X
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

‘করোনাকালে তথ্য অধিকারের সংকোচন ঘটেছে’

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১০

কোভিড-১৯ মহামারির ১৮ মাসে বাংলাদেশে জনগণের তথ্য অধিকারের ক্রমাগত লঙ্ঘন ও সংকোচনের নজিরবিহীন প্রবণতায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মানবাধিকার সংস্থা আর্টিকেল নাইনটিন।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক এ সংস্থাটির পর্যবেক্ষণ বলছে, মহামারির প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে একইরকম সমন্বয়হীনতা, কর্মপরিকল্পনায় অস্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার তীব্র অভাব বাংলাদেশে এই সঙ্কটকে গভীরতর করেছে। একই সঙ্গে রাষ্ট্রের বিভিন্ন যন্ত্রের হাতে তথ্যের অধিকার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা দমন-পীড়নের শিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত, যা সরকার প্রতিশ্রুত টেকসই, স্থিতিশীল ও অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ বিনির্মাণের পরিপন্থী প্রয়াস। 

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষে আজ সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে আর্টিকেল নাইনটিনের দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ফারুখ ফয়সল বলেন, “করোনাকালে সরকার নানা অজুহাত দেখিয়ে তথ্য পাওয়ার অধিকার ও সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করেছে। এমনকি করোনা ব্যবস্থাপনা, স্বাস্থ্য সেবা ও টিকা বিষয়ে সরকার অনেক সময় ভুল ও অসংগতিপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। স্বাস্থ্যখাতের চিহ্নিত অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ হলে সরকার উল্টো সংবাদমাধ্যম ও সাংবাদিকদের ওপরই খড়গহস্ত হয়েছে। এজন্য ২০১৮ সালের নিবর্তনমূলক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ শত বছরের পুরনো দাফতরিক গোপনীয়তা আইনের অপব্যবহার হচ্ছে।”  

উল্লেখ্য, আর্টিকেল নাইনটিন গণমাধ্যমে প্রকাশিত মতপ্রকাশজনিত অধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা নিয়মিতভাবে পর্যবেক্ষণ ও রেকর্ড করে। সংস্থাটি ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে আগস্ট পর্যন্ত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের হওয়া ১৭২টি মামলার ঘটনা রেকর্ড করেছে। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ৩০৮ জন ব্যক্তি এসব মামলায় অভিযুক্ত হয়েছেন, যাদের মধ্যে ৪১ জন সাংবাদিক। অভিযুক্তদের মধ্যে ১১৪ জনকে তাৎক্ষণিকভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে, যাদের অনেকেই এখনও জামিনের অপেক্ষায় আছেন। ২০২০ সালে ৩৬৮ জন ব্যক্তির বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া ১৯৭টি মামলার তথ্য রেকর্ড করা হয়। এর আগে ২০১৯ ও ২০১৮ সালে রেকর্ডকৃত মামলার সংখ্যা ছিল যথাক্রমে ৬৩টি ও ৩৪টি। বিচারপ্রক্রিয়া নিষ্পন্ন না হওয়ায় এসব মামলার ভুক্তভোগীদের বেশিরভাগ এখনও  গ্রেফতার-হয়রানির শিকার হচ্ছেন। 

ফারুখ ফয়সল আরও বলেন, “তথ্য পাওয়া নাগরিকের মৌলিক মানবাধিকার। একইভাবে ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা ও গোপনীয়তার সমান অধিকারও নাগরিকের রয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশে প্রায়ই ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে আড়ি পাতা এবং গোপন ফোনালাপ ফাঁস হয়ে যাওয়ার মতো উদ্বেগজনক ঘটনা ঘটছে। এরই মধ্যে প্রস্তাবিত ‘ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা আইন’ ব্যক্তিতথ্য সুরক্ষার নামে বিরুদ্ধ মত নিয়ন্ত্রণের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হবে ও স্বাধীন মতপ্রকাশ আরও বাধাগ্রস্ত করবে বলে জনমনে শঙ্কা তৈরি হয়েছে।”

টেকসই উন্নয়ন অভীষ্টের (এসডিজি) অন্যতম লক্ষ্যমাত্রা (শান্তি, ন্যায়বিচার ও শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান) অর্জনে তথ্য অধিকার ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিতের কোনও বিকল্প নেই উল্লেখ করে ফারুখ ফয়সল বলেন, “বাংলাদেশের সংবিধান জনসাধারণের তথ্য অধিকার ও মৌলিক স্বাধীনতার সুরক্ষা দেয়। বাংলাদেশ জাতিসংঘের সর্বজনীন মানবাধিকার ঘোষণাপত্র (ইউডিএইচআর) এবং নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকারের আন্তর্জাতিক চুক্তিরও (আইসিসিপিআর) অন্যতম অনুস্বাক্ষরকারী দেশ। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পরিসরে বাংলাদেশের করা এই অঙ্গীকারগুলো প্রতিপালনে সচেষ্ট হতে আমরা সরকারের প্রতি আবারও আহ্বান জানাই।”

/এআরআর/এমএস/

সম্পর্কিত

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৮:২৫

চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে দেশের বিভিন্ন উপজেলায় কর্মরত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা- ইউএনওদের জন্য প্রগতির তৈরি মিতসুবিশি পাজেরো স্পোর্টস কিউএক্স জিপ কেনা হচ্ছে। এ পর্যায়ে ৫০টি জিপ কেনার প্রস্তাব অনুমোদন করেছে সরকারের ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। এর আগেও কয়েক দফায় ইউএনওদের জন্য এই জিপ কেনা হয়েছে।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) ব্যবহারের জন্য প্রতিস্থাপক হিসেবে ৫০টি গাড়ি কিনতে সরাসরি ক্রয় পদ্ধতি (ডিপিএম) অনুসরণের প্রস্তাবে অনুমোদন দেওয়া হয়। 

বৈঠক শেষে অনলাইনে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সামসুল আরেফিন সাংবাদিকদের বলেন, ‘সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ সংক্রান্ত প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে।’

জানা গেছে, প্রগতির তৈরি মিতসুবিশি পাজেরো স্পোর্টস কিউএক্স জিপের প্রতিটির দাম ৯০ লাখ ৩১ হাজার টাকা। সরকারি যানবাহন অধিদফতর ২০০৬-২০০৭ অর্থবছর থেকে ইউএনওদের সরকারি ও দাফতরিক কাজে ব্যবহারের জন্য জিপ গাড়ি কিনে বরাদ্দ দিয়ে আসছে। কিন্তু বর্তমানে পুরনো জিপগুলোর আয়ু শেষ হওয়ায় মেরামত করে প্রশাসনিক ও দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনায় গতিশীলতা ব্যাহত হচ্ছে।

জানা গেছে, প্রতিস্থাপক হিসেবে ৫০টি জিপ গাড়ি উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে (ওটিএম) কেনা সময়সাপেক্ষ, এজন্য রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজন ও জনস্বার্থে ইউএনওদের জন্য ৫০টি মিৎসুবিসি পাজেরো স্পোর্ট কিউএক্স জিপ সরকারি প্রতিষ্ঠান ‘প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড’ থেকে পিপিএ ২০০৬-এর ৬৮ (১) ধারা ও পিপিআর ২০০৮-এর বিধি ৭৬ (২) অনুযায়ী, সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে (ডিপিএম) কেনার নীতিগত অনুমোদনের জন্য প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়।

/এসআই/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

যাত্রাবাড়ীতে হেরোইনসহ গ্রেফতার ১

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:২৬

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে ১০০ গ্রাম হেরোইনসহ আনোয়ার হোসেন নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রবিবার (১৭ অক্টোবর) ভোরে শনিরআখড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। উদ্ধার হেরোইনের বাজার মূল্য প্রায় ১০ লাখ টাকা। র‌্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক এনায়েত কবির সোয়েব এসব তথ্য জানান।

এনায়েত কবির বলেন, ‘গ্রেফতার আনোয়ার পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী। সে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় হেরোইনসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য ক্রেতাদের কাছে পৌঁছে দিত। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।’

 

/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিরাই টার্গেট ছিনতাই চক্রটির

বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিরাই টার্গেট ছিনতাই চক্রটির

পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় দুই মামলায় আসামি ৪ হাজার

পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় দুই মামলায় আসামি ৪ হাজার

সম্রাটসহ সাত জনের বিরুদ্ধে অর্থপাচারের প্রমাণ পেয়েছে সিআইডি

সম্রাটসহ সাত জনের বিরুদ্ধে অর্থপাচারের প্রমাণ পেয়েছে সিআইডি

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৫৬

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানে পণ্য কিনতে গিয়ে পেমেন্ট গেটওয়েতে আটকে থাকা টাকা গ্রাহকদের ফেরত দিতে সংশ্লিষ্টদের আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়সহ সাতটি প্রতিষ্ঠানের ১০ কর্তাব্যক্তিকে এই আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

ভোক্তা অধিকার নিয়ে কাজ করা বেসরকারি সংস্থা কনশাস কনজ্যুমার্স সোসাইটি- সিসিএসের  পক্ষে রবিবার (১৭ অক্টোবর) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সাবরিনা জারিন ডাকযোগে এ নোটিশ পাঠিয়েছেন।

নোটিশে ই-কমার্সে অর্ডার করেছেন কিন্তু পণ্য পাননি, এমন গ্রাহকের টাকা কেন ফেরত দেওয়া হবে না, তা আগামী সাত দিনের মধ্যে জানতে চাওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে ই-কমার্সে পেমেন্টের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক ঘোষিত নিয়ম (এস্ক্রো সিস্টেম) সংশোধন করে গ্রাহকের টাকা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফেরত পাওয়ার স্থায়ী পদ্ধতি কেন চালু করা হবে না, তা বাংলাদেশ ব্যাংক ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে।

এ জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ও ব্যাংকটির পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগের মহাব্যবস্থাক, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ও একই মন্ত্রণালয়ের ডব্লিউটিও সেলের মহাপরিচালক, মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস বিকাশ ও নগদ, পেমেন্ট গেটওয়ে এসএসএল ওয়্যারলেস, ফোস্টার পে এবং সূর্য পে- এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে সিসিএস-এর আইনজীবী ব্যারিস্টার সাবরিনা জারিন বলেন, ‘আমরা সিসিএস থেকে প্রায় সাড়ে তিনশো ভুক্তভোগীর সুনির্দিষ্ট তথ্য পেয়েছি। এস্ক্রোতে টাকা আটকে থাকা নিয়ে বেশ জটিলতা হচ্ছে। এই সমস্যা সমাধানের জন্য আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। আইনি নোটিশের পর আদালতে যাওয়া হবে।’

প্রসঙ্গত, ই-কমার্সে কোনও গ্রাহক পণ্যের অর্ডার দিলে তার টাকা বর্তমানে পেমেন্ট গেটওয়েতে আটকে থাকে। পণ্য ডেলিভারি হওয়ার পর প্রমাণ জমা দিয়ে সেই ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান টাকা ছাড় পান। গত ৩০ জুন বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগ থেকে এক নির্দেশনায় এ পদ্ধতি চালু করা হয়। কিন্তু গ্রাহক পণ্য না পেলেও ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের অনুমতি ছাড়া টাকা ফেরত পান না। ফলে গ্রাহকের টাকা আটকে থাকছে। এ পদ্ধতি চালু হওয়ার পর থেকে ইতোমধ্যে গ্রাহকের কয়েক’শ কোটি টাকা গেটওয়েগুলোতে আটকে আছে।

/বিআই/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সম্প্রীতি বজায় রাখতে মাদ্রাসা শিক্ষকদের এগিয়ে আসার আহ্বান

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:২২

রাজধানীর খিলক্ষেতের নিকুঞ্জ-২ এলাকার একটি বাসা থেকে জয়দেব কুমার দাস (২৫) নামে এক চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (১৭ অক্টোবর) রাতে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও মৃতের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত বছর সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিএস পাশ করে ইন্টার্ন শেষ করেছেন জয়দেব। বর্তমানে নিকুঞ্জ-২, রোড-১৫ এর ৮ নম্বর ফ্লাটের ৮ নম্বর বাসায় থাকতেন তিনি। তিনি এফসিপিএস পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

খিলক্ষেত থানার উপ-পরিদর্শক এসআই রাসেল পারভেজ বলেন, ‘ওই বাসায় দুর্গন্ধ পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেন। পরে শনিবার রাতে পুলিশ দরজার খিল ভেঙে তার লাশ খাটের ওপর পড়ে থাকতে দেখে। মৃতদেহ উদ্ধার করে আইনি প্রক্রিয়া শেষে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাবে।’

এসআই রাসেল সুরতহাল প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, লাশের বাম হাতের উল্টাপাশে ক্যানোলার মধ্যে ইনজেকশনের সিরিঞ্জ লাগানো ছিল। সেখানে ছিল সুইসাইড নোট, লাল কলম, তিনটি সিরিজে থাকা তরল পদার্থ, দুটি মোবাইল ফোন ও পাঁচটি কেসিএল ইনজেকশনের খালি প্যাকেট।

মৃতের আগের রুমমেট চিকিৎসক প্রান্ত মজুমদার জানান, গত ১৪ অক্টোবর নবশী উপলক্ষে খিচুড়ি রান্না করেছিলাম। সেখানে দুপুরের খাবার খেয়ে কিছুটা খাবার সে নিকুঞ্জের বাসায় নিয়ে যায়। পরে ১৫ তারিখ থেকে তাকে ফোন করলেও রেসপন্স পাচ্ছিলাম না। গতকাল রাতে খবর পাই, সে মারা গেছে।

মৃতের খালাতো ভাই দয়াল চন্দ্র জানান, জয়দেব এবার পূজায় বাড়িতে যায়নি। গতকাল রাতে পুলিশের মাধ্যমে খবর পায়, সে সুসাইড করেছে। পরে সেখানে গিয়ে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। তবে মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। 

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তার গ্রামের বাড়ি দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুরের দক্ষিণ সালন্দার কুমার পাড়া গ্রামে। তিনি কৃষক দিলীপ চন্দ্র দাস ও মা মিনা রানী দাসের ছেলে। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে সে ছোট।

এদিকে রবিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে জয়দেব কুমার দাসের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ময়নাতদন্ত করেন এসিস্ট্যান্ট প্রফেসার ডা. জান্নাতুন নাঈম।

 

/এআইবি/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

যাত্রাবাড়ীতে হেরোইনসহ গ্রেফতার ১

যাত্রাবাড়ীতে হেরোইনসহ গ্রেফতার ১

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৬:২৪

রাজধানীর রূপনগর খালের দুই পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে মাঠে নেমেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। রবিবার (১৭ অক্টোবর) খাল সংলগ্ন ২৩ নম্বর রোডের সামনে থেকে খালের দু’পাশে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়।

সম্প্রতি অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছিলেন, ‘দ্রুততম সময়ের মধ্যেই দখল ছাড়তে হবে। তা না হলে বিনা নোটিশে অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ স্থাপনাগুলো ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে।’

এরই ধারাবাহিকতায় রূপনগর খালের দুই পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের লক্ষ্যে আকস্মিকভাবে অভিযান শুরু করেছে ডিএনসিসি। যদিও অবৈধ দখলদারদের আগে থেকেই অবৈধ স্থাপনাগুলো সরিয়ে নেওয়া আগে থেকেই সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে কয়েক দফায় জানানো হয়েছিল ।

ঢাকা শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনের দায়িত্ব (খাল ও ড্রেনেজ) আনুষ্ঠানিকভাবে ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে দুই সিটি করপোরেশনকে হস্তান্তর করার পর থেকে তারা উচ্ছেদ অভিযান এবং খালের পানি প্রবাহ ফিরিয়ে আনতে অভিযান শুরু করেছিল। করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে কিছুদিন অভিযান বন্ধ থাকার পর আজ থেকে ফের অভিযান শুরু করলো ডিএনসিসি।

ডিএনসিসি সূত্রে জানা গেছে, খাল উদ্ধার করে এর পানি প্রবাহ ফিরিয়ে আনার পাশাপাশি নান্দনিকতায় খালের রূপ বদলে দিতে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। সে অনুযায়ী কাজ করছে সংস্থাটি। 

সাগুফতা খাল, রামচন্দ্রপুর খাল, ইব্রাহিমপুর খাল, গোদাগারি খাল, রূপনগর খালসহ ১৪টি খাল থেকে প্রথম দুই মাসে ৯ হাজার ৩০০ টন বর্জ্য অপসারণ করে ডিএনসিসি। চারটি নদীর সাথে এসবের সংযোগ স্থাপন করতে চায় ডিএনসিসি। এছাড়া হাতিরঝিল থেকে কালাচাঁদপুর, বনানী কবরস্থান, কড়াইল বস্তিতে যেন নৌপথে যাওয়া যায় সেই ব্যবস্থার পাশাপাশি কয়েকটি ব্রিজ উঁচু করার জন্য একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে তারা। যা স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানা গেছে।

/এসএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

বনানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ জনের মৃত্যু

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

‘হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করছে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’ 

‘ঢাকামুখী অভিবাসন বন্ধ না হলে কোনও পরিকল্পনাই কার্যকর হবে না’ 

‘ঢাকামুখী অভিবাসন বন্ধ না হলে কোনও পরিকল্পনাই কার্যকর হবে না’ 

‘ভবনে রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং থাকলে ১০ শতাংশ হোল্ডিং কর রেয়াত’

‘ভবনে রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং থাকলে ১০ শতাংশ হোল্ডিং কর রেয়াত’

হানিফ ফ্লাইওভারে বাস উল্টে দুই কাবাডি খেলোয়াড় আহত

হানিফ ফ্লাইওভারে বাস উল্টে দুই কাবাডি খেলোয়াড় আহত

‘দোলায় চড়ে’ দুর্গার বিদায় (ফটোস্টোরি)

‘দোলায় চড়ে’ দুর্গার বিদায় (ফটোস্টোরি)

যাত্রাবাড়ীতে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

যাত্রাবাড়ীতে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

শান্তি-সম্প্রীতির জন্য প্রার্থনা মসজিদে

শান্তি-সম্প্রীতির জন্য প্রার্থনা মসজিদে

সর্বশেষ

সম্প্রীতি বিনষ্টের জন্য ষড়যন্ত্র চলছে: জিএম কাদের

সম্প্রীতি বিনষ্টের জন্য ষড়যন্ত্র চলছে: জিএম কাদের

গরুকে ধাক্কা দেওয়ার জেরে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ১

গরুকে ধাক্কা দেওয়ার জেরে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ১

করোনা টিকা দিতে ৯ কোটি সিরিঞ্জ কিনছে সরকার

করোনা টিকা দিতে ৯ কোটি সিরিঞ্জ কিনছে সরকার

ভারতের আইএসএল থেকে ডাক পেলেন তপু বর্মণ

ভারতের আইএসএল থেকে ডাক পেলেন তপু বর্মণ

বাংলাদেশ ছাড়ছে মুহিবুল্লাহর পরিবার?

বাংলাদেশ ছাড়ছে মুহিবুল্লাহর পরিবার?

© 2021 Bangla Tribune