বাণিজ্য মেলার সময় বাড়ছে কত দিন?

Send
শফিকুল ইসলাম
প্রকাশিত : ২১:৫০, জানুয়ারি ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:০৮, জানুয়ারি ২৬, ২০২০

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার প্রধান প্রবেশপথঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার (ডিআইটিএফ) সময় সাত দিন বাড়ানোর আবেদন করেছেন ব্যবসায়ীরা। এর পরিপ্রেক্ষিতে সময় বাড়ানোর প্রস্তাব বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি)। তবে এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি মন্ত্রণালয়। ইপিবি অবশ্য সর্বোচ্চ তিন দিন সময় বাড়ানোর কথা ভাবছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
ইপিবি সূত্র জানায়, বছরের প্রথম দিন ১ জানুয়ারি শুরু হওয়া বাণিজ্য মেলা চলবে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। তবে এরই মধ্যে গত ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মেলা বন্ধ রাখা হয়। একইভাবে মেলার শেষ দিন আগামী শুক্রবারও (৩১ জানুয়ারি) বাণিজ্য মেলার কার্যক্রম বন্ধ রাখা হতে পারে। কারণ, ১ ফেরুয়ারি ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে ভোট নেওয়া হবে। এ উপলক্ষে নির্বাচন কমিশন ইতোমধ্যেই ভোটের আগের দিন অর্থাৎ ৩১ জানুয়ারি নির্বাচনি এলাকায় মোটর সাইকেল ও ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। সে ক্ষেত্রে ওই দিন মেলা চালু থাকার সম্ভাবনা কম।
সূত্র জানায়, তাহলে ৩১ দিনের মধ্যে মেলা বন্ধ থাকবে মোট দুই দিন। এই দুই দিনের ক্ষতি পুষিয়ে নিতেই ব্যবসায়ীরা অন্তত এক সপ্তাহ সময় বাড়ানোর আবেদন করেছেন বলে ইপিবি সূত্র নিশ্চিত করেছে।
জানতে চাইলে এশিয়ান টেক্সটাইলের স্বত্বাধিকারী হারুন উর রশিদ বলেন, ‘আমরা মোট ৩১ দিনের জন্য মেলা করার অনুমতি নিয়েছি। এর মধ্যে যে দুই দিন বন্ধ রাখা হয়েছে বা হবে, সেই দুই দিনই সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবার পড়েছে। কাজেই সময় দুই দিন বাড়ালে হবে না। কারণ, শুক্রবার মেলায় দর্শক সমাগম বেশি হয়, বেচাকেনাও বেশি হয়, যা অন্যদিনের তুলনায় কয়েক গুণ বেশি। এ কারণেই আমরা দুই শুক্রবারের বেচাকেনা পুষিয়ে নিতে ইপিবির কাছে সাত দিন সময় বাড়ানোর আবেদন করেছি।’
ইপিবির ভাইস চেয়ারম্যান (ভিসি) ও প্রধান নির্বাহী ফাতিমা ইয়াসমিন বলেন, ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে সময় বাড়ানোর আবেদন পেয়েছি। তারা মোট ৩১ দিন মেলা করার সময় পাবেন। এটি তাদের অধিকার। কিন্তু রাষ্ট্রের জরুরি প্রয়োজনে ইতোমধ্যে এক দিন মেলা বন্ধ রাখতে হয়েছে। ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচনের আগের দিন অর্থাৎ মোলার শেষ দিনও বন্ধ রাখা হতে পারে। যদি তা-ই হয়, তাহলে বন্ধ থাকা এই দুই দিন সময় তাদের বাড়িয়ে দিতে হবে। কারণ, এটি তাদের অধিকার। সেক্ষেত্রে বন্ধ থাকা এই দুই দিনের সঙ্গে আর এক দিন বাড়িয়ে মোট তিন দিন মেলার সময় বাড়ানো হতে পারে মন্তব্য করেন তিনি।
ফাতিমা ইয়াসমিন বলেন, অবশ্যই ভোটের দিন ১ ফেব্রুয়ারি শনিবার মেলা খোলা রাখা যাবে না। মেলা বন্ধ রাখতে হবে। সেক্ষেত্রে ২-৩-৪ ফেব্রুয়ারি বাণিজ্য মেলা চলতে পারে। তবে এ বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। বিষয়টি নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনা হয়েছে বলে জানান তিনি।
ইপিবির ভাইস চেয়ারম্যান জানান, ২ ফেব্রুয়ারি বইমেলা শুরু হবে। এ ছাড়াও আনুষঙ্গিক অন্যান্য কারণে মেলার সময় তিন দিনের বেশি বাড়ানো সম্ভব হবে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শনিবার (২৫ জানুয়ারি) রংপুরে অবস্থানরত বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বাংলা ট্রিবিউনকে মোবাইল ফোনে বলেন, ‘এখনও কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। ব্যবসায়ীরা সময় বাড়ানোর কথা বলেছেন।’ ঢাকায় ফিরে সবার সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান তিনি।

/এইচআই/

লাইভ

টপ