X
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

‘ঢাকামুখী অভিবাসন বন্ধ না হলে কোনও পরিকল্পনাই কার্যকর হবে না’ 

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৫

ঢাকামুখী অভিবাসন রোধ করা না গেলে যত পরিকল্পনাই নেওয়া হোক তা কার্যকর হবে না বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। 

শনিবার (১৬ অক্টোবর) রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের বলরুমে স্থানীয় সরকার বিভাগ ও ওয়াটার এইড বাংলাদেশের উদ্যোগে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত ‘পানি সরবরাহ, স্যানিটেশন ও হাইজিন (ওয়াশ) সেক্টরে ৫০ বছরের অর্জন ও ভবিষ্যৎ করণীয়’ শীর্ষক এক সেমিনারে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এই মন্তব্য করেন। 

মেয়র বলেন, ঢাকা ২ কোটি ১০ লাখ মানুষের শহর। ২০৩০ সালে কি এটা ৩ কোটি হবে, ২০৪১ সালে কি ৫ কোটি হবে? তাহলে কিন্তু সমস্যার সমাধান হবে না। আমাদেরকে আগে ২ কোটি ১০ লক্ষ মানুষের সকল নাগরিক সুবিধা, উন্নত ঢাকার সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। সেজন্য আমাদেরকে দেশের গ্রামগুলোতে চাকরি, কর্মসংস্থান ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। যখন ঢাকার দিকে এই গতি (গ্রাম হতে শহরে অভিবাসন) রোধ করতে পারবো, তখনই আমরা ২০৩০ সালে ঢাকার ২ কোটি ১০ লাখ মানুষের যথার্থ সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে পারবো। কিন্তু আমরা যদি ধরেই নিই যে, ঢাকার দিকে এই অভিবাসনের গতি চলতে থাকবে, তাহলে আমরা যতই পরিকল্পনা করি না কেন, ২০৩০ সালে গিয়ে দেখা যাবে আমাদের কোনও পরিকল্পনা কার্যকর হয়নি।

ঢাকা শহরের ৯৫ শতাংশ বাড়িতে সেপটিক ট্যাংক ও ৯৯.৯৯ শতাংশ বাড়িতে সোক ওয়েল নেই কিন্তু বাড়ির মালিকদের সেগুলো নিশ্চিত করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করতে বাধ্য করতে হবে জানিয়ে শেখ তাপস বলেন, স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইনে ইমারত নির্মাণ ও পুনর্নির্মাণের আবেদন ও অনুমতি সিটি করপোরেশনের কাছ থেকে নিতে হবে বলে উল্লেখ আছে। কিন্তু আজ অবধি সেটা রাজউক দিয়ে থাকে। আমরা একটি নীতিমালা প্রণয়ন করে মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করেছি। মন্ত্রণালয় সেটা পর্যালোচনা করছে। আমি আশাবাদী যে, ডিসেম্বরের মধ্যে সেটা পেয়ে যাবো। পেয়ে গেলে আগামী বছর থেকে সেটা বাস্তবায়ন করব।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। 

/এসএস/এমআর/

সম্পর্কিত

বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা

বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা

দুপুরেই রাজধানীতে নেমে এলো  ‘সন্ধ্যা’ (ফটোস্টোরি)

দুপুরেই রাজধানীতে নেমে এলো ‘সন্ধ্যা’ (ফটোস্টোরি)

বৃষ্টিতে নাকাল রাজধানীবাসী (ফটোস্টোরি)

বৃষ্টিতে নাকাল রাজধানীবাসী (ফটোস্টোরি)

টানা বৃষ্টিতে দুর্ভোগ চরমে

টানা বৃষ্টিতে দুর্ভোগ চরমে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা

বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা

দুপুরেই রাজধানীতে নেমে এলো  ‘সন্ধ্যা’ (ফটোস্টোরি)

দুপুরেই রাজধানীতে নেমে এলো ‘সন্ধ্যা’ (ফটোস্টোরি)

বৃষ্টিতে নাকাল রাজধানীবাসী (ফটোস্টোরি)

বৃষ্টিতে নাকাল রাজধানীবাসী (ফটোস্টোরি)

টানা বৃষ্টিতে দুর্ভোগ চরমে

টানা বৃষ্টিতে দুর্ভোগ চরমে

বাড্ডায় গ্যারেজে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রিকশাচালকের মৃত্যু

বাড্ডায় গ্যারেজে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রিকশাচালকের মৃত্যু

রাজধানীতে নারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

রাজধানীতে নারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

যুবসমাজকে সব ধরনের অন্যায় থেকে দূরে রাখতে হবে: আতিক

যুবসমাজকে সব ধরনের অন্যায় থেকে দূরে রাখতে হবে: আতিক

হাতিরঝিলের চক্রাকার বাস সার্ভিসের ভাড়া বাড়লো

হাতিরঝিলের চক্রাকার বাস সার্ভিসের ভাড়া বাড়লো

নিরাপদ সড়কের দাবিতে প্রতীকী লাশ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মিছিল

নিরাপদ সড়কের দাবিতে প্রতীকী লাশ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মিছিল

সড়কে যানবাহনের তীব্র চাপ

সড়কে যানবাহনের তীব্র চাপ

সর্বশেষ

আমাদের রণকৌশল ঠিক করে এগোতে হবে: নুর

আমাদের রণকৌশল ঠিক করে এগোতে হবে: নুর

ছিদ্র দিয়ে পানি ঢুকে পায়রা বন্দরে ডুবলো জাহাজ

ছিদ্র দিয়ে পানি ঢুকে পায়রা বন্দরে ডুবলো জাহাজ

এক কোটি ৬০ লাখ টাকার সাপের বিষসহ একজন আটক

এক কোটি ৬০ লাখ টাকার সাপের বিষসহ একজন আটক

নিরাপদ সড়ক ও  হাফ পাসের দাবিতে মোমবাতি প্রজ্বালন

নিরাপদ সড়ক ও  হাফ পাসের দাবিতে মোমবাতি প্রজ্বালন

আফগানিস্তান ইস্যুতে অবস্থান স্পষ্ট করলো কাতার

আফগানিস্তান ইস্যুতে অবস্থান স্পষ্ট করলো কাতার

© 2021 Bangla Tribune