X
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

বিডিএসে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী কোটায় ‘অ-আদিবাসী’ শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের দাবি

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:৫৭

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত দেশের ডেন্টাল কলেজ ও মেডিক্যাল কলেজের ডেন্টাল ইউনিটে (বিডিএস) ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী কোটায় ‘অ-আদিবাসী’ শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন দেশের ২১ জন বিশিষ্ট নাগরিক। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ অভিযোগ করা হয়। বিবৃতিতে আদিবাসী কোটায় অ-আদিবাসীরা কীভাবে স্থান পায়, তার সুষ্ঠু তদন্ত হওয়ার দাবি জানানো হয়।

বিডিএসে ভর্তির জন্য নির্ধারিত ‘আদিবাসী কোটা’য় আবারও অ-আদিবাসী শিক্ষার্থী নির্বাচন করা হয়েছে অভিযোগ করে বিবৃতিতে বলা হয়, গত ১২ সেপ্টেম্বর বিডিএস (ডেন্টাল) কোর্সে শিক্ষার্থীদের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়। ভর্তির প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী বিডিএস কোর্সে আদিবাসীদের জন্য পাঁচটি আসন সংরক্ষিত। এই পাঁচ আসনের মধ্যে পার্বত্য এলাকার আদিবাসীদের জন্য তিনটি এবং অন্য আদিবাসীদের জন্য দুটি আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি করার কথা। পার্বত্য এলাকার তিন আসনে সঠিক নিয়মেই শিক্ষার্থী মনোনীত হলেও অন্য আদিবাসীদের জন্য সংরক্ষিত দুই আসনে (কোড-৭৭) মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে বাঙালি শিক্ষার্থীদের। এই ভর্তি পরীক্ষায় সমতলের আদিবাসীদের মধ্যে ১৫ শিক্ষার্থী কৃতকার্য হলেও তাদের কাউকেই ভর্তির জন্য মনোনীত করা হয়নি। কৃতকার্যদের মধ্যে পাঁচজন সাঁওতাল, চারজন গারো, তিনজন মণিপুরী, দু'জন ওরাঁও এবং একজন হাজং জনগোষ্ঠীর শিক্ষার্থী রয়েছেন।’

বিবৃতিতে অভিযোগ করা হয়, সমতল আদিবাসীদের জন্য ৭৭ কোডে নির্ধারিত দুজন আদিবাসী শিক্ষার্থীর জায়গায় অ-আদিবাসী শিক্ষার্থীকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

বিবৃতিতে ‘ম ও আ’ অদ্যাক্ষরে নামের ওই অ-আদিবাসী দুই শিক্ষার্থীর নাম ও রোল নম্বরও প্রকাশ করা হয়েছে। তাদের দুজনের একজনকে স্যার সলিমুল্ল্যাহ মেডিক্যাল কলেজের ডেন্টাল ইউনিট এবং অন্যজন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের ডেন্টাল ইউনিটে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। এই দুই শিক্ষার্থীর কেউই বাংলাদেশ সরকারের গেজেটভুক্ত ৫০টি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর (আদিবাসী জাতিসত্তার) সদস্য নয় বলেও বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

বিশিষ্ট নাগরিকেরা অবিলম্বে এসব রোলধারী অ-আদিবাসী শিক্ষার্থীদের ভর্তির তালিকা থেকে বাদ দিয়ে আদিবাসী শিক্ষার্থীদের ভর্তির জন্য নির্বাচিত করে তালিকা প্রকাশ করার জোর দাবি জানান। তারা বলেন, ‘আদিবাসী কোটায় শুধু আদিবাসী শিক্ষার্থীদেরই নির্বাচন করতে হবে। আদিবাসী কোটায় নির্বাচিত অ-আদিবাসী শিক্ষার্থীদের ফলাফল বাতিল করে সেসব আসনে আদিবাসী শিক্ষার্থীদের নির্বাচন করে পুনরায় ফলাফল প্রকাশ করতে হবে। এই অনিয়ম বন্ধ হওয়া জরুরি।’

বিবৃতিতে সুলতানা কামাল, পঙ্কজ ভট্টাচার্য, রামেন্দু মজুমদার, ডা. সারওয়ার আলী, ডা. ফওজিয়া মোসলেম, ড. নুর মোহাম্মদ তালুকদার, খুশী কবির, রোকেয়া কবির, এস.এম.এ সবুর, রানা দাশ গুপ্ত, এম. এম. আকাশ, রোবায়েত ফেরদৌস, পারভেজ হাসেম, দীপয়ন খীসা, আব্দুর রাজ্জাক, এ কে আজাদ, অলক দাস গুপ্ত, বিভূতী ভূষণ মাহাতো, কাজী আব্দুল মোতালেব জুয়েল ও গৌতম শীলের নাম উল্লেখ করা হয়।

/এসটিএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোটের ৩ দাবি

জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোটের ৩ দাবি

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু ২১ অক্টোবর

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু ২১ অক্টোবর

যাত্রাবাড়ীতে হেরোইনসহ গ্রেফতার ১

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:২৬

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে ১০০ গ্রাম হেরোইনসহ আনোয়ার হোসেন নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রবিবার (১৭ অক্টোবর) ভোরে শনিরআখড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। উদ্ধার হেরোইনের বাজার মূল্য প্রায় ১০ লাখ টাকা। র‌্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক এনায়েত কবির সোয়েব এসব তথ্য জানান।

এনায়েত কবির বলেন, ‘গ্রেফতার আনোয়ার পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী। সে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় হেরোইনসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য ক্রেতাদের কাছে পৌঁছে দিত। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।’

 

/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিরাই টার্গেট ছিনতাই চক্রটির

বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিরাই টার্গেট ছিনতাই চক্রটির

পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় দুই মামলায় আসামি ৪ হাজার

পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় দুই মামলায় আসামি ৪ হাজার

সম্রাটসহ সাত জনের বিরুদ্ধে অর্থপাচারের প্রমাণ পেয়েছে সিআইডি

সম্রাটসহ সাত জনের বিরুদ্ধে অর্থপাচারের প্রমাণ পেয়েছে সিআইডি

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৫৬

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানে পণ্য কিনতে গিয়ে পেমেন্ট গেটওয়েতে আটকে থাকা টাকা গ্রাহকদের ফেরত দিতে সংশ্লিষ্টদের আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়সহ সাতটি প্রতিষ্ঠানের ১০ কর্তাব্যক্তিকে এই আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

ভোক্তা অধিকার নিয়ে কাজ করা বেসরকারি সংস্থা কনশাস কনজ্যুমার্স সোসাইটি- সিসিএসের  পক্ষে রবিবার (১৭ অক্টোবর) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সাবরিনা জারিন ডাকযোগে এ নোটিশ পাঠিয়েছেন।

নোটিশে ই-কমার্সে অর্ডার করেছেন কিন্তু পণ্য পাননি, এমন গ্রাহকের টাকা কেন ফেরত দেওয়া হবে না, তা আগামী সাত দিনের মধ্যে জানতে চাওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে ই-কমার্সে পেমেন্টের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক ঘোষিত নিয়ম (এস্ক্রো সিস্টেম) সংশোধন করে গ্রাহকের টাকা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফেরত পাওয়ার স্থায়ী পদ্ধতি কেন চালু করা হবে না, তা বাংলাদেশ ব্যাংক ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে।

এ জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ও ব্যাংকটির পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগের মহাব্যবস্থাক, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ও একই মন্ত্রণালয়ের ডব্লিউটিও সেলের মহাপরিচালক, মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস বিকাশ ও নগদ, পেমেন্ট গেটওয়ে এসএসএল ওয়্যারলেস, ফোস্টার পে এবং সূর্য পে- এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে সিসিএস-এর আইনজীবী ব্যারিস্টার সাবরিনা জারিন বলেন, ‘আমরা সিসিএস থেকে প্রায় সাড়ে তিনশো ভুক্তভোগীর সুনির্দিষ্ট তথ্য পেয়েছি। এস্ক্রোতে টাকা আটকে থাকা নিয়ে বেশ জটিলতা হচ্ছে। এই সমস্যা সমাধানের জন্য আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। আইনি নোটিশের পর আদালতে যাওয়া হবে।’

প্রসঙ্গত, ই-কমার্সে কোনও গ্রাহক পণ্যের অর্ডার দিলে তার টাকা বর্তমানে পেমেন্ট গেটওয়েতে আটকে থাকে। পণ্য ডেলিভারি হওয়ার পর প্রমাণ জমা দিয়ে সেই ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান টাকা ছাড় পান। গত ৩০ জুন বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগ থেকে এক নির্দেশনায় এ পদ্ধতি চালু করা হয়। কিন্তু গ্রাহক পণ্য না পেলেও ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের অনুমতি ছাড়া টাকা ফেরত পান না। ফলে গ্রাহকের টাকা আটকে থাকছে। এ পদ্ধতি চালু হওয়ার পর থেকে ইতোমধ্যে গ্রাহকের কয়েক’শ কোটি টাকা গেটওয়েগুলোতে আটকে আছে।

/বিআই/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশ সদস্য নিহতের হার বেড়েছে

সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশ সদস্য নিহতের হার বেড়েছে

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:২২

রাজধানীর খিলক্ষেতের নিকুঞ্জ-২ এলাকার একটি বাসা থেকে জয়দেব কুমার দাস (২৫) নামে এক চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (১৭ অক্টোবর) রাতে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও মৃতের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত বছর সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিএস পাশ করে ইন্টার্ন শেষ করেছেন জয়দেব। বর্তমানে নিকুঞ্জ-২, রোড-১৫ এর ৮ নম্বর ফ্লাটের ৮ নম্বর বাসায় থাকতেন তিনি। তিনি এফসিপিএস পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

খিলক্ষেত থানার উপ-পরিদর্শক এসআই রাসেল পারভেজ বলেন, ‘ওই বাসায় দুর্গন্ধ পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেন। পরে শনিবার রাতে পুলিশ দরজার খিল ভেঙে তার লাশ খাটের ওপর পড়ে থাকতে দেখে। মৃতদেহ উদ্ধার করে আইনি প্রক্রিয়া শেষে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাবে।’

এসআই রাসেল সুরতহাল প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, লাশের বাম হাতের উল্টাপাশে ক্যানোলার মধ্যে ইনজেকশনের সিরিঞ্জ লাগানো ছিল। সেখানে ছিল সুইসাইড নোট, লাল কলম, তিনটি সিরিজে থাকা তরল পদার্থ, দুটি মোবাইল ফোন ও পাঁচটি কেসিএল ইনজেকশনের খালি প্যাকেট।

মৃতের আগের রুমমেট চিকিৎসক প্রান্ত মজুমদার জানান, গত ১৪ অক্টোবর নবশী উপলক্ষে খিচুড়ি রান্না করেছিলাম। সেখানে দুপুরের খাবার খেয়ে কিছুটা খাবার সে নিকুঞ্জের বাসায় নিয়ে যায়। পরে ১৫ তারিখ থেকে তাকে ফোন করলেও রেসপন্স পাচ্ছিলাম না। গতকাল রাতে খবর পাই, সে মারা গেছে।

মৃতের খালাতো ভাই দয়াল চন্দ্র জানান, জয়দেব এবার পূজায় বাড়িতে যায়নি। গতকাল রাতে পুলিশের মাধ্যমে খবর পায়, সে সুসাইড করেছে। পরে সেখানে গিয়ে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। তবে মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। 

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তার গ্রামের বাড়ি দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুরের দক্ষিণ সালন্দার কুমার পাড়া গ্রামে। তিনি কৃষক দিলীপ চন্দ্র দাস ও মা মিনা রানী দাসের ছেলে। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে সে ছোট।

এদিকে রবিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে জয়দেব কুমার দাসের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ময়নাতদন্ত করেন এসিস্ট্যান্ট প্রফেসার ডা. জান্নাতুন নাঈম।

 

/এআইবি/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

যাত্রাবাড়ীতে হেরোইনসহ গ্রেফতার ১

যাত্রাবাড়ীতে হেরোইনসহ গ্রেফতার ১

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিরাই টার্গেট ছিনতাই চক্রটির

বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিরাই টার্গেট ছিনতাই চক্রটির

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৬:২৪

রাজধানীর রূপনগর খালের দুই পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে মাঠে নেমেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। রবিবার (১৭ অক্টোবর) খাল সংলগ্ন ২৩ নম্বর রোডের সামনে থেকে খালের দু’পাশে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়।

সম্প্রতি অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছিলেন, ‘দ্রুততম সময়ের মধ্যেই দখল ছাড়তে হবে। তা না হলে বিনা নোটিশে অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ স্থাপনাগুলো ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে।’

এরই ধারাবাহিকতায় রূপনগর খালের দুই পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের লক্ষ্যে আকস্মিকভাবে অভিযান শুরু করেছে ডিএনসিসি। যদিও অবৈধ দখলদারদের আগে থেকেই অবৈধ স্থাপনাগুলো সরিয়ে নেওয়া আগে থেকেই সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে কয়েক দফায় জানানো হয়েছিল ।

ঢাকা শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনের দায়িত্ব (খাল ও ড্রেনেজ) আনুষ্ঠানিকভাবে ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে দুই সিটি করপোরেশনকে হস্তান্তর করার পর থেকে তারা উচ্ছেদ অভিযান এবং খালের পানি প্রবাহ ফিরিয়ে আনতে অভিযান শুরু করেছিল। করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে কিছুদিন অভিযান বন্ধ থাকার পর আজ থেকে ফের অভিযান শুরু করলো ডিএনসিসি।

ডিএনসিসি সূত্রে জানা গেছে, খাল উদ্ধার করে এর পানি প্রবাহ ফিরিয়ে আনার পাশাপাশি নান্দনিকতায় খালের রূপ বদলে দিতে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। সে অনুযায়ী কাজ করছে সংস্থাটি। 

সাগুফতা খাল, রামচন্দ্রপুর খাল, ইব্রাহিমপুর খাল, গোদাগারি খাল, রূপনগর খালসহ ১৪টি খাল থেকে প্রথম দুই মাসে ৯ হাজার ৩০০ টন বর্জ্য অপসারণ করে ডিএনসিসি। চারটি নদীর সাথে এসবের সংযোগ স্থাপন করতে চায় ডিএনসিসি। এছাড়া হাতিরঝিল থেকে কালাচাঁদপুর, বনানী কবরস্থান, কড়াইল বস্তিতে যেন নৌপথে যাওয়া যায় সেই ব্যবস্থার পাশাপাশি কয়েকটি ব্রিজ উঁচু করার জন্য একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে তারা। যা স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানা গেছে।

/এসএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৬:১২

রাজধানীর বনানী চেয়ারম্যানবাড়ী এলাকায় ট্রেনের কাটা পড়ে এক নারীসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাতে কমলাপুরগামী কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়েন তারা। ঢাকা রেলওয়ে থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সাকলাইন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এএসআই জানান, শনিবার দিবাগত রাতে ঘটনাটি ঘটে। মৃত দুজনের মধ্যে পুরুষের পরিচয় পাওয়া গেছে। তার নাম সাইদুল ইসলাম (৩৫)। তিনি রিকশাচালক ছিলেন। সাইদুল বরগুনা সদর উপজেলার আন্দার মানিক গ্রামের জালাল হাওলাদারের ছেলে। রাজধানীর মহাখালীর সাততলা বস্তিতে থাকতেন তিনি। কী কারণে রাতে সাইদুল সেখানে গিয়েছিলেন তা জানা যায়নি। মৃত নারীর পরিচয় পাওয়া যায়নি।

মরদেহ দুটি উদ্ধার করে আইনি প্রকৃয়া শেষে রবিবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

 

/এআইএবি/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রতিবাদ সমাবেশ

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রতিবাদ সমাবেশ

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোটের ৩ দাবি

জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোটের ৩ দাবি

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু ২১ অক্টোবর

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু ২১ অক্টোবর

জানুয়ারি থেকে দুই সেমিস্টারে ভর্তি নিতে ইউজিসির নতুন কৌশল

জানুয়ারি থেকে দুই সেমিস্টারে ভর্তি নিতে ইউজিসির নতুন কৌশল

অবশেষে ভিকারুননিসার সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের শোকজ প্রত্যাহার

অবশেষে ভিকারুননিসার সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের শোকজ প্রত্যাহার

১২ থেকে ১৭ বছরের শিক্ষার্থীদের তালিকা চেয়েছে সরকার

১২ থেকে ১৭ বছরের শিক্ষার্থীদের তালিকা চেয়েছে সরকার

শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রটি দেখানোর নির্দেশনা

শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ‘আগস্ট ১৯৭৫’ চলচ্চিত্রটি দেখানোর নির্দেশনা

দাখিল প্রি-টেস্ট ও ষষ্ঠ থেকে নবমের বার্ষিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ

দাখিল প্রি-টেস্ট ও ষষ্ঠ থেকে নবমের বার্ষিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ

পথশিশুদের প্রাথমিক শিক্ষার আওতায় আনবে সরকার

পথশিশুদের প্রাথমিক শিক্ষার আওতায় আনবে সরকার

সর্বশেষ

কাঠের গুঁড়া ও বিষাক্ত কেমিক্যালে হচ্ছে ‘শ্রীমঙ্গলের চা পাতা’

কাঠের গুঁড়া ও বিষাক্ত কেমিক্যালে হচ্ছে ‘শ্রীমঙ্গলের চা পাতা’

‘একদল-একনেতা’ ও ‘অনিবন্ধিত’দের ২০ দলীয় জোট, অনেকের অফিসও নেই 

‘একদল-একনেতা’ ও ‘অনিবন্ধিত’দের ২০ দলীয় জোট, অনেকের অফিসও নেই 

ভেজাল সার জব্দ, দোকানিকে লাখ টাকা জরিমানা

ভেজাল সার জব্দ, দোকানিকে লাখ টাকা জরিমানা

স্বর্ণ চোরাচালান মামলায় একজনের ১৪ বছর কারাদণ্ড

স্বর্ণ চোরাচালান মামলায় একজনের ১৪ বছর কারাদণ্ড

ভারতের কাছে ৫০ কোটি ডলার ঋণ চাইলো শ্রীলঙ্কা

ভারতের কাছে ৫০ কোটি ডলার ঋণ চাইলো শ্রীলঙ্কা

© 2021 Bangla Tribune