X
মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

মাছ ও শুঁটকি আহরণ যাত্রা শুরু হচ্ছে জেলেদের

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ২০:১২

বঙ্গোপসাগরের সুন্দরবন উপকূলসংলগ্ন দুবলারচরে মাছ ও শুঁটকি আহরণ শুরু হচ্ছে। ঝড়-জলোচ্ছ্বাস, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও জলদস্যু আতঙ্ক মাথায় নিয়ে সোমবার দিবাগত রাত ১২টার পর মোংলার পশুর নদীর চিলা মোহনা থেকে জাল, নৌকা ও শুঁটকি তৈরির উপকরণ নিয়ে চরাঞ্চলে রওনা হবেন হাজারো জেলে। শুঁটকি মৌসুম ঘিরে এবছর দুবলারচরে ৩০ হাজার জেলে-ব্যবসায়ী ও শ্রমিকের সমাগম ঘটবে বলে আশা করছে বন বিভাগ।

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, এবার দুবলারচরের শুঁটকিসহ সুন্দরবন বিভাগ থেকে ছয় কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। মাছ আহরণ ও শুঁটকি তৈরির জন্য দুবলারচর, আলোরকোল, মেহের আলী এবং শ্যালারচরসহ কয়েকটি চর তারা নির্ধারণ করেছে।

২২ দিন ইলিশসহ সব ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ থাকায় এবার কিছুটা দেরিতে শুরু হচ্ছে মৎস্য আহরণ ও শুঁটকি প্রক্রিয়ার কাজ। আগামী চার মাস মোংলা, রামপাল, খুলনা, সাতক্ষীরা, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী ও বরিশালসহ সুন্দরবন উপকূলের হাজারো জেলে মাছ আহরণ ও শুঁটকি তৈরির জন্য সাগরপাড়ে অস্থায়ী বসতি গড়বেন। এ ছাড়া চট্টগ্রাম অঞ্চলের জেলে ও মৎস্যজীবীরাও যাবেন দুবলারচরে। 

মৌসুমের শুরুতেই রাজস্ব আয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে বন বিভাগ। মোংলা থেকে নদীপথে দুবলারচরের জেলেপল্লির দূরত্ব প্রায় ১২০ কিলোমিটার। পল্লির সব কর্মকাণ্ড জেলে ও মৎস্যজীবীদের ঘিরে। সুন্দরবনের অভ্যন্তরে ১৩টি মৎস্য আহরণ, প্রক্রিয়াকরণ ও বাজারজাতকরণ কেন্দ্র নিয়ে গঠিত দুবলা জেলেপল্লি।

জেলেদের অভিযোগ, আগে দুবলারচরে যাওয়ার পথে এবং গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে গেলে দস্যুদের কবলে পড়ে সর্বস্ব হারিয়ে পথে বসতে হতো। কিন্তু বর্তমান সরকারের প্রচেষ্টায় এখন সুন্দরবন দস্যুমুক্ত হলেও ভিনদেশি জেলে ও দস্যুদের উৎপাত বেড়েছে। জেলেদের জিম্মি করে মুক্তিপণ কিংবা মারধর করে মাছ লুট করে নিয়ে যায় তারা।

গত ৪ অক্টোবর থেকে ২২ দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ ছিল। বাংলাদেশি জেলেরা ইলিশ ধরা বন্ধ রাখলেও ভারতীয় জেলেরা চুরি করে ধরেছে। তারা ভারতীয় সীমানা পেরিয়ে বাংলাদেশের সীমানায় ঢুকে ট্রলার দিয়ে ইলিশ ধরে নিয়ে গেছে। চলতি মৌসুমে জেলেরা যাতে সাগরে নির্বিঘ্নে মাছ শিকার ও শুঁটকি তৈরি করতে পারেন সে জন্য প্রশাসনকে নজরদারি বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন জেলে ও মহাজনরা।

মৎস্যজীবীদের সংগঠন ‘দুবলা ফিশারম্যান গ্রুপে’র সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন বলেন, ঘূর্ণিঝড়-জলোচ্ছ্বাস ও ভিনদেশি জেলেদের উৎপাতের শঙ্কা মাথায় নিয়ে উপকূলীয় অঞ্চলের জেলেরা মাছ ও শুঁটকি আহরণের জন্য সমুদ্রে যাত্রা করছেন। তাই তাদের নিরাপত্তা দিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে অনুরোধ জানাই।

কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের (মোংলা সদরদফতর) অপারেশন কর্মকর্তা লে. কমান্ডার শেখ মেজবাহ উদ্দিন আহাম্মেদ বলেন, সুন্দরবন এবং সাগর এলাকায় সবসময় দস্যু দমন বনসম্পদ ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে অভিযান অব্যাহত থাকে। তবে সাগরে শীতকালীন মৎস্য আহরণের জন্য যাত্রা করা জেলেরা যাতে নির্বিঘ্নে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারেন, সে জন্য মোংলা থেকে দুবলারচর পর্যন্ত কোস্টগার্ডের টহল অব্যাহত থাকবে। শুঁটকি প্রক্রিয়াকরণের জন্য জেলেদের বাড়তি নিরাপত্তা দেওয়া হবে।

প্রতিবছর শীত মৌসুমে সুন্দরবনের সাগর পাড়ের দুবলা, মেহের আলীর চর, আলোরকোল, অফিস কিল্লা, মাঝের কিল্লা, শেলার চর, নারিকেলবাড়িয়া, ছোট আমবাড়িয়া, বড় আমবাড়িয়া, মানিক খালী, কবরখালী, চাপড়াখালীর চর, কোকিলমনি ও হলদাখালীর চরে হাজার হাজার জেলে ও মৎস্যজীবী জড়ো হন। এসব চরে অবস্থান নিয়ে জেলেরা সমুদ্র মোহনায় মৎস্য আহরণ করেন। পাশাপাশি নিজেদের থাকা ও শুঁটকি তৈরির জন্য অস্থায়ী ঘর তৈরি করেন। জেলেরা বিভিন্ন প্রজাতির মাছ শিকার করে শুঁটকি করার পর তা দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে এমনকি বিদেশেও পাঠান।

/এএম/

সম্পর্কিত

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের বিষয়ে বেনাপোল বন্দরে সতর্কতা  

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের বিষয়ে বেনাপোল বন্দরে সতর্কতা  

সোয়া দুই ঘণ্টায় ৪১টি মামলার রায় দিলেন বিচারক

সোয়া দুই ঘণ্টায় ৪১টি মামলার রায় দিলেন বিচারক

আদালতে হাজিরা দিয়ে এসে আবারও মাদক বিক্রি

আদালতে হাজিরা দিয়ে এসে আবারও মাদক বিক্রি

নৌকায় ভোট দেওয়ায় শার্শায় শতাধিক বাড়িতে হামলা

নৌকায় ভোট দেওয়ায় শার্শায় শতাধিক বাড়িতে হামলা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের বিষয়ে বেনাপোল বন্দরে সতর্কতা  

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের বিষয়ে বেনাপোল বন্দরে সতর্কতা  

সোয়া দুই ঘণ্টায় ৪১টি মামলার রায় দিলেন বিচারক

সোয়া দুই ঘণ্টায় ৪১টি মামলার রায় দিলেন বিচারক

আদালতে হাজিরা দিয়ে এসে আবারও মাদক বিক্রি

আদালতে হাজিরা দিয়ে এসে আবারও মাদক বিক্রি

নৌকায় ভোট দেওয়ায় শার্শায় শতাধিক বাড়িতে হামলা

নৌকায় ভোট দেওয়ায় শার্শায় শতাধিক বাড়িতে হামলা

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল

মানুষের কল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করবো: নজরুল ইসলাম ঋতু

মানুষের কল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করবো: নজরুল ইসলাম ঋতু

জমি লিখে না দেওয়ায় বাবার কবজি কেটে দেওয়া যুবক গ্রেফতার

জমি লিখে না দেওয়ায় বাবার কবজি কেটে দেওয়া যুবক গ্রেফতার

আগের নির্বাচনে দুই, এবার পেলেন ৩ ভোট

আগের নির্বাচনে দুই, এবার পেলেন ৩ ভোট

৬২ নদী-খাল পুনর্খনন হলে বদলে যাবে খুলনা

৬২ নদী-খাল পুনর্খনন হলে বদলে যাবে খুলনা

খুলনা বারে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের নিরঙ্কুশ বিজয়

খুলনা বারে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের নিরঙ্কুশ বিজয়

সর্বশেষ

শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর করতে যাচ্ছে বাস মালিকরা

শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর করতে যাচ্ছে বাস মালিকরা

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের বিষয়ে বেনাপোল বন্দরে সতর্কতা  

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের বিষয়ে বেনাপোল বন্দরে সতর্কতা  

জাতীয় আয়কর দিবস আজ

জাতীয় আয়কর দিবস আজ

সংসদীয় কমিটিতে আজও উঠছে না শিল্পকলার দুর্নীতির প্রতিবেদন

সংসদীয় কমিটিতে আজও উঠছে না শিল্পকলার দুর্নীতির প্রতিবেদন

মোটরসাইকেল থেকে ফেলে কলেজশিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

মোটরসাইকেল থেকে ফেলে কলেজশিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

© 2021 Bangla Tribune