X
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

সেকশনস

কোলনে যৌন সহিংসতার বেশিরভাগ সন্দেহভাজনই ধরাছোঁয়ার বাইরে

আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬, ১৪:৪৫
image

জার্মানির কোলন শহরে বর্ষবরণ উৎসবে ব্যাপক যৌন নিপীড়নের ঘটনায় জড়িত বেশিরভাগ সন্দেহভাজনই ধরাছোঁয়ার বাইরে। তাদের কখনও আটক করা সম্ভব নয় বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন কোলনের পুলিশ প্রধান জুয়ের্গান ম্যাথিস।

জুয়ের্গান ম্যাথিস ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে জানান, কেবল সিসিটিভি ফুটেজ দেখেই যৌন নিপীড়কদের শনাক্ত করা সম্ভব নয়। তিনি বলেন, ‘সিসিটিভি ফুটেজ এতোটা ভালো নয় যে, এর সাহায্যে যৌন নিপীড়নের ঘটনা নিশ্চিতভাবে শনাক্ত করা যাবে। ফুটেজে আমরা দেখতে পাচ্ছি, কেউ কেউ চুরি করছেন, কিন্তু এটুকুই। আমরা মূলত প্রত্যক্ষদর্শী এবং নিপীড়িতদের ওপর নির্ভর করে সন্দেহভাজনদের শনাক্ত করছি।’

জুয়ের্গান ম্যাথিস

তদন্তকারীরা এখন পর্যন্ত ৭৫ জন সন্দেহভাজনকে শনাক্ত করতে পেরেছেন। এদের বেশিরভাগই উত্তর আফ্রিকার অবৈধ অভিবাসী অথবা আশ্রয়প্রত্যাশী। ওই ঘটনায় নথিভুক্ত অপরাধের সংখ্যা ৫ শতাধিক। যার মধ্যে ৪০ শতাংশই যৌন নির্যাতনমূলক বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বর্ষবরণের ওই অনুষ্ঠানের ঘটনায় দুই মরোক্কান এবং এক তিউনিশীয় চুরির অপরাধে অভিযুক্ত হয়ে বিচারের সম্মুখীন হচ্ছেন। বর্ষবরণের উৎসবে সংগঠিত অপরাধের মধ্যে এটিই প্রথম ঘটনা, যা নিয়ে বিচার প্রক্রিয়া চলছে। চুরির ঘটনায় অন্তত ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হলেও যৌন নিপীড়নের অভিযোগে এখনও পর্যন্ত কেবলমাত্র এক আলজেরীয় শরণার্থীকেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

কোলনের কেন্দ্রীয় রেল স্টেশন

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের শেষ প্রহরে সারা জার্মানি যখন নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে আনন্দে মাতোয়ারা, তখন কোলনসহ হামবুর্গ এবং স্টুটগার্ট শহরে ব্যাপক যৌন নিপীড়নের ঘটনা ঘটে। সংঘবদ্ধ যৌন নির্যাতন চালানো হয় নারীদের ওপর। সবচেয়ে বড় চক্রটি সক্রিয় ছিল কোলনে। শহরের কেন্দ্রীয় রেল স্টেশনকে ঘিরে সেদিন সহস্রাধিক পুরুষ রীতিমতো ঝাঁপিয়ে পড়েন নারীদের ওপর। এছাড়াও ছিনতাই এবং লুটের ঘটনাও ঘটে। এ ঘটনায় জার্মানির পাশাপাশি বিশ্বজুড়ে ক্ষোভের ঝড় ওঠে। কোলনের তৎকালীন পুলিশ প্রধান উলফগ্যাং আলবেসকে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে পদচ্যুত করা হয়। সূত্র: বিবিসি।

/এসএ/বিএ/

সম্পর্কিত

ইউরোপে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের বিস্তার নিয়ে ডব্লিউএইচও’র সতর্কতা

ইউরোপে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের বিস্তার নিয়ে ডব্লিউএইচও’র সতর্কতা

প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোকে করের আওতায় আনতে চায় জি-৭

প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোকে করের আওতায় আনতে চায় জি-৭

ইউরোপে মার্কিন গুপ্তচরবৃত্তি নিয়ে ক্ষুব্ধ জার্মানি-ফ্রান্স

ইউরোপে মার্কিন গুপ্তচরবৃত্তি নিয়ে ক্ষুব্ধ জার্মানি-ফ্রান্স

নামিবিয়া গণহত্যার দায় স্বীকার জার্মানির

নামিবিয়া গণহত্যার দায় স্বীকার জার্মানির

ফিলিস্তিনের সমর্থনে দেশে দেশে ইসরায়েলবিরোধী বিক্ষোভ

ফিলিস্তিনের সমর্থনে দেশে দেশে ইসরায়েলবিরোধী বিক্ষোভ

ফ্যাশনের কোনও বয়স আছে নাকি!

ফ্যাশনের কোনও বয়স আছে নাকি!

জার্মানিতে কেয়ার ক্লিনিকে হামলায় নিহত ৪

জার্মানিতে কেয়ার ক্লিনিকে হামলায় নিহত ৪

ভুল ঢাকতে ভ্যাকসিনের বদলে স্যালাইন দিলেন জার্মান নার্স

ভুল ঢাকতে ভ্যাকসিনের বদলে স্যালাইন দিলেন জার্মান নার্স

জার্মানিতে দুই সপ্তাহের কঠোর লকডাউন চান চিকিৎসকরা

জার্মানিতে দুই সপ্তাহের কঠোর লকডাউন চান চিকিৎসকরা

জার্মানিতে ইস্টারে লকডাউন জারির একদিন পর বাতিল

জার্মানিতে ইস্টারে লকডাউন জারির একদিন পর বাতিল

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকায় রক্ত জমাট বাঁধার কারণ জানার দাবি গবেষকদের

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকায় রক্ত জমাট বাঁধার কারণ জানার দাবি গবেষকদের

জার্মানি ও বেলজিয়ামে শত কোটি ডলার মূল্যের কোকেন উদ্ধার

জার্মানি ও বেলজিয়ামে শত কোটি ডলার মূল্যের কোকেন উদ্ধার

সর্বশেষ

ব্যবসা সহজীকরণের উদ্যোগ চায় বিজিএমইএ

ব্যবসা সহজীকরণের উদ্যোগ চায় বিজিএমইএ

কিস্তি মেয়াদোত্তীর্ণ গ্রাহকরা আমদানি পরবর্তী ঋণ পাবেন না

কিস্তি মেয়াদোত্তীর্ণ গ্রাহকরা আমদানি পরবর্তী ঋণ পাবেন না

পুতিনই ঠিক, বললেন বাইডেন

পুতিনই ঠিক, বললেন বাইডেন

শিশুদের দিয়ে যৌনব্যবসা বন্ধে কঠোর নজরদারি চায় নারী আইনজীবী সমিতি

শিশুদের দিয়ে যৌনব্যবসা বন্ধে কঠোর নজরদারি চায় নারী আইনজীবী সমিতি

তামাকপণ্য সহজলভ্য হলে হুমকির মুখে পড়বে জনস্বাস্থ্য: প্রজ্ঞা

তামাকপণ্য সহজলভ্য হলে হুমকির মুখে পড়বে জনস্বাস্থ্য: প্রজ্ঞা

মুক্তিযুদ্ধের সব দলিল অবমুক্ত করবে ভারত

মুক্তিযুদ্ধের সব দলিল অবমুক্ত করবে ভারত

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বিমান বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বিমান বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

কোলের সন্তানসহ বাবাকে থানায় নিয়ে গেলো পুলিশ

কোলের সন্তানসহ বাবাকে থানায় নিয়ে গেলো পুলিশ

রাজনীতি না চিকিৎসা, কী বেছে নেবেন খালেদা জিয়া

রাজনীতি না চিকিৎসা, কী বেছে নেবেন খালেদা জিয়া

ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে দিলো ইংল্যান্ড

ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে দিলো ইংল্যান্ড

চাঁদে জমি বিক্রি করেন তিনি, ক্রেতার তালিকায় মার্কিন প্রেসিডেন্টরাও

চাঁদে জমি বিক্রি করেন তিনি, ক্রেতার তালিকায় মার্কিন প্রেসিডেন্টরাও

অর্থপাচারের অভিযোগ নিয়ে যা বলছে ‘বিগো’

অর্থপাচারের অভিযোগ নিয়ে যা বলছে ‘বিগো’

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ইউরোপে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের বিস্তার নিয়ে ডব্লিউএইচও’র সতর্কতা

ইউরোপে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের বিস্তার নিয়ে ডব্লিউএইচও’র সতর্কতা

প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোকে করের আওতায় আনতে চায় জি-৭

প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোকে করের আওতায় আনতে চায় জি-৭

ইউরোপে মার্কিন গুপ্তচরবৃত্তি নিয়ে ক্ষুব্ধ জার্মানি-ফ্রান্স

ইউরোপে মার্কিন গুপ্তচরবৃত্তি নিয়ে ক্ষুব্ধ জার্মানি-ফ্রান্স

নামিবিয়া গণহত্যার দায় স্বীকার জার্মানির

নামিবিয়া গণহত্যার দায় স্বীকার জার্মানির

ফিলিস্তিনের সমর্থনে দেশে দেশে ইসরায়েলবিরোধী বিক্ষোভ

ফিলিস্তিনের সমর্থনে দেশে দেশে ইসরায়েলবিরোধী বিক্ষোভ

ফ্যাশনের কোনও বয়স আছে নাকি!

ফ্যাশনের কোনও বয়স আছে নাকি!

জার্মানিতে কেয়ার ক্লিনিকে হামলায় নিহত ৪

জার্মানিতে কেয়ার ক্লিনিকে হামলায় নিহত ৪

ভুল ঢাকতে ভ্যাকসিনের বদলে স্যালাইন দিলেন জার্মান নার্স

ভুল ঢাকতে ভ্যাকসিনের বদলে স্যালাইন দিলেন জার্মান নার্স

জার্মানিতে দুই সপ্তাহের কঠোর লকডাউন চান চিকিৎসকরা

জার্মানিতে দুই সপ্তাহের কঠোর লকডাউন চান চিকিৎসকরা

জার্মানিতে ইস্টারে লকডাউন জারির একদিন পর বাতিল

জার্মানিতে ইস্টারে লকডাউন জারির একদিন পর বাতিল

© 2021 Bangla Tribune