X
সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

দেশে এলইডি চিপ তৈরি

শুল্ক বৈষম্যের কারণে বিনিয়োগে নিরুৎসাহিত উদ্যোক্তারা

আপডেট : ০৬ এপ্রিল ২০১৬, ২১:১৫

এলইডি চিফ শুল্ক বৈষম্যের কারণে দেশে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী এলইডি (লাইট ইমেটিং ডায়োড) বাল্ব তৈরির কারখানা স্থাপনে বিনিয়োগ করতে নিরুৎসাহিত হচ্ছেন উদ্যোক্তারা। জানা যায় এ বাল্ব তৈরির প্রধান উপকরণ এলইডি চিপ। এই চিপ তৈরিতে আটটি উপাদান ব্যবহার করা হয়।
জানা যায়, বাংলাদেশে সম্পূর্ণ তৈরি এলইডি চিপ আমদানি করতে ৩০ দশমিক ৭৯ শতাংশ কর দিতে হয়। আর এ চিপ দেশেই উৎপাদন করতে কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক দিতে হয় ৩৭ থেকে ১৩০ শতাংশ।অনেক উদ্যোক্তার এ খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ থাকলেও শুল্ক বৈষম্যের কারণে তারা নিরুৎসাহিত হচ্ছেন। ফলে প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে হাই-টেক শিল্পে পিছিয়ে পড়ছে বাংলাদেশ।
উদ্যোক্তারা জানান, দেশে এলইডি চিপ তৈরির প্রয়োজনীয় কাঁচামাল আমদানি করতে যে পরিমান কর দিতে হবে তার চেয়ে অনেক কম খরচে চিপ আমদানি করাই ভাল।  
এলইডি চিপ তৈরির প্রধান কাঁচামালগুলো হলো- লিড ফ্রিম, ফসপর, ক্যারিয়ার টেপ, প্লাস্টিক রিল, কভার টেপ, গোল্ড ওয়্যার, ডাই অ্যাটাচ মেটেরিয়াল বা অ্যাডহেসিভ এবং অ্যানক্যাপসুলেশন বা রেসিন। এর মধ্যে লিড ফ্রিম, ফসপর, ক্যারিয়ার টেপ এবং কভার টেপ আমদানিতে ১০ শতাংশ করে কাস্টমস ডিউটিসহ প্রতিটিতে সর্বমোট কর দিতে হয় ৩৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ। আর গোল্ড ওয়্যার, ডাই এ্যাটাচ মেটেরিয়াল বা অ্যাডহেসিভ, অ্যানক্যাপসুলেশন বা রেসিন আমদানিতে ২৫ শতাংশ কাস্টম ডিউটি, ৫ শতাংশ নিয়ন্ত্রণমূলক শুল্কসহ কর দিতে হয় ৬০ দশমিক ০২ শতাংশ। এছাড়া প্লাস্টিক রিল আমদানিতে ২৫ শতাংশ কাস্টমস ডিউটি, ৪৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক, ৫ শতাংশ নিয়ন্ত্রণমূলক শুল্কসহ সর্বমোট ১৩০ দশমিক ২৬ শতাংশ কর দিতে হয়। তবে সম্পূর্ণ তৈরিকৃত এলইডি চিপ আমদানিতে কর দিতে হয় মাত্র ৩০ দশমিক ৭৯ শতাংশ।
সানটেক্স ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেডের চেয়ারম্যান শামসুল আরেফীন সোহেল বলেন, দেশের স্বার্থে এ ধরনের শুল্ক বৈষম্য দূর করা দরকার। সরকার একদিকে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী পণ্য উৎপাদনের আহ্বান জানাচ্ছে, অন্যদিকে এলইডি চিপ তৈরির কাঁচামালের উপর অত্যধিক শুল্ক আরোপের মাধ্যমে দেশিয় উৎপাদনকে নিরুৎসাহিত করছে।
তিনি আরও বলেন, যদি দেশেই উচ্চ প্রযুক্তি ও মানসম্পন্ন এলইডি চিপ উৎপাদন কারখানা গড়ে উঠতো, তাহলে নিজস্ব তত্ত্ববধানে মান নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হতো। এতে করে পরিবেশের ক্ষতি যেমন এড়ানো যেত তেমনি গ্রাহকরাও উচ্চ গুণগতমানের এলইডি পণ্য কিনতে পারতেন। পাশাপাশি, এ ধরনের উচ্চ প্রযুক্তি পণ্য উৎপাদনে দেশও অনেক এগিয়ে যেতো।
এ বিষয়ে এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) বাংলাদেশ পার্টের সাবেক প্রধান অর্থনীতি মুহাম্মদ জাহিদ হোসেন বলেন, কাঁচামালের কর কম না হলে উৎপাদন খাত টেকসই হয় না এবং স্থানীয় উৎপাদন নিরুৎসাহিত হয়।
/এসএনএইচ/

সর্বশেষ

লন্ডনে গাড়ি দুর্ঘটনায় আমিরাতের অ্যাক্টিভিস্টের মৃত্যু

লন্ডনে গাড়ি দুর্ঘটনায় আমিরাতের অ্যাক্টিভিস্টের মৃত্যু

৫ লাখ ছাড়ালো ব্রাজিলে করোনায় মৃতের সংখ্যা

৫ লাখ ছাড়ালো ব্রাজিলে করোনায় মৃতের সংখ্যা

রোহিঙ্গা ইস্যুতে পশ্চিমা বিশ্বকে শক্ত বার্তা দিয়েছে বাংলাদেশ

রোহিঙ্গা ইস্যুতে পশ্চিমা বিশ্বকে শক্ত বার্তা দিয়েছে বাংলাদেশ

জাতিসংঘে নিজের বিপক্ষেই ভোট দিয়েছে মিয়ানমার

জাতিসংঘে নিজের বিপক্ষেই ভোট দিয়েছে মিয়ানমার

যুক্তরাষ্ট্রে ঘূর্ণিঝড়ে গাড়ির সংঘর্ষে শিশুসহ নিহত ১০

যুক্তরাষ্ট্রে ঘূর্ণিঝড়ে গাড়ির সংঘর্ষে শিশুসহ নিহত ১০

ফেসবুকে দুই মন্ত্রীর 'দ্বন্দ্ব' বিষয়ক স্ট্যাটাস

ফেসবুকে দুই মন্ত্রীর 'দ্বন্দ্ব' বিষয়ক স্ট্যাটাস

সিডনিতে ‘ধূমকেতু’ ব্যান্ডের সফল কনসার্ট

সিডনিতে ‘ধূমকেতু’ ব্যান্ডের সফল কনসার্ট

মায়ের কপালে চুমু খেয়ে কলেজছাত্রের আত্মহত্যা

মায়ের কপালে চুমু খেয়ে কলেজছাত্রের আত্মহত্যা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতার অধিকাংশ অলস পড়ে থাকছে: সিপিডি

বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতার অধিকাংশ অলস পড়ে থাকছে: সিপিডি

শুরু হচ্ছে সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে হোটেলের নির্মাণকাজ

শুরু হচ্ছে সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে হোটেলের নির্মাণকাজ

লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য রফতানির বিশেষ উদ্যোগ

লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য রফতানির বিশেষ উদ্যোগ

‘নবায়নযোগ্য জ্বালানিই হবে আগামী দিনের মূল জ্বালানি’

‘নবায়নযোগ্য জ্বালানিই হবে আগামী দিনের মূল জ্বালানি’

‘বিমা খাতের আইন-কানুনে পরিবর্তন আনা হচ্ছে’

‘বিমা খাতের আইন-কানুনে পরিবর্তন আনা হচ্ছে’

© 2021 Bangla Tribune