X
শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

১১ বছর আইনি লড়াইয়ের পর চাকরি ফিরে পেলেন অধ্যক্ষ  

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৪

গাজীপুরের শ্রীপুর ডিগ্রি কলেজের (বর্তমানে শ্রীপুর মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলী সরকারি কলেজ) অধ্যক্ষ মো. তোফাজ্জল হোসেন আখন্দ অধ্যক্ষ পদ ফিরে পেতে নিম্ন আদালতে মামলা দায়েরের ১১ বছর পর পক্ষে রায় পেয়েছেন। গত ৩০ সেপ্টেম্বর আদালত তার পক্ষে ওই রায় দেন। রবিবার মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী এএএম আমানুল্লাহ ফরিদ রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

এদিকে, ওই রায়ের বিরুদ্ধে বিবাদীপক্ষ তথা কলেজের পক্ষ থেকে গাজীপুর জেলা জজ আদালতে একটি আপিল মোকদ্দমা দায়ের করা হয়েছে। ফলে উচ্চ আদালত আপিলের বিষয়টি নিশ্চিত না করা পর্যন্ত নিম্ন আদালতের রায়টি অকার্যকর থাকবে বলে জানিয়েছেন বিবাদীপক্ষের আইনজীবী এমদাদুল হক মাসুম। 

মামলার বাদী মো. তোফাজ্জল হোসেন আখন্দের আইনজীবী এএএম আমানুল্লাহ ফরিদ জানান, গাজীপুর আদালতে অধ্যক্ষ মো. তোফাজ্জল হোসেন আখন্দ দেওয়ানি মামলার আইনি লড়াই শেষে প্রায় ১১ বছর পর গাজীপুরের পঞ্চম সিনিয়র জজ আদালত থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর স্বপদে বহালের রায় পান।

বিবাদীপক্ষের আইনজীবী মো. এমদাদুল হক মাসুম বলেন, ‘মামলার বাদী মো. তোফাজ্জল হোসেন আখন্দ অধ্যক্ষ থাকাকালে ২০০৯-এর ২৮ মার্চ কলেজ থেকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছেন। পদত্যাগের ১৪ মাস পর ২০১০ সালের ৩ মে চাকরি ফিরে পেতে গাজীপুর আদালতে মামলা দায়ের করেন।’ 

রায়ের ব্যাপারে বিবাদীপক্ষের আইনজীবী আরও জানান, মামলাটির বাদী সরকার, তাই নিম্ন আদালত রায় দিলেও আদালতের জিপির (সরকারি কৌঁসুলি) মতামত নেওয়া প্রয়োজন। এর আগেই ওই রায়ের বিরুদ্ধে রবিবার গাজীপুর জেলা জজ আদালতে সরকার পক্ষ তথা কলেজ পক্ষ থেকে আপিল করা হয়েছে। আপিলের কপি শিক্ষা অধিদফতরসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরে পাঠানো হয়েছে। আদালত পরবর্তী আদেশের জন্য তা আমলে নিয়েছেন।  

শ্রীপুর মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলী সরকারি কলেজের সভাপতি ও শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘রায়ের কপি এবং আপিলের কপি দুটোই আমার হাতে এসেছে। ওই শিক্ষকের যোগদানের বিষয়ে শিক্ষা অধিদফতর থেকে কোনও অফিসিয়াল নির্দেশনা পাইনি। এ বিষয়ে আইন কী বলে তা যাচাই-বাছাই করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।’ 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

মুন্সীগঞ্জে ফ্ল্যাটে বিস্ফোরণের ঘটনায় একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জে ফ্ল্যাটে বিস্ফোরণের ঘটনায় একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

নিষ্কাশন ব্যবস্থা না রেখে রাস্তা নির্মাণ, ৭০০ একর জমি জলাবদ্ধ

নিষ্কাশন ব্যবস্থা না রেখে রাস্তা নির্মাণ, ৭০০ একর জমি জলাবদ্ধ

টাঙ্গাইলে আফ্রিকাফেরত ৬ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিনে

টাঙ্গাইলে আফ্রিকাফেরত ৬ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিনে

বাসায় বেড়াতে এসে শিশু চুরি, ১১ দিন পর উদ্ধার

বাসায় বেড়াতে এসে শিশু চুরি, ১১ দিন পর উদ্ধার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

মুন্সীগঞ্জে ফ্ল্যাটে বিস্ফোরণের ঘটনায় একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জে ফ্ল্যাটে বিস্ফোরণের ঘটনায় একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

নিষ্কাশন ব্যবস্থা না রেখে রাস্তা নির্মাণ, ৭০০ একর জমি জলাবদ্ধ

নিষ্কাশন ব্যবস্থা না রেখে রাস্তা নির্মাণ, ৭০০ একর জমি জলাবদ্ধ

টাঙ্গাইলে আফ্রিকাফেরত ৬ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিনে

টাঙ্গাইলে আফ্রিকাফেরত ৬ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিনে

বাসায় বেড়াতে এসে শিশু চুরি, ১১ দিন পর উদ্ধার

বাসায় বেড়াতে এসে শিশু চুরি, ১১ দিন পর উদ্ধার

ইলিশ সম্পদ রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান

ইলিশ সম্পদ রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান

নৌকার মনোনয়ন চান স্বামী-স্ত্রী ও ভাই

নৌকার মনোনয়ন চান স্বামী-স্ত্রী ও ভাই

ট্রলি উল্টে এক ব্যক্তি নিহত

ট্রলি উল্টে এক ব্যক্তি নিহত

ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

সেলিমের মৃত্যুর বিচার দাবিতে কুয়েট শিক্ষকদের ক্লাস বর্জন

সেলিমের মৃত্যুর বিচার দাবিতে কুয়েট শিক্ষকদের ক্লাস বর্জন

সর্বশেষ

৬ ঘণ্টা পর ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গের ট্রেন যোগাযোগ স্বাভাবিক

৬ ঘণ্টা পর ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গের ট্রেন যোগাযোগ স্বাভাবিক

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত রাজশাহী আইনজীবী সমিতির সভাপতির মৃত্যু

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত রাজশাহী আইনজীবী সমিতির সভাপতির মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জে ফ্ল্যাটে বিস্ফোরণের ঘটনায় একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জে ফ্ল্যাটে বিস্ফোরণের ঘটনায় একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

ঐশীর অভিষেক: গত কয়েক রাত ঘুমাতে পারিনি

চার মহাদেশে ‘মিশন এক্সট্রিম’ঐশীর অভিষেক: গত কয়েক রাত ঘুমাতে পারিনি

ঢাকা আসছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব

ঢাকা আসছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব

© 2021 Bangla Tribune