X
সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

সোমবার ২০ দলীয় জোটের বৈঠক

ইউপি নির্বাচন থেকে সরছে না বিএনপি

আপডেট : ০৪ এপ্রিল ২০১৬, ০৮:০৫

বিএনপি চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মাঠে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। রবিবার দীর্ঘ দুই ঘণ্টা দলের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি সরকার ও নির্বাচন কমিশন (ইসি) সুষ্ঠু নির্বাচনে ব্যর্থ হয়েছে দাবি করে বিষয়টি গণমাধ্যমে তুলে ধরারও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  সোমবার বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের বৈঠক ডেকে দলের এ অবস্থান জানিয়ে দেবেন খালেদা জিয়া। বৈঠকে অংশ নেওয়া বেশিরভাগ নেতাই নির্বাচন থেকে সরে না যাওয়ার বিষয়ে যুক্তি দিয়ে ব্যাখ্যা করায় বিএনপি চেয়ারপারসনও নির্বাচনি মাঠে লড়াই করার পক্ষে অবস্থান নেন। এরই আলোকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সময় জনসংযোগ করতে সিনিয়র নেতাদের দ্রুত নিজ-নিজ এলাকায় যাওয়ার ফেরার নির্দেশ দেন খালেদা জিয়া। রবিবার রাত সাড়ে এগারোটার দিকে গুলশান-২-এ বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বৈঠক শেষে অংশ নেওয়া ৬ জন সিনিয়র নেতার সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য জানা গেছে।
বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি মনে করে চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনসহ বিগত দিনের সবগুলো নির্বাচনে আবদুর রকিব কমিশন ও সরকারের আচরণ একমুখী ছিল। ভোট কারচুপি, কেন্দ্র দখল, প্রার্থী হয়রানি, হত্যা, হুমকিসহ নানা কারণে সরকারের নির্বাচনি চেহারা প্রকাশ হয়েছে। এটি নির্বাচনে না গেলে হতো না।
গুলশানের বৈঠকে আলোচনায় অংশ নেওয়া ২২জন নেতার মধ্যে বেশিরভাগের মত ছিল, এসব কারণে নির্বাচন থেকে সরে আসা সঠিক সিদ্ধান্ত হবে না। পাশাপাশি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন, এর আগে পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি বিজয়ী হতে না পারলেও দলীয় ও সাংগঠনিক কাঠামো মজবুত হয়েছে। ২০১৫ সালের ৫ জানুয়ারির পর থেকে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে বিএনপি পিছিয়ে পড়লেও স্থানীয় নির্বাচনের কারণে স্থানীয় পর্যায়ে ধানের শীষের মিছিল হয়েছে। নেতাকর্মীরা একে-অন্যের সঙ্গে কথা বলছেন। রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডেত সম্পৃক্তা-ব্যস্ততা বেড়েছে। নির্বাচন থেকে সরে আসলে সাংগঠনিক দিক দিয়ে এতটা লাভ হতো না বিএনপির।

বৈঠকে অংশ নেওয়া বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইনাম আহমেদ চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, বৈঠকে বেশিরভাগ নেতা নির্বাচনে থাকার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করেছেন। নেত্রীও ইতিবাচক মনোভাব ব্যক্ত করেছেন। তবে, এ নিয়ে চূড়ূান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন নেত্রী জোটের বৈঠকের পর।

আরেক উপদেষ্টা সামসুজ্জামান দুদু জানান, বৈঠকে দেশের সাম্প্রতিক বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সোমবার ২০ দলীয় জোটের বৈঠকের পর এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসবে।

বৈঠকে অংশ নেওয়া কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির একজন সাংগঠনিক সম্পাদক জানান, বৈঠকের একমাত্র এজেন্ডা ছিল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। রাত ৯টা ২০ মিনিটে বৈঠকের প্রারম্ভিক বক্তব্যে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ নিয়ে বৈঠক ডাকা হয়েছে বলে জানান। এরপরই বক্তব্য দেন দলের  সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন।

সূত্র জানায়, ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন বৈঠকে দীর্ঘ সময় বক্তব্য দেন। ইউপি নির্বাচনে থাকার পক্ষে তিনি নানা ধরনের যুক্তি তুলে ধরেন। তবে, দুয়েকজন নেতা নির্বাচনে না থাকার পক্ষে নিজেদের অবস্থান ব্যক্ত করেন। তিনি নির্বাচনের পক্ষে থাকার কথা বলেন। তার ভাষ্য ছিল, নির্বাচন থেকে সরে এলে স্থানীয় পর্যায়ের কর্মী-সমর্থকরা ঘরে বসে থাকবে না। হয় আওয়ামী লীগ প্রার্থী না হয় বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে স্লোগান ধরবে। এছাড়া, যত নির্বাচন হচ্ছে, সরকারের একমুখী চেহারা আরও প্রকট আকারে প্রকাশ পাচ্ছে বলেও তিনি বৈঠকে বলেন।

জানতে চাইলে বাংলা ট্রিবিউনকে ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন বলেন, বৈঠকের বিষয়ে কথা বলার অনুমতি নেই। জোটের বৈঠকের পর আপনারা জানতে পারবেন সিদ্ধান্ত।

বৈঠক সূত্র জানায়, নির্বাচন থেকে সরে না আসার যুক্তির পাশাপাশি নেতারা সংগঠন গোছানোর প্রতি জোর দিয়েছেন। এছাড়া, খালেদা জিয়ার মঙ্গলবার আদালতে আত্মসমর্পনের বিষয়ে টুকটাক কথা হয়েছে।

যুগ্ম-মহাসচিব মোহাম্মদ শাহজাহান সংগঠন গোছানোর প্রতি জোর দিতে আহ্বান জানিয়েছেন। আদালতে খালেদা জিয়ার হাজিরার দিনে নেতাকর্মীদের স্বেচ্ছায় কারাবরণ করার প্রস্তুতি নিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ভাইস-চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন।

বৈঠক সূত্র দাবি করে, বিএনপি চেয়ারপারসন নির্বাচনে থাকার বিষয়ে ইতিবাচক অবস্থান ব্যক্ত করেছেন। পাশাপাশি সিনিয়র নেতাদের নিজ-নিজ এলাকায় যেতে নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন, আপনারা ঢাকায় বসে কমিটির জন্য খোঁজ নেন। এটা করা লাগবে না। কর্মীরা আপনাদের পায় না। আপনারা নিজ-নিজ এলাকায় যান, আমি খুঁজে বের করে আপনাদের পদ দেব।

এ সময় কয়েকজন নেতা খালেদা জিয়াকে বিষয়টি মনিটরিং করার অনুরোধ করেন। তারা বলেন, নেত্রী, বিষয়টি আপনি মনিটরিং করেন। তাহলে দেখবেন কেউ ঘরে বসে থাকবে না।

সূত্র এ-ও জানায়, রবিবারের বৈঠকে চলমান ইউপি নির্বাচনের প্রথম ও দ্বিতীয় দফার খতিয়ান দেওয়া হয়েছে বৈঠকে। এ পর্যন্ত কতজনের মৃত্যু হলো, কতজন আহত হলেন, ঘর-বাড়ি ধ্বংসসহ নানাবিধ সমস্যার হিসাব তুলে ধরা হয় বৈঠকে। একই সঙ্গে বলা হয়, পরবর্তী সময়ে এসব খতিয়ান গণমাধ্যম ও বিদেশি দেশগুলোর প্রতিনিধিদের হাতে তুলে দেবে বিএনপি। এছাড়া, বৈঠকে আগামী দিনের রাজনৈতিক পরিকল্পনা আগে থেকেই গ্রহণ করার প্রস্তাবনা দেওয়া হয়।

জানতে চাইলে বিএনপি নেতা আহমেদ আযম খান বলেন, বলার মতো কিছু নেই। তবে, নির্বাচনের বিষয়ে অনেকেই ইতিবাচক চিলেন। এখন ব্যাপারটা ম্যাডামের হাতে। কাছাকাছি মন্তব্য করেন ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান।

রবিবার রাতে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আ স ম হান্নান শাহ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ড. আবদুল মঈন খান ও নজরুল ইসলাম খান। ভাইস চেয়ারম্যানদের মধ্যে ছিলেন শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, সেলিমা রহমান, আলতাফ হোসেন চৌধুরী ও আবদুল্লাহ আল নোমান। উপদেষ্টাদের মধ্যে ওসমান ফরুক, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, আবদুল আওয়াল মিন্টু, আহমেদ আযম খান, শামসুজ্জামান দুদু, ইনাম আহমেদ চৌধুরী ও এম আবদুল হালিম। যুগ্ম মহাসচিবদের মধ্যে ছিলেন রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, শাহজাহান মিয়া ও আমান উল্লাহ আমান।  সাংগঠনিক সম্পাদকদের মধ্যে ছিলেন ফজলুল হক মিলন, মশিউর রহমান, গোলাম আকবর খন্দকার ও ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন।

/এমএনএইচ/

সম্পর্কিত

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

সব জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন দরকার: ডা. জাফরুল্লাহ

সব জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন দরকার: ডা. জাফরুল্লাহ

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১৯:২২

দড়ি লাফে জোড়া বিশ্ব রেকর্ড করেছেন ঠাকুরগাঁওয়ের রাসেল ইসলাম। গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম উঠেছে তার। তার অর্জনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিনন্দন জানিয়েছেন।

রবিবার (১ আগস্ট) বিকালে দলের চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খানের সই করা এক বার্তায় এ কথা জানানো হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের সিরজাপাড়া গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে ১৮ বছর বয়সী রাসেল ইসলাম। তিনি শিবগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী।

অভিনন্দন বার্তায় ফখরুল বলেন, ‘ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা রহিমানপুর ইউনিয়নের সিরাজপাড়া গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে রাসেল ইসলাম ৩০ সেকেন্ডে এক পায়ে ১৪৫ বার দড়ি লাফানোর বিশ্ব রেকর্ড গড়েন। এর আগে বিশ্ব রেকর্ডটি ছিল ৩০ সেকেন্ডে ১৪৪ বার।  রাসেল পূর্বের বিশ্ব রেকর্ড ভেঙে যে অর্জনের মধ্য দিয়ে এলাকার ও দেশের সুনাম বয়ে এনেছেন, তাতে আমি গর্ববোধ করে তার সাফল্য কামনা করছি।’

প্রসঙ্গত, এক পায়ে ৩০ সেকেন্ড দড়ি লাফে আগের বিশ্ব রেকর্ড ছিল ১৪৪ বার লাফানোর। রাসেল ১৪৫ বার লাফিয়ে রেকর্ড গড়েন। আর ১ মিনিটে এক পায়ে ২৫৬ বার লাফানোর বিশ্ব রেকর্ড থাকলেও ২৫৮ বার লাফিয়েছেন রাসেল। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের সনদ হাতে পেয়েছেন তিনি।

 

/এসটিএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১৯:১০

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। রবিবার (১ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘শ্রমিকদের যাতায়াত সুবিধাসহ নিরাপত্তা নিশ্চিত না করে কারখানা খোলার সিদ্ধান্ত চরম  স্বেচ্ছাচারী। শ্রমিকদের জীবন-জীবিকা নিয়ে কারও ছিনিমিনি খেলার অধিকার নেই।’

তারা এও বলেন, ‘শ্রমিকশ্রেণী মালিকদের মুনাফার বলি হতে পারে না।’
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জোটের সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ, বামনেতা সাইফুল হক, রাজেকুজ্জামান রতনসহ অনেকে।

/এসটিএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ২০:৩৮

করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধক টিকা প্রদানে সরকারের খরচে দুর্নীতি হচ্ছে জানিয়ে অবিলম্বে তা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি। সামগ্রিকভাবে ব্যর্থতার দায়ে তিনি অবিলম্বে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের অপসারণ দাবি করেন।

রবিবার (১ আগস্ট) ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে এক নাগরিক সংবাদ সম্মেলনে জোনায়েদ সাকি এসব কথা বলেন। "করোনা মোকাবেলা, শ্রমিকদের হয়রানি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধসহ সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে এ নাগরিক সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়"।

ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে নাগরিক সংবাদ সম্মেলনে জোনায়েদ সাকিসহ অন্যান্যরা সংবাদ সম্মেলনে জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলার ব্যাপারে লাগাতার টালবাহানা করে যাচ্ছে। সরকারের বিবেচনাহীন এই সিদ্ধান্ত কোটি কোটি শিক্ষার্থীর জীবনই কেবল ক্ষতিগ্রস্ত করেনি, গোটা শিক্ষা ব্যবস্থাকেই এখন প্রায় ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে এসেছে।’

অবিলম্বে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিয়ে শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকারভিত্তিতে ভ্যাকসিন দেওয়ার দাবি জানান সাকি। তিনি বলেন, ‘প্রয়োজনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্লাসের সময়সীমা এবং কর্মদিন কমিয়ে এনে হলেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে, এর কোনও বিকল্প নেই।’

‘ভ্যাকসিন সংগ্রহ এই মূহুর্তে সরকারের প্রধান কাজ’ উল্লেখ করে গণসংহতিপ্রধান বলেন, ‘ক্রয়ের স্বচ্ছতা আমরা চাই, কিন্তু যে দামেই ভ্যাকসিন পাওয়া যাক, তাতেই আমাদের ভ্যাকসিন ক্রয় করা উচিত, কেননা লকডাউনের আর্থিক ক্ষতি ভ্যাকসিনের আপাত উচ্চ দামের চেয়ে অনেক বহুগুণ বেশি।’

সংবাদ সম্মেলনে ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু বলেন, ‘অগণতান্ত্রিক সরকারের একের পর এক ভুল সিদ্ধান্তের কারণে  করোনা মোকাবিলা করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। সরকার গার্মেন্টস শ্রমিকদের সাথে অমানবিক নির্যাতন করে যাচ্ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পড়াশুনা বন্ধ করে দেশকে ধ্বংস করে দিয়েছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি নুরুল হোক নূর বলেন, ‘মানুষ তীব্র ভোগান্তি নিয়ে ঢাকায় আসায় আমরা যখন সমালোচনা করেছি তখন ৩১ জুলাই সন্ধ্যায় সরকার সিদ্ধান্ত নেয় যে, গণপরিবহন রবিবার ১২টা পর্যন্ত চলবে। এটা স্পষ্ট যে সরকারের কাজের সমন্বয়হীনতা এবং এ সমন্বয়হীনতা হয়েছে গতবছরের শুরু থেকে। লকডাউন দেওয়া, গার্মেন্টস খোলা, শ্রমিকদের ঢাকা আনা-নেওয়া নিয়ে অন্তত পাঁচবার এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন‑ ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, মাহমুদুর রহমান মান্না, সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম প্রমুখ।

আরও পড়ুন: সব জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন দরকার: ডা. জাফরুল্লাহ

/এসটিএস/এমএস/

সম্পর্কিত

শিক্ষার্থীদের ওপর ভ্যাট আরোপে সরকারের গণবিরোধী চরিত্র স্পষ্ট : গণসংহতি

শিক্ষার্থীদের ওপর ভ্যাট আরোপে সরকারের গণবিরোধী চরিত্র স্পষ্ট : গণসংহতি

সংগ্রামই আবদুস সালামকে বাঁচিয়ে রাখবে: জোনায়েদ সাকি

সংগ্রামই আবদুস সালামকে বাঁচিয়ে রাখবে: জোনায়েদ সাকি

হেফাজত নেতা ইকবাল হোসেনের মৃত্যুর তদন্ত চায় গণসংহতি

হেফাজত নেতা ইকবাল হোসেনের মৃত্যুর তদন্ত চায় গণসংহতি

খালেদা জিয়ার বাসার সব স্টাফ করোনামুক্ত

খালেদা জিয়ার বাসার সব স্টাফ করোনামুক্ত

সব জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন দরকার: ডা. জাফরুল্লাহ

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭:৪৮

দেশের ৬৪ জেলার প্রত্যেকটিতে অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন করা দরকার বলে মনে করেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘অক্সিজেন উৎপাদনের সবচেয়ে উন্নত হচ্ছে জার্মান টেকনোলজি। মাসে ৫০ টন অক্সিজেন উৎপাদন করতে সক্ষম টেকনোলজির দাম মাত্র ৬ কোটি টাকা। বহু ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান আছে যারা এটা করতে পারে।’

রবিবার (১ আগস্ট) ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে এক নাগরিক সংবাদ সম্মেলনে জাফরুল্লাহ চৌধুরী এসব কথা বলেন। ‘করোনা মোকাবিলা, শ্রমিকদের হয়রানি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধসহ সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে এ নাগরিক সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

৬৪ জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র করতে পারলে কেউ অক্সিজেনের অভাবে মারা যাবে না বলেও মন্তব্য করেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

সংবাদ সম্মেলনে জাফরুল্লাহ অভিযোগ করেন, করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের ভুলের কারণে মানুষ মরছে। সরকারের ভুলের কারণে শিক্ষা ধ্বংস হচ্ছে।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘রাজনৈতিক দলকে ছোট করা ছাড়া সরকারের আর কোনেও কাজ আছে বলে আমার মনে হয় না। প্রধানমন্ত্রীর কথা আর কাজের মিল নেই। উনি সব সময় বলছে আমরা যুদ্ধে আছি, কিন্তু উনি তো যুদ্ধ দেখেন নাই।’

দেশে কোনেও রাজনীতি নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমলারা, ব্যবসায়ীরা প্রধানমন্ত্রীর কাঁধে বন্দুক ঠেকিয়ে দেশ শাসন করছে। সরকার আজ যেটা বলছে কাল সেটা মানছেন না। সরকার লকডাউন করছেন নিজেই লকডাউন মানছেন না।’

কলকারখানা খোলার ব্যাপারে দ্বিমত নেই উল্লেখ করে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘কলকারখানা খোলার ব্যাপারে কতগুলো নিয়ম আছে। শ্রমিকদের টিকা দিতে হবে। টিকা দেওয়া কঠিন কোনও কাজ না। গার্মেন্টস মালিকদেরও দায়িত্ব আছে।’

সংবাদ সম্মেলনে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহামুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘আপনারা দেখছেন গতকাল থেকে কী একটা তুঘলকি কাণ্ড ঘটছে। হাজার হাজার লোক আসছে। কোনও একটা রেসপন্সেবল গভর্নমেন্ট এটা করতে পারে?’

মান্না বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ডিসেম্বর পর সবাইকে টিকার আওতায় আনা হবে। এটা কি সম্ভব। আমাদের ১৩ কোটি মানুষকে ২৬ কোটি ডোজ দিতে হবে। লাগবে ২৬ কোটি টিকা, কিন্তু কতজনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। কত টিকা আছে, এটা সঠিক হিসাব সরকার দিতে পারে না। কত টিকা আসবে এটা তাদের জানা নেই।’

কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, অদূরদর্শিতা, জনগণকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য ও সরকারের বাণিজ্যিক স্বার্থের কারণে বাংলাদেশ অবস্থা আজ বিপদগ্রস্ত। টিকা দেওয়ার কোনেও প্রস্তুতি নাই। সরকারের কথার সঙ্গে বাস্তবতার কোনও মিল নাই।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ডাকসুর সাবেক ভিপি নূরুল হক নূর। এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেএসডির কার্যকারি সভাপতি সা কা ম আনিছুর রহমান খান, বিকল্প ধারা বাংলাদেশের মহাসচিব অ্যাড. শাহ আহমেদ বাদল, গণফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়কারী শহিদ উল্লাহ কায়সার, ছাত্র অধিকার পরিষদের সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ।

/এসটিএস/এমআর/

সম্পর্কিত

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭:১৬

করোনা সংক্রমণ ও ক্রমাগত মুত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধির ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যেও মালিকদের স্বার্থে গার্মেন্টসসহ রফতানিমুখী সকল শিল্প-কারখানা খোলা রাখা ও জোরপূর্বক শ্রমিকদের কারখানায় ফিরতে বাধ্য করার সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশন।

রবিবার (১ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সংগঠনের ঢাকা মহানগর শাখার উদ্যোগে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তারা লকডাউন চলাকালে শিল্প-কারখানা খোলা রাখার সরকারি সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার এবং সকল শ্রমিকের খাদ্য-চিকিৎসা, শতভাগ করোনা টিকা নিশ্চিত ও সবেতনে ছুটির দাবি জানান।

সংগঠনের ঢাকা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মানিক হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন— বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সদস্য ও বাসদ (মার্কসবাদী) এর কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়কারী ফখরুদ্দিন কবির আতিক, শ্রমিক নেতা আক্কাস আকন্দ, ইউনূস আলী, ভজন বিশ্বাস প্রমুখ।

 

/এসটিএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

সর্বশেষ

‘রাতের রানী পিয়াসা ও মৌয়ের কাজ ছিল ব্ল্যাকমেইল করা’

‘রাতের রানী পিয়াসা ও মৌয়ের কাজ ছিল ব্ল্যাকমেইল করা’

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যা

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যা

ব্রাজিলের নির্বাচন ব্যবস্থা বদলের দাবি বলসোনারো সমর্থকদের

ব্রাজিলের নির্বাচন ব্যবস্থা বদলের দাবি বলসোনারো সমর্থকদের

খুলনায় জুনের চেয়ে জুলাইয়ে তিন গুণ বেশি মৃত্যু

খুলনায় জুনের চেয়ে জুলাইয়ে তিন গুণ বেশি মৃত্যু

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

পর্নোগ্রাফিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামীর কারাদণ্ড

পর্নোগ্রাফিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামীর কারাদণ্ড

মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

সিআরবিতে নলকূপ স্থাপন বন্ধে ওয়াসার এমডির কাছে অভিযোগ

সিআরবিতে নলকূপ স্থাপন বন্ধে ওয়াসার এমডির কাছে অভিযোগ

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত, গুরুতর আহত ১

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত, গুরুতর আহত ১

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ছেলের হাতে বাবা খুন, ২২ ঘণ্টায় আদালতে অভিযোগপত্র

ছেলের হাতে বাবা খুন, ২২ ঘণ্টায় আদালতে অভিযোগপত্র

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

সব জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন দরকার: ডা. জাফরুল্লাহ

সব জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন দরকার: ডা. জাফরুল্লাহ

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘বিশ্বব্যাংকের প্রস্তাব বাংলাদেশকে নতুন ফিলিস্তিন বানানোর ষড়যন্ত্র’

‘বিশ্বব্যাংকের প্রস্তাব বাংলাদেশকে নতুন ফিলিস্তিন বানানোর ষড়যন্ত্র’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

টিকা নিয়ে প্রতারণা করছে সরকার: মির্জা ফখরুল

টিকা নিয়ে প্রতারণা করছে সরকার: মির্জা ফখরুল

কলকারখানা খুলে দেওয়া আত্মঘাতী: মির্জা ফখরুল

কলকারখানা খুলে দেওয়া আত্মঘাতী: মির্জা ফখরুল

© 2021 Bangla Tribune