X
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ক্ষমতায় টিকে থাকতে এবার আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে রৌসেফ

আপডেট : ২৩ এপ্রিল ২০১৬, ১৫:৪৫
image

দিলমা রৌসেফ ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট দিলমা রৌসেফ সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেছেন তার অভিশংসনের জন্য যে প্রক্রিয়া চলছে তার কোনও আইনি ভিত্তি নেই। রৌসেফ  বলছেন, এটি তাকে ক্ষমতাচ্যুত করার রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে সাংবাদিকদের কাছে এমন দাবি করেন রৌসেফ। প্রভাবশালী ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান বলছে, সাংবাদিকদের কাছে এইসব বলার মধ্য দিয়ে নিজের টিকে থাকার লড়াইকে এবার আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে নিয়ে গেলেন রৌসেফ।
সম্প্রতি ব্রাজিলের পার্লামেন্টের নিম্ন কক্ষ কংগ্রেসের সদস্যরা দিলমা রৌসেফের অভিশংসনের পক্ষে ভোট দেন। অভিশংসন প্রস্তাব গ্রহণের জন্য নিম্নকক্ষের ৫১৩ জন সদস্যের মধ্যে দুই তৃতীয়াংশ সদস্যের সমর্থন প্রয়োজন ছিল। ভোটাভুটিতে রৌসেফের বিপক্ষে ভোট দেন ৩৬৭ জন পার্লামেন্ট সদস্য।
আরও পড়ুন: ইইউ থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে আসার প্রশ্নে ওবামার হুঁশিয়ারি, ক্ষুব্ধ ইইউবিরোধীরা
নিম্ন কক্ষের প্রস্তাব পাসের পর এবার রৌসেফের অভিশংসনের প্রস্তাবটি উচ্চ কক্ষ সিনেটে যাচ্ছে। সেখানে এ নিয়ে বিতর্ক অনুষ্ঠিত হবে। সে সময় বরখাস্ত থাকবেন রৌসেফ। অভিশংসন প্রস্তাবটি সিনেটে দুই-তৃতীয়াংশ সদস্যের সমর্থন পাওয়ার পরই কেবল প্রেসিডেন্ট দিলমা রৌসেফ স্থায়ীভাবে পদচ্যুত হবেন।
নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ ভবনের সামনে রৌসেফের সমর্থকরা জমায়েত হন
এমন অবস্থায় রৌসেফ আন্তর্জাতিক অঙ্গনের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ করে আসছে বিরোধীরা। নিজেকে নির্দোষ দাবি করতে শুক্রবার বিদেশি সংবাদমাধ্যমের দ্বারস্থ হন তিনি। ম্যানহাটনে অবস্থিত ব্রাজিলের দাফতরিক বাসভবনে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে গার্ডিয়ানসহ বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিকদের কাছে রৌসেফ বার বার দাবি করেন, তিনি নির্দোষ। রৌসেফ বলেন জনগণের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত ভোটে যদি তিনি হেরে যান তখনই কেবল লড়াই থামাবেন। তাকে কার্যালয় থেকে সরিয়ে দেওয়া হলে তা ব্রাজিলের রাজনৈতিক প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনবে।
আরও পড়ুন: জলবায়ু চুক্তিতে স্বাক্ষর করলো বাংলাদেশসহ শতাধিক দেশ

রৌসেফ বলেন, ‘গণতান্ত্রিক শাসন ভেঙে পড়া দেশগুলোর তালিকায় যেন ব্রাজিলের নাম না ওঠে তা নিশ্চিত করতে আমি লড়াই চালিয়ে যাব। আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। অতীতে মেশিনগান ট্যাংক আর অস্ত্র ব্যবহার করে ক্ষমতাচ্যুত করা হতো। আর এখন কেবল মানুষের হাতই যথেষ্ট। এ হাত দিয়েই কেউ কেউ সংবিধানকে ছিড়ে টুকরো টুকরো করে ফেলতে চান।’

রৌসেফবিরোধীদের বিক্ষোভ
রৌসেফ যখন সংবাদ সম্মেলন করছিলেন তখন বাইরে তার সমর্থকরা ‘গণতন্ত্র রক্ষা করো’ এবং উৎখাতের ষড়যন্ত্র রুখে দাও’ স্লোগান সম্বলিত প্ল্যাকার্ড হাতে জমায়েত হন। আর তার সামান্য কিছু দূরেই রৌসেফের অভিশংসনের দাবি জানিয়ে বিরোধীরা বিক্ষোভ করেন। আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রে বাড়ছে আত্মহত্যার হার

প্রসঙ্গত, ব্রাজিলের ফিসক্যাল আইনকে লঙ্ঘন করা এবং গত বছর নির্বাচনি প্রচারণার জন্য সরকারি অর্থ আত্মসাৎ করার অভিযোগে গত সেপ্টেম্বরে রৌসেফের অভিশংসন করার আবেদন জানায় দেশটির বিরোধী দলগুলো। অভিশংসন প্রস্তাবের মূলে রয়েছে রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি পেট্রোবাস কেলেঙ্কারি। প্রসিকিউটররা দাবি করেছেন, বিলিয়ন ডলারের ঘুষ লেনদেন হয়েছে। আর তাতে কেবল ক্ষমতাসীন ওয়ার্কার্স পার্টির সদস্যরাই জড়িত নন, বরং যারা অভিশংসনের পক্ষে আওয়াজ তুলছেন তাদের নামও রয়েছে। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, বিবিসি

/এফইউ/বিএ/

সম্পর্কিত

উদ্বেগজনক ইস্যুতে চীন-মার্কিন আলোচনায় অগ্রগতি

উদ্বেগজনক ইস্যুতে চীন-মার্কিন আলোচনায় অগ্রগতি

কানাডা উপকূলে ছড়াচ্ছে বিষাক্ত গ্যাস

কানাডা উপকূলে ছড়াচ্ছে বিষাক্ত গ্যাস

কলম্বিয়ার মাদক মাফিয়া আটক, পাঠানো হবে যুক্তরাষ্ট্রে

কলম্বিয়ার মাদক মাফিয়া আটক, পাঠানো হবে যুক্তরাষ্ট্রে

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

মন্ত্রিসভায় পরিবর্তন আনলেন ট্রুডো

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৫১

মন্ত্রিসভায় বড় পরিবর্তন এনেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয়ে পরিবর্তনের আনা হয়েছে। গত মাসের আগাম নির্বাচনে লিবারেল পার্টি একটি সংখ্যালঘু সরকার গঠনের পর এই বদল এসেছে।

৩৮ জন মন্ত্রী মঙ্গলবার শপথ নিয়েছেন। এর মধ্যে মাত্র দশজনেরও কম মন্ত্রী আগের মন্ত্রণালয়ে বহাল রয়েছেন। বদলের অংশ হিসেবে এসেছেন নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী পেয়েছে কানাডা। সেনাবাহিনী যখন যৌন অসদাচরণের অভিযোগের মুখোমুখি তখন ছয় বছর দায়িত্ব শেষ করেছেন সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রীর হরজিৎ সাজ্জান।

নতুন জাতীয় প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব নিলেন অনিতা আনন্দ। এই পদে দ্বায়িত্ব পালন করা দ্বিতীয় নারী তিনি। সাবেক এই অ্যাকাডেমিক মহামারির সময়ে কানাডার টিকা কেনার নেতৃত্ব দেওয়া মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ছিলেন।

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন হলো জলবায়ু আন্দোলন থেকে রাজনীতিতে আসা স্টিভেন গিলবেল্টকে জলবায়ুমন্ত্রী নিয়োগ দিয়েছে কানাডা। যুক্তরাজ্যের গ্লাসগোতে জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলনে কানাডার প্রতিনিধিত্ব করবেন তিনি।

এছাড়া ২০১৫ সালে প্রথম সরকার গঠনের পর পঞ্চমবারের মতো পররাষ্ট্রমন্ত্রী বদলেছে কানাডার লিবারেল সরকার। সাবেক সরকারি ভাষা বিষয়কমন্ত্রী মেলানি জোলি ওই পদে পদোন্নতি পেয়েছেন।

আগের অবস্থান ধরে রাখা মন্ত্রীদের মধ্যে রয়েছেন ক্রিস্টিনা ফ্রিল্যান্ড। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী এবং উপপ্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব চালিয়ে যাবেন তিনি।

/জেজে/

সম্পর্কিত

কানাডা উপকূলে ছড়াচ্ছে বিষাক্ত গ্যাস

কানাডা উপকূলে ছড়াচ্ছে বিষাক্ত গ্যাস

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

ছাদ ভেঙে বিছানায় উল্কাপিণ্ড, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন নারী

ছাদ ভেঙে বিছানায় উল্কাপিণ্ড, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন নারী

টিকাগ্রহীতাদের জন্য কানাডা সীমান্ত খুলে দেবে যুক্তরাষ্ট্র

টিকাগ্রহীতাদের জন্য কানাডা সীমান্ত খুলে দেবে যুক্তরাষ্ট্র

গৃহযুদ্ধ এড়াতে ক্ষমতা দখল করেছে সুদানের সেনাবাহিনী: অভ্যুত্থানের নেতা

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০০:৩৮

সুদানের অভ্যুত্থানের নেতা জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-বুরহান বলেছেন গৃহযুদ্ধ এড়াতে সোমবার ক্ষমতা দখল করেছে সেনাবাহিনী। ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী আবদাল্লাহ হামদাককে নিরাপত্তা কারণে নিজের বাড়িতে এনে রেখেছেন বলে দাবি করেন তিনি। শিগগিরই তাকে নিজের বাড়িতে যেতে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে রাজধানী খার্তুমে টানা দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ হয়েছে। সড়ক, সেতু এবং দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। ফোন আর ইন্টারনেট সেবাও বিঘ্নিত হচ্ছে। বিক্ষোভ শুরুর পর থেকে অন্তত দশ জন নিহতের কথা জানা গেছে।

অভ্যুত্থানকারী নেতা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘গত সপ্তাহে যে বিপদ আমরা দেখেছি তাতে দেশে গৃহযুদ্ধ শুরু হয়ে যেতে পারতো।’ তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী তার বাড়িতে ছিলেন কিন্তু আমরা তার ক্ষতির আশঙ্কা করছি আর তিনি এখন আমার বাড়িতে রয়েছেন। গত রাতে তার সঙ্গে ছিলাম... এবং তিনি স্বাভাবিক জীবন যাপন করছেন...হুমকি শেষ হয়ে গেলে শিগগিরই তিনি বাড়ি যেতে পারবেন।’

জেনারেল বুরহান বলেন, রাজনৈতিক গ্রুপগুলো জনগণকে নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে উস্কে দিতে থাকায় তাকে বেসামরিক শাসনের অবসান ঘটাতে হয়েছে, রাজনৈতিক নেতাদের গ্রেফতার করতে হয়েছে এবং জরুরি অবস্থা জারি করতে হয়েছে।

বিশ্ব জুড়ে ওই অভ্যুত্থানের নিন্দা জানানো হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, জাতিসংঘ এবং আফ্রিকান ইউনিয়ন গ্রেফতারকৃতদের নেতাদের অবিলম্বে মুক্তি দাবি করেছে। এসব নেতাদের মধ্যে আবদাল্লাহ হামদাকের মন্ত্রিসভার সদস্যরাও রয়েছেন।

জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, সুদানও সেই সব দেশের মধ্যে একটি যেখানে এশিয়া ও আফ্রিকায় সেনা অভুত্থানের মহামারি চলছে। তিনি নিরাপত্তা পরিষদের মাধ্যমে সেনা অভুত্থান নিষিদ্ধ করার ব্যবস্থা নিতে বিশ্বের বড় শক্তিগুলোকে আহ্বান জানান।

 

/জেজে/

সম্পর্কিত

নাইজেরিয়ায় মসজিদে ১৮ জনকে গুলি করে হত্যা

নাইজেরিয়ায় মসজিদে ১৮ জনকে গুলি করে হত্যা

সুদানে ৭০০ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা স্থগিত যুক্তরাষ্ট্রের

সুদানে ৭০০ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা স্থগিত যুক্তরাষ্ট্রের

সুদানে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে গুলি, নিহত ৭

সুদানে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে গুলি, নিহত ৭

ডব্লিউএইচও’র অনুমোদনের অপেক্ষায় কোভ্যাক্সিন নেওয়া ভারতীয়রা

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:১৪

৯ মাস ধরে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলে আটকে পড়া এবং সৌদি আরবে কাজে ফিরতে না পারা না সুগাথান পিআর আশা করছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ভারতে উদ্ভাবিত করোনার টিকা কোভ্যাক্সিনকে অনুমতি দিবে। এতে করে তার সৌদি আরব যাওয়ার পথ উন্মুক্ত হবে।

সুগাথানের মতো লাখো ভারতীয় কোভ্যাক্সিন টিকা নিয়েছেন। এদের অনেকেই অভিযোগ করছেন, আন্তর্জাতিকভাবে টিকাটি স্বীকৃতি না পাওয়ায় তারা বিভিন্ন দেশে যেতে পারছেন না।

৫৭ বছর বয়সী সুগাথান জানুয়ারিতে কেরালার পান্দালাম গ্রামে এসেছিলেন। তিনি বলেন, আর অলসভাবে বসে থাকতে পারছি না। সৌদি আরবে যাওয়ার ও সেখানে যাওয়ার চার দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের পর অতিরিক্ত ডোজ কোভিশিল্ড নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। কিন্তু আমি নিশ্চিত আমার শরীরের জন্য তা উপযুক্ত কিনা।

তিনি আরও বলেন, যদি কোভ্যাক্সিন অনুমোদন না পায়, তাহলে আমাকে সৌদি আরব যাওয়ার এবং সেখানে অনুমোদিত টিকা নেওয়ার ঝুঁকি নিতে হবে।

মঙ্গলবার ডব্লিউএইচও জানায়, কোভ্যাক্সিন টিকার তথ্য পর্যালোচনা করা হচ্ছে। সবকিছু ঠিক থাকলে অনুমোদন শিগগিরই জরুরি ব্যবহারের জন্য অণুমোদন পাবে।

জুলাই মাসের শুরুতে ভারত বায়োটেকের সরবরাহ করা তথ্য সতর্কতার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে পর্যালোচনা করছে ডব্লিউএইচও। কিন্তু সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর্যায়ে এখনও আসতে পারেনি সংস্থাটি।

ডব্লিউএইচও’র অনুমোদন ছাড়া বিশ্বজুড়ে স্বীকৃতি পাবে না কোভ্যাক্সিন এবং ভ্রমণ জটিলতায় পড়তে পারেন টিকাটি নেওয়া ভারতীয়রা।  

দুই দশক ধরে কুয়েতে কাজ করার পর গত বছর ভারতে ফিরেছেন ৫৯ বছর বয়সী রাজন। কুয়েতে কোভ্যাক্সিন স্বীকৃতি না পাওয়াতে তিনিও কাজে ফিরতে পারছেন না। মুরগি বিক্রি করে ২০ হাজার ডলারের ব্যাংক ঋণ শোধ করতে পারছেন না। প্রতিদিন মাত্র ৪ ডলারের মতো ইনকাম হচ্ছে তার।

তিনি বলেন, আমি যদি কুয়েত যেতে না পারি তাহলে ঋণ শোধ করতে পারব না, আমার সন্তানদের পড়াশোনাও বন্ধ হয়ে যাবে। কুয়েত সরকারের অ্যাপ-এ সবুজ সংকেত পেলেই কেবল আমি বিমান টিকিট কিনতে পারব।

/এএ/

/এএ/

সম্পর্কিত

উদ্বেগজনক ইস্যুতে চীন-মার্কিন আলোচনায় অগ্রগতি

উদ্বেগজনক ইস্যুতে চীন-মার্কিন আলোচনায় অগ্রগতি

প্রথমবারের মতো জান্তার আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন সু চি: এএফপি

প্রথমবারের মতো জান্তার আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন সু চি: এএফপি

‘ফেক নিউজ’ ভারতে বেশি

‘ফেক নিউজ’ ভারতে বেশি

সাইবার হামলার অভিযোগ ইরানের, জ্বালানি সরবরাহে বিঘ্ন

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫০

সাইবার হামলার মুখে ইরানের প্রচুর ভর্তুকি পাওয়া জ্বালানি সার্ভিস বিঘ্নিত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম। এর কারণে দেশজুড়ে গ্যাস স্টেশনগুলোর সামনে দীর্ঘ সারি তৈরি হয়। জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভের দুই বছর পূর্তির মাত্র কয়েক সপ্তাহ আগে এই হামলার ঘটনা ঘটে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

ইরান বলছে, অনলাইন হামলা সম্পর্কে অতি সতর্কতায় রয়েছে তারা। অতীতে এসব হামলার জন্য যুক্তরাষ্ট্র এবং ইসরায়েলকে দোষারোপ করা হয়েছে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র এবং অন্য পশ্চিমা শক্তিগুলো প্রায়ই অভিযোগ করে ইরান তাদের নেটওয়ার্ক ভাঙার চেষ্টা করছে।

ইরানের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম আইআরআইবি বলেছেন, ‘গত কয়েক ঘণ্টায় গ্যাস স্টেশনের রিফুয়েলিং সিস্টেমে বিঘ্নের কারণ সাইবার হামলা। প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা সমস্যাটি ঠিক করার চেষ্টা করছে আর শিগগিরই রিফুয়েলিং প্রক্রিয়া... স্বাভাবিক হয়ে যাবে।’

ইরানের জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের বার্তা সংস্থা শানা জানিয়েছে, কেবল মন্ত্রণালয়ের ভর্তুকি পাওয়া সস্তা রেশনের জ্বালানি কিনতে ব্যবহৃত স্মার্টকার্ডের বিক্রি বিঘ্নিত হয়েছে। তবে ক্রেতারা এখনও উচ্চ মূল্যের জ্বালানি কিনতে পারছেন।

এই বিঘ্নের মাত্র কয়েক সপ্তাহ পরেই ২০১৯ সালের নভেম্বরের বিক্ষোভের দুই বছর পূর্তি হবে। জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সেবার দেশজুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়। এতে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে শত শত মানুষ নিহত হয় বলে জানিয়েছে দাবি করে থাকে বেশ কিছু পশ্চিমা মানবাধিকার সংস্থা।

/জেজে/

সম্পর্কিত

ওমরাহ পালনের নিয়ম শিথিল করলো সৌদি আরব

ওমরাহ পালনের নিয়ম শিথিল করলো সৌদি আরব

নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের ইঙ্গিত দিলেন কাতারের আমির

নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের ইঙ্গিত দিলেন কাতারের আমির

পশ্চিমা রাষ্ট্রদূতদের বহিষ্কার ইস্যুতে এরদোয়ানের ইউটার্ন

পশ্চিমা রাষ্ট্রদূতদের বহিষ্কার ইস্যুতে এরদোয়ানের ইউটার্ন

পশ্চিম তীরে নতুন ১৩০০ বাড়ি বানাবে ইসরায়েল

পশ্চিম তীরে নতুন ১৩০০ বাড়ি বানাবে ইসরায়েল

উদ্বেগজনক ইস্যুতে চীন-মার্কিন আলোচনায় অগ্রগতি

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:০৩

অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যের উদ্বেগজনক ইস্যুতে চীন ও মার্কিন সরকারের আলোচনায় কিছুটা অগ্রগতি হয়েছে। চীনের ভাইস প্রিমিয়ার লিউ হি ও যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যমন্ত্রী জ্যানেট ইয়েলেন চার মাসের মধ্যে দ্বিতীয়বার ফোনালাপ করেছেন। এই ফোনালাপের পর বেইজিংয়ের পক্ষ থেকে দেওয়া বিবৃতিতে একথা বলা হয়েছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ এখবর জানিয়েছে।

মঙ্গলবার বেইজিংয়ের বিবৃতিতে এই আলোচনাকে ‘বাস্তববাদী, অকপট এবং গঠনমূলক’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। দুই পক্ষ যোগাযোগ জোরদার ও ক্ষুদ্র অর্থনীতির নীতির বিষয়ে সমন্বয়ের একমত হয়েছে।

গত মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের ফোনালাপের পর ওয়াশিংটন-বেইজিংয়ের সম্পর্কের উন্নতি হতে শুরু করে। জলবায়ু আলোচনার সঙ্গে সম্পর্কিত অগ্রগতি নিয়ে বেইজিংয়ের ওপর বাইডেন প্রশাসনের হতাশার পর ফোনালাপ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এর কিছুদিনের মধ্যে হুয়াওয়ে টেকনোলজি কোম্পানির প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা মেং ওয়াঝুকে মুক্তি দিতে এক সমঝোতায় পৌঁছায় দুই দেশ।

ওই ঘটনার পর থেকেই বিশ্বের বড় দুটি অর্থনীতি ট্রাম্প শাসনামলে নীরব থাকা যোগাযোগ লাইন পুনরায় গঠনে এগিয়ে যায়। তারিখ নির্ধারিত না হলেও বাইডেন ও শি জিনপিং ভার্চুয়ালি প্রথম সম্মেলনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

ব্লুমবার্গের খবরে বলা হয়েছে, জুনে প্রথম ফোনালাপের চেয়ে এবার চীনা বিবৃতিতে ইতিবাচক সুর ছিল। যদিও বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক ইস্যুতে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি কম হয়েছে।

চীনের পক্ষ থেকে মার্কিন শুল্ক ও চীনা কোম্পানির সঙ্গে মার্কিন আচরণের বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। তবে চীনা বা মার্কিন বিবৃতিতে এসব বিষয়ে মার্কিন বাণিজ্যমন্ত্রীর কোনও প্রতিক্রিয়া ও বক্তব্য উল্লেখ করা হয়নি।

 

/এএ/

সম্পর্কিত

ডব্লিউএইচও’র অনুমোদনের অপেক্ষায় কোভ্যাক্সিন নেওয়া ভারতীয়রা

ডব্লিউএইচও’র অনুমোদনের অপেক্ষায় কোভ্যাক্সিন নেওয়া ভারতীয়রা

প্রথমবারের মতো জান্তার আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন সু চি: এএফপি

প্রথমবারের মতো জান্তার আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন সু চি: এএফপি

‘ফেক নিউজ’ ভারতে বেশি

‘ফেক নিউজ’ ভারতে বেশি

আফগান নারী বিচারকরা আত্মগোপনে, অপরাধীরা রাস্তায়

আফগান নারী বিচারকরা আত্মগোপনে, অপরাধীরা রাস্তায়

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

উদ্বেগজনক ইস্যুতে চীন-মার্কিন আলোচনায় অগ্রগতি

উদ্বেগজনক ইস্যুতে চীন-মার্কিন আলোচনায় অগ্রগতি

কানাডা উপকূলে ছড়াচ্ছে বিষাক্ত গ্যাস

কানাডা উপকূলে ছড়াচ্ছে বিষাক্ত গ্যাস

কলম্বিয়ার মাদক মাফিয়া আটক, পাঠানো হবে যুক্তরাষ্ট্রে

কলম্বিয়ার মাদক মাফিয়া আটক, পাঠানো হবে যুক্তরাষ্ট্রে

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

ভারতে তৈরি অ্যারোমাথেরাপি স্প্রে থেকে ছড়াচ্ছে বিরল রোগ: যুক্তরাষ্ট্র

মহামারিতে মার্কিন বিলিয়নিয়ারদের মুনাফা ছাড়িয়েছে ২ লাখ কোটি ডলার

মহামারিতে মার্কিন বিলিয়নিয়ারদের মুনাফা ছাড়িয়েছে ২ লাখ কোটি ডলার

শুটিং সেটে অ্যালেক বল্ডউইনের প্রপ গানের গুলিতে চিত্রগ্রাহক নিহত

শুটিং সেটে অ্যালেক বল্ডউইনের প্রপ গানের গুলিতে চিত্রগ্রাহক নিহত

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

মার্কিন সেনাবাহিনীর হাইপারসোনিক পরীক্ষা ব্যর্থ

মার্কিন সেনাবাহিনীর হাইপারসোনিক পরীক্ষা ব্যর্থ

যুক্তরাষ্ট্রে পেঁয়াজ থেকে ছড়ানো সংক্রমণে আক্রান্ত ৬ শতাধিক

যুক্তরাষ্ট্রে পেঁয়াজ থেকে ছড়ানো সংক্রমণে আক্রান্ত ৬ শতাধিক

মুক্তিপণ না পেলে মিশনারিদের হত্যার হুমকি

মুক্তিপণ না পেলে মিশনারিদের হত্যার হুমকি

সর্বশেষ

রাঙামাটিতে নির্বাচনী সহিংসতায় প্রাণ গেলো ইউপি সদস্যের

রাঙামাটিতে নির্বাচনী সহিংসতায় প্রাণ গেলো ইউপি সদস্যের

সাতক্ষীরায় ১০ সাংবাদিক পেলেন মিডিয়া ফেলোশিপ

সাতক্ষীরায় ১০ সাংবাদিক পেলেন মিডিয়া ফেলোশিপ

বুয়েটে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

বুয়েটে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

বিশ্বকাপ শেষ সাইফউদ্দিনের, মূল দলে রুবেল

বিশ্বকাপ শেষ সাইফউদ্দিনের, মূল দলে রুবেল

আর কত সুযোগ পাবেন লিটন?

আর কত সুযোগ পাবেন লিটন?

© 2021 Bangla Tribune