X
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

অর্ধেক বলছে দেশ ঠিক পথে, অর্ধেক বলছে বিপথে!

আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬, ১৯:১০



দেশ কি সঠিক পথে চলেছে বলে মনে করেন? দেশের প্রায় অর্ধেক মানুষ মনে করেন, গত দুই বছর ধরে দেশ ঠিক পথেই এগোচ্ছে। পক্ষান্তরে অর্ধেক মনে করছেন, দেশ ঠিক পথে চলছে না। তবে বর্তমান সময়ে দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ইস্যু হিসেবে ২৯.৭৮ শতাংশ মানুষ রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার পক্ষে মত দিয়েছেন। বাংলা ট্রিবিউনের সাম্প্রতিক জরিপে উঠে এসেছে এ তথ্য।

সারাদেশের ৬৪টি জেলায় বয়স, শ্রেণি ও পেশার ভিত্তিতে মোট ৪৯৫০ জনের ওপর চালানো এ জরিপে দেখা গেছে, ৪৮.৬১ শতাংশ মানুষ মনে করছেন দেশ ঠিক পথে চলছে না। বিপরীতে ৪৮.৫৯ শতাংশ মনে করছেন দেশ ঠিক পথেই আছে। দেশ ঠিক পথে আছে, এমনটা যারা মনে করেন, তাদের মধ্যে চাকরিজীবীর সংখ্যাই বেশি। অন্যদিকে ‘ঠিক পথে নেই’ যারা বলেছেন, তাদের মধ্যে ব্যবসায়ীর সংখ্যা বেশি।

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা চান বেশিরভাগ মানুষ 

এই মুহূর্তে আপনার দৃষ্টিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ইস্যু কী?

 

জরিপে অংশগ্রহণকারীদের প্রশ্ন করা হয়েছিল- এই মুহূর্তে আপনার দৃষ্টিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ইস্যু কী? এর উত্তরে ২৯ দশমিক ৭৮ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন, তাদের কাছে এ মুহূর্তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা। অন্যদিকে ২০ দশমিক ৪২ শতাংশ জানিয়েছেন সংসদ নির্বাচন।

আয় বেড়েছে চাকরিজীবীদের, ব্যবসায়ীদের বাড়েনি

গত দুই বছরে আপনার আয় কি বেড়েছে?

জরিপে গত দুই বছরে দেশের মানুষের আয়-ব্যয়ের অবস্থাও জানতে চেয়েছিল বাংলা ট্রিবিউন। সারাদেশে চালানো জরিপে দেখা গেছে, গত দুই বছরে অর্ধেকেরও বেশি (৫৫ শতাংশ) মানুষের আয় বাড়েনি। বেড়েছে ৪৪ দশমিক ৬৭ শতাংশের।  

তবে এক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য পার্থক্য দেখা গেছে চাকরিজীবীদের ক্ষেত্রে। গত দুই বছরে সারাদেশে ও বিভাগীয় শহর পর্যায়ে বেশিরভাগ চাকরিজীবীর আয় বেড়েছে। ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে দেখা যায় তাদের আয় বাড়েনি। 


গত দুই বছরে আপনার আয় কি বেড়েছে?

অপরদিকে গত দুই বছরে ব্যয় বেড়েছে ৯২ শতাংশ মানুষের। আয় বৃদ্ধিতে কিছুটা বৈচিত্র্য দেখা গেলেও ব্যয় বৃদ্ধির দিক থেকে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষেরই একই অবস্থা দেখা গেছে।

গত দুই বছরে আপনার ব্যয় কি বেড়েছে?

উল্লেখ্য, সারাদেশে ৬৪টি জেলার ৪৯৫০ জন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের ওপর ১৭ জানুয়ারি থেকে ২৫ জানুয়ারি এ জরিপ পরিচালনা করে বাংলা ট্রিবিউন।

জরিপ প্রক্রিয়া:

জরিপের সময়কাল: ১৭ জানুয়ারি-২৫ জানুয়ারি, ২০১৬

জরিপ পরিচালনা:  বাংলা ট্রিবিউন  

নমুনা (sample) সংগ্রহের প্রক্রিয়া:
১. প্রতি জেলায় ৫০ জন করে ৬৪টি জেলায় জরিপ চলানো হয়েছে।
২. ৭টি বিভাগীয় শহরের প্রতিটিতে ৩০০ জনের ওপর জরিপ করা হয়েছে (ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহর বাদে)। 
৩. রাজধানী ঢাকায় ৩০০ জনের ওপর জরিপ পরিচালনা করা হয়।
৪. দৈবচয়ন (Random) প্রক্রিয়ায় প্রতি ১০ মিনিট অন্তর নমুনা সংগ্রহ করা হয়।
৫. জরিপকারীরা একই স্থানে সর্বোচ্চ ১ ঘণ্টা অবস্থান করেছেন।  
৬. নমুনা সংগ্রহের জন্য জেলা/বিভাগীয় শহরের হাট বাজার/শপিং মলকে স্থান হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে।
৭. জরিপে আয়ের প্রশ্নে ছাত্র এবং গৃহিনীর ক্ষেত্রে তাদের পরিবারের আয়-ব্যয় সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়।

/এফএ/এজে/

সর্বশেষ

পেরুকে বিধ্বস্ত করে নেইমারদের টানা দ্বিতীয় জয়

পেরুকে বিধ্বস্ত করে নেইমারদের টানা দ্বিতীয় জয়

ঢাকা-কায়রো যুক্ত ঘোষণা

ঢাকা-কায়রো যুক্ত ঘোষণা

জামে আছে যত পুষ্টি

জামে আছে যত পুষ্টি

কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তায় প্রধান ভূমিকা নেবে তুরস্ক: বাইডেন প্রশাসন

কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তায় প্রধান ভূমিকা নেবে তুরস্ক: বাইডেন প্রশাসন

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহার রাশিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ: পুতিন

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহার রাশিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ: পুতিন

অস্ট্রিয়াকে হারিয়ে নক আউট পর্বে নেদারল্যান্ডস

অস্ট্রিয়াকে হারিয়ে নক আউট পর্বে নেদারল্যান্ডস

নীল জল থেকে উঠে জড়ালেন অন্তর্জালে!

নীল জল থেকে উঠে জড়ালেন অন্তর্জালে!

ব্রাজিলের অলিম্পিক দলে নেই নেইমার!

ব্রাজিলের অলিম্পিক দলে নেই নেইমার!

নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর জয়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে মমতা

নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর জয়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে মমতা

যানবাহন উৎপাদন ও বিপণনে ট্রেডমার্ক সনদ পেলো ওয়ালটন

যানবাহন উৎপাদন ও বিপণনে ট্রেডমার্ক সনদ পেলো ওয়ালটন

প্রথম ব্যাচের তৃতীয় লিঙ্গের কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিলো ফুডপ্যান্ডা

প্রথম ব্যাচের তৃতীয় লিঙ্গের কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিলো ফুডপ্যান্ডা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ঢাকায় ৬০ নমুনার ৬৮ শতাংশ ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট!

ঢাকায় ৬০ নমুনার ৬৮ শতাংশ ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট!

যাত্রাবাড়ীতে ১৫২ বোতল ফেন্সিডিলসহ যুবক গ্রেফতার

যাত্রাবাড়ীতে ১৫২ বোতল ফেন্সিডিলসহ যুবক গ্রেফতার

কর্মীর ছিনতাই হওয়া মালামাল উদ্ধার, বাংলাদেশ পুলিশকে জাতিসংঘের ধন্যবাদ

কর্মীর ছিনতাই হওয়া মালামাল উদ্ধার, বাংলাদেশ পুলিশকে জাতিসংঘের ধন্যবাদ

আসামির বয়স নির্ধারণ যেন পুলিশের ‘ইচ্ছে মতো’ না হয়: হাইকোর্ট

আসামির বয়স নির্ধারণ যেন পুলিশের ‘ইচ্ছে মতো’ না হয়: হাইকোর্ট

সুনাগরিক তৈরিতে মন্দিরভিত্তিক গণশিক্ষা বিশেষ ভূমিকা রাখছে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

সুনাগরিক তৈরিতে মন্দিরভিত্তিক গণশিক্ষা বিশেষ ভূমিকা রাখছে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

সাইবার অপরাধ: সতর্কতার মাঝেই উপায় দেখছেন সংশ্লিষ্টরা

সাইবার অপরাধ: সতর্কতার মাঝেই উপায় দেখছেন সংশ্লিষ্টরা

ট্রেনিং অব মাস্টার ট্রেইনার ইন ইংলিশ প্রকল্পের সনদ প্রদান অনুষ্ঠিত

ট্রেনিং অব মাস্টার ট্রেইনার ইন ইংলিশ প্রকল্পের সনদ প্রদান অনুষ্ঠিত

বঙ্গবন্ধুর রচিত বই জাতির ঐতিহাসিক দলিল: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধুর রচিত বই জাতির ঐতিহাসিক দলিল: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

`কৃষি, শিল্প ও স্বাস্থ্য খাতে মানবাধিকার লংঘনের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে হবে'

`কৃষি, শিল্প ও স্বাস্থ্য খাতে মানবাধিকার লংঘনের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে হবে'

কারিগরি শিক্ষা অধিদফতরে পদায়ন নিয়ে অসন্তোষ

কারিগরি শিক্ষা অধিদফতরে পদায়ন নিয়ে অসন্তোষ

© 2021 Bangla Tribune