X
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

আইএস-কে: প্রধান হুমকি কীভাবে মোকাবিলা করবে তালেবান

আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৩০

আফগানিস্তানে শান্তি ফিরিয়ে আনতে তালেবানের প্রচেষ্টা ভণ্ডুল করে দিচ্ছে ইসলামিক স্টেট ইন খোরাসান (আইএস-কে)। একের পর পর রক্তাক্ত হামলা চালাচ্ছে তারা। শনিবার শিয়া মসজিদে এক আত্মঘাতী হামলা চলায় তারা। কুন্দুজ শহরে জুমার নামাজের সময় এই হামলায় অনেক প্রাণহানি হয়েছে। এ হামলার লক্ষ্য ছিল বিভাজন ও বিদ্বেষ ছড়িয়ে দেশকে পরিচালনা কঠিন করে তোলা। এর আগে আগস্টে কাবুল বিমানবন্দরে আরেকটি আত্মঘাতী হামলায় শতাধিক আফগান ও ১৩ মার্কিন সেনার মৃত্যু হয়েছিল। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি’র এক প্রতিবেদনে তালেবান ও আইএস-কে’র মধ্যকার শত্রুতার বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হয়েছে।

কাবুল বিমানবন্দর ও কুন্দুজে শিয়া মসজিদে হামলার দায় স্বীকার করেছে আইএস-কে

আইএস-কে কারা?

বৃহত্তর ইসলামি স্টেট গোষ্ঠী আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে ২০১৪ সালের শেষ দিকে। যখন ইরাক ও সিরিয়ায় লড়াইরত সুন্নি চরমপন্থীরা  একটি ‘খিলাফতের’ প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে। আবু বকর আল-বাগদাদির নেতৃত্বাধীন গোষ্ঠীটি ইরাক ও পূর্বাঞ্চলীয় সিরিয়ার অনেক ভূখণ্ড দখল করে। পরে মার্কিন সমর্থিত যোদ্ধা, সিরিয়া ও ইরাক সরকারের অভিযানে এসব ভূখণ্ড পুনরুদ্ধার করা হয়েছে। কিন্তু ততদিনে খোরাসানসহ বিভিন্ন অঞ্চলে গোষ্ঠীটির অনুগত বাহিনী তৈরি হয়েছে। আফগানিস্তান, ইরান, পাকিস্তান ও তুর্কমেনিস্তানের ভূখণ্ড নিয়ে খোরাসান অঞ্চল গঠিত।

ফরাসি থিংক ট্যাংক স্ট্র্যাটেজিক রিসার্চের জ্যেন-লুক ম্যারেট আইএস-কে উইঘুর, উজবেক ও তালেবান দলত্যাগীসহ সাবেক জিহাদিদের একটি সংগঠন হিসেবে মনে করেন।

কুন্দুজে শুক্রবারের বোমা হামলায় আত্মঘাতী ছিল একজন উইঘুর। এই সম্প্রদায় চীনে মুসলিম সংখ্যালঘু হিসেবে নিপীড়িত হচ্ছে।

জাতিসংঘের প্রাক্কলন অনুসারে, আইএস-কে’র ৫০০ থেকে কয়েক হাজার যোদ্ধা রয়েছে উত্তর ও পূর্ব আফগানিস্তান। এর মধ্যে রাজধানী কাবুলে তালেবানের নাকের ডগায় তাদের সেল রয়েছে।

২০২০ সাল থেকে গোষ্ঠীটি একজন ‘শাহাব আল-মুজাহির’-এর নেতৃত্বে পরিচালিত হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে, তার আগমন আরব বিশ্ব থেকে। যদিও তার জাতীয়তা সম্পর্কে স্পষ্টভাবে জানা যায়নি। গুজব রয়েছে সে একজন সাবেক আল-কায়েদা কমান্ডার অথবা হাক্কানি নেটওয়ার্কের একজন সাবেক সদস্য। হাক্কানি গোষ্ঠী আফগান তালেবানের মধ্যে সবচেয়ে ক্ষমতাশালী ও ভয়ানক অংশ।

বিশ্বের কাছে নিজেদের নতুন করে হাজির করতে চাইছে তালেবান

হুমকির ব্যাপকতা কেমন?

২০২০ সাল পর্যন্ত তালেবানের কর্মকাণ্ডে ঢাকা ছিল আইএস-কে। যুক্তরাষ্ট্রের বিমান ও ড্রোন হামলায় প্রভাব হারাচ্ছিল গোষ্ঠীটি। কিন্তু রহস্যময় নতুন নেতার আবির্ভাবে তারা ঘুরে দাঁড়িয়েছে।

অনলাইনে জঙ্গিবাদ শনাক্তকারী সংস্থা এক্সট্র্যাক-এর গবেষক আবদুল সায়েদের মতে, তাদের নেতা শাহাদ শহুরে যুদ্ধ ও প্রতীকী সহিংসতায় জোর দিয়েছে। তিনি বলেন, তালেবান তাদের প্রধান টার্গেট হলেও আইএস-কে ধর্মীয় স্থাপনা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতালের মতো পাবলিক প্লেস ইত্যাদিতেও হামলা চালিয়েছে। এসব হামলার লক্ষ্য তাদের জঙ্গিবাদের আতঙ্ক ছড়িয়ে দেওয়া।

তালেবান ও আইএস-কে উভয়েই সুন্নি গোষ্ঠী। যদিও কাবুলে সরকার গঠনের তালেবান সংখ্যালঘু শিয়া সম্প্রদায়কে নিরাপত্তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। আর তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী আইএস-কে শিয়াদের নিশ্চিহ্ন করতে চায়।

ইরাকে মূল আইএস শিয়া সম্প্রদায়কে টার্গেট করেছিল। আফগানিস্তানেও আইএস-কে শিয়া সংখ্যালঘু গোষ্ঠী হাজারাদের হুমকি দিয়েছে।

তালেবানের বিশেষ বাহিনী

বিরোধের সূত্রপাত কোথায়?

আইএস-কে’র অনেক যোদ্ধা তালেবান বা তাদের মিত্র গোষ্ঠীর হয়ে যুদ্ধ কিংবা আল-কায়েদা সশস্ত্র বিদ্রোহে সাড়া দিয়ে অস্ত্র হাতে নিয়েছে। কিন্তু এখন গোষ্ঠীটির লক্ষ্য আলাদা।

২০২১ সালে এসে তালেবান তাদের ইসলামি শরিয়াহ আইনের ব্যাখ্যায় আফগানিস্তান শাসন করতে চায়। কিন্তু আইএস-কে আরও দূরবর্তী লক্ষ্য বৈশ্বিক খিলাফত গঠন করতে চায়।

তালেবান মুখপাত্র আইএস-কে গোষ্ঠীকে ‘তাকফিরি’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। ইসলামে যে মতবাদে বিশ্বাসীরা অন্যান্য মতবাদ ও মাজহাবে বিশ্বাসীদের ‘কাফের’ বলে আখ্যায়িত করে তাকে তাকফিরি মতবাদ বলা হয়।

দুই গোষ্ঠীর বাকবিতণ্ডায় আকাশ-পাতাল পার্থক্য থাকলেও সত্যিকার পার্থক্য খুব কম এবং কমান্ডারের দৃষ্টিভঙ্গি ও সুযোগ অনুসারে যোদ্ধারা পক্ষ বদল করতে ওস্তাদ।

ড্রাগনফ্লাই সিকিউরিটি ইন্টেলিজেন্স-এর বারবারা কেলেমেন বলেন, তালেবানকে যারা বেশি আধুনিক মনে করে এবং তাদের কর্মকাণ্ড নিয়ে সন্তুষ্ট না এমন সদস্যদের আইএস-কে রিক্রুট করেছে সফলভাবে। তালেবান যখন কিছুটা সংস্কারকামী হিসেবে দেশ শাসন করতে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে তখন আইএস-কে এগুলো প্রত্যাখ্যানকারী প্রধান গোষ্ঠী হিসেবে আবির্ভূত হতে পারে। এতে করে তালেবানে অসন্তুষ্ট সমর্থকদের আরও বেশি করে দলে ভেড়ানোর সুযোগ তাদের সামনে থাকবে। তালেবানের ওপর হামলা চালাতেও উৎসাহিত করবে তারা।

তালেবান আইএস-কে গোষ্ঠীকে তাকফিরি বলে উল্লেখ করেছে

তালেবান কি সুবিধাজনক অবস্থানে?

মার্কিন থিংক ট্যাংক উড্রু উইলসন সেন্টারের মাইকেল কুগেলম্যান বলেন, ১৫ আগস্টের পর থেকে আফগান জনগণের প্রতি তালেবানের মূল বার্তা হলো তারা যুদ্ধের অবসান ঘটিয়ে দেশে স্থিতিশীলতা এনেছে। কিন্তু শুক্রবার কুন্দুজে পরিচালিত বোমা হামলা তাদের এই অবস্থানকে বিশালভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে।

আফগানিস্তানের মার্কিন সমর্থিত সরকারগুলো দুই দশকে শত কোটি ডলার ও নিরাপত্তা সহযোগিতা এবং পশ্চিমা সেনাদের নিয়েও তালেবান বা আইএস-কে পরাজিত করতে পারেনি। এখন তালেবানকে বাইরের সহযোগিতা ছাড়াই তাদের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বীদের মোকাবিলা করতে হবে। মার্কিন সেনাবাহিনীর মতো কার্যকর গোয়েন্দা তথ্য ও নজরদারি চালানোর মতো সরঞ্জামও তাদের নেই।

যদিও শত্রু সম্পর্কে তাদের জানাশোনা ভালো। গত সপ্তাহেই তারা কাবুলে একটি আইএস-কে সেল গুড়িয়ে দেওয়ার দাবি করেছে। শহরের দ্বিতীয় বৃহত্তম মসজিদে হামলার পরই এই ঘোষণা দেয় তালেবান। আইএস-কে’র কৌশল সম্পর্কেও তারা ভালো জানে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সৌফান সেন্টারের এক প্রতিবেদনে যেমনটি বলা হয়েছে, আইএস-কে’র সঙ্গে লড়াইয়ে তালেবান হাক্কানি নেটওয়ার্ক, আল-কায়েদা ও বেসরকারি সহিংস শ্রমশক্তি, যুদ্ধের অভিজ্ঞতা ও লজিস্টিক সহযোগিতার ওপর নির্ভর করবে।

/এএ/

সম্পর্কিত

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৪

প্রবল বর্ষণে সৃষ্ট বন্যা, ভূমিধসে ভারত ও নেপালে মৃত্যু ১৮০ ছাড়লো। ভারতের দুই রাজ্য উত্তরাখন্ড এবং কেরালার বন্যা পরিস্থিতির কোনও উন্নতি নেই। ফলে বাড়ছে প্রাণহানি।

গত শুক্রবার থেকে বন্যায় বিপর্যস্ত কেরালা রাজ্য। ভারী বৃষ্টিপাতে বিভিন্ন জায়গায় ভূমিধস দেখা দিয়েছে। বানের তোড়ে নদীতে ভেসে গেছে বহু বাড়ি-ঘর। সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী এক হাজার ছয়শ’র বেশি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ জনে।

এদিকে উত্তরাখন্ডের পরিস্থিতি আরও শোচনীয়। ভয়াবহ বন্যায় একই পরিবারের পাঁচজন মারা গেছেন। এ নিয়ে নিহত বেড়ে ৫৫ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রতি বছর অক্টোবরে উত্তরাখন্ডে গড়ে ৩০ মিলিমিটারের মতো বৃষ্টিপাত হয়। কিন্তু এ বছর সব পরিসংখ্যান ছাপিয়ে গেছে। চলতি সপ্তাহেই ৩২৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। তবে বৃষ্টি এখন কিছুটা কমার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

এক টুইট বার্তায় নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেন তিনি।  

এদিকে প্রাণঘাতী বন্যার কবলে নেপালের পূর্বাঞ্চলের পাঞ্চতার জেলা, পশ্চিমের ইলাম এবং দোতি জেলার মানুষ। পশ্চিম নেপালের একটি গ্রামে আটকে পড়া ৬০ জনের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে উদ্ধারকারীরা। এখন পর্যন্ত ৮৮ জন মারা গেছেন দেশটিতে। বন্যায় নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে এক হাজার সাতশ’ ডলার করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে নেপাল সরকার।

/এলকে/

সম্পর্কিত

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

নেপাল ও ভারতে বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক মানুষের মৃত্যু

নেপাল ও ভারতে বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক মানুষের মৃত্যু

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২১:০৪

দুর্গাপূজা উৎসব শেষে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে। রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সাড়ে সাতশ’ মানুষ করোনায় শনাক্ত হয়েছেন। প্রতিদিনই আক্রান্তের হার বাড়ছে বলে উদ্বেগ জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের খবরে জানা গেছে, সম্প্রতি শেষ হওয়া ভবানীপুর উপ-নির্বাচন ও দুর্গাপূজা উৎসবের পর থেকেই কোভিডের সংক্রমণ প্রতিদিনই বাড়ছে। এর কারণ হিসেবে মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতার অভাবকেই দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞরা। দৈনিক আক্রান্তের হার সবচেয়ে বেশি কলকাতায়। এখানে ২৪ ঘণ্টায় ২৫০ জন করোনায় শনাক্ত হন।

এ বিষয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা ডা. মানস গুমতা। তিনি বলেন, 'পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরকারকেই দায়িত্ব নিতে হবে। করোনার মধ্যেই সরকার কীভাবে এত জন সমাবেশের অনুমতি দিয়েছিল? দুর্গাপূজার সময় ভিড় না করতে কোনও ধরনের নির্দেশ দেয়নি রাজ্য সরকার।

এদিকে করোনা প্রতিরোধে ভারতজুড়ে টিকা কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে দেশটির সরকার। এমন পরিস্থিতিতেই সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে। করোনা নিয়ন্ত্রণে এখনও পর্যন্ত নতুন কোনও পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে।

/এলকে/

সম্পর্কিত

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

নেপাল ও ভারতে বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক মানুষের মৃত্যু

নেপাল ও ভারতে বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক মানুষের মৃত্যু

শাহরুখপুত্রের জামিন আবেদন খারিজ

শাহরুখপুত্রের জামিন আবেদন খারিজ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২০:১৮

ডিসি কমিকস ফ্র্যাঞ্চাইজির অ্যানিমেশন চলচ্চিত্র ‘ইনজাস্টিস’ নিয়ে ভারতে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ছে। চলচ্চিত্রটির একটি দৃশ্য নিয়েই মূলত ভারতীয়দের আপত্তি। ওই দৃশ্যে দেখানো হয়েছে, ওয়ান্ডার ওম্যান ও সুপারম্যান ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই  এবং অঞ্চলটিকে অস্ত্রমুক্ত বলে ঘোষণা করেছে।

১৯ অক্টোবর বিশ্বজুড়ে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল চলচ্চিত্রটি। কিন্তু এই মাসের শুরুতেই তা অনলাইনে ফাঁস হয়ে যায়। এতে দেখা গেছে, বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে চলমান সংঘাত থামিয়ে দিচ্ছে ওয়ান্ডার ওম্যান ও সুপারম্যান।  

এতে আরও দেখা গেছে, দুই কাল্পনিক সুপারহিরো কাশ্মিরে সেনাবাহিনীর সঙ্গে লড়াই এবং তাদের সরঞ্জাম ধ্বংস করছে। এসময় নেপথ্য কণ্ঠে বলতে শোনা যায়, বিরোধপূর্ণ কাশ্মিরে ওয়ান্ডার ওম্যান ও সুপারম্যান সব সামরিক সরঞ্জাম ধ্বংস করে দিয়েছে এবং অঞ্চলটিকে অস্ত্রমুক্ত বলে ঘোষণা করেছে।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশন্স-এর সদস্য বরুন পুরি ডিসি কমিকসের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দৃশ্যটি বাদ দেওয়ার জন্য। তিনি টুইটারে লিখেছেন, পশ্চিমারা এখন ভারতবিরোধী প্রোপাগান্ডা ছড়াতে অ্যানিমেশন চলচ্চিত্র কাজে লাগাচ্ছে। এতে কাজ হবে না। কাশ্মির আমাদের অঙ্গীভুত অংশ এবং আমাদের অবমাননা করার মতো কিছু সহ্য করা হবে না।

#AntiIndiaSuperman নামের একটি হ্যাশট্যাগ টুইটারে ট্রেন্ডিংয়ে ছিল কয়েক ঘণ্টা। সুধীর চৌধুরী নামের ভারতীয় সাংবাদিক ডিসি কমিকসকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, চলচ্চিত্র ও কমিকসে সুপারহিরোদের খুব শক্তিশালী হিসেবে দেখানো হয়। কিন্তু আজ ১৩৫ কোটি ভারতীয় সুপারম্যানের চেয়ে শক্তিশালী প্রমাণিত হবে।

ভারতের একটি জাতীয় টেলিভিশনে এই বিষয়ে খবর প্রকাশের পর অনেকেই প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন। অনেকেই আহ্বান জানিয়েছেন চলচ্চিত্রটি বয়কট করার জন্য।

হলিউডের চলচ্চিত্র নিয়ে ভারতীয় ক্ষোভ এই প্রথম নয়। এর আগে ২০১৮ সালে ‘মিশন ইম্পসিবল: ফলআউট’-এর কাশ্মির সংশ্লিষ্ট একটি দৃশ্য বাদ দিয়েছে। সূত্র: ভাইস

 

/এএ/

সম্পর্কিত

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

ভারত-নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে মৃত্যু ছাড়ালো ১৮০

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

আবারও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গে

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

ব্রিটিশ এমপি হত্যায় অভিযুক্ত যুবক

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২০:০৯

ব্রিটেনের এমপি ডেভিড অ্যামেস হত্যায় অভিযুক্ত সোমালিয়ান বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক আলী হারাবি আলী। স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের কাউন্টার টেররিজম কমান্ডের তদন্তের পর ওই হত্যাকাণ্ডে তাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের ক্রাউন প্রসিকিউটর সার্ভিস জানায়, অভিযুক্ত আলীর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ আইন ২০০৬-এর ৫ ধারায় হত্যা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের প্রস্তুতির অভিযোগ আনা হয়েছে।

গত (১৫ অক্টোবর) স্থানীয় সময় দুপুরে নির্বাচনী এলাকার ভোটারদের সঙ্গে বৈঠকের সময় হামলার শিকার হন ৬৯ বছর বয়সী ডেভিড অ্যামেস। এসেক্সের বেলফেয়ার্স মেথোডিস্ট গির্জায় নির্বাচনি সভায় হামলার ঘটনা ঘটে। ডেভিড অ্যামেসকে উদ্ধার করে জরুরি চিকিৎসা দেওয়া হলেও বাঁচানো সম্ভব হয়নি। 

ওই ঘটনার পরই ঘটনাস্থল থেকে ছুরিসহ ২৫ বছর বয়সী ঘাতক আলীকে আটক করে পুলিশ। ডেভিড অ্যামেস ছুরিকাঘাতে হত্যাকাণ্ডে ‘সন্ত্রাসবাদ আইন’-এ গ্রেফতার দেখানো হয় তাকে।

এমন হত্যাকাণ্ডে নিন্দার ঝড় বয়ে যায় যুক্তরাজ্যে। এমপিদের সুরক্ষায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারেরও প্রতিশ্রুতি দেন ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

/এলকে/

সম্পর্কিত

আগামী বছরও মহামারি চলতে পারে: ডব্লিউএইচও

আগামী বছরও মহামারি চলতে পারে: ডব্লিউএইচও

চিকিৎসকদের পরামর্শে সফর বাতিল করেছেন রানি এলিজাবেথ

চিকিৎসকদের পরামর্শে সফর বাতিল করেছেন রানি এলিজাবেথ

যুক্তরাজ্যে আবারও বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু

যুক্তরাজ্যে আবারও বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু

প্রথমবারের মতো আর্থশট পুরস্কার ঘোষণা

প্রথমবারের মতো আর্থশট পুরস্কার ঘোষণা

রাষ্ট্রদূতদের ওপর ক্ষেপেছেন এরদোয়ান

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৪

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান দশটি দেশের রাষ্ট্রদূতদের পক্ষ থেকে ওসমান কাভালার মুক্তির দাবি করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, এসব রাষ্ট্রদূতদের তুরস্কে জায়গা দেওয়া উচিত না। মুক্তি দাবি করা কূটনীতিকদের মধ্যে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি ও ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত। বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার বিবৃতিদাতা রাষ্ট্রদূতদের তলব করেছে। কাভালার মামলায় ন্যায়বিচার ও দ্রুত রায় ঘোষণার আহ্বান জানানো বিবৃতিকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে দায়িত্ব জ্ঞানহীন বলে উল্লেখ করা হয়েছে। দোষী সাব্যস্ত না হলেও ২০১৭ সাল থেকে কারাগারে রয়েছেন মানবপ্রেমী কাবালা।

২০১৩ সালে তুরস্কজুড়ে বিক্ষোভের মামলায় গত বছর বেকসুর খালাস পেয়েছিলেন কাভালা। কিন্তু এই বছর আগের রায়টি খারিজ করে দেওয়া হয়েছে এবং ২০১৬ সালের অভ্যুত্থান চেষ্টার মামলায় এটিকে অঙ্গীভূত করা হয়েছে। তিনি কোনও অন্যায় করার কথা অস্বীকার করে আসছেন।

এক বিবৃতিতে রাষ্ট্রদূতেরা কাভালার মুক্তি নিশ্চিত করতে তুরস্কের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন।

রাষ্ট্রদূতদের এমন পদক্ষেপের পর ক্ষুব্ধ এরদোয়ান বলেন, আমি আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলেছি: আমাদের দেশে তাদের জায়গা দেওয়ার মতো বিলাসিতার সুযোগ আমাদের নেই। তুরস্ককে শেখানোর দায়িত্ব কী আপনাদের? নিজেদের কী ভাবেন আপনারা?

তুরস্কের বিচার ব্যবস্থা স্বাধীন না বলে যে অভিযোগ তা নাকচ করেছেন তিনি। বলেন, আমাদের বিচার ব্যবস্থা স্বাধীনতার একটি চমৎকার উদাহরণ।

রাষ্ট্রদূতদের বিরুদ্ধে তুরস্ক আর কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করবে কিনা জানতে চাইলে তুর্কি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তাঞ্জু বিলজিক জানান, প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে আঙ্কারার এবং সময় আসলে তা গ্রহণ করা হবে।

এক ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, যেখানে নিয়োগ পেয়েছেন সেই দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলানো রাষ্ট্রদূতদের কাজ না। স্বাধীন দেশ হিসেবে উপযুক্ত মনে করলে যে কোনও পদক্ষেপ নিতে পারে তুরস্ক।

 

/এএ/

সম্পর্কিত

‘গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি তার নাগরিকের চাহিদা পূরণে সক্ষম’

‘গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি তার নাগরিকের চাহিদা পূরণে সক্ষম’

জলবায়ু সম্মেলনে যোগ দেবেন না পুতিন

জলবায়ু সম্মেলনে যোগ দেবেন না পুতিন

যুক্তরাজ্যে আবারও বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু

যুক্তরাজ্যে আবারও বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু

অনূর্ধ্ব ১২ বছরের শিশুদেরও ভ্যাকসিন দেওয়ার চিন্তা ইইউ-এর

অনূর্ধ্ব ১২ বছরের শিশুদেরও ভ্যাকসিন দেওয়ার চিন্তা ইইউ-এর

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

সুপারম্যান-এর বিরুদ্ধে ভারতে ক্ষোভ

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

পাকিস্তানে নিরাপত্তাবাহিনীর ৬ সদস্য নিহত

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

নারীদের মিছিলে সাংবাদিকদের পেটালো তালেবান

কক্ষপথে স্যাটেলাইট বসাতে ব্যর্থ হলো দ. কোরিয়া

কক্ষপথে স্যাটেলাইট বসাতে ব্যর্থ হলো দ. কোরিয়া

কাবুলে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

কাবুলে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রথম মহাকাশ রকেট উৎক্ষেপণ দ. কোরিয়ার

প্রথম মহাকাশ রকেট উৎক্ষেপণ দ. কোরিয়ার

সর্বশেষ

বিনা টিকিটে ট্রেনে ওঠায় ২১৫ যাত্রীকে জরিমানা

বিনা টিকিটে ট্রেনে ওঠায় ২১৫ যাত্রীকে জরিমানা

সাকিব স্বীকার করলেন, টানা খেলায় কিছুটা ক্লান্ত তিনি

সাকিব স্বীকার করলেন, টানা খেলায় কিছুটা ক্লান্ত তিনি

‘খুঁজে বের করতে হবে ইকবালের পেছনে কে’

‘খুঁজে বের করতে হবে ইকবালের পেছনে কে’

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

আবার শজিমেক হাসপাতালে রোগীর স্বজনকে মারধরের অভিযোগ

আবার শজিমেক হাসপাতালে রোগীর স্বজনকে মারধরের অভিযোগ

© 2021 Bangla Tribune