X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

এক উপজেলায় ঝরে গেছে ৭ শতাধিক শিক্ষার্থী

আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৬

করোনা সংক্রমণরোধে দেড় বছরের বেশি সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় দিনাজপুরের সীমান্তবর্তী উপজেলা হাকিমপুরের বিভিন্ন বিদ্যালয়ে সাত শতাধিক শিক্ষার্থী ঝরে পড়েছে। এই সময়ে বাল্যবিয়ে হয়েছে পাঁচ শতাধিক ছাত্রীর। আর দুই শতাধিক ছাত্র পোশাক কারখানা ও রাজমিস্ত্রিসহ বিভিন্ন কাজে জড়িয়ে পড়েছে।

করোনা পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতি হওয়ায় বিদ্যালয় খুললেও শিক্ষার্থী উপস্থিতি কম। তবে কিছু দিন গেলে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী উপস্থিতি সংখ্যা বাড়বে বলে আশা শিক্ষকদের।

হাকিমপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলায় তিনটি কলেজ, তিনটি স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ১৮টি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ১৩টি ফাজিল ও দাখিল মাদ্রাসা রয়েছে। সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে খোঁজ নিয়ে করোনাকালে পাঁচশ’ ছাত্রীর বাল্য বিয়ে ও দুইশ’ ছাত্রের বিভিন্ন কাজে জড়িয়ে পড়ার তথ্য পাওয়া গেছে।

বিদ্যালয় খুললেও শিক্ষার্থী উপস্থিতি কম

হিলির জালালপুর দ্বিমুখি উচ্চ বিদ্যালয়ের এক ছাত্রী বাংলা ট্রিবিউনকে বলে, ‘করোনার কারণে দীর্ঘদিন বন্ধের পরে আবারও স্কুলে আসতে পেরে ভালো লাগছে। কিন্তু মন খারাপও হচ্ছে। কারণ, আমাদের অনেক বান্ধবীর বিয়ে হয়ে গেছে। এখন তাদের পড়ালেখা বন্ধ। তারা খুব ভালো ছাত্রী ছিল। তাদেরকে খুব মিস করি।’ 

একই বিদ্যালয়ের এক ছাত্র বলে, ‘আগে আমাদের অনেক বন্ধু ছিল। সবাই একসঙ্গে ক্লাস করেছি। কয়েকজন বেশ ভালো ছাত্র ছিল যাদের অনেকেই আজ স্কুলে নেই। অনেকেই গার্মেন্টসে ও রাজমিস্ত্রিসহ বিভিন্ন কাজ করছে।’

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আশরাফুল সিদ্দিক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আগে আমাদের স্কুলে যত শিক্ষার্থী ছিল, করোনার কারণে দীর্ঘ বন্ধের পর সেই সংখ্যা প্রায় অর্ধেকে চলে এসেছে। অনেক ছাত্র বিভিন্ন কাজে চলে গেছে। তারা আর স্কুলে আসছে না। অনেক ছাত্রীর বিয়ে হয়ে গেছে।

করোনার বন্ধে পাঁচ শতাধিক ছাত্রীর বিয়ে হয়ে গেছে

একই বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান বলেন, করোনা মহামারিতে শিক্ষাখাতে অনেক ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গ্রামের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এখানকার অনেক শিক্ষার্থী ঝরে পড়েছে। আগে বিদ্যালয় যেমন প্রাণচাঞ্চল্য ছিল, সেই পরিবেশটা আর নেই। অনেক ছাত্রীর বিয়ে হয়ে গেছে। এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়। বাল্যবিয়ের পক্ষে আমরা কোনও দিনই ছিলাম না। মেয়েকে নিয়ে অভিভাবকরা যতটা আর্থিক ভাবনায় পড়ে তার চেয়ে বেশি দুশ্চিন্তায় পড়ে সামাজিক নিরাপত্তা নিয়ে।

বাংলাহিলি পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা কামাল বলেন, বিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থী আছে যাদের পরিবার দরিদ্র। করোনার কারণে দীর্ঘ সময় ছুটির ফাঁকে তারা হয়তো বিভিন্ন কাজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। কারও দোকানে কাজ করছে। এমনও শিক্ষার্থী আছে তার বাড়িতে ঠিকমতো খাবার নেই।

বিভিন্ন কাজে জড়িয়ে পড়েছে ছাত্ররা

বাংলাহিলি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইদুর রহমান বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার যে ক্ষতি হয়েছে, তা আমরা সাধ্যমতো কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করবো।

হাকিমপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বোরহান উদ্দিন বলেন, আমাদের উপজেলাটি সীমান্ত ঘেঁষা। এই উপজেলা দরিদ্রপ্রবণ। দীর্ঘ দেড় বছর দরে যখন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল, সেই সময়ে অনেক শিক্ষার্থী গার্মেন্টেসে চলে গেছে। অনেকের বিয়ে হয়েছে। সেক্ষেত্রে মেয়েরা হয়তো সবাই ফেরত আসবে না। তারপরও যেহেতু বিদ্যালয় খোলা হয়েছে, ধীরে ধীরে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি বাড়বে বলে আশা করা যায়।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৮

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বলেছেন, স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে। বৃহস্পতিবার দিনাজপুরে এক অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এ এইচ মাহমুদ আলী বলেন, যারা এদেশের স্বাধীনতা মেনে নিতে পারেনি, যারা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি মেনে নিতে পারছে না, তারাই দেশে পরিকল্পিতভাবে সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে। বিভিন্ন স্থানে মণ্ডপে ভাঙচুর, হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার ঘটনা ঘটাচ্ছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তাদের সব মুখোশ উম্মোচন করা হবে। তাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়ে আবারও এদেশে অপশক্তিকে বিতাড়িত করতে সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে।

বৃহস্পতিবার গাওসুল আযম বিএনএসবি আই হসপিটাল দিনাজপুর-এ গ্লুকোমা, রেটিনা ও কর্ণিয়া সাব-স্পেসিয়ালটি ইউনিট স্থাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, উন্নত চিকিৎসার ক্ষেত্রে অত্যন্ত উদার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমরা জনগণের কল্যানের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর এই দেশের সব মানুষ শান্তিতে বসবাস করে আসছে। করোনাকালেও উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রা পিছিয়ে যায়নি। সব ক্ষেত্রেই উন্নয়ন করেছেন শেখ হাসিনা। সাম্প্রদায়িক অপশক্তিরা উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতেই হিন্দু-মুসলমানের মধ্যে বিবাদ তৈরি করছে। কিন্তু শেখ হাসিনা ভয় পাওয়ার মানুষ নয়, সব অপশক্তিকে প্রতিহত করা হচ্ছে।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বিপিএম, রংপুর বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের পরিচালক আব্দুল মোতালেব সরকার, দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. আব্দুল লতিফ, সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুস, বাংলাদেশ জাতীয় অন্ধ কল্যাণ সমিতি দিনাজপুরের সাধারণ সম্পাদক ডা. চৌধুরী মোসাদ্দেকুল ইজদানী প্রমুখ।

/এমপি/

সম্পর্কিত

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:৪৩

নোয়াখালীর চৌমুহনীতে সাম্প্রদায়িক হামলার দায় রাজনৈতিক নেতারা এড়িয়ে যেতে পারেন না বলে মন্তব্য করেছেন রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা।

বৃহস্পতিবার বিকালে নোয়াখালী সার্কিট হাউস মিলনায়তনে নোয়াখালীর সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে ১৪ দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের মতবিনিময় সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, চৌমুহনীর মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুরের মধ্য দিয়ে বোঝা গেলো দেশে সাম্প্রদায়িক শক্তির বিকাশ ঘটছে। দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য তারা বিভিন্নভাবে চেষ্টা চালাচ্ছে।তৃণমূল পর্যায়ে ১৪ দল এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করা না গেলে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে না।

সভায় ১৪ দল নেতৃবৃন্দ চৌমুহনীতে সাম্প্রদায়িক হামলায় ক্ষতিগ্রস্তদের শুক্রবার থেকে প্রয়োজনীয় খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি প্রশাসনিকভাবে পূর্ণ নিরাপত্তা দেওয়ার দাবি জানান।

সভায় আওয়ামী লীগের সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল এমপি, ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য মোস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি, জাসদের যুগ্ম সম্পাদক মো. মহসীন, জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ এএইচএম খায়রুল আনম সেলিম, যুগ্ম আহ্বায়ক শহিদ উল্লাহ খানসহ সনাতন ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

এর আগে দুপুরে ১৪ দল নেতৃবৃন্দ চৌমুহনীতে ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির পরিদর্শন করেন এবং সনাতন সম্প্রদায়ের লোকজনের খোঁজখবর নেন।

/এএম/

সম্পর্কিত

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:৪১

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী বাজারে পূজামণ্ডপ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়িতে হামলা চালানোর ঘটনায় আব্দুর রহিম সুজন (১৯) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে তার বাড়ি থেকে লুণ্ঠিত মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় সুজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে তাকে নোয়াখালী  আদালতে সোপর্দ করা হয়। এর আগে বুধবার দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার আব্দুর রহিম সুজন বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভার করিমপুর গ্রামের খালপাড় ইউসুফ মিয়ার বাড়ির মৃত আবুল কাশেমের ছেলে।

জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম জানিয়েছেন, গ্রেফতারকৃত আসামির বাড়ি থেকে লুণ্ঠিত লাক্স সাবান ছয়টি, টুথপেস্ট ছয়টি, দুধের প্যাকেট একটি, শ্যাম্পু ১৩টি, কফি, ডিটারজেন্ট পাউডার চারটি, ভিম সাবান তিনটি ও হুইল সাবান একটি উদ্ধার করা হয়।গ্রেফতারকৃত আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। পরে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। 

/এএম/

সম্পর্কিত

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি বদলি

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩২

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থানার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান শিকদারকে বদলি করা হয়েছে। উপজেলার চৌমুহনী বাজারে পূজামণ্ডপ, মন্দির, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও দুইজন নিহতের ঘটনায় সনাতন ধর্মাবলম্বীরা তার প্রত্যাহার দাবি করে আসছিল।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০টায় জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম পিপিএম প্রেরিত এক চিঠিতে মুহাম্মদ কামরুজ্জামান শিকদারকে বদলির আদেশ দেওয়া হয়।

এর আগে, কামরুজ্জামান শিকদারকে বদলির অনুমতির জন্য নির্বাচন কমিশন বরাবর চিঠি পাঠানো হয়। বেগমগঞ্জ উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার কারণে বেগমগঞ্জ মডেল থানা নির্বাচন কমিশনের অধীনে রয়েছে।

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম পিপিএম জানান, মুহাম্মদ কামরুজ্জামান শিকদারকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশে বদলি করা হয়েছে। তার জায়গায় মীর জাহেদুল হক রনিকে পদায়ন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে চৌমুহনী শহরের বিভিন্ন মসজিদ থেকে কয়েক হাজার মুসল্লি কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেন। এ সময় তারা চৌমুহনী ডিবি রোড (ফেনী-নোয়াখালী সড়ক), কলেজ রোড, ব্যাংকিং রোড ও দক্ষিণ বাজার গিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের মণ্ডপ, মন্দির, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ চালায়। এ ঘটনায় নিহত হন যতন সাহা (৪১) ও প্রান্ত চন্দ্র দাস (২৬)। হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের পক্ষ থেকে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ এনে বেগমগঞ্জ থানার ওসির প্রত্যাহার দাবি করা হয়।

/এমপি/

সম্পর্কিত

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:১৩

দিনাজপুরের হিলি সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাচারকালে চার পিস স্বর্ণের বার এবং একটি মোটরসাইকেলসহ একজনকে আটক করেছে বিজিবি। আটককৃত ব্যক্তির নাম নজরুল ইসলাম (৪০)। মোটরসাইকেলের হেডলাইটের ভেতরে করে স্বর্ণের বারগুলো পাচার করতে চেয়েছিল সে।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৯টায় হিলি সীমান্তের ২৮৬ নং মেইন পিলার এর ১৪ নং সাবপিলার সংলগ্ন রায়ভাগ এলাকা থেকে তাকে আটক করে বিজিবি। সে ওই গ্রামের মৃত আতাব উদ্দিনের ছেলে।

বিজিবি বাসুদেবপুর ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার নজরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, গোপন সুত্রে জানতে পারি যে একটি মোটরসাইকেলযোগে স্বর্ণ নিয়ে একজন চোরাকারবারি ভারতের দিকে যাবে। সেই সংবাদের ভিত্তিতে ব্যাটালিয়ন অধিনায়কের নির্দেশে ফোর্স নিয়ে সীমান্তের রায়ভাগ এলাকায় অবস্থান নেয় বিজিবি। এ সময় একটি মোটরসাইকেল বিপরীত দিক থেকে রায়ভাগ সীমান্তের কাঁচা রাস্তার দিকে আসলে সেটিকে থামার সংকেত দেওয়া হয়। কিন্তু দ্রুত পালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে বিজিবি ধাওয়া দিয়ে নজরুল ইসলামকে আটক করে। তল্লাশি চালিয়ে তার মোটরসাইকেলের হেডলাইটের গ্লাসের ভেতর থেকে প্রায় ২৮ লাখ টাকার চার পিস স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়।

এছাড়া তার কাছ থেকে চারটি সিমসহ দুইটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত মালামালের সর্বমোট সিজার মূল্য ৩০ লাখ ৩৯৮টাকা।

/এমপি/

সম্পর্কিত

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

শিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

শিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

পীরগঞ্জে হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৩৭ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

পীরগঞ্জে হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৩৭ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

সর্বশেষ

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ২৪ কোটি ৩২ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ২৪ কোটি ৩২ লাখ ছাড়িয়েছে

প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সেলফি তোলায় পুলিশ সদস্যদের নোটিস

প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সেলফি তোলায় পুলিশ সদস্যদের নোটিস

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

'হামলার দায় এড়াতে পারেন না রাজনৈতিক নেতারা'

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

বেগমগঞ্জে হামলা চালিয়ে মালামাল লুটের ঘটনায় সুজনের স্বীকারোক্তি 

© 2021 Bangla Tribune