X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

হোটেল-মেসে মিলছে না সিট, বিপাকে রাবির ভর্তিচ্ছুরা

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১৭

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী শুভ। গ্রামের বাড়ি ফেনীতে। তার চাচাতো বোন এবার ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবেন। সঙ্গে আসতে চেয়েছেন তার চাচি। কিন্তু তাদের থাকার ব্যবস্থা করতে গিয়ে বিপাকে পড়েছেন শুভ। 

গত দুই দিনে নগরীর অন্তত ১০টি আবাসিক হোটেল ঘুরেও বুকিং দেওয়ার জন্য একটা কক্ষ পাননি। বান্ধবীর মেসে বোনের থাকার ব্যবস্থা করলেও চাচির ব্যবস্থা করতে পারছেন না। শুধু শুভ নন, আবাসিক হলগুলো বন্ধ থাকায় তার মত অনেক শিক্ষার্থী এবার বিপাকে পড়েছেন।

শুভ বলেন, ‘বোনের থাকার ব্যবস্থা হয়েছে। তবে চাচির থাকার ব্যবস্থা করতে না পারায় তাকে রাজশাহী আসতে নিষেধ করেছি। আবার এত দূরের রাস্তা বোন একা কীভাবে আসবে তা নিয়েও চিন্তায় আছি। রাজশাহীতে দুই বছর থাকার পরও আত্মীয়-স্বজনের থাকার ব্যবস্থা করতে পারছি না, বিষয়টা খুব বিব্রতকর।’

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, রাবির ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৪ অক্টোবর শুরু হবে। এ বছর তিনটি ইউনিটে প্রায় এক লাখ ২৮ হাজার শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। 

প্রতি বছর ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা হলের রিডিং রুম, পেপার রুম ও মসজিদসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরেই বিভিন্ন স্থানে থাকার সুযোগ পেলেও, এবার হল বন্ধ থাকায় সেই সুযোগ মিলছে না। ফলে আবাসিক হোটেল ও মেসগুলোই শিক্ষার্থীদের একমাত্র ভরসা।

এদিকে আবাসিক হল বন্ধ রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বর্ষের পরীক্ষা শুরু হওয়ায় হলের শিক্ষার্থীরাও মেসে  অবস্থান নিয়েছেন। চাহিদার তুলনায় সিট কম হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরই মেসগুলোতে গাদাগাদি করে থাকতে হচ্ছে। ফলে অন্য সময়ের তুলনায় এবার ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের মেসে থাকার সুযোগও কম।

রাজশাহী মেস মালিক সমিতি সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীতে ছোট-বড় মিলিয়ে মেস আছে প্রায় পাঁচ হাজার। সেখানে এক লাখের বেশি শিক্ষার্থী থাকেন। আবাসিক হল বন্ধ রেখে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা নেওয়ায় এসব মেসের সিট গত মাসেই শেষ হয়ে গেছে।
 
নগরীর মেস মালিক সমিতির সভাপতি এনায়েতুর রহমান বলেন, আমাদের মেসগুলোর অধিকাংশ সিটই গত মাসে বুক হয়ে গেছে। মেসের কোনও শিক্ষার্থীর কাছে যদি ভর্তিচ্ছু আসে, তবে এর জন্য টাকা দিতে হবে না। গত শুক্রবার মেয়রের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আবাসিক হোটেলের কক্ষ যেন সোনার হরিণ

নগরীর আবাসিক হোটেলগুলোর কক্ষও ইতোমধ্যে বুক হয়ে গেছে। অনেকেই সকাল থেকে রাত পর্যন্ত হোটেলে ঘুরে একটা কক্ষ পাচ্ছে না। দু-একটি হোটেলে সিট খালি থাকলেও অন্য সময়ের তুলনায় পাঁচ গুণ ভাড়া চাওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।
 
শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী রহমত-ই রাব্বির সঙ্গে কথা হয়। রাব্বি জানান, ‘খুলনা থেকে এক শিক্ষক তার মেয়েকে নিয়ে আসবেন। তাদের জন্য হোটেলে একটি রুম বুকিং দিতে বলেছেন। সকাল থেকে বেশ কয়েকটি হোটেলে গিয়েছি। কোনও হোটেলেই সিট খালি নেই। স্যারকে কী বলবো সেটাই বুঝতে পারছি না।’
 
এদিকে আবাসিক হোটেল মালিক সমিতি বলছে, রাজশাহী শহরে ছোট-বড় মিলিয়ে আবাসিক ৬০ থেকে ৬৫টি হোটেল রয়েছে। যেখানে এক হাজার ৮০০ থেকে দুই হাজার মানুষ রাখা সম্ভব। এসব হোটেল সপ্তাহ দুই এক আগেই বুক হয়ে গেছে।

আবাসিক হোটেল মালিক সমিতির সভাপতি ও হোটেল নাইস ইন্টারন্যাশনালের মালিক খন্দকার হাসান কবির বলেন, ‘আমাদের রুমগুলো সব এসি। তাই চাহিদাও বেশি। দুই সপ্তাহ আগেই বুকিং শেষ। প্রতিদিনই সবাই রুমের জন্য ফোন করছেন। আমরা দিতে পারছি না। অনেকে সশরীরে আসছেন রুম খুঁজতে। তাদেরকেও ফিরিয়ে দিতে হচ্ছে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার তাপু বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের জন্য আবাসন ব্যবস্থা করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে শিক্ষার্থীরা যাতে মেসগুলোতে ফ্রি থাকতে পারে সেই ব্যবস্থা হয়েছে।

মেসে ফ্রিতে থাকতে পারবেন রাবি ভর্তি পরীক্ষার্থীরা

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার ‘এ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার ‘এ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতির হার ৯০ শতাংশ

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতির হার ৯০ শতাংশ

জবিতে ‘এ’ ইউনিটের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত 

জবিতে ‘এ’ ইউনিটের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত 

‘এ’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ১১ শিক্ষার্থী

‘এ’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ১১ শিক্ষার্থী

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৫:০১

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সকাল এগারোটা থেকে দুপুর সাড়ে বারোটা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ বছর ‘গ’ ইউনিটে ১২৫০ আসনের বিপরীতে আবেদন জমা পড়েছে ২৭৩৭৪টি। প্রতি আসনের বিপরীতে লড়েছেন  ২১.৯০ জন।

সকাল সাড়ে এগারোটায় ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ব্যবসায়িক শিক্ষা অনুষদে ভর্তি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে উপাচার্য সাংবাদিকদের বলেন, "দুটি হল পরিদর্শন করলাম। পরীক্ষার্থীরা প্রশ্নের মান ও পরীক্ষার সার্বিক ব্যবস্থাপনা নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে। ২৭ হাজার পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেই ১৭ হাজার পরীক্ষার্থীর আসন পড়েছে। বাকি ১০ হাজার পরীক্ষার্থী ঢাকার বাইরে সাতটি ক্যাম্পাসে পরীক্ষা দিচ্ছে। আমাদের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ফিরেছে, ক্যাম্পাস এখন তাদের পদচারণায় মুখরিত। এখন পর্যন্ত সবাই সুস্থ আছে, এটা একটি আশাব্যঞ্জক দিক। এসময় উপাচার্য সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ জানান।

পরীক্ষা শেষে বের হচ্ছেন ঢাবিতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা। ছবি: নাসিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে উপাচার্য বলেন, "সাতদিন আগের তথ্য মতে টিকা গ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের সংখ্যা ৯২ শতাংশেরও ওপরে ছিলো। আমার মনে হয় এখন আমরা পঁচানব্বই-ছিয়ানব্বই শতাংশে পৌঁছে গেছি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা বিকেন্দ্রীকরণের সুযোগ তৈরি হয়েছে কিনা - এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা যে শুধু করোনাকে বিবেচনায় নিয়ে ঢাকার বাইরে ভর্তি পরীক্ষা নিচ্ছি এমন কিন্তু না। আমাদের মূল উদ্দেশ্য ছিলো পরীক্ষার্থী, অভিভাবকদের নানাবিধ ভোগান্তি,  শ্রম,  অর্থ অপচয় লাঘব করা। এসময় তিনি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়কে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় সহযোগিতা করার জন্য কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এইরকমভাবে ভর্তি পরীক্ষা নিতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সহযোগিতা করবে কিনা-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, "ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জাতির প্রতিষ্ঠান। জাতির যে কোনও ক্রান্তিলগ্নে, যেকোনও দুর্যোগে, যেকোনও সহযোগিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনবদ্য ভূমিকা রাখবে।"

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাবি উপ-উপাচার্য(প্রশাসন) ড. মুহাম্মদ সামাদ, ঢাবি প্রক্টর এ কে এম গোলাম রাব্বানী, বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল মঈনসহ আরও অনেকে।

করোনা মহামারির কারণে এবারই প্রথম ঢাকার বাইরে সাতটি বিভাগীয় শহরের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা কেন্দ্র পড়েছে। আবেদনকারী পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সিট পড়েছে ১৭ হাজার ১৩৭ জনের, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ হাজার ৮১৯ জনের, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩ হাজার ৫৫৯ জনের, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৯৯৫ জনের, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ হাজার ৬০৬ জনের, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪২৬জনের, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪৭০ জনের, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৩৬২ জনের।

/এমএস/

সম্পর্কিত

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুক্রবার, প্রতি আসনে লড়বেন ২২ শিক্ষার্থী

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুক্রবার, প্রতি আসনে লড়বেন ২২ শিক্ষার্থী

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ ও জড়িতদের বিচার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ ও জড়িতদের বিচার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে নাট্য পরিবেশন (ফটোস্টোরি)

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে নাট্য পরিবেশন (ফটোস্টোরি)

ঢাবির থিয়েটার বিভাগের ‘শৈল্পিক’ প্রতিবাদ

ঢাবির থিয়েটার বিভাগের ‘শৈল্পিক’ প্রতিবাদ

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুক্রবার, প্রতি আসনে লড়বেন ২২ শিক্ষার্থী

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২০:৩৪

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বাণিজ্য অনুষদভুক্ত ‘গ’  ইউনিটের স্নাতক প্রথম বর্ষের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আগামীকাল শুক্রবার সকাল এগারোটায় শুরু হবে।

এবার প্রতি আসনের বিপরীতে লড়বেন ২১.৯০ জন শিক্ষার্থী।

এ বছর ‘গ’ ইউনিটে ভর্তির জন্য মোট আবেদন জমা পড়েছে ২৭ হাজার ৩৭৪টি। আসন রয়েছে ১২৫০টি।

করোনা মহামারির কারণে এবারই প্রথম ঢাকার বাইরে সাতটি বিভাগীয় শহরের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা কেন্দ্র পড়েছে।

আবেদনকারী পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সিট পড়েছে ১৭ হাজার ১৩৭ জনের, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ হাজার ৮১৯ জনের, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩ হাজার ৫৫৯ জনের, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৯৯৫ জনের, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ হাজার ৬০৬ জনের, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪২৬ জনের, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪৭০ জনের, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ হাজার ৩৬২ জনের।

/এমএস/

সম্পর্কিত

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ ও জড়িতদের বিচার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ ও জড়িতদের বিচার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে নাট্য পরিবেশন (ফটোস্টোরি)

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে নাট্য পরিবেশন (ফটোস্টোরি)

ঢাবির থিয়েটার বিভাগের ‘শৈল্পিক’ প্রতিবাদ

ঢাবির থিয়েটার বিভাগের ‘শৈল্পিক’ প্রতিবাদ

শ্রেণিকক্ষে ফিরলেন রাবি শিক্ষার্থীরা

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৫৭

দীর্ঘ দেড় বছর বন্ধ থাকার পর বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) স্বাভাবিক পাঠদান শুরু হয়েছে। সকাল ১০টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে সরাসরি ক্লাসে বসেন শিক্ষার্থীরা। এরআগে, গত ১৭ অক্টোবর শিক্ষার্থীদের জন্য সব আবাসিক হল খুলে দেওয়া হয়। কোভিড-১৯ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে অন্তত এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে ও মানসম্মত পরিচালনা পদ্ধতি সামনে রেখে ক্লাস পরিচালিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ফখরুল ইসলাম বলেন, গত দেড় মাস ধরে আমার অনুষদের বিভিন্ন বিভাগে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফলে সব কক্ষ পরিষ্কার রয়েছে। আজ কেবল শুধু শিক্ষার্থীরা ক্লাসে অংশ নিয়েছেন।  

স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে অধ্যাপক ফখরুল ইসলাম বলেন, প্রত্যেক শিক্ষার্থীর মাস্ক পরে আসা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এছাড়া ক্লাসরুমে স্যানিটাইজার থাকবে, যার প্রয়োজন সে ব্যবহার করবে।

প্রকৌশল অনুষদের অধিকর্তা অধ্যাপক একরামুল হামিদ বলেন, আমার অনুষদে প্রায় সব বর্ষের পরীক্ষা চলছে। তাই আমাদের মূল লক্ষ্য থাকবে শিক্ষার্থীরা ক্লাসে এলে তাদের প্র্যাকটিকাল (ব্যবহারিক) পরীক্ষাগুলো নেওয়া। কারণ, আমাদের দুটি সেমিস্টারের ক্লাস নেওয়া আছে। তাই যতটা সম্ভব প্র্যাকটিকালগুলো নিয়ে রাখতে হবে। যাতে করে আবার করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়লে যেন প্র্যাকটিকালের জন্য পরীক্ষা পিছিয়ে না থাকে।

এদিকে দীর্ঘদিন পর ক্লাসে ফিরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী খোরশেদ আলম বলেন, দেড় বছরেরও বেশি সময় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার পর আজ সরাসরি ক্লাস করছি। বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হয়েছে, আড্ডা দিচ্ছি। অনুভূতিটা অন্যরকম।

অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী ইশতিয়াক আহমেদ বলেন, হল খোলার পর অনেকের সঙ্গে দেখা হয়েছে। তবে দীর্ঘদিন পর বন্ধুদের পাশে বসে ক্লাস করার অনুভূতি অন্যরকম।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন পর শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ফিরেছে। আমরা তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছি। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুক্রবার, প্রতি আসনে লড়বেন ২২ শিক্ষার্থী

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুক্রবার, প্রতি আসনে লড়বেন ২২ শিক্ষার্থী

১৯ মাস পর প্রাণ ফিরেছে জাবি ক্যাম্পাসে

১৯ মাস পর প্রাণ ফিরেছে জাবি ক্যাম্পাসে

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ ও জড়িতদের বিচার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ ও জড়িতদের বিচার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ

১৯ মাস পর প্রাণ ফিরেছে জাবি ক্যাম্পাসে

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৪৯

করোনা মহামারির কারণে দীর্ঘ ১৯ মাস বন্ধ থাকার পর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হয়েছে স্বাভাবিক ক্লাস ও পরীক্ষা। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকাল ৮টা থেকে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শিক্ষার্থীদের পদচারণা আর উচ্ছ্বাসে সে মুখর হয়ে ওঠে বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ প্রাঙ্গণ। নানা আয়োজনে শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ ও ইনস্টিটিউট। 

অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের অনেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে, কেউ রিকশায়, কেউ হল থেকে হেঁটে এসেছেন নিজের শ্রেণিকক্ষে। প্রত্যেকটি অনুষদের সামনে হাত ধোয়ার জন্য বসানো হয়েছে বেসিন, সঙ্গে রয়েছে হ্যান্ডওয়াশ। অনুষদের পাশাপাশি অনেক বিভাগেও একই ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বিভাগের ঢোকার সময় প্রবেশপথে ছিল শিক্ষার্থীদের তাপমাত্রা মাপার ব্যবস্থা। লাল গোলাপ আর চকলেট দিয়ে শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিয়েছে বিভিন্ন বিভাগ। ‘নো মাস্ক, নো এন্ট্রি’ লিখে টানানো ছিলো নির্দেশনা।

জাবিতে শুরু হয়েছে স্বাভাবিক পাঠদান কার্যক্রম ক্লাস শেষে শিক্ষার্থীরা টিএসসি, ক্যাফেটেরিয়া, মুরাদ চত্বর, মুন্নী চত্বর, শহীদ মিনার কিংবা পরিবহণ চত্বরে আড্ডায় মেতে ওঠেন। দীর্ঘদিনের কথা যেন আর ফুরোয় না। 

মুরাদ চত্বরে আড্ডার ফাঁকে সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষার্থী সুমাইয়া ফেরদৌস বলেন, করোনায় এতদিন যে অবস্থায় ছিলাম, এতে প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু হারিয়েছি। এতদিন পর বন্ধু, শিক্ষকদের দেখা পেয়ে আমরা খুবই আনন্দিত। স্বাস্থ্যবিধি মেনে আজ থেকে ক্লাসও শুরু করেছি। আশা করি ঠিকভাবে ক্লাস এবং পরীক্ষা চালিয়ে যেতে পারবো।  

শিক্ষার্থীদের হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে চারুকলা বিভাগের করিডরে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডার ফাঁকে শিক্ষার্থী মু’তাসিম বিল্লাহ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ায় আমরা সরাসরি পাঠদানে ফিরতে পেরেছি। দীর্ঘসময় বাসায় থাকার ফলে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলাম। এখন শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা হবে, বন্ধুদের সঙ্গে হবে গল্প-আড্ডা, সব মিলিয়ে অনেক ভালো সময় কাটবে আশা করি।

দীর্ঘ সময় পর ক্লাসে শিক্ষার্থীদের দেখা পেয়ে শিক্ষকরাও অনেক আনন্দিত। সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারপারসন শেখ আদনান ফাহাদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, দেড় বছর ধরে আমরা অনলাইনে ক্লাস নিয়েছি। অনেক প্রতীক্ষার পর আজ থেকে সরাসরি ক্লাসে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দেখা। এটা সত্যিই আনন্দের। 

বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য তাপমাত্রা মাপার যন্ত্র ব্যবহার করা হচ্ছে করোনার ঝুঁকি কাটিয়ে নিরবচ্ছিন্ন শিক্ষা কার্যক্রম চাীরয়ে যেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান এই শিক্ষক। তিনি বলেন, স্বাস্থ্যবিধি ঠিকমতো মেনে চলার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীদের প্রবেশের মুহূর্তে তাদের তাপমাত্রা পরিমাপ করিয়ে গোলাপ ফুল ও চকলেটের মাধ্যমে বরণ করে নিয়েছি। রয়েছে হাত ধোয়ার ও স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস করারও ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানান তিনি। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

পরীক্ষা দিয়েও ১৬০০ শিক্ষার্থী অনুপস্থিত, ওয়েসাইট থেকে সরলো ফল

পরীক্ষা দিয়েও ১৬০০ শিক্ষার্থী অনুপস্থিত, ওয়েসাইট থেকে সরলো ফল

চবিতে ১৯ অক্টোবর ক্লাস শুরুর পর ১৬ দিনের ছুটি

চবিতে ১৯ অক্টোবর ক্লাস শুরুর পর ১৬ দিনের ছুটি

সব বর্ষের শিক্ষার্থীরা ঢাবি হলে, ফুল-চকলেট-মাস্কে বরণ

সব বর্ষের শিক্ষার্থীরা ঢাবি হলে, ফুল-চকলেট-মাস্কে বরণ

হাবিপ্রবিতে ছয় মাসের সেমিস্টার শেষ হবে ৪ মাসে 

হাবিপ্রবিতে ছয় মাসের সেমিস্টার শেষ হবে ৪ মাসে 

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ ও জড়িতদের বিচার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ

আপডেট : ২০ অক্টোবর ২০২১, ২২:১০

সারা দেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ, এর সঙ্গে জড়িত ও মদতদাতাদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে শাহবাগে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২০ অক্টোবর) বিকাল চারটায় রাজধানীর শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে 'সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ' ব্যানারে এই বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে একটি মশাল মিছিল বের হয়ে আবার সমাবেশস্থলে এসে শেষ হয়।

সমাবেশে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, সরকার আমাদের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে,  ভাতের অধিকার পর্যন্ত হুমকির মুখে, বাকি ছিল ধর্ম পালনের অধিকার৷ নিরাপদে, শান্তিতে, আনন্দের আবহে আমরা ধর্ম পালন করব, উদযাপন করব, সে সুযোগ পর্যন্ত আজকে বাংলাদেশের মানুষের নেই৷

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান ড. এম এম আকাশ বলেন, বাংলাদেশের যে শাসকশ্রেণি রয়েছে তারা আমাদের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করছে। যেদিন ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম করা হয়েছে সেদিন হতে মুক্তিযুদ্ধের ধর্ম নিরপেক্ষতার নীতি আর থাকলো না৷

উদীচীর সাধারণ সম্পাদক জামসেদ আনোয়ার তপনের সঞ্চালনায় এসময় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দলের নেতা বজলুর রশিদ ফিরোজ, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন নান্নু, বাসদ মার্কসবাদী কেন্দ্রীয় নেতা মানস নন্দী, উদীচীর সদস্য আকরামুল হকসহ আরও অনেকে।

/এমএস/

সম্পর্কিত

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুক্রবার, প্রতি আসনে লড়বেন ২২ শিক্ষার্থী

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুক্রবার, প্রতি আসনে লড়বেন ২২ শিক্ষার্থী

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে নাট্য পরিবেশন (ফটোস্টোরি)

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে নাট্য পরিবেশন (ফটোস্টোরি)

ঢাবির থিয়েটার বিভাগের ‘শৈল্পিক’ প্রতিবাদ

ঢাবির থিয়েটার বিভাগের ‘শৈল্পিক’ প্রতিবাদ

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার ‘এ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার ‘এ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতির হার ৯০ শতাংশ

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতির হার ৯০ শতাংশ

জবিতে ‘এ’ ইউনিটের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত 

জবিতে ‘এ’ ইউনিটের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত 

‘এ’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ১১ শিক্ষার্থী

কাল থেকে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা শুরু‘এ’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ১১ শিক্ষার্থী

যবিপ্রবিতে ‘এ’ ইউনিটে আসন পড়েছে ৬ হাজার শিক্ষার্থীর

যবিপ্রবিতে ‘এ’ ইউনিটে আসন পড়েছে ৬ হাজার শিক্ষার্থীর

রাবির ‘বি’ ইউনিটের সংশোধিত ফলেও ‘সমস্যা’

রাবির ‘বি’ ইউনিটের সংশোধিত ফলেও ‘সমস্যা’

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল রবিবার

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল রবিবার

ঢাবির চ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, প্রতি আসনে লড়ছেন ১১৫ জন

ঢাবির চ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, প্রতি আসনে লড়ছেন ১১৫ জন

রাবির বি ইউনিটে ২০ শতাংশ আবেদনকারী পরীক্ষা দিতে আসেননি

রাবির বি ইউনিটে ২০ শতাংশ আবেদনকারী পরীক্ষা দিতে আসেননি

সর্বশেষ

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

রাজনৈতিক ঐক্যে জামায়াত অন্তরায় হলে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান এলডিপির

রাজনৈতিক ঐক্যে জামায়াত অন্তরায় হলে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান এলডিপির

নেতাদের সামনেই বিজেপি কর্মীদের মারপিট

নেতাদের সামনেই বিজেপি কর্মীদের মারপিট

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

৫-১১ বছরের শিশুদের ওপর ৯০ শতাংশ কার্যকর ফাইজারের টিকা

৫-১১ বছরের শিশুদের ওপর ৯০ শতাংশ কার্যকর ফাইজারের টিকা

© 2021 Bangla Tribune