X
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

হাফিজুর হত্যার বিচার দাবিতে ঢাবিতে সমাবেশ

আপডেট : ০৩ মার্চ ২০১৬, ২০:৫২

ঢাবিতে প্রগতিশীল ছাত্র জোট ও সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ছাত্র ঐক্যের মিছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) প্রথমবর্ষের শিক্ষার্থী হাফিজুর মোল্লা হত্যার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে প্রগতিশীল ছাত্র জোট ও সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ছাত্র ঐক্য।  সমাবেশ থেকে আবাসিক হলে গেস্টরুমে ছাত্র নির্যাতন বন্ধসহ ক্যাম্পাসে সন্ত্রাস-দখলমুক্ত পরিবেশ সৃষ্টির দাবি জানানো হয়।
বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে মধুর ক্যান্টিন থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে তা ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ স্থান প্রদক্ষিণ করে। সারা দেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের অংশ হিসেবে তারা এই সমাবেশ করেন।
উল্লেখ্য, ঢাবি’র প্রথমবর্ষের শিক্ষার্থী হাফিজুর নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তবে তার মৃত্যুর জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে পরোক্ষভাবে ছাত্রলীগকে দায়ী করা হয়েছে। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।
সমাবেশে ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি সৈকত মল্লিক বলেন,‘সবাই বলছে হাফিজুর নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। কিন্তু হাফিজের নিউমোনিয়া হওয়ার পেছনের কারণ কেউ বলছেন না। ছাত্রলীগের হল বাণিজ্য ও গেস্টরুম সংস্কৃতিই  তার মৃত্যুর মূল কারণ।’
তিনি বলেন, হাফিজুর হলে রুম না পাওয়ায় গণরুমে থাকতেন। এজন্য জোরপূর্বক গভীর রাত পর্যন্ত তাকে  ছাত্রলীগের শোডাউনে নিয়ে যাওয়া হতো। আপত্তি জানালে তাকে হল থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হতো। অসুস্থ অবস্থায় শীতের রাতে দীর্ঘ সময় বাইরে থাকায় তার নিউমোনিয়া  হয়। এক পর্যায়ে তিনি মারা যান। তাই এটিকে স্বাভাবিক ঘটনা বলা যায় না। এটি হত্যাকাণ্ড। ‘গেস্টরুম সংস্কৃতির’ কারণেই এই হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে।
 বক্তারা আরও বলেন,যে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ভাষা আন্দোলনের জন্য,স্বাধীনতা সংগ্রামে লড়াই করেছেন আজ তারা তাদেরই প্রতিষ্ঠানের এক ছাত্রের হত্যার বিচারের দাবি জানাতে ভয় পান। এ থেকেই বোঝা যায় বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী ও প্রশাসনের অবস্থা কী।
সমাবেশে দুই ছাত্র জোটের নেতারাসহ উপস্থিত ছিলেন ছাত্র ইউনিয়নের ঢাবি শাখা সভাপতি লিটন নন্দী, ছাত্র গণমঞ্চের সাধারণ সম্পাদক নূর সুমন, ঢাবি ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি উম্মে হাবিবা বেনজির প্রমুখ।
/এসআর/এনএস/এমএসএম/

সম্পর্কিত

ট্রেনিং অব মাস্টার ট্রেইনার ইন ইংলিশ প্রকল্পের সনদ প্রদান অনুষ্ঠিত

ট্রেনিং অব মাস্টার ট্রেইনার ইন ইংলিশ প্রকল্পের সনদ প্রদান অনুষ্ঠিত

পাঠদানে ডেডিকেটেড টিভি চ্যানেলের চিন্তা সরকারের

পাঠদানে ডেডিকেটেড টিভি চ্যানেলের চিন্তা সরকারের

শিক্ষার্থীদের ট্রাফিক আইন শেখাতে প্রোগ্রাম আয়োজনের নির্দেশ

শিক্ষার্থীদের ট্রাফিক আইন শেখাতে প্রোগ্রাম আয়োজনের নির্দেশ

অনিয়মের কারণে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বন্ধ করা যাবে না

অনিয়মের কারণে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বন্ধ করা যাবে না

শর্তসাপেক্ষে প্রমোশন পাচ্ছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ লাখ শিক্ষার্থী

শর্তসাপেক্ষে প্রমোশন পাচ্ছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ লাখ শিক্ষার্থী

শিক্ষা মন্ত্রণালয় অভিমুখে মিছিলে পুলিশের বাধা

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার দাবিশিক্ষা মন্ত্রণালয় অভিমুখে মিছিলে পুলিশের বাধা

শিশু শিক্ষার্থীদের অনলাইন পাঠদানে শীর্ষে হাকিমপুর

শিশু শিক্ষার্থীদের অনলাইন পাঠদানে শীর্ষে হাকিমপুর

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘অটো পাস’!

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘অটো পাস’!

১০১ উপজেলার প্রাথমিকে ঘাটতি বাজেট মঞ্জুর

১০১ উপজেলার প্রাথমিকে ঘাটতি বাজেট মঞ্জুর

গুগল মিটে নেওয়া ক্লাসের সপ্তাহভিত্তিক তথ্য নিয়মিত পাঠানোর নির্দেশ

গুগল মিটে নেওয়া ক্লাসের সপ্তাহভিত্তিক তথ্য নিয়মিত পাঠানোর নির্দেশ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পৌঁছেছে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রথম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পৌঁছেছে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রথম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট

শিক্ষা অফিসে ঘুরতে হবে না প্রাথমিক শিক্ষকদের, ছুটিও অনলাইনে

শিক্ষা অফিসে ঘুরতে হবে না প্রাথমিক শিক্ষকদের, ছুটিও অনলাইনে

সর্বশেষ

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহার রাশিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ: পুতিন

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহার রাশিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ: পুতিন

অস্ট্রিয়াকে হারিয়ে নক আউট পর্বে নেদারল্যান্ডস

অস্ট্রিয়াকে হারিয়ে নক আউট পর্বে নেদারল্যান্ডস

নীল জল থেকে উঠে জড়ালেন অন্তর্জালে!

নীল জল থেকে উঠে জড়ালেন অন্তর্জালে!

ব্রাজিলের অলিম্পিক দলে নেই নেইমার!

ব্রাজিলের অলিম্পিক দলে নেই নেইমার!

নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর জয়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে মমতা

নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর জয়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে মমতা

যানবাহন উৎপাদন ও বিপণনে ট্রেডমার্ক সনদ পেলো ওয়ালটন

যানবাহন উৎপাদন ও বিপণনে ট্রেডমার্ক সনদ পেলো ওয়ালটন

প্রথম ব্যাচের তৃতীয় লিঙ্গের কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিলো ফুডপ্যান্ডা

প্রথম ব্যাচের তৃতীয় লিঙ্গের কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিলো ফুডপ্যান্ডা

সিলেটের নতুন কারাগারে প্রথম ফাঁসি কার্যকর

সিলেটের নতুন কারাগারে প্রথম ফাঁসি কার্যকর

ঢাকায় ৬০ নমুনার ৬৮ শতাংশ ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট!

ঢাকায় ৬০ নমুনার ৬৮ শতাংশ ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট!

মাঠে নেমেই বেলজিয়ামকে বদলে দিলেন ডি ব্রুইনে

মাঠে নেমেই বেলজিয়ামকে বদলে দিলেন ডি ব্রুইনে

কুড়িগ্রামে দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণ

কুড়িগ্রামে দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ট্রেনিং অব মাস্টার ট্রেইনার ইন ইংলিশ প্রকল্পের সনদ প্রদান অনুষ্ঠিত

ট্রেনিং অব মাস্টার ট্রেইনার ইন ইংলিশ প্রকল্পের সনদ প্রদান অনুষ্ঠিত

শিক্ষার্থীদের ট্রাফিক আইন শেখাতে প্রোগ্রাম আয়োজনের নির্দেশ

শিক্ষার্থীদের ট্রাফিক আইন শেখাতে প্রোগ্রাম আয়োজনের নির্দেশ

অনিয়মের কারণে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বন্ধ করা যাবে না

অনিয়মের কারণে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বন্ধ করা যাবে না

শর্তসাপেক্ষে প্রমোশন পাচ্ছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ লাখ শিক্ষার্থী

শর্তসাপেক্ষে প্রমোশন পাচ্ছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ লাখ শিক্ষার্থী

শিক্ষা মন্ত্রণালয় অভিমুখে মিছিলে পুলিশের বাধা

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার দাবিশিক্ষা মন্ত্রণালয় অভিমুখে মিছিলে পুলিশের বাধা

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘অটো পাস’!

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘অটো পাস’!

১০১ উপজেলার প্রাথমিকে ঘাটতি বাজেট মঞ্জুর

১০১ উপজেলার প্রাথমিকে ঘাটতি বাজেট মঞ্জুর

গুগল মিটে নেওয়া ক্লাসের সপ্তাহভিত্তিক তথ্য নিয়মিত পাঠানোর নির্দেশ

গুগল মিটে নেওয়া ক্লাসের সপ্তাহভিত্তিক তথ্য নিয়মিত পাঠানোর নির্দেশ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পৌঁছেছে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রথম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পৌঁছেছে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রথম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট

শিক্ষা অফিসে ঘুরতে হবে না প্রাথমিক শিক্ষকদের, ছুটিও অনলাইনে

শিক্ষা অফিসে ঘুরতে হবে না প্রাথমিক শিক্ষকদের, ছুটিও অনলাইনে

© 2021 Bangla Tribune