X
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে এদিন তিন দলের নেতাদের বৈঠক হয়

আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০০

(বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধুর সরকারি কর্মকাণ্ড ও তার শাসনামল নিয়ে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করছে বাংলা ট্রিবিউন। আজ পড়ুন ১৯৭৩ সালের ১০ অক্টোবরের ঘটনা।)

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, ন্যাপ মোজাফফর এবং কমিউনিস্ট পার্টির নেতারা ১৯৭৩ সালের এই দিন (১০ অক্টোবর) সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকে ত্রিদলীয় ঐক্যজোট গঠনের ঘোষণাপত্র, সাংগঠনিক কাঠামো এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনা হয়। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি কোরবান আলী অপেক্ষমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আলোচনা অব্যাহত থাকবে। নেতারা পুনরায় বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হবেন।’ তবে কবে নাগাদ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে, সে বিষয়ে কোনও দিন-তারিখ- সময় উল্লেখ করা হয়নি। তিনি বলেন, ‘যেকোনও সময় আমরা বৈঠকে মিলিত হতে পারি।’ ওয়াকিবহাল মহল থেকে জানা যায় যে, ঘোষণাপত্রে আরও সংশোধনের প্রয়োজন দেখা দিয়েছে। এ ব্যাপারে তিন দলের নেতারা পুনরায় বৈঠকে মিলিত হয়ে আলোচনা করবেন। ঘোষণাপত্র সংশোধনের ব্যাপারে তিন দলের নেতাদের মধ্যে আলোচনা অনুষ্ঠানের পর পুনরায় দু-একদিনের মধ্যে তারা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে মিলিত হবেন এবং বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে ঘোষণাপত্র চূড়ান্ত অনুমোদনের পর তা জনসাধারণের জন্য প্রকাশ করা হবে। এই দিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কোরবান আলী, আনোয়ার চৌধুরী, আব্দুর রাজ্জাক, মোস্তফা সারোয়ার, কাজী গোলাম মোস্তফা, শেখ ফজলুল হক মনি, বেগম সাজেদা চৌধুরী,  মোজাফফর ন্যাপের পক্ষ থেকে অধ্যাপক মোজাফফর আহমেদ, চৌধুরী হারুনুর রশিদ, পঙ্কজ ভট্টাচার্য, মতিয়া চৌধুরী ও কমিউনিস্ট পার্টির পক্ষ থেকে কমরেড মনি সিং, আব্দুস সালাম ও কমরেড ফারহাদ উপস্থিত ছিলেন।

দৈনিক বাংলা, ১১ অক্টোবর ১৯৭৩ আরবদের আরও সাহায্য দেওয়ার বিষয়ে বিবেচনা করা হচ্ছে

এইদিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘আরবে যুদ্ধের বিরুদ্ধে এবং সেখানকার জনগণের প্রতি বাংলাদেশের সম্মতি ঘোষণা করা হয়েছে। প্রয়োজনে আরও  সাহায্য পাঠানোর কথা বিবেচনা করা হচ্ছে।’ তিনি বাংলাদেশে আফ্রো-এশীয় গণসংহতি পরিষদের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আরব বিশ্বের জনগণকে আরও কীভাবে সাহায্য করা যায়, সরকার তা গভীরভাবে বিবেচনা করে দেখছে।’

গণসংহতি পরিষদের প্রতিনিধিদল মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধে আরব জনগণের পক্ষে বাংলাদেশ সরকারের ভূমিকার প্রসংসা করেন। তারা এ ব্যাপারে সরকারকে আরও সক্রিয় হওয়ার জন্য অনুরোধ জানালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী উপরিউক্ত সাহায্য বিবেচনায় কথা উল্লেখ করেন। আফ্রো-এশীয় গণসংহতি পরিষদ মিশরের সংগ্রামী জনগণের জন্য বেশকিছু সাহায্য প্রদানের কথা প্রকাশ করে এবং তা যথাস্থানে পৌঁছে দেওয়ার জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন। পরিষদ জনগণের পক্ষে সেখানে বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধাদের সমন্বয়ে একটি স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী পাঠানোরও প্রস্তাব দেন।

দি ডেইলি অবজারভার, ১১ অক্টোবর ১৯৭৩ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত

যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব সম্পর্কে ঐকমত্যে পৌঁছাতে ব্যর্থ হওয়ায় নিরাপত্তা পরিষদে মধ্যপ্রাচ্য সম্পর্কিত বিতর্ক নিয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য বৈঠক মুলতবি হয়েছে। যুদ্ধের জন্য আরব রাষ্ট্রগুলোকে দোষারোপ করে সোভিয়েত প্রতিনিধি আধাঘণ্টার জন্য বৈঠক বর্জন করেন। কূটনৈতিক মহলের মতে, যুদ্ধে কোনও পক্ষ যে জয় লাভ করছে, সে বিষয়টি স্পষ্ট না হওয়া পর্যন্ত নিরাপত্তা পরিষদ যুদ্ধবিরতির কোনও প্রস্তাব গ্রহণ করতে সমর্থ হবে না।

সোভিয়েত প্রতিনিধি বৈঠকে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী ও দেশরক্ষা মন্ত্রীকে আন্তর্জাতিক অপরাধী বলে উল্লেখ করেন। মিশরীয় প্রতিনিধি বলেন যে, ‘ইসরায়েল কায়রোর ওপরে হামলা চালিয়েছে এবং বিমান হামলায় অংশগ্রহণকারী চার জন ইসরায়েলি পাইলট এখন মিশরের হাতে আটক। ইসরায়েল অবশ্য কায়রোর বিমান হামলা চালাবার অভিযোগ অস্বীকার করে।’ মার্কিন প্রতিনিধি দামেস্কে ইসরাইলি বিমান আক্রমণে নিহত সকলের জন্য শোক প্রকাশ করেন। এ ব্যাপারে চীন একেবারেই নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে। 

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৪১

সাম্প্রদায়িক হামলাও মামলার বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে কোরআন রেখে সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ঘটনায় করা মামলার বিচার কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে আনিসুল হক বলেন, ‘এই মামলায় যখন পুলিশ প্রতিবেদন পাওয়া যাবে, তখন এটাকে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বিচার করা হবে। সেখানে এ সংক্রান্ত ভিডিও ফুটেজ তুলে ধরা যাবে।’

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ঘটনায় করা মামলার তদন্তে ধীরগতি ও বিচার বিলম্বের কারণ জানতে চাওয়া হলে মন্ত্রী বলেন, ‘নাসিরনগরের যে ঘটনা তার তদন্ত এখনও শেষ হয়নি। যতক্ষণ পর্যন্ত তদন্ত শেষ না হয়, ততক্ষণ পর্যন্ত এ বিষয়ে বিচারিক কাজ আদালত শেষ করতে পারে না। তবে আমরা আশ্বাস করি, যখনই তদন্ত রিপোর্ট আসবে, তখনই মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হবে। যতগুলো স্পর্শকাতর মামলা এ পর্যন্ত এসেছে, সব মামলাই আমরা দ্রুত নিষ্পত্তি করেছি। এ ধরনের মামলায় ইচ্ছাকৃত কোনও বিলম্ব হচ্ছে না। কেননা, একটি হত্যাকাণ্ড যত সহজে ঘটানো সম্ভব হয়, সেখানে একটি মামলা কিন্তু ততটা সহজে নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয় না। তাই কিছুটা সময় প্রয়োজন। এই সময়টুকুতো দিতে হবে।’   

প্রসঙ্গত, এর আগে মন্ত্রী নিবন্ধন অধিদফতরে যোগদান করা নতুন কর্মকর্তাদের সংবর্ধনা ও মতবিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

 

/বিআই/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৪:০০

বর্তমান নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সময়ে জেলা পরিষদ নির্বাচন হচ্ছে না। ইউপি নির্বাচন শেষ করতে না পারায় জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসছে কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন এই কমিশন। ডিসেম্বরের মধ্যে সব ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠানের ঘোষণা দিলেও এর একটি অংশ জানুয়ারিতে গড়াতে পারে। এদিকে ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচন অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা নিলেও সেটা পিছিয়ে জানুয়ারির শেষ দিকে যেতে পারে। এ হিসেবে নাসিক-ই হতে পারে বর্তমান কমিশনের শেষ নির্বাচন। কমিশন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আরও জানা গেছে, চলতি বছরের ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে নির্বাচন উপযোগী সব ইউনিয়ন পরিষদ এবং ডিসেম্বরের শেষ দিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠানের কর্মপরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছিল কমিশন। সবশেষে জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ৫ বছরের মেয়াদ শেষ করতে চেয়েছিল কমিশন। এমনকি কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনও করার লক্ষ্যও ছিল কমিশনের।

কিন্তু নিজেদের প্রস্তুতির ঘাটতি ও নভেম্বরে এসএসসিসহ স্কুলগুলোর বার্ষিক পরীক্ষা এবং ডিসেম্বরজুড়ে এইচএসসি পরীক্ষা থাকায় ইসির পরিকল্পনায় ছন্দপতন ঘটেছে। চলতি অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে একটি অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে ইসি সার্বিক বিষয় পর্যালোচনা করে কর্ম পরিকল্পনায় পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এক্ষেত্রে তফসিল ঘোষিত দুটি ধাপের (দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপ) ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ছাড়া চলতি বছরে আর কোনও নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ ২ ডিসেম্বর শুরু হয়ে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত সারা দেশে এইচএসসি ও সমমানের পাবলিক পরীক্ষা চলবে। এর ফাঁকেই একটি ধাপের ইউপি নির্বাচনের পরিকল্পনা ইসির রয়েছে বলে জানা গেছে।

নির্বাচন কমিশন বলেছে, তারা মূলত এসএসসি পরীক্ষা বিবেচনায় নিয়ে তফসিল নির্ধারণ করছে। নির্বাচনে এইচএসসি পরীক্ষা খুব একটা প্রভাব ফেলবে না। কারণ এ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র হিসেবে কলেজের খুব একটা ব্যবহার নেই।

নির্বাচন কমিশন প্রথম ধাপে গত জুন ও সেপ্টেম্বরে ৩৬৪টি ইউপির নির্বাচন করেছে। এ ছাড়া আরও দুটি ধাপের তফসিল ঘোষণা করেছে। তফসিল অনুযায়ী ১১ নভেম্বর ৮৪৫টি এবং ২৮ নভেম্বর ১০০৭টি ইউপির ভোট হবে। কমিশন জানিয়েছে তাদের নির্বাচন উপযোগী ইউপির সংখ্যা প্রায় ৩৭০০। ফলে তফসিল ঘোষিতগুলো বাদ দিয়েও তাদের আরও দেড় হাজার ইউপির নির্বাচন বাকি থাকছে।

 

যে কারণে হচ্ছে না জেলা পরিষদ ভোট

কমিশন সূত্রে জানা গেছে, জানুয়ারিতে জেলা পরিষদের ভোট করার ঘোষণা দিলেও ভোটার তালিকা প্রস্তুত না হওয়ায় সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে ইসি। আইন অনুযায়ী স্থানীয় সরকার পরিষদের সবগুলো প্রতিষ্ঠানের নির্বাচিত প্রতিনিধিরাই জেলা পরিষদের ভোটার/নির্বাচনমণ্ডলী। আর স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের দেশে চার হাজার ৫৭১টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে। প্রতিটিতে ১৩ জন করে জেলা পরিষদের ৫৯ হাজার ৪৪৩ জন ভোটারই হন ইউপি থেকে। এক্ষেত্রে চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন শেষ করে গেজেট প্রকাশ ও ইউপির জনপ্রতিনিধিরা দায়িত্ব না নেওয়ার আগে জেলা পরিষদের ভোটার তালিকা চূড়ান্ত করতে গেলে জটিলতা দেখা দিতে পারে। যে কারণে জেলা পরিষদ নির্বাচনের পরিকল্পনা থেকে সরে আসছে ইসি।

২০১৭ সালের ২৮ জানুয়ারি পার্বত্য তিন জেলা বাদে দেশের ৬১টি জেলা পরিষদে একযোগে ভোট অনুষ্ঠিত হয়। ১১ জানুয়ারি পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ১৮ জানুয়ারি সদস্যরা শপথ নেন। এরপর ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে সব পরিষদের প্রথম বৈঠক হয়। আইন অনুযায়ী পরিষদের প্রথম বৈঠক থেকে এর মেয়াদকাল পরবর্তী ৫ বছর। এ হিসেবে জানুয়ারির শেষ থেকে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝির মধ্যে দেশের সব জেলা পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে।

জেলা পরিষদ আইন অনুযায়ী মেয়াদ শেষ হওয়ার আগের ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে। এক্ষেত্রে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে জেলা পরিষদের নির্বাচন শেষ করতে না পারলেও আইনি ব্যত্যয় ঘটার আশঙ্কা হয়েছে। অবশ্য পরিষদের নির্বাচন না হলে দায়িত্ব পালনে কোনও অসুবিধা হবে না। কারণ আইনে বলা আছে পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়া সত্ত্বেও নির্বাচিত নতুন পরিষদ প্রথম সভায় মিলিত না হওয়া পর্যন্ত বিদ্যমান পরিষদ কাজ চালিয়ে যাবেন।

 

নারায়ণগঞ্জেই ইসির শেষ ভোট

১৪ তারিখে শেষ হতে যাওয়া বর্তমান কমিশনের নাসিক নির্বাচনই হবে সর্বশেষ নির্বাচন। জানুয়ারিতে ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করে নভেম্বর মাসে নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের তফসিল হতে পারে বলে ইসি সূত্রে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচিত করপোরেশনের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয় ২০১৭ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি। অর্থাৎ এ সিটির পাঁচ বছর পূর্ণ হবে ২০২২ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি। এ ক্ষেত্রে জানুয়ারির শেষ কিংবা ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে এই নির্বাচন হলে আইনি সমস্যা হবে না। সিটি করপোরেশন আইন অনুযায়ী, নির্বাচিত করপোরেশনের মেয়াদকাল হচ্ছে প্রথম সভা থেকে পরবর্তী পাঁচ বছর। ভোট করতে হয় মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৮০ দিনের মধ্যে। এই হিসেবে গত ১১ আগস্ট এনসিসির নির্বাচনের কাউন্টডাউট শুরু হয়েছে। আগামী বছরের ৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে এর ভোট শেষ করতে হবে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য পরিষদের নির্বাচিত প্রতিনিধিরা যেহেতু জেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটার, তাই ইউপি নির্বাচন শেষ না করে ওই ভোট করা যাবে না। তবে বর্তমান কমিশনের অধীনে জেলা পরিষদ নির্বাচন দেখা যাবে না বিষয়টি তা নয়—যেসব জেলার সব ইউনিয়নের ভোট আমরা শেষ করতে পারবো সেখানকার জেলা পরিষদ নির্বাচন হয়তো করা হবে।

তিনি আরও বলেন, শিগগিরই আরেক ধাপের ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হবে। ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে হয়তো ভোটটি হবে। এইচএসসি পরীক্ষা ভোটে প্রভাব ফেলবে না। নেহায়েত দু’একটি কেন্দ্রে যদি পরীক্ষা হয়েও থাকে সেটা অ্যাডজাস্ট করা যাবে।

এক প্রশ্নের জবাবে এই কর্মকর্তা বলেন, নির্বাচন কমিশন কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের চিন্তাও করছে। তবে, কুমিল্লার নির্বাচন নাও হতে পারে। সেই হিসেবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনেই হয়তো বর্তমান কমিশনের শেষ নির্বাচন।

/এফএ/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০০

(বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধুর সরকারি কর্মকাণ্ড ও তার শাসনামল নিয়ে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করছে বাংলা ট্রিবিউন। আজ পড়ুন ১৯৭৩ সালের ২৩ অক্টোবরের ঘটনা।)

 

অতীতের বিরোধ ও সংঘাতময় পথের পরিবর্তে শান্তি ও সহযোগিতার নতুন ব্যবস্থা গড়ে তোলার প্রচেষ্টা চলছে। আমাদের সকলের উচিত এ প্রচেষ্টাকে সাফল্যমণ্ডিত করার জন্য আত্মনিয়োগ করা। প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালের এই দিনে এ আহ্বান জানান।

তিনি ঘোষণা করেন, তার দেশ—এশিয়া তথা বিশ্বের স্থায়ী শান্তি এবং সমৃদ্ধির জন্য প্রতিটি ফলপ্রসূ পদক্ষেপকে অকুণ্ঠ সমর্থন জানিয়ে যাবে। জাপানে ছয় দিনব্যাপী রাষ্ট্রীয় সফরের এদিনে জাপান প্রেসক্লাবে আয়োজিত মধ্যাহ্নভোজ সভায় ভাষণ প্রদানকালে বঙ্গবন্ধু এই ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, ‘বস্তুত এই জাতীয় ব্যবস্থা গড়ে তোলার প্রয়োজনীয়তা অনুধাবন উৎসাহব্যাঞ্জক লক্ষণ। ইতোমধ্যে দেখা যাচ্ছে ভারত মহাসাগরকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত এলাকা ঘোষণায় পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। শান্তি, স্বাধীনতা ও নিরপেক্ষ অঞ্চলে পরিণত করার জন্য দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াকে নিরপেক্ষ করার প্রস্তাবের মধ্যে আমরা এর কিছু আভাস পাই। তবে এই জাতীয় পরিকল্পনা কার্যকর করার জন্য নিরলস প্রচেষ্টার মাধ্যমে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। যাতে এটা বাস্তব রূপে দেখা দেয়। এই জাতীয় প্রচেষ্টার প্রতি আমাদের অবশ্যই পূর্ণ সমর্থন দিতে হবে।’

দৈনিক বাংলা, ২৪ অক্টোবর ১৯৭৩

দিল্লিচুক্তি নিয়ে যা বললেন বঙ্গবন্ধু

উপমহাদেশে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘দক্ষিণ এশিয়া ও উপমহাদেশে স্থায়ী শান্তি স্থাপন এবং সকল অমীমাংসিত বিরোধ নিষ্পত্তির মাধ্যমে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের চেষ্টা আমরা চালিয়ে যাচ্ছি। দিল্লিচুক্তি এই প্রচেষ্টারই ফল। আনন্দের সঙ্গে আমি জানাতে চাই যে, এই চুক্তি বাস্তবায়নের কাজ সন্তোষজনকভাবে এগিয়ে চলছে। এই চুক্তি কার্যকর করার ব্যাপারে আমাদের দিক থেকে চেষ্টার ত্রুটি হবে না। এ ব্যাপারে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কাছ থেকে যে সাহায্য আমরা পেয়েছি তা সত্যিই প্রশংসনীয়। দিল্লিচুক্তিতে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর মধ্যকার অমীমাংসিত আলোচনার মাধ্যমে নিষ্পত্তির একটা ব্যবস্থা রয়েছে। তাই এই চুক্তির পরিপন্থী যুক্তির সঙ্গে সামঞ্জস্যহীন যে কোনও কার্যক্রম সম্পর্কে স্বাভাবিকীকরণ প্রচেষ্টা এবং শান্তির অন্বেষণ ব্যাহত হতে বাধ্য।’

বঙ্গবন্ধু বিশ্বের সকল দেশ, বিশেষ করে এশিয়ার প্রতিবেশীদের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলার ব্যাপারে বাংলাদেশের ঐকান্তিক আগ্রহের কথা প্রকাশ করেন। পশ্চিম এশিয়ার বিস্ফোরণমুখী পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে বঙ্গবন্ধু বলেন, আরবদের এলাকা দখলমুক্ত করে পশ্চিম এশিয়ার ন্যায়সঙ্গত সমাধান না পাওয়া পর্যন্ত এশিয়া তথা বিশ্বের শান্তি ফিরে আসবে না।

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের মুক্তিসংগ্রাম চলাকালের দুঃসময়ের দিনে জাপান সরকার এবং দেশটির জনগণ বাংলাদেশের জনগণের জন্য যা কিছু করেছেন তার জন্য জনসাধারণ, সরকার ও ব্যক্তিগতভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ডেইলি অবজারভার, ২৪ অক্টোবর ১৯৭৩

তোপের মুখে যুদ্ধবিরতি চুরমার

মধ্যপ্রাচ্যে বিরতি ঘোষণার পরও যুদ্ধ থামেনি। তোপের মুখে যুদ্ধবিরতি খান খান হয়ে গেছে। কামানের গর্জন আর যুদ্ধবিমানের বোমাবর্ষণে যুদ্ধবিরতি ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। দুটো রণাঙ্গনে প্রচণ্ড যুদ্ধ চলছে। মিসর-ইসরায়েল পরস্পরের বিরুদ্ধে অসংখ্যবার যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের অভিযোগ এবং আত্মরক্ষার্থে আবার যুদ্ধ শুরুর কথা বলেছে।

ওদিকে ইসরায়েলের মুরুব্বি খ্যাত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নিক্সন ইসরায়েলিদের বীরত্বে পুলক ও আনন্দ প্রকাশ করেন এবং দখল করা এলাকা ধরে রাখার পরামর্শ দেন। মধ্যপ্রাচ্য বার্তা সরবরাহ প্রতিষ্ঠান বলেছে, মিসরে ইসরায়েলিদের মধ্যে ঘোরতর যুদ্ধ শুরু হয়েছে। উভয়পক্ষ চলতি লড়াইয়ের সবচেয়ে মারাত্মক ও প্রচণ্ড যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে। শত শত ট্যাংক সাজোয়াঁ গাড়ি এবং অগণিত জঙ্গি বোমারু বিমান নিয়ে মিসরীয় বাহিনী সুয়েজ খাল এলাকায় শত্রুর ওপর আঘাত হানছে। সিরীয় ফ্রন্টে এদিন প্রচণ্ড আকাশযুদ্ধ হয়।

 

খুলনায় প্রথম ব্যাংক ডাকাতি

স্বাধীনতার পর খুলনায় এদিন প্রথম ব্যাংক ডাকাতি হয়। এদিন দুপুরে অগ্রণী ব্যাংকের দৌলতপুর শাখায় এ ডাকাতি হয়। ডাকাতরা ব্যাংক থেকে প্রায় ১ লাখ টাকা লুটে নিয়ে নিরাপদে সরে পড়ে। ৫ জন সশস্ত্র তরুণ সাবেক কমার্স ব্যাংক বর্তমানে অগ্রণী ব্যাংকের দৌলতপুর শাখা অফিসে ঢুকে প্রথমেই টেলিফোনের তার কেটে দেয়। তারপর প্রায় এক লাখ টাকা নিয়ে তারা সরে পড়ে। উল্লেখ্য, ব্যাংকটি খুলনা দৌলতপুর সড়কে অবস্থিত। একই ধরনের দুস্কৃতকারীরা চলতি মাসে দৌলতপুরে আরো তিনটি অপরাধ ঘটিয়েছে। তবে পুলিশ এসব অপরাধীদের ধরতে পারেনি।

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০০:৫০

খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ। শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রার্থী চূড়ান্ত হয়। পরে দলটির দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হয়।

 

প্রার্থী তালিকা

খুলনা বিভাগের মেহেরপুর জেলার সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নে মো. ইদ্রিস আলী, বুড়িপোতা ইউনিয়নে মো. শাহ্ জামান, গাংনী উপজেলার কাজীপুরে মো. রেজাউল হক, ষোলটাকায় মো. দেলবার হোসেন, ধানখোলায় মো. আব্দুর রাজ্জাক, রায়পুরে মো. গোলাম সাক লায়েন, কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নে মো. আশরাফুজ্জামান, খাস মথুরাপুরে সর্দ্দার হাশিম উদ্দিন, ফিলিপনগরে এ কে এম ফজলুল হক, মরিচায় মো. শাহ্ আলমগীর, রামকৃষ্ণপুরে মো. সিরাজ মন্ডল, চিলমারিতে সৈয়দ আহম্মেদ, হোগলবাড়িয়ায় মো. সেলিম চৌধুরী, পিয়ারপুরে আবু ইউসুফ লালু, রিফাইতপুরে মো. জামিরুল ইসলাম, দৌলতপুরে মো. মহিউল ইসলাম, আদাবাড়িয়ায় মো. মকবুল হোসেন, বোয়ালিয়ায় মো. মহিউদ্দীন বিশ্বাস, খলিশাকুন্ডিতে সিরাজুল বিশ্বাস, আড়িয়ায় সাইদ আনছারী, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার ভাংবাড়ীয়ায় মো. নাহিদ হাসনাত, হারদীতে মো. নুরুল ইসলাম, কুমারীতে মো. আবু সাইদ, বাড়াদীতে মো. আশাবুল হক, গাংনীতে মো. এমদাদুল হক, খাদিমপুরে মো. মোজাহিদুর রহমান জোয়ার্দ্দার, জেহালায় মো. হাসান উজ্জামান, বেলগাছিতে শ্রী সমীর কুমার দে, ডাউকীতে মো. তরিকুল ইসলাম, জামজামীতে মো. নজরুল ইসলাম, খাসকররায় মো. মোস্তাফিজুর রহমান, চিৎলাতে খোন্দকার আ. বাতেন, কালিদাশপুর মো. জয়নাল আবেদীন চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

ঝিনাইদহ জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার সাফদারপুরে মো. নওশের আলী, দোড়ায় মো. কাবিল উদ্দীন বিশ্বাস, কুশনায় মো. আব্দুল হান্নান, বলুহারে আ. মতিন, এলাঙ্গীতে মো. মিজানুর রহমান, কালিগঞ্জ উপজেলার সুন্দরপুর-দুর্গাপুর ইউনিয়নে ওহিদুল ইসলাম, জামারে মো. মোদাচ্ছের হোসেন, কোলায় মো. মনোয়ার হোসেন, নিয়ামতপুরে মো. রাজু আহাম্মেদ, শিমলা রোকনপুরে মো. নাছির উদ্দীন, ত্রিলোচনপুরে মো. নজরুল ইসলাম, রায়গ্রামে মো. আলী হোসেন, মালিয়াটে মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বিশ্বাস, রবাজারে আবুল কালাম আজাদ, কাষ্টভাংগাতে মো. আয়ুব হোসেন খান, রাখালগাছিতে মো. মহিদুল ইসলাম, যশোরের শার্শা উপজেলার ডিহিতে মো. আসাদুজ্জামান, লক্ষণপুরে মোছা. আনোয়ারা খাতুন, বাহাদুরপুরে মো. মিজানুর রহমান, পুটখালীতে মো. আ. গফফার সরদার, গোগাতে মো. আব্দুর রশিদ, কায়বাতে হাসান ফিরোজ আহমেদ, বাগআঁচড়াতে মো. ইলিয়াছ কবির (বকুল), উলশীতে মো. আয়নাল হক, শার্শায় কবির উদ্দীন আহম্মদ, নিজামপুরে মো. আব্দুল ওহাব, বাঘারপাড়া উপজেলার জহরপুরে মো. আসাদুজ্জামান, বন্দবিলাতে সনজীত কুমার বিশ্বাস, রায়পুরে মো. বিল্লাল হোসেন, নারিকেলবাড়ীয়ায় বাবলু কুমার সাহা, ধলগ্রামে মো. রবিউল ইসলাম, দোহাকুলাতে মো. ওয়াহিদুর রহমান/আবু মোতালেব, দরাজহাটে মো. জাকির হোসেন, বাসুয়াড়ীতে মো. আমিনুর সরদার, জামদিয়ায় শেখ আরিফুল ইসলাম তিব্বত, মনিরামপুর উপজেলার রোহিতা ইউনিয়নে মো. হাফিজ উদ্দীন, কাশিমনগরে মো. তৌহিদুর রহমান, ভোজগাতীতে আছমা তুন্নাহার, ঢাকুরিয়ায় মো. এরশাদ আলী সরদার, হরিদাসকাটিতে বিপদ ভঞ্জন পাড়ে, মনিরামপুরে মো. এয়াকুব আলী, খেদাপাড়ায় মো. আব্দুল আলীম, ঝাঁপায় মো. সামছুল হক, মশ্বিমনগরে মো. আবুল হোসেন, চালুয়াহাটিতে মো. আবুল ইসলাম, শ্যামকুড়ে মো. আলমগীর হোসেন, খাঁনপুরে মো. আবুল কালাম আজাদ, দূর্বাডাঙ্গায় মো. মাযাহারুল আনোয়ার, কুলটিয়ায় শেখর চন্দ্র রায়, নেহালপুরে এম, এম, ফারুক হুসাইন, মনোহরপুরে মো. মশিয়ুর রহমান, মাগুরা জেলার মোহাম্মদপুর উপজেলার বাবুখালী ইউনিয়নে মীর মো. সাজ্জাদ আলী, বিনোদপুরে শিকদার মিজানুর রহমান, দীঘায় মো. খোকন মিয়া, রাজাপুরে মো. মিজানুর রহমান বিশ্বাস, বালিদিয়ায় মো. আবুল কালাম ফকির, মহম্মদপুরে রাবেয়া বেগম, পলাশবাড়ীয়ায় মো. আলা উদ্দীন মাহমুদ, নহাটাতে মো. আলী মিয়া, শালিখা উপজেলার ধনেশ্বরগাতীতে শ্রী বিমলেন্দু শিকদার, তালখড়িতে মো. সিরাজ উদ্দিন মন্ডল, আড়পাড়ায় মুন্সী আবু হানিফ, শতখালীতে মো. আনোয়ার হোসেন ঝন্টু, শালিখায় মো. বাবলু হোসেন, বুনাগাতীতে মো. বক্তিয়ার উদ্দিন, গঙ্গারামপুরে মো. আব্দুল হালিম মোল্লা, নড়াইল জেলার কালিয়া উপজেলার বাবরা হাচলা ইউনিয়নে তারা মিয়া সরদার, পুরুলিয়ায় এস এম হারুনার রশীদ, হামিদপুরে পলি বেগম, সালামাবাদে শামীম আহম্মেদ, চাচুড়িতে মো. সিরাজুল ইসলাম হিরক, ইলায়াছাবাদে ফিরোজ মল্লিক, মাউলীতে রোজী হক, খাশিয়ালে মোসা. হালিমা বেগম, জয়নগরে মুন্সী আনোয়ার হোসেন, কলাবাড়িয়ায় তালুকদার রবিউল হাসান, বাঐসোনাতে শাহ মো. ফোরকান মোল্যা, পহরডাঙ্গায় নির্মল বিশ্বাস, খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলার আজগড়া ইউনিয়নে কৃষ্ণ মেনন রায়, বারাসাতে কে এম আলমগীর হোসেন, সাচিয়াদাহে মো. বুলবুল আহমেদ, তেরখাদায় এফ, এম অহিদুজ্জামান, ছাগলাদাহে আ. শুকুর শেখ, মধুপুরে মো. মোহসিন, রূপসা উপজেলার ঘাটভোটে সাধন অধিকারী চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

 

সাতক্ষীরা জেলার দেবহাটা উপজেলার কুলিয়ায় মো. আসাদুল ইসলাম, পারুলিয়ায় মো. সাইফুল ইসলাম, সখিপুরে শেখ ফারুক হোসেন, নওয়াপাড়ায় মো. আলমগীর হোসেন, দেবহাটায় আলী মোর্তজা মো. আনোয়ারুল হক, কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগরে শ্যামলী অধিকারী, বিষ্ণুপুরে শেখ রিয়াজ উদ্দীন, চাম্পাফুলে মো. মোজাম্মেল হক, দক্ষিণশ্রীপুরে গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল, কুশুলিয়ায় শেখ আবুল কাশেম মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, নলতায় মো. আবুল হোসেন, তারালীতে মো. এনামুল হোসেন, ভাড়াশিমলায় মো. আবুল হোসেন, মথুরেশপুরে ফিরোজ আহমেদ, ধলবাড়িয়ায় গাজী শওকাত হোসেন, রতনপুরে এম, আলীম আল রাজী, মৌতলায় মো. রুহুল আমিন চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

 

বরিশাল বিভাগের বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার রায়হানপুরে মো. মইনুল ইসলাম, নাচনাপাড়ায় মো. ফরিদ মিয়া, চরদুয়ানীতে মো. আবদুর রহমান, পাথরঘাটায় মো. আলমগীর হোসেন, পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার মাধবখালীতে কাজী মো. মিজানুর রহমান, মির্জাগঞ্জে মো. মনিরুল হক, আমড়াগাছিয়ায় সুলতান আহমেদ, দেউলিসুবিদখালীতে মোহাম্মাদ আনোয়ার হোসেন খান, কাকড়াবুনিয়ায় মো. মাহাবুব আলম (স্বপন), মজিদবাড়ীয়ায় মো. গোলাম সরওয়ার কিচলু, ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলার অধ্যক্ষ নজরুল, নগর ইউনিয়নে মোহাম্মদ রুহুল আমিন হাওলাদার, ঢালচরে আবদুছ সালাম হাওরাদার, আবুবকরপুরে মো. সিরাজ জমদার, আব্দুল্লাহপুরে মোহাম্মদ আলে এমরান, ওসমানগঞ্জে আশরাফুল আলম, চর মানিকায় শফিউল্যাহ হাওলাদার, রসুলপুরে মো. জহিরুল ইসলাম পন্ডিত, চর কুকরীমুকরীতে আবুল হাসেম, বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলার হারতা ইউনিয়নে অমল মল্লিক, বামরাইলে মো. ইউছুব হাওলাদার, গুঠিয়ায় আবদুস সাত্তার মোল্লা, বাবুগঞ্জ উপজেলার রহমতপুর ইউনিয়নে মুহাম্মদ আক্তার-উজ-জামান, বাটামারায় মো. সালাহ উদ্দিন, পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলার ছয়নারঘুনাথপুর ইউনিয়নে এইচ এম আর কে খোকন, চিড়াপাড়া পারসাতুরিয়া ইউনিয়নে মো. মাহমুদ খাঁন চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

 

 

/ইএইচএস/এফএ/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:২৮

গত বছর ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে তিন কোটি ডোজ করোনার টিকা কিনতে চুক্তি করে সরকার। আগাম অর্থও পরিশোধ করে। চুক্তি অনুযায়ী চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুনের মধ্যে প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ টিকা সরবরাহের কথা থাকলেও প্রথম মাসে ৫০ লাখ ও ফেব্রুয়ারিতে ২০ লাখ টিকার পর রফতানি বন্ধ করে দেয় ভারত। সাত মাস পর আবার রফতানির অনুমতি দেওয়ায় অক্টোবরে ১০ লাখ টিকা সরবরাহ করে সেরাম। আশা করা হচ্ছে আগামী মাসগুলোতেও বাকি টিকাও আসতে থাকবে। এ প্রেক্ষাপটে নতুন করে আর টিকা সংগ্রহের পরিকল্পনা নেই বাংলাদেশের।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘এই মুহূর্তে সেরামকে নতুন করে অর্ডার দেওয়ার কথা চিন্তা করা হচ্ছে না। আমাদের পাইপলাইনে যা আছে, তাতে জানুয়ারি পর্যন্ত সমস্যা হবে না।’

ভারতের কাছে টিকা সরবরাহের শিডিউল চাওয়া হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আগামী মাসে আমরা তাদের চালান সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা পাবো—প্রতি মাসে ঠিক কতগুলো টিকা তারা দেবে।’

প্রতি মাসে একটি করে কনসাইনমেন্ট আসার কথা থাকলেও সেটা হয়নি। এখন আবার তা শুরু হয়েছে জানিয়ে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, অন্যান্য দেশের সঙ্গেও তাদের প্রতিশ্রুতি দেওয়া আছে। আমরা মনে করি সেটাও তারা সরবরাহ করবে।

 

সিনোফার্মা থেকে সংগ্রহ

চীনের সিনোফার্মা থেকে সাড়ে সাত কোটি টিকা সংগ্রহ করছে বাংলাদেশ। এ বিষয়ে বাংলাদেশ এখন সন্তোষজনক পর্যায়ে রয়েছে জানিয়ে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, ‘আমাদের যদি আরও টিকা লাগে তবে সিনোফার্মার যথেষ্ট সক্ষমতা রয়েছে তা সরবরাহের। যদি আমাদের প্রয়োজন অনুভূত হয় তবে যে চুক্তি করা হয়েছে সেটির অধীনে খুব স্বল্পতম সময়ের ভেতরে আমরা সংগ্রহ করতে পারব।’

 

নতুন চুক্তি

গত চার-পাঁচ মাস আগেও কোভিড টিকার বাজার পুরোপুরি বিক্রেতাদের নিয়ন্ত্রণে ছিল। কিন্তু এখন আর তা নেই। কারণ এখন অনেক সরবরাহকারী বাজারে এসেছে। সক্ষমতাও বেড়েছে। এ কারণে নভেম্বরে দামের ওপর একটি প্রভাব দেখা যাবে বলে আশা করেন পররাষ্ট্র সচিব।

তিনি বলেন, ‘যে টিকা আমাদের আগামী ফেব্রুয়ারি-মার্চ মাসে লাগবে, সেটার জন্য এখন চুক্তির দরকার নেই। আমরা কিছুদিন অপেক্ষা করবো।’

তিনি বলেন, ‘যদি তারা ঠিকমতো সরবরাহ করতে পারে, তা হলে নতুন করে আলোচনা হতে পারে। সেক্ষেত্রে দাম ও অন্যান্য শর্তের বিষয়ে পরিবর্তন আসার সম্ভাবনাই বেশি।’

উল্লেখ্য, গত মার্চে ভারতের সেরাম থেকে টিকার প্রাপ্যতা অনিয়মিত হওয়ার পরপরই বাংলাদেশ বিভিন্ন উৎস থেকে টিকা সংগ্রহের চেষ্টা করলে এগিয়ে আসে চীন। চীনের সিনোফার্মার কাছ থেকে প্রথমে দেড় কোটি ও পরে আরও ছয় কোটিসহ মোট সাড়ে সাত কোটি টিকা সংগ্রহের চুক্তি করেছে সরকার।

অন্যদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কোভ্যাক্স থেকে আরও ছয় কোটি টিকা পাওয়া যাবে বলে প্রতিশ্রুতি পাওয়া গেছে। বাংলাদেশের ৭০ শতাংশ জনগণকে টিকার আওতায় আনার জন্য ২৬ কোটির বেশি টিকার প্রয়োজন হবে।

/এমএস/এফএ/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সড়কে দুর্ঘটনা বাড়ছেই

জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস আজসড়কে দুর্ঘটনা বাড়ছেই

সফরকালে জাপানি গণমাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর প্রশংসা

সফরকালে জাপানি গণমাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর প্রশংসা

ধর্মীয় সম্প্রীতি নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা মোকাবিলার নির্দেশ

ধর্মীয় সম্প্রীতি নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা মোকাবিলার নির্দেশ

সর্বশেষ

ভক্তকে নিয়ে মিউজিক ভিডিওতে প্রথমবার ওমর সানী

ভক্তকে নিয়ে মিউজিক ভিডিওতে প্রথমবার ওমর সানী

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করায় প্রাথমিকের শিক্ষক বরখাস্ত

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করায় প্রাথমিকের শিক্ষক বরখাস্ত

পায়রা সেতু উদ্বোধন রবিবার, অনুষ্ঠানে থাকবেন ৪০০ অতিথি

পায়রা সেতু উদ্বোধন রবিবার, অনুষ্ঠানে থাকবেন ৪০০ অতিথি

রাজশাহীতে জামায়াত-শিবিরের ১২ সদস্য গ্রেফতার

রাজশাহীতে জামায়াত-শিবিরের ১২ সদস্য গ্রেফতার

অভিবাসীদের জন্য যেভাবে ইউরোপের সীমান্ত খুলে দিচ্ছে বেলারুশ

অভিবাসীদের জন্য যেভাবে ইউরোপের সীমান্ত খুলে দিচ্ছে বেলারুশ

© 2021 Bangla Tribune