে অপরাধীরা ধরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে।’

.

তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রামের মিতু হত্যার পর আমরা দেখলাম— পুলিশ অনেক  মানুষকে গ্রেফতার করেছে, অথচ পরে দেখা গেলো সর্ষের মধ্যেই ভূত। অথচ কত মানুষের জীবন জীবিকা নষ্ট করে দেওয়া হলো। সাম্প্রতিক হামলাগুলোর ক্ষেত্রে আমরা দেখতে পাচ্ছি, আমাদের তরুণরা অনেক ক্ষেত্রে সামনের কাতারে ছিল, এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত আশঙ্কাজনক একটি বিষয়। তরুণদের জন্য আমাদের এখনই একটি জাতীয় কর্মসূচি নিতে হবে।’

হামিদা হোসেন বলেন, ‘প্রশাসন ও পুলিশ ঠিক মতো কাজ করছে না। এখন নাগরিকদের বিভিন্ন সক্রিয় কর্মসূচি নিতে হবে। বিভিন্ন নাগরিক সংগঠনকে একজোট হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন, তথ্য প্রমাণ সংগ্রহ ইত্যাদি কাজ করতে হবে।’

‘সাম্প্রদায়িক হামলাকারী’ ও তাদের পেছনে থাকা চক্রান্তকারীদের বিচারে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠনের দাবি জানিয়েছে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। ট্রাইব্যুনাল গঠনসহ আট দফা দাবি জানিয়ে রাজধানীর শাহবাগে ‘গণঅনশন ও গণঅবস্থান’ কর্মসূচি শেষ করেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। সেই সঙ্গে ঘোষণা করা হয়েছে তিন দফা কর্মসূচিও।

.

পাশপাশি শনিবার সকাল ৬টা থেকে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে গণঅবস্থান কর্মসূচি শুরু করে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। পরে তাদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে অবস্থান নেয় বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠন। এক পর্যায়ে একটি অংশ শাহবাগ মোড় অবরোধ করে। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মানবাধিকার কর্মী খুশি কবির পানি পান করিয়ে আন্দোলনকারীদের অনশন ভাঙান। পরে আয়োজকরা বিক্ষোভ মিছিল বের শাহবাগ মোড় ছেড়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের দিকে পদযাত্রা করেন। তাদের সঙ্গে যুক্ত হন অবরোধকারীরাও।

. কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় সারা দেশের সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলায় ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির, বাড়ি-ঘর পুনর্নির্মাণ, ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত।  শনিবার (২৩ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর আন্দরকিল্লা মোড় এলাকায় সংগঠনটির উদ্যোগে আয়োজিত গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচিতে উপস্থিত হয়ে তিনি এসব দাবি জানান। গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচিতে সনাতন ধর্মাবলম্বী শত শত নারী পুরুষ অংশ নেন। এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির, বাড়ি-ঘর পুনর্নির্মাণ, ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন, যথাযথ ক্ষতিপূরণ ছাড়াও আহতদের চিকিৎসা এবং নিহতদের প্রতিটি পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানান।

/এসও/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

ইউজিসির খণ্ডকালীন সদস্য হলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২০:০৯

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) খণ্ডকালীন সদস্য মনোনীত হয়েছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান। গত ১৭ অক্টোবর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে চিঠি দিয়ে এ বিষয়টি জানিয়েছে ইউজিসি। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. ফয়জুল করিম এসব তথ্য জানান। 

অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমানকে পাঠানো চিঠিতে জানানো হয়, ৫ অক্টোবর থেকে পরবর্তী দুই বছরের জন্য বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের খণ্ডকালীন সদস্য মনোনীত হয়েছেন তিনি। কমিশনের পক্ষ থেকে এজন্য তাকে অভিনন্দন জানানো হয়।

ইউজিসি কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান গত ৩১ মে থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ৩০ মে তাঁকে এই নিয়োগ দিয়েছেন।

ড. মশিউর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক। সুইডেনের লুন্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি আছে তার। একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পোস্ট ডক্টরাল গবেষণা সম্পন্ন করেন তিনি।

/জেএইচ/

সম্পর্কিত

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ শিক্ষার্থী

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ শিক্ষার্থী

জবি ছাত্রীর আত্মহত্যা, শিক্ষককে দায়ী করছেন স্বজন ও সহপাঠীরা

জবি ছাত্রীর আত্মহত্যা, শিক্ষককে দায়ী করছেন স্বজন ও সহপাঠীরা

সব শিক্ষা অফিসের ইন্টারনেট সেবা সংক্রান্ত তথ্য চেয়েছে সরকার

সব শিক্ষা অফিসের ইন্টারনেট সেবা সংক্রান্ত তথ্য চেয়েছে সরকার

প্রাথমিকের অফিসে ই-ফাইলিং শুরু ৩১ অক্টোবর

প্রাথমিকের অফিসে ই-ফাইলিং শুরু ৩১ অক্টোবর

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২০:০৯

দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে দেশের কয়েকটি জেলায় সাম্প্রদায়িক হামলা, প্রতিমা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে মশাল সমাবেশ করেছে নারীবাদী সংগঠন ‘প্রজন্মান্তরে নারীবাদী মৈত্রী’।

শনিবার (২৩ অক্টোবর)  সন্ধ্যা ছয়টায় রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ‘সাম্প্রদায়িকতার বিষদাঁত গুঁড়িয়ে দেবো!’ ব্যানারে মশাল ও প্ল্যাকার্ড হাতে সমাবেশ করে সংগঠনটি। এ সময় সংগঠনটির সঙ্গে সংহতি জানিয়ে সেখানে উপস্থিত ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা ‘ধর্ম আমার বাঁচার অধিকার হরণ করতে পারে না,,‘ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার’, ‘রাষ্ট্রের কোনও ধর্ম নাই’,‘ধর্মভেদে বৈষম্য, নিপাত যাক, নিপাত যাক’, ‘সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, বাংলাদেশের সর্বনাশ’, ‘সাম্প্রদায়িকতার কদাচার, ঘৃণা আর ধিক্কার’,‘সাম্প্রদায়িকতার বিষদাঁত ভাঙতে রাখো হাতে হাত’,‘সাম্প্রদায়িকতার সাম্প্রদায়িকতার বিষদাঁত, দেখে নেবো এক হাত’ ইত্যাদি স্লোগান দেন।

. অপরদিকে সাম্প্রদায়িক হামলার নিন্দা জানিয়ে ‘রুখে দাও ধর্ম সন্ত্রাস’ শিরোনামে টিএসসিতে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ এবং স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বরে কবিতার মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবৃত্তি সংসদ।

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকের ‘ভুয়া খবরেই’ দেশের সব সাম্প্রদায়িক হামলা

ফেসবুকের ‘ভুয়া খবরেই’ দেশের সব সাম্প্রদায়িক হামলা

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করায় প্রাথমিকের শিক্ষক বরখাস্ত

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করায় প্রাথমিকের শিক্ষক বরখাস্ত

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

মসজিদে একই ওয়াক্তে একাধিক জামাত করা যাবে কি?

মসজিদে একই ওয়াক্তে একাধিক জামাত করা যাবে কি?

সর্বশেষ

ফেসবুকের ‘ভুয়া খবরেই’ দেশের সব সাম্প্রদায়িক হামলা

ফেসবুকের ‘ভুয়া খবরেই’ দেশের সব সাম্প্রদায়িক হামলা

বিশ্বের বৃহৎ ১০ অর্থনীতির একটি হবে তুরস্ক: এরদোয়ান

বিশ্বের বৃহৎ ১০ অর্থনীতির একটি হবে তুরস্ক: এরদোয়ান

হারের বৃত্তেই আটকে বাংলাদেশের যুবারা

হারের বৃত্তেই আটকে বাংলাদেশের যুবারা

জালিয়াতি করে আড়াই কোটি টাকা তুলে নিলেন হিসাব সহকারী

জালিয়াতি করে আড়াই কোটি টাকা তুলে নিলেন হিসাব সহকারী

৫০ বলেই ম্যাচ জয় ইংল্যান্ডের

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ৫০ বলেই ম্যাচ জয় ইংল্যান্ডের

© 2021 Bangla Tribune