X
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৩ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

যশোরের ১৯ ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সিলগালা

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৫৪

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক-সেবিকা না থাকাসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে তিন উপজেলায় ১৯টি ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা করা হয়েছে। এদিকে লাইসেন্স হালনাগাদ করতে যশোরের তিন উপজেলার ৫৪টি বেসরকারি হাসপাতাল ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিককে ১৫ দিনের আল্টিমেটাম দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীনের পরিপত্র বৃহস্পতিবার প্রতিষ্ঠানমালিকদের কাছে পাঠানো হয়েছে। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য কর্মকর্তা ডা. রেহেনেওয়াজ এ তথ্য জানান।

সিভিল সার্জন অফিস জানিয়েছে, স্বাস্থ্য অধিদফতরের ঘোষণা অনুযায়ী নতুন প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স গ্রহণ ও পুরনো প্রতিষ্ঠানগুলোর লাইসেন্স নবায়ন করার জন্য তাগিদ দেওয়া হয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ৫৪টি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিকের আবেদন অধিদফতরে জমা পড়েনি।

তথ্য কর্মকর্তা ডা. রেহেনেওয়াজ জানান, ৫৪টি প্রতিষ্ঠানের মালিককে আল্টিমেটাম দিয়ে পরিপত্র পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে যশোরের শার্শা উপজেলায় ২১টি, ঝিকরগাছা উপজেলায় ২১টি ও চৌগাছা উপজেলায় ১২টি রয়েছে। 

এদিকে, সাম্প্রতিক সময়ে যশোর জেলার একাধিক বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিদর্শন করেছেন সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন। পরিদর্শনকালে জেলার শার্শা, ঝিকরগাছা ও চৌগাছার ১৯টি বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নানা অনিয়ম দেখতে পান। এ সময় দেখা যায়, ওই সব প্রতিষ্ঠানে রোগীর অস্ত্রপাচারের সময় অজ্ঞানের চিকিৎসক থাকেন না। নিজস্ব বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, সেবিকা ও প্যাথলজিস্ট নেই। এ ছাড়া নিম্ন মানের অস্ত্রপাচার কক্ষ, প্যাথলজি বিভাগে নোংরা পরিবেশ ছাড়াও মানুষকে জিম্মি করে অর্থ আদায়, অনুমোদনের চেয়ে অতিরিক্ত বেড ব্যবহার ও অপচিকিৎসা করা হয়। যে কারণে সিভিল সার্জনের নির্দেশে সেগুলো সিলগালা করা হয়।

সিলগালা হওয়া ১৯টি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান হলো– যশোরের শার্শা উপজেলার রজনী ক্লিনিক, পল্লী ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার, জোহরা ক্লিনিক, ল্যাবজোন ডায়াগনস্টিক সেন্টার, মা-মণি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার, মুক্তি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার, উপলক্ষ ক্লিনিক। ঝিকরগাছার বাঁকড়া সার্জিক্যাল ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, সায়রা সার্জিক্যাল, আনিকা ক্লিনিক, ফেমাস মেডিক্যাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ছুটিপুর প্রাইভেট ক্লিনিক, এস এস ক্লিনিক, আয়শা ক্লিনিক, শাপলা ক্লিনিক, সালেহা ক্লিনিক, সীমান্ত ডায়াগনস্টিক সেন্টার। চৌগাছা উপজেলার মায়ের দোয়া প্রাইভেট ক্লিনিক, মধুমতি ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার। তবে সিলগালা করা অনেক প্রতিষ্ঠান গোপনে চালু রেখে নিয়মিত রোগী ভর্তি করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, ২৩ সেপ্টম্বর পর্যন্ত জেলার তিন উপজেলার ৫৪টি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের আবেদন স্বাস্থ্য অধিদফতরে যায়নি। নতুন করে ত্রুটিমুক্ত আবেদন করার জন্য তাদের ১৫ দিনের আল্টিমেটাম দেওয়া হয়েছে। বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে আবেদন না করলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি আরও জানান, ইতোমধ্যে নানা অনিয়মের কারণে জেলার শার্শা, বিভিন্ন ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিদর্শন কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। অনিয়ম চোখে পড়লেই বন্ধ করা হবে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

চাঁদপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৭

কুমিল্লায় পবিত্র কোরআন অবমাননার সূত্র ধরে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ আরও এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে পাঁচ জনের মৃত্যু হলো।

মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম সাগর (২৫)। হাজীগঞ্জ বাজারের ডিগ্রি কলেজ রোডসংলগ্ন এলাকায় পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন। তার গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার ইব্রাহিমপুর গ্রামে। তিনি ট্রাকচালক ছিলেন। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। সাগরের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছেন হাজীগঞ্জ থানার ওসি হারুনুর রশীদ।

ওসি বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় ছয়টি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় প্রায় তিন হাজার ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। এরই মধ্যে ১৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ পর্যন্ত পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। 

সাগরের বাবা মো. মোবারক হোসেন জানান, গত ১৪ অক্টোবর রাতে হাজীগঞ্জ বাজারে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনায় তার ছেলে গুলিবিদ্ধ হয়। তাকে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে নিলে মৃত্যু হয়।

একই ঘটনায় টাইলস মিস্ত্রি চাপাইনবাবগঞ্জের সুন্দরপুর বাগডাঙা এলাকার শামসুর রহমানের ছেলে মো. বাবলু (৩৫), হাজীগঞ্জ পৌর এলাকার ১১ নম্বর ওয়ার্ডের রান্ধনী মোড়ার তাজুল ইসলামের ছেলে আল আমিন (১৮), একই এলাকার মো. ফজলুর ছেলে ইয়াছিন হোসেন হৃদয় (১৪) ও পৌরসভার রান্ধনী মোড়ার বাচ্চুর ছেলে মো. শামীমের (১৯) মৃত্যু হয়।

গত বুধবার (১৩ অক্টোবর) রাতে হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় তৌহিদী জনতার ব্যানারে মিছিল বের করে লক্ষ্মীনারায়ণ আখড়ায় হামলা চালানো হয়। এ সময় তাদের বাধা দিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। তখন পুলিশ গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলে চার জন নিহত ও পুলিশসহ অন্তত ৩০ জন আহত হয়।

/এএম/

সম্পর্কিত

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

রেললাইন থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার

রেললাইন থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার

ভিমরুলের কামড়ে শিশুর মৃত্যু

ভিমরুলের কামড়ে শিশুর মৃত্যু

সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ-স্বাধীনতাবিরোধীরা এক ও অভিন্ন: শিক্ষামন্ত্রী

সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ-স্বাধীনতাবিরোধীরা এক ও অভিন্ন: শিক্ষামন্ত্রী

পীরগঞ্জের ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত: স্পিকার

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৫৫

রংপুরের পীরগঞ্জের ঘটনা পূর্বপরিকল্পিতভাবে ঘটানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ও রংপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। তিনি বলেছেন, ‘আমরা প্রত্যক্ষদর্শী ও ক্ষতিগ্রস্তদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পেরেছি, হামলাকারীদের অনেকেই ছিল বহিরাগত। তারা পেট্রোল সঙ্গে করে নিয়ে এসেছিল।’

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে পীরগঞ্জের রামনাথপুর ইউনিয়নের বড় করিমপুর কসবা মাঝিপাড়া গ্রামে সন্ত্রাসীদের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন শেষে স্থানীয় বটের হাট মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে আয়োজিত সমাবেশে এ কথা বলেন তিনি।

স্পিকার বলেন, স্থানীয় ও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ জানিয়েছেন, হামলার সময় অনেক বহিরাগত লোক ছিল। যাদের চেহারা এলাকার লোকজন চিনতে পারেননি। বহিরাগতদের অনেকের কাছে পেট্রোল ছিল। অবশ্যই এটা পূর্বপরিকল্পিত ঘটনা। তা নাহলে এ ধরনের নারকীয় তাণ্ডব ঘটার কথা নয়। পীরগঞ্জের মানুষ শান্তিপ্রিয় এ ধরনের ঘটনা কখনও হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘এবার পূজাতেও পীরগঞ্জের ৯৮টি স্থানে অত্যন্ত উৎসবমুখর এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দুর্গোৎসব উদযাপিত হয়েছে। সেখানে সরকারি সহায়তার পাশাপাশি আমার ব্যক্তিগত, উপজেলা প্রশাসন ও দলের সহায়তা ছিল।’

শিরীন শারমিন বলেন, ‘পূজার সময়ে কোনও অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু পূজা শেষে হঠাৎ এ ধরনের নাশকতামূলক ঘটনা কীভাবে ঘটলো, এটার গোড়ায় আমাদের যেতে হবে। সুষ্ঠু তদন্ত করে অপরাধীদের চিহ্নিত করে হোতাদের গোড়া বের করা সম্ভব হবে।’ তিনি এ ধরনের ন্যক্কারজনক তাণ্ডবের তীব্র নিন্দা জানান। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি আরও বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি পরিবারকে তাৎক্ষণিকভাবে সহযোগিতা করা হয়েছে। চাল, ডাল একটি করে শাড়িসহ কম্বল বিতরণ ও তাদের পুনর্বাসনে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ঘরবাড়ি নির্মাণ, অর্থ প্রদান, ব্যবসায়ীদের পুনরায় ব্যবসা করতে সহযোগিতা ও মন্দির নির্মাণ করে দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী পীরগঞ্জের বিষয়ে সার্বক্ষণিক খোঁজ নিচ্ছেন।’

এ সময় জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দীন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রাজু, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডলসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তার সঙ্গে ছিলেন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৩৮

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষক এসএম গোলাম কিবরিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। অর্থ আত্মসাতের মামলায় মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) খুলনার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. শহিদুল ইসলাম গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। 

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) খুলনার আইনজীবী খন্দকার মুজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তাকে গ্রেফতার করতে না পারলে বাড়ির মালামাল ক্রোকের নির্দেশও দিয়েছেন আদালত।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, সিভিল সার্জন অফিস ও হাসপাতালে দায়িত্বে থাকাকালে এসএম গোলাম সরকারি অর্থ আত্মসাৎ করেন। দুদক তার বিরুদ্ধে এক কোটি ১১ লাখ ৮৯ হাজার টাকা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে। মামলার বাদী দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক ফয়সাল কাদের।

/এএম/

সম্পর্কিত

চাঁদপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু

চাঁদপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

ইউপি নির্বাচন

দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৩৩
video

এবারের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয়ভাবে নির্বাচনে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়েছিল বিএনপি। তবে দিনাজপুরের হিলিতে আসন্ন দ্বিতীয় দফার ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বিএনপির স্থানীয় পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। এ ছাড়া চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে জামায়াতের এক নেতাও মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। সদস্য পদেও মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বিএনপির অনেকে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, খট্টামাধবপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আব্দুল মালেক; তিনি ওই ইউনিয়নের বিএনপির সদস্য। বোয়ালদাড় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মেফতাহুল জান্নাত; তিনিও জাতীয়তাবাদী দলটির সদস্য। এছাড়া আলিহাট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে থানা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মাসুদ রানা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। একই ইউনিয়নেই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন জামায়াতের আমিনুল ইসলাম। তিনি এর আগে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন।

বোয়ালদাড় ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমাদানকারী মেফতাহুল জান্নাত বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘দল থেকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দাঁড়ানো যাবে না- এমন কোনও নির্দেশনা আমি পাইনি। তবে আমি বর্তমান চেয়ারম্যান এবং এবারের নির্বাচনেও চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি। আমি দলীয়ভাবে কোনও নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি না এবং তাদের কোনও সমর্থন নেই।’

মনোনয়ন জমাদানকারী আব্দুল মালেক বলেন, ‘দলীয় সিদ্ধান্ত কী এটা আমি বলতে পারবো না। তবে আমি নির্বাচন করতেছি এটা আমি জানি। এই নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোননয়নপত্র জমা দিয়েছি ও আমি নির্বাচন করবো। আমি তো দলীয়ভাবে নির্বাচন করছি না।’

আলিহাট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোননয়নপত্র জমাদানকারী মাসুদ রানা বলেন, ‘দলীয়ভাবে নির্বাচনে যাওয়ার কোনও সিদ্ধান্ত নেই, যা কেন্দ্র থেকে জানানো হয়েছে। তবে আমি স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে এই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করা যাবে না- এমন নির্দেশনা দলীয়ভাবে এখনও পাইনি।’

হাকিমপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি ফেরদৌস রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি দলীয়ভাবে অংশগ্রহণ করবে না। তাই এই নির্বাচনে আমাদের দলীয় কোনও প্রতীক নেই। কেউ যদি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ান সেটি তাদের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত।’

হাকিমপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শফিকুর রহমান আকন্দ বলেন, ‘উপজেলার তিন ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, ইসলামী আন্দোলন, স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলিয়ে ১৪ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদে ১১৭ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য পদে ৩৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আগামী ২১ অক্টোবর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ২৬ অক্টোবর, প্রতীক বরাদ্দ ২৭ অক্টোবর। আগামী ১১ নভেম্বর ২৭টি কেন্দ্রে তিন ইউনিয়নে ভোট হবে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

পীরগঞ্জের ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত: স্পিকার

পীরগঞ্জের ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত: স্পিকার

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৩৫

বাগেরহাটের কচুয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃত করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়ার অভিযোগে ইসমাইল হোসেন (২১) নামে এক মাদ্রাসাশিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সকালে কচুয়া উপজেলার লড়ারকুল গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। দুপুরে ওই শিক্ষককে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ইসমাইল হোসেন লড়ারকুল গ্রামের মোস্তফা মৃধার ছেলে। তিনি লড়ারহাট খাদেমুল ইসলাম হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক।

কচুয়া থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) মো. সেলিম মহলদার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছবি বিকৃত করে একটি ফেসবুক পেজে পোস্ট দেন ইসমাইল হোসেন। বিষয়টি দেখতে পেয়ে স্থানীয় জাকির হাজরা নামে এক ব্যক্তি পুলিশে খবর দেন। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

ইসমাইলের বিরুদ্ধে ফেসবুকে ছবি বিকৃত করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর চেষ্টার অপরাধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কচুয়া থানায় মামলা করেছেন জাকির হাজরা। আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে ইসমাইলকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এসআই সেলিম মহলদার।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

বেড়েছে অন্তঃসত্ত্বা রোগীর চাপ, চিকিৎসক সংকটে ভোগান্তি 

বেড়েছে অন্তঃসত্ত্বা রোগীর চাপ, চিকিৎসক সংকটে ভোগান্তি 

যশোর বোর্ডের আড়াই কোটি টাকার সর্বশেষ গন্তব্য খুঁজছে দুদক

যশোর বোর্ডের আড়াই কোটি টাকার সর্বশেষ গন্তব্য খুঁজছে দুদক

আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ: যশোর বোর্ডের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ: যশোর বোর্ডের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

গাছে ঝুলছিল যুবকের মরদেহ 

গাছে ঝুলছিল যুবকের মরদেহ 

সর্বশেষ

চাঁদপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু

চাঁদপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু

ডলফিন রক্ষায় কনজারভেশন অ্যাকশন প্ল্যান চূড়ান্ত

ডলফিন রক্ষায় কনজারভেশন অ্যাকশন প্ল্যান চূড়ান্ত

রাসেলের স্বপ্ন ছিল সেনা কর্মকর্তা হবে: প্রধানমন্ত্রী

রাসেলের স্বপ্ন ছিল সেনা কর্মকর্তা হবে: প্রধানমন্ত্রী

১২ তলা অফিসার্স ক্লাব হচ্ছে বিমান বাহিনীর

১২ তলা অফিসার্স ক্লাব হচ্ছে বিমান বাহিনীর

পীরগঞ্জের ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত: স্পিকার

পীরগঞ্জের ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত: স্পিকার

© 2021 Bangla Tribune