X
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

মুদি দোকানদার থেকে মানবপাচারকারী

আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:১৪

এইচএসসি পাশ সাইফুল ইসলাম ওরফে টুটুল (৩৮) মেহেরপুরের গাংনী থানাধীন কামন্দী গ্রামে মুদি দোকানদার হিসেবে কাজ করতো। মাঝে মাঝে ঢাকায় আসতো সে। অল্পসময়ে অধিক টাকার মালিক হওয়ার লোভে ধীরে ধীরে মানবপাচারকারী কোনও একটি চক্রের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে ও চক্রের দালাল হিসেবে বিভিন্ন এজেন্সির মাধ্যমে বিদেশে লোক পাঠানোর কাজ করতে থাকে। পরবর্তীতে নিজেই রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় প্রতারণামূলকভাবে ‘টুটুল ওভারসিজ, লিমন ওভারসিজ ও লয়াল ওভারসিজ’ নামে ৩টি এজেন্সি অফিস খুলে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের বেকার ও শিক্ষিত বহু নারী-পুরুষকে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় টুটুল।

অবশেষে এই চক্রের অন্যতম হোতা টুটুল ও সহযোগী তৈয়বসহ ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪। সাম্প্রতিক সময়ে কয়েকজন নারী ভিকটিমের অভিভাবক মধ্যপ্রাচ্যে মানবপাচার সংক্রান্ত অভিযোগ র‌্যাব-এ জানায়। এরপর র‌্যাব ছায়া তদন্ত ও গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে। 

বুধবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর কাওরান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে ব্যাটালিয়ন-৪ এর অধিনায়ক মোজাম্মেল হক এসব তথ্য জানান। তিনি জানান, গ্রেফতারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ১৩ অক্টোবর রাতে র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল বাড্ডার লিংক রোডস্থ টুটুল ওভারসিজ, লিমন ওভারসিজ ও লয়াল ওভারসিজে অভিযান চালিয়ে ৪ জন ভিকটিম (২ জন পুরুষ ও ২ জন নারী), ১০টি পাসপোর্ট, ৭টি ফাইল, ৪টি সিল, ১৭টি মোবাইল, ৫টি রেজিস্টার, মোবাইল সিম ৩টি, ৪টি ব্যাংকের চেক বই, ২টি কম্পিউটার, ৩টি লিফলেট এবং নগদ ১০ হাজার ৭০ টাকাসহ মানবপাচারকারী চক্রের অন্যতম হোতা টুটুলসহ আট জনকে গ্রেফতার করে। 

উদ্ধারকৃত সামগ্রী

গ্রেফতারকৃত বাকিরা হলো— তৈয়ব আলী (৪৫), শাহ্ মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন লিমন (৩৮), মো. মারুফ হাসান (৩৭), মো. জাহাঙ্গীর আলম (৩৮), মো. লালটু ইসলাম (২৮), মো. আলামিন হোসাইন (৩০) ও মো. আব্দল্লাহ আল মামুন (৫৪)।

টুটুলের এই প্রতারণার কাজে অন্যতম সহযোগী আবু তৈয়ব। সে কোনও পড়াশুনা জানে না। চায়ের দোকান ছিল তার। টুটুলের প্ররোচনায় মানবপাচারকারী চক্রের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে ও বহু লোককে প্রতারণামূলকভাবে বিদেশে পাঠানো এবং দেশে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার নামে টাকা-পয়সা গ্রহণের অভিযোগ রয়েছে। তৈয়ব নিজেকে দেশের একটি স্বনামধন্য এয়ারলাইন্সের ম্যানেজার হিসেবে পরিচয় দিয়ে দেশের বিভিন্ন বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশনে চাকরি এবং দেশের নামী-দামী মাল্টি ন্যাশনাল কোম্পানিতে চাকরি দেওয়ার নাম করে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করেছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে কয়েকজন ভিকটিমকে চাকরি প্রদানের ভুয়া নিয়োগপত্রও দিয়েছে। 

এ ছাড়া গ্রেফতারকৃত বাকিরা মাঠ পর্যায়ে টার্গেট সংগ্রহ, প্রার্থীর পাসপোর্টের ব্যবস্থা, কথিত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, টাকা সংগ্রহ, প্রাথমিক মেডিক্যাল সম্পূর্ণ করাসহ অন্যান্য কাজে সহায়তা করতো। টুটুল ও তৈয়বের নির্দেশে এই চক্র মানুষকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে পাচার করতো। তাদের কয়েকটি টিম দেশজুড়ে কাজ করে।

মাঠ পর্যায়ে টার্গেট সংগ্রহ: প্রথমত এই পাচারকারী চক্রের কিছু সদস্য দেশের বেকার ও অসচ্ছল যুবক-যুবতীদের সৌদি আরব, জর্ডান ও লেবাননসহ বিভিন্ন দেশের বাসাবাড়িতে লোভনীয় বেতনে কাজ দেওয়ার নাম করে রাজি করিয়ে ঢাকায় টুটুল ও তৈয়বের কাছে নিয়ে আসে। 

টাকা সংগ্রহ: এরপর টুটুল ও তৈয়ব তাদের অফিসে সংগ্রহীত ভিকটিমদের বিদেশে পাঠানোর উদ্দেশ্যে ভুয়া মানিরিসিপ্ট প্রদান করে ভিকটিম প্রতি ২-৫ লাখ টাকা করে নিতো।

কথিত প্রশিক্ষণ: প্রতারণার উদ্দেশ্যে এই পাচারকারী চক্রের কয়েকজন সদস্য নিজেদেরকে উচ্চশিক্ষিত বলে পরিচয় দিয়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আগত ভিকটিমদের মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের বাসাবাড়িতে কাজের প্রশিক্ষণ দিয়ে ভিকটিমদের কাছে গ্রহণযোগ্যতা আদায় করতো। 

পাসপোর্টসহ অন্যান্য কাগজপত্র সংগ্রহ: এই পাচারকারী চক্রের কয়েকজন সদস্য অফিস স্টাফ হিসেবে পরিচয় দিয়ে ভিকটিমকে বিদেশে পাঠানোর জন্য পাসপোর্টের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতো। এতে করে ভিকটিমদের মনে আর কোনও সন্দেহ থাকতো না। এই চক্রের কিছু সদস্য পাসপোর্ট অফিসের দালালদের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে ভিকটিমদের পাসপোর্ট তৈরি করে দিতো। 

মেডিক্যাল করা: এই চক্রের মূলহোতা টুটুল ও তৈয়বের নির্দেশে ভিকটিমদের বিদেশে যাওয়ার জন্য লোক দেখানো মেডিক্যাল সম্পন্ন করা হতো। 

বিক্রির উদ্দেশে বিদেশে পাচার: সকল প্রক্রিয়া শেষ করে কয়েকজনকে বিদেশে পাঠিয়ে বাসাবাড়িতে কাজের কথা বলে বিশেষ করে নারী ভিকটিমদের বিক্রি এবং পুরুষ ভিকটিমদের অমানবিক কাজে নিয়োজিত করার উদ্দেশ্যে সৌদি আরবের জেদ্দা ও রিয়াদ, জর্ডান ও লেবাননে টাকার বিনিময়ে বিক্রি করতো। উল্লেখ্য যে, বিদেশে পাচারকৃত ভিকটিমরা বিদেশে গিয়ে পরিবারের সঙ্গে আর কোনও যোগাযোগ করতে পারতো না। যাদেরকে বিদেশে পাঠাতে পারতো না তারা টাকা ফেরতের আশায় অফিসে যোগাযোগ করলে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা না দিয়ে আত্মসাৎ করে আসছিল। 

র‌্যাবের সংবাদ সম্মেলন।

অভিযোগকারী ব্যক্তির বক্তব্য:

র‌্যাব-৪ এর কাছে গাইবান্ধার মো. আশরাফুল ইসলাম অভিযোগ করেন, তার ভাতিজি আসমা বেগম তৈয়ব ও টুটুলের মাধ্যমে প্রতারণার শিকার হয়ে গত ৯ জুন জর্ডান যায়। তাকে বাসাবাড়িতে কাজের কথা বলে পাঠানো হলেও সে পাচার হয়েছে বলে তারা আশঙ্কা করেন। যাওয়ার প্রায় এক সপ্তাহ যোগাযোগ থাকলেও এখন আসমার কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এরকম বেশ কয়েকজন নারী ও পুরুষকে প্রতারণামূলকভাবে সৌদি আরবে পাঠিয়ে বিক্রি করেছেন বলে র‌্যাব-৪ এর কাছে অভিযোগ করেন।

ভিকটিম মোরশেদা বেগম (৩৪), মোছা. হামিদা আক্তার (৩২), মোরশেদা বিবি (৩২) এবং মালেকা বেগম (৫১) একই উপায়ে তৈয়বের কাছে বিদেশে যাওয়ার জন্য পাসপোর্টসহ অন্যান্য কাগজপত্র জমা দেয়। এর মধ্যে মোরশেদা ও হামিদাকে অভিযানকালে টুটুলের অফিস থেকে উদ্ধার করা হয়। এরা প্রতারণার শিকার হয়ে দুই বছরের অধিক সময় তৈয়ব ও টুটুলের অফিসে ঘোরাফেরা করছেন। তারা র‌্যাব-৪ এ প্রতারণা ও পাচার সংক্রান্ত তথ্য দেন। এমন আরও ২০-২৫ জনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

প্রতিষ্ঠানের সকল কার্যক্রম অবৈধ। এ ছাড়া টুটুল ওভারসিজ, লিমন ওভারসিজ ও লয়াল ওভারসিজ নামক প্রতিষ্ঠান মন্ত্রণালয় কর্তৃক অনুমোদিত নয়। এমনকি প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট কোনও অফিশিয়াল সাইনবোর্ডও নেই। কোম্পানি থেকে সরকারি কোনও ভ্যাট/ট্যাক্স প্রদান করা হয় না।

/এআরআর/এনএইচ/

সম্পর্কিত

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও চকবাজার থেকে আট ছিনতাইকারী গ্রেফতার

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও চকবাজার থেকে আট ছিনতাইকারী গ্রেফতার

৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করায় প্রাথমিকের শিক্ষক বরখাস্ত

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৫২

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে উসকানিমূলক লেখা ও ছবি পোস্ট করায় মুন্সীগঞ্জের টংগিবাড়ী উপজেলার গোয়ারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সুমন হাওলাদার সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন। গত ২১ অক্টোবর মুন্সীগঞ্জ জেলা শিক্ষা অফিস এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে। তবে সাময়িক বরখাস্তকালীন প্রচলিত নিয়মে খোরাকি ভাতা পাবেন তিনি।

আদেশে জানানো হয়, স্থানীয় একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত ১৮ অক্টোবর ফেসবুকে সহকারী শিক্ষক সুমন হাওলাদারের লেখা ও ছবি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং ধর্মীয় অবমাননাকর ও উসকানিমূলক মনে করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মনিটরিং টিম। তার বিতর্কিত পোস্টের কারণে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অনুভূতিতে আঘাত লেগেছে।

মুন্সীগঞ্জ জেলা শিক্ষা অফিসার মো. মাসুদ ভূঁইয়া অফিস আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলা ট্রিবিউনকে। জনমনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া ও এলাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কার পরিপ্রেক্ষিতে ‘সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮’র বিধি ১২ অনুযায়ী সুমন হাওলাদারকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। 

সম্প্রতি কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার ঘটনায় দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনার আগে গত ৭ অক্টোবর শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার নজরদারিতে আনতে বিভাগ ও জেলা পর্যায়ে তিনিটি মনিটরিং টিম গঠন করে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর।

/এসএমএ/জেএইচ/

সম্পর্কিত

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

মসজিদে একই ওয়াক্তে একাধিক জামাত করা যাবে কি?

মসজিদে একই ওয়াক্তে একাধিক জামাত করা যাবে কি?

সকাল ৬টা থেকে শাহবাগে গণঅবস্থানে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ  

সকাল ৬টা থেকে শাহবাগে গণঅবস্থানে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ  

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:২৫

সব বিচারপ্রার্থী দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে মামলা মেডিয়েশন বিষয়ে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সারা দেশের ২৮০ জন বিচারককে সনদ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। প্রশিক্ষণ ও সনদ প্রদান অনুষ্ঠিানটির আয়োজন করে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল মেডিয়েশন সোসাইটি (বিমস)।

সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন, ‘মূলত মেডিয়েশন হলো বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির একটি পদ্ধতি। যে পদ্ধতি কিনা আদালত-ট্রাইব্যুনালের প্রচলিত পদ্ধতির বাইরে থেকে অভিযোগ নিষ্পত্তিতে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। বর্তমানে ভারতীয় উপমহাদেশে মেডিয়েশন পদ্ধতি খুবই গুরুত্বের অনুসরণ করা হচ্ছে। এর  মধ্যে পঞ্চায়েত অন্যতম। পঞ্চায়তের সিদ্ধান্ত বিচার বিভাগেও সমাদৃত হয়ে থাকে।’

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘মেডিয়েশন পদ্ধতে একজন মেডিয়েটরের মাধ্যমেই কোনও অভিযোগ নিষ্পত্তি করা হয়ে থাকে। যেখানে উভয়পক্ষের অংশগ্রহণের মাধ্যমে সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করা হয়। ফলে উভয়পক্ষের সর্বসম্মতিতে সিদ্ধান্তের পৌঁছানো সম্ভব হয়। এটি বিচার বিভাগের ওপর থেকে মামলার চাপ নিরসনে কাজ করে এবং বিচারে সমতা নির্ণয় করে।’

তিনি বলেন, ‘মূলত মেডিয়েশন পদ্ধতির চালু হয় পক্ষগণের মধ্যকার বিরোধ নিষ্পত্তির মাধ্যমে আদালতে মামলার চাপ ও খরচ কমিয়ে আনা এবং দ্রুত সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর জন্য।’ 

প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, ‘কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্রে সফলভাবে দেওয়ানি-ফৌজদারি মামলায় মেডিয়েশনের প্রয়োগ হচ্ছে। বর্তমানে নিউইয়র্কে ১০ শতাংশ দেওয়ানি মামলা বিচারের বিভিন্ন পর্যায়ে থেকেও মেডিয়েশনের মাধ্যমে নিষ্পত্তি হচ্ছে। কানাডায় প্রায় ৮০ শতাংশ মামলা এভাবে নিষ্পত্তি হচ্ছে। অস্ট্রেলিয়াতেও মেডিয়েশনের মাধ্যমে মামলা নিষ্পত্তিতে জোর দেওয়া হয়েছে।’

সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন,  ‘আইনজীবী, বিচারক ও এর সঙ্গে সম্পৃক্ত সকলকে অবশ্যই মেডিয়েশনের মাধ্যমে মামলা নিষ্পত্তিতে আগ্রহী হয়ে এগিয়ে আসতে হবে। কেননা, মামলা নিষ্পত্তিতে বিলম্ব হলে তা বিচারের ব্যাপ্তিকে ক্ষুণ্ণ করে। এতে মামলার পক্ষগুলোর খরচ বেড়ে যায় এবং আদালতে মামলার জট বৃদ্ধি পেতে থাকে। একপর্যায়ে  মামলার সেই জট বিচার বিভাগের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। সকল বিচারপ্রার্থী দ্রুত ও সুষ্ঠ বিচার পাওয়ার অধিকারী।’ সে ক্ষেত্রে মেডিয়েশনের প্রক্রিয়া অনন্য ভূমিকা রাখতে পারে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন প্রধান বিচারপতি।

একইসঙ্গে মামলা নিষ্পত্তিতে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির পন্থা হিসেবে মেডিয়েশন ভবিষ্যতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলেও তিনি জানান।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আন্তর্জাতিক মেডিয়েশন অ্যাওয়ার্ড-প্রাপ্ত বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল মেডিয়েশন সোসাইটির (বিমস) চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এস এন গোস্বামী।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন— ভারতের সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি কুরিয়ান জোসেফ, জম্মু-কাশ্মিরের সাবেক প্রধান বিচারপতি গীতা মিতাল, জাতিসংঘের অম্বুডসম্যান ড. কেভিন বেরি ব্রাউন, সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান, সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ ফজলে খোদা মোহাম্মদ নাজির, সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ জয়শ্রী সমাদ্দার ও বাংলাদেশ ইন্ডিয়া মেডিয়েটর্স ফোরামের চেয়ারম্যান জর্জ যিশু ফিদা ভিক্টর।

এসময় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া, বিচারপতি জাফর আহমেদ ও বিচারপতি আহমেদ সোহেল।

প্রসঙ্গত, বিমস এর সহযোগিতায় কয়েক ধাপে অধস্তন আদালতের বিচারকদের মেডিয়েশন বিষয়ে প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। সারা দেশের বাছাই করা মোট ২৮০ জন বিচারক এ প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলী ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি আহমেদ সোহেলসহ আন্তর্জাতিক মেডিয়েশন বিশেষজ্ঞরা এসব প্রশিক্ষণ দেন।

/বিআই/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করায় প্রাথমিকের শিক্ষক বরখাস্ত

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করায় প্রাথমিকের শিক্ষক বরখাস্ত

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

মসজিদে একই ওয়াক্তে একাধিক জামাত করা যাবে কি?

মসজিদে একই ওয়াক্তে একাধিক জামাত করা যাবে কি?

সকাল ৬টা থেকে শাহবাগে গণঅবস্থানে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ  

সকাল ৬টা থেকে শাহবাগে গণঅবস্থানে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ  

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:০৬

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদেরকে সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় ‘১০টায় ১০ মিনিট প্রতি শনিবার, নিজ নিজ বাসাবাড়ি করি পরিষ্কার’ স্লোগান বাস্তবায়ন এবং রামচন্দ্রপুর খাল পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শনকালে তিনি একথা বলেন।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ‘খালটির দুই পাড়ের বেশ কয়েকটি ভবন পরিদর্শনকালে সেগুলোর কোনোটিতেই সেপটিক ট্যাংক কিংবা সোক ওয়েল খুঁজে পাওয়া যায়নি। তাই সেপটিক ট্যাংকবিহীন ভবনগুলোতে আগামী ৬ মাসের মধ্যে কার্যকর সেপটিক ট্যাংক নিশ্চিত করতে না পারলে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘অপরিকল্পিত ঢাকার অধিকাংশ ভবনেই কার্যকর সেপটিক ট্যাংক ও সোক ওয়েল না থাকায় অপরিশোধিত পয়ঃবর্জ্য সরাসরি ড্রেন কিংবা খালে পতিত হওয়ায় পানিসহ সার্বিক পরিবেশ দূষিত হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘খাল কোনও ডাস্টবিন নয়, ময়লা-আবর্জনা, বর্জ্য নিক্ষেপের স্থান‌ও নয়, এটি জলাধার। তাই কোনও সচেতন নাগরিক খাল কিংবা অন্য কোনও জলাশয়ে বর্জ্য নিক্ষেপ করতে পারে না।’

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ‘নগরীর বাসাবাড়িগুলোতে আধুনিক সেপটিক ট্যাংক ও সোক ওয়েল স্থাপন করতে হবে এবং পরিশোধন ব্যবস্থা সচল রাখতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘ডেভেলপার কোম্পানিগুলোকেও বিল্ডিং ডেভেলপ করার পাশাপাশি বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য‌ও কার্যকর ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।’

আতিক বলেন, ‘আগামী নভেম্বর মাসের মধ্যেই বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় ডিএনসিসি এলাকার খালগুলোর সীমানা নির্ধারণ করা হবে। অবৈধভাবে খাল দখল করে যেসব স্থাপনা নির্মিত হয়েছে, সেগুলো ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে। বিনা নোটিশেই অবৈধ দখলদারদেরকে উচ্ছেদ করা হবে।’

আতিকুল ইসলামের উপস্থিতিতেই মোহাম্মদপুর এলাকায় মোহাম্মদিয়া হাউজিং লিমিটেডের ৩ নম্বর রোডে রাস্তা দখল করে অবৈধভাবে নির্মিত নকশাবহির্ভূত ভবনের অংশবিশেষ বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দিয়ে রাস্তা থেকে উচ্ছেদ করা হয়।

এসময় ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ আমিরুল ইসলাম, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডর এসএম শরীফ উল ইসলাম, স্থানীয় কাউন্সিলর আসিফ আহমেদ এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

/এসএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করায় প্রাথমিকের শিক্ষক বরখাস্ত

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট করায় প্রাথমিকের শিক্ষক বরখাস্ত

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

সবাই দ্রুত ও সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার অধিকারী: প্রধান বিচারপতি

মসজিদে একই ওয়াক্তে একাধিক জামাত করা যাবে কি?

মসজিদে একই ওয়াক্তে একাধিক জামাত করা যাবে কি?

সকাল ৬টা থেকে শাহবাগে গণঅবস্থানে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ  

সকাল ৬টা থেকে শাহবাগে গণঅবস্থানে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ  

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:০৬

কক্সবাজারের সেন্টমার্টিনে কোস্টগার্ডের অভিযানে ৩২ হাজার পিস ইয়াবাসহ এক যুবককে আটক করা হয়েছে। কোস্টগার্ড বলছে, ওই যুবক একজন মাদক ব্যবসায়ী। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) দিবাগত রাতে জেলার টেকনাফ থানার আওতাধীন সেন্টমার্টিনের দক্ষিণপাড়া ঘাট সংলগ্ন এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড সদর দফতরের মিডিয়া কর্মকর্তা লে. খন্দকার মুনিফ তকি এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সমুদ্রপথে সেন্টমার্টিন হতে টেকনাফে ইয়াবা পাচার হবে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে স্টেশন কমান্ডার লে. এম তারেক আহমেদ এর নেতৃত্বে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান চলাকালীন সেন্টমার্টিনের দক্ষিণ পাড়াঘাট সংলগ্ন এলাকায় এক ব্যক্তির গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে কোস্ট গার্ড সদস্যরা তাকে একটি ব্যাগসহ আটক করে। পরবর্তীতে উক্ত ব্যাগটি তল্লাশি করে ৩২ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। 

জব্দকৃত ইয়াবা ও আটককৃত মাদক ব্যবসায়ীকে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের আওতাভুক্ত এলাকা সমূহে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ, জননিরাপত্তার পাশাপাশি বন দস্যুতা, ডাকাতি দমন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ রোধে কোস্টগার্ডের জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করে নিয়মিত অভিযান অব্যাহত আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

/আরটি/ইউএস/

সম্পর্কিত

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও চকবাজার থেকে আট ছিনতাইকারী গ্রেফতার

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও চকবাজার থেকে আট ছিনতাইকারী গ্রেফতার

৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

ইভ্যালির পরিচালনা পর্ষদ ও গ্রাহকদের যা মেনে চলতে হবে

ইভ্যালির পরিচালনা পর্ষদ ও গ্রাহকদের যা মেনে চলতে হবে

যাত্রাবাড়ীতে সড়ক দুর্ঘটনায় যুবকের মৃত্যু

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:২৫

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর শনির আখড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় শরিফুল ইসলাম শুভ (২৬) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহতের বাবা মফিজুল ইসলাম মতিন জানান, রাতে বাসা থেকে বাইরে গিয়ে আর ফেরেনি শুভ। রাত ৩টার টিকে খবর পাই শনির আখড়া ফুট ওভারব্রিজে পাশে রাস্তা পারাপারের কোনও যানবাহনের ধাক্কায় রাস্তায় ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হয়েছে সে। পরে সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে সকাল ৮টায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানায় অবহিত করা হয়েছে।

খুলনা জেলার সোনাডাঙ্গা উপজেলার বদলগাছি গ্রামের মফিজুল ইসলাম মতিনের ছেলে। বর্তমানে যাত্রাবাড়ী শেখদি এলাকায় পরিবারের সাথে ভাড়া বাসায় থাকতো।

/এআইবি/আরটি/

সম্পর্কিত

‘সাংবিধানিক অধিকার নিয়ে বাঁচতে চাই’ (ফটো স্টোরি)

‘সাংবিধানিক অধিকার নিয়ে বাঁচতে চাই’ (ফটো স্টোরি)

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও চকবাজার থেকে আট ছিনতাইকারী গ্রেফতার

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও চকবাজার থেকে আট ছিনতাইকারী গ্রেফতার

৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

ইভ্যালির পরিচালনা পর্ষদ ও গ্রাহকদের যা মেনে চলতে হবে

ইভ্যালির পরিচালনা পর্ষদ ও গ্রাহকদের যা মেনে চলতে হবে

প্রেমিক থেকে ধর্ষণ মামলার আসামি

প্রেমিক থেকে ধর্ষণ মামলার আসামি

জাপানি শিশুদের নিয়ে বাবা-মায়ের টানাপড়েন: উভয়পক্ষের রিটের শুনানি ২৮ অক্টোবর

জাপানি শিশুদের নিয়ে বাবা-মায়ের টানাপড়েন: উভয়পক্ষের রিটের শুনানি ২৮ অক্টোবর

সাম্প্রদায়িক হামলাকারীদের আইনি সহায়তা না দেওয়ার আহ্বান সুপ্রিম কোর্ট বারের

সাম্প্রদায়িক হামলাকারীদের আইনি সহায়তা না দেওয়ার আহ্বান সুপ্রিম কোর্ট বারের

৬ মাস পাওনা টাকা চাইতে পারবেন না ইভ্যালির গ্রাহকরা: হাইকোর্ট

৬ মাস পাওনা টাকা চাইতে পারবেন না ইভ্যালির গ্রাহকরা: হাইকোর্ট

যৌনকর্মীদের খুনের নেপথ্যে তাদের ‘বাবুরা’

যৌনকর্মীদের খুনের নেপথ্যে তাদের ‘বাবুরা’

সর্বশেষ

জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনে বাংলাদেশের সিনেমা!

জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনে বাংলাদেশের সিনেমা!

দেশের মানুষ কখনোই সাম্প্রদায়িকতাকে প্রশ্রয় দেয়নি: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

দেশের মানুষ কখনোই সাম্প্রদায়িকতাকে প্রশ্রয় দেয়নি: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

প্রশান্ত মহাসাগরে চীন-রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ

প্রশান্ত মহাসাগরে চীন-রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ

শ্রীলঙ্কার রহস্যময় স্পিনার ‘খেলছেন না’ বাংলাদেশ ম্যাচে

শ্রীলঙ্কার রহস্যময় স্পিনার ‘খেলছেন না’ বাংলাদেশ ম্যাচে

১২ হাজার ভর্তি পরীক্ষার্থীর ৩৮০০ জনই অনুপস্থিত

১২ হাজার ভর্তি পরীক্ষার্থীর ৩৮০০ জনই অনুপস্থিত

© 2021 Bangla Tribune