X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

সচেতনতায় জলাতঙ্কের নিশ্চিত মৃত্যু প্রতিরোধ সম্ভব 

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:০০

চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে রাত সাড়ে ১১টার দিকে কুকুরে কামড়ানো এক রোগী আসেন ঢাকার সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালে। আঠারো বছরের এই তরুণকে প্রায় আড়াই মাস আগে কুকুর কামড়ায়। সে চিকিৎসা না করিয়ে গ্রামের কবিরাজ থেকে পানি পড়া, তাবিজ নেয়। তবে দিন দিন ছেলেটির অবস্থা খারাপ হতে থাকে। অ্যাগ্রেসিভ আচরণ সঙ্গে অতিরিক্ত লালাক্ষরণ হতো তার। এমনকি পানি বাতাস দেখে ভয় পেতো বলে তাকে এ  হাসপাতালে ভর্তি করাতে নিয়ে আসেন স্বজনরা। পরদিন সকাল সাড়ে নয়টার দিকে সে মারা যায়।

সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, এরকম রোগী প্রতিদিন গড়ে আড়াই শ’ থেকে প্রায় ৩০০ এ হাসপাতালে আসে।

হাসপাতালের দায়িত্বরত একজন চিকিৎসক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, এ হাসপাতালে কাজ করতে না এলে আমার নিজেরও জানা ছিল না, প্রতিদিন ‘অ্যানিমেল বাইট’র কারণে অসুস্থ হয়ে এত মানুষ আসেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই চিকিৎসক বলেন, পোষা প্রাণির ক্ষেত্রে বিড়ালের কামড় বা আঁচড়ের কারণে বেশি রোগী পান তারা। এ ছাড়া কুকুরের কামড়েও রোগী আসছে। আর এসব প্রাণির কামড় বা আঁচড়ের কারণে হয় জলাতঙ্ক।

চিকিৎসকরা বলছেন, জলাতঙ্ক হলে মৃত্যু নিশ্চিত। এটি একটি মরণব্যাধি। জলাতঙ্ক র‍্যাবিস ভাইরাসজনিত একটি মারাত্মক সংক্রামক রোগ। ব্র্যাবিস ভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত কুকুর রোগটির প্রধান বাহক। তবে বিড়াল, খেঁকশিয়াল, বেজি, বান, বাদুড়ের কামড় বা আঁচড়ের মাধ্যমেও জলাতঙ্ক হতে পারে। তবে আশার কথা হচ্ছে, যদি যথাসময়ে চিকিৎসকের কাছে গিয়ে চিকিৎসা নেওয়া সম্ভব হয়; টিকা নেওয়া যায় তাহলে মৃত্যু প্রতিরোধ সম্ভব। আর তাই সচেতনতার প্রতিই জোর দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। 

তারা বলছেন, জলাতঙ্কের চিকিৎসা এখন পুরো দেশজুড়ে রয়েছে। কিন্তু মানুষ চিকিৎসকের কাছে যেতে চায় না। এমনকি টিকাও নিতে চায় না। তারা গ্রামের টোটকা, চিকিৎসায় বেশি আগ্রহী। আর তাতেই আসলে মৃত্যু হয় বেশি। মানুষ অসচেতন বলেই এটা হচ্ছে। কিন্তু সময়মতো অর্থাৎ কামড় বা আঁচড়ের সঙ্গে সঙ্গে আক্রান্ত স্থান সাবান পানি দিয়ে ধুয়ে পূর্ণ ভোজ টিকা গ্রহণের মাধ্যমে রোগটি শতভাগ প্রতিরোধ করা সম্ভব। 

সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালের ওই চিকিৎসক বলেন, ভ্যাক্সিনেশনের কোনও বিকল্প নেই। কারণ জলাতঙ্কের উপসর্গ দেখা দিলে আর কোনও চিকিৎসা নেই। তাই কেবলমাত্র সচেতন হতে হবে।  

প্রতিবছর বিশ্বে ৫৯ হাজারের বেশি মানুষ জলাতঙ্কে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। এ রোগের ভয়াবহতা উপলব্ধি, জনসচেতনতা বৃদ্ধি এবং প্রতিরোধ ও নির্মূলের লক্ষে ২০০৭ সাল থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাংলাদেশেও বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস উদযাপন করে আসছে।

দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে, ‘জলাতঙ্ক: ভয় নয়, সচেতনতায় জয়’।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের জুনোটিক ডিজিজ কন্ট্রোল কর্মসূচি জাতীয় জলাতঙ্ক নির্মূল কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির ২০২০-২১ অর্থবছরে সারাদেশে জেলা সদর হাসপাতালে ৬৭টি এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১০১টি কেন্দ্রের মাধ্যমে জলাতঙ্ক প্রতিরোধী অ্যান্টি র‌্যাবিস ভ্যাকসিন (এআরভি) এবং র‌্যাবিস ইমোনোগ্লুবিন (আরআইজি) সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সরবরাহ করে আসছে। প্রতিটি কেন্দ্রে গড়ে তোলা হয়েছে জলাতঙ্ক কর্নার।

আর আক্রান্ত স্থান ১৫টি মিনিট ধরে ধৌত করা হলে উক্ত স্থানে উপস্থিত ৭৫-৮০ ভাগ জলাতঙ্কের জীবাণু চলে যায়।

২০১২ সালে বিনামূল্যে প্রায় এক লাখ ২০ হাজারের বেশী রোগী টিকা পেয়েছে যা ২০১৯ সালে বৃদ্ধি পেয়ে আড়াই লাখ হয়েছে। রাজধানী ঢাকার সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল, চট্টগ্রামের বিআইটিআইডি হাসপাতাল এবং চট্টগ্রাম ও জেলা সদর হাসপাতালের তথ্য থেকে স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, ২০০৯ সালে জলাতঙ্ক রোগে আক্রান্ত হয়ে আনুমানিক ২ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়। আর চলতি বছরের আগস্ট মাস পর্যন্ত জলাতঙ্কে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩০ জনের মতো।

জলাতঙ্ক নির্মূলে ব্যাপকহারে কুকুরের টিকাদান কার্যক্রমকে গুরুত্ব দিয়ে চলতি বছরের এখন পর্যন্ত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে দেশজুড়ে কুকুরের জলাতঙ্ক প্রতিষেধক টিকাদান (এমডিডি) কার্যক্রমের আওতায় দেশের ৬৪ জেলায় প্রথম রাউন্ড, ১৬ জেলায় দ্বিতীয় রাউন্ড আর সিরাজগঞ্জ, গাজীপুর, মানিকগঞ্জ, মাদারীপুর, নীলফামারী ও গাইবান্ধা জেলায় তৃতীয় রাউন্ড টিকাদান কার্যক্রমের আওতায় প্রায় ২১ লাখ ৩৮ হাজার ৬৩৯টি কুকুরকে জলাতঙ্ক প্রতিষেধক টিকা দেওয়া হয়েছে।

একমাত্র সচেতনতাই পারে জলাতঙ্ক প্রতিরোধ করতে- বাংলা ট্রিবিউনকে এমনটিই জানালেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম।

আঁচড় বা কামড় হোক- এ দুটোর যেকোনও একটি হলেও হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসকের পরামর্শে টিকা নিলে জলাতঙ্কে একটিও মৃত্যুর হয় না। শতভাগ সেফ হয়ে যায়। আর এটা খুব জরুরি- বলেন তিনি।

অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম বলেন, কাউকে যদি কুকুর বিড়ালে কামড়ায়; আর তাকে যদি টিকা না দেওয়া হয়, তাহলে হাড্রেড পারসেন্ট ডেথ। কিন্তু যদি টিকা নেওয়া যায়, তাহলে শতভাগ এই মৃত্যুকে প্রতিরোধ সম্ভব।

এজন্য দেশের ৬৪ জেলা সদর হাসপাতালে জলাতঙ্ক রোগের প্রতিষেধক হিসেবে শতভাগ ব্যবস্থা রয়েছে। দেশের ১০১টি উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সবকিছু রয়েছে। তাহলে কেবলমাত্র সচেতন হয়ে চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে জানিয়ে অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম বলেন- অপচিকিৎসা, টোটকা কোনও অবস্থাতেই যেন না করা হয়।

/জেএ/এনএইচ/

সম্পর্কিত

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

আরও ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

আরও ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

এক সপ্তাহে ৪ কোটি শিশু পাবে কৃমির ওষুধ

এক সপ্তাহে ৪ কোটি শিশু পাবে কৃমির ওষুধ

সাড়ে সাত লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

সাড়ে সাত লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন ও কমিশন গঠনের দাবিতে শাহবাগে হিন্দু পরিষদের অবরোধ

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২০:৪৫

দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক হামলায় জড়িতদের বিচার এবং সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তার দাবিতে রাজধানীর শাহবাগে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকালে ছিল এই কর্মসূচি। সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন ও কমিশন গঠনের দাবি জানিয়ে শাহবাগ ছেড়েছেন তারা।

শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। ট্রাইব্যুনাল গঠন করে দ্রুত সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ, সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন এবং জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠনের দাবি জানান তারা।

অবরোধ কর্মসূচিতে বাংলাদেশ হিন্দু আইনজীবী পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুমন কুমার রায় বলেন, ‘আপনারা জানেন দেশব্যাপী সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ওপর কী নারকীয় হামলা চালানো হয়েছে। প্রশাসন এক্ষেত্রে তাদের দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ। রাষ্ট্র সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ। সাম্প্রদায়িক হামলায় জড়িতরা বারবার পার পেয়ে যাচ্ছে। এর আগেও সাম্প্রদায়িক হামলায় সংখ্যালঘুরা বিচার পায়নি। হামলার কুশীলবরা ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যায়। আমরা চাই, হামলার নেপথ্যে যারা জড়িত তাদেরও যেন বিচারের আওতায় আনা হয়।’

জাতীয় হিন্দু সমাজ সংস্কার সমিতির সভাপতি অধ্যাপক নীরেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের মন্তব্য, ‘দেশে সংখ্যালঘুদের ওপর এতো হামলা হলেও কোনও বিচার হয় না। বিচার হয় না বলে এর স্থায়ী প্রতিকার দেখা যায় না। হামলাকারীকে বের করে গ্রেফতার করা চূড়ান্ত সমাধান নয়। মূলহোতাকে গ্রেফতার করা হোক এবং শাস্তি দেওয়া হোক।’

হিন্দু-মুসলিম সম্প্রীতি আবারও ফিরিয়ে আনতে সরকারকে মুখ্য ভূমিকা পালনের আহ্বান জানায় জাতীয় হিন্দু সমাজ সংস্কার সমিতি।

রাজধানীর শাহবাগে সড়ক অবরোধ করে বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ

কর্মসূচিতে পেশ করা বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদের পাঁচ দফা দাবি-
** জাতীয় সংসদে হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিতকরণের নিমিত্তে ৬০টি সংরক্ষিত আসন এবং একজন উপ-রাষ্ট্রপতি ও একজন উপ-প্রধানমন্ত্রীর পদ সৃষ্টি করা।
** সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সার্বিক নিরাপত্তার লক্ষ্যে একটি সুরক্ষা আইন পাস ও সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় গঠন করা।
** বেদখলকৃত সব দেবোত্তর সম্পত্তি স্ব স্ব মঠ-মন্দিরে হস্তান্তরসহ বন্ধ জাদুঘরের পরিবর্তে উদ্ধারকৃত হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতিমা মঠ-মন্দিরের কাছে ফেরত দেওয়া।
** সরকারি চাকরিতে ২০ শতাংশ কোটা পদ্ধতি চালুসহ হিন্দু ধর্মীয় শিক্ষার্থীদের জন্য সব মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হিন্দু ধর্মীয় শিক্ষক নিয়োগ নিশ্চিত করা।
** শারদীয় দুর্গাপূজায় তিন দিনের সরকারি ছুটি ও নিম্ন মাধ্যমিক পর্যায়ে সংস্কৃত শিক্ষা পুনরায় চালু করা।

অবরোধ পরবর্তী সময়ে সন্ধ্যা ৬টার দিকে মশাল মিছিল নিয়ে জাতীয় প্রেসক্লাব অভিমুখে রওনা দেন বিক্ষোভকারীরা।

/জেএইচ/

সম্পর্কিত

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

রন্ধনশৈলী একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম: শিক্ষামন্ত্রী

রন্ধনশৈলী একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম: শিক্ষামন্ত্রী

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২০:০১

ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার ব্যয় সরকারিভাবে বহনের দাবি জানিয়েছে রোগী কল্যাণ সোসাইটি।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) রাজধানীর মগবাজার এলাকায় বাংলাদেশ রোগী কল্যাণ সোসাইটির উদ্যোগে অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ কর্মসূচিতে এ দাবি জানানো হয়।

এ সময় সংগঠনের পক্ষ থেকে তুলে ধরা প্রস্তাবনায় বলা হয়- বায়ু দূষণ বন্ধ ও মেডিক্যালের বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আধুনিকায়ন ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে। বিভাগীয়ভাবে ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা এবং সরকারি হাসপাতালে শূন্যপদে ডাক্তার নিয়োগ সম্পন্ন করতে হবে। স্বাস্থ্য বিমা বাধ্যতামূলক করার জন্য রাষ্ট্রীয়ভাবে উদ্যোগ এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার কথাও এসময় বলা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বাপ্পি সরদার তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সময়ে উদ্বেগজনকহারে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। যদিও প্রথম ও দ্বিতীয় স্তরে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার গবেষণা সারা পৃথিবীজুড়ে অনেকটা সফল হলেও শেষ স্তরের চিকিৎসা এখনও আলোর মুখ দেখেনি। এই ক্ষেত্রে সম্প্রতি বর্তমান সরকার ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট চালু করতে যাচ্ছে। তবে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহন করলে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে।

ডা. মাহতাব হোসাইন মাজেদ বলেন, চিকিৎসা খাতে আরও বেশি গবেষণা জোরদার করা দরকার। উন্নত গবেষণার মাধ্যমে টেকসই চিকিৎসা ব্যবস্থা বাস্তবায়ন করা সম্ভব। পাশাপাশি সরকারি হাসপাতালগুলো দুর্নীতি বন্ধ ও চিকিৎসার মান উন্নত করতে পারলে রোগীরা সঠিক সেবা পাবে।

নুরুল আফসার বিএসসির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলনের পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার। কর্মসূচি উদ্বোধন করেন গণআজাদী লীগের মহাসচিব মুহাম্মদআতা উল্লাহ খান। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রোগী কল্যাণ সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ও কো-চেয়ারম্যান ডা. মুহাম্মদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ, কুটির শিল্প ও কারিগরি প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ শফিউল আলম, রোগী কল্যাণ সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মো. সাইফুল ইসলাম, এইচএম সালাউদ্দিন কাদের।

/এসএস/এমএস/

সম্পর্কিত

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

কাওরান বাজারে মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত

কাওরান বাজারে মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৩৩

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে কাওরান বাজার এলাকায় দুইজন এবং বনানীর সৈনিক ক্লাব এলাকায় একজন প্রাণ হারিয়েছেন। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) দিনের বিভিন্ন সময়ে এসব দুর্ঘটনা দেখা দেয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহগুলো আইনি প্রক্রিয়া শেষে ঢামেক মর্গে পাঠিয়েছে ঢাকা রেলওয়ে পুলিশ।

রেলওয়ে পুলিশের এএসআই সাকলাইন জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে সৈনিক ক্লাব এলাকা থেকে জিন্স প্যান্ট ও শার্ট পরা এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার বয়স আনুমানিক ২৪ বছর। তবে পরিচয় জানা যায়নি। রেলওয়ে পুলিশের তথ্যানুযায়ী, কমলাপুরগামী সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু হয়েছে তার।

তেজগাঁও থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রিয়াজ মাহমুদ জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাতে তেজগাঁও রেলস্টেশন ও কাওরান বাজারের মাঝামাঝি রেলগেট এলাকায় কমলাপুরগামী ট্রেনে কাটা পড়ে প্রাণ হারায় সবুজ শার্ট ও কালো প্যান্ট পরা এক ব্যক্তি। তার বয়স আনুমানিক ৪০ বছর। তবে পরিচয় জানা যায়নি।

এসআই রিয়াজ মাহমুদ জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে কাওরান বাজার কাঠপট্টি এলাকায় একটি মোবাইল ফোন দেখে আরেকটি মোবাইল ফোনে নম্বর তোলার সময় টঙ্গীগামী ট্রেনের ধাক্কায় মনসুর হেলাল (২৫) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। আশেপাশের লোকজন ট্রেন আসছে দেখে তাকে ডাকলেও তিনি বুঝতে পারেননি।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত তরুণ একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলে। মিরপুরের একটি মেসে থাকতেন তিনি।

/এআইবি/আরটি/জেএইচ/

সম্পর্কিত

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

রাজনৈতিক দলগুলো পুরনো অভ্যাসে লিপ্ত, বিবৃতিতে ৪৭ নাগরিক

রাজনৈতিক দলগুলো পুরনো অভ্যাসে লিপ্ত, বিবৃতিতে ৪৭ নাগরিক

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২৯

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন চারজন। যা গত ১৭ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে গত বছরের ৬ মে তিনজনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা বিষয়ক বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় (বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) মারা যাওয়া এই চারজনের মৃত্যু হয়েছে দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে চারটি জেলায়। বাকি ৬০ জেলায় করোনাতে কারও মৃত্যু হয়নি।

মারা যাওয়া চারজনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের মুন্সিগঞ্জ ও টাঙ্গাইল, চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগের বরিশাল জেলায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

/জেএ/এমএস/

সম্পর্কিত

আরও ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

আরও ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

এক সপ্তাহে ৪ কোটি শিশু পাবে কৃমির ওষুধ

এক সপ্তাহে ৪ কোটি শিশু পাবে কৃমির ওষুধ

সাড়ে সাত লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

সাড়ে সাত লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

করোনায় মৃত্যুহীন ৫৬ জেলা

করোনায় মৃত্যুহীন ৫৬ জেলা

রন্ধনশৈলী একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম: শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৮:০৩

রান্নাকে একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম হিসেবে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, ‘রন্ধনশিল্পীরা বাঙালির ঐতিহ্যবাহী রান্নার স্বাদ ও বৈচিত্র্যে নিত্য নতুন উদ্ভাবনার মধ্য দিয়ে দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিশ্বের ভোজন-রসিকদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) মহাখালী ডিওএইচএসে রাওয়া ক্লাব মিলনায়তনে ‘লবী রহমান'স কুকিং ফাউন্ডেশনের রান্নার রেসিপি বই ‘রসনা শৈলী'র মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, রান্নায় দেশ-বিদেশের প্রণালী ও পদ্ধতির সংমিশ্রণ করে রন্ধনশিল্পে তাদের মেধা ও নিষ্ঠার পরিচয় দিচ্ছেন।

দেশের প্রখ্যাত রন্ধন বিশেষজ্ঞ লবী রহমানের তত্ত্বাবধানে সারা দেশের প্রায় দেড়শ রন্ধনশিল্পীর পাঠানো রেসিপি সম্পাদন করে এই বইটি প্রকাশ করেছে মুক্তধারা নিউইয়র্ক-ঢাকা প্রকাশনা সংস্থা।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত রন্ধনশিল্পীরা।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য মো. শহীদুজ্জামান খোকন এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন শেফ টনি খান ও বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী আবিদা সুলতানা।

/এসএমএ/এমআর/

সম্পর্কিত

কারিগরি শিক্ষার প্রসারে বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান

কারিগরি শিক্ষার প্রসারে বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সিলেবাস আর সংক্ষিপ্ত করার সুযোগ নেই: শিক্ষামন্ত্রী

সিলেবাস আর সংক্ষিপ্ত করার সুযোগ নেই: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত সূচিতেই এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত সূচিতেই এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে: শিক্ষামন্ত্রী

যত্রতত্র অনার্স-মাস্টার্স খুলে সনদ দেওয়া হয়েছে: শিক্ষামন্ত্রী

যত্রতত্র অনার্স-মাস্টার্স খুলে সনদ দেওয়া হয়েছে: শিক্ষামন্ত্রী

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

আরও ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

আরও ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

এক সপ্তাহে ৪ কোটি শিশু পাবে কৃমির ওষুধ

এক সপ্তাহে ৪ কোটি শিশু পাবে কৃমির ওষুধ

সাড়ে সাত লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

সাড়ে সাত লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

করোনায় মৃত্যুহীন ৫৬ জেলা

করোনায় মৃত্যুহীন ৫৬ জেলা

ডেঙ্গুতে আরও এক মৃত্যু  

ডেঙ্গুতে আরও এক মৃত্যু  

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসায় বারডেমের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক নবায়ন  

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসায় বারডেমের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক নবায়ন  

৩৪ জেলায় শনাক্ত এক অঙ্কে, ২৮ জেলায় শূন্য

৩৪ জেলায় শনাক্ত এক অঙ্কে, ২৮ জেলায় শূন্য

১৮ মাস পর শনাক্ত ২৫০-এর নিচে

১৮ মাস পর শনাক্ত ২৫০-এর নিচে

চিকিৎসকসহ ৯৪৪৭ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ ৯৪৪৭ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

সর্বশেষ

পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা

পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা

রাজনৈতিক ঐক্যে জামায়াত অন্তরায় হলে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান এলডিপির

রাজনৈতিক ঐক্যে জামায়াত অন্তরায় হলে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান এলডিপির

নেতাদের সামনেই বিজেপি কর্মীদের মারপিট

নেতাদের সামনেই বিজেপি কর্মীদের মারপিট

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

৫-১১ বছরের শিশুদের ওপর ৯০ শতাংশ কার্যকর ফাইজারের টিকা

৫-১১ বছরের শিশুদের ওপর ৯০ শতাংশ কার্যকর ফাইজারের টিকা

© 2021 Bangla Tribune