X
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

মিসর ও সিরিয়ায় চিকিৎসক দল পাঠানোর প্রস্তাব বঙ্গবন্ধুর

আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০০

(বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধুর সরকারি কর্মকাণ্ড ও তার শাসনামল নিয়ে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করছে বাংলা ট্রিবিউন। আজ পড়ুন ১৯৭৩ সালের ১২ অক্টোবরের ঘটনা।)

১৯৭৩ সালের এই দিনে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আরব-ইসরায়েল যুদ্ধে আহতদের সাহায্যার্থে মিসর ও সিরিয়ায় চিকিৎসক দল পাঠানোর প্রস্তাব দেন। বাসস পরিবেশিত খবরে বলা হয়, এদিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. কামাল হোসেন ঢাকায় মিসরের মনোনীত রাষ্ট্রদূত হেজাজিকে এই প্রস্তাবের কথা জানান। এই প্রস্তাবের কথা জানিয়ে সিরিয়ার সরকারের কাছেও একটি বার্তা পাঠানো হয়। আরব ভাইদের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করতে আগ্রহী বিপুল সংখ্যক মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠনের তরফ থেকে যেসব প্রস্তাব ও সাহায্য পাওয়া যাচ্ছে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সে সম্পর্কেও মিসরীয় রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন। মিসরের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ সরকার ও জনগণের এই শুভেচ্ছায় গভীরভাবে অভিভূত হন এবং মিসর সরকার ও জনগণের তরফ থেকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

ইসরায়েলি ৪০৯টি বিমান সিরিয়ায় ভূপাতিত

মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধের সপ্তম দিনে উত্তর রণাঙ্গনে প্রচণ্ড লড়াই হয়েছে বলে ইসরায়েলের ইশতেহারে বলা হয়। সিনাইয়ে অভিযান বাহিনীর মধ্যে ভয়াবহ কামান যুদ্ধ শুরু হলে উপসাগরে ইরানের/// নৌবহর ধ্বংস ও ভূমধ্যসাগরে প্রচণ্ড যুদ্ধের খবর পাওয়া যায়। মিসরীয় বার্তা সংস্থার খবরে বলা হয়, মার্কিন ষষ্ঠ নৌবহরের জাহাজ থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে উড়ে আসা যুদ্ধ বিমান ভূপাতিত হয়। সুয়েজ তীরবর্তী মিশরীয় অবস্থান ও সামরিক ঘাঁটিগুলোর ওপরে ব্যাপক বোমা পড়ে। সিরিয়ার খবরে বলা হয়, ভোর থেকে দুপুরের মধ্যেই সিরিয়ায় বিমান বিধ্বংসী কামান ৪৬ জনকে গুলি করে নামিয়েছে। ইসরায়েলি বিমান বাহিনীর ৪৮০টি বিমানের মধ্যে ৪০৯টি বিমান সিরিয়ায় ভূপাতিত করার খবর পাওয়া যায়।

দৈনিক ইত্তেফাক, ১৩ অক্টোবর ১৯৭৩

দায়িত্ব পালন না করলে রেহাই দেওয়া হবে না

দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্পর্কে প্রশাসনিক যন্ত্রের ওপর সরকার দৃষ্টি রেখেছে এবং এ ব্যাপারে দায়িত্বে অবহেলা করা হলে কোনও কর্মকর্তা বা কর্মচারীকে রেহাই দেওয়া হবে না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মালেক উকিল এ কথা বলেন। তিনি কুষ্টিয়া থেকে হেলিকপ্টারে বিভিন্ন এলাকায় যান। মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশ রাইফেলসের প্রধান ব্রিগেডিয়ার সি আর দত্ত ও পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল এ রহিম। কুষ্টিয়ার হরিণাকুণ্ডু থানা আক্রমণের ঘটনা সম্পর্কে সরেজমিন তদন্তের জন্য স্থানীয় সরকারি কর্মচারী ও রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসেন তিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মালেক উকিল জেলার আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সঙ্গে সহযোগিতা করার জন্য জনগণের প্রতি আবেদন জানান। তিনি যেকোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারীদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানান।

এই থানায় আক্রমণের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়। দুষ্কৃতকারীদের খুঁজে বের করার জন্য থানার আশপাশ এলাকায় রক্ষীবাহিনী  ও বিডিআরের যৌথ অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানানো হয়। বিপিআই পরিবেশিত খবরে বলা হয়েছে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দুষ্কৃতকারীদের আলবদর, আলশামস ও রাজাকার মনে করে তাদের প্রতিরোধ করতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

ডেইলি অবজারভার, ১৩ অক্টোবর ১৯৭৩

বিকল্প পন্থা বের করতে মহাসচিবের আহ্বান

জাতিসংঘ মহাসচিব মধ্যপ্রাচ্যে বিবদমান দেশগুলোর যুদ্ধ থামাতে এবং নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য বৃহৎ শক্তিবর্গের প্রতি যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটানোর বিকল্প পন্থা বিবেচনা করার জন্য আহ্বান জানান। মহাসচিব কুট ওয়াল্ডহেইম যুদ্ধ বন্ধে কার্যকর ও শান্তিপূর্ণ ব্যবস্থা গ্রহণের বাধা অতিক্রম করার উপায় বের করার উদ্দেশ্যে আরেকবার আলোচনায় বসার জন্য নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি অনুরোধ জানান। জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, ‘বিশ্ব সংস্থার মুখ্য উদ্দেশ্য হচ্ছে আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষা করা। কিন্তু আমরা যদি এই ভূমিকা পালনে ব্যর্থ হই, তবে সংস্থার অস্তিত্বই বিপণ্ন হয়ে পড়বে। যদি প্রকৃত সমাধান খুঁজে বের করতে তারা নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করে, তবে জাতিসংঘ তাদের সহায়তা করবে বলে তিনি আশ্বাস দেন।

/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

দেশের মানুষ কখনোই সাম্প্রদায়িকতাকে প্রশ্রয় দেয়নি: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৭:২৯

এ দেশের মানুষ কখনোই সাম্প্রদায়িকতাকে প্রশ্রয় দেয়নি। যারা বাংলাদেশকে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায় তাদের অস্তিত্ব বিপন্ন হবে বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) ময়মনসিংহে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ইনস্টিটিউটের বার্ষিক গবেষণা পরিকল্পনা প্রণয়ন ২০২১-২২ শীর্ষক কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন তিনি।

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শ্যামল চন্দ্র কর্মকার ও এস এম ফেরদৌস আলমসহ অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালায় উপস্থাপিত ৬৫টি গবেষণা প্রস্তাবের মধ্যে তিনজন সেরা গবেষণা প্রস্তাব উপস্থাপনকারী বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, এ দেশের মানুষ কখনোই সাম্প্রদায়িকতা প্রশ্রয় দেয়নি। রাষ্ট্র গবেষণায় অনেক সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই) সংশ্লিষ্টরা তাদের গবেষণার মাধ্যমে সর্বোচ্চ যোগ্যতার বিকাশ ঘটাতে হবে। গবেষণায় নতুন নতুন বিষয় ও তথ্য-উপাত্ত সংযোজন করতে হবে। আর শুধু গবেষণা করলেই হবে না, সে গবেষণার ক্ষেত্রকে সম্প্রসারণ করতে হবে। গবেষণালব্ধ সবকিছু ব্যবহারের ক্ষেত্র উন্মুক্ত করতে হবে।

/এসআই/এমএস/

সম্পর্কিত

'মেরিন ফিশারিজ একাডেমির ক্যাডেটদের দেশের অ্যাম্বাসেডর হতে হবে'

'মেরিন ফিশারিজ একাডেমির ক্যাডেটদের দেশের অ্যাম্বাসেডর হতে হবে'

প্রবাসীরাই এ উন্নয়নের সহযোদ্ধা:  মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

প্রবাসীরাই এ উন্নয়নের সহযোদ্ধা: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

চিড়িয়াখানা আধুনিকায়নে হচ্ছে মাস্টারপ্ল্যান: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

চিড়িয়াখানা আধুনিকায়নে হচ্ছে মাস্টারপ্ল্যান: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

‘রাজনৈতিক ব্যর্থতায় নৃশংস হত্যাকান্ডের শিকার বঙ্গবন্ধু’

‘রাজনৈতিক ব্যর্থতায় নৃশংস হত্যাকান্ডের শিকার বঙ্গবন্ধু’

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৭:২১

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে  শনাক্ত ও মৃত্যু বেড়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় (২২ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে ২৩ অক্টোবর সকাল ৮টা পর্যন্ত)  করোনায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ২৭৮ জন, শুক্রবার (২২ অক্টোবর) ২৩২ জনের শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছিল অধিদফতর।  এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৯ জন। গতকাল মারা গেছেন চার জন।

শনাক্ত রোগী এবং মৃত্যুর সঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় বেঢ়েছে করোনায় রোগী শনাক্তের হারও।  এ সময় রোগী শনাক্তের হার ১ দশমিক ৮৫ শতাংশ, শুক্রবার রোগী শনাক্তের হার ছিল ১ দশমিক ৩৬ শতাংশ।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ২৭৮ জনকে নিয়ে দেশে এখনও পর্যন্ত সরকারি হিসাবে মোট করোনা শনাক্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৬৭ হাজার ৪১৭ জন, আর মারা যাওয়া ৯ জনকে নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সরকারি হিসাবে এ পর্যন্ত মোট ২৭ হাজার ৮১৪ জন মারা গেছেন।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২৯৪ জন, এ পর্যন্ত মোট ১৫ লাখ ৩০ হাজার ৯৪১ জন সুস্থ হয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ১৫ হাজার ২টি, আর নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৫ হাজার ৪২টি।

দেশে এ পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১ কোটি ২ লাখ ৩ হাজার ৬৬৫টি। অধিদফতর জানায়, এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৭৪ লাখ ৪৭ হাজার ১৫৮টি, আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ২৭ লাখ ৫৬ হাজার ৫০৭টি।

দেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় রোগী শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৩৬ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৬৭ শতাংশ, আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৯ জনের বয়স বিবেচনায় ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে রয়েছেন  একজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে একজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে একজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে চার জন, আর ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে দুই জন।

তাদের মধ্যে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও খুলনা বিভাগের রয়েছেন দুই জন করে, আর সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগের রয়েছেন একজন করে। মারা যাওয়া ৯ মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন সাত জন, বেসরকারি হাসপাতাল আর বাড়িতে মারা গেছেন একজন করে।

 

/জেএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৭:১৩

দেশে কৃষি উদ্যোক্তাদের উৎসাহ দিতে ও নতুন উদ্যোক্তা তৈরি করতে কৃষি মন্ত্রণালয়ে একটি পৃথক সেল গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক।

আজ শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাজধানীর ফার্মগেটে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল মিলনায়তনে কৃষি উদ্যোক্তা সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এসময় বলেন, দেশে এখন কৃষি উদ্যোক্তা তৈরি ও তাদের উৎসাহিত করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সারা দেশে কৃষি উদ্যোক্তারা কে কি ফসল চাষ করবে, কোন ধরনের কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াজাত করবে, তাদের কি সহযোগিতা দরকার- এ সকল বিষয়ে দেখ-ভাল, সহযোগিতা ও যোগাযোগ রক্ষা করবে এই সেল।

মন্ত্রী বলেন, এ বছর সারা দেশে ২৮ হাজার কোটি টাকারও বেশি কৃষি ঋণ বিতরণের খোঁজ-খবর রাখতে মন্ত্রণালয়ের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কৃষকরা সঠিকভাবে ঋণ পাচ্ছেন কিনা, ঋণ পেতে কি কি সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন ও অতিরিক্ত খরচ হচ্ছে কিনা, কোন জেলায় কি পরিমাণ ঋণ বিতরণ হচ্ছে- এসব বিষয়ে খোঁজ-খবর রাখতে ইতোমধ্যে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড, স্বেচ্ছাসেবী নাগরিক সংগঠন বিসেফ এবং বিকশিত বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। দেশের কৃষি উদ্যোক্তা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বিদ্যমান দূরত্ব কমিয়ে আনার উপায় খোঁজা, সহজ শর্তে ঋণ প্রদান ও মানবিক অর্থায়নে সুযোগ-সুবিধা সম্প্রসারিত করতে ' ভরসার নতুন জানালা' শিরোনামে এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। দেশের ৩৩টি জেলা থেকে কৃষি উদ্যোক্তারা এতে অংশগ্রহণ করেন।

সম্মেলনের সমন্বয়ক সাবেক কৃষিসচিব আনোয়ার ফারুকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ইউসিবিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শওকত জামিল, বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষি ঋণ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. আব্দুল হাকিম, বিসেফের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম সিদ্দিক প্রমুখ।

/এসআই/এমএস/

সম্পর্কিত

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৪১

সাম্প্রদায়িক হামলাও মামলার বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে কোরআন রেখে সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ঘটনায় করা মামলার বিচার কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে আনিসুল হক বলেন, ‘এই মামলায় যখন পুলিশ প্রতিবেদন পাওয়া যাবে, তখন এটাকে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বিচার করা হবে। সেখানে এ সংক্রান্ত ভিডিও ফুটেজ তুলে ধরা যাবে।’

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ঘটনায় করা মামলার তদন্তে ধীরগতি ও বিচার বিলম্বের কারণ জানতে চাওয়া হলে মন্ত্রী বলেন, ‘নাসিরনগরের যে ঘটনা তার তদন্ত এখনও শেষ হয়নি। যতক্ষণ পর্যন্ত তদন্ত শেষ না হয়, ততক্ষণ পর্যন্ত এ বিষয়ে বিচারিক কাজ আদালত শেষ করতে পারে না। তবে আমরা আশ্বাস করি, যখনই তদন্ত রিপোর্ট আসবে, তখনই মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হবে। যতগুলো স্পর্শকাতর মামলা এ পর্যন্ত এসেছে, সব মামলাই আমরা দ্রুত নিষ্পত্তি করেছি। এ ধরনের মামলায় ইচ্ছাকৃত কোনও বিলম্ব হচ্ছে না। কেননা, একটি হত্যাকাণ্ড যত সহজে ঘটানো সম্ভব হয়, সেখানে একটি মামলা কিন্তু ততটা সহজে নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয় না। তাই কিছুটা সময় প্রয়োজন। এই সময়টুকুতো দিতে হবে।’   

প্রসঙ্গত, এর আগে মন্ত্রী নিবন্ধন অধিদফতরে যোগদান করা নতুন কর্মকর্তাদের সংবর্ধনা ও মতবিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

 

/বিআই/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৪:০০

বর্তমান নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সময়ে জেলা পরিষদ নির্বাচন হচ্ছে না। ইউপি নির্বাচন শেষ করতে না পারায় জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসছে কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন এই কমিশন। ডিসেম্বরের মধ্যে সব ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠানের ঘোষণা দিলেও এর একটি অংশ জানুয়ারিতে গড়াতে পারে। এদিকে ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচন অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা নিলেও সেটা পিছিয়ে জানুয়ারির শেষ দিকে যেতে পারে। এ হিসেবে নাসিক-ই হতে পারে বর্তমান কমিশনের শেষ নির্বাচন। কমিশন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আরও জানা গেছে, চলতি বছরের ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে নির্বাচন উপযোগী সব ইউনিয়ন পরিষদ এবং ডিসেম্বরের শেষ দিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠানের কর্মপরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছিল কমিশন। সবশেষে জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ৫ বছরের মেয়াদ শেষ করতে চেয়েছিল কমিশন। এমনকি কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনও করার লক্ষ্যও ছিল কমিশনের।

কিন্তু নিজেদের প্রস্তুতির ঘাটতি ও নভেম্বরে এসএসসিসহ স্কুলগুলোর বার্ষিক পরীক্ষা এবং ডিসেম্বরজুড়ে এইচএসসি পরীক্ষা থাকায় ইসির পরিকল্পনায় ছন্দপতন ঘটেছে। চলতি অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে একটি অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে ইসি সার্বিক বিষয় পর্যালোচনা করে কর্ম পরিকল্পনায় পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এক্ষেত্রে তফসিল ঘোষিত দুটি ধাপের (দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপ) ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ছাড়া চলতি বছরে আর কোনও নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ ২ ডিসেম্বর শুরু হয়ে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত সারা দেশে এইচএসসি ও সমমানের পাবলিক পরীক্ষা চলবে। এর ফাঁকেই একটি ধাপের ইউপি নির্বাচনের পরিকল্পনা ইসির রয়েছে বলে জানা গেছে।

নির্বাচন কমিশন বলেছে, তারা মূলত এসএসসি পরীক্ষা বিবেচনায় নিয়ে তফসিল নির্ধারণ করছে। নির্বাচনে এইচএসসি পরীক্ষা খুব একটা প্রভাব ফেলবে না। কারণ এ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র হিসেবে কলেজের খুব একটা ব্যবহার নেই।

নির্বাচন কমিশন প্রথম ধাপে গত জুন ও সেপ্টেম্বরে ৩৬৪টি ইউপির নির্বাচন করেছে। এ ছাড়া আরও দুটি ধাপের তফসিল ঘোষণা করেছে। তফসিল অনুযায়ী ১১ নভেম্বর ৮৪৫টি এবং ২৮ নভেম্বর ১০০৭টি ইউপির ভোট হবে। কমিশন জানিয়েছে তাদের নির্বাচন উপযোগী ইউপির সংখ্যা প্রায় ৩৭০০। ফলে তফসিল ঘোষিতগুলো বাদ দিয়েও তাদের আরও দেড় হাজার ইউপির নির্বাচন বাকি থাকছে।

 

যে কারণে হচ্ছে না জেলা পরিষদ ভোট

কমিশন সূত্রে জানা গেছে, জানুয়ারিতে জেলা পরিষদের ভোট করার ঘোষণা দিলেও ভোটার তালিকা প্রস্তুত না হওয়ায় সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে ইসি। আইন অনুযায়ী স্থানীয় সরকার পরিষদের সবগুলো প্রতিষ্ঠানের নির্বাচিত প্রতিনিধিরাই জেলা পরিষদের ভোটার/নির্বাচনমণ্ডলী। আর স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের দেশে চার হাজার ৫৭১টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে। প্রতিটিতে ১৩ জন করে জেলা পরিষদের ৫৯ হাজার ৪৪৩ জন ভোটারই হন ইউপি থেকে। এক্ষেত্রে চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন শেষ করে গেজেট প্রকাশ ও ইউপির জনপ্রতিনিধিরা দায়িত্ব না নেওয়ার আগে জেলা পরিষদের ভোটার তালিকা চূড়ান্ত করতে গেলে জটিলতা দেখা দিতে পারে। যে কারণে জেলা পরিষদ নির্বাচনের পরিকল্পনা থেকে সরে আসছে ইসি।

২০১৭ সালের ২৮ জানুয়ারি পার্বত্য তিন জেলা বাদে দেশের ৬১টি জেলা পরিষদে একযোগে ভোট অনুষ্ঠিত হয়। ১১ জানুয়ারি পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ১৮ জানুয়ারি সদস্যরা শপথ নেন। এরপর ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে সব পরিষদের প্রথম বৈঠক হয়। আইন অনুযায়ী পরিষদের প্রথম বৈঠক থেকে এর মেয়াদকাল পরবর্তী ৫ বছর। এ হিসেবে জানুয়ারির শেষ থেকে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝির মধ্যে দেশের সব জেলা পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে।

জেলা পরিষদ আইন অনুযায়ী মেয়াদ শেষ হওয়ার আগের ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে। এক্ষেত্রে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে জেলা পরিষদের নির্বাচন শেষ করতে না পারলেও আইনি ব্যত্যয় ঘটার আশঙ্কা হয়েছে। অবশ্য পরিষদের নির্বাচন না হলে দায়িত্ব পালনে কোনও অসুবিধা হবে না। কারণ আইনে বলা আছে পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়া সত্ত্বেও নির্বাচিত নতুন পরিষদ প্রথম সভায় মিলিত না হওয়া পর্যন্ত বিদ্যমান পরিষদ কাজ চালিয়ে যাবেন।

 

নারায়ণগঞ্জেই ইসির শেষ ভোট

১৪ তারিখে শেষ হতে যাওয়া বর্তমান কমিশনের নাসিক নির্বাচনই হবে সর্বশেষ নির্বাচন। জানুয়ারিতে ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করে নভেম্বর মাসে নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের তফসিল হতে পারে বলে ইসি সূত্রে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচিত করপোরেশনের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয় ২০১৭ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি। অর্থাৎ এ সিটির পাঁচ বছর পূর্ণ হবে ২০২২ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি। এ ক্ষেত্রে জানুয়ারির শেষ কিংবা ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে এই নির্বাচন হলে আইনি সমস্যা হবে না। সিটি করপোরেশন আইন অনুযায়ী, নির্বাচিত করপোরেশনের মেয়াদকাল হচ্ছে প্রথম সভা থেকে পরবর্তী পাঁচ বছর। ভোট করতে হয় মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৮০ দিনের মধ্যে। এই হিসেবে গত ১১ আগস্ট এনসিসির নির্বাচনের কাউন্টডাউট শুরু হয়েছে। আগামী বছরের ৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে এর ভোট শেষ করতে হবে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য পরিষদের নির্বাচিত প্রতিনিধিরা যেহেতু জেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটার, তাই ইউপি নির্বাচন শেষ না করে ওই ভোট করা যাবে না। তবে বর্তমান কমিশনের অধীনে জেলা পরিষদ নির্বাচন দেখা যাবে না বিষয়টি তা নয়—যেসব জেলার সব ইউনিয়নের ভোট আমরা শেষ করতে পারবো সেখানকার জেলা পরিষদ নির্বাচন হয়তো করা হবে।

তিনি আরও বলেন, শিগগিরই আরেক ধাপের ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হবে। ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে হয়তো ভোটটি হবে। এইচএসসি পরীক্ষা ভোটে প্রভাব ফেলবে না। নেহায়েত দু’একটি কেন্দ্রে যদি পরীক্ষা হয়েও থাকে সেটা অ্যাডজাস্ট করা যাবে।

এক প্রশ্নের জবাবে এই কর্মকর্তা বলেন, নির্বাচন কমিশন কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের চিন্তাও করছে। তবে, কুমিল্লার নির্বাচন নাও হতে পারে। সেই হিসেবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনেই হয়তো বর্তমান কমিশনের শেষ নির্বাচন।

/এফএ/

সম্পর্কিত

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

কৃষি উদ্যোক্তা তৈরিতে সেল গঠন করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

সাম্প্রদায়িক হামলা-মামলার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

নাসিক নির্বাচনই বর্তমান ইসির শেষ ভোট

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

সংঘাত নয়, সহযোগিতা ও শান্তি চাই: বঙ্গবন্ধু

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

খুলনা ও বরিশাল বিভাগে আওয়ামী লীগের ইউপি প্রার্থী যারা

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সেরামকে নতুন অর্ডার দেবে না সরকার

সড়কে দুর্ঘটনা বাড়ছেই

জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস আজসড়কে দুর্ঘটনা বাড়ছেই

সফরকালে জাপানি গণমাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর প্রশংসা

সফরকালে জাপানি গণমাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর প্রশংসা

সর্বশেষ

জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনে বাংলাদেশের সিনেমা!

জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনে বাংলাদেশের সিনেমা!

দেশের মানুষ কখনোই সাম্প্রদায়িকতাকে প্রশ্রয় দেয়নি: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

দেশের মানুষ কখনোই সাম্প্রদায়িকতাকে প্রশ্রয় দেয়নি: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

প্রশান্ত মহাসাগরে চীন-রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ

প্রশান্ত মহাসাগরে চীন-রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ

শ্রীলঙ্কার রহস্যময় স্পিনার ‘খেলছেন না’ বাংলাদেশ ম্যাচে

শ্রীলঙ্কার রহস্যময় স্পিনার ‘খেলছেন না’ বাংলাদেশ ম্যাচে

১২ হাজার ভর্তি পরীক্ষার্থীর ৩৮০০ জনই অনুপস্থিত

১২ হাজার ভর্তি পরীক্ষার্থীর ৩৮০০ জনই অনুপস্থিত

© 2021 Bangla Tribune