X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ভারতে মুসলিম পরিবারকে বেধড়ক মারধর, গ্রাম ছাড়ার হুঁশিয়ারি

আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২৬

ভারতের মধ্যপ্রদেশে একটি মুসলিম পরিবারের সদস্যদের বেধড়ক মারধর করা হয়েছে। মারধরের পাশাপাশি প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে তাদের এলাকা ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে বলা হয়েছে। শনিবার রাতে মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরের কাছে কাম্পেল গ্রাম পঞ্চায়েতে এই ঘটনা ঘটে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

ভিটটিম পরিবারটির অভিযোগ, বাড়ি খালি করে গ্রাম ছেড়ে না যাওয়ায় উন্মত্ত জনতা ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান দিয়ে তাদের মারধর করে। এক মাস আগেও তাদের ঘর ছাড়ার জন্য শাসানোর অভিযোগ উঠেছে। তবে বিজেপি শাসিত রাজ্যটির পুলিশের দাবি, অর্থকড়ি নিয়ে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ঝামেলা হয়েছে। দুই পক্ষের তরফেই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

ভিকটিম গিয়াসুদ্দিনের পরিবার দুই বছর আগে কাম্পেল গ্রামে আসে। পেশায় তারা কামার। জীবন ধারণের জন্য লোহার ট্রলি, চাষের সরঞ্জাম তৈরি করেন তারা। ৪৬ বছরের ফারুক গিয়াসুদ্দিনকে শনিবার রাতে পেটায় স্থানীয়রা।

তার ছেলে শাহরুখ গিয়াসুদ্দিন দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে জানিয়েছেন, ‘আচমকা ওরা চড়াও হয় আর মারতে শুরু করে আমাদের। লোহার রড আর মাটিতে যা পেয়েছে তা দিয়ে মেরেছে। আমার বাবাকে বারবার মারতে থাকে। আমার কাকা তখন বাধা দিতে যান, তাকেও মারধর করা হয়। ওরা বলছিল, ঘর ছাড়তে হবে, না হলে ফল ভালো হবে না।’

শাহরুখের বোন ফাউজিয়া কয়েক দিন আগেই বাপের বাড়িতে এসেছেন। ঘটনার সময় তিনিও বাড়িতেই ছিলেন। তিনি বলেন, ‘বেশ কয়েকজন পুরুষ এলো গাড়িতে করে। আমি ওদের ভিডিও করছিলাম। কয়েকজন আমার হাত ধরে বাইরে টেনে নিয়ে আসে। আমার মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে মাটিতে আছাড় মেরে ভেঙে দেয়।’

পরিবারটির সদস্যরা জানান, প্রায় ২৫ মিনিট ধরে অকথ্য নির্যাতন চলে তাদের ওপর। একপর্যায়ে উন্মত্ত জনতা তাণ্ডব চালিয়ে চলে গেলে থানায় যান আক্রান্তরা। সেখান থেকে তাদের মহারাজা যশবন্তরাও হাসপাতালে পাঠানো হয় মেডিক্যাল টেস্টের জন্য। তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে একটি এফআইআর দায়ের হয়েছে।

শাহরুখের বক্তব্য, এক মাস আগেও এরা আমাদের হুমকি দিয়েছিল গ্রাম ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য। ওরা গ্রাম পঞ্চায়েতকেও আমাদের বিরুদ্ধে নালিশ করেছে আর পঞ্চায়েত প্রধানকেও জানিয়েছে।

থানার কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, ‘গিয়াসুদ্দিন পরিবারকে কিছু অর্থ দিয়েছিল একটি গোষ্ঠীর লোকজন। তাদের ট্রলি বানাতে বলেছিল। কিন্তু টাকা নিয়েও কাজ না করায় রেগে গিয়ে ওই গোষ্ঠীর লোকজন চড়াও হয়। দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়। বিকাশ প্যাটেল নামে স্থানীয় এক গ্রামবাসীও গিয়াসুদ্দিনদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। গ্রাম ছেড়ে চলে যেতে হুমকি দেওয়ার কোনও ঘটনা জানা নেই। তদন্ত করে দেখা হবে।’

/এমপি/এমওএফ/

সম্পর্কিত

মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানালো হামাস

মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানালো হামাস

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানালো হামাস

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০০:৪১

ইসরায়েলি মিথ্যাচারের জবাব দেওয়ায় মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানিয়েছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। একইসঙ্গে ইসরায়েলি দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনি জনগণের পাশে থাকায় কুয়ালালামপুরের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে দলটি।

সম্প্রতি ইসরায়েলের আঞ্চলিক সহযোগিতা বিষয়ক মন্ত্রী দাবি করেন, ওমান, তিউনিসিয়া, কাতার ও মালয়েশিয়া তাদের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে পারে।

বুধবার এ বিষয়ে নিজ দেশের অবস্থান স্পষ্ট করেন মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন আব্দুল্লাহ। তিনি বলেন, ফিলিস্তিনি জাতির স্বাধিকারের সংগ্রামের প্রতি আমাদের সমর্থন অব্যাহত থাকবে। আগ্রাসী ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার কোনও পরিকল্পনা কুয়ালালামপুরের নেই।

পরে হামাসের এক বিবৃতিতে বলা হয়, মালয়েশিয়া সব সময় ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেওয়ার বিরোধী। তারা ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে ইহুদিবাদী শক্তির দখলদারিত্বের বিরোধী। সূত্র: পার্স টুডে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

কক্ষপথে স্যাটেলাইট বসাতে ব্যর্থ হলো দ. কোরিয়া

কক্ষপথে স্যাটেলাইট বসাতে ব্যর্থ হলো দ. কোরিয়া

সিরিয়ায় দাবানলের ঘটনায় ২৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০০:০৮

সিরিয়ায় দাবানলের ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে ২৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে দেশটির সরকার। হাজার হাজার হেক্টর বনভূমি জ্বালিয়ে দেওয়ায় বুধবার তাদের শাস্তি দেওয়া হয়। 

এ বিষয়ে সিরিয়ার বিচার মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্তরা সরকারি অবকাঠামো এবং সম্পদের অপূরণীয় ক্ষতির জন্য দায়ী।

বিচার মন্ত্রণালয়ের বরাতে বৃহস্পতিবার দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে বলা হয়েছে, দণ্ড প্রাপ্তরা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের জন্য দোষী সাব্যস্ত। তারা দাহ্য পদার্থ ব্যবহার করে রাষ্ট্রীয় অবকাঠামো, সরকারি ও ব্যক্তিগত সম্পত্তির ক্ষতি করেছে’।

দাবানলে জড়িত থাকায় আরও ১১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ৪ জনকে শাস্তি এবং পাঁচ নাবালককে একই ধরনের অভিযোগে ১০ থেকে ২০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। দণ্ডপ্রাপ্তরা গত বছরে কৃত্রিমভাবে সিরিয়ার হোমস, লাতাকিয়া এবং তারতুসে দাবানল সৃষ্টি করে।

যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায় প্রায় সময় মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়ে আসছে। কিন্তু বুধবারের সংখ্যা অন্য সময়ের তুলনায় অনেক বেশি। 

/এলকে/

সম্পর্কিত

রোমানিয়ার কোভিড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে ৯ জনের মৃত্যু

রোমানিয়ার কোভিড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে ৯ জনের মৃত্যু

দাবানল থেকে 'জেনারেল শেরম্যান'কে রক্ষায় বিশেষ ব্যবস্থা

দাবানল থেকে 'জেনারেল শেরম্যান'কে রক্ষায় বিশেষ ব্যবস্থা

স্পেনে দাবানলে বাস্তুচ্যুত হাজারো মানুষ, আগুন নিয়ন্ত্রণে নেমেছে সেনা

দাবানলে পুড়ছে স্পেন

পাকিস্তানে রাসায়নিক কারখানায় আগুনে পুড়ে ১৭ জনের মৃত্যু

পাকিস্তানে রাসায়নিক কারখানায় আগুনে পুড়ে ১৭ জনের মৃত্যু

৪৬ দেশের পর্যটকদের সুখবর দিলো থাইল্যান্ড

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৩৩

পর্যটনখ্যাত থাইল্যান্ড ভ্রমণে দুই ডোজ নেওয়া বিদেশি পর্যটকদের কোয়ারেন্টিন প্রয়োজন নেই। করোনার সংক্রমণ কম বিশ্বের এমন ৪৬ দেশের পর্যটকদের জন্য এই ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার। আগামী ১ নভেম্বর থেকে নতুন এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হতে যাচ্ছে।

কয়েক মাস আগেও করোনার থাবায় বিপর্যস্ত ছিল থাইল্যান্ড। সংক্রমণের লাগাম টানতে বিদেশিদের ভ্রমণে কড়াকরি আরোপ করা হয়। যদিও সংক্রমণের হার অনেকটাই কমে আসায় বিধিনিষেধে শিথিলতা আনছে থাইল্যান্ড। দেশটির বড় আয়ের অংশ আসে পর্যটক খাত থেকেই। কোভিডের ধাক্কা সামলাতে নতুন নতুন সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। 

এরই অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার দেশটির প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুত চান ওঁচা জানান, কম ঝুঁকিপূর্ণ ৪৬ দেশের নাগরিকরা টিকার দুই ডোজ গ্রহণকারীরা কোয়ারেন্টিন ছাড়াই থাইল্যান্ড ভ্রমণ করতে পারবেন।

এর আগে ১০ দেশের জন্য এই নিয়ম চালু করা হয়। দুই ডোজ করোনার টিকা নেওয়া থাকলে করোনার নেগেটিভ সনদপত্র দেখানো লাগবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

/এলকে/

সম্পর্কিত

পর্যটকদের জন্য দ্বার খুললো ভারত, লাগবে নতুন ভিসা

পর্যটকদের জন্য দ্বার খুললো ভারত

করোনার ট্যাবলেট নিয়ে এশিয়ায় তোড়জোড়

করোনার ট্যাবলেট নিয়ে এশিয়ায় তোড়জোড়

করোনা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতায় থাইল্যান্ডে সরকারবিরোধী আন্দোলনে পুলিশের হামলা

করোনা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতায় থাইল্যান্ডে সরকারবিরোধী আন্দোলনে পুলিশের হামলা

বিমানবন্দরেই করোনার বিশাল হাসপাতাল

বিমানবন্দরেই করোনার বিশাল হাসপাতাল

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৪

প্রবল বর্ষণে সৃষ্ট বন্যা, ভূমিধসে ভারত ও নেপালে মৃত্যু ১৮০ ছাড়লো। ভারতের দুই রাজ্য উত্তরাখন্ড এবং কেরালার বন্যা পরিস্থিতির কোনও উন্নতি নেই। ফলে বাড়ছে প্রাণহানি।

গত শুক্রবার থেকে বন্যায় বিপর্যস্ত কেরালা রাজ্য। ভারী বৃষ্টিপাতে বিভিন্ন জায়গায় ভূমিধস দেখা দিয়েছে। বানের তোড়ে নদীতে ভেসে গেছে বহু বাড়ি-ঘর। সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী এক হাজার ছয়শ’র বেশি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ জনে।

এদিকে উত্তরাখন্ডের পরিস্থিতি আরও শোচনীয়। ভয়াবহ বন্যায় একই পরিবারের পাঁচজন মারা গেছেন। এ নিয়ে নিহত বেড়ে ৫৫ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রতি বছর অক্টোবরে উত্তরাখন্ডে গড়ে ৩০ মিলিমিটারের মতো বৃষ্টিপাত হয়। কিন্তু এ বছর সব পরিসংখ্যান ছাপিয়ে গেছে। চলতি সপ্তাহেই ৩২৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। তবে বৃষ্টি এখন কিছুটা কমার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

এক টুইট বার্তায় নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেন তিনি।  

এদিকে প্রাণঘাতী বন্যার কবলে নেপালের পূর্বাঞ্চলের পাঞ্চতার জেলা, পশ্চিমের ইলাম এবং দোতি জেলার মানুষ। পশ্চিম নেপালের একটি গ্রামে আটকে পড়া ৬০ জনের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে উদ্ধারকারীরা। এখন পর্যন্ত ৮৮ জন মারা গেছেন দেশটিতে। বন্যায় নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে এক হাজার সাতশ’ ডলার করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে নেপাল সরকার।

/এলকে/

সম্পর্কিত

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

নেপাল ও ভারতে বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক মানুষের মৃত্যু

নেপাল ও ভারতে বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক মানুষের মৃত্যু

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২১:০৪

দুর্গাপূজা উৎসব শেষে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে। রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সাড়ে সাতশ’ মানুষ করোনায় শনাক্ত হয়েছেন। প্রতিদিনই আক্রান্তের হার বাড়ছে বলে উদ্বেগ জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের খবরে জানা গেছে, সম্প্রতি শেষ হওয়া ভবানীপুর উপ-নির্বাচন ও দুর্গাপূজা উৎসবের পর থেকেই কোভিডের সংক্রমণ প্রতিদিনই বাড়ছে। এর কারণ হিসেবে মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতার অভাবকেই দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞরা। দৈনিক আক্রান্তের হার সবচেয়ে বেশি কলকাতায়। এখানে ২৪ ঘণ্টায় ২৫০ জন করোনায় শনাক্ত হন।

এ বিষয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা ডা. মানস গুমতা। তিনি বলেন, 'পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরকারকেই দায়িত্ব নিতে হবে। করোনার মধ্যেই সরকার কীভাবে এত জন সমাবেশের অনুমতি দিয়েছিল? দুর্গাপূজার সময় ভিড় না করতে কোনও ধরনের নির্দেশ দেয়নি রাজ্য সরকার।

এদিকে করোনা প্রতিরোধে ভারতজুড়ে টিকা কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে দেশটির সরকার। এমন পরিস্থিতিতেই সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে। করোনা নিয়ন্ত্রণে এখনও পর্যন্ত নতুন কোনও পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে।

/এলকে/

সম্পর্কিত

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

নেপাল ও ভারতে বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক মানুষের মৃত্যু

নেপাল ও ভারতে বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক মানুষের মৃত্যু

শাহরুখপুত্রের জামিন আবেদন খারিজ

শাহরুখপুত্রের জামিন আবেদন খারিজ

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানালো হামাস

মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানালো হামাস

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

কক্ষপথে স্যাটেলাইট বসাতে ব্যর্থ হলো দ. কোরিয়া

কক্ষপথে স্যাটেলাইট বসাতে ব্যর্থ হলো দ. কোরিয়া

কাবুলে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

কাবুলে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রথম মহাকাশ রকেট উৎক্ষেপণ দ. কোরিয়ার

প্রথম মহাকাশ রকেট উৎক্ষেপণ দ. কোরিয়ার

সর্বশেষ

মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানালো হামাস

মালয়েশিয়াকে ধন্যবাদ জানালো হামাস

ঢাকাতেও রোনালদোদের কাছে হারের বর্ণনা দিতে হলো গ্রান্টকে

ঢাকাতেও রোনালদোদের কাছে হারের বর্ণনা দিতে হলো গ্রান্টকে

জীবনানন্দ দাশ  একটি পথ দুর্ঘটনা বা পূর্বঘোষিত মৃত্যুর কালপঞ্জি

জীবনানন্দ দাশ একটি পথ দুর্ঘটনা বা পূর্বঘোষিত মৃত্যুর কালপঞ্জি

মনোনয়ন ফরমে অ্যানালগই রয়ে গেলো আওয়ামী লীগ

মনোনয়ন ফরমে অ্যানালগই রয়ে গেলো আওয়ামী লীগ

সিরিয়ায় দাবানলের ঘটনায় ২৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

সিরিয়ায় দাবানলের ঘটনায় ২৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

© 2021 Bangla Tribune