আস্থা বাড়ছে শেয়ারবাজারে

Send
গোলাম মওলা
প্রকাশিত : ২১:৪৮, জানুয়ারি ২৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৫৪, জানুয়ারি ২৪, ২০২০

শেয়ারবাজারআস্থা বেড়েছে দেশের শেয়ারবাজারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার পর গত সপ্তাহের পাঁচ দিনের লেনদেনে প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স প্রায় ৯ শতাংশ বেড়েছে। গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৯১ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারের দর বেড়েছে। এই সময়ে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৭১ দশমিক ৫৬ শতাংশ। শুধু তাই নয়, বেশ কিছুদন পর ঢাকার বাজারে লেনদেন পাঁচশ’ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে।

এ প্রসঙ্গে  ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সদস্য ব্রোকারেজ হাউসের মালিকদের সংগঠন ডিএসই ব্রোকারেজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ডিবিএ) সাবেক সভাপতি আহমেদ রশিদ লালী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেওয়া বেশ কিছু উদ্যোগের পর বাজার ঘুরে দাঁড়িয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নেওয়া উদ্যোগের ফলে শেয়ার বাজারের প্রতি মানুষের আস্থা বাড়ছে। তবে বাজার সত্যিকার স্বাভাবিক করতে ও বিনিয়োগকারীদের দীর্ঘমেয়াদে আস্থায় আনতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সংস্কার জরুরি। তা না হলে কিছুদিন পর আবারও পতনের ধারায় ফিরবে বাজার।’

তথ্য বলছে, বিদায়ী সপ্তাহের প্রথম দিন রবিবার (১৯ জানুয়ারি) লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইর বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ১৯ হাজার ৩৭০ কোটি ৮৪ লাখ ৫৮ হাজার টাকায়।  বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৬৯ কোটি ৪২ লাখ ২৪ হাজার টাকায়। অর্থাৎ এক সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ২৫ হাজার ৬৯৮ কোটি ৫৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকা।

বাজার বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, আগের সপ্তাহের বড় ধসের পর গত বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নানা নির্দেশনার পরই বাজার ঘুরে দাঁড়িয়েছে। গত সপ্তাহের প্রথম দিন রবিবার (১৯ জানুয়ারি) সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ উত্থান হয় ডিএসইএক্স সূচকের। সেদিন বাড়ে লেনদেনও। তার ধারাবাহিকতা লক্ষ করা যায় সোমবারের বাজারেও। মঙ্গলবার সূচক খানিকটা পড়ে গেলেও বুধবার ফের বাড়ে। সপ্তাহের শেষ দিন বৃহস্পতিবার উল্লম্ফনের মধ্য দিয়ে শেষ হয় ঢাকার শেয়ার বাজারের লেনদেন। এদিন ডিএসইএক্স ৭৩ দশমিক ৫৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৫১৩ দশমিক ৮৯ পয়েন্টে। সব মিলিয়ে এই সপ্তাহে ৩৬৪ পয়েন্ট বা ৮ দশমিক ৮০ শতাংশ বেড়েছে ডিএসইএক্স।

প্রসঙ্গত, আগের সপ্তাহের বড় ধসের পর শেয়ারবাজার নিয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি’র চেয়ারম্যান খায়রুল হোসেনসহ সংশ্লিষ্টদের ডেকে নিয়ে বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরের ওই বৈঠক থেকে শেয়ারবাজারের এই অবস্থার উত্তরণে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি, সহজ শর্তে ঋণের ব্যবস্থাসহ ছয়টি নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

এদিকে, তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, গত সপ্তাহে ডিএসইতে ৫ কার্যদিবসে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ২৬৫ কোটি ৭৮ লাখ ৯৯ হাজার ৮৬৯ টাকা। আগের সপ্তাহে ৫ কার্যদিবসে লেনদেনের পরিমাণ ছিল ১ হাজার ৩২০ কোটি ৭৩ লাখ ৭ হাজার ৯২১ টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহের ব্যবধানে লেনদেন বেড়েছে ৯৪৫ কোটি ৫ লাখ ৯১ হাজার ৯৪৮ টাকা বা ৭১ দশমিক ৫৬ শতাংশ।

এছাড়া, বেশ কিছুদন পর ঢাকার বাজারে লেনদেন পাঁচশ’ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যায়। বৃহস্পতিবার ডিএসইতে ৫১৪ কোটি ৩৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। বুধবার লেনদেন হয় ৪৩৮ কোটি ৪২ লাখ টাকা।

সব মিলিয়ে গত সপ্তাহে ৯১ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারের দর বেড়েছে। পুরো সপ্তাহে (৫ দিন) ৩৬০টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে বেড়েছে ৩২৮টি, কমেছে ২৩টি, অপরিবর্তিত রয়েছে ৭টি এবং লেনদেন হয়নি ২টি কোম্পানির শেয়ার।

/এমএনএইচ/

লাইভ

টপ