বাণিজ্য মেলায় দেশের অগ্রগতির চিত্র এঁকেছে ইসলামী ব্যাংক

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:২৮, জানুয়ারি ২৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫৪, জানুয়ারি ২৭, ২০২০

বাণিজ্য মেলায় ইসলামী ব্যাংকআন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের প্যাভিলিয়ন দেখলে মনে হবে যেন পুরো বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি। দৃষ্টিনন্দন এ প্যাভিলিয়নের ভেতরে ও বাইরের সাজে তুলে ধরা হয়েছে বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার গল্প। আর এ এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গে সহযোগী হিসেবে ইসলামী ব্যাংকের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজও ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

ব্যাংকটির প্যাভিলিয়নে শিল্পায়ন, গার্মেন্টস, পল্লী উন্নয়ন, আবাসন, পরিবহন, কৃষি ও কৃষিভিত্তিক শিল্পে বিনিয়োগ কার্যক্রমের চিত্র ফুটে উঠেছে। এর সঙ্গে দর্শকদের দৃষ্টি কাড়ছে প্যাভিলিয়নটিতে ঢুকতেই পাহারের গা ঘেষে গড়িয়ে পড়া ঝর্ণাধারা। সেখান থেকে পানি বেয়ে পড়ছে প্যাভিলিয়নের দুই পাশে।

বাণিজ্য মেলার মূল ফটক দিয়ে প্রবেশ করলেই হাতের বাঁ পাশে চোখে পড়বে ইসলামী ব্যাংকের এ প্যাভিলিয়নটি। বিশ্বের ১০০০ ব্যাংকের তালিকায় টানা ৮ বার স্থান করে নিয়েছে এই ব্যাংক। সেই বার্তাই দেওয়া হয়েছে প্যাভিলিয়নের সাজ সজ্জায়। গতবার অর্থাৎ ২৪তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় দৃষ্টিনন্দন প্যাভিলিয়নের জন্য সেরা প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নের পুরস্কার পেয়েছিল ইসলামী ব্যাংক।

দর্শকরা বলছেন, গতবারের চেয়েও এবার বেশি মানুষের দৃষ্টি কেড়েছে ইসলামী ব্যাংকের প্যাভিলিয়ন।

মোহাম্মদপুর থেকে বাণিজ্য মেলায় আসা বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা আবদুস সালাম বলেন, ইসলামী ব্যাংকের প্যাভিলিয়নে প্রবেশ করে পুরো বাংলাদেশকেই এক নজরে দেখে নিলাম। প্যাভিলিয়নে সাজে এমন উপস্থাপনা সত্যি খুবই ভালো উদ্যোগ।

 প্যাভিলিয়নের বহিরাঙ্গিকের নির্মাণশৈলীতে দেশের অর্থনীতির সঙ্গে ইসলামী ব্যাংকের অগ্রগতিকে সূচকের আদলে তুলে ধরা হয়েছে। প্রতিদিন সব বয়সের শত শত দর্শক ভিড় জমান ইসলামী ব্যাংকের এ প্যাভিলিয়নে। দর্শকদের অনেকে সেলফি তুলে উঠিয়ে দিচ্ছেন ফেসবুকে। কেউবা ব্যাংকিং প্রয়োজনে এটিএম বুথ থেকে টাকা উঠাচ্ছেন। নগদ টাকা বহনের ঝুঁকি এড়িয়ে ব্যবসায়ীরাও প্রতিদিন পণ্য বিক্রির টাকা ব্যাংকে জমা রাখছেন।

ব্যাংকটির কর্মকর্তারা বলছেন, মেলায় এসে ব্যাংকিং সেবা ও তথ্য জানার সুযোগ পেয়েছেন দর্শনার্থীরা। ক্রেতা-দর্শকদের জোয়ারে জমে উঠেছে মেলা। দর্শনার্থীদের কাছে প্যাভিলিয়ন ও ব্যাংক সম্পর্কিত যেকোনও জিজ্ঞাসার ব্যাখ্যা দিতে দুই শিফটে সেখানে কাজ করছেন ডজন খানেক কর্মকর্তা-কর্মচারী।

ইসলামী ব্যাংকের প্যাভিলিয়নে আসা দর্শকদের অনেকেই তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করছেন কমেন্ট বইয়ে।

এম এ হালিম নামের একজন লিখেছেন, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের প্যাভিলিয়ন, যা বাণিজ্যমেলার ইতিহাসে আমার দেখা সবচেয়ে চমৎকার প্যাভিলিয়ন।

মো. সাইফুল ইসলাম লিখেছেন, ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলায় ঘুরে দেখা সব প্যাভিলিয়নের মধ্যে ইসলামী ব্যাংকের প্যাভিলিয়নটি অন্যতম। কারণ, এতে আমরা দেশের অগ্রগতির চিত্র খুঁজে পাই।

ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মো. মাহবুব উল আলম বলেন, দেশের যে অগ্রগতি হচ্ছে ইসলামী ব্যাংকের প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নে তার প্রতিচ্ছবি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। দেশের অগ্রগতিতে ইসলামী ব্যাংকের সহযোগী ভূমিকা সম্পর্কে জানাতেই প্যাভিলিয়নকে উন্নয়নচিত্রের মাধ্যমে নান্দনিক ও আকর্ষণীয় করা হয়েছে।

 বাণিজ্য মেলায় ইসলামী ব্যাংকের প্যাভিলিয়ন থেকে ব্যাংকিং সেবাসহ গ্রাহক ও ব্যবসায়ীরা তথ্যসেবাও পাচ্ছেন। ব্যাংকের শাখা, উপশাখা ও এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটের মাধ্যমে বৈদেশিক বাণিজ্য, প্রযুক্তিসমৃদ্ধ ব্যাংকিং সেবা, চিকিৎসা, শিক্ষা ও সিএসআর কার্যক্রমের তথ্যসেবাসহ সিআরএম ও এটিএমের মাধ্যমে টাকা জমা ও উত্তোলনের সুবিধা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ইসলামী ব্যাংক ২০১২ সাল থেকে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় দৃষ্টিনন্দন প্যাভিলিয়ন স্থাপনের মাধ্যমে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের ব্যাংকিং সেবা দিয়ে আসছে। এ বছরের মেলায় (১ জানুয়ারি) ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মো. মাহবুব উল আলম প্রধান অতিথি হিসেবে প্যাভিলিয়নটি উদ্বোধন করেন। উল্লেখ্য, বর্তমানে ৩৪২টি শাখার মাধ্যমে এক কোটি ৩০ লাখ গ্রাহককে সেবা দিয়ে যাচ্ছে ইসলামী ব্যাংক।

/জিএম/টিটি/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ