X
বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

ভারত-পাকিস্তান মহারণ: ৫-১ নাকি ৬-০

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১৪:২৩

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই অন্যরকম উত্তেজনা। সেই উত্তেজনার ঢেউয়ে বিভক্ত হয়ে পড়ে গোটা ক্রিকেট দুনিয়াই। বিশ্বকাপের সৌজন্যে প্রায় দুই বছর পর ক্রিকেটপ্রেমীরা ভারত-পাকিস্তানের ক্রিকেট দ্বৈরথ উপভোগ করার সুযোগ পাচ্ছেন। সর্বশেষ ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে দুই দল ২২ গজের লড়াইয়ে নেমেছিল।

বিশ্বকাপ লড়াই মানেই যেন পাকিস্তানের হার, ভারতের উৎসব। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত পাঁচবারের মুখোমুখি লড়াইয়ে সবক’টিতে হেরেছে পাকিস্তান। ভারত ব্যবধান বাড়িয়ে ৬-০ করবে নাকি পাকিস্তান কমিয়ে ৫-১ করতে পারে, সেটিই দেখার।

আজ (রবিবার) বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ২২ গজে মুখোমুখি হচ্ছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দল। এশিয়ার দুই ক্রিকেট পরাশক্তি মাঠে নামবে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের লড়াইয়ে। এ লড়াই কেবল মাঠেই সীমাবদ্ধ থাকছে না, ছড়িয়ে পড়ছে দুই দেশের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটেও। ভারত-পাকিস্তানের পাশাপাশি অন্য দেশের ক্রিকেট প্রেমীদের চোখও আটকে যাবে টিভি পর্দায়। ম্যাচটি সরাসরি দেখা যাবে টি স্পোর্টস ও গাজী টিভিতে।

কুড়ি ওভারের ফরম্যাটে ভারত ও পাকিস্তান মুখোমুখি হয়েছে আটবার। ভারত ৬টিতে ও পাকিস্তান মাত্র এক ম্যাচে জিতেছে। ২০১২ সালে বেঙ্গালুরুতে ওই একমাত্র জয়টি পেয়েছিল শহীদর আফ্রিদির নেতৃত্বে। আর বিশ্বমঞ্চে এখন পর্যন্ত অপরাজিত ভারত। পাঁচ ম্যাচের সবক’টি দাপটের সঙ্গে জিতেছে তারা। পরিসংখ্যান বাদেও ক্রিকেটের সবচেয়ে ছোট সংস্করণে বর্তমানে ভারত দলের যে ফর্ম তাতে করে পাকিস্তানকে এগিয়ে রাখা যাচ্ছে না দুবাইয়ের লড়াইয়ে।

২২ গজের লড়াইয়ের পেছনে রয়েছে রাজনৈতিক পটভূমিও। সাম্প্রতিক সময়ে বৈশ্বিক আসর ছাড়া দুই দলের লড়াই দেখার সুযোগ নেই। মূলত রাজনৈতিক টানাপোড়েনের কারণে কোনও দলই একে অন্যের সঙ্গে খেলছে না।

২০০৭ সালে প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে ভারত ‘বোল আউট’-এ জয় পায়। একই আসরে দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গের ফাইনালেও মুখোমুখি হয় ভারত-পাকিস্তান। ফাইনাল জিতে শিরোপা উদযাপন করে মহেন্দ্র সিং ধোনিরা। ২০১২ বিশ্বকাপে কলম্বোতে বিরাট কোহলির ৭৮ রানের ওপর ভর করে জিতে যায় ভারত। এরপর বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চতুর্থবারের মুখোমুখিতে মিরপুরে সহজেই পাকিস্তানকে হারায় তারা। পরের ম্যাচটি ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। কলকাতা ইডেন গার্ডেনসেও জয় তুলে নেয় ভারত।

ওয়ানডে কিংবা টি-টোয়েন্টি, সব জায়গায় কোহলিদের একক আধিপত্য। ওয়ানডে বিশ্বকাপে ৭-০ ব্যবধানে আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এগিয়ে ৫-০ ব্যবধানে। তবে পাকিস্তান পিছিয়ে থাকলেও যে ছেড়ে কথা বলবে না, বলার অপেক্ষা রাখে না। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ বলে কথা!

/আরআই/কেআর/

সম্পর্কিত

সাকিবের জায়গায় ফজলে রাব্বি

সাকিবের জায়গায় ফজলে রাব্বি

যে রেকর্ডে সোবার্স-বোথামদের চেয়েও দ্রুততম সাকিব

যে রেকর্ডে সোবার্স-বোথামদের চেয়েও দ্রুততম সাকিব

দ্বিতীয় টেস্টে ইনিংসে হারলো বাংলাদেশ

দ্বিতীয় টেস্টে ইনিংসে হারলো বাংলাদেশ

রাতে সাকিবকে ছাড়াই নিউজিল্যান্ড যাচ্ছেন মুমিনুলরা

রাতে সাকিবকে ছাড়াই নিউজিল্যান্ড যাচ্ছেন মুমিনুলরা

quiz
সর্বশেষসর্বাধিক
© 2021 Bangla Tribune