X
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

দিনাজপুর পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ১২ কোটি টাকা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৫৫

দিনাজপুর পৌরসভার কাছে ১২ কোটি টাকা বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পাওনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তারা। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটার স্থাপন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় এ কথা জানানো হয়।

জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম। অনুষ্ঠানে দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুজন সরকার, দিনাজপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবু বকর সিদ্দিক, দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, প্যানেল মেয়র আবু তৈয়ব আলী দুলাল, স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটার প্রকল্পের পরিচালক মাহাবুবুল আলম চৌধুরী, নেসকো দিনাজপুরের পরিচালন ও সংরক্ষণ সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী হাসিবুর রহমান, স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটার প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান দেওয়ান ও সাইয়েদুন মোরসালিন, দিনাজপুর বিক্রয় ও বিতরণ-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী ফজলুর রহমান ও ২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী এ কে এম শাহাদত হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, ‘বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারের রাজস্ব আদায়ে সমস্যা থাকায় অনেক বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। এ জন্য সরকার স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটার স্থাপনে উদ্যোগ নিয়েছে। এতে করে যেমন গ্রাহক উন্নত সেবা পাবে, একইসঙ্গে সরকারের রাজস্ব আদায় নিশ্চিত হবে। পাশাপাশি বিদ্যুৎ অপচয় রোধ, বিল সংক্রান্ত জটিলতার অবসান হবে।’

স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটার স্থাপন বিষয়ক মতবিনিময় সভা

তিনি বলেন, ‘দিনাজপুর পৌরসভার কাছে ১২ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। বিদ্যুৎ বিল সংক্রান্ত জটিলতায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন হলে সমস্যায় পড়বে জনগণ। অথচ পৌরবাসী যথারীতি তাদের কর পরিশোধ করছে। পৌর কর্তৃপক্ষ চাইলেই করের অর্থ দিয়ে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে পারে। বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় দিনাজপুর পৌরসভার জন্য ইউজিআইআইপির ২৫ কোটি টাকার উন্নয়ন বরাদ্দ ফেরত গেছে। পৌরসভার নিয়মিত কর্মচারীদের বেতনও বকেয়া রয়েছে। পৌরসভার করসহ বিভিন্ন খাতের, বরাদ্দের, খরচের অর্থ এমনকি পৌরসভার বাজেটও উপস্থাপন করা হয় না।’ এ সময় তিনি পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের কাছে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চান।

মেয়র বলেন, ‘১২ বছর পূর্বে আমি যখন মেয়র নির্বাচিত হই, তখন বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ছিল পৌনে পাঁচ কোটি টাকা। এরপর আমি প্রায় ৭৮ লাখ টাকা বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করেছি। তবে আমার জানামতে, সাড়ে ৭ কোটি টাকার মতো বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে।’

মেয়রের কথার বিরোধিতা করে বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তারা দাবি করেন, দিনাজপুর পৌরসভা কর্তৃপক্ষের কাছে ১২ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের বিষয়ে পৌর কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার জানানোর পরও তারা কোনও ব্যবস্থা নেয়নি।

দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী বলেন, ‘উন্নয়নের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ ফেরত যাওয়াটা দুঃখের বিষয়। পৌর মেয়রের গাফিলতির কারণে উন্নয়ন সেবা থেকে বঞ্চিত জনগণ।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

বরাদ্দের আগেই প্রতীক নিয়ে প্রার্থীদের প্রচারণা

বরাদ্দের আগেই প্রতীক নিয়ে প্রার্থীদের প্রচারণা

আমদানি বাড়ায় কমেছে পেঁয়াজের দাম

আমদানি বাড়ায় কমেছে পেঁয়াজের দাম

জেলা প্রশাসনের বিজ্ঞপ্তি ফেসবুকে ভাইরাল

জেলা প্রশাসনের বিজ্ঞপ্তি ফেসবুকে ভাইরাল

ফ্লাইওভারের র‍্যাম্পের পিলারে ফাটল পায়নি বিশেষজ্ঞ দল

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৮:০৩

চট্টগ্রামের এম এ মান্নান ফ্লাইওভারের আরাকান সড়কমুখী র‌্যাম্পের পিলারে কোনও ফাটল পাওয়া যায়নি। বুধবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে র‌্যাম্পটির নকশা প্রণয়নকারী প্রতিষ্ঠান ডিজাইন প্ল্যানিং অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট (ডিপিএম) কনসালটেন্টস লিমিটেডের বিশেষজ্ঞরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

ডিপিএম কনসালটেন্টসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এম এ সোবহান বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পিলারের ফাটলের যেসব ছবি ছড়িয়ে পড়েছে সেখানে ফাটলের মতো যে চিহ্ন দেখা যাচ্ছে, তা মূলত কনস্ট্রাকশন জয়েন্ট। মূল স্ট্রাকচারে কোনও ফাটল হয়নি। তিন বছর আগে পিলারের অবস্থা যেমন ছিল এখনও সে রকম আছে। এতদিন হয়তো কারও চোখে পড়েনি। এটা কোনও ফাটল নয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘র‌্যাম্পটির পিলার আমরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেছি। প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে, ফাটল নেই। এই অবস্থায় হালকা যানবাহন চলাচল করতে পারবে। এরপরও ভেতরে কোনও ত্রুটি আছে কি-না তা তদন্ত করে দেখা হবে। যে জায়গাটাতে মনে হচ্ছে, ওপর দিয়ে ক্র্যাক থাকতে পারে। সেটি আমরা ভেতরের কংক্রিটটা বের করে দেখবো। তদন্ত শেষে এ বিষয়ে পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন প্রকল্প বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে দেওয়া হবে।’

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে এম এ সোবহানের সঙ্গে বিশেষজ্ঞ দলে ছিলেন ডিপিএমের পরিচালক প্রকৌশলী শাহজাহান আলম ও সিনিয়র স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ার সামি মোহাম্মদ রেজা।

একই ধরনের বক্তব্য দিয়েছেন র‌্যাম্প নির্মাণকারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ম্যাক্সের কর্মকর্তারা। ডিপিএমের বিশেষজ্ঞ দলের পরিদর্শন শেষে বুধবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরের আলমাস মোড়ে অবস্থিত প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ নিয়ে ব্রিফিং করেন ম্যাক্সের প্রজেক্ট ম্যানেজার প্রকৌশলী মনির হোসাইন।

তিনি বলেন, ‘পিলারে কোনও ফাটল নেই। ফাটলের মতো যে চিহ্ন দেখা যায়, এটি কনস্ট্রাকশন জয়েন্ট। পিলারে সাটারিংয়ের যে জয়েন্ট ছিল, তা প্রপার পজিশনে ছিল না। সাটারিং যখন জয়েন্ট দেয়, সে জয়েন্টের মধ্যে আমরা ফোম ব্যবহার করি। সেই ফোমগুলো এখনো আটকে আছে। আজকে ডিজাইনকারী প্রতিষ্ঠান ঘটনাস্থলে গিয়ে ওপরে উঠেছে। তারা জায়গাটি পরিষ্কার করছে। তাতে পিলারে কোনও ধরনের ফাটল পায়নি।’

মনির হোসাইন আরও বলেন, ‘র‌্যাম্পে নির্মাণগত কোনও বড় ত্রুটি নেই। এরপরও এটি নিশ্চিত হওয়ার জন্য আমরা আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাবো। ভারী যানবাহন যে চলাচল করতে না পারে সেজন্য র‌্যাম্পের মুখে দুয়েকদিনের মধ্যে ব্যারিয়ার বসানো হবে।’

২০১০ সালে এম এ মান্নান ফ্লাইওভারের নির্মাণ কাজ শুরু করে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে ফ্লাইওভারটিতে লুপ নির্মাণের প্রস্তাব করা হলেও তা না মেনে লুপ ছাড়াই নির্মাণ শেষে ২০১৩ সালে ফ্লাইওভারটি চালু করা হয়। ফ্লাইওভারটি কার্যকরী না হওয়ায় স্থানীয়দের দাবির মুখে পড়ে ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে আরাকান সড়কমুখী ওই র‌্যাম্প নির্মাণের উদ্যোগ নেয় সিডিএ। ৩২৬ মিটার দীর্ঘ এবং ৬ দশমিক ৭ মিটার চওড়া র‌্যাম্পটি নির্মাণ শেষে ২০১৭ সালে তা চালু করা হয়। র‌্যাম্পটি চালুর তিন বছরের মাথায় সোমবার আরাকানমুখী র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল দেখা দিয়েছে এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর ওই দিন রাতে চট্টগ্রাম নগরীর চান্দগাঁও থানার ওসি মাঈনুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে এর সত্যতা পাওয়ার বিষয়টি সিটি করপোরেশন ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন। পাশাপাশি ওই র‌্যাম্প দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনায় ৮ আসামির রিমান্ড

নোয়াখালীতে সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনায় ৮ আসামির রিমান্ড

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলা: ৩ মামলা সিআইডিতে, গ্রেফতার আরও ৩ 

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলা: ৩ মামলা সিআইডিতে, গ্রেফতার আরও ৩ 

মিতু হত্যা: বাবুলের নারাজি আবেদনের পরবর্তী শুনানি ৩ নভেম্বর

মিতু হত্যা: বাবুলের নারাজি আবেদনের পরবর্তী শুনানি ৩ নভেম্বর

জামিনে বের হয়ে মাকে কুপিয়ে হত্যা

জামিনে বের হয়ে মাকে কুপিয়ে হত্যা

বিয়ে দিতে বাবার অসম্মতির কারণে ছেলের আত্মহত্যার অভিযোগ

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৫৯

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে বাবা বিয়ে দিতে আপত্তি করায় ইমন আলী (২০) নামে এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) রাতে উপজেলার বাগুলাট ইউনিয়নের শালঘর মধুয়া কাচারিপাড়া গ্রামে গাছের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 
মৃত যুবক উপজেলার বাগুলাট ইউনিয়নের শালঘর মধুয়া কাচারিপাড়া গ্রামের জামছের আলীর ছেলে। স্থানীয় আরিফ নামে এক এলাকাবাসী জানায়, ঢাকায় একটি আইসক্রিম কারখানায় কাজ করতেন ইমন। করোনাকালে তিনি বাড়িতে চলে আসেন। কিছুদিন ধরে বিয়ে দেওয়ার জন্য বাবাকে বলছিলেন তিনি। এরপর পার্শ্ববর্তী গ্রামে মেয়ে দেখে বিয়ের কথা পাকাপাকি করা হয়। আগামী বছর বিয়ের দিন ঠিক করে তার বাবা। কিন্তু এখনই বিয়ে দিতে হবে- এমন চাপ সৃষ্টি করলে তার বাবা অসম্মতি জানান। এতে অভিমান করে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে বাড়ির পাশের বাগানে গাছের সঙ্গে রশি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন ইমন। 
বুধবার সকাল ৭টার দিকে প্রতিবেশী এক নারী বাগানে গেলে ইমনকে গাছের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে চিৎকার করেন। পরে এলাকাবাসী খবর দিলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।
ওসি জানান, বিয়ে না দেওয়ায় ছেলে আত্মহত্যা করেছে এলাকাবাসী এমনই তথ্য দিয়েছে। তবে লাশের ময়নাতদন্তের পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। এ বিষয়ে কুমারখালী থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। লাশ কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ১৫টি ঘোড়া উপহার দিলো ভারত

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ১৫টি ঘোড়া উপহার দিলো ভারত

পাবজি খেলতে ডেকে ৫ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

পাবজি খেলতে ডেকে ৫ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

বাবা-মা-মেয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা, আসামি অজ্ঞাত

বাবা-মা-মেয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা, আসামি অজ্ঞাত

খিচুড়ি খেয়ে হাসপাতালে একই পরিবারের ৮ সদস্য 

খিচুড়ি খেয়ে হাসপাতালে একই পরিবারের ৮ সদস্য 

বরাদ্দের আগেই প্রতীক নিয়ে প্রার্থীদের প্রচারণা

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৪৪

প্রতীক বরাদ্দের আগেই নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য প্রার্থীরা। নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী আগামী ১১ নভেম্বর উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে ২৭ অক্টোবর।

গত ১৭ অক্টোবর এই সাত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে ৩৩, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৬১ এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৯২ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। কিন্তু প্রতীক বরাদ্দের আগেই প্রতীকসহ পোস্টার, লিফলেট ছাপিয়ে প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছেন তারা। অনেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও পোস্টার নিয়ে পোস্ট দিয়েছেন। প্রতীক বরাদ্দের আগে প্রতীক নিয়ে প্রচারণা আচরণবিধির লঙ্ঘন। তবু প্রার্থীরা এক সপ্তাহ ধরে প্রচারাভিযান করছেন। চলছে বৈঠক ও সভা-সমাবেশ।

এ নিয়ে তেঁতুলিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আলী হোসেনের কাছে অভিযোগ করেছেন ভোটাররা। এরপরও প্রচারণা বন্ধ হয়নি।

বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামী লীগের প্রার্থী মাহাবুবুল আলম মিলন, স্বতন্ত্র প্রার্থী কুদরত-ই-খুদা মিলন, ভজনপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের প্রার্থী হারুন-উর-রশিদ লিটন, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোকসেদ আলী, তিরনইহাট ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী আলমগীর হোসাইন, বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের প্রার্থী শেখ কামাল, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. তারেক হোসেন ও মো. রবিউল ইসলাম, শালবাহানহাট ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. আশরাফুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মতিয়ার রহমান, দেবনগর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. আবু কালাম আজাদ ডাবলু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মহসিন উল হককে প্রতীক নিয়ে প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে।

প্রতীক বরাদ্দের আগেই নির্বাচনী প্রচারণা

প্রতীক না পেলেও পছন্দের প্রতীক নিয়ে প্রচারণা চালানোর কথা স্বীকার করেছেন প্রার্থীরা। তবে কেউ কেউ বলছেন, প্রার্থীদের পক্ষে ভোটাররা প্রচার-প্রচারণা করছেন। চেয়ারম্যান প্রার্থী ছাড়াও ইউপি সদস্য প্রার্থীরাও প্রতীক নিয়ে প্রচারণা চালিয়ে আসছেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আলী হোসেন বলেন, ভোটারদের কাছ থেকে এ ধরনের কিছু অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যে তেতুঁলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রতীক সংবলিত পোস্টার সরাতে প্রার্থীদের নির্দেশ দিয়েছেন। প্রতীক বরাদ্দের আগে এ ধরনের প্রচারণা নিষিদ্ধ। আচরণবিধিতে নির্দেশনা আছে, প্রতীক বরাদ্দের আগে কোনও প্রার্থী প্রচারণা চালাতে পারবেন না। আমার কাছে যে অভিযোগগুলো এসেছে, ব্যবস্থা নিয়েছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ চন্দ্র সাহা বলেন, রিটার্নিং কর্মকর্তা এ বিষয়ে অভিযোগ করলে অভিযান পরিচালনা করবো। তবে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ ধরনের প্রচারণার জন্য সতর্ক করেছি এবং ব্যবস্থা নিচ্ছি।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, উপজেলার সাত ইউনিয়ন পরিষদে আগামী ১১ নভেম্বর ভোটগ্রহণ হবে। এখানে ভোটার ৯৭ হাজার ২২৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৪৮ হাজার ৭১৬ ও নারী ভোটার ৪৮ হাজার ৫১১।

/এএম/

সম্পর্কিত

আমদানি বাড়ায় কমেছে পেঁয়াজের দাম

আমদানি বাড়ায় কমেছে পেঁয়াজের দাম

চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভাতিজার বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষের সমর্থককে গুলির অভিযোগ

চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভাতিজার বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষের সমর্থককে গুলির অভিযোগ

৫ ইউনিয়নের কোনও পদেই প্রতিদ্বন্দ্বী নেই

৫ ইউনিয়নের কোনও পদেই প্রতিদ্বন্দ্বী নেই

প্রার্থীর মৃত্যুতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন স্থগিত

প্রার্থীর মৃত্যুতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন স্থগিত

ঘটনার বর্ণনা দিলেন চুল কেটে দেওয়া ভুক্তভোগী ১৪ শিক্ষার্থী

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৪০

১৪ শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেওয়ার ঘটনার তদন্তে সিরাজগঞ্জের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে সরেজমিন পরিদর্শনে গিয়েছে ইউজিসির একটি প্রতিনিধি দল। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের এ প্রতিনিধি দলের কাছে চুল কেটে দেওয়ার ঘটনার বিবরণ দিলেন ভুক্তভোগী ১৪ শিক্ষার্থী।

একাডেমিক ভবনের চতুর্থ তলায় অবস্থিত সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের শ্রেণিকক্ষে অনুষ্ঠিত এই সাক্ষাতে প্রথম সাক্ষ্য দেন আত্মহত্যার চেষ্টাকারী ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী নাজমুল হোসেন। বুধবার (২৭ অক্টোবর) সকাল পৌনে ১১টা থেকে দুপুর প্রায় সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ভুক্তভোগী ১৪ শিক্ষার্থী সে দিনের ঘটনার বিবরণ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়টিতে হওয়া আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া শিক্ষার্থী আবু জাফর হোসাইন।

এদিকে, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ইউজিসির প্রতিনিধি দল রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে এসে পৌঁছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে এসেছেন এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনও। এরপর সকাল সাড়ে ১০টার পরপরই তদন্ত করতে আসা প্রতিনিধি দল কার্যক্রম শুরু করে।

ইউজিসির সদস্য ও প্রফেসর দীল আফরোজার নেতৃত্বে এই তদন্ত কমিটির বাকি দুই সদস্য হলেন- ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের পরিচালক জামিলুর রহমান এবং সহকারী পরিচালক আবু ইউসুফ হীরা। এদের মধ্যে দুই জন এখানে এলেও তদন্ত কমিটির প্রধান প্রফেসর দীল আফরোজা ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. সোহরাব আলী।

সূত্র জানিয়েছে, ইউজিসির প্রতিনিধি দল একে একে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী, অভিযুক্ত শিক্ষিকা, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া চার সদস্যের প্রতিনিধি দল, তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিভাগীয় চেয়ারম্যান ছাড়াও রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান লায়লা ফেরদৌস হিমেল এর নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের গঠিত পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটির সঙ্গে কথা বলবে।

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. সোহরাব আলী বলেন, ‘ইউজিসির প্রতিনিধি দল এসে তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেছে।’ আজকেই তদন্ত কার্যক্রম শেষ করা হবে কি-না, জবাবে তিনি বলেন, ‘আজকেই এই তদন্তের জন্য নির্ধারিত দিন। তবে কার্যক্রম আজকেই শেষ হবে কি-না বলা যাচ্ছে না।’

অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন ও ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ট্রেজারার আব্দুল লতিফের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করেও তাদের পাওয়া যায়নি।

/এফআর/

সম্পর্কিত

চলন্ত ট্রাক থেকে মাল চুরির চেষ্টা, প্রাণ গেলো যুবকের

চলন্ত ট্রাক থেকে মাল চুরির চেষ্টা, প্রাণ গেলো যুবকের

সিরাজগঞ্জে পুলিশ-যুবদল সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

সিরাজগঞ্জে পুলিশ-যুবদল সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ইউজিসির প্রতিনিধিরা, ডাকা হয়েছে সেই শিক্ষিকাকে

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ইউজিসির প্রতিনিধিরা, ডাকা হয়েছে সেই শিক্ষিকাকে

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ১৫টি ঘোড়া উপহার দিলো ভারত

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:০৬

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ১৫টি ঘোড়া উপহার দিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। বুধবার (২৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা ভারত-বাংলাদেশ নো-ম্যানস ল্যান্ডে ঘোড়াগুলো বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কাছে হস্তান্তর করে।

উপহারের ঘোড়া হস্তান্তরের সময় বাংলাদেশের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন যশোর সেনানিবাসের কর্নেল মাজাহার আল কবির খোকন ​ও ভারতের পক্ষে ছিলেন কলকাতা সেনাবাহিনীর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মৌনমিথ সিং সবরওয়াল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ও ভারতীয় সেনাবাহিনীর অনেক কর্মকর্তা। 

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) এডি সেলিম সেলিম বলেন, আনুষ্ঠানিকতা শেষে ঘোড়াগুলো বেনাপোল চেকপোস্ট থেকে সেনাবাহিনীর কয়েকটি ট্রাকে করে সাভারে নিয়ে যাওয়া হয়।

গত এপ্রিল মাসে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারত সরকার বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ১৫টি ঘোড়া উপহার দিয়েছিল।

/এএম/

সম্পর্কিত

বিয়ে দিতে বাবার অসম্মতির কারণে ছেলের আত্মহত্যার অভিযোগ

বিয়ে দিতে বাবার অসম্মতির কারণে ছেলের আত্মহত্যার অভিযোগ

পাবজি খেলতে ডেকে ৫ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

পাবজি খেলতে ডেকে ৫ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

বাবা-মা-মেয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা, আসামি অজ্ঞাত

বাবা-মা-মেয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা, আসামি অজ্ঞাত

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বরাদ্দের আগেই প্রতীক নিয়ে প্রার্থীদের প্রচারণা

বরাদ্দের আগেই প্রতীক নিয়ে প্রার্থীদের প্রচারণা

আমদানি বাড়ায় কমেছে পেঁয়াজের দাম

আমদানি বাড়ায় কমেছে পেঁয়াজের দাম

জেলা প্রশাসনের বিজ্ঞপ্তি ফেসবুকে ভাইরাল

জেলা প্রশাসনের বিজ্ঞপ্তি ফেসবুকে ভাইরাল

থানার জানালা ভেঙে পালালেন আসামি, ২ পুলিশ প্রত্যাহার

থানার জানালা ভেঙে পালালেন আসামি, ২ পুলিশ প্রত্যাহার

গাইবান্ধায় রিকশাচালক হত্যার ঘটনায় দুই ভাই কারাগারে

গাইবান্ধায় রিকশাচালক হত্যার ঘটনায় দুই ভাই কারাগারে

চাহিদা থাকায় হিলি দিয়ে আসছে শুকনা মরিচ

চাহিদা থাকায় হিলি দিয়ে আসছে শুকনা মরিচ

অবৈধভাবে ভারত থেকে প্রবেশকালে বাংলাদেশি আটক

অবৈধভাবে ভারত থেকে প্রবেশকালে বাংলাদেশি আটক

সর্বশেষ

বেস্ট রিটেইল অ্যাওয়ার্ড পেলো ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স

বেস্ট রিটেইল অ্যাওয়ার্ড পেলো ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স

পুলিশের জন্য কেনা হচ্ছে হেলিকপ্টার

পুলিশের জন্য কেনা হচ্ছে হেলিকপ্টার

আরও ৩৫ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা উপহার দিয়েছে যুক্তরাষ্ট

আরও ৩৫ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা উপহার দিয়েছে যুক্তরাষ্ট

বাংলাদেশের কাছে যেসব অস্ত্র বিক্রি করতে চায় যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের কাছে যেসব অস্ত্র বিক্রি করতে চায় যুক্তরাজ্য

শিশুদের জলবায়ু ঘোষণাপত্র কপ-২৬’র এজেন্ডায় অন্তর্ভুক্ত করা জরুরি: স্পিকার

শিশুদের জলবায়ু ঘোষণাপত্র কপ-২৬’র এজেন্ডায় অন্তর্ভুক্ত করা জরুরি: স্পিকার

© 2021 Bangla Tribune