X
মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

আবরার হত্যা মামলা: আসামিদের মৃত্যুদণ্ড চায় রাষ্ট্রপক্ষ

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৫৮

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুনানি শেষ হয়েছে। শুনানিতে মামলার ২৫ আসামির মৃত্যুদণ্ড দাবি করেছে রাষ্ট্রপক্ষ।

রবিবার (২৪ অক্টোবর) ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামানের আদালতে এ মামলার রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুনানি শুরু হয়। এদিন রাষ্ট্রপক্ষ থেকে শুনানি শুরু করেন মামলার চিফ প্রসিকিউটর মোশাররফ হোসেন কাজল।

এদিন তিনি যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুনানি শেষে আদালতের কাছে আসামিদের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড চেয়ে ন্যায়বিচার প্রার্থনা করেন। এরপর আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু হবে বলে জানা গেছে সংশ্লিষ্ট আদালতের সূত্র থেকে।

এর আগে গত ২১ অক্টোবর রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি আবু আব্দুল্লাহ ভূঁইয়া তার যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুনানি শেষ করেন। এরপর মামলার চিফ প্রসিকিউটর মোশারফ হোসেন কাজল যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুনানি শুরু করেন। কিন্তু এদিন তার শুনানি শেষ না হওয়ায় আদালত অবশিষ্ট শুনানির জন্য আজকের দিন ২৪ অক্টোবর ধার্য করেন।

গত ৮ সেপ্টেম্বর মামলায় অভিযুক্ত ২৫ আসামির বিরুদ্ধে পুনরায় অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। গত ১৪ মার্চ ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামানের আদালতে ২২ আসামি আত্মপক্ষ সমর্থনের শুনানিতে নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন।

মামলায় মোট ৪৭ জন সাক্ষীর  সাক্ষ্যগ্রহণ হয়েছে। গত  বছরের জানুয়ারিতে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বিচারের জন্য মামলাটি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে বদলির আদেশ দেন। এরপর মহানগর দায়রা জজ আদালত মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এ পাঠানোর আদেশ দেন।

২০১৯ সালের ১৩ নভেম্বর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ওয়াহিদুজ্জামান ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

অভিযোগপত্রে ২৫ জনের মধ্যে এজাহারভুক্ত ১৯ জন এবং এর বাইরে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে আরও ৬ জনের জড়িত থাকার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়া গেছে বলে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়। এজাহারভুক্ত ১৯ জনের মধ্যে ১৭ জন এবং এজাহারের বাইরে থাকা ৬ জনের মধ্যে ৫ জনসহ মোট ২২ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পলাতক রয়েছেন ৩ জন। অভিযোগপত্রে ৬০ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে এবং ২১টি আলামত ও ৮টি জব্দ তালিকা আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে।

এজাহারে থাকা আসামিরা হলেন— মেহেদী হাসান রাসেল, অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ সকাল, মেহেদী হাসান রবিন, মেফতাহুল ইসলাম জিওন, মুনতাসির আলম জেমি, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির, মুজাহিদুর রহমান, মুহতাসিম ফুয়াদ, মনিরুজ্জামান মনির, আকাশ হোসেন, হোসেন মোহাম্মদ তোহা, মাজেদুল ইসলাম, শামীম বিল্লাহ, মোয়াজ আবু হুরায়রা, এএসএম নাজমুস সাদাত, মোর্শেদুজ্জামান জিসান ও এহতেশামুল রাব্বি তানিম।

এজাহারবহির্ভূত ৬ আসামি হলেন—ইশতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, অমিত সাহা, মিজানুর রহমান ওরফে মিজান, শামসুল আরেফিন রাফাত, এসএম মাহমুদ সেতু ও মোস্তবা রাফিদ।

পলাতক তিন আসামি হলেন—মোর্শেদুজ্জামান জিসান, এহতেশামুল রাব্বি তানিম ও মোস্তবা রাফিদ। এদের মধ্যে প্রথম দুই জন এজাহারভুক্ত আসামি।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর রাতে আবরারকে তার কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে যান বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। তারা ২০১১ নম্বর কক্ষে নিয়ে গিয়ে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে রাত তিনটার দিকে শেরে বাংলা হলের সিঁড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই বছরের ৭ অক্টোবর রাজধানীর চকবাজার থানায় আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন। পুলিশ পরে ২২ জনকে গ্রেফতার করে। এর মধ্যে আট জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। এদের সবাই বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

আবরার বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন।

/এমএইচজে/এমএস/

সম্পর্কিত

র‍্যাব হেফাজতে চিত্রনায়ক ইমন

র‍্যাব হেফাজতে চিত্রনায়ক ইমন

মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিলের পরিপত্র কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিলের পরিপত্র কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

ডেসটিনির প্রতিবেদন গ্রহণে নিষ্ক্রিয়তা নিয়ে হাইকোর্টের রুল

ডেসটিনির প্রতিবেদন গ্রহণে নিষ্ক্রিয়তা নিয়ে হাইকোর্টের রুল

পাঁচ মামলায় আরজে নীরবের জামিন 

পাঁচ মামলায় আরজে নীরবের জামিন 

‘সংবাদপত্র রুগ্ন হয়ে পড়েছে’

আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২০:৪১

সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নিউজপেপার্স ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (নোয়াব) সভাপতি এ কে আজাদ বলেছেন, সংবাদপত্র শিল্প এখন রুগ্ন হয়ে পড়েছে। এর অন্যতম কারণ কাগজের উচ্চমূল্য। এ ছাড়া বেতন-ভাতাসহ অন্য খরচও বেড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে সংবাদপত্র শিল্পে সহযোগিতা দরকার।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) আয়োজিত দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় গণমাধ্যমের ভূমিকা, সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে নোয়াবের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ কে আজাদ বলেন, সংবাদপত্রের আয় বাড়েনি, বিজ্ঞাপন কমে গেছে। এখন বিজ্ঞাপনে ডিসকাউন্টও দিতে হচ্ছে অনেক। পত্রিকা বিক্রি ও বিজ্ঞাপন বাবদ অনেক টাকা অনাদায়ী থাকছে।

তিনি বলেন, করোনার সময় সরকার বিভিন্ন খাতে প্রণোদনা দিলেও সংবাদপত্র শিল্পে দেওয়া হয়নি। প্রণোদনার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিবের কাছে নোয়াবের পক্ষ থেকে আবেদন করা হয়েছে। হকারদের জন্য সিটি করপোরেশন ও পৌরসভার মেয়রদের কাছে জায়গা চাওয়া হয়েছে।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ডেইলি স্টারের সম্পাদক মাহফুজ আনাম, প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান, বণিক বার্তার সম্পাদক দেওয়ান হানিফ মাহমুদ, দ্য ফাইন্যান্সিয়াল হেরাল্ডের সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদসহ এফবিসিসিআইয়ের কর্মকর্তারা।

/জিএম/এফএ/
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

র‍্যাব হেফাজতে চিত্রনায়ক ইমন

র‍্যাব হেফাজতে চিত্রনায়ক ইমন

মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিলের পরিপত্র কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিলের পরিপত্র কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

ডেসটিনির প্রতিবেদন গ্রহণে নিষ্ক্রিয়তা নিয়ে হাইকোর্টের রুল

ডেসটিনির প্রতিবেদন গ্রহণে নিষ্ক্রিয়তা নিয়ে হাইকোর্টের রুল

পাঁচ মামলায় আরজে নীরবের জামিন 

পাঁচ মামলায় আরজে নীরবের জামিন 

শিশুসহ পলাতক বাবাকে দেশে ফিরিয়ে আনার নির্দেশ

শিশুসহ পলাতক বাবাকে দেশে ফিরিয়ে আনার নির্দেশ

জাপানি দুই শিশুকে নিয়ে আপিল শুনানি ১২ ডিসেম্বর

জাপানি দুই শিশুকে নিয়ে আপিল শুনানি ১২ ডিসেম্বর

প্রয়োজনে ডা. মুরাদ ও চিত্রনায়িকা মাহিকেও ডাকা হবে: ডিবি

প্রয়োজনে ডা. মুরাদ ও চিত্রনায়িকা মাহিকেও ডাকা হবে: ডিবি

এবি ব্যাংকের ১৫ কর্মকর্তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ, দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

এবি ব্যাংকের ১৫ কর্মকর্তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ, দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠন শুনানি পেছালো

নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠন শুনানি পেছালো

ডিএমপির মাদকবিরোধী অভিযান, গ্রেফতার ৩৩ 

ডিএমপির মাদকবিরোধী অভিযান, গ্রেফতার ৩৩ 

সর্বশেষ

ডিজিটাল বিপ্লব বাংলাদেশ থেকেই সূচিত হয়েছে: মোস্তাফা জব্বার

ডিজিটাল বিপ্লব বাংলাদেশ থেকেই সূচিত হয়েছে: মোস্তাফা জব্বার

ভালো পেসার আসবে কবে? সুজন বললেন, ‘আল্লাহ যেদিন দেন’

ভালো পেসার আসবে কবে? সুজন বললেন, ‘আল্লাহ যেদিন দেন’

প্যাকম্যান গেম আসছে ফেসবুকে

প্যাকম্যান গেম আসছে ফেসবুকে

ওমিক্রনের সংক্রমণ ও ভয়াবহতা নিয়ে যা বলছেন বিশেষজ্ঞরা

ওমিক্রনের সংক্রমণ ও ভয়াবহতা নিয়ে যা বলছেন বিশেষজ্ঞরা

‘সংবাদপত্র রুগ্ন হয়ে পড়েছে’

‘সংবাদপত্র রুগ্ন হয়ে পড়েছে’

© 2021 Bangla Tribune