X
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

হাতিরঝিলে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় সাইকেল আরোহী নিহত

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:০৬

রাজধানীর হাতিরঝিলে মাই টিভির সামনে দ্রুতগামী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় মনির হোসেন (৫৫) নামের এক বাইসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসকরা পরীক্ষা নিরীক্ষার পর বেলা আড়াইটার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জানা যায়, হাতিরঝিল মাই টিভির সামনে রাস্তায় বাইসাইকেল নিয়ে যাওয়ার সময় একটি দ্রুতগামী মাইক্রোবাস বাইসাইকেলকে ধাক্কা দিলে রাস্তায় ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন মনির। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুর খবর শুনে মাইক্রোচালক পালিয়ে যান।

মৃতের বোন জামাই রিপন জানায়, মনির চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি থানার হাজিল উদ্দিনের ছেলে।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করা হয়েছে।

/এআইবি/আরটি/এমআর/

সম্পর্কিত

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:১৫

গত ২৪ ঘণ্টায় (১৬ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে ১৭ অক্টোবর সকাল ৮টা পর্যন্ত) ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২০১ জন। তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের হাসপাতালে ১৪০ জন এবং বাকি ৬১ জন দেশের অন্যান্য বিভাগের হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এই ২০১ জনকে নিয়ে এ মাসে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেন তিন হাজার ২০৫ জন।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) ডেঙ্গু-বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম এ তথ্য জানায়।

বর্তমানে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মোট ৮৪৪ জন রোগী ভর্তি আছেন। তাদের মধ্যে ঢাকার সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৬৫১ জন এবং অন্যান্য বিভাগে ভর্তি আছেন ১৯৩ জন।

চলতি বছরে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন মোট ২১ হাজার ৪০২ জন। তাদের মধ্যে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২০ হাজার ৪৭৫ জন এবং চলতি বছরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় যারা ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তাদের মধ্যে ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী রোগী সবচেয়ে বেশি। এ বয়সের রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৬ দশমিক তিন শতাংশ। এরপর রয়েছে ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সীরা। এ সংখ্যা ২৪ দশমিক এক শতাংশ।

৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সীরা ভর্তি হয়েছেন ১৯ দশমিক পাঁচ শতাংশ, এক থেকে ১০ বছর বয়সীরা ভর্তি হয়েছেন ১২ দশমিক আট শতাংশ, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সীরা ছয় শতাংশ, ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সীরা চার দশমিক পাঁচ শতাংশ, ষাটোর্ধ্বরা তিন দশমিক আট শতাংশ এবং শূন্য থেকে এক বছর বয়সের রোগী ভর্তি হয়েছে তিন শতাংশ।

 

 

/জেএ/আইএ/

সম্পর্কিত

২৯ জেলায় শনাক্ত নেই

২৯ জেলায় শনাক্ত নেই

আল নাহিয়ান ট্রাস্ট্রে দ্রুত নির্বাহী পরিচালক নিয়োগের সুপারিশ

আল নাহিয়ান ট্রাস্ট্রে দ্রুত নির্বাহী পরিচালক নিয়োগের সুপারিশ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

২৯ জেলায় শনাক্ত নেই

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৮

দেশে করোনা সংক্রমণের নিম্নগতি অব্যাহত রয়েছে। শনিবার (১৬ অক্টোবর) দৈনিক শনাক্তের হার নেমে আসে দুয়ের নিচে, যা চলতি বছরে প্রথম। সেই ধারা অব্যাহত রয়েছে আজ রবিবারও (১৭ অক্টোবর)। গতকালের চেয়েও আজ কমে এসেছে শনাক্তের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় (১৬ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে ১৭ অক্টোবর সকাল ৮টা পর্যন্ত) করোনায় দৈনিক শনাক্তের হার এক দশমিক ৭৪ শতাংশ, গতকাল যা ছিল এক দশমিক ৮৮ শতাংশ।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, দেশে গত ১ মাস ধরেই করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক অবস্থায় রয়েছে। যার প্রমাণ মেলে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের ৬৪ জেলার সংক্রমণের চিত্রতেই।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে তিন জেলায় শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা এক অঙ্কের ওপরে। আর বাকি ৬১ জেলার মধ্যে ২৯ জেলাতেই করোনাতে রোগী শনাক্তের হার শূন্য, অর্থাৎ এই জেলাগুলোতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাতে কেউ শনাক্ত হয়নি।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের রবিবারের ( ১৭ অক্টোবর) করোনা বিষয়ক নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে দেখা যায়, দেশের আট বিভাগের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ঢাকা মহানগরসহ জেলা ঢাকা জেলায় শনাক্ত হয়েছেন ১৯১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলায় শনাক্ত হয়েছেন যথাক্রমে ১০ ও ৩২ জন।

বাকি জেলার মধ্যে ঢাকা বিভাগের কিশোরগঞ্জ, নরসিংদী, রাজবাড়ী ও শরীয়তপুর জেলায়, ময়মনসিংহ বিভাগের ময়মনসিংহ ও শেরপুর জেলায়, চট্টগ্রাম বিভাগের বান্দরবান, খাগড়াছড়ি, কুমিল্লা ও ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলায়, রাজশাহী বিভাগের চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ ও সিরাজগঞ্জ জেলায়, রংপুর বিভাগের লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধা জেলায়, খুলনা বিভাগের বাগেরহাট, চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, মাগুরা, মেহেরপুর ও নড়াইল জেলায়, বরিশাল বিভাগের বরিশাল, ভোলা, বরগুনা ও ঝালকাঠি জেলায় ও সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলায় গত একদিনে করোনাতে কেউ শনাক্ত হয়নি।

/জেএ/এমআর/

সম্পর্কিত

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

টিকায় ভালো পরিকল্পনার ঘাটতি আছে: অধ্যাপক ডা. বে-নজির

টিকায় ভালো পরিকল্পনার ঘাটতি আছে: অধ্যাপক ডা. বে-নজির

দুই ডোজ টিকার আওতায় ১ কোটি ৮৯ লাখ মানুষ

দুই ডোজ টিকার আওতায় ১ কোটি ৮৯ লাখ মানুষ

১৫ দিনে ৩ হাজার ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

১৫ দিনে ৩ হাজার ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৬

কোভিড-১৯ টিকা দেওয়ার জন্য মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদফতরের আওতাধীন ঢাকা মহানগরীর সকল মাদ্রাসায় অধ্যয়নরত ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার। আগামী ১৯ অক্টোবরের মধ্যে নির্ধারিত ছকে শিক্ষার্থীদের তথ্য মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদফতরে পাঠাতে হবে।

গত ১৪ অক্টোবর স্বাক্ষরিত চিঠি রাজধানীর মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে পাঠানো হয়েছে।  

চিঠিতে জানানো হয়, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদফতরের আওতাধীন ঢাকা মহানগরীর সকল মাদ্রাসায় অধ্যয়নরত ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের কোভিড-১৯ এর টিকা দেওয়ার জন্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। রাজধানীর সকল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও সুপারদের নিজ নিজ মাদ্রাসার ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত ছক অনুসারে এক্সেল (Excel) শিট পূরণ করে আগামী ১৯ অক্টোবরের মধ্যে [email protected] ই-মেইলে পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হয়।

নির্ধারিত ছকে শিক্ষার্থীর নাম, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, ছাত্র বা ছাত্রী, শিক্ষার্থীর জন্ম তারিখ, অভিভাবকের মোবাইল নম্বর, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম, প্রতিষ্ঠানের এডুকেশন ইনস্টিটিউশন আইডেন্টিফিকেশন নম্বর (ইআইআইএন) উল্লেখ করে তথ্য পাঠাতে হবে।  

চিঠিতে আরও বলা হয়, তথ্যগুলো অবশ্যই ইংরেজিতে সংযুক্ত এক্সেল সিটে পূরণ করে পাঠাতে হবে।

/এসএমএ/এমআর/

সম্পর্কিত

জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোটের ৩ দাবি

জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোটের ৩ দাবি

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

আল নাহিয়ান ট্রাস্ট্রে দ্রুত নির্বাহী পরিচালক নিয়োগের সুপারিশ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৫

শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ান ট্রাস্টে (বাংলাদেশ) নির্বাহী পরিচালক নিয়োগ দিতে বলেছে সংসদীয় কমিটি। কমিটি দ্রুতকম সময়ের মধ্যে নির্বাহী পরিচালক নিয়োগে জনপ্রশাসন  মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিতে বলেছে। অবশ্য মন্ত্রণালয় ইতোমধ্যে এ বিষয়ে কাজ শুরু করেছে বলে বৈঠককে জানিয়েছে।

রবিবার (১৭ অক্টাবর) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা হয়।

কমিটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখানে দীর্ঘদিন নির্বাহী পরিচালক ছিলেন না। এখানে অনেক কাজ হয়েছে যেগুলো একটু ফিশি। এখন মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে, দ্রুত নির্বাহী পরিচালক নিয়োগ দিতে হবে। সেজন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিতে বলেছি।’

মেনন আরও বলেন, ‘আমরা একটি সংসদীয় উপ-কমিটি গঠন করেছিলাম। তারা তদন্ত করে যে প্রতিবেদন দিয়েছিল, সেগুলো নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি। পরের বৈঠকেও এ সংক্রান্ত তথ্যাদি দিতে বলা হয়েছে।’

কমিটির কার্যপত্র থেকে জানা গেছে, নির্বাহী পরিচালক নিয়োগে ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়।

২০১২ সাল থেকে প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী পরিচালকের দায়িত্বে ছিলেন কেবিএম ওমর ফারুক চৌধুরী। অবসরে যাওয়ার পরেও মৌখিক আদেশে গত ৩ মে পর্যন্ত দায়িত্বে ছিলেন তিনি। পরে তার নিয়োগ বাতিল করা হয়। বর্তমানে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব গিয়াস উদ্দিন মোগলকে সাময়িক দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। 

১৯৮৪ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ান বাংলাদেশ সফর করেন। ওই সময় এতিম শিশুদের কল্যাণে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করলে ওই বছরের ২২ জুন গঠন করা হয় আল নাহিয়ান ট্রাস্ট, যার দেখভালের দায়িত্বে আছে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়।

শুরুতে আরব আমিরাত এই ট্রাস্টে ৫০ হাজার মার্কিন ডলার দিয়েছিল। পরে সরাসরি ঠিকাদার নিয়োগ করে বাংলাদেশে ট্রাস্টের অধীনে একমাত্র আয়ের উৎস বনানীর আবাসিক ফ্ল্যাট ও শপিং কমপ্লেক্সের দোকানগুলো নির্মাণ করে দেয়।

দুই দেশের মধ্যে চুক্তি অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠানের জন্য জমি দেয় বাংলাদেশ সরকার, অবকাঠামো নির্মাণ ও পরিচালনা খরচ দেয় আরব আমিরাত সরকার। অথচ এ পর্যন্ত কত অর্থ সহায়তা পাওয়া গেছে, তার কোনও তথ্য এ প্রতিষ্ঠানে নেই।

২০১৯ সালে ট্রাস্টের সার্বিক বিষয়ে তদন্ত করার জন্য তিন সদস্যের একটি উপ-কমিটি গঠন করে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি। গত বছর তদন্ত প্রতিবেদন স্থায়ী কমিটিতে জমা দেয় উপ-কমিটি। রবিবার উপ-কমিটির বিভিন্ন সুপারিশ বাস্তবায়নের অগ্রগতি নিয়ে বৈঠক করে স্থায়ী কমিটি।

কমিটি নাহিয়ান ট্রাস্টের বনানী আবাসিক ভবনের ইউএই মৈত্রী কমপ্লেক্সের জায়গায় সরকারিভাবে বহুতল ভবন নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়ার সুপারিশ করে।

সংসদীয় উপ-কমিটি ট্রাস্টের আওতাধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন শতভাগ বাড়ানোর সুপারিশ করে।

ওই সুপারিশ সম্পর্কে মন্ত্রণালয় জানায়, ট্রাস্টের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা খাতে প্রায় চার কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। এ অবস্থায় শতভাগ বেতন দিতে হলে যে পরিমাণ টাকার প্রয়োজন হবে, তার একটি আর্থিক বিশ্লেষণ ট্রাস্টের পরের সভায় দেওয়া হবে বলে সংসদীয় কমিটিকে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

সংসদীয় কমিটির বৈঠকে নাহিয়ান ট্রাস্টের বিগত ১০ বছরের অডিট রিপোর্ট স্থায়ী কমিটির পরের সভায় উপস্থাপনের এবং অডিট রিপোর্টে কোনও আপত্তি না পাওয়া গেলে নতুন করে সরকারি বা উপযুক্ত অডিট ফার্মকে দিয়ে পূর্ণাঙ্গ অডিট করানোর সুপারিশ করা হয়।

সংসদীয় কমিটির নথিপত্র থেকে জানা গেছে, ২০০৯ সালের পর দীর্ঘদিন ট্রাস্টের কোনও অডিট করা হয়নি। ট্রাস্টের কাছে বেশ কয়েক দফায় তাগিদ দিয়েও তহবিল ও সম্পদের পরিমাণ, আয়-ব্যয়ের হিসাব সম্পর্কে স্বচ্ছ কোনও জবাব পাওয়া যায়নি।

২০০৫-০৬ অর্থবছরের পর ট্রাস্টের আর কোনও নিরীক্ষা প্রতিবেদন নেই। পরের বছরগুলোতে নিরীক্ষা প্রতিবেদন চলমান বলে কমিটিকে দেখানো হয়েছে। প্রায় ১০ বছর কেন অডিট করা হয়নি, সে বিষয়ে কোনও সদুত্তর পায়নি কমিটি।

তবে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, উপ-কমিটির তদন্ত চলাকালে নিরীক্ষা কাজ চলছিল। ২০১৮-১৯ অর্থবছর পর্যন্ত অডিট করা হয়েছে।

রাশেদ খান মেননের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য সমাজকল্যাণমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ, সাগুফতা ইয়াসমিন, আরমা দত্ত এবং শবনম জাহান অংশ নেন। বিশেষ আমন্ত্রণে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু বৈঠকে যোগ দেন।

/ইএইচএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

আইস ও অস্ত্রসহ আটক দু’জন ৯ দিনের রিমান্ডে

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৫৫

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থেকে মাদকদ্রব্য- আইস এবং অস্ত্রসহ গ্রেফতার দুই জনের পৃথক দুই মামলায় ৯ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আদালতের সাধারণ নিবন্ধন-জিআর শাখা থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

আসামিরা হলেন আইস সিন্ডিকেটের অন্যতম হোতা মো. খোকন এবং তার সহযোগী রফিক।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনুর রহমানের আদালত মাদক মামলায় ৫ দিন এবং ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়ার আদালত অস্ত্র মামলায় আসামিদের ৪ দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন। দুই মামলায় মোট ৯ দিনের রিমান্ডের আদেশ দেওয়া হয়।

এ দিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এই দুই আসামিকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে প্রত্যেকের পৃথক দুই মামলায় ১০ দিন করে মোট ২০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। পরে শুনানি শেষে দুই বিচারক রিমান্ডের আদেশ দেন।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) ভোরে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে সাড়ে ৫ কেজি আইসসহ এই দু’জনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

র‌্যাব বলছে, গ্রেফতারকৃত খোকন টেকনাফকেন্দ্রিক আইস ও ইয়াবার ব্যবসার সঙ্গে জড়িত একটি সিন্ডিকেটের অন্যতম হোতা। আর রফিক তার সহযোগী। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে আইসের পাশাপাশি বিদেশি অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। দেশে এখন পর্যন্ত এটাই সর্বোচ্চ পরিমাণের আইসের চালান, যার আনুমানিক বাজারমূল্য সাড়ে ১২ কোটি টাকা।

 

/এমএইচজে/আইএ/

সম্পর্কিত

যাত্রাবাড়ীতে হেরোইনসহ গ্রেফতার ১

যাত্রাবাড়ীতে হেরোইনসহ গ্রেফতার ১

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিরাই টার্গেট ছিনতাই চক্রটির

বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিরাই টার্গেট ছিনতাই চক্রটির

পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় দুই মামলায় আসামি ৪ হাজার

পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় দুই মামলায় আসামি ৪ হাজার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

‘ঢাকামুখী অভিবাসন বন্ধ না হলে কোনও পরিকল্পনাই কার্যকর হবে না’ 

‘ঢাকামুখী অভিবাসন বন্ধ না হলে কোনও পরিকল্পনাই কার্যকর হবে না’ 

‘ভবনে রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং থাকলে ১০ শতাংশ হোল্ডিং কর রেয়াত’

‘ভবনে রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং থাকলে ১০ শতাংশ হোল্ডিং কর রেয়াত’

হানিফ ফ্লাইওভারে বাস উল্টে দুই কাবাডি খেলোয়াড় আহত

হানিফ ফ্লাইওভারে বাস উল্টে দুই কাবাডি খেলোয়াড় আহত

‘দোলায় চড়ে’ দুর্গার বিদায় (ফটোস্টোরি)

‘দোলায় চড়ে’ দুর্গার বিদায় (ফটোস্টোরি)

যাত্রাবাড়ীতে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

যাত্রাবাড়ীতে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

শান্তি-সম্প্রীতির জন্য প্রার্থনা মসজিদে

শান্তি-সম্প্রীতির জন্য প্রার্থনা মসজিদে

সর্বশেষ

শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন সোমবার

শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন সোমবার

নিজেদের সামর্থ্য দেখালো স্বাগতিক ওমান

নিজেদের সামর্থ্য দেখালো স্বাগতিক ওমান

মনোনয়ন ফরম তোলার আগে জানলেন তারা ‌মারা গেছেন

মনোনয়ন ফরম তোলার আগে জানলেন তারা ‌মারা গেছেন

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

২৯ জেলায় শনাক্ত নেই

২৯ জেলায় শনাক্ত নেই

© 2021 Bangla Tribune