X
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

৪৪ দিন ধরে নিখোঁজ পুলিশ কর্মকর্তা

আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০২১, ২১:০১

৪৪ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তা স্বামী মো. আনোয়ার হোসেন। স্বামীর সন্ধান ও তার সুচিকিৎসার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন স্ত্রী মোসা. নাজমা সুলতানা। ওই পুলিশ কর্মকর্তা নিখোঁজ থাকায় বন্ধ হয়ে গেছে তার দুই সন্তানের পড়ালেখা।

শনিবার (৯ অক্টোবর) বেলা ১১টায় পটুয়াখালী প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে স্বামীর নিখোঁজ ও অসুস্থতার কথা জানান নাজমা সুলতানা। 

লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, তার স্বামী মো. আনোয়ার হোসেন কুমিল্লা জেলা পুলিশের এসআই হিসেবে কর্মরত অবস্থায় গত ২৬ আগস্ট থেকে নিখোঁজ রয়েছেন। গত ১২ সেপ্টেম্বর বরিশাল কোতোয়ালি থানায় একটি জিডি করা হয়। এর আগে আনোয়ার হোসেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কাউনিয়া থানায় কর্মরত অবস্থায় গত ২৭ মে করোনা আক্রান্ত হয়ে গুরুতর অসুস্থ হন। করোনা মুক্ত হলেও এরপর থেকে বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছিলেন। তখন তিনি বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিনের কাছে থানার পরিবর্তে পুলিশ লাইন্স কিংবা কন্ট্রোল রুমে বদলির আবেদন করেন।

নাজমা সুলতানার দাবি, এর আগে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলায় বদলি করা হয়। পরে পুলিশ কমিশনারের কাছে শারীরিক ও মানসিক সমস্যার কথা বিবেচনা করার জন্য অনুরোধ জানাতে গেলে তার বিরুদ্ধে একটি বিভাগীয় মামলা করা হয়। তার হার্টে ব্লক, চোখে কম দেখা, কথা বললে মাথায় ব্যথা, ফুসফুস, কিডনি, পাইলসের সমস্যাসহ শারীরিকভাবে খুবই দুর্বলতাসহ বাম হাতে ও পায়ে শক্তিহীন হয়ে পড়ে। চিকিৎসার জন্য কর্মস্থলে না থাকায় সুস্থ হওয়ার পর তাকে বেতন-ভাতা পরিশোধ না করেই আরেকটি বিভাগীয় মামলা দিয়ে গত ১৭ আগস্ট কুমিল্লা জেলায় বদলি করা হয়। এতে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন এবং গত ২৬ আগস্ট থেকে নিখোঁজ রয়েছেন। এ অবস্থায় তার খোঁজ এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা না করেই বিভাগীয় মামলা চালানো হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে এর প্রতিকার ও স্বামীর চিকিৎসার দাবি জানিয়েছেন নাজমা সুলতানা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- তার আত্মীয় মো. মনির হোসেন, মৌসুমি আক্তার, মো. বায়েজিদ, সোহাগ সিকদার ও পটুয়াখালী প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমেদসহ সাংবাদিকরা। 

রাঙ্গামাটি জেলা পুলিশ সুপার মীর মোদদাছছের হোসেন বলেন, ‘আনোয়ার হোসেন রাঙ্গামাটি আসার পরে আমাকে জানায় সে অসুস্থ। এতে আমি তাকে সহানুভূতি দেখিয়ে তার কথা মতোই (বাঘাইছড়ি) থানায় পোস্টিং দিয়েছি। তাকে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা দেওয়া হয়েছে। যেহেতু অসুস্থ, প্রতিনিয়ত খোঁজখবর নিতাম। কিছু দিন পরে তার অনুমতি নিয়ে একটি মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হলো। মামলার কোনও কাজ করেনি সে। তাকে ডিপার্টমেন্টেও কোনও কাজে পাওয়া যেত না। ডিউটির সময় ডিউটিতে পাওয়া যায় না, কারো সঙ্গে সহযোগিতা করে না। অফিসে আসতো না, ওসি খবর পাঠালে বলতে শরীর ভালো না, বুকে ও কোমরে ব্যথা এসব বলতো। এতে ওসি প্রতিনিয়ত আমার কাছে অভিযোগ করতো। সে যদি অসুস্থ হয়ে থাকে চিকিৎসা নেওয়ার কথা। সারাদিন শুয়ে থাকলে তো রোগ ভালো হতো না। কেউ কিছু বললে আত্মহত্যার হুমকি দিতো সে। চিকিৎসা নিতে পাঠিয়েছি কুমিল্লা। সে আর আসে না। পরে আমি তাকে আনতে গাড়ি পাঠিয়েছি, কিন্তু আসেনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘একদিন ডাকলাম এসে বলে, আমার হার্টে সমস্যা রিং পরাতে হবে। আমি তাকে এক মাসের ছুটি নিয়ে চিকিৎসা নিতে যাওয়ার জন্য বললাম। কিন্তু সে ২০ দিনের ছুটি নিয়েছে। এতে আমি ওসির সঙ্গে রাগ করেছি, এক মাসের ছুটি দিলেন না কেন? ওসি জানান, সে ২০ দিনের নিয়েছে। ছুটি নিয়েছে চিকিৎসার জন্য না, তাবলীগে যাওয়ার জন্য। সে জানিয়েছে, রাঙ্গামাটি এসে চাকরি করবে না, আমরা অনেক বুঝিয়েছি কিন্তু সে কারো কথার গুরুত্ব দেয়নি। তার ওপরে কোনও জুলুম করা হয়নি। এসব বিষয়ে তাকে শোকজ করা হয়েছে, কিন্তু কোনও জবাব দেয়নি। পাঁচবার চিঠি দেওয়া হয়েছে, সে চিঠির উত্তর না দিয়ে ফেসবুকে আজেবাজে কথা লিখতো। এরপর সে নিখোঁজ হয়ে গেছে, পরে রমনা থানার ওসির মাধ্যমে একটি মসজিদ থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হলে সেখান থাকে পালিয়ে যায়।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

রাতে স্ত্রীকে হত্যা করে সকালে মেয়েকে নিয়ে থানায়

রাতে স্ত্রীকে হত্যা করে সকালে মেয়েকে নিয়ে থানায়

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

এখন সবার আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো: শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:১৯

আগের সরকারগুলোর আমলে বিদ্যুৎ মাঝে মাঝে আসতো। আর এখন হঠাৎ কখনও যায় বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেছেন, ‘সবসময় বিদ্যুৎ থাকে। এটিই হলো শেখ হাসিনার নেতৃত্বের সৌন্দর্য। মানুষের যা প্রয়োজন, উন্নয়নের জন্য যা প্রয়োজন তার সবকিছুই তিনি করছেন। এখন সবারই আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে অনেক ভালো। এ জন্য আমরা প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।’

শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নবনির্মিত কার্যালয় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

দীপু মনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন ৯৬ সালে প্রথম সরকার গঠন করেছিলেন, তার আগের ১০০ বছরে বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়েছিল ১৬০০ মেগাওয়াট। শেখ হাসিনার ১৭ বছরে প্রায় ২৫ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। এটিকেই বলে নেতৃত্ব। এই নেতৃত্বর ফলে বাংলাদেশ আজ এ অবস্থানে এসেছে।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথম পাঁচ বছরে ১৬০০ মেগাওয়াট থেকে চার হাজার ৩০০ মেগাওয়াটে উন্নীত করেছিলেন। পাঁচ বছরে বিদ্যুৎ উৎপাদন করেছিলেন প্রায় তিনগুণেরও বেশি। এরপর বিএনপি জামায়াতের পাঁচ এবং অবৈধ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দুই মিলিয়ে সাত বছরে বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়াতো দূরে থাক, তা কমে হলো তিন হাজার ৮০০ মেগাওয়াট। এই হলো বিএনপি-জামায়াত এবং সুশীলদের সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সেই তিন হাজার ৮০০ মেগাওয়াট থেকে প্রায় ২৫ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুতে উন্নীত করেছেন। তিনি যোগ্য পিতার যোগ্য কন্যা।’

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে কিছু বিষয়ে আমাদের নিজেদের একটু সচেতন ও সাশ্রয়ী হতে হবে। বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে কিন্তু অনেক পয়সা লাগে। যে মূল্যে সরকার আমাদের বিদ্যুৎ দেয়, একেক মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে তার চেয়ে আরও বেশি খরচ হয়। দেশে শুধু বিদ্যুৎ নয়, অবকাঠামো, রাস্তাঘাট, স্কুল-কলেজসহ সব ক্ষেত্রে উন্নয়ন হয়েছে। নদীর তলদেশ দিয়ে চরে বিদ্যুৎ দেওয়া হয়েছে- এটি কেউ কোনও দিন চিন্তা করেছিল?’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, পৌর মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম রোমান, কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. আতাউর রহমান, চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম দেব কুমার মালু, প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী প্রমুখ।

/এফআর/

সম্পর্কিত

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

ফেসবুকে একাধিক উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৫৩

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ধর্মীয় উসকানিমূলক বক্তব্য পোস্ট করায় শোভন কুমার দাস (২৭) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে যশোর র‌্যাব ক্যাম্পের সদস্যরা। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকালে তাকে যশোর শহরের বকচর হুঁশতলা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি নড়াইলের কালিয়া উপজেলার জোকারচর গ্রামের শ্যামল কুমার দাসের ছেলে।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত জানিয়েছেন র‌্যাব যশোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার মো. নাজিউর রহমান।

এতে বলা হয়, শোভন তার ফেসবুক আইডি থেকে ১৫ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবর সকাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে বেশ কিছু ধর্মীয় উসকানিমূলক পোস্ট ও লিংক শেয়ার করেন। তার পোস্ট গুজবভিত্তিক ও উসকানিমূলক হওয়ায় বিভিন্ন শ্রেণি বা সম্প্রদায়ের মধ্যে শত্রুতা, ঘৃণা, বিদ্বেষ, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট ও বিশৃঙ্খলা তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে শোভন কুমার দাসকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনার সঙ্গে অজ্ঞাত আরও ৪/৫ যুক্ত আছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নাজিউর রহমান জানান, ধর্মীয় উসকানিমূলক পোস্টসহ মোবাইলফোন উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে আসামিকে যশোর কোতোয়ালি থানায় সোপর্দ করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৪৪

পঞ্চগড়ে দুটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই জন নিহত এবং দুই জন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত একজনকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিঞা জানান, শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে পঞ্চগড়-তেঁতুলিয়া মহাসড়কের জগদল ঠুটাপাখুরী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন– জেলার সদর উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের বোদাপাড়া এলাকার আফজল হোসেনের ছেলে রাশেদুল ইসলাম (২৮) এবং তেঁতুলিয়া উপজেলার তিরনইহাট ইউনিয়নের গোয়াবাড়ি এলাকার হামিদুল ইসলামের ছেলে রিফাদুজ্জামান বাবু (২০)।

স্বজনদের আহাজারি পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রবিবার দুপুরে রাশেদুল এবং একই এলাকার তবিবর রহমানের ছেলে শাহিন হোসেন (২০) বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে পঞ্চগড় শহরে যাচ্ছিলেন। পথে জগদল ঠুটাপাখুরী এলাকায় আসলে বিপরীত দিক থেকে আসা আরেকটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে রাশেদুল এবং অপর মোটরসাইকেলের আরোহী রিফাদুজ্জামান বাবুর মৃত্যু হয়। এ সময় আহত হন মোটরসাইকেল আরোহী শাহিন এবং তেঁতুলিয়া উপজেলার তিরনইহাট ইউনিয়নের ইসলামবাগ এলাকার আলমের ছেলে রনি (২২)।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক রাশেদুল ও বাবুকে মৃত ঘোষণা করেন এবং গুরুতর আহত শাহিনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। অপর আহত রনি পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:১৪

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে স্বাভাবিক পাঠদান কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার শেষে জানুয়ারিতে নতুন ক্লাস শুরু হবে। তখন ক্লাসের সংখ্যা আরও বাড়ানো হতে পারে। 

শনিবার (২৩ অক্টোবর) চাঁদপুর শহরের বাবুরহাট এলাকায় নবনির্মিত পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয়ের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এই মুহূর্তে ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানোর কোনও সুযোগ নেই। কারণ, স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করেই শিক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। এছাড়া বিশ্বের কিছু দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ দেখা গেছে। তাই এই মুহূর্তে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, পৌর মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান, কমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. আতাউর রহমান, চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম দেব কুমার মালু, প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী প্রমুখ।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

এখন সবার আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো: শিক্ষামন্ত্রী

এখন সবার আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো: শিক্ষামন্ত্রী

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:০৫

কুমিল্লার পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় সারাদেশের সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির, বাড়ি-ঘর পুনর্নির্মাণ, ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন হিন্দু- বৌদ্ধ- খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত। তিনি বলেন, যেসব জেলায় সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা হয়েছে, সে সব ঘটনার তদন্তে সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির নেতৃত্বে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে। সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলায় জড়িতদে গ্রেফতার করে বিশেষ ক্ষমতা আইনে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির, বাড়ি-ঘর পুনঃ নির্মাণ, ক্ষতিগ্রস্তদের পুর্নবাসন, যথাযথ ক্ষতিপূরণ ছাড়াও আহতদের চিকিৎসা এবং নিহতদের প্রতিটি পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানান। 

শনিবার (২৩ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর আন্দরকিল্লা মোড় এলাকায় সংগঠনটির উদ্যোগে আয়োজিত গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচিতে উপস্থিত হয়ে তিনি এসব দাবি জানান। গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচিতে সনাতন ধর্মাবলম্বী হাজার হাজার নারী পুরুষ অংশ নেন।

তিনি বরেন, সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলায় জড়িতদে গ্রেফতার করে বিশেষ ক্ষমতা আইনে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

রানা দাশগুপ্ত অভিযোগ করেন, সাম্প্রদায়িক হামলাকারীদের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট নির্দেশনা থাকার পরেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্ব পালনে গাফিলতি ছিল। যারা অবহেলা ও গাফিলতি করেছেন, তাদের চিহ্নিত করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি। এছাড়া সাম্প্রদায়িক হামলাকারীদের মোকাবিলায় যেসব এমপি, মন্ত্রী, জনপ্রতিনিধি এগিয়ে আসেননি তাদেরকেও চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক, রাজনৈতিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তিনি। 

তিনি আরও বলেন, ১৯৭২ সালের সংবিধানের পুনর্বহাল এবং একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের ইশতিহারে প্রতিশ্রুত সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন, জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন এবং বৈষম্য বিলোপ আইন প্রণয়নসহ দ্রুত বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।

পরে তিনি এসব দাবিতে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে পথযাত্রা কর্মসূচির ঘোষণা করেন। রানা দাশগুপ্ত বলেন, উল্লেখিত দাবি সমূহের অগ্রগতি পর্যালোচনায় এনে পরবর্তীতে এসব দাবির সমর্থনে আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে চল চল ঢাকায় চল, স্লোগানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অভিমূখে পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করা হবে। 

গণঅনশন কর্মসূচি শেষে আন্দরকিল্লা থেকে একটি মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি টেরিবাজার, লালদীঘি হয়ে নিউমার্কেট এলাকায় গিয়ে শেষ হয়।



/টিটি/

সম্পর্কিত

এখন সবার আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো: শিক্ষামন্ত্রী

এখন সবার আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো: শিক্ষামন্ত্রী

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

রাতে স্ত্রীকে হত্যা করে সকালে মেয়েকে নিয়ে থানায়

রাতে স্ত্রীকে হত্যা করে সকালে মেয়েকে নিয়ে থানায়

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

জমি নিয়ে বিরোধে ইউপি সদস্যকে মারধর, কাটা হলো বাড়ির সড়ক 

জমি নিয়ে বিরোধে ইউপি সদস্যকে মারধর, কাটা হলো বাড়ির সড়ক 

শুধু প্রশাসন দিয়ে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব না: নওফেল

শুধু প্রশাসন দিয়ে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব না: নওফেল

‘অপহরণ করে বিয়ে’, ৫ দিন পর শ্বশুরবাড়ি ছেড়েছেন ইশরাত

‘অপহরণ করে বিয়ে’, ৫ দিন পর শ্বশুরবাড়ি ছেড়েছেন ইশরাত

জেলেদের হামলায় নৌ-পুলিশের ইনচার্জসহ আহত ৪

জেলেদের হামলায় নৌ-পুলিশের ইনচার্জসহ আহত ৪

সর্বশেষ

‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, কেউই নিরাপদ নই’

‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, কেউই নিরাপদ নই’

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

এখন সবার আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো: শিক্ষামন্ত্রী

এখন সবার আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো: শিক্ষামন্ত্রী

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

© 2021 Bangla Tribune