X
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

জলবায়ু সংকট: প্রতীকী ফাঁসিতে ঝুলে প্রতিবাদ

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:১৬

বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতিবাদে আন্দোলন ‌‘গ্লোবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইক‌’র সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে সাতক্ষীরায় ধর্মঘট ও প্রতীকী ফাঁসি কর্মসূচি পালন করেছেন তরুণরা।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কের শহীদ মিনারে বিশ্ব জলবায়ু ধর্মঘট দিবস উপলক্ষে সুইডিশ পরিবেশ আন্দোলনকর্মী গ্রেটা থুনবার্গের আহ্বানে সাড়া দিয়ে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

পরিবেশবাদী সংগঠন ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস, লিডার্স, কোস্টাল ইয়ুথ অ্যাকশন হাব, বাংলাদেশ মডেল ইয়ুথ পার্লামেন্ট, ফ্রাইডেস ফর ফিউচার বাংলাদেশ, ভিবিডি সাতক্ষীরা, সামাজিক ও রক্তদান সেবায় আমরা সহ জেলার বিভিন্ন পরিবেশবাদী ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এই কর্মসূচি পালন করে।

কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে জলবায়ুকর্মীরা আসন্ন জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলন (কপ-২৬) এবং যুব সম্মেলনকে সামনে রেখে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধির হার ১.৫ ডিগ্রিতে সীমিত রাখতে উন্নত দেশগুলোকে চাপে রাখাসহ প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়ন, পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় ও জলবায়ু ন্যায্যতার দাবি জানান। এ সময় প্রতীকী ফাঁসিতে ঝুলে জলবায়ু সংকটকে তুলে ধরেন ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিসের স্বেচ্ছাসেবক শাহিন সিরাজ।

ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিসের সাতক্ষীরা ইউনিটের সমন্বয়ক এস এম শাহিন আলমের সভাপতিত্বে ও সাতক্ষীরা স্টুডেন্ট সোসাইটির সভাপতি শেখ শাকিল হোসেনের সঞ্চালনায় কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন- দৈনিক দক্ষিণের মশালের সম্পাদক আশেক-ই-এলাহী, স্বদেশের নির্বাহী সম্পাদক মাধব চন্দ্র দত্ত, সাতক্ষীরা নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক আনিসুর রহিম, ভিবিডি সাতক্ষীরার সভাপতি সুব্রত হালদার, তামান্না তানজিম প্রমুখ।

তারা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে গোটা বিশ্ব ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। বাংলাদেশের উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরায় এই ঝুঁকির মাত্রা সবচেয়ে বেশি। বিশ্ব নেতারা বিষয়টি আমলে নিচ্ছেন না। জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি হ্রাস করতে এসব দেশের ভূমিকা সংকীর্ণ। প্যারিস চুক্তি প্রণয়নের প্রায় পাঁচ বছর অতিক্রান্ত হলেও জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় এখনও কার্যকর কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। তারা আমাদের ভবিষ্যৎ ও বর্তমান নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে।

বক্তারা আরও বলেন, আমরা আশার বাণী শুনতে চাই না। ২০২৫ সালের মধ্যেই গ্রিন হাউস গ্যাস নিঃসরণের মাত্রা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য দায়ী রাষ্ট্রসমূহের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ আদায় ও এর পরিবর্তনের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য আদায় করা অর্থ যথাযথভাবে ব্যয় করতে হবে।

উল্লেখ্য, সুইডেনের সংসদের সামনে দেশটির স্কুলপড়ুয়া ছাত্রী গ্রেটা থুনবার্গ একটি প্ল্যাকার্ড হাতে অবস্থান নেন। সেখানে লেখা ছিল- ‘স্কুল স্ট্রাইক ফর ক্লাইমেট’। তার এই উদ্যোগের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বিশ্বের নানান প্রান্তের শিক্ষার্থী ও তরুণরা ধর্মঘট পালন করেন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

বাঁশ কাটায় প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

বাঁশ কাটায় প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো দুই স্কুলছাত্রের

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো দুই স্কুলছাত্রের

ভাইয়ের মৃত্যুর দোয়া অনুষ্ঠান শেষে ফেরা হলো না বোনের

ভাইয়ের মৃত্যুর দোয়া অনুষ্ঠান শেষে ফেরা হলো না বোনের

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৫

যশোরে র‌্যাব পরিচয়ে এক ব্যবসায়ীর আট লাখ টাকা ছিনতাই করে পালানোর সময় ধরা পড়েছেন আমিনুল ইসলাম (৩৮) নামের এক যুবক। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয় জনতা। রবিবার রাত ৮টার দিকে যশোর শহরতলীর ধর্মতলা মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

আমিনুল ইসলাম সদরের ফতেপুর ইউনিয়নের ভায়না গ্রামের শেখ সবুরের ছেলে। যশোর শহরের কারবালা এলাকার বাসিন্দা মো. আব্দুল হক জানান, তিনি জাপানি টোব্যাকোর ডিলারশিপ নিয়ে ব্যবসা করেন। রাতে বেনাপোল থেকে সোহাগ পরিবহনে যশোরে নামেন। তার কাছে একটি ব্যাগে ৮ লাখ ৬ হাজার টাকা ছিল।

তিনি বলেন, বাস থেকে ধর্মতলায় নামার পর র‌্যাব পরিচয়ে এক যুবক আমার হাতের টাকার ব্যাগটি ছিনিয়ে নেয়। আমারর চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসে এবং আমিনুলকে ধরে ফেলে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাকে থানায় নিয়ে যায়।

যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি মো. তাজুল ইসলাম বলেন, আমিনুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আমিনুল ইসলাম জানিয়েছেন, তিনি র‌্যাবের সোর্স।

/এএম/

সম্পর্কিত

বাঁশ কাটায় প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

বাঁশ কাটায় প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো দুই স্কুলছাত্রের

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো দুই স্কুলছাত্রের

ভাইয়ের মৃত্যুর দোয়া অনুষ্ঠান শেষে ফেরা হলো না বোনের

ভাইয়ের মৃত্যুর দোয়া অনুষ্ঠান শেষে ফেরা হলো না বোনের

জানাজায় যাওয়ার পথে প্রাণ গেলো বৃদ্ধের

জানাজায় যাওয়ার পথে প্রাণ গেলো বৃদ্ধের

হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর ব্যবস্থা সন্তোষজনক: ব্রিটিশ হাইকমিশনার

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০২:০১

যুক্তরাজ্য সরকার সবসময় ধর্মীয় স্বাধীনতার পক্ষে উল্লেখ করে ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন বলেছেন, আমরা বিশ্বাস করি বাংলাদেশে সব ধর্মের মানুষ শান্তিতে বসবাস করছেন এবং ভবিষ্যতেও তা বজায় থাকবে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়ি ঘরে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়টি সন্তোষজনক।

রবিবার দুপুরে গাজীপুরের কাশিমপুরের সরাবো এলাকায় অবস্থিত বেক্সিমকো ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক এবং বেক্সিমকো পিপিই পার্ক পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।
 
ব্রিটিশ হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশের ১৯৭২ সালের সংবিধানে মানুষের স্বাধীনতার কথা, মানুষের অধিকারের কথা এবং সব ধর্মের সমান অধিকারের কথা স্পষ্ট করা আছে। এ সময় তিনি বাংলাদেশের শ্রমিকদের দক্ষ ও পরিশ্রমী উল্লেখ করে বলেন, প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা দিলে তাদের কাজের মান আরও ভালো হবে।

ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটার্টন ডিকসনের নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল বেক্সিমকো ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক এবং বেক্সিমকো পিপিই পার্ক পরিদর্শন করেন। এ সময় তার সঙ্গে স্ত্রী তেরেসা আলবর ছিলেন। প্রতিনিধিদল বেক্সিমকো পিপিই পার্কের ভেতরে আধুনিক পিপিই উৎপাদন সুবিধা ও একই প্রাঙ্গণে অবস্থিত সেন্টার অব এক্সিলেন্স ইন্টারটেক ল্যাব পরিদর্শন করে।

/এএম/

সম্পর্কিত

প্রাইভেটকার চালক হত্যায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

প্রাইভেটকার চালক হত্যায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার ১

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার ১

ফরিদপুরে নির্বাচনি সহিংসতায় যুবক নিহত, ৫০ বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ

ফরিদপুরে নির্বাচনি সহিংসতায় যুবক নিহত, ৫০ বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ

হেফাজতের সহিংসতার মামলায় বিএনপি নেতা রিমান্ডে

হেফাজতের সহিংসতার মামলায় বিএনপি নেতা রিমান্ডে

পাকিস্তানি সমর্থকদের ওপর ভারতীয় সমর্থকদের হামলায় দুই ভাই আহত

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩০

ঝালকাঠির রাজাপুরে ভারত-পাকিস্তানের খেলা দেখার সময় পাকিস্তান বলে চিৎকার দেওয়ায় ভারতীয় সমর্থকদের হামলায় পাকিস্তানের সমর্থক দুই ভাই আহত হয়েছেন।

রবিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার সাংগর গ্রামের সাংগর স্কুল সংলগ্ন আলীম স্টোরের সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন সাংগর গ্রামের আমীর হোসেন মৃধার ছেলে মো. কাশেম মৃধা (৩২) ও কামাল মৃধা (৪০)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, খেলায় পাকিস্তান যখন জিতে যাচ্ছিল তখন পাকিস্তানের সমর্থকরা উল্লাস করে চিৎকার দেন। এতে ভারতীয় সমর্থকদের গাত্রদাহ শুরু হয়। এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় দুই পক্ষের। একপর্যায়ে পাকিস্তানি সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়। এতে দুই ভাই আহত হন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কামাল মৃধা রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।কাশেম মৃধা চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

রাজাপুর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল হালিম তালুকদার বলেন, হামলায় দুই জন একটু আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এ ঘটনায় কোনও পক্ষই থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

/এএম/

সম্পর্কিত

ফেরি যুগের অবসান, খুললো সম্ভাবনার নতুন দুয়ার 

ফেরি যুগের অবসান, খুললো সম্ভাবনার নতুন দুয়ার 

স্বামীকে হত্যার পর ঘরের সামনে দা হাতে বসেছিলেন স্ত্রী

স্বামীকে হত্যার পর ঘরের সামনে দা হাতে বসেছিলেন স্ত্রী

বেপরোয়া গতির ২ বাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো মা-ছেলের

বেপরোয়া গতির ২ বাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো মা-ছেলের

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লঞ্চের কেবিনে অজ্ঞাত তরুণীর লাশ

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লঞ্চের কেবিনে অজ্ঞাত তরুণীর লাশ

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:১২

কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে হনুমানের কোলে কোরআন রেখে হাত থেকে নিয়ে ফেলে দেওয়া গদা উদ্ধার করা হয়েছে। সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ঘটনায় অভিযুক্ত মো. ইকবাল গদাটি ঝোপের ভেতর ফেলে দেন।

রবিবার রাত ১১টায় ইকবালের দেখানো জায়গা কুমিল্লা নগরীর দারোগাবাড়ি মাজার মসজিদের পাশের ঝোপের ভেতর থেকে গদাটি উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিআইডি কুমিল্লার পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান বলেন, রবিবার রাতে পুলিশের করা কোরআন অবমাননার মামলা সিআইডিকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এরপর জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকারোক্তিতে মামলার অন্যতম আসামি ইকবাল হোসেন জানান ১৩ অক্টোবর নানুয়াদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে হনুমানের কোলে কোরআন রেখে হাত থেকে গদাটি নিয়ে আসেন। এরপর দারোগাবাড়ি মাজার মসজিদের পাশের ঝোপে ফেলে দেন। রাতে ইকবালকে মাজারের পাশে নিয়ে যাওয়া হলে ঝোপের ভেতর গদাটি দেখিয়ে দেন।

অভিযুক্ত ইকবালকে নিয়ে অভিযানে যায় পুলিশ

কোরআন অবমাননার মামলায় ইকবাল হোসেন ছাড়াও অন্য আসামিরা হলেন দারোগাবাড়ি মাজারের দুই খাদেম ফয়সাল ও হুমায়ুন এবং জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল দিয়ে ঘটনাটি জানানো ইকরাম।ইকবালসহ চার আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য শনিবার (২৩ অক্টোবর) আদালত সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশের কাছ থেকে মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) এম তানভীর আহমেদ।
তিনি বলেন, কোরআন অবমাননায় ইকবালের বিরুদ্ধে করা মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ মামলায় এখন পর্যন্ত চার জন গ্ৰেফতার হয়েছেন। শনিবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মিথিলা জাহান নিপার আদালতে ইকবালসহ চার জনকে হাজির করা হয়। পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ঝোপের মধ্যে মেলে গদা

তিনি আরও বলেন, পুলিশের কাছ থেকে সিআইডিকে যেহেতু মামলাটি তদন্তের জন্য দেওয়া হয়েছে, সেহেতু সিআইডি আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে।

মামলার অন্যতম আসামি ইকবাল হোসেনকে কক্সবাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে কক্সবাজার থেকে কুমিল্লায় আনা হয়। পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে ইকবাল পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার বিষয়টি স্বীকার করেন। সেই সঙ্গে গদাটি পুকুরে ফেলে দেওয়ার কথাও পুলিশকে জানিয়েছিলেন। কিন্তু গদাটি ঝোপের ভেতর দেখিয়ে দিয়েছেন তিনি।

গত ১৩ অক্টোবর নানুয়াদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে কোরআন অবমাননার ঘটনায় কুমিল্লা নগরীর বিভিন্ন জায়গায় পূজামণ্ডপ ও মন্দির ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

/এএম/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় আরও ৪ জন গ্রেফতার

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় আরও ৪ জন গ্রেফতার

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলা সিআইডিতে

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলা সিআইডিতে

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় আরও ৪ জন গ্রেফতার

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ২৩:১৮

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী বাজারে পূজামণ্ডপ ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানসহ আরও ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রবিবার (২৪ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টায় সেনবাগ উপজেলার সেবারহাট থেকে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে সেনবাগ থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো—সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা হারুন অর রশীদ, বেগমগঞ্জের কালিকাপুর গ্রামের মৃত হাজী মফিজ উল্যার ছেলে মো. আনোয়ারুল ইসলাম (২৯), চৌমুহনী পৌরসভার আলীপুর গ্রামের মৃত আবুল খায়েরের ছেলে মো. আবু তালেব (৪৭) ও চৌমুহনী পৌরসভার হাজীপুর গ্রামের মৃত সৈয়দ আহম্মদের ছেলে মো. ফরহাদ (২৭)।

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম জানান, পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় ভিডিও ফুটেজ দেখে রবিবার বেগমগঞ্জ উপজেলা থেকে তিন আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বিকালে তাদেরকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।  

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী জানান, চৌমুহনীতে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুর এবং দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে রবিবার রাতে উপজেলার সেবারহাট থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার (২৫ অক্টোবর) সকালে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের দুই ব্যক্তি নিহতের ঘটনার মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলা সিআইডিতে

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলা সিআইডিতে

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

কলেজছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা: সাবেক ওসির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

কলেজছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা: সাবেক ওসির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

বাঁশ কাটায় প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

বাঁশ কাটায় প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো দুই স্কুলছাত্রের

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো দুই স্কুলছাত্রের

ভাইয়ের মৃত্যুর দোয়া অনুষ্ঠান শেষে ফেরা হলো না বোনের

ভাইয়ের মৃত্যুর দোয়া অনুষ্ঠান শেষে ফেরা হলো না বোনের

জানাজায় যাওয়ার পথে প্রাণ গেলো বৃদ্ধের

জানাজায় যাওয়ার পথে প্রাণ গেলো বৃদ্ধের

নৌকা পেলেন ‘রাজাকার পরিবারের’ দুই সন্তান, মুক্তিযোদ্ধাদের ক্ষোভ

নৌকা পেলেন ‘রাজাকার পরিবারের’ দুই সন্তান, মুক্তিযোদ্ধাদের ক্ষোভ

জালিয়াতি করে আড়াই কোটি টাকা তুলে নিলেন হিসাব সহকারী

জালিয়াতি করে আড়াই কোটি টাকা তুলে নিলেন হিসাব সহকারী

ফেসবুকে একাধিক উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

ফেসবুকে একাধিক উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

সর্বশেষ

কানাডা উপকূলে ছড়াচ্ছে বিষাক্ত গ্যাস

কানাডা উপকূলে ছড়াচ্ছে বিষাক্ত গ্যাস

১০ জন নিয়ে ড্র করলো পিএসজি

১০ জন নিয়ে ড্র করলো পিএসজি

কলম্বিয়ার মাদক মাফিয়া আটক, পাঠানো হবে যুক্তরাষ্ট্রে

কলম্বিয়ার মাদক মাফিয়া আটক, পাঠানো হবে যুক্তরাষ্ট্রে

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর ব্যবস্থা সন্তোষজনক: ব্রিটিশ হাইকমিশনার

হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর ব্যবস্থা সন্তোষজনক: ব্রিটিশ হাইকমিশনার

© 2021 Bangla Tribune